Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

হেলেনা জাহাঙ্গীর ১৩ দিন পর কারামুক্ত হলেন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩০৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দুই বছর দণ্ডিত প্রতারণা মামলায় আওয়ামী লীগের বহিষ্কৃত নেত্রী ও জয়যাত্রা টেলিভিশনের চেয়ারম্যান হেলেনা জাহাঙ্গীর জামিন পেয়ে কারামুক্ত হয়েছেন।

কাশিমপুর মহিলা কারাগারের ভারপ্রাপ্ত সিনিয়র সুপার মো. শাহজাহান মিয়া জানান, বুধবার রাতে আদালত থেকে হেলেনা জাহাঙ্গীরের মুক্তির কাগজপত্র কারাগারে পৌঁছে। বৃহস্পতিবার (১৬ নভেম্বর) বেলা পৌনে ১১টার দিকে তাকে মুক্তি দেওয়া হয়। ফলে গ্রেপ্তারের ১৩ দিন পরে কারামুক্ত হলেন হেলেনা জাহাঙ্গীর।

এর আগে বুধবার বিকালে ঢাকার মহানগর দায়রা জজ আদালতের বিচারক মো. আছাদুজ্জামান শুনানি শেষে হেলেনা জাহাঙ্গীরের জামিন মঞ্জুর করেন বলে জানান রাষ্ট্রপক্ষের অতিরিক্ত কৌঁসুলি তাপস কুমার পাল।

প্রতারণা মামলায় দুই বছরের কারাদণ্ড পাওয়া হেলেনা ২ নভেম্বর ঢাকার অতিরিক্ত মুখ্য মহানগর হাকিম তোফাজ্জল হোসেনের আদালতে আত্মসমর্পণ করলে তাকে কাশিমপুর কেন্দ্রীয় মহিলা কারাগারে পাঠানো হয়। কারাগারে তাকে রাইটার হিসেবে কাজ দেওয়া হয়।

উল্লেখ্য, ২০২১ সালের ২৯ জুলাই রাতে ঢাকার গুলশানে হেলেনা জাহাঙ্গীরের বাড়িতে অভিযান চালিয়ে তাকে গ্রেপ্তার করা হয়। পরে তার বিরুদ্ধে চারটি মামলা করা হয়। সেসব মামলায় তাকে বিভিন্ন মেয়াদে রিমান্ডে নিয়ে জিজ্ঞাসাবাদও করে পুলিশ। ২০২১ সালের নভেম্বর মাসে জামিনে মুক্তি পান হেলেনা।


আরও খবর



কোটা বাতিল আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:কোটা বাতিল আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই। আন্দোলনের নামে যা করা হচ্ছে তার যৌক্তিকতা আছে বলে মনে করি না,বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (৭ জুলাই) গণভবনে বেলা পৌনে ১১টায় গণভবনে যুব মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোটা বাতিলের আন্দোলন হচ্ছে। কোটা বন্ধ করা হয়েছিল। কিন্তু হাইকোর্টের রায়ে বহাল হয়েছে। পড়াশোনা বাদ দিয়ে ছেলেমেয়েরা আন্দোলন করছে। এর কোনো যৌক্তিকতা নেই।

মহিলা লীগের কর্মীদের পেনশন স্কিমে যোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবার জন্য পেনশন স্কিম করা হয়েছে। জীবনের নির্ভরতার জন্য পেনশন। আমরা চাই সবাই একটু ভালোভাবে বাঁচুক।

বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় যেভাবে নিযার্তন করেছে তা নিন্দারও যোগ্য নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, দলটি ভোট চুরি করে মাত্র দেড় মাস টিকেছে। গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে ২০০১ সালে ক্ষমতায় গিয়েছিল বিএনপি। ভোট চুরির অবপাদে ২ বার ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে তারা।

সরকারপ্রধান বলেন, বিএনপি সমাজের বোঝা, তাদের সন্ত্রাসী চেহারা মানুষের সামনে তুলে ধরতে হবে। বিএনপি-জামায়াত যেন আর ক্ষমতায় ফিরতে না পারে, সেজন্য মানুষকে সচেতন থাকতে হবে।


আরও খবর



চাকরিতে বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা নেই: জনপ্রশাসনমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ০৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জনপ্রশাসনমন্ত্রী ফরহাদ হেসেন জানিয়েছেন চাকরিতে বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা নেই বলে।বুধবার (৩ জুলাই) জাতীয় সংসদে প্রশ্নোত্তর পর্বে পিরোজপুর-৩ আসনের স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য শামীম শাহনেওয়াজের প্রশ্নের জবাবে জনপ্রশাসনমন্ত্রী এ কথা জানান। স্পিকার শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে প্রশ্নোত্তর টেবিলে উপস্থাপিত হয়।

জনপ্রশাসনমন্ত্রী বলেন, চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধি করা হলে বিভিন্ন পদের বিপরীতে চাকরি প্রার্থীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে। এতে ৩০ বছরের কম বয়সী প্রার্থীদের মধ্যে হতাশা সৃষ্টি হতে পারে। তাই সরকারি চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বাড়ানোর পরিকল্পনা সরকারের নেই।

তিনি বলেন, আগে বিশ্ববিদ্যালয়সহ বিভিন্ন শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানে বড় ধরনের সেশনজট থাকলেও বর্তমানে উল্লেখযোগ্য কোনো সেশনজট নেই বললেই চলে। শিক্ষার্থীরা ১৬ বছরে এসএসসিসহ ২৩-২৪ বছরে স্নাতকোত্তর ডিগ্রি লাভ করে থাকে।

ফরহাদ হেসেন বলেন, চাকরিতে প্রবেশের সর্বোচ্চ বয়সসীমা ৩০ বছর হলেও স্নাতকোত্তর ডিগ্রি অর্জনের পরও তারা আবেদনের জন্য কমপক্ষে ৬-৭ বছর সময় পেয়ে থাকে। এ ছাড়া ৩০ বছর বয়সসীমার মধ্যে একজন প্রার্থী আবেদন করলে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্ন হতে আরও ২-১ বছর লেগে যায়। ফলে চাকরিতে যোগদানের জন্য ন্যূনতম বয়স ৩০ বছর থেকে ৩৫ বছর করার যে দাবি করা হচ্ছে প্রকৃতপক্ষে তার কাছাকাছি পর্যায়ে উপনীত হয়।

জনপ্রশাসনমন্ত্রী বলেন, চাকরি থেকে অবসরের বয়সসীমা ৫৭ থেকে ৫৯ বছরে উন্নীত হওয়ায় বর্তমানে শূন্যপদের সংখ্যা স্বাভাবিকভাবেই কমে গেছে। এ প্রেক্ষাপটে চাকরিতে প্রবেশের বয়সসীমা বৃদ্ধি করা হলে বিভিন্ন পদের বিপরীতে চাকরি প্রার্থীর সংখ্যা ব্যাপক হারে বৃদ্ধি পাবে। এতে করে যাদের বয়স ৩০ বছরের ঊর্ধ্বে তারা চাকরিতে আবেদন করার সুযোগ পেলেও অনূর্ধ্ব ৩০ বছরের প্রার্থীদের মধ্যে হতাশা তৈরি হতে পারে।


আরও খবর



সুন্দরগঞ্জে তিস্তার পানিবন্দি ১'শ পরিবারের মাঝে খাদ্য সহায়তা

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image
শামছুল হক,সুন্দরগঞ্জ(গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃতিস্তার পানিবন্দি গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ১০০ পরিবারের মাঝে ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করেছে স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন সংযোগ ফাউন্ডেশন।বুধবার (১০ জুলাই) বিকেলে উপজেলার বেলকা ইউনিয়নের বেলকা নবাবগঞ্জ, কিসামত সদর, হরিপুর ইউনিয়নের চর চরিতাবাড়ি গ্রামের পানিবন্দি ১০০ পরিবারের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ করা হয়। 

সংযোগ ফাউন্ডেশনের অর্থায়নে প্রতি পরিবারের মাঝে ৩ কেজি চাল, ২ কেজি ডাল, আধা কেজি চিড়া, ২ প্যাকেট বিস্কুট, ২ পাতা পানি বিশুদ্ধকরণ ট্যাবলেট খাদ্য সহায়তা করা হয়।স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবি সংগঠন আরসিবি ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবিদের সহযোগিতায় পানিবন্দি পরিবারগুলোর বাড়ি বাড়ি গিয়ে এসব খাদ্য সামগ্রী পৌঁছে দেয়া হয়। 

ত্রাণ সামগ্রী বিতরণের সময় উপস্থিত ছিলেন সংযোগ ফাউন্ডেশনের ভলান্টিয়ার সাজ্জাদ হোসেন রিপন, হারুন অর রশিদ, আলী আহসান মুজাহিদ, রাসেল ইসলাম, আরসিবি ফাউন্ডেশনের সমন্বয়ক ডা. রফিকুল ইসলাম, উপদেস্টা ফেরদৌস সরকার, সভাপতি সরকার হোজায়ফা হাবিব, সাধারণ সম্পাদক হারুন অর রশিদ, সহ-সভাপতি নয়ন সরকার, সাংগঠনিক সম্পাদক কিফায়েত হোসেন আলিফ, কোষাধ্যক্ষ সাজ্জাদ হোসেন, দপ্তর সম্পাদক আতিকুর রহমান, প্রচার ও ডিজিটাল সম্পাদক শাহিন ইসলাম, পাঠাগার সম্পাদক রাকিবুল ইসলাম রাকিব, সাইফুল ইসলাম, ইয়াসিন আলী প্রমুখ।  
এদিকে, ত্রাণ সহায়তা পেয়ে সন্তোষ প্রকাশ করেন দুর্গতরা। শারমিন নামের এক গৃহবধু জানান, ১৫ দিন থেকে পানিতে আছি। খাবারের খুব সংকট ছিল। সংযোগ ফাউন্ডেশন যে খাবার দিলো তা নিয়ে বাচ্চাদের নিয়ে খেতে পারবো কয়েকদিন।জুনায়েদ আলী নামের এক গৃহকর্তা জানান, দুই সপ্তাহ ধরে পানিবন্দি। এখন পর্যন্ত কেউ আমাদের খোঁজ নেয় নি। ছেলেরা এসে যে খাবারগুলো দিলো তাতে আমার পরিবারের অনেক উপকার হলো। যা কথায় প্রকাশ করতে পারবো না। 

এই উদ্যোগ অব্যাহত রাখার কথা জানিয়েছে সংযোগ ফাউন্ডেশনের স্বেচ্ছাসেবি সাজ্জাদ হোসেন রিপন জানান, তিস্তায় বন্যা দূর্গত মানুষের জন্য আমরা খাদ্য সহায়তা দিলাম। তিস্তাপাড়ের বিভিন্ন স্থানে এই সহযোগিতা আমরা করছি। এটা অব্যাহত থাকবে। বানভাসি মানুষের পাশে দেশের সকল বিত্ববানদের এগিয়ে আসার আহবান জানান তিনি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



দুই বছরে পদ্মা সেতুর আয় ১৬০০ কোটি টাকা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৬২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আজ পদ্মা সেতুর দুই বছর পূর্ণ হয়েছে, পদ্মা সেতুতে এখন পর্যন্ত মোট টোল আদায় করা হয়েছে ১ হাজার ৬৪৮ কোটি টাকারও বেশি।সুবিধা ভোগ করছে ২১ জেলায় ৩ কোটি মানুষ। যান চলাচল শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় এক কোটি ২৭ লাখ যানবাহন পদ্মা সেতু পারাপার হয়েছে।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুপুরে রাজধানীর বনানীতে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের ১১৪তম বোর্ড সভা শেষে এই তথ্য জানান সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

ওবায়দুল কাদের বলেন, যান চলাচল শুরু হওয়ার পর থেকে এ পর্যন্ত প্রায় এক কোটি ২৭ লাখ যানবাহন পারাপার হয়েছে। মোট টোল আদায় হয়েছে প্রায় এক হাজার ৬৪৮ কোটি টাকারও বেশি। অর্থ বিভাগের সঙ্গে বাংলাদেশ সেতু কর্তৃপক্ষের ঋণ চুক্তি অনুযায়ী ছয় কিস্তিতে অর্থ বিভাগকে ৯৪৮ কোটি টাকা পরিশোধ করা হয়েছে।

এসময় আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক প্রধানমন্ত্রী অবকাঠামোগত উন্নয়নের চিত্র তুলে ধরে বলেন, পদ্মা সেতু নির্মাণের দুই বছরে এখন পর্যন্ত নির্মাণ ব্যয়ের ১৫০০ কোটি টাকা সরকার সাশ্রয় করতে পেরেছে। আগামী ২৭ জুন সপ্তম ও অষ্টম কিস্তি বাবদ ৩১৪ কোটি টাকার চেক প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার মাধ্যমে অর্থ বিভাগকে হস্তান্তর করা হবে বলেও জানান তিনি।

এছাড়া সরকারের অন্যান্য প্রকল্পের অগ্রগতি দৃশ্যমান উল্লেখ করে সেতুমন্ত্রী বলেন, ঢাকা এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ে নিয়ে জানানো হয়, এটি পাবলিক-প্রাইভেট পার্টনারশিপ (পিপিপি) ভিত্তিক দেশের বৃহত্তম প্রকল্প। প্রকল্পটি হযরত শাহজালাল বিমানবন্দরের দক্ষিণে কাওলা হতে শুরু হয়ে ঢাকা-চট্টগ্রাম মহাসড়কের কুতুবখালী পর্যন্ত যাবে। প্রকল্পের মোট ব্যয় আট হাজার ৯৪০ কোটি টাকা। প্রকল্পের মূল দৈর্ঘ্য ১৯ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার। র‌্যাম্পসহ এলিভেটেড এক্সপ্রেসওয়ের মোট দৈর্ঘ্য ৪৬ দশমিক ৭৩ কি. মি.। গত বছর ৩ সেপ্টেম্বর প্রকল্পের হযরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমান বন্দরের দক্ষিণে কাওলা থেকে ফার্মগেট পর্যন্ত যান চলাচলে জন্য উন্মুক্ত করা হয়। ইতোমধ্যে ওঠা-নামার জন্য মোট ১৬টি র‌্যাম্প (এয়ারপোর্ট দুটি, কুড়িলে তিনটি, বনানীতে চারটি, মহাখালীতে তিনটি, বিজয় সরণিতে দুটি, ফার্মগেটে একটি ও এফডিসি গেট সংলগ্ন একটি) যান চলাচলের জন্য উন্মুক্ত করা হয়েছে। এক্সপ্রেসওয়েতে গাড়ির সর্বোচ্চ গতিসীমা আপাতত প্রতি ঘণ্টায় ৬০ কিলোমিটার। প্রকল্পের সার্বিক অগ্রগতি শতকরা ৭৪ দশমিক ৮১ ভাগ।

এই সময় সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে ওবায়দুল কাদের বলেন, খালেদা জিয়ার অসুস্থতা নিয়ে বিএনপি অসুস্থ রাজনীতি চর্চায় ব্যস্ত সময় পার করছে, হত্যার রাজনীতি শুরু করেছে বিএনপির প্রতিষ্ঠাতা।

তিনি আরও বলেন, যে দল দিল্লিতে লাল গালিচার সংবর্ধনা নিয়ে দেশে এসে অন্যতম গঙ্গার পানি চুক্তির কথা ভুলে যায় তাদের নিয়ে কোনো বক্তব্য করতে চাই না।


আরও খবর



উলিপুরে ২ হাজার ৮০০ কেজি কোরবানির মাংস বিতারণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image
সহিদুল আলম বাবুল, কুড়িগ্রাম ব্যুরো:কুড়িগ্রামের উলিপুরে অসহায় ১৪ শত পরিবারের মাঝে ২ হাজার ৮০০ কেজি কুরবানির মাংস বিতরণ করা হয়েছে। আন্তজাতিক সংস্থা ইসলামিক রিলিফ নাংলাদেশ উলিপুর ফিল্ড অফিসের আয়োজনে এ মাংস বিতরণ কর্মসূচি অনুষ্ঠিত হয়।কুড়িগ্রাম জেলার উলিপুর উপজেলার হাতিয়া, বুড়াবুড়ী, ধরনীবাড়ী, পান্ডুল এবং দুর্গাপুর ইউনিয়নের মোট ১হাজার ৪০০ অসহায় পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ২কেজি করে কোরবানির মাংস বিতারণ করা হয়।

কোরবানির মাংস বিতরণের সময় সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান ও ইউপি সদস্যগন উপস্থিত ছিলেন। এছাড়াও এলাকার গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ এবং ইসলামি রিলিফ বাংলাদেশ উলিপুর অফিসের প্রতিনিধি প্রজেক্ট ম্যানেজার মোঃ শরিফুল ইসলাম, সহকারি প্রজেক্ট অফিসার মোঃ হাবিবুর রহমান ও মোঃ আব্দুস সালাম কুরবানীর মাংস বিতরণকালে উপস্থিত ছিলেন।ইসলামী রিলিফ বাংলাদেশ ইতোপূর্বেও এ অঞ্চল গুলোতে কুরবানীর মাংস বিতরণ করে আসছে lইসলামী দিলীপ বাংলাদেশের এই মহতী উদ্যোগকে স্থানীয় গণ্যমান্য ব্যক্তিরা সাধুবাদ জানিয়ে বলেন, ইসলামী রিলিক বাংলাদেশের এ কার্যক্রম অব্যাহত থাকুক।

আরও খবর