Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

সুন্দরী হতে চান, তাহলে এই ৪টি টিপস মানুন

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৯৯জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার : অপরুপা রূপে সুন্দরী হতে কে না চায়? আর এজন্যই অনেকে চায় ত্বক উজ্জ্বল ও ফর্সা করতে। তবে কীভাবে ত্বক সুন্দর ও উজ্জ্বল করা যাবে? ত্বক উজ্জ্বল করতে হলে বেশ কিছু বিষয়ও মনে রাখা জরুরি। তাহলে আর দেরি না করেই মাত্র এই চারটি টিপস মেনে চালু এখন থেকেই।ছবি : মডেল ও অভিনেত্রী প্রেমা। 

মধু: ত্বক সুস্থ রাখতে এবং দূষণ ও ময়লা থেকে রক্ষা করতে মধু খুবই কার্যকরী। শহরে অনেক ধরনের অ্যান্টি-ব্যাকটেরিয়াল উপাদান পাওয়া যায়, যা ত্বক মেরামত করতে সাহায্য করে। তাই, ত্বকে প্রাকৃতিক উজ্জ্বলতার জন্য মধু দিয়ে মুখে ম্যাসাজ করতে ভুলবেন না।

ক্লিনজার: ঘর-বাড়ি পরিষ্কার করার পরে, ময়লা এবং ধুলোর কারণে ত্বক ফাটতে শুরু করে। তাই পরিষ্কার করার সময় অবশ্যই ত্বকে ময়েশ্চারাইজার ব্যবহার করতে হবে। তবে এটাও মনে রাখবেন যে এর আগে আপনার ত্বক সঠিকভাবে পরিষ্কার করা হয়েছে। তাই আপনার ত্বকের ধরন অনুযায়ী ত্বকে ক্লিনজার ব্যবহার করতে পারেন। এরপর অবশ্যই মুখে গোলাপ জল ব্যবহার করবেন।

সানস্ক্রিন ক্রিম: ধুলাবালি ও মাটির কারণে ত্বকের পিএইচ লেভেল নষ্ট হয়ে যায়। এটি আমাদের ফুসফুসের পাশাপাশি ত্বকেরও অনেক ক্ষতি করে। এমন পরিস্থিতিতে অবশ্যই মুখে সানস্ক্রিন ব্যবহার করবেন। 

ফেস মাস্ক: ত্বককে নরম ও চকচকে করতে আপনি যেকোনো ধরনের ভালো ঘরে তৈরি ফেস মাস্ক ব্যবহার করতে পারেন। এতে মুখ উজ্জ্বল হবে এবং মরা চামড়া দূর হবে।

আরও খবর

"নোবেলের ম্যাজিক শুধু প্রতারণা"

মঙ্গলবার ২০ ফেব্রুয়ারী ২০24




রাজধানীতে রিমালের প্রভাবে বৃষ্টি

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৫৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঘূর্ণিঝড় রিমাল দেশের ওপর দিয়ে বয়ে যাচ্ছে। প্রবল এ ঘূর্ণিঝড় প্রতি ঘণ্টায় ১৫ থেকে ১৮ কিলোমিটার বেগে উপকূল অতিক্রম করছে। এছাড়া জোয়ারের সময় ঝড়টি উপকূল অতিক্রম করায় জলোচ্ছ্বাসের আশঙ্কাও দেখা দিয়েছে।

ঘূর্ণিঝড় রিমালের প্রভাবে রাজধানীতে রোববার মধ্যরাত থেকে সোমবারেও (২৭ মে) ঝরছে বৃষ্টি। এছাড়া বৃষ্টির সঙ্গে রয়েছে দমকা বাতাসও।

এদিকে বঙ্গোপসাগরে সৃষ্টি প্রবল ঘূর্ণিঝড় রিমাল রোববার রাতে উপকূলে আঘাত হেনেছে বলে জানিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। রাত ৮টার দিকে ঘূর্ণিঝড়টির কেন্দ্র মোংলার দক্ষিণ-পশ্চিম দিক দিয়ে পশ্চিমবঙ্গ উপকূল ও বাংলাদেশের খেপুপাড়া উপকূল অতিক্রম শুরু করে।

রোববার দিবাগত রাতে আবহাওয়াবিদ আবুল কালাম মল্লিক প্রেস ব্রিফিংয়ে জানান, বৃষ্টি ঝরিয়ে সকালে দুর্বল হবে ঘূর্ণিঝড় রিমাল। রোববার রাত থেকে বেশিরভাগ এলাকায় ঝড়বৃষ্টি হচ্ছে। সোমবার সারাদেশেই বৃষ্টি হবে। এমনকি মঙ্গলবারও বৃষ্টি অব্যাহত থাকতে পারে।

ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে সাতক্ষীরা, খুলনা, বাগেরহাট, পিরোজপুর, পটুয়াখালী, বরগুনা, ভোলাসহ উপকূলের বিভিন্ন জেলায় ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যায়। বাতাসের গতিবেগ ছিল ঘণ্টায় ৯০ থেকে ১২০ কিলোমিটার।

অপরদিকে সোমবার ভোরে রাজধানীতে থেমে থেমে বৃষ্টির হওয়ায় চরম ভোগান্তিতে পড়েছেন কর্মজীবীরা। বৃষ্টি মাথায় নিয়ে কাজে বের হয়েছেন অনেকে।


আরও খবর



বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে শিশুসহ ৩ জনকে পিটিয়ে জখম

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image
রবিউল ইসলাম,বাকেরগঞ্জ (বরিশাল) প্রতিনিধি:বরিশালের বাকেরগঞ্জে ছাগল বাঁধাকে কেন্দ্র করে ঝগড়ার একপর্যায়ে শিশুসহ তিনজনকে পিটিয়ে জখম করা হয়েছে। আহত শিশুপুত্র মোঃ হোসেইন মাহামুদ (৮), আল আমিন হাওলাদার (১৭) ও রোজিনা বেগম (৩২) কে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে প্রাথমিক চিকিৎসা দেয়া হয়েছে। 

বুধবার (১২জুন) বিকেল ৪.৫০ টায় উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডে এ ঘটনা ঘটেছে।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, উপজেলার ভরপাশা ইউনিয়নের ৮নং ওয়ার্ডের ভরপাশা গ্রামের মোঃ হারুন মোল্লার পালিত ছাগল একই গ্রামের নজরুল ইসলামের রোপনকৃত সবজি ক্ষেত নষ্ট করে। এ ঘটনায় তার দুই পুত্র মোঃ হুসেইন মাহামুদ ও আল আমিন হাওলাদার ওই ছাগলটি বাড়ির কাছে বেঁধে রাখেন। ছাগল বেঁধে রাখা নিয়ে হারুন মোল্লার সাথে তাদের ঝগড়া হয়।ঝগড়ার একপর্যায়ে হারুন লাঠি দিয়ে পিটিয়ে তাদেরকে রক্তাক্ত যখন করে। এ সময় তাদের ডাকচিৎকার শুনে বাঁচাতে গেলে মা রোজিনা বেগমকেও পিটিয়ে জখম করে। 

গৃহবধূ রোজিনা বেগম জানান, তুচ্ছ ঘটনার জের ধরে একই গ্রামের হারুন মোল্লা ও তার স্ত্রী নুরজাহান বেগম তাকেসহ তার দুই পুত্রকে পিটিয়ে রক্তাক্ত যখন করেছে। তিনি আরও জানান, হারুন মোল্লার মেয়ে জামাতা পুলিশে চাকরি করে। সেই প্রভাব খাটিয়ে তিনি এলাকার বিভিন্ন মানুষের উপর হামলা ও তাদের নামে মিথ্যা মামলা দায়ের করেন। এমনকি তাদের এ ঘটনা নিয়ে থানায় কোন মামলা-মোকদ্দমা দায়ের করলে তার দুই পুত্রকে খুন জখমের হুমকি দেয় হারুন মোল্লা। এতে তিনি ও তার পরিবার চরম নিরাপত্তাহীনতায় দিন কাটাচ্ছেন। থানায় মামলা দায়েরের প্রস্তুতি চলছে বলে তিনি জানান।

