Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

একরামুজ্জামানকে মাঠে পেয়ে নেতাকর্মী সমর্থকদের বাঁধভাঙ্গা উচ্ছাস

প্রকাশিত:সোমবার ১১ ডিসেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ২০৭জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নানঃব্রাহ্মণবাড়িয়া ১ সংসদীয় ২৪৩ নাসিরনগর আসনে স্বতন্ত্র প্রার্থী ও বিশিষ্ট্য শিল্পপতি আলহাজ্ব সৈয়দ একরামুজ্জামানকে মাঠে ও কাছে পেয়ে আওয়ামী লীগ ও বি এন পি উভয় দলের নেতা কর্মীদের মাঝে যেন বইছে বাঁধভাঙ্গা জোয়ারের উচ্ছাস।

আওয়ামী লীগের ত্যাগী ও প্রবীন নেতাকর্মীরা এতদিন যারা গাঢাকা দিয়ে ছিলেন এখন তারাও অনেকেই স্বতন্ত্র প্রার্থী একরামুজ্জামানের সাথে প্রকাশ্যে নির্বাচনী মাঠে সক্রিয় ভাবে কাজ করতে শুরু করেছেন।

গত শনিরার স্বতন্ত্র প্রার্থী একরামুজ্জামান এলাকায় আসলে শুরু হয় তাকে ফুল দিয়ে বরণ।এসময় কেন্দ্রীয় কৃষকলীগের  অর্থ বিষয়ক সম্পাদক আলহাজ্ব মোঃ নাজির মিয়া,উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ সভাপতি রোমা আক্তার,উপজেলা ছাত্রলীগের সিনিয়র সহ সভাপতি আরমান নুর তাকে ফুলেল শুভেচ্ছা জানান।

পরে বিকেলে নাসিরনগর উপজেলা পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান ও সাবেক আওয়ামীলীগের  সাধারণ সম্পাদক এটিএম মনিরুজ্জামান সরকার তার ব্যাক্তিগত অফিসে তার কর্মী সমর্থদের নিয়ে একরামুজ্জামানকে ফুলের মালা দিয়ে বরণ করে নেন।

তাছাড়াও একরামুজ্জামানকে বরণ করতে চাতলপাড় ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ রফিকুল ইসলাম এক লঞ্চ ভর্তি লোক নিয়া এসে সমর্থন জানায়,চাতলপাড় ইউপি চেয়ারম্যার ছাড়াও ফান্দাউক ইউপি চেয়ারম্যান ফারুকুজ্জামান,বুড়িশ্বর ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল চৌধুরী,গোর্কণ ইউপি চেয়ারম্যান  সৈয়দ শাহিন,গুনিয়াউকের সাবেক চেয়ারম্যান গোলাম চামদানী পিয়ারু,নাসিরনগর সদরের সাবেক চেয়ারম্যান শেখ আব্দুল আহাদ,উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি হাজী মোঃ অলি মিয়া,সাধারণ সম্পাদক নুরে আলম,সাংগঠনিক সম্পাদক এড মিজান,এড লিয়াকত আলী,এড মুহিত,সাবেক নাসিরনগর উপজেলা ছাত্রলীগের সভাপতি মোঃ আসাদুজ্জামান চৌধুরী,সাবেক উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান অঞ্জন কুমার দেব,সাবেক জেলা পরিষদ সদস্য রেবা আক্তার,আওয়ামীরীগনেতা গোলাম আলী ও গোলাম হোসেন প্রমুখ।

ওইদিন প্রিয় নেতাকে বরণ করতে  নাসিরনগর থেকে ধরন্তী পর্যন্ত চলে গণমানুষের ঢল।ধরন্তী,কুন্ডা,দাঁতমন্ডল,ধনকুড়া,কলেজ মোড়,খেলার মাঠের কোনায় দফায় দফায় লোকজন ফুল ও মালা দিয়ে বরণ করে নেয় প্রিয় নেতাকে।

আর জাতীয়তাবাদী দল বিএনপির পদ পদবী ওয়ালা মুষ্টিমেয় হাতে গোনা কয়েকজন নেতাছাড়া অন্যরাও সবাই একরামুজ্জামানকে সমর্থন জানিয়েছে।সব মিলিয়ে স্বতন্ত্র প্রার্থীকে কাছে পেয়ে নাসিরনগরের উভয় দলের নেতাকর্মী সমর্থক সাধারণ ভোটারদের মাঝে আনন্দের বন্য বইতে শুরু করেছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



মোরেলগঞ্জে কর্মজীবী নারীদের মাঝে সেলাইমেশিন বিতরন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৪জন দেখেছেন

Image
শেফালী আক্তার রাখি,মোরেলগঞ্জ প্রতিনিধি:বাগেরহাটের মোরেলগঞ্জে কর্মজীবী নারীদের মাঝে সেলাইমেশিন বিতরণ করা হয়েছে। বৃহস্পতিবার বেলা ১০ টার দিকে স্থানীয় সংসদ সদস্য এইচ এম বদিউজ্জামান সোহাগ নির্বাচিত ওই নারীদের হাতে সেলাইমেশিন তুলে দেন। নিশানবাড়িয়া ইউনিয়ন পরিষদের উদ্যোগে মেশিনগুলো বিতরণ করা হয়। 

উপজেলা আওয়ামী লীগের সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. লিয়াকত আলী খান, সাধারণ সম্পাদক এম এমদাদুল হক, ভাইস চেয়ারম্যান মোজাম্মেল হক, ইউনিয়ন চেয়ারম্যান মো.সাইফুল ইসলাম হাওলাদার, পরিষদের সদস্য আব্দুর রহিম ও মোস্তাফিজুর রহমান বাবুল এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



নারী- পুরুষ সবারই কাদামাটির গন্ধমাখা শরীর

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৬জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ,মেহেরপুরঃকঠোর পরিশ্রম আর নিপুন হাতের ছোঁয়ায় মাটির তৈরী জিনিসপত্রে নিপুনতার ছাপ ও সৌন্দর্য থাকলেও মলিন পোশাক, ও রোগ ব্যধির ফলে দ্রুত আসা বার্ধক্য একটা মলিন আবরণ ফেলে দিয়েছে গাংনীর আমতৈল কুমোরদের জিবনে। দিন রাত পরিশ্রম করেও দারিদ্রের কষাঘাত থেকে মুক্ত হতে পারছে না তারা। অভাব যেনো হা করে আসছে ওদের গিলে খেতে। কঠোর পরিশ্রমে চলে এদের সংসার। একদিকে মাটি ও আনুষাঙ্গিক জিনিসের দাম বেড়েছে অন্যদিকে প্লাস্টিকের চমক প্রদ দ্রব্যাদির চাহিদা বেড়ে যাওয়ায় নিপুন শিল্পকর্ম খচিত মাটির জিনিষের কদর কমে গেছে। তার পরও নিজেদের জীবন জীবিকার তাগিদে কোন রকমে এ পেশায় নিয়োজিত রয়েছেন তারা।

মেহেরপুর জেলার গাংনী উপজেলা শহর থেকে ৮ কিলোমিটার দুরে আমতৈল গ্রাম। গ্রামের ২৭টি কারখানায় শতাধিক পরিবারের লোকজন মৃৎ শিল্পের সাথে জড়িত। নারী-পুরুষ সবারই কাদামাটির গন্ধমাখা শরীর। এদের নিপুন হাতের শিল্পকর্মে তকতকে কাদামাটি হয়ে উঠে নিত্য ব্যবহার্য বাসন পত্র, নানা দেব- দেবীর মূর্তি। ফুলের টব, নান্দা, খেলনাসহ কারু কাজ করা শোপিচ তৈরী করে বিক্রি করতো এ পেশায় নিয়োজিতরা। এনামেল ও প্লাস্টিকের তৈরী জিনিষের কদর বেড়ে যাওয়ায় মাটির তৈরী জিনিষের এখন আর সেই কদর নেই। এখন পয়ঃনিষ্কাশনের জন্য তৈরী করা হচ্ছে মাটির পাট বা স্লাব।

পালপাড়ার জগন্নাথ পালের স্ত্রী সুমিতা (৫৮) জানান, কিশোর বয়সে মনের অজান্তেই মা- বাবার দেখা দেখিতে এই কুমোর জিবনে জড়িয়ে গেছি। রাত দিন কাদামাটির কাজ করে যেন হয়ে গেছি মাটির মানুষ। সংসারে রয়েছে ৬ মেয়ে ২ ছেলে। জমি জিরাত নেই। একাজ করে যা আয় হয় তা দিয়ে সংসারের ব্যয় নির্বাহ হয় না। তার পরও বাধ্য হয়ে এ পেশায় নিয়োজিত।

কর্ণপালের ছেলে মঙ্গল কুমোর জানালেন, আগে মাঠ থেকে মাটি সংগ্রহ করা যেতো।এখন তা সম্ভব হচ্ছে না। মাটির দাম বেড়েছে। আগে এক ট্রলি মাটির দাম ছিল ২০০ টাকা। এখন তা বেড়ে হয়েছে ১৫০০ টাকা। বছর খানেক আগে এক ট্রলি খড়ির (জ¦ালানী) দাম ছিল ৫০০ টাকা এখন সেই খড়ি বা জ¦ালানীর দাম ১০০০ টাকা। মন প্রতি গার্মেন্টস্ধসঢ়; ফ্যাক্টরীর ঝুট কিনতে হচ্ছে ৬০০ টাকায়। অন্যান্য জিনিষের দাম বাড়লেও মাটির তৈরী জিনিষের দাম বাড়েনি। তার পরও পৈত্রিক পেশা টিকিয়ে রাখতে এটিকে ছাড়তে পারেননি।

মৃৎ শিল্পের অন্যতম ব্যবসায়ি জমসেদ আলী জানান, অনেক মৃৎ শিল্পীর নিজস্ব জমি নেই। কারখানার মালামাল তৈরী ও চুলার জন্য জমি লীজ নিতে হয়। এক বিঘা জমি লীজ নিতে বাৎসরিক ৪০ থেকে ৪৫ হাজার টাকা দিতে হয়। বছরের মাত্র ৮ থেকে ৯ মাস চলে এ ব্যবসা।

অনেক কুমোর বিভিন্ন সমিতি থেকে ঋণ নিয়ে মৃৎ শিল্পে বিনিয়োগ করেছেন। আনুষঙ্গিক খরচ মিটিয়ে এমন কোন টাকা থাকে না যা দিয়ে সমিতির কিস্তি পরিশোধ করবেন। সরকার যদি স্বল্প সুদে কুমোরদের ঋণের ব্যবস্থা করতো তাহলে সকলেই স্বাবলম্বী হতে পারতো।


আরও খবর



আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু ইজতেমার প্রথম পর্ব

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

তরিকুল ইসলাম:আমবয়ানের মধ্য দিয়ে শুরু ইজতেমার প্রথম পর্ব,টঙ্গীর তুরাগ তীরে চলছে মুসলিম বিশ্বের দ্বিতীয় বৃহত্তম জমায়েত বিশ্ব ইজতেমা।শুক্রবার (২ ফেব্রুয়ারি) ফজর নামাজের পর পাকিস্তানের মাওলানা আহমদ বাটলার আমবয়ানের মধ্য দিয়ে বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্ব শুরু করেন।আর তা তাৎক্ষণিকভাবে বাংলায় তরজমা করছেন মাওলানা নুরুর রহমান।

আজ ভোরে এ তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ব ইজতেমার প্রথম পর্বের মিডিয়া সমন্বয়ক মো. হাবিবুল্লাহ রায়হান।

মো. হাবিবুল্লাহ রায়হান তিনি বলেন, মাওলানা আহমদ বাটলা সাহেবের বয়ানের পর সকাল ১০টায় তালিম করবেন পাকিস্তানের মাওলানা জিয়াউল হক সাহেব। তার তালিমের পরপরই দেশের বৃহত্তম জুমার নামাজের প্রস্তুতি শুরু করা হবে। শুক্রবার জুমার নামাজ পড়াবেন মাওলানা জুবায়ের সাহেব।

মো. হাবিবুল্লাহ রায়হান তিনি আরও বলেন, জুমার নামাজের পর বয়ান করবেন জর্ডানের মাওলানা খতিব সাহেব, আছরের নামাজের পর বাংলাদেশের হাফেজ মাওলানা জুবায়ের সাহেব ও মাগরিবের পর ভারতের মাওলানা আহমদ লাট সাহেব বয়ান করবেন।

বিশ্ব ইজতেমা ময়দানসহ আশপাশের এলাকা শীত ও বৃষ্টিসহ নানা ভোগান্তি উপেক্ষা দেশবিদেশের বিভিন্ন প্রান্তের মুসল্লিদের পদচারণায় মুখর হয়ে উঠেছে। ইজতেমার প্রথম পর্ব শেষ হবে আগামী রোববার আখেরি মোনাজাতের মধ্য দিয়ে। ৯ ফেব্রুয়ারি দ্বিতীয় পর্বের ইজতেমা শুরু হবে। ইতোমধ্যে মুসল্লির আগমনে কানায় কানায় পূর্ণ হয়ে গেছে ইজতেমা ময়দান।

মো. মাহবুব আলম গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের কমিশনার বলেন, বিশ্ব ইজতেমা ঘিরে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। ইজতেমায় গাজীপুর মেট্টোপলিটন পুলিশের ছয় হাজার সদস্যের পাশাপাশি র‌্যাব, ঢাকা মেট্টোপলিটন পুলিশ এবং সাদা পোশাকে গোয়েন্দা বাহিনীর পর্যাপ্ত সংখ্যক আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য দায়িত্ব পালন করছেন।

উল্লেখ্য,ইজতেমায় এ পর্যন্ত তিনজন মুসল্লির মৃত্যু হয়েছে। গত বুধবার দুজন ও বৃহস্পতিবার একজন মুসল্লির মৃত্যু হয়।


আরও খবর



জয়ার সিনেমা ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:জয়া আহসানের সিনেমা ইরান জয় করল। বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ-প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ সিনেমাটি ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে জয়া আহসান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে খবরটি নিশ্চিত করেছেন। চলচ্চিত্রটি মানবিক দৃষ্টিভঙ্গির জন্য ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে।

জয়ার ফেসবুক পোস্ট থেকে জানা যায়, প্রতি বছর ফজর চলচ্চিত্র উৎসবের পর, মানবাধিকার, শিক্ষা, পরিবেশ, দাতব্য কাজ ইত্যাদি বিভাগে ‘জাতীয় ইচ্ছার প্রতিফলন/বহিঃপ্রকাশ’ নামে সমাজের জন্য অনুকরণীয় চলচ্চিত্রগুলোকে জাতীয় পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এই পুরস্কারটি ‘খয়র-ই-মান্দেগার’ নামক একটি প্রতিষ্ঠান দ্বারা প্রদান করা হয়, যা ইরানের সমস্ত দাতব্য প্রতিষ্ঠান, দাতা, এনজিওর প্রতিনিধিত্ব করে এবং প্রতিষ্ঠানটি ইরানে ইউনিসেফের মতো সক্রিয়। এই পুরস্কারের পাশাপাশি ‘ফেরেশতে’ চলচ্চিত্রের প্রধান দুই অভিনেতা জয়া আহসান ও সুমন ফারুককে ‘খয়র-ই-মান্দেগার’ স্মারক প্রদান করে সম্মানিত করা হয়।

সিনেমাটির পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম। চিত্রনাট্য লিখেছেন, বাংলাদেশের মুমিত আল-রশিদ। ফারসি ও বাংলা অনুবাদ করেছেন মুমিত আল-রশিদ ও ফয়সাল ইফরান। যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ সিনেমাতে সহপ্রযোজক হিসেবে আছে ইমেজ সিনেমা, সি তে সিনেমা এবং ম্যাক্সিমাম এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ।

এ চলচ্চিত্রে জয়া আহসান ও সুমন ফারুক ছাড়াও বাংলাদেশের আরও বেশ কজন শিল্পী রিকিতা নন্দিনী শিমু, শহীদুজ্জামান সেলিম, শাহেদ আলী, শাহীন মৃধা, শিশুশিল্পী সাথী অভিনয় করেছেন।


আরও খবর



নৌকার পক্ষে জাল ভোট দিতে গিয়ে পুলিশের হাতে দুই তরুন আটক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

নওগাঁ প্রতিনিধি:স্থগিত হওয়া নওগাঁ-২ আসনের নির্বাচনে জাল ভোট দিতে গিয়ে দুই তরুণকে আটক করেছে পুলিশ। সোমবার (১২ জানুয়ারি) দুপুর আড়াইটার দিকে জেলার ধামইরহাট উপজেলার আলমপুর ইউনিয়নের বস্তাবর দাখিল মাদ্রাসা কেন্দ্র থেকে তাদের আটক করা হয়। 

আটকরা হলেন, ধামইরহাট উপজেলার বীরগ্রামের সাজেদুরের ছেলে মাহমুদুর (১৯) ও একই এলাকার আব্দুল আলিমের ছেলে কারিমুল হোসেন (১৪)।  এদের মধ্যে একজনের বুকে নৌকার ব্যাজ দেখা যায়। বিষয়টি নিশ্চিত করেন ওই কেন্দ্রের প্রিজাইডিং কর্মকর্তা আরিফুর রহমান। এর আগে সকাল ৮টা থেকে ১২৪টি কেন্দ্রে ভোট গ্রহণ শুরু হয় যা চলে বিকাল ৪টা পর্যন্ত। এখন চলছে গণনা।

নির্বাচনে আওয়ামীলীগ মনোনীত শহীদুজ্জামান সরকার, জাতীয়পার্টির তোফাজ্জল হোসেন,  ট্রাক প্রতীকের স্বতন্ত্র প্রার্থী আখতারুল আলম ও আরেক স্বতন্ত্র প্রার্থী মেহেদী মাহমুদ রেজা প্রতিদ্বন্দ্বিতা করেন। এই আসনের মোট ভোটার ছিল ৩ লাখ ৫৬ হাজার ১৩২জন। 

ধামইরহাট ও পত্নীতলা উপজেলা নিয়ে গঠিত নওগাঁ-২ আসন। গত ২৯ ডিসেম্বর এই আসনের স্বতন্ত্র প্রার্থী আমিনুল হকের মৃত্যুতে নির্বাচন স্বগিত ঘোষনা করা হয়। এরপর নতুন করে আবারো নির্বাচনের তারিখ ঘোষনা করেন নির্বাচন কমিশন।


আরও খবর