Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

মাদক মামলাই মেম্বার শহিদুল গ্রেফতার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৪৭৪জন দেখেছেন

Image

তানোর প্রতিনিধি: তানোরে মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত  আসামী  কলমা ইউপি সদস্য শহীদুল ইসলামকে (৩৯)কে গ্রেফতার করেছে ত থানা পুলিশ। সে  উপজেলার মালবান্ধা গ্রামের মৃত কাদের আলীর পুত্র এবং কলমা ইউপি’র ৬নং ওয়ার্ড  সদস্য ও সাবেক ছাত্রলীগ নেতা।বুধবার বেলা ১২টার দিকে গোপন সংবাদের ভিত্তিতে থানার এস আই জাহাঙ্গীর  আলম সংগীয় ফোর্সসহ অভিযান চালিয়ে মালবান্ধা বাজার থেকে  তাকে গ্রেফতার করেন।

 থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি)কামরুজ্জামান মিঞা বলেন, তানোর থানার মাদক মামলার ওয়ারেন্টভুক্ত  আসামী শহিদুল ইসলামকে গ্রেফতারের পর   বৃহঃস্প্রতিবার আদালতের মাধ্যমে জেল হাজতে প্রেরন করা হবে।

আরও খবর



প্রধানমন্ত্রীর কাছে সব খবর আছে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৮৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:যারা দুর্নীতি করেছে, তাদের সবার তথ্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে আছে। দুর্নীতিবাজরা বিচারের আওতায় আসছে।বলেছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের 

শুক্রবার (৩১ মে) বেলা সাড়ে ১১টায় ধানমন্ডিতে ব্রিফিংয়ে তিনি এই কথা বলেন।

ওবায়দুল কাদের বলেন, সরকার দুর্নীতির বিরুদ্ধে নির্বিকার নয়। আমি মন্ত্রী, আমি যদি কোনো দুর্নীতি করি সেটা কি বিচার না হয়েই শেষ হয়ে যাবে? প্রধানমন্ত্রীর কাছে সব খবর আছে। প্রধানমন্ত্রী অফিসের কিছু লোককেও শাস্তি দিয়েছেন। খালেদা জিয়ার আমলে তারা কি কাউকে শাস্তি দিয়েছিল? তখন প্রধানমন্ত্রীর অফিস ছিল দুর্নীতি আখড়া।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বিএনপি গণতন্ত্রের নামে কারফিউ গণতন্ত্র চালু করেছিল। বহুদলীয় গণতন্ত্রের কথা যারা বলে তাদের গণতন্ত্র ছিল হ্যাঁ/না ভোট। গণতন্ত্রকে তারা ধ্বংসের দিকে নিয়ে গিয়েছিল। তাদের মুখে গণতন্ত্রের বুলি ভুতের মুখে রাম রাম।

তিনি বলেন, পরিপূর্ণ গণতন্ত্র পৃথিবীর কোথাও নেই, এখানেও নেই। তবে আমরা এ বিষয়ে চেষ্টা করে যাচ্ছি। দুর্নীতি কারো ব্যক্তিগত বিষয়, কিন্তু বিএনপির মতো আওয়ামী লীগ সরকার নির্বিকার না। শেখ হাসিনার সৎ সাহস আছে। তিনি কাউকে ছাড় দেন না।

আওয়ামী লীগ সাধারণ সম্পাদক বলেন, বিএনপির সম্মেলন হয় না কত বছর। গঠনতন্ত্র লঙ্ঘন করে কথা বলার কি অধিকার আছে মির্জা ফখরুলের। জিয়া হত্যার সঙ্গে তার নিজের দল জড়িত।

ওবায়দুল কাদের বলেন, বেনজীর আহমেদকে গ্রেপ্তার করবে কিনা সেটি আদালত দেখবে। তার বিদেশে যাওয়ার বিষয়ে আমরা অবগত নই।