আরও খবর



মাগুরায় সহকারি জজ আদালত বর্জন মানববন্ধন

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা সদর সহকারি জজ  আদালতের বিচারক মোঃ শফিকুর ইসলামের অযোগ্যতা,  অদক্ষতা বেআইনী ও অবৈধ কর্মকান্ডের  প্রতিবাদে আদালতে কর্মরত আইনজীবীরা তার আদালত বর্জন করে মানববন্ধন করেছে। রবিবার সকালে অনুষ্ঠিত মানববন্ধনে মাগুরা বারের সিনিয়র আইনজীবী প্রত্যুত কুমার সিংহ,  এড,তপন কুমার ঘোষ, এড, মফিজুর রহমান, এড, মিজানুর রহমান  নেতৃত্ব দেন। আইনজীবীরা মাগুরা জেলা জজ আদালতের সামনে আয়োজিত এ মানববন্ধনে বলেন, অযোগ্য ব্যাক্তির আদালতে অবৈধ বৈধভাবে কাজ করা দুরুহ হয়ে উঠেছে। অভিলম্বে  এ ব্যাপারে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা দাবি করেন আইনজীবীরা।


আরও খবর



সৈয়দপুরে ফাইলেরিয়া হাসপাতাল সিলগালা,সরিয়ে নেওয়া হলো রোগী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | ৬০জন দেখেছেন

Image
সৈয়দপুর (নীলফামারি)প্রতিনিধি:স্বাস্থ্য বিভাগের অনুমোদন না থাকায় নীলফামারীর 'সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া এন্ড জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ল্যাব' সিলগালা করে দেওয়া হয়েছে। পাশাপাশি হাসপাতালে চিকিৎসাধীন তিনজন রোগীকে সদর জেনারেল হাসপাতালে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে। বুধবার ১২ জুন উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ধলাগাছ এলাকায় ‘সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া এন্ড জেনারেল হাসপাতাল এন্ড ল্যাবে অভিযান চালান নীলফামারীর সিভিল সার্জন (ভারপ্রাপ্ত) ডা: আবু হেনা মোস্তফা কামাল। অভিযানের সময় উপজেলা স্বাস্থ্য কর্মকর্তা ডা. আবু মো. আলেমুল বাশার, সিভিল সার্জন কার্যালয়ের ডা: আতিয়ার রহমান শেখ সৈযদপুর উপজেলা স্বাস্থ্য পরিদর্শক মো. আলতাফ হোসেন উপস্থিত ছিলেন।

হাসপাতাল সূত্রে জানা যায়, দেশের উত্তরাঞ্চলের নীলফামারী জেলাসহ ঠাকুরগাঁও, পঞ্চগড়, দিনাজপুর, কুড়িগ্রাম ও গাইবান্ধায় ফাইলেরিয়া রোগের প্রাদুর্ভাব বেশি। এ রোগের চিকিৎসার জন্য ২০০২ সালে জাপান সরকারের অর্থায়নে উপজেলার কামারপুকুর ইউনিয়নের ধলাগাছ এলাকায় যাত্রা শুরু করে ফাইলেরিয়া হাসপাতালটি। বেসরকারি প্রতিষ্ঠান ইনস্টিটিউট অব অ্যালার্জি অ্যান্ড ক্লিনিক্যাল ইম্যুনোলজি (আইএসিআইবি) হাসপাতালটি প্রতিষ্ঠার দায়িত্বে ছিল। হাসপাতালের প্রতিষ্ঠাতা চেয়ারম্যান ও প্রকল্প পরিচালক ডা. মোয়াজ্জেম হোসেন ওই সময় স্থানীয়ভাবে ১৮ জন দেশি-বিদেশি চিকিৎসককে নিয়ে কার্যক্রম শুরু করেন। জাপান, কানাডা ও বাংলাদেশ সরকারের আর্থিক সহায়তায় দুটি বহুতল ভবন নিয়ে হাসপাতালের কার্যক্রম শুরু হয়। জাপান ও অন্যান্য দেশ থেকেও গবেষণাকর্মীরা আসেন এই হাসপাতালে।  তবে ২০১২ সালে হাসপাতালটিকে ঘিরে স্থানীয়ভাবে সংকট সৃষ্টি হয়।

পরিচালনা কমিটির দ্বন্দ্বে ভেঙে পড়ে সেবা কার্যক্রম। মুখ ফিরিয়ে নেয় দাতা সংস্থাগুলো। পরবর্তীতে ২০২১ সালের ৩ অক্টোবর সুবিধাবঞ্চিত মানুষকে টোকেন মূল্যে চিকিৎসা দেওয়ার প্রত্যয়ে সৈয়দপুর ফাইলেরিয়া জেনারেল হাসপাতাল অ্যান্ড ল্যাব নামে নতুন করে যাত্রা শুরু করে হাসপাতালটি। যুক্তরাজ্যভিত্তিক বেসরকারি সংস্থা লেপরা বাংলাদেশের সঙ্গে বাংলাদেশ প্যারামেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের একটি চুক্তি স্বাক্ষরিত হয়। চুক্তি অনুযায়ী হাসপাতালের স্বাস্থ্যসেবাবিষয়ক সব ধরনের সহযোগিতা করবে লেপরা বাংলাদেশ। বাংলাদেশ প্যারামেডিকেল অ্যাসোসিয়েশনের মহাসচিব রাকিবুল ইসলাম তুহিন পরিচালকের দায়িত্ব নেন। এরপর বিভিন্ন জেলা থেকে নতুন করে প্রায় ৩৫ জন কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগ দেওয়া হয়। প্রত্যেকের কাছে ফেরতযোগ্য জামানতের কথা বলে নেওয়া হয়েছে ৫০ হাজার থেকে ৩ লাখ টাকা পর্যন্ত। এভাবে প্রায় ৫০ লাখ টাকা নিয়ে গা-ঢাকা দেন পরিচালক। এর পর থেকে বেতন-ভাতা   না পেয়ে কর্মকর্তা-কর্মচারীরা নিরুপায় হয়ে চাকরি ছেড়ে অন্যত্র চলে যান। কিন্তু সম্প্রতি তারা পত্রিকায় আবারও ২২ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী নিয়োগের জন্য বিজ্ঞপ্তি দেন।  

ডাঃ আবুহেনা মোস্তফা কামাল বলেন, পত্রিকায় নিয়োগ বিজ্ঞপ্তি দেখে আমরা জানতে পারি এই ফাইলেরিয়া হাসপাতালের অনুমোদন নেই। এছাড়া এ হাসপাতালে নিয়মিত কোনো চিকিৎসক, নার্স, টেকিনেশিয়ান কিংবা স্বাস্থ্যকর্মীসহ সেসব সুবিধা থাকা দরকার সেগুলোর কিছুই নেই। তাই হাসপাতালটি সিলগালা করা হয়েছে। এখানে যে দুইজন রোগী ছিল তাদের সদর জেনারেল হাসপাতালে সরিয়ে নেওয়া হয়েছে।

আরও খবর



জয়পুরহাটে বিশ্ব তামাক মুক্ত দিবস পালিত

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৮জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃতামাক কোম্পানির হস্তক্ষেপ প্রতিহত করি,শিশুদের সুরক্ষা নিশ্চিত করি এই প্রতিপাদ্য নিয়ে শুক্রবার সকালে জেলা প্রশাসন ও জেলা টাস্ক ফোর্স কমিটির সভাপতি জেলা প্রশাসক সালেহীন তানভীর গাজীর সভাপতিত্বে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায়  অতিরিক্ত জেলা জেলা ম্যাজিষ্টেড মহিউদ্দিন জাহাঙ্গীর, সদর উপজেলা পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডাঃ তুলসী চন্দ্র রায়,সহকারী কমিশনার উজ্জ্বল বাইন, সিভিল সার্জন অফিসের সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা চৈতী রায়, সাংবাদিক খ, ম আবদুর রহমান রনি, এনজিও ব্যাক্তিত্ব সুজন কুমার মন্ডল প্রমূখ।আলোচনা সভা শেষে একটি শোভাযাত্রা কালেক্টরেট চত্বর প্রদক্ষিণ করে।



আরও খবর