Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

রাষ্ট্রপতি বললেন, তুমি আমাদের গর্ব: শাকিব খান

প্রকাশিত:রবিবার ০৩ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১২১০জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:সিনেমা হলে এখনও শাকিব খানের ‘প্রিয়তমা’র রেশ কাটেনি। মুক্তির দুই মাস পেরিয়ে গেলেও এখনও দেশের বেশ কয়েকটি সিনেমায় রমরমিয়ে চলছে সিনেমাটি। 

এ ছাড়া দেশের গণ্ডি পেরিয়ে যুক্তরাষ্ট্র, কানাডায়ও মুক্তি পেয়েছে এটি। সেখানেও প্রবাসী দর্শকরা হুমড়ি খেয়ে পড়েছেন ‘প্রিয়তমা’ দেখতে।এদিকে গেল শুক্রবার (পয়লা সেপ্টেম্বর) রাজধানীর মহাখালীর এসকেএস টাওয়ারে স্টার সিনেপ্লেক্স সিনেমাটি উপভোগ করেন সস্ত্রীক রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন। 

সাধারণত রাষ্ট্রপতি যদি কোনো সিনেমা দেখতে চাইলে তার বাসভবনেই প্রদর্শনের ব্যবস্থা করা হয়। কিন্তু তিনি রেওয়াজ ভেঙে সিনেপ্লেক্সে হাজির হয়েছেন। এটা নিয়ে আপ্লুত শাকিব খান সামাজিক মাধ্যমে জানিয়েছেন নিজের অনুভূতির কথা।

দীর্ঘ স্ট্যাটাসে শাকিব লিখেছেন, “মুক্তির দুই মাস পার হলেও এখনও বাংলাদেশ ও বিশ্বের বাঙালিরা পরিবার–পরিজন নিয়ে ‘প্রিয়তমা’ উপভোগ করছেন। নিউজ ও সোশ্যাল মিডিয়ার কল্যাণে জেনেছি,  দেশ–বিদেশের নানা প্রান্তের সিনেমাপ্রেমীরা ‘প্রিয়তমা’ দেখে উল্লাসে মেতেছেন, আনন্দে ভেসেছেন, কষ্টে কেঁদেছেনও। এটা আমার ও ‘প্রিয়তমা’ টিমের জন্য অত্যন্ত গর্বের ও আনন্দের।

তিনি আরও লিখেছেন, “এর মধ্যে গতকাল শুক্রবার সন্ধ্যাটি ছিল আমার এবং পুরো বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির জন্য আরও গর্বের। আমাদের মহামান্য রাষ্ট্রপতি মহোদয় (মোহাম্মদ সাহাবুদ্দিন) ও ফার্স্টলেডি (ড. রেবেকা সুলতানা) পরিবার নিয়ে ‘প্রিয়তমা’ দেখলেন। সিনেমা দেখা শেষে মহামান্য আমার দিকে এগিয়ে এলেন। তাকে এগিয়ে আসতে দেখে আমি এগিয়ে গেলাম। তিনি আমাকে বুকে জড়িয়ে নিলেন। বললেন, তুমি আমাদের গর্ব। আমরা সত্যি তোমাকে নিয়ে গর্ব করি  (you are our pride, we really proud of you my son)।  পাশে থেকে আমাদের ফার্স্ট লেডি ডেকে নিলেন, অভিনন্দন জানালেন। ‘প্রিয়তমা’ নিয়ে গর্বের কথাও জানালেন। বললেন, ওয়েলডান মাই বয়।

রাষ্ট্রপতি ও তার স্ত্রীর এম প্রতিক্রিয়া গৌরব ও সম্মানের মনে করেন শাকিব। তিনি লিখেছেন, “দেশের রাষ্ট্রপ্রধান ও ফার্স্টলেডির কাছ থেকে এমন উৎসাহ ও অনুপ্রেরণা যে কোনো শিল্পীর জন্য অত্যন্ত সম্মানের ও গৌরবের। রাষ্ট্রপতি মহোদয়ের সুযোগ্য সন্তান আরশাদ আদনান এই সিনেমার প্রযোজক বলেই যে তিনি ‘প্রিয়তমা’ দেখতে এসেছেন বিষয়টি মোটেও এমন নয়! তার সন্তান এর আগেও একাধিক সিনেমা বানিয়েছেন। তখন এত প্রটোকলে তিনি ছিলেন না, তারপরও দেখা হয়নি সেসব সিনেমা। এবার তিনি তার পুরো পরিবার নিয়ে আগ্রহ নিয়ে ‘প্রিয়তমা’ দেখতে এলেন, কারণ বাংলাদেশ ও বিশ্বের সিনেমা প্রেমীদের কেন ‘প্রিয়তমা’ হাসাচ্ছে, কাঁদাচ্ছে, এত ভালোবাসা দিচ্ছে— কী আছে এই সিনেমায় তা দেখার জন্য।”

সিনেমা দেখার পর রাষ্ট্রপতি তাকে বুকে টেনে নিয়েছেন বলে জানান শাকিব। তিনি আরও লিখেছেন, “সিনেমা দেখার পর বাবা-মা হিসেবে গর্ব নিয়ে রাষ্ট্রপতি মহোদয় ও ফার্স্টলেডি তাদের সন্তানকে বুকে টেনে নিয়েছেন। অনেক বেশি গর্বের অনুভূতি প্রকাশ করেছেন। আসলেই সন্তানের যে কোনো ভালো কাজ বাবা–মাকে গর্বিত করে, আনন্দিত করে, ভালোবাসায় আপ্লুত করে। শত ব্যস্ততার মধ্যেও মহামান্য তার পরিবার নিয়ে ‘প্রিয়তমা’ দেখেছেন, এ জন্য তাদের প্রতি আমি, প্রযোজক আরশাদ আদনান, পরিচালক হিমেল আশরাফ এবং ‘প্রিয়তমা’ টিমের সবার পক্ষ থেকে অনেক কৃতজ্ঞতা, শ্রদ্ধা, ভালোবাসা।

শাকিব বিশ্বাস করেন, ভবিষ্যতেও পরিবারসহ রাষ্ট্রপতি নিয়মিত বাংলা সিনেমা দেখবেন। তিনি লিখেছেন, “আমি জানি, মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও বাংলা সিনেমা দেখেন। আমার দৃঢ় বিশ্বাস, আগামীতে হয়ত আমাদের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীও তার পরিবার নিয়ে সিনেমা দেখবেন এবং তার দেশের সিনেমা দেখে তিনি আনন্দিত হবেন, গর্বিত হবেন। আমি সবসময় পরিচ্ছন্ন এবং সুস্থ বিনোদনের সিনেমা করার চেষ্টা করি। যেটি সবাই বাবা-মা, পরিবার পরিজন নিয়ে নির্দ্বিধায় সিনেমাহলে একসঙ্গে বসে দেখতে পারবেন। কয়েক বছর আগে স্বপ্ন দেখেছিলাম, বাংলাদেশি সিনেমা বিশ্বব্যাপী ছড়িয়ে যাবে, ‘প্রিয়তমা’ দিয়ে স্বপ্নের শুরুটা দারুণভাবে হয়েছে। আমাদের সবার স্বপ্নটাকে আরও বড় করে তুলেছে।

সবশেষে শাকিব জানান, আগামীতেও বিশ্বের অন্যান্য বড় বড় সব সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির সঙ্গে কাঁধ মিলিয়ে বিশ্ব দরবারে বাংলা সিনেমার প্রতিনিধিত্ব করার চেষ্টা করে যাবেন তিনি।

গেল ঈদুল আজহায় মুক্তি পেয়েছিল ‘প্রিয়তমা’ সিনেমাটি। এতে নায়িকা ছিলেন কলকাতার ইধিকা পাল। রোম্যান্টিক অ্যাকশন ঘরানার সিনেমাটি পরিচালনা করেন হিমেল আশরাফ।


আরও খবর



জন্মদিনে জাতীয় কবির সমাধিতে সর্বজনের শ্রদ্ধা

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৩২জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার, স্টাফ রিপোর্টার:জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলামের আজ ১২৫তম জন্মবার্ষিকী। শনিবার ১২৫তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় কেন্দ্রীয় মসজিদ সংলগ্ন জাতীয় কবির সমাধিতে সর্বজনের শ্রদ্ধায় সিক্ত হয়েছেন জাতীয় কবি কাজী নজরুল ইসলাম।

সকালে থেকে কবির সমাধিতে পুষ্পাঞ্জলি দিয়ে শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করে বিভিন্ন সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও রাজনৈতিক সংগঠন। র‍্যালি নিয়ে বিশ্ববিদ্যালয় পরিবারের সদস্যদের নিয়ে সমাধিতে ফুল দিয়ে শ্রদ্ধা জানান ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের উপাচার্য অধ্যাপক এ এস এম মাকসুদ কামাল। শ্রদ্ধা জ্ঞাপন করেন কবি পরিবারের সদস্যরা।

শ্রদ্ধা জ্ঞাপন শেষে কবির নাতনি খিলখিল কাজী বলেন, প্রতিবছরই আবেদন থাকে, জাতীয় কবির জন্মদিন জাতীয় ছুটি ঘোষণা করা হোক। সব বাঙালির কাছে কাজী নজরুল পৌঁছে যাক। নজরুল রচনাবলি অনুবাদের মাধ্যমে পৃথিবীর সবার কাছে পৌঁছে দেওয়া সবার দায়িত্ব।

ঢাবি উপাচার্য বলেন, নজরুল সবসময় মানবিকতার প্রচার করেছেন। তার বর্ণাঢ্য জীবনকে বিশ্লেষণ করে বলা যায়, তিনি অসম্প্রদায়িক মানবিকতার মানুষ ছিলেন। তিনি মানুষের মুক্তির কথা বলেছেন, এ জন্য তিনি সবসময় প্রাসঙ্গিক থাকবেন। জাতীয় জীবনে সামগ্রিকভাবে আমরা অসাম্প্রদায়িকতা-মানবিকতাকে ধারণ করতে পারলে জাতীয় কবিকে প্রকৃতভাবে ধারণ করতে পারবো।

প্রধানমন্ত্রী এবং আওয়ামী লীগের পক্ষ থেকে শ্রদ্ধা জানিয়ে দলটির সাধারণ সম্পাদক ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের ও বাহাউদ্দিন নাছিমসহ নেতারা শ্রদ্ধা জানান।

ওবায়দুল কাদের বলেন, অসাম্প্রদায়িক চেতনার কবি, বিদ্রোহী কবি, যৌবনের কবি কাজী নজরুল ইসলাম। কাজী নজরুল ইসলাম আমাদের সংকটে, সংগ্রামে, মুক্তিযুদ্ধে তিনি অফুরান এক প্রেরণার উৎস।

তিনি বলেন, রাজনৈতিক দল বিবেচনায় কাউকে গ্রেফতার বা কারাদণ্ড বা শাস্তি দেওয়া হয় না। শুধুমাত্র অপরাধ করলেই শাস্তি দেওয়া হয়।

কবির সমাধিতে আরো শ্রদ্ধা জানিয়েছে সংস্কৃতি মন্ত্রণালয়, জাতীয় গ্রন্থকেন্দ্র, কবি নজরুল ইনস্টিটিউট, জাতীয় জাদুঘর, প্রত্নতত্ত্ব অধিদফতর, জাতীয় কবিতা পরিষদ, বাংলাদেশ ছাত্রলীগ।

আরও খবর



ডোমারে কৃষি মেলার সমাপনি দিবস ও পুরস্কার বিতরন

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image

মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে কৃষি সম্প্রসারণ অধিদপ্তর আয়োজিত ৩দিন ব্যাপী কৃষি মেলার সমাপনি দিবসে পুরস্কার বিতরণ, প্রান্তিক ও মাঝারি কৃষকদের মাঝে বিনা মূল্যে বীজ এবং রাসাইনিক সার বিতরণ করা হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৬জুন) বিকালে উপজেলা কৃষি সম্প্রসারণ কর্মকর্তা রাজিয়া সুলতানা’র সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন উপজেলা পরিষদের চোয়াম্যান সরকার ফারহানা আখতার সুমি। 

উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল আলম (বিপিএএ)’র সভাপপিত্বে বিশেষ অতিথি হিসাবে উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান ফেরদৌসী বেগম, উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ রফিকুল ইসলাম, উপ-সহকারী কৃষি কর্মকর্তা ফায়জুল বারী, অন্নপূর্ণ এগ্রো সার্ভিস এর উদ্যোক্তা দেবরাজ আগরওয়ালা প্রমূখ বক্তব্য রাখেন। 

উক্ত মেলাটিকে আকর্ষনীয় করতে এনজিওদের মধ্যে ব্র্যাক, পল্লীশ্রী, সার্পসহ নার্সারী মালিক, সরকারী বে-সরকারী বিভিন্ন উদ্যোক্তাগণ মেলায় তাদের ডিসপ্লে প্রদর্শন করেন, মেলায় ২০টি স্টল স্থান পায়। আলোচনা শেষে মেলায় অংশগ্রহনকারী উদ্যোক্তাদের পুরস্কার প্রদান করা হয় এবং এলাকার প্রান্তিক ও মাঝারি কৃষকদের মাঝে বিনা মূল্যে বীজ এবং রাসাইনিক সার তুলে দেন অতিথিগণ।


আরও খবর



হাটহাজারীতে বাস-অটোরিকশা মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image
তালহা চৌধুরী রুদ্র।নিজস্ব প্রতিনিধি:চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে যাত্রীবাহী বাস-অটোরিকশা মুখোমুখী সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। এঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন।

শনিবার (২৫ মে) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মির্জাপুর ইউনিয়নেরর মুহুরীহাট বটতল এলাকায় চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন, হাটহাজারীর ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের উদালিয়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব টুকু (৭০) ও ধলই ইউনিয়নের মনিয়াপুকুর এলাকার বাসিন্দা মো. আবছার (৫৫)। তারা দুজনই অটোরিকশার যাত্রী। এঘটনায় আহত দুজনের নাম জানা যায়নি। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চট্টগ্রামমুখী একটি যাত্রীবাহী বাস বেপরোয়া গতিতে এসে বিপরীমুখী থাকা অটোরিকশায় ধাক্কা দিয়ে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং দুই যাত্রী ঘটনাস্থলে মারা যান। এরপর অটোরিকশার চালকসহ দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চালকসহ অটোরিকশায় মোট ৪ যাত্রী ছিল।

নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে এসে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। তারা দুজন সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন। আহত সিএনজি চালকসহ আরও এক যাত্রীকে আহত অবস্থায় একটি হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে বলে শুনেছে।

এঘটনায় চালকসহ ওই বাসটিকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরও খবর



বজ্রপাতে পত্নীতলায় দুজনের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় বজ্রপাতে দুজনের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার  বিকেলে উপজেলার উপর দিয়ে বয়ে যাওয়া প্রবল ঝড় ও বৃষ্টিপাতের সময় বজ্রপাতে এঘটনা ঘটে। 

নিহতরা হলো উপজেলার পাটিচরা ইউপির গাহন মধ্যপাড়া গ্রামের আব্দুল মজিদের মেয়ে মনিকা খাতুন (৩২) এবং একই ইউপির নাগরগোলা গ্রামের নব মুসলিম খাদিমুল ইসলাম (৪০)।

জানা গেছে, বৃষ্টিপাতের সময় মনিকা খাতুন ছাগল নেয়ার জন্য মাঠে গেলে বজ্রপাতে সেখানেই তার মৃত্যু হয় এবং একই ভাবে নাগরগোলা গ্রামের নব মুসলিম খাদিমুল ইসলাম বৃষ্টির সময় বাড়ির বাহিরে আম গাছের নিচে গেলে বজ্রপাতে তারও মৃত্যু হয়। এব্যাপারে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেনের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




তিতাসের অবহেলায় কারখানার উৎপাদন ব্যাহত, ব্যাপক ক্ষতি

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৬৫জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে পূর্ব ঘোষণা বা নোটিশ ছাড়াই হঠাৎ গ্যাস সববরাহ বন্ধ করে দেওয়ায় প্রায় চার শতাধিক শিল্পকারখানার উৎপাদন ব্যাহত হয়েছে। এতে মালামাল নষ্ট হয়ে কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন কারখানার মালিকরা। রোববার সকাল থেকে গ্যাসের এ সমস্যার কারণে ছুটি ঘোষণা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। তাদের অভিযোগ, তিতাসের অবহেলার কারণেই এই ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন।

শিল্প-কারখানা ও তিতাসের চন্দ্রা জোনাল অফিস সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর উপজেলা একটি শিল্প অধ্যুষিত এলাকা। এখানে প্রায় পাঁচ শতাধিক রপ্তানিমুখি শিল্পকারখানা রয়েছে। এর মধ্যে প্রায় চার শতাধিক কারখানায় তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের গ্যাস সরবরাহের মাধ্যমে উৎপাদন অব্যাহত আছে।

কিন্তু রোববার সকাল থেকে হঠাৎ করে কারখানায় তিতাসের গ্যাস সরবারহ বন্ধ হয়ে যায়। পূর্ব ঘোষণা বা নোটিশ ছাড়াই হঠাৎ গ্যাস সববরাহ বন্ধ করায় ওই চার শতাধিক শিল্পকারখানার উৎপাদন মারাত্মকভাবে ব্যাহত হয়। এতে মালামাল নষ্ট হয়ে কোটি কোটি টাকার ক্ষয়ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন কারখানার মালিকরা। আর সকাল থেকে গ্যাসের এ সমস্যার কারণে ছুটি ঘোষণা করে কারখানা কর্তৃপক্ষ। তাদের অভিযোগ, তিতাসের অবহেলার কারণেই এই ক্ষতির সম্মুখিন হয়েছেন। অথচ তিতাসের চন্দ্রা জোনাল অফিসের দাবী, উন্নয়ন কাজের জন্য গাজীপুরের জয়দেবপুর-টাঙ্গাইল লাইনের সাটডাউন দিয়েছে টাঙ্গাইল তিতাস সংশ্লিষ্টরা। এটা টাঙ্গাইলের সদরের এলেঙ্গা থেকে মির্জাপুরের কুমুদিনী পর্যন্ত গ্যাস সরবরাহ বন্ধ থাকার কথা ছিল। টাঙ্গাইলের তিতাস কোম্পানি থেকে ওই জেলা উপজেলা ছাড়াও গাজীপুরের কালিয়াকৈর ও সাভারের আশুলিয়া মোট তিনটি জোন আছে। সকাল ১০টা থেকে রাত ৮টা পর্যন্ত ওই লাইন বন্ধ থাকবে। আর ওই একটা লাইন বন্ধ থাকলেও কালিয়াকৈরে গ্যাস চালু আছে। কিন্তু যে রকম প্রেশার থাকার কথা তার চেয়ে কম রয়েছে। লো প্রেশারের কারণে কারখানাগুলোতে সমস্যা হবে।

নাম প্রকাশে অনিচ্ছুক বড় এক পোশাক কোম্পানির কর্তৃপক্ষ জানান, নাম উল্লেখ করে বক্তব্য দিলে তিতাস গ্যাস কর্তৃপক্ষ আমাদের সমস্যা করবে। কোনো প্রকার নোটিশ ছাড়াই না জানিয়ে গ্যাস বন্ধ করেছে তিতাস কর্তৃপক্ষ। তাদের এমন অবহেলার কারণে আমাদের প্রায় তিন কোটি টাকার কাপড় নষ্ট হয়ে গেছে। তারা আগে থেকে জানালে আমাদের এই অর্থনৈতিক ক্ষতির সম্মুখিন হতে হতো না।

লিডা লিমিটেড কারখানার জিএম এ্যাডমিন জাহাঙ্গীর আলম জানান, গ্যাসের সরবরাহ অন্যান্য দিনের চেয়ে অনেক কম ছিল। আমাদের ডাইং না থাকায় তেমন প্রভাব পড়েনি। তবে যেসব কারখানায় ডাইং আছে, তাদের উৎপাদন অনেকটা ব্যাহত হয়েছে।

নুরুল ওয়্যার লিমিটেড কারখানার জিএম জহির হোসেন জানান,অনলাইনে নিউজ পোর্টালে গ্যাসের সমস্যাজনিত সংবাদ দেখে তিতাস কর্তৃপক্ষকে অবগত করি। কিন্তু তারা আমাদের আশস্ত করে এখানে গ্যাস সরবরাহে কোনো ত্রুটি হবে না। সকালে কারখানা চালু হলে গ্যাস সরবারহ বন্ধ হলে কারখানা ছুটি ঘোষণা করা হয়।এ বিষয়য়ে জানতে তিতাস গ্যাস ডিস্ট্রিবিউশন কোম্পানি লিমিটেডের চন্দ্রা জোনাল অফিসের ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী মোহাম্মদ মোস্তফা মাহবুরের অফিসে গেলে তাকে পাওয়া যায়নি।

তবে তিনি মিটিংয়ে আছেন জানিয়ে ওই অফিসের উপ-ব্যবস্থাপক প্রকৌশলী রায়হান কবির জানান, টাঙ্গাইল থেকে গ্যাস লাইনে সাটডাউন দেওয়া হয়েছে। ওই এলাকায় গ্যাস বন্ধ থাকবে সে বিষয়ে টেলিভিশনসহ বিভিন্ন মিডিয়ায় প্রচার করা হয়েছে।

আমাদের এলাকায় সাটডাউন হয়নি, আর এজন্য কোনো নোটিশ দেওয়া হয়নি। কিন্তু সেখানে সাটডাউন দেওয়ায় কালিয়াকৈরে গ্যাস সরবারহ বন্ধ না হলেও এখানে লো প্রেশার। এতে কারখানাগুলোতে সমস্যা হবে। তবে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতির বিষয়টি আমাদের জানা নেই।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