আরও উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, মির্জা আজম, আফজাল হোসেন, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া, ত্রাণ ও সমাজকল্যাণ বিষয়ক সম্পাদক আমিনুল ইসলাম, শিক্ষা ও মানবসম্পদ বিষয়ক সম্পাদক শামসুন্নাহার চাপা, উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান প্রমুখ।


আরও খবর



ক্লোরোফর্ম দিয়ে অজ্ঞান করে এমপি আনারকে হত্যা: ডিবি

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৩৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রথমে ক্লোরোফর্ম দিয়ে অজ্ঞান করা হয়,ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজিম আনারকে কিন্তু জ্ঞান না ফেরায় তাকে হত্যা করে গুম করে হত্যাকারীরা।

শনিবার (২৫ মে) রাজধানীর মিন্টো রোডে ডিবি কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) অতিরিক্ত কমিশনার মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ এ তথ্য জানান।

তিনি বলেন, এমপি আনারকে হত্যার পরিকল্পনা আগেও হয়েছে। নির্বাচনের আগে এবং জানুয়ারির মাঝামাঝি দেশে তাকে হত্যার পরিকল্পনা হয়। দুবার ব্যর্থ হওয়ার পর তৃতীয় দফায় তাকে হত্যা করতে সক্ষম হয় হত্যাকারীরা।

হত্যাকাণ্ডের মোটিভ কী হতে পারে? সাংবাদিকদের এমন প্রশ্নের জবাবে ডিবিপ্রধান বলেন, স্পেসিফিক রিজন বলতে পারছি না। অনেক মোটিভ হতে পারে। পূর্বশত্রুতার জেরে হতে পারে, আর্থিক লেনদেন সংক্রান্ত হতে পারে, রাজনীতিক বিষয়ও থাকতে পারে। এসব বিষয় জানতে তদন্ত চলছে। তদন্ত শেষ না হওয়া পর্যন্ত বলা যাচ্ছে না।

তিনি বলেন, আমরা সবকিছুই বিচার-বিশ্লেষণ করব। আসামিরা অনেক কথাই বলছে, তদন্তের স্বার্থে বলছি না। হত্যাকারীরা অপহরণের পর প্রথমে তাকে ফ্ল্যাটে নেয়। এরপর তার একটি ফোন নিয়ে অন্য জায়গায় চলে যায়। যাতে বোঝা যায় তিনি অন্য জায়গায় ছিলেন। এ ছাড়াও হত্যাকারীরা তাকে হত্যার পর চারটি মোবাইল নিয়ে বেনাপোল সীমান্তে আসে। এরপর তারা হত্যায় আনারের রাজনৈতিক প্রতিপক্ষকে ফাঁসাতে তাদের কলও করে।

ভারতে ডিবির টিম যাওয়ার ব্যাপারে ডিবিপ্রধান বলেন, এ ব্যাপারে ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের সঙ্গে আমাদের কথা হয়েছে। তারা বলেছেন, ডিবির একটি টিম যেন ভারতে যায়। এ জন্য আমাদের জিও হয়েছে। রাতে অথবা আগামীকাল ভোরে ডিবির তিন সদস্যের টিম ভারতের উদ্দেশে রওনা হবে।

হারুন অর রশীদ আরও বলেন, হত্যার তদন্তে আমাদের পাশাপাশি কলকাতার টিমও কাজ করছে। তবে, বাংলাদেশে যারা এসেছেন তাদের কাজ এখনও শেষ হয়নি। তাদের কাজ শেষ হলে আমরা রওনা হব। তারা আজ ৩টার দিকে আবারও ডিবিতে আসবেন। এরপর পুলিশ কমিশনারের সঙ্গে কথা বলব, তারপর আমরা যাব। সেটি রাতেও হতে পারে আগামীকাল ভোরের মধ্যেও হতে পারে।


আরও খবর



মার্কিন নিষেধাজ্ঞা নিয়ে মুখ খুললেন সাবেক সেনাপ্রধান আজিজ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৮১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদ এবং তার পরিবারের সদস্যদের ওপর নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে যুক্তরাষ্ট্র, গণতন্ত্রের অবনতি ও দুর্নীতিতে জড়িত থাকার অভিযোগে । এর প্রতিক্রিয়ায় সাবেক এ সেনাপ্রধান দাবি করেছেন শাস্তি পাওয়ার মতো কোনো অপরাধ তিনি করেননি।

মঙ্গলবার (২১ মে) দুপুরে নিজ বাসভবনে গণমাধ্যম কর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তার বিরুদ্ধে উঠা বিভিন্ন অভিযোগের জবাব দিয়েছেন আজিজ আহমেদ।

সাবেক সেনাপ্রধান জেনারেল (অব.) আজিজ আহমেদ বলেন, আমি শাস্তি পাওয়ার মতো কোনো অপরাধ করিনি। আমি মনে করি এটা (মার্কিন নিষেধাজ্ঞা) সম্পূর্ণভাবে আমার জন্য প্রযোজ্য নয়। আমার ভাই হাঙ্গেরি থাকলেও এটার পুরো প্রসেসের সাথে আমার কোনো সম্পৃক্ততা নেই।

তার বিরুদ্ধে দুর্নীতির অভিযোগ নিয়ে আল জাজিরায় প্রচারিত ডকুমেন্টারির প্রসঙ্গ টেনে আজিজ আহমেদ বলেন, আল জাজিরাতে অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস ম্যান দেখানো হলো। আমার ভাইকে মিলিটারি কন্ট্রাক্ট দিয়ে করাপশন করেছি, এই অভিযোগ আনা হয়। তখন ইউএন থেকে বক্তব্য দিয়েছিল।

তিনি বলেন, যখন আল জাজিরা এটা প্রচার করে তখন আমি আমেরিকাতে। আমি তখন জাতিসংঘ হেডকোয়ার্টারে গিয়ে প্রশ্ন করেছিলাম, তোমরা যে আমাদের কাছে চেয়েছিলে সেটার সব ডকুমেন্ট আমার কাছে আছে। তোমাদের কর্মকর্তা কেন বললো এমন কিছু হয়নি। তখন তারা বলেছিল, যে এটা সঠিক হয়নি।

তার দায়িত্বকালে ‘ইক্যুপমেন্ট’ কেনা হয়নি দাবি করে আজিজ আহমেদ বলেন, এটা (নজরদারির প্রযুক্তি) মিশন এলাকায় দেওয়ার জন্য পারচেজ করা হয়েছিল আমি চার বছর বিজিবি’র ডিজি, তিন বছর সেনাপ্রধান ছিলাম। সাত বছরে আমার কোনো ভাইকে আমি একটা কন্ট্রাক্ট দিইনি। কেউ যদি প্রমাণ করতে পারে, আমি পরিণতি মেনে নিতে প্রস্তুত।

তিনি আরও বলেন, স্পাইওয়্যার, যে সিগন্যাল ইকুইপমেন্টের কথা বলা হয়েছে, জাতিসংঘ জানতে চায়, ডি আর কঙ্গোর সিগন্যাল কোরের জন্য এই ইকুইপমেন্ট আমরা দিতে পারবো কি না। আমি ২৫ তারিখে দায়িত্ব নিলাম, ২৬ তারিখে কন্ট্যাক্ট সাইন হয়েছে।

তার দাবি, দুটি বিষয় কাকতালীয়, তারা লিংক করেছে ইম্যাচিওরড ওয়েতে। কেনা হয়েছে হাঙ্গেরিতে, আমার ভাইটা হাঙ্গেরি ছিল।

