Logo
আজঃ রবিবার ২৬ মে ২০২৪
শিরোনাম

তালন্দ কলেজের অধ্যক্ষ ও সভাপতি মানছেন না আদালতের নির্দেশ

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | ২১৫জন দেখেছেন

Image

তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোর পৌর এলাকার ঐতিহ্যবাহী তালন্দ ললিত মোহন ডিগ্রী কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ আদালতের নির্দেশনা মানছেন না বলে অভিযোগ উঠেছে। নীতিমালা বহির্ভূত ভাবে ডাক্তার না হয়েও কমিটিতে ভূয়া ডাক্তারকে রাখায় মহামান্য হাইকোর্টে রীট দায়ের হলে বিজ্ঞ আদালত জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়কে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নিতে নির্দেশনা দেন। সেই মোতাবেক চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসে ভূয়া ডাক্তারকে বাতিল করে প্রকৃত রেজিস্টার্ড ডাক্তারকে অন্তর্ভুক্ত করতে নির্দেশ দেয়। কিন্তু কলেজের ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রদীপ কুমার মুজমদার ও ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ ডক্টর জসিম উদ্দিন সে আদেশ অমান্য করে তাকে কমিটিতে রেখেছেন বলে নিশ্চিত করেন রীট আবেদন কারী সাবেক কাউন্সিলর পিয়ারুল হক।  এতে করে আদালতকে চরম অবমাননা করেছেন বলে মনে করছেন কলেজ কর্তৃপক্ষ। সেই সাথে চরম অদক্ষতারও পরিচয় দিয়েছেন সভাপতি অধ্যাক্ষ বলে মনে করেন শিক্ষাবিদরা। ফলে দ্রুত কলেজ কর্তৃপক্ষের বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার দায়ে সভাপতি ও অধ্যাক্ষের পদত্যাগও দাবি করেন সচেতন মহল।

জানা গেছে, পৌর এলাকার তালন্দ ললিত মোহন ডিগ্রী কলেজের গভর্নিং বডিতে একজন ডাক্তারকে নিযুক্ত করতে হয়। কিন্ত কলেজ কর্তৃপক্ষ জালিয়াতি ও ক্ষমতার অপব্যবহার করে ডাক্তার না হয়েও সুমন কুমার পাল কে চিকিৎসক দেখিয়ে কমিটির সদস্য করা হয়। এর বিরুদ্ধে পৌরসভার ১ নম্বর ওয়ার্ডের সাবেক কাউন্সিলর পিয়ারুল হাইকোর্টে রীট করেন। এর প্রেক্ষিতে হাইকোর্ট জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের  ভাইস চ্যান্সেলরকে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেয়ার নির্দেশ দেন। যার রীট পিটিশন নম্বর ৮৪৩২/২০২২।

এনির্দেশের প্রেক্ষিতে ভাইস চ্যান্সেলরের আদেশক্রমে জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের (ভারপ্রাপ্ত) কলেজ পরিদর্শক ফাহিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত চলতি বছরের ফেব্রুয়ারি মাসের ২২ তারিখে  ৫৭৭৫২ নম্বর   স্বারকে ভূয়া ডাক্তার সুমন কুমার পালকে বাতিল করে প্রকৃত রেজিস্টার্ড ডাক্তারের নাম কমিটিতে অন্তর্ভুক্ত করতে নির্দেশ দেন। আদালত ও জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের নির্দেশনা মোতাবেক কাজ করেন নি সভাপতি ও অধ্যাক্ষ।

রীট আবেদন কারী পিয়ারুল জানান, যতটুকু জানি  এখনো কমিটির পদে সুমন কুমার পালকে বহাল রেখেছেন। আদালতের নির্দেশ, ভাইস চ্যান্সেলরের আদেশকে যদি বৃদ্ধাঙ্গলী দেখায় তাহলে কি বলার আছে। জবাব দিহিতা আইনের সঠিক ব্যবহার না হলে এমনই হয়। কারন সবকিছু  ক্ষমতার কালো পর্দায় বন্দি। 

কলেজের ভারপ্রাপ্ত অধ্যাক্ষ ডক্টর জসিম উদ্দিন জানান, সভাপতি অসুস্থ এজন্য মিটিং করা হয়নি। তবে দ্রুত মিটিং করে সিদ্ধান্ত নেয়া হবে। আপনি মিটিং করতে পারেন নি সেটা কি আদালত বা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কে অবহিত করেছেন জানতে চাইলে তিনি জানান মৌখিক ভাবে সিদ্ধান্ত হয়ে আছে। তাহলে কি আদালত বা জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় কে অবমাননা করা হয় কিনা প্রশ্ন করা হলে কোন সদ উত্তর না দিয়ে সভাপতি অসুস্থতার দোহায় দিয়ে এড়িয়ে যান।

কলেজ ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি প্রদীপ কুমার মজুমদার জানান, এতদিন সিদ্ধান্ত হয়ে যেত, মিটিং দেওয়া যায়নি আমি অসুস্থ এজন্যে। আর সুমন কুমার পালকে মৌখিক ভাবে বাদ দেয়া হয়েছে, শুধু সভায় সিদ্ধান্ত নিতে হবে। সে ডাক্তার না হয়ে কমিটিতে কিভাবে এসেছে জানতে চাইলে তিনি জানান, আমি সভাপতি হওয়ার আগ থেকে আছে বলে তিনিও দায় সারেন।

জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয়ের কলেজ পরিদর্শক (ভারপ্রাপ্ত) ফাহিমা সুলতানার ০১৭১১৫৬৩৪০০ মোবাইল নম্বরে যোগাযোগ করা হলে তিনি জানান, এখনতো অফিস সময় না, কাগজপত্র না দেখে কিছুই বলা যাবে না। গত ফেব্রুয়ারি মাসে আপনার স্বাক্ষরিত আদেশে সুমন কুমার পালকে বাদ দিয়ে প্রকৃত চিকিৎসক কে কমিটিতে অন্তর্ভূক্ত করার কথা বলা হয়েছে, কলেজ এতদিনও বাস্তবায়ন করেনি, এত সময় ফেলে রাখতে পারে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান, এখন এবিষয়ে কোন কিছুই বলা ঠিক হবে না। তবে আদেশ পাওয়ার পর দ্রুত বাস্তবায়ন করা কলেজ কর্তৃপক্ষের নৈতিক দায়িত্ব। মঙ্গলবার অফিসে গিয়ে ফাইলপত্র দেখে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

আরও খবর



নতুন করে কোনো রিজার্ভ চুরি হয়নি: বাংলাদেশ ব্যাংক

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৪ মে 20২৪ | ৯০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে কয়েক বিলিয়ন ডলার ভারতের হ্যাকাররা গত কয়েক সপ্তাহে চুরি করে নিয়ে গেছে বলে ভারতের একটি নিউজ পোর্টালে যে সংবাদ প্রকাশ করা হয়েছে তা সম্পূর্ণ মিথ্যা ও বানোয়াট বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক।

মঙ্গলবার (১৪ মে) ভারতীয় গণমাধ্যম ‘নর্থইস্ট নিউজে’ রিজার্ভ চুরির বিষয়ে খবরটি প্রকাশিত হয়। তবে ভারতীয় পোর্টালের সেই খবর নাকচ করে দিয়েছে বাংলাদেশ ব্যাংক। তারা বলছে, নতুন করে কোনো রিজার্ভ চুরি হয়নি। ওই খবরটি সম্পূর্ণরূপে ভুয়া (ফেইক)।

ভারতীয় গণমাধ্যম ‘নর্থইস্ট নিউজে’ রিজার্ভ চুরির বিষয়ে খবরটি প্রকাশিত হওয়ার পর মতিঝিলের ব্যাংকপাড়া, সামাজিক যোগাযোগ-মাধ্যমসহ বিভিন্ন মহলে ব্যাপক আলোচনা শুরু হয়। অনেকে এ তথ্যের সত্যতা যাচাইয়ে বাংলাদেশ ব্যাংকের সঙ্গে যোগাযোগ করেন।

সন্ধ্যায় কেন্দ্রীয় ব্যাংকের পক্ষ থেকে আনুষ্ঠানিক বিবৃতি দেওয়া হয়। সেখানে জানানো হয়, বাংলাদেশ ব্যাংক নিউইয়র্ক ফেডের সঙ্গে লেনদেনে নিশ্চয়তার ক্ষেত্রে বর্তমানে তিন স্তরের নিরাপত্তা ব্যবস্থা নীতি চালু রেখেছে। ফলে যে তথ্য প্রকাশ করা হয়েছে, তা সঠিক নয়।

বাংলাদেশ ব্যাংকের নির্বাহী পরিচালক ও মুখপাত্র মেজবাউল হক বলেন, রিজার্ভ চুরি সংক্রান্ত প্রতিবেদনটি সঠিক নয়, এখন রিজার্ভ চুরির কোনো ঘটনা ঘটেনি।

মঙ্গলবার (১৪ মে) ভারতের ‘নর্থইস্ট নিউজ’ নামের ওই নিউজ পোর্টালে প্রকাশিত খবরটির শিরোনাম ছিল- ‘চলতি মাসে বাংলাদেশ ব্যাংকের কোটি কোটি ডলার চুরির পেছনে ভারতীয় হ্যাকাররা জড়িত?

ওই প্রতিবেদনে বলা হয়, ‌‘অজ্ঞাত পরিচয়ের সন্দেহভাজন ভারতীয় হ্যাকাররা ডিজিটাল উপায়ে প্রায় এক সপ্তাহ আগে বাংলাদেশ ব্যাংক থেকে কয়েক বিলিয়ন ডলার চুরি করেছে। দুই দেশের নিরাপত্তা সংস্থাগুলো ‘চাঞ্চল্যকর’ এ চুরির বিষয়ে অবগত আছে এবং তারা নীরবে এ ঘটনার তদন্ত করছে। এমন একটি সময়ে বাংলাদেশ ব্যাংকে হ্যাকিংয়ের ঘটনা ঘটেছে যখন বাংলাদেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ তলানিতে রয়েছে। কিছু কর্মকর্তারা সন্দেহ করছেন, রিজার্ভ চুরির সংখ্যাটি ‘একক’ হতে পারে। এটি আমদানি বিল নিষ্পত্তিতে ‘চরম অসুবিধা’ সৃষ্টি করতে পারে।

এর আগে ২০১৬ সালের ফেব্রুয়ারি মাসে সুইফট সিস্টেম ব্যবহার করে ৩৫টি ভুয়া বার্তা পাঠিয়ে যুক্তরাষ্ট্রের ফেডারেল রিজার্ভ ব্যাংক অব নিউ ইয়র্কে (ফেড) রাখা বাংলাদেশ ব্যাংকের হিসাব থেকে রিজার্ভের ১০ কোটি ১০ লাখ ডলার চুরি হয়। এর মধ্যে একটি মেসেজের মাধ্যমে শ্রীলঙ্কায় একটি ‘ভুয়া’ এনজিওর নামে ২০ মিলিয়ন ডলার সরিয়ে নেওয়া হলেও বানান ভুলের কারণে সন্দেহ হওয়ায় শেষ মুহূর্তে তা আটকে যায়।

বাকি চারটি মেসেজের মাধ্যমে ৮ কোটি ১০ লাখ ডলার সরিয়ে নেওয়া হয় ফিলিপিন্সের মাকাতি শহরে রিজল কর্মাশিয়াল ব্যাংকের জুপিটার স্ট্রিট শাখায় ‘ভুয়া তথ্য’ দিয়ে খোলা চারটি অ্যাকাউন্টে। অল্প সময়ের মধ্যে ওই অর্থ ব্যাংক থেকে তুলে নেওয়া হয়। ফিলরেম মানি রেমিট্যান্স কোম্পানির মাধ্যমে স্থানীয় মুদ্রা পেসোর আকারে সেই অর্থ চলে যায় তিনটি ক্যাসিনোর কাছে।

এর মধ্যে একটি ক্যাসিনোর মালিকের কাছ থেকে দেড় কোটি ডলার উদ্ধার করে বাংলাদেশ সরকারকে বুঝিয়ে দেওয়া হলেও বাকি অর্থ উদ্ধারে তেমন কোনো অগ্রগতি নেই। জুয়ার টেবিলে হাতবদল হয়ে ওই টাকা শেষ পর্যন্ত কোথায় গেছে, তার কোনো হদিস মেলেনি।


আরও খবর



এমপি আনার হত্যার ঘটনায় ৩ বাংলাদেশি আটক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ২২ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৭৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চিকিৎসা করাতে ভারতের পশ্চিমবঙ্গে গিয়ে নিহত ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীমকে হত্যার ঘটনায় তিন বাংলাদেশিকে আটক করা হয়েছে,বলেছেন স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল।

বুধবার (২২ মে) ধানমন্ডির নিজ বাসভবনে সাংবাদিকদের এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন তিনি। এসময় তার সঙ্গে ছিলেন পুলিশ ও ডিবি প্রধান।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ভারতীয় পুলিশ আমাদের নিশ্চিত করেছে এমপি আনার খুন হয়েছেন। তবে তদন্ত শেষে সবকিছু জানাবে বলে জানিয়েছে। এমপি আনারের হত্যার ঘটনায় বাংলাদেশ থেকে তিনজনকে আটক করা হয়েছে। তারা তিনজনই বাংলাদেশি। খুনের মোটিভ এখনো জানা যায়নি। তদন্তের স্বার্থে এখন বিস্তারিত কিছু বলতে পারছেন না ভারতীয় পুলিশ।

ভারতের পশ্চিমবঙ্গ প্রদেশে চিকিