Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
গ্রীষ্মের রুক্ষ প্রকৃতিতে শোভা ছড়াচ্ছে সোনালু ফুল ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার

ভালোবাসার দিন আজ

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫১৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:‘আজ বসন্ত,ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক ’। বিদায় জানানো হয়েছে শীতের রুক্ষতাকে । প্রকৃতি সেজেছে ফুলে ফুলে। একই দিনে বিশ্বজুড়ে উদযাপিত হচ্ছে ভালোবাসার দিন, বিশ্ব ভালোবাসা দিবস। ভালোবাসা দিবস আর বসন্তের রঙ মিলেছে একই দিনে। সবার মুখে মুখে তাই আজ উচ্চারিত হচ্ছে, বসন্তে রঙিন ভালোবাসার দিন। আজ বসন্ত, আজ ভালোবাসার দিন।

ঋতুরাজকে স্বাগত জানাতে প্রকৃতি সেজেছে বর্ণিল সাজে। প্রকৃতিতে ফাল্গুনের হাওয়া, বাতাসে বসন্তের উন্মাদনা বিরাজমান। গাছে গাছে পলাশ আর শিমুলের মেলার দিন আজ। প্রকৃতিও আগুনরঙা ভালোবাসার রঙে নিজেকে রাঙিয়ে নিয়েছে। সবমিলিয়ে প্রকৃতি জানান দিচ্ছে আজ পহেলা ফাল্গুন।

একই দিনে বিশ্বজুড়ে উদযাপিত হচ্ছে ভালোবাসার দিন। ভালোবাসা দিবস আর বসন্তের রঙ যেন মিলেমিশে এক হচ্ছে আজ (১৪ ফেব্রুয়ারি)। ফাল্গুনের হাত ধরেই ঋতুরাজ বসন্তের আগমন। সেই সঙ্গে ঋতুরাজের হাত ধরে এবারও এলো ভালোবাসার বিশেষ দিনটি। একদিকে বাসন্তী রঙ, অন্যদিকে ভালোবাসার রঙের জোয়ারে প্রকৃতি একাকার আজ।

ফাগুনের আগুনে মন রাঙিয়ে বাঙালি তার দীপ্ত চেতনায় উজ্জীবিত হবে আজ। বাসন্তী রঙের শাড়ি, কপালে টিপ, হাতে চুড়ি, পায়ে নূপুর, খোঁপায় ফুল অথবা রিং জড়িয়ে আজ বেরিয়ে পড়বেন তরুণীর দল। প্রকৃতির সঙ্গে নতুন সাজে সাজবেন তারাও। তাদের উচ্ছ্বাস মনে করিয়ে দেয় কবির কবিতার লাইন, ‘ফুল ফুটুক আর নাই ফুটুক, আজ বসন্ত’।

বেশ কয়েক বছর ধরে ঋতুরাজের হাত ধরে আসছে ভালোবাসার দিন। যদিও ভালোবাসা ক্ষণিকের নয়, চিরন্তন। ভালোবাসা শুধু প্রেমিক-প্রেমিকার নয়, শুধু স্বামী-স্ত্রীর নয়, এ ভালোবাসা বয়সের ফ্রেমে বাঁধা নয়, এটা প্রসারিত হয় বন্ধু-বান্ধব, পরিচিতজনসহ সবার মাঝে। ইংরেজি বর্ষপঞ্জির ১৪ ফেব্রুয়ারি দিনটি ভালোবাসা দিবস হিসেবে পরিচিত সারা বিশ্বে। বাংলাদেশেও দিবসটি ঘিরে ব্যাপক আগ্রহ রয়েছে তরুণ প্রজন্মের মধ্যে।

বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি আজ ঋতুরাজ বসন্ত বরণের আয়োজন করেছে। পহেলা ফাল্গুন বসন্তবরণ উৎসব। ২২৫ নৃত্যশিল্পীর পরিবেশনার মধ্য দিয়ে বসন্তবরণের আয়োজন করেছে একাডেমি। রাজধানী রমনায় বিকেল সাড়ে ৩টায় শতায়ু অঙ্গনের পাশের মঞ্চে পরিবেশিত হবে শিশু-নৃত্যদল ও শিশু সঙ্গীত দলের বিশেষ পরিবেশনা।

অনুষ্ঠানের অংশ হিসেবে বিকাল সাড়ে ৪টায় বসন্তের রঙিন শোভাযাত্রা শুরু হবে। শোভাযাত্রাটি রমনা পার্ক থেকে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি প্রাঙ্গণে সমবেত হবে। বিকাল সাড়ে ৫টায় একাডেমির উন্মুক্ত মঞ্চে আয়োজন করা হচ্ছে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান।

ঋতুরাজ বসন্ত বরণের উন্মুক্ত মঞ্চের আয়োজনে শুরুতে পরিবেশিত হবে দলীয় ‘ঢাক-নৃত্য’। পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমির নৃত্যদল। পরে তারা পরিবেশন করবে দলীয় নৃত্য ‘শুভেচ্ছা ও ভালোবাসা’। এরপর দলীয় সংগীত ‘আনন্দ লোকে’ পরিবেশন করবে বাংলাদেশ শিল্পকলা একাডেমি শিশু সংগীত দল। দ্বৈত আবৃত্তি ‘রুমঝুম কে বাজায়’ পরিবেশন করবেন ডালিয়া আহমেদ ও জয়ন্ত চট্টোপাধ্যায়। একক সংগীত ‘যেথা রামধনু ওঠে হেসে’ পরিবেশন করবেন মেহরিন মাহমুদ।


আরও খবর



মেহেরপুরে কাঁঠাল গাছ ছেয়ে আছে ঝুলন্ত কাঁঠালে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃজাতীয় ফল কাঁঠাল। ফলের রাজা হিসেবেও সবার কাছে সমাদৃত। এটি শুধুমাত্র একটি মৌসুমী ফলই নয়- পুষ্টিগুণে ভরপুর ও অর্থকরী ফসল হিসেবে জায়গা করে নিয়েছে। মেহেরপুরের সর্বত্র এখন কাঁঠাল গাছগুলিতে ঝুলন্ত কাঁঠালে ছেঁয়ে আছে। কোন কোন এলাকায় আগাম জাতের কাঁঠালগুলি পাঁকতে শুরু করেছে। পাঁকা কাঁঠালের মিষ্টি গন্ধে কীট পতঙ্গরা ভিড় করছে গাছে গাছে। আর সেই আনন্দে বাগান মালিকরা গাছ পরিচর্যায় ব্যস্ত। তবে কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করণের কোন সুবিধা না থাকায় এ এলাকার মানুষেরা চরম আর্থিক ক্ষতির মুখে পড়েছে।

জেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে,  কাঁঠাল গাছগুলো ফলে ফলে ভরে গেছে। প্রতিটি গাছে ১০০ থেকে ২০০ পর্যন্ত ফল ধরেছে। বছর দশেক আগেও আম কাঠালের বাগান ছিল।  এখন শুধু আমের বাগান রয়েছে। এখানকার অধিকাংশ কাঁঠাল গাছ বাগানভিত্তিক না। বাড়ির আঙ্গিনায়, রাস্তার দুই ধারে, স্কুল-কলেজ চত্বরে প্রচুর কাঁঠাল গাছের দেখা মেলে। অভাবের কারণে অনেকে কাঁঠালের গাছ বিক্রি দিচ্ছে। আসবাবপত্র প্রস্তকারী ও ব্যবসায়ী এসব নামমাত্র মূল্যে কিনে ফায়দা লুটছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয়রা।

কাঁঠাল ব্যবসায়ীরা জানান, হাট-বাজারগুলোতে পাঁকা কাঁঠাল উঠতে শুরু করেছে। অনেকেই আছেন প্রতি বছরই প্রায় এক থেকে দেড় লক্ষাধিক টাকার কাঁঠাল বিক্রি করেন। দুই থেকে তিন মাস কাঁঠালের ভরা মৌসুম। এ সময় পাইকার ও শ্রমিক শ্রেণির লোকদের বাড়তি আয়ের সুযোগ হয়। এবার আবহাওয়া অনুকূলে থাকায় কাঁঠালের ফলনও ভালো হয়েছে। গত বছরে কাঁঠাল কম ধরেছিল তাই দাম একটু বেশি ছিল। এবারও অনুকুল আবহাওয়ার কারণে ফলন বেশি হয়েছে। তাই অনেক কম দামে কাঁঠাল পাওয়া যাবে বলে জানিয়েছে ব্যবসায়িরা। 

এলাকার অনেকেই মন্তব্য করেছেন, অন্যান্য ফল ও গাছ নিয়ে সরকারি-বেসরকারি পর্যায়ে যত তৎপরতা লক্ষ করা যায়, কাঁঠাল নিয়ে তার সিঁকি ভাগও হয় না। অথচ কাঠাল একটি অর্থকরী ফসল ও জাতীয় ফল। কোন পৃষ্ঠপোশকতা না থাকায় ও অবাধে কাঠাল গাছ নিধন হওয়ায় এখন কোন বাগান পাওয়া যায় না। বাড়ির আঙ্গিনাতে বা রাস্তার ধারে অনেকেই গাছ লাগান। সরকার একটু নজর দিলেই অনেকেই কাঠাল বাগানে উদ্বুদ্ধ হতো।

উপজেলা কৃষি অফিসার ইমরান হোসেন জানান, কৃষিপণ্য কাঁঠাল মুলত একটি মৌসুমী সুস্বাদু ফল। কাঁঠালের বিচি তরকারীতেও সমান জনপ্রিয়। এলাকায় কোন কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত করার বাবস্থা না থাকায় কৃষকরা তাদের ন্যায্য দাম থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। কাঁঠাল প্রক্রিয়াজাত ব্যবস্থ›া গড়ে তুললে এ উপজেলার মানুষ অর্থনৈতিকভাবে উপকৃত হবে।


আরও খবর



রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সেনাবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:শনিবার (২২) বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

সাক্ষাৎকালে সেনাবাহিনী প্রধান দায়িত্ব পালনকালে সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময় তিনি সেনাবাহিনীর সার্বিক কার্যক্রম বিশেষ করে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

এসময় রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন সফলভাবে দায়িত্ব পালন করায় বিদায়ী সেনাবাহিনী প্রধানকে ধন্যবাদ জানান।

মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে গড়ে ওঠা সশস্ত্র বাহিনী আমাদের গর্ব। রাষ্ট্রপতি এসময় সেনাবাহিনীর উন্নয়নে বিদায়ী প্রধানের ভূমিকার প্রশংসা করেন।

রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, সেনাবাহিনীর উন্নয়নের এই ধারা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে এবং সরকার এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা দেবে।রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিবরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের নিয়োগের মেয়াদ আগামী ২৩ জুন অপরাহ্নে পূর্ণ হবে। ২০২১ সালের ১০ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা আদেশে, জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি দিয়ে তিন বছরের জন্য এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব দিয়েছিল সরকার।

এদিকে, পরবর্তী সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানকে। বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।


আরও খবর



ইসলামপুরে ভূমি সেবা সপ্তাহ উদ্বোধন

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image
লিয়াকত হোসাইন ইসলামপুর(জামালপুর) প্রতিনিধিঃ‘স্মার্ট ভূমিসেবা, স্মার্ট নাগরিক এই প্রতিপাদ্যের আলোকে জামালপুরের ইসলামপুরে স্মার্ট ভূমি সেবা কার্যক্রম বাস্তবায়নে ভূমি সেবা সপ্তাহ  উদ্ভোধন করা হয়েছে।

এ উপলক্ষে উপজেলা ভূমি অফিস আয়োজনে শনিবার(৮জুন) উপজেলা পরিষদ চত্তর থেকে একটি শোভাযাত্রা বের হয়ে শহরের প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন শেষে উপজেলা পরিষদ হল রুমে আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত হয়।সহকারী কমিশনার (ভূমি) সাইদ মোহাম্মদ ইব্রাহীমের সভাপত্বিতে এতে উপজেলা পরিষদ ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল খালেক আখন্দ, সাবেক উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান নবী নেওয়াজ খান লোহানী, অধ্যক্ষ জামাল আবু ননাছের চৌধুরী চার্লেছ,চেয়ারম্যান হাবিবুর ররহমান চৌধুরী,নবাগত মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান আবিদা সুলতানা যুথী,প্রেসক্লাবে সাবেক সভাপতি ফিরোজ খান লোহানী,কাউন্সিলর মোহন মিয়া প্রমূখ বক্তব্য রাখেন।বক্তারা- ভূমি ব‌্যবস্থাপনা অটোমেশন প্রকল্প, স্মার্ট ভূমি সেবা, স্মার্ট ভূমি রেকর্ড ও ম‌্যাপ সেবা, নামজারি ব‌্যবস্থাসহ ভূমি সেবায় কেউ যাতে হয়রানী না হয় সংশ্লিষ্টদের প্রতি আহবান জানান।

আরও খবর



নাসিরনগরে প্রবাসীর স্ত্রীর রহস্যজনক মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসিরনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া:- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগরে শিউলি আক্তার নামে এক গৃহবধূর মৃত্যু নিয়ে রহস্যের সৃষ্টি হয়েছে। তাঁর নাক মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল। পরিবারের দাবি, তাঁকে হত্যা করা হয়েছে। 


২৪ শে মে রোজ শুক্রবার বেলা ১২টার দিকে উপজেলা সদর ইউনিয়নের পশ্চিম পাড়ায় নিজ ঘর থেকে ওই নারীর মরদেহ উদ্ধার করা হয। তিনি দুবাই প্রবাসী আব্দুর রহমানের স্ত্রী। 


১৮ বছর আগে সদর ইউনিয়নের আব্দুর রহমানের সঙ্গে বিয়ে হয় শিউলির। স্বামী প্রবাসে থাকায় সন্তান নিয়ে ওই বাড়িতে থাকতেন শিউলী। ঘটনার আগের দিন একমাত্র মেয়ে চাঁদনী পাশের ইউনিয়ন পূর্বভাগে নানার বাড়ি যায়। সকালে স্বজনদের মাধ্যমে সে জানতে পারে মায়ের নিথর দেহ ঘরের মেঝেতে পড়ে আছে। চাঁদনীর অভিযোগ তার মাকে হত্যা করা হয়েছে।


প্রতিবেশীরা জানান,সকাল ১০ঘটিকার সময় একজন দুধ দিতে আসেন। বাড়ির প্রধান ফটক বন্ধ থাকায় তিনি আমাকে ডেকে আনেন। পরে স্থানীয়দের সহযোগিতায় দরজা খুলে ভেতরে গিয়ে দেখি মরদেহ পড়ে রয়েছে।তাঁর মুখ ও নাক দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল।’


শিউলির ভাই লোকমান মিয়া বলেন, বোনের শরীরে রক্তের দাগ। নাক মুখ দিয়েও রক্ত বের হচ্ছিল। যে বিছানায় ঘুমিয়েছিল সেই বিছানা  বালিশেও রক্তের দাগ রয়েছে।সে বলে তার বোনকে কেউ হত্যা করেছে। আমরা এ হত্যার বিচার চাই।


 ইউপি সদস্য মো. আজদু মিয়া জানান, আগের রাত ২টার দিকে স্থানীয়রা কয়েকজনকে ওই বাড়িতে আসা-যাওয়া করতে দেখেছে। তবে ঘরের মালপত্র, নগদ টাকা বা স্বর্ণালংকার নেওয়ার ঘটনা ঘটেনি। প্রকৃত ঘটনা কী তদন্ত ছাড়া বলা সম্ভব না।


নাসিরনগর থানার অফিসার ইনচার্জ  (ওসি)মোঃ সোহাগ রানা জানান, লাশের নাক-মুখ দিয়ে রক্ত বের হচ্ছিল। তাঁকে হত্যা করা হয়েছে কিনা তা ময়নাতদন্তের প্রতিবেদন পাওয়ার পর বলা যাবে।

    -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



টি২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে ৪৫ ওয়াট চার্জিং ক্যাপ্টেন রিয়েলমি সি৬৩ নিয়ে হাজির হচ্ছে রিয়েলমি

প্রকাশিত:রবিবার ০২ জুন 2০২4 | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪৩জন দেখেছেন

Image

প্রযুক্তি ডেস্ক:তরুণদের জনপ্রিয় স্মার্টফোন ব্র্যান্ড রিয়েলমি এবার ৪৫ ওয়াট চার্জিং ক্যাপ্টেন এবং ভেগান লেদার কভার সমৃদ্ধ ডিভাইস সি৬৩ নিয়ে হাজির হতে যাচ্ছে। আইসিসি টি২০ বিশ্বকাপকে সামনে রেখে চলতি বছরের ৩ জুন ফোনটি উন্মোচন করবে রিয়েলমি।

স্মার্টফোনপ্রেমীদের মাল্টিমিডিয়ার ব্যবহার এবং দীর্ঘ সময় জুড়ে ফোনে কথা বলার অবাধ স্বাধীনতা দিতে এ প্রাইস সেগমেন্টে ৪৫ ওয়াট ফাস্ট চার্জিং সক্ষমতার ফোন উপহার দিতে যাচ্ছে রিয়েলমি। মাত্র ৩০ মিনিটেই ৫০% পর্যন্ত চার্জ দেওয়া সম্ভব এ ফোনে। অসাধারণ এ ফোন মাত্র ১ মিনিটের ফাস্ট চার্জিংয়ের মাধ্যমে ব্যবহারকারীকে দেয় ১ ঘণ্টা পর্যন্ত কথা বলার দারুণ সুযোগ। এছাড়াও, ফোনের সর্বোচ্চ নিরাপত্তা এবং টেস্টিং স্ট্যান্ডার্ড নিশ্চিত করে সেগমেন্টের প্রথম ‘টিইউভি রেইনল্যান্ড সেফ ফাস্ট-চার্জ সিস্টেম সার্টিফিকেশন’ অর্জনকারী স্মার্টফোন রিয়েলমি সি৬৩।

রিয়েলমি ব্র্যান্ডের এ দামের ফোনের মধ্যে এমনকি সি সিরিজের ফোনে এটিই একমাত্র স্মার্টফোন, যাতে প্রথমবারের মতো লেদার বা চামড়া ব্যবহার করা হয়েছে। ফোনের ব্যাক কভারটি একটি প্রিমিয়াম ভেগান লেদার দিয়ে ডিজাইন করা হয়েছে। ফলে ধরতে বেশ আরাম অনুভূত হওয়ায় এর বেশ কাটতি হবে বলেও আশা করা হচ্ছে। তাছাড়া ফোনটিতে ফ্ল্যাগশিপ লেভেলের ডিভাইসের মতো টেক্সচার তো রয়েছেই।

রিয়েলমি সি৬৩ তে এআই (কৃত্রিম বুদ্ধিমত্তা) ফিচারের নতুন ব্যবহার, ব্যবহারকারীকে দেবে নেক্সট-লেভেল ফোন ব্যবহারের এক অনন্য অভিজ্ঞতা। ফোনটিতে রয়েছে এয়ার জেসচার ও রেইনওয়াটার স্মার্ট টাচ, যা শুধু ব্র্যান্ডের নম্বর ও জিটি সিরিজেই পাওয়া যেত। ব্যবহারকারীর নিত্যদিনকার প্রয়োজনীয়তার ওপর ভিত্তি করে এই দুটি ফিচার কার্যক্রম পরিচালনা করবে। এমনকি স্ক্রিনে টাচ করা ছাড়াই স্মার্টফোন ব্যবহারকারী ডিভাইসটি চালাতে পারবেন।

রিয়েলমি সি৬৩ এর এয়ার জেসচার ব্যবহার করে স্মার্টফোন ইউজাররা খাবার খাওয়া, ব্যয়াম করা, রান্না করা, ভিডিও দেখা এবং ফোনে কথা বলার সময়ও নিজের হাত ব্যবহার না করেই কাজ করতে পারবেন। এতে ফোনটি হাত দিয়ে ছুঁয়ে দেখারও প্রয়োজন হবে না।

বৃষ্টিস্নাত পরিবেশে কিংবা বাথরুমের আর্দ্রতায় সি৬৩ এর রেইনওয়াটার স্মার্ট টাচ দেয় মসৃণতার সঙ্গে (স্মুদলি) ফোন ব্যবহারের নিশ্চয়তা। ফোনটিতে আরও রয়েছে এআই কল নয়েজ রিডাকশন ফিচার এবং সবচেয়ে প্রশংসনীয় মিনি ক্যাপসুল ২.০ ফাংশন।

রিয়েলমি সি৬৩ ফোনের পেছনের অংশ একটি ভারী লিচুর প্যাটার্নে ডিজাইন করা হয়েছে। এ কারণে ফোনটি হাতে নিলে এক ধরনের আরামদায়ক মসৃণ অনুভূতি পাওয়া যায়। এতে বাড়তি মাত্রা যোগ করেছে ফোনের মেটাল লেন্স ডেকো। এই দামের সেগমেন্টে ফোনকে আরও শক্তিশালী ও মজবুত করতে এবং অসাধারণ টেক্সচার দিতে এতে দামী মেটাল লেন্স ডেকো ব্যবহার করা হয়েছে। স্মার্টফোন গ্রাহকরা বিলাসবহুল কোয়ালিটির ও বিশ্বস্ত ফোনের অভিজ্ঞতা নিতে রিয়েলমি সি৬৩ সিরিজের লেদার ব্লু ও জেড গ্রিন- এ দুটি রঙের ফোন সংগ্রহ করতে পারেন।

আরও বিস্তারিত জানতে, ফোন ব্যবহারকারীরা রিয়েলমি বাংলাদেশের অফিসিয়াল ফেসবুক পেজ https://www.facebook.com/realmeBD-এ ভিজিট করতে পারেন।


আরও খবর