বাংলাদেশের সাবেক এ সেনাপ্রধান বলেন, বাহিনীর ভাবমূর্তির ব্যাপারে একটা কথাই বলবো, সবসময় একটা বিষয় আমি অত্যন্ত গুরুত্ব দিয়ে থাকি। বিজিবি, আর্মি প্রেস্টিজিয়াস ইনস্টিটিউশন। সবসময় সতর্ক ছিলাম, আমার কোনো কর্মকাণ্ডে যেন এই দুটি বাহিনীর সুনাম ক্ষুণ্ন না হয়।

তিনি আরও বলেন, আমার কাছে মনে হয়, যেহেতু বর্তমান সরকারের সময় আমি সেনাপ্রধান ছিলাম। সরকারকেও হয়তো কিছুটা বিব্রত বা হেয় করার জন্য এই রেস্ট্রিকশনটা হতে পারে।

নিষেধাজ্ঞার ব্যাপারে জেনারেল আজিজ আরও বলেন, আমি অবাক হয়েছি। আমি এখানে দেখতে পাচ্ছি, অল দ্য প্রাইম মিনিস্টারস মেন অনুষ্ঠানে যে অভিযোগ দুটি আনা হয়েছিল, সেটির সঙ্গে ওতপ্রোতভাবে সম্পৃক্ত। যদিও এখানে অত কিছু বিস্তারিত বলা হয়নি কিন্তু একই জিনিস।

সাবেক সেনাপ্রধান বলেন, প্রথম অভিযোগ হলো, আমি আমার ভাইকে বাংলাদেশের প্রচলিত যে আইন আছে। তার অপরাধ কর্মকাণ্ড থেকে সে যাতে এড়িয়ে চলতে পারে সে জন্য আমি আমার পদ-পদবি ব্যবহার করে তাকে সহযোগিতা করে দুর্নীতি করেছি। দ্বিতীয় হলো, আমি সেনাপ্রধান হিসেবে আমার ভাইকে সামরিক কন্ট্রাক্ট দিয়ে ঘুষ নিয়েছি; আমি আরেকটি দুর্নীতি করেছি।

তিনি বলেন, প্রথম অভিযোগের বিষয়ে বলবো, আমার সেই ভাই, যদিও এখানে নাম উল্লেখ করা হয়নি, আমি জেনারেল হওয়ার অনেক আগে থেকে বিদেশে এবং নিশ্চয়ই সে বৈধ পাসপোর্ট নিয়েই বিদেশে গিয়েছে। সেখানে দেশ থেকে চলে যাওয়ার বা দেশের প্রচলিত আইন ফাঁকি দেওয়ার ক্ষেত্রে আমি আমার পথ-পদবি ব্যবহার করেছি এই অভিযোগ আমি মেনে নিচ্ছি না। মেনে নিতে পারি না, এটা সঠিক না।

আজিজ আহমেদ বলেন, দ্বিতীয় অভিযোগের ক্ষেত্রে বলবো, আমি চার বছর বিজিবি প্রধান এবং তিন বছর সেনাপ্রধান হিসেবে দায়িত্ব পালনকালে কেউ যদি একটা প্রমাণ দিতে পারে আমি আমার ভাই বা আত্মীয়কে বিজিবি বা সেনাবাহিনীতে কোনো কন্ট্রাক্ট দিয়েছি, আমি যে কোনো কনসিকোয়েন্স মেনে নিতে প্রস্তুত আছি। আমি আমার কোনো আত্মীয়-স্বজন, ভাইকে কোনো কন্ট্রাক্ট দেইনি।

গণমাধ্যমকর্মীদের খোঁজ নেওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি আরও বলেন, আমার ভাইদের কারও বিজিবি বা সেনাবাহিনীতে ঠিকাদারি করার জন্য, কন্ট্রাক্ট নেওয়ার জন্য কোনো ধরনের লাইসেন্স আছে কি না খোঁজ নিলেই পেয়ে যাবেন।

গণমাধ্যমকর্মীরা জানতে চান, যুক্তরাষ্ট্রকে আজিজ কোনো প্রতিক্রিয়া জানাবেন কি না? জবাবে তিনি বলেন, আমার জানানোর কোনো প্রয়োজন নেই। আমি দুটি প্রশ্নের জবাব দিয়েছি। আমার মনে হয়, আর কোনো বিষয় নিয়ে আলোচনা করার কিছু নেই।

প্রসঙ্গত, যুক্তরাষ্ট্রের পররাষ্ট্র দপ্তরের ওয়েবসাইটে গতকাল স্থানীয় সময় সোমবার (বাংলাদেশ সময় সোমবার মধ্যরাতের পর) প্রকাশিত এক বিবৃতিতে আজিজ আহমেদের ওপর নিষেধাজ্ঞা দেওয়া হয়। এর ফলে তিনি ও তার পরিবারের সদস্যরা যুক্তরাষ্ট্রে প্রবেশ করতে পারবেন না।


আরও খবর



৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা/বিনাবেতনে অধ্যয়নে সব বেসরকারি কলেজে চিঠি দিলেন মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম সভাপতি তুষার

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃনটরডেম, আদমজী ও ভিকারুননিসা-সহ সব বেসরকারি কলেজে মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ করাতে চায় মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অহিদুল ইসলাম তুষার। এজন্য শিক্ষা মন্ত্রণালয়ের একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নীতিমালা-২০২৪ অনুযায়ী চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে যথাযথ ভাবে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং শিক্ষা ও মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের পরিপত্র বা আদেশ অনুযায়ী ভর্তিকৃত মুক্তিযোদ্ধা কোটার প্রার্থীদের বিনাবেতনে অধ্যয়নের বিষয়ে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে প্রাথমিক ভাবে দেশসেরা নিম্নোক্ত ১৫ বেসরকারি নটরডেম কলেজ,আদমজী ক্যান্টনমেন্ট কলেজ, ঢাকা রেসিডেনসিয়াল মডেল কলেজ, ভিকারুননিসা নূন স্কুল এন্ড কলেজ,হলি ক্রস কলেজ, সেন্ট যোসেফ হায়ার সেকেন্ডারি স্কুল, রাজউক উত্তরা মডেল কলেজ, মাইলস্টোন কলেজ, আইডিয়াল কলেজ,নৌবাহিনী কলেজ, ন্যাশনাল আইডিয়াল কলেজ,ঢাকা সিটি কলেজ,বিএএফ শাহীন কলেজ,নটরডেম কলেজ ময়মনসিংহ, শহীদ সৈয়দ নজরুল ইসলাম কলেজ,ময়মনসিংহকে ২৩ মে ২০২৪ ইং বৃহস্পতিবার চিঠি দেন “মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম, কেন্দ্রীয় কমান্ড কাউন্সিলের সভাপতি অহিদুল ইসলাম তুষার”।

 তিনি সাংবাদিকদের বলেন, চলতি শিক্ষাবর্ষে একাদশ শ্রেণিতে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং বিনা বেতনে অধ্যয়নের সুবিধা দিতে প্রাথমিক ভাবে ১৫টি বেসরকারি কলেজকে চিঠি দিয়ে অবহিত করেছি এবং পর্যায়ক্রমে সব শিক্ষা প্রতিষ্ঠানকে দেওয়া হবে। যদি কর্তৃপক্ষ যথাযথ ভাবে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণ এবং বিনাবেতন অধ্যয়নের সুযোগ প্রদান না করে থাকে তাহলে শিক্ষা মন্ত্রণালয়ে উক্ত প্রতিষ্ঠানের বিরুদ্ধে অভিযোগ করে নিবন্ধন বাতিলের জন্য আবেদন করবো। অপর এক প্রশ্নের জবাবে অহিদুল ইসলাম তুষার বলেন, একাদশ শ্রেণিতে ভর্তি নীতিমালা-২০২৪ এর ৩.২ অনুচ্ছেদে যথাযথ ভাবে সরকারি ও বেসরকারি কলেজে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা অনুসরণের কথা বলা হয়েছে এবং ২০০৫ সালে শিক্ষা মন্ত্রণালয় ও ২০০৮/ ২০২৩ সালে মুক্তিযুদ্ধ বিষয়ক মন্ত্রণালয়ের একাদিক আদেশে ৫% কোটা ও বিনা বেতনে অধ্যয়নের কথা বলা হয়েছে কিন্তু দীর্ঘদিন ধরেই বেসরকারি স্কুল ও কলেজ কর্তৃপক্ষ মুক্তিযোদ্ধা পরিবারকে সুযোগ সুবিধা দিতে অনিহা, তারা এ সংস্কৃতি থেকে অনেক দূরে। চলতি শিক্ষাবর্ষ থেকে একাদশ শ্রেণিতে ৫% মুক্তিযোদ্ধা কোটা যথাযথ ভাবে অনুসরণ করছে কিনা দেশের প্রতিটি জেলা - উপজেলার বীর মুক্তিযোদ্ধা / সন্তান ও প্রজন্মকে খোঁজ খবর রাখার অনুরোধ করেন অহিদুল ইসলাম তুষার এবং কোথাও যদি তার ব্যত্যয় ঘটে তাহলে মাননীয় শিক্ষা মন্ত্রী এবং শিক্ষা প্রতিমন্ত্রী মহোদয় বরাবর কলেজের অধ্যক্ষের বিরুদ্ধে লিখিত অভিযোগ করার অনুরোধ করেন তিনি ।নিশ্চিত মৃত্যু জেনেও মহান মুক্তিযুদ্ধে অংশ নেওয়া বীর মুক্তিযোদ্ধা পরিবারের সদস্যদের রাষ্ট্র প্রদত্ত সুবিধা দিতে অনিহা দুঃখজনক এবং রাষ্ট্রের আইনকানুন নীতিমালা না মেনে যেসব শিক্ষা প্রতিষ্ঠান চলছে তাদের বিরুদ্ধে এবার লিখিত অভিযোগ দিবো , মি. অহিদুল ইসলাম তুষার যোগ করেন।

আরও খবর



উপজেলা চেয়ারম্যান ভাইস চেয়ারম্যানদের প্রথম সভা আজ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান, নাসিরনগর,ব্রাহ্মণবাড়িয়া:- ৩০মে ২০২৪ রোজ বৃহস্পতিবার  সকাল  ১০ ঘটিকায় সময়,উপজেলা প্রশাসনিক ভবনের চতুর্থ তলায়,উপজেলা পরিষদের প্রথম সভা অনুষ্ঠিত হয়।


সভার শুরুতেই উপজেলা পরিষদের নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান  রোমা আক্তার ও ভাইস চেয়ারম্যান দ্বয়দেরকে উপজেলা প্রশাসনের পক্ষ থেকে পৃথক পৃথক ভাবে ফুলেল শুভেচ্ছা জানিয়ে বরণ করে নেন উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোহাম্মদ ইমরানুল হক ভূঁইয়া।


এসময় নাসির নগর উপজেলার সকল ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান বৃন্দ ও ফুল দিয়ে বরণ করে নেন, উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান কে।


এ সময় স্বজন সংগঠনের পক্ষ থেকে উপজেলা পরিষদের নবনির্বাচিত চেয়ারম্যান  কে, স্বর্ণের হাড় উপহার দেন, প্রবীন মুরব্বি মোঃ বাবু মিয়া।

এছাড়াও উপস্থিত ছিলেন, বাংলাদেশ কৃষক লীগ কেন্দ্রীয় কার্যনির্বাহী কমিটির অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ নাজির মিয়া প্রমূখ।  এরপর সভার নিয়মানুযায়ী কার্যক্রম শুরু হয়।

   -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