Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

দেশে ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে ১২ মৃত্যু

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ২৯৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দেশে ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গু আক্রান্ত হয়ে আরও ১২ জনের মৃত্যু হয়েছে। এরমধ্যে ৮ জনই ঢাকার বাইরের। একইসঙ্গে গত ২৪ ঘণ্টায় ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ২ হাজার ১২৯ জন। এরমধ্যে ঢাকা সিটির ৮৪৩ জন এবং ঢাকা সিটির বাইরে এক হাজার ২৮৬ জন। বর্তমানে দেশের বিভিন্ন হাসপাতালে ৯ হাজার ৮৯১ জন ডেঙ্গু রোগী চিকিৎসাধীন।

শুক্রবার (১৫ সেপ্টেম্বর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের ডেঙ্গুবিষয়ক প্রতিবেদন থেকে এ তথ্য জানা গেছে।

চলতি বছর এখন পর্যন্ত ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়ে হাসপাতালে ভর্তি হয়েছেন ১ লাখ ৬১ হাজার ৯৬৪ জন। সুস্থ হয়ে হাসপাতাল ছেড়েছেন ১ লাখ ৫১ হাজার ২৮৩ জন। মারা গেছেন ৭৯০ জন। এর মধ্যে ঢাকা সিটির ৫৪৭ জন এবং ঢাকা সিটির বাইরের ২৪৩ জন।

এদিকে, ঢাকা দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৪ নম্বর ও ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডকে রেড জোন ঘোষণা করা হয়েছে। ওয়ার্ড প্রতি সপ্তাহে ১০ জনের বেশি ডেঙ্গু রোগী প্রাপ্তির মানদণ্ডে দক্ষিণ সিটির ১৪ ও ৫৬ নম্বর ওয়ার্ডকে ‘রেড জোন’ ঘোষণা করা হয়েছে।


আরও খবর



ভয়াল বন্যার পুনরাবৃত্তির ভয়, ছাত‌কে মানুষের চোখে ঘুম নেই

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৬২জন দেখেছেন

Image

র‌নি,ছাতক সুনামগঞ্জ প্রতি‌নি‌ধি:সুনামগঞ্জ জেলার দুই উপ‌জেলার ভয়াবহ বন্যা পরিস্থিতির চরম অবনতি হয়েছে।বৃষ্টিপাত ছাড়াই নদ নদী সুরমা,চেলা ব‌টের নদী‌তে  ভোর  থেকে বৃদ্ধি পেতে থাকে পাহাড়ি ঢলের পানি। সুরমা নদীর পানি  ছাতক দোয়ারাবজার ম‌ল্লিকপুর প‌য়েন্ট সুরমা নদীর বন‌্যা পা‌নির স্রো‌তে পাকা সড়ক ভে‌ঙ্গে  বিপদসীমার ৬৮ সেন্টিমিটার বা ২.২৩ ফুট উপর দিয়ে প্রবাহিত হচ্ছে। উপ‌জেলার সদ‌রের স‌ঙ্গে সড়ক যোগা‌যোগ বি‌চ্ছিন্ন র‌য়ে‌ছে।অবিরাম বর্ষণ আর পাহাড়ি ঢলে সৃষ্ট বন্যায় এবার বানভাসী‌দের মানুষের ঈদের আনন্দ মাটি হয়েছে। এর সঙ্গে যোগ হয়েছে গেল বারের মতো ভয়াল বন্যার আশঙ্কা।

গত সোমবার (১৭ জুন) ঈদের দিন ভোরেই সুরমা নদীর পানি উপচে ছাতক শহরে প্রবেশ করে। বৃষ্টি আর জলাবদ্ধতার মধ্যেই মসজিদে ঈদের জামাত আদায় করতে পারলেও অনেকেই যথাসময়ে পশু কোরবানি করতে পারেননি। বৃষ্টি থামার পর দুপুর থেকে পানি কিছুটা কমতে শুরু করে।

মঙ্গলবারও (১৮ জুন) সারাদিন গুঁড়িগুঁড়ি বৃষ্টি হয়। তবে এতে সাময়িক সময়ের জন্য মানুষের মনে স্বস্তি ফিরলেও তা স্থায়ী হয়নি। আবহাওয়ার পূর্বাভাস তাদের জন্য কোনো সুসংবাদ বয়ে আনতে পারছে না। পূর্বাভাসে বলা আগামী কয়েকদিনের টানা ভারী বৃষ্টিপাতের আশঙ্কার কথা শুনে ২০২২ সালের ভয়াল বন্যার পুনরাবৃত্তির আতঙ্ক নিয়ে নির্ঘুম রাত পার করেছেন ছাতক দোয়ারাবাজা‌রে মানুষ।

আবহাওয়া পূর্বাভাসের বিভিন্ন মডেল বলছে,গত বুধবার (১৯ জুন) ভোরেই আবারও শুরু হচ্ছে ভারী বৃষ্টিপাত। সীমান্তবর্তী পাহাড়ি এলাকায়ও বৃষ্টিপাত হ‌চ্ছে বেশী। এতে ছাতক দোয়ারাবাজার বন্যা পরিস্থিতির ব্যাপক অবনতি হওয়ার আশঙ্কা রয়েছে। ২০২২ সালের ১৭ জুন ভয়াবহ বন্যায় তলিয়ে গিয়েছিল ছাতক দোয়ারাবাজার ও সুনামগঞ্জ  বেশিরভাগ এলাকা। গভীর রাতে চোখের পলকেই তলিয়ে যায় পুরো গ্রাম শহর হাট বাজার।

একতলা বাড়ির বাসিন্দারা সাঁতরে বেরিয়ে উঁচু ঘরবাড়িতে আশ্রয় নেন। যারা নিচু ঘরে ছিলেন, তারা বিদ্যুৎহীন অবস্থায় ঘুটঘুটে অন্ধকার রাতে বানের পানি, বিষাক্ত পোকা মাকড় ও সাপের কামড়ের ভয় নিয়ে বিভীষিকাময় সময় পার করেছেন। ভেসে চলে যায় বহু গবাদিপশু। এখনো সেই দুঃস্মৃতি তাড়া করে ছাতক দোয়ারাবাজা‌রে মানুষকে, বৃষ্টি হলেই বড় বন্যার ভয়ে তারা শিউরে ওঠেন।

উপ‌জেলার উত্তর খুরমা ইউপির আলমপুর,দাহার গিলাছড়া মোহনপুর,তেরাপুর মৈশাপুর ত‌কিরাই নোয়াগা্ও গ্রা‌মে প্রতি‌টি ঘরে  ঘ‌রে পা‌নি উঠে‌ছে। এসব গ্রামে হাস মুরুগ বন‌্যার পা‌নি‌তে ভে‌সে গে‌ছে।

এসব গ্রা‌মে খোজ খবর কেউ নি‌চ্ছেন না ব‌লে গ্রামবাসী অ‌ভি‌যোগ ক‌রে‌ছেন। গোবিন্দগঞ্জ সৈ‌দেরগাও ইউপির গো‌বিন্দনগর গ্রা‌মের রজব আলী, আইয়ুব আলী র‌ফিক আলীর বসত তিন‌দিন ধ‌রে  ঘ‌রে পা‌নি উঠে‌ছে। ঘ‌রে শুকা‌নো খাবার নেই। এখ‌নো কোন জনপ্রতি‌নি‌ধি তা‌দের দেখ‌তে আসে‌নি। রা‌তে তা‌দের প‌রিবা‌রের কেউ ঘুমানি ।

ছাতকে পৌর শহরের কাঁচাবাজারে হাঁটুর উপরে পানি। পশ্চিমবাজার, মধ্যবাজারে বন্যার পানি উঠছে। বিভিন্ন পয়েন্ট দিয়ে শহরে ঢুকছে পানি। হুট করে পানি বৃদ্ধি পাওয়ায় দিশেহারা হয়ে পড়েছে শহরবাসী। নদীর পাড়ের বাসিন্দারা ঘরে থাকার মতো অবস্থা না থাকায় ঘরবাড়ি চে‌ড়ে আশ্রয় কে‌ন্দ্রে উঠ‌তে শুরু করেছেন।

অনেকে ৬৭‌টি  আশ্রয় কে‌ন্দ্রে হাজার প‌রিবার

উঠেছেন। পানি বৃদ্ধি অব্যাহত থাকবে বলে জানিয়েছে পানি উন্নয়ন বোর্ড। এতে পরিস্থিতি আরও অবনতি হওয়ার আশঙ্কা করছেন স্থানীয়রা। এদিকে অব্যাহত বৃষ্টিপাত ও পাহাড়ি ঢলে জেলার ছাতক ও দোয়ারাবাজার উপ‌জেলা সকল নদীর পানি বৃদ্ধি পেয়েছে। নিম্বাঞ্চলের মানুষের বসত ঘরে পানি উঠে  গেছে। ছাতকে সুরমা নদী পা‌নি  বিপদসীমার ১৫৫ সে.মি বা ৫.০৯ ফুট উপর দিয়ে সুরমার পানি প্রবাহিত হচ্ছে।  এতে বন্যার আশংকা করছে প্রশাসনও।

অপরদিকে পাহাড়ি ঢল নেমে আগে থেকেই প্লাবিত ছিল ছাতক,দোয়ারাবাজার  ৪ শতা‌ধিক গ্রাম, ৩ শতা‌ধিক শিক্ষা প্রতিষ্টান,২০‌টি হাটবাজার। প্রায় সব কয়টি উপজেলাতে বন্যা পরিস্থিতির সৃষ্টি হ‌লে ও তবে বেশী এফেক্টেড হয়েছে ছাতক ও দোয়ারাবাজার উপজেলাবাসীরা।

সুনামগঞ্জ পানি উন্নয়ন বোর্ডের নির্বাহী প্রকৌশলী মামুন হাওলাদার জানিয়েছেন, ছাতকে বিপদসীমার ১৫৫ সে.মি বা ৫.০৯ ফুট উপর দিয়ে সুরমার পানি প্রবাহিত হচ্ছে। ছাতক দোয়ারাবাজারে ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাতের পূর্বাভাস রয়েছে, সেজন্য পানি বিপদসীমার উপরে থাকতে পারে। তিনি আরও বলেন, গত ২৪ ঘন্টায় সুনামগঞ্জের ছাতকে ৯৫ মি.মি বৃষ্টিপাত হয়েছে।

ছাতক উপ‌জেলা নিবাহী কমকতা গোলাম মোস্তফা মুন্না যুগান্তরকে জানান, আশ্রয়কেন্দ্র গু‌লো‌তে শুকনো খাবার, ওষুধপত্র বা স্যালাইন পৌঁছানো ব্যবস্থা করা হয়েছে। রান্না করা খাবারও বিতরণ করা হবে। যারা আশ্রয়কেন্দ্রে যেতে পারেননি, তাদের নৌকা বা বিভিন্ন পরিবহন দিয়ে আশ্রয়কেন্দ্রে নিয়ে আসার ব্যবস্থা করা হচ্ছে। সার্বিক পরিস্থিতি মোকাবিলায় ও ১৩‌টি ইউপি চেয়ারম‌্যান ও পৌর সভার মেয়র স‌ঙ্গে কথা বলেছি। এছাড়াই  বন্যায় যাতে নিত্যপ্রয়োজনীয় পণ্যসামগ্রীর দাম বাড়ানো না হয়, সেজন্য মহাজন ও ব্যবসায়ীদের সাথে কথা বলেছি। তাদের অনুরোধ করে বলেছি, দুঃসময়ে-দুর্যোগে মানবকল্যাণই বড়। তারা যেন নির্ধারিত দামে পণ্য বিক্রি করে।

সুনামগঞ্জ জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ রাশেদ ইকবাল চৌধুরী জানান, গত কয়েকদিন ধরে সুনামগঞ্জ জেলায় ভারী থেকে অতি ভারী বৃষ্টিপাত হওয়ার কারণে সুনামগঞ্জের কিছু পয়েন্টে নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করেছে। বিশেষ করে ছাতক,দোয়ারাবাজার সুরমা নদীর পানি বিপদসীমা অতিক্রম করে প্রবাহিত হচ্ছে। জেলায় আমরা ৫১৬টি আশ্রয় কেন্দ্র প্রস্তুত রেখেছি। যাদের প্রয়োজন তারা আশ্রয় কেন্দ্রে যাচ্ছে। প্রশাসনের পক্ষ থেকে আশ্রিতদের সার্বিক সহযোগিতা করা হ‌বে। পানি উন্নয়ন বোর্ড এবং আবহাওয়া অধিদপ্তরের পূর্বাভাস অনুযায়ী নদীর পানি বৃদ্ধি পেতে পারে সেজন্য সকলকে সতর্ক থাকার অনুরোধ জানানো হয়। তিনি আরও বলেন, ছাতক, দোয়ারাবাজার,সদর বেশী এফেক্টেড।

এছাড়া জেলা প্রশাসক ও ইউএনও স্থানীয়দের উদ্দেশে সরকা‌রি ফেসবুক পোস্টে তারা বলেছেন, সুনামগঞ্জে অতিবৃষ্টি ও উজানের পাহাড়ি ঢলে বন্যা পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। পানি আরও বাড়তে পারে। আতঙ্কিত হবেন না, সতর্ক হোন। নিরাপদ স্থানে থাকার চেষ্টা করুন। এই দুর্যোগের সময়ে একে অন্যের পাশে দাঁড়ান। সবাই মিলেই এই পরিস্থিতি মোকাবিলা করতে হবে।


আরও খবর



দীর্ঘদিন ধরে সাব-রেজিস্ট্রারের পদ শূন্য থাকায় বিপাকে জমি ক্রেতা ও গ্রহিতা , রাজস্ব হারাচ্ছে সরকার

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৫০জন দেখেছেন

Image

দিনাজপুর প্রতিনিধি:দিনাজপুরের বীরগঞ্জে প্রায় দু'সপ্তাহ ধরে সাব-রেজিস্ট্রার না থাকায় জমি ক্রেতা-বিক্রেতারা পড়েছেন বিপাকে। এতে  লাখ লাখ টাকার রাজস্ব থেকে বঞ্চিত হচ্ছে সরকার। সম্প্রতি গত ১৩ নভেম্বর ২০২৩ তারিখে বীরগঞ্জ উপজেলা সাব-রেজিস্ট্রার হিসেবে রিপন চন্দ্র মন্ডল যোগদান করার পর থেকে ব্যাপক অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে জমির ক্রেতা ও বিক্রেতারা  দিনাজপুর-১ (বীরগঞ্জ -কাহারোল) আসনের সংসদ সদস্য আলহাজ্ব মো। জাকারিয়া জাকাকে অবহিত করেন। মাননীয়  সাব-রেজিস্টার রিপন চন্দ্র মন্ডলকে বীরগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে ডেকে এনে সাবধান করে দেওয়ার পরেও তিনি বিভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে জমি ক্রেতা ও বিক্রেতাদের কাছে মোটা অংকের অর্থ হাতিয়ে নিয়ে জমি সম্পাদন করে করে আসছিল। 

গত ২৯-০৫-২০২৪ ইং তারিখে ঠাকুরগাঁও জেলার উত্তর গড়েয়া এলাকার নুরু মিয়ার ছেলে মো: মিজানুর রহমান ১০৬ জরুরি হেল্প নাম্বারে অভিযোগ দায়ের করেন। অভিযোগের ভিত্তিতে দিনাজপুর জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)-এর সহকারী পরিচালক মো: ইসমাইল হোসেনের নেতৃত্বে উপ-সহকারী পরিচালক মো: কামরুন নাহার সরকার, সহকারী পরিদর্শক মো: মিজানুর রহমান ও উচ্চমান সহকারী মোঃ শাহজাহান আলী সমন্বয়ে একটি তদন্ত দল সাব-রেজিস্ট্রি অফিসে এলে ও তাদের উপস্থিতি টের পেয়ে দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত নকল নবিশ সুমন প্রয়োজনীয় কাগজপত্র ও তথ্য-প্রমাণ নিয়ে ঘুষখোর অফিসারের খাস কামরায় তালা ঝুলিয়ে আত্মগোপন করে। ফলে দুদকের তদন্ত টিম সাব-রেজিস্ট্রার রিপন চন্দ্র মণ্ডলের উপস্থিতিতে ওই রুমের তালা ভেঙে প্রবেশ করে ঘুষ দুর্নীতির সঙ্গে জড়িত দীর্ঘ সময় ধরে জিজ্ঞাসা করেন দুদক টিম।

প্রাথমিক তদন্তে সাব-রেজিস্ট্রার রিপন চন্দ্র মন্ডলের বিরুদ্ধে আনিত ঘুষ-দুর্নীতির অভিযোগ সত্য মর্মে স্বীকার করে জেলা দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)-এর সহকারী পরিচালক মো: ইসমাইল হোসেন বলেন, দলিল করতে মাঠপর্চা ও নামজারী থাকার পরেও বাটোয়ারা দলিলের অজুহাতে ৭ হাজার টাকা ঘুষ নিয়ে দলিল রেজিস্ট্রি করার তথ্য পাওয়া গেছে। তার বিরুদ্ধে আরো অনেকে মৌখিক অভিযোগ রয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষে তার বিরুদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তদন্ত শেষে দুদক টিম স্থান ত্যাগ করতে চাইলে স্থানীয় উত্তেজিত জনতা রিপন চন্দ্র মণ্ডলের গ্রেপ্তারের দাবিতে বিক্ষোভ মিছিল করে এবং গেটে তালা লাগিয়ে দেয়।

বীরগঞ্জ থানার পুলিশ ঘটনাস্থলে এসে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনে।

সাব-রেজিস্ট্রার রিপন চন্দ্র মণ্ডলের বিরুদ্ধে সীমাহীন ঘুষ দুর্নীতির অভিযোগকারী

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



সৈয়দপুরে মেরামতে আসা ট্রেন লাইনচ্যূত : চলাচল বন্ধ

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৯৯জন দেখেছেন

Image

খোকন সৈয়দপুর( নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানায় মেরামতে আসা ট্রেন লা্ইনচ্যূত হয়েছে। শনিবার (১৩ জুলাই) বেলা  আনুমানিক আড়াইটায় সৈয়দপুর রেলওয়ে কারখানার ২০০ গজ দূরে ওই ট্রেনটির লাইনচ্যূতের ঘটনা ঘটে। ফলে চিলাহাটি থেকে সৈয়দপুর হয়ে চলাচলকারী খুলনা, রাজশাহীগামীসহ অন্যান্য ট্রেনের চলাচল বন্ধ হয়ে যায়। 

সূত্র জানায়, এসব প্রিয়ডিক্যাল ওভার হোলি বা রুটিন মেরামতের জন্য রেলওয়ে কারখানায় আনা হচ্ছিলো ওইসব কোচ। ট্রেনটি ঈদের বিশেষ ট্রেন হিসাবে জয়দেবপুর-পার্বতীপুর রুটে চলাচল করেছে। ট্রেনটির বহরে ১৩ কোচ রয়েছে। এরমধ্যে কয়েকটি কোচ লাইন চ্যূত হয়ে পড়ে। ফলে সৈয়দপুর -পার্বতীপুর রুটে সকল ট্রেন চলাচল বন্ধ হয়ে যায় বলে জানান স্টেশন মাস্টার ওবাইদুল ইসলাম রতন। এছাড়া রেলঘুন্টিতে ট্রেন বহরটি আটকে থাকায় শহরে তীব্র যানজটের সৃষ্টি হয়ে যায়। 

সৈয়দপুর রেলওয়ের ঊর্ধ্বতন উপসহকারী প্রকৌশলী (পথ) মো. সুলতান মৃধা বলেন, রেলের কর্মকর্তা ও কর্মচারীরা কাজ করছেন। তবে সন্ধ্যার আগে ট্রেন চলাচল স্বাভাবিক হওয়ার সম্ভাবণা কম বলে জানান তিনি। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



এসআই সুমন বলছি, বাঁচতে চাইলে ২০ হাজার টাকা নিয়ে থানায় আয়'

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৬জন দেখেছেন

Image
সুন্দরগঞ্জ,(গাইবান্ধা:)প্রতিনিধিঃগাইবান্ধা জেলার সুন্দরগঞ্জে পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) পরিচয় দিয়ে এক ব্যক্তির কাছে ২০ হাজার টাকা চাঁদা দাবির অভিযোগ উঠেছে সুমন মিয়া (২৭) নামের এক যুবকের বিরুদ্ধে। এ ঘটনায় উপজেলার বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন ভুক্তভোগী আশেক আলী।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এমএ আজিজ অভিযোগ পাওয়ার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

অভিযোগকারী আশেক আলী উপজেলার সোনারায় ইউনিয়নের পশ্চিম বৈদ্যনাথ গ্রামের গাণ্ডারপাড়ার বাদশা মিয়া ছেলে। পুলিশের উপ-পরিদর্শক (এসআই) পরিচয় দানকারী সুমন মিয়া একই উপজেলার সর্বানন্দ ইউনিয়নের রামভদ্র খানাবাড়ি গ্রামের মজিবর রহমানের ছেলে।

অভিযোগ সূত্রে জানা যায়, গত বৃহস্পতিবার (২০ জুন) রাত ১১ টার দিকে আশেক আলীর বাড়িতে ২ জন অজ্ঞাত ব্যক্তি আসেন। এসময় আশেক আলীর পিতা বাদশা মিয়া তাদের পরিচয় জানতে চাইলে তারা পরিচয় না দিয়ে পালিয়ে যায়। এসময় তারা একটি মুঠোফোন আশেক আলীর বাড়িতে রেখে যায়।

ঘটনার দুইদিন পর গত শনিবার (২২ জুন) বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের উপ-পরিদর্শক (এসআই) পরিচয়ে আশেক আলীর ব্যবহৃত মুঠোফোনে কল করেন সুমন মিয়া। এসময় তাকে নগদ ২০ হাজার টাকা ও ফেলে আসা মোবাইল ফোনটি নিয়ে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের সামনে ডাকেন সুমন মিয়া। এমনকি দ্রুত সময়ে দাবীকৃত টাকা ও মোবাইল ফোন না দিলে গ্রেফতার করার হুমকি দেওয়া হয়।

আশেক আলী নিরুপায় হয়ে নগদ ২০ হাজার টাকাসহ মোবাইল ফোনটি নিয়ে পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে যায়। এসময় আশেক আলী পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের দায়িত্বপালনরত উপ-পরিদর্শক (এসআই) জুলিহাসকে পুরো ঘটনাটি অবগত করেন। সেইসাথে অভিযুক্ত সুমনের মোবাইল নম্বরটি তাকে দেন। তিনি তাৎক্ষণিক তদন্ত করে জানতে পারেন সুমন নামের কোনো পুলিশ সদস্য পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রে কর্মরত নেই। পরে আশেক আলী ভুয়া পুলিশ পরিচয় দানকারী সুমন মিয়ার বিরুদ্ধে একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেন।

বামনডাঙ্গা পুলিশ তদন্ত কেন্দ্রের ইনচার্জ এমএ আজিজ বলেন, অভিযোগ পেয়েছি। ঘটনাটি তদন্ত করে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়া হবে।

এ বিষয়ে গাইবান্ধা পুলিশ সুপার মো. কামাল হোসেন বলেন, বিষয়টি খতিয়ে দেখে খুব শীঘ্রই আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও খবর



নওগাঁ পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ এর কর্ম বিরতি পালন

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৯জন দেখেছেন

Image

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:প্রধানমন্ত্রী ও বিদ্যুত বিভাগের নির্দেশনা অমান্য করে পল্লী বিদ্যুতায়ন বোর্ড কর্তৃক পল্লী বিদ্যুত সমিতি সমূহে শোষণ, নির্যাতন, নিপীড়ন অব্যাহত রাখা, গুনগত মানহীন মালামাল ক্রয় করে গ্রাহক ভোগান্তি বৃদ্ধি করার প্রতিবাদে এবং স্মার্ট ও টেকসই বাংলাদেশ বিনির্মাণে বিআরইবি-পিবিএস একীভূতকরণ সহ অভিন্ন চাকরিবিধি বাস্তবায়ন ও সকল চুক্তিভিত্তিক/অনিয়মিত কর্মচারীদের চাকরি নিয়মিত করনের দাবিতে কর্মবিরতি পালন করছে সারাদেশের পল্লী বিদ্যুত সমিতির প্রায় ৪০ হাজার কর্মকর্তা-কর্মচারী। এরই ধারাবাহিকতায় পত্নীতলায় নওগাঁ পল্লী বিদ্যুত সমিতি-২ এর কর্মকর্তা-কর্মচারীরা শনিবার বিদ্যুত ব্যবস্থা ও জরুরী গ্রাহক সেবা সচল রেখে স্থায়ী কার্যালয়ে কর্মবিরতি পালন করছেন।

কর্মবিরতি পালন কালে আন্দোলনের পক্ষে বক্তব্য রাখেন  নওগাঁ পবিস-২ এর ডিজিএম কারিগরি (সদর) শাহীন কবির, এজিএম (ওএন্ডএম) আব্দুল মোতালেব, লাইনম্যান গ্রেড-১ আব্দুল কুদ্দুস, লাইনম্যান লেবেল-১ সাজ্জাদ হোসেন, লাইন শ্রমিক গোল্ডেন, মহিলা কর্মচারীদের পক্ষে বিলিং সুপারভাইজার নিগার সুলতানা, বিলিং সহকারী নারগিস বানু প্রমুখ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর