Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

দেশে ডেঙ্গুতে ৮০০-র বেশি মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১৬ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ২৮০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশে ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে ১৪ জনের মৃত্যু হয়েছে। এ নিয়ে চলতি বছর ডেঙ্গুতে মৃতের সংখ্যা দাঁড়াল ৮০৪ জনে। এই সময়ে নতুন করে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন দুই হাজার ৫৯৮ জন।শনিবার (১৬ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের হেলথ ইমার্জেন্সি অপারেশন সেন্টার ও কন্ট্রোল রুমের প্রতিবেদনে এ তথ্য জানানো হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তর জানায়, শুক্রবার সকাল ৮টা থেকে শনিবার সকাল ৮টা পর্যন্ত ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে দেশের বিভিন্ন সরকারি-বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন দুই হাজার ৫৯৮ জন। এদের মধ্যে ঢাকার বাসিন্দা ৮৮১ জন এবং ঢাকার বাইরের ১ হাজার ৭১৭ জন।

চলতি বছর মারা যাওয়া ডেঙ্গুরোগীদের মধ্যে নারী ৪৬৯ জন ও পুরুষ ৩৩৫ জন। ঢাকার বাইরে মারা গেছেন ২৫২ জন এবং রাজধানীতে ৫৫২ জন।বর্তমানে দেশের বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে সর্বমোট ভর্তি থাকা ডেঙ্গু রোগীর সংখ্যা ১০ হাজার ৩৩০ জন। ঢাকার বিভিন্ন সরকারি ও বেসরকারি হাসপাতালে ভর্তি আছেন ৪ হাজার ২০৮ জন এবং ঢাকার বাইরে ৬ হাজার ১২২ জন।

চলতি বছরের এ পর্যন্ত ১ লাখ ৬৪ হাজার ৫৬২ জন ডেঙ্গু রোগী হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন। এর মধ্যে রাজধানীতে ৭২ হাজার ৩৮৪ জন এবং ঢাকার বাইরে ৯২ হাজার ১৭৪ জন।ভর্তি রোগীর মধ্যে পুরুষ আক্রান্ত ১  লাখ ৭৮২ জন এবং নারী ৬৩ হাজার ৭৮০ জন। সুস্থ হয়ে বাড়ি ফিরেছেন ১ লাখ ৫৩ হাজার ৪২৮  জন।


আরও খবর



মানুষের কল্যাণে কাজ করতে সবশ্রেণির মানুষের কাছে পরামর্শ চাইলেন, পুষ্প

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image

ঠাকুরগাঁও প্রতিনিধি:দেশ ও মানুষের কল্যাণে কাজ করতে সবশ্রেণির মানুষের কাছে পরামর্শ চাইলেই হরিপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম পুষ্প। 

তিনি বলেন, আমাদের প্রতিটি কাজের পেছনের মূল উদ্দেশ্য থাকবে মানুষের কল্যাণ করা।মানুষ অনেক প্রত্যাশা নিয়ে আমাদের পাশে দাঁড়িয়েছে। তাদের প্রত্যাশা পূরণ করা আমাদের দায়িত্ব।

৩০শে মার্চ বৃহস্পতিবার বেলা ১১টার সময় হরিপুর  উপজেলা পরিষদ অডিটোরিয়াম হলে উপজেলা পরিষদর নব নির্বাচিত চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম পুষ্প দায়িত্ব গ্রহণ এবং মাসিক সভা এর আয়োজনকালে এইসব কথা বলেন।

উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুম পুষ্প এর সভাপতিত্বে সভায় উপস্থিত ছিলেন,  ঠাকুরগাঁও-২ (হরিপুর-বালিয়াডাঙ্গী) আসনের সংসদ সদস্য মাজহারুল ইসলাম সুজনএমপি। উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফুজ্জামান, আওয়ামীলীগ এর সাধারণ সম্পাদক এসএম আলমগীর,   নব নির্বাচিত ভাইস (পুরুষ) অধ্যক্ষ রিয়াজুল ইসলাম সরকার, নব নির্বাচিত (মহিলা) আসিয়া খাতুনসহ সরকারি -বেসরকারি কর্মকর্তা, শিক্ষক, রাজনৈতিক, সাংবাদিকসহ বিভিন্ন শ্রেণী পেশার সুধীজন। 

উদীয়মান এই তরুণ আইকন পুষ্প বলেন, আমরা সবাই বঙ্গবন্ধুর আদর্শের কর্মী, আমরা দেশরত্ন শেখ হাসিনার লোক এটিই আমাদের বড় পরিচয়। এর মাঝে যারা নিজস্ব বলয় তৈরির চেষ্টা করবেন তারা ভুল করবেন। আপনারা নিজ নিজ এলাকার সমস্যাগুলো চিহ্নিত করুন। মানুষের সাথে কথা বলুন, তাদের চাওয়াগুলোর প্রতি সম্মান জানান, সেগুলো পূরণ করার জন্য আমরা আন্তরিকভাবে কাজ করতে চাই।

বিশেষ করে রাস্তা, স্বাস্থ্য, শিক্ষা প্রতিষ্ঠান উন্নয়নসহ জনসাধারণের হয়রানি মুক্ত শান্তি প্রিয় উপজেলা গঠন করতে সবার সহযোগিতা চাইলেন তিনি।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, রানুর ভরাডুবি, বিজয়ী হাবিব

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৭৮জন দেখেছেন

Image

আবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি:দ্বিতীয় ধাপে ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে দোয়াত কলম প্রতীকের প্রার্থী হাবিবুর রহমান হাবিব বিপুল ভোটে বিজয়ী হয়েছেন। হাবিবুর রহমান হাবিব (১ লাখ ১৮ হাজার ৬৪১) ভোট পেয়ে বেসরকারিভাবে নির্বাচিত হয়েছেন। তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দী আনারস প্রতীকের আবু হোসেন ভুইয়া রানু (২১ হাজার ২৫৪ ) ভোট পেয়ে পরাজিত হয়েছেন। 

ফলাফল ঘোষণা করেন, রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী অফিসার ও সরকারি রিটার্নিং অফিসার আহসান মাহমুদ রাসেল।

মঙ্গলবার সকাল ৮ থেকে বিকেল ৪ টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট চলাকালীন সময় কোথাও কোন বিশৃঙ্খলা বা অপ্রীতিকর ঘটনা ঘটেনি।

এছাড়া কোন প্রতিদদ্বন্ধি না থাকায় বে-সরকারী ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন ভাইস চেয়ারম্যান পদে রংধনু গ্রুপের পরিচালক ও জেলা পরিষদের সাবেক সদস্য আলহাজ্ব মিজানুর রহমান মিজান ও মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে রূপগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী যুবমহিলা লীগের সভাপতি ফেরদৌসি আক্তার রিয়া।

জানা গেছে, ২১ মে রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনকে ঘিরে উৎসবমূখর পরিবেশ বিরাজ করেছে। এবারের উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে প্রতিদ্বন্দীতা করেছেন উপজেলা আওয়ামীলীগের কার্যকরী সদস্য আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিব দোয়াত কলম প্রতীকে ও রূপগঞ্জ ইউনিয়নের সাবেক চেয়ারম্যান আবু হোসেন ভুইয়া রানু আনারস প্রতীকে নির্বাচন করেছেন। তবে হাবিব সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) সঙ্গে উন্নয়ন কাজে নিয়োজিত থাকায় এবং সামনে দ্বিগুন উন্নয়নের জন্য এবার উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হিসেবে আলহাজ¦ হাবিবুর রহমান হাবিবকেই চেয়েছিলো স্থানীয় ভোটররা। ভোটের দিনও কথা রেখেছে ভোটররা। হাবিবের বিপুল ভোটে জয়ই তার প্রমাণ। 

এদিকে, নির্বাচনে ভোটের মাঠে ভরাডুবির শঙ্কা ছিল আনারস প্রতীকের প্রার্থী আবু হোসেন ভুইয়া রানু। এ কারণে তিনি নির্বাচনে ভরাডুবির কথা চিন্তা করে প্রচার প্রচারনা চালাননি। সেই শঙ্কাই বাস্তবে রূপ নিলো আবু হোসেন ভুইয়া রানুর ক্ষেত্রে। (৯৭ হাজার ৩৮৭ ) ভোটের ব্যবধানে রানুর পরাজয়ই তার প্রমাণ।

ভোটাররা জানান, সাবেক পাট ও বস্ত্রমন্ত্রী এবং নারায়ণগঞ্জ-১ (রূপগঞ্জ) আসনের সংসদ সদস্য গোলাম দস্তগীর গাজী (বীর প্রতীক) এর নেতৃত্বে গত ১৫ বছরে রূপগঞ্জে রাস্তাঘাট, ফ্লাইওভার নির্মাণ, সেতু নির্মাণ, স্কুল-কলেজ, মসজিদ মাদ্রাসা, মন্দিরের নতুন ভবন নির্মাণ, নতুন নতুন শিল্প কলকারখানা গড়ে উঠা, কর্মসংস্থান বৃদ্ধি, শিক্ষার মানউন্নয়নসহ নানা উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ড হয়েছে। এতে দিনরাত অক্লান্ত পরিশ্রম করতে হয়েছে। এ পরিশ্রমের অংশীদার হয়েছেন আলহাজ্ব হাবিবুর রহমান হাবিব। তিনি গোলাম দস্তগীর গাজীর সঙ্গে থেকে রাত দিন পরিশ্রম করে এ উন্নয়ন কাজ এগিয়ে নিয়ে গেছেন। এ জন্য এসব উন্নয়নে হাবিবুর রহমান হাবিবের অবদান রয়েছে। তাই হাবিবুর রহমান হাবিবকেই ভোট দিয়ে উপজেলা পরিষদের নির্বাচনে চেয়ারম্যান হিসবে বিজয়ী করেছি।

রূপগঞ্জ উপজেলা নির্বাচন অফিসার তাজাল্লী ইসলাম বলেন, কোন প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়া রূপগঞ্জ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন সুষ্ঠু ও শান্তিপূর্ণভাবে ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। নির্বাচনকে কেন্দ্র করে বিপুল পরিমাণ আইন শৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য মোতায়েন করা ছিলো।

         -খবর প্রতিদিন/ সি.ব

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




৩ নম্বর সংকেত জারি সমুদ্র বন্দরে

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আবহাওয়া অধিদপ্তর দেশের চারটি সমুদ্র বন্দরে তিন নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলেছে।বুধবার (১৯ জুন) আবহাওয়ার এক সতর্কবার্তায় সংস্থাটি এ সতর্কবার্তা জারি করে।

আবহাওয়া অধিদপ্তরের সতর্কবার্তায় জানানো হয়, সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় গভীর সঞ্চালনশীল মেঘমালা সৃষ্টি হচ্ছে। উত্তর বঙ্গোপসাগর, বাংলাদেশের উপকূলীয় এলাকা এবং সমুদ্র বন্দরগুলোর ওপর দিয়ে ঝোড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে।

এ কারণে চট্টগ্রাম, কক্সবাজার, মোংলা ও পায়রা সমুদ্র বন্দরকে ৩ নম্বর স্থানীয় সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এছাড়া উত্তর বঙ্গোপসাগরে অবস্থানরত মাছ ধরার নৌকা ও ট্রলারকে পরবর্তী নির্দেশ না দেওয়া পর্যন্ত উপকূলের কাছাকাছি এসে সাবধানে চলাচল করতে বলা হয়েছে।

এদিকে সক্রিয় মৌসুমি বায়ুর প্রভাবে দেশের চারটি বিভাগে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টি হতে পারে বলে আভাস দিয়েছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সেইসঙ্গে দুই বিভাগে ভারী বৃষ্টির কারণে ভূমিধসের শঙ্কার কথাও জানানো হয়েছে।


আরও খবর



অনেক হয়রানির মধ্যে আছি: ড. ইউনূস

প্রকাশিত:বুধবার ১২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেছেন, আদালতে শুনানি চলাকালে একজন নিরপরাধ নাগরিকের একটা লোহার খাঁচার ভেতরে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকার বিষয়টি অত্যন্ত অপমানজনক। এখন আমি অনেক হয়রানির মধ্যে আছি।

বুধবার (১২ জুন) ঢাকার বিশেষ জজ আদালত-৪ প্রাঙ্গণে গণমাধ্যমকর্মীদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এ মন্তব্য করেন।

ড. মুহাম্মদ ইউনূস বলেন, আজকে সারাক্ষণ খাঁচার মধ্যে ছিলাম আমরা সবাই মিলে। যদিও আমাকে বলা হয়েছিল যে, আপনি থাকেন। আমি বললাম, সবাই যাচ্ছে, আমিও সঙ্গে থাকি। সারাক্ষণই খাঁচার ভেতরে ছিলাম। আমি আগেও প্রশ্নটা তুলেছি, আবারও সবার জন্য তুলছি। এটা কি ন্যায্য হলো নাকি? আমার বিষয় না, যেকোনো আসামি; যার বিরুদ্ধে একটা করতে যাচ্ছে, তাকে খাঁচায় নিয়ে যাওয়া। আমি যতটুকু জানি, যত দিন আসামি অপরাধী প্রমাণিত না হচ্ছে, ততদিন তিনি নির্দোষ-নিরপরাধ। একজন নিরপরাধ নাগরিককে একটা লোহার খাঁচার ভেতরে গিয়ে দাঁড়িয়ে থাকতে হবে আদালতে শুনানি চলাকালে, এটা আমার কাছে অত্যন্ত অপমানজনক। অত্যন্ত গর্হিত কাজ বলে মনে হয়েছে। এটা আমার ক্ষেত্রে প্রযোজ্য হবে না, সেটা বিষয় না, কারও ক্ষেত্রেই যেন প্রযোজ্য না হয়।

তিনি বলেন, এ বিষয়ে সবাই মিলে একটু আওয়াজ তুলুন যে, বিষয়টা পর্যালোচনা করা হোক। একটা সভ্য দেশে কেন এ রকম হতে যাবে! কেন একজন নাগরিককে খাঁচার ভেতরে পশুর মতো দাঁড়িয়ে থাকতে হবে আদালতে শুনানিকালে। যেখানে এখনো বিচার শুরুই হয়নি, যেখানে অপরাধী সাব্যস্ত হওয়ার কোনো সুযোগই হয়নি। নিরপরাধ নাগরিক কেন খাঁচার ভেতরে এই প্রশ্নটা তুললাম।

ড. ইউনূস আরও বলেন, যারা আইনজ্ঞ আছেন, বিচার ব্যবস্থার সঙ্গে জড়িত আছেন, তারা পর্যালোচনা করে দেখুন, এটা রাখার দরকার আছে নাকি সারা দুনিয়ায় সভ্য দেশে যেভাবে হয়, আমরাও সভ্য দেশের তালিকার মধ্যে অন্তর্ভুক্ত হতে পারি।


আরও খবর



দ্বিতীয় ধাপে ১৫৬ উপজেলায় চলছে ভোট

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৯২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দ্বিতীয় ধাপে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ১৫৬টি উপজেলায় ভোট গ্রহণ চলছে।

মঙ্গলবার (২১ মে) সকাল ৮টায় শুরু হওয়া ভোট বিরতিহীনভাবে চলবে বিকেল চারটা পর্যন্ত।

ভোটের সার্বিক প্রস্তুতি থাকলেও এই ধাপে ভোটার উপস্থিতি নিয়ে সংশয় থাকছে। এর আগে ৮ মে প্রথম ধাপে ১৩৯টি উপজেলায় ভোট পড়ার হার ছিল ৩৬ শতাংশ, যা গত দেড় দশকের মধ্যে সর্বনিম্ন ভোটের হার।

এবার ৪৬১টি উপজেলায় চার ধাপে নির্বাচন হচ্ছে। ক্ষমতাসীন আওয়ামী লীগের প্রধান রাজনৈতিক প্রতিদ্বন্দ্বী বিএনপি স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচন বর্জন করেছে। তাদের অনুপস্থিতিতে নির্বাচনকে প্রতিযোগিতামূলক করতে আওয়ামী লীগ দলীয়ভাবে প্রার্থী দেয়নি। প্রায় সব উপজেলায় ক্ষমতাসীন দলের একাধিক নেতা স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন। কিছু উপজেলায় বিএনপির নেতারাও দলীয় নির্দেশ অমান্য করে স্বতন্ত্র প্রার্থী হয়েছেন।

গতকাল নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর বলেন, ভোটের দিন আবহাওয়া কেমন থাকবে, প্রার্থীর জনপ্রিয়তা কেমন, এসবের ওপর ভোটার উপস্থিতি নির্ভর করবে। ভোটের হার বেশি হলে ইসি খুশি, কিন্তু না হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

সব মিলিয়ে অনেকটা একতরফা স্থানীয় সরকারের এই নির্বাচনের দ্বিতীয় ধাপেও ভোটার উপস্থিতি নিয়ে সংশয় আছে।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, সম্প্রতি নির্বাচন কমিশনাররা ঢাকার বাইরে বিভিন্ন জায়গায় গিয়ে প্রার্থী ও নির্বাচনের দায়িত্বে থাকা কর্মকর্তাদের সঙ্গে বৈঠক করেন। সেখানে কোথাও কোথাও প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীদের অনেকে ভোটার উপস্থিতি এবং তাঁদের নিরাপত্তা নিয়ে সংশয়ের কথা তুলে ধরেন।

বাগেরহাটের ফকিরহাট উপজেলায় চেয়ারম্যান প্রার্থী শেখ ওয়াহিদুজ্জামান ইসিতে লিখিত অভিযোগ দেন, সেখানকার দুজন পুলিশ কর্মকর্তা তাঁর তিনজন কর্মীর বাসায় গিয়ে হুমকি দিয়েছেন। এর পরিপ্রেক্ষিতে গতকাল সোমবার ফকিরহাট উপজেলার মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আশরাফুল আলম এবং বাগেরহাট জেলার ডিবির ওসি স্বপন রায়কে সরিয়ে নতুন কর্মকর্তাকে দায়িত্ব দেওয়ার নির্দেশ দেয় ইসি।

নির্বাচন কমিশনার মো. আলমগীর গতকাল সাংবাদিকদের বলেন, ভোটের দিন আবহাওয়া কেমন থাকবে, প্রার্থীর জনপ্রিয়তা কেমন, এসবের ওপর ভোটার উপস্থিতি নির্ভর করবে। ভোটের হার বেশি হলে ইসি খুশি, কিন্তু না হলে উদ্বিগ্ন হওয়ার কিছু নেই।

দ্বিতীয় ধাপে আজ ভোট হচ্ছে ১৫৬টি উপজেলায়। এর মধ্যে ইলেকট্রনিক ভোটিং মেশিনে (ইভিএম) ভোট হবে ২৪টি উপজেলায়। দ্বিতীয় ধাপে মোট প্রার্থী আছেন ১ হাজার ৮২৪ জন। এর মধ্যে চেয়ারম্যান পদে মোট প্রার্থী আছেন ৬০৩ জন। ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী ৬৯৩ এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে প্রার্থী আছেন ৫২৮ জন।

দ্বিতীয় ধাপের নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে সাতটি উপজেলায়, ভাইস চেয়ারম্যান পদে আটটি উপজেলায় এবং নারী ভাইস চেয়ারম্যান পদে সাতটি উপজেলায় একক প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন। এর মধ্যে চট্টগ্রামের রাউজান ও কুমিল্লা আদর্শ সদর উপজেলায় ভোট গ্রহণের দরকার হচ্ছে না। এ দুই উপজেলার সব পদেই একক প্রার্থীরা বিনা প্রতিদ্বন্দ্বিতায় নির্বাচিত হয়েছেন।


আরও খবর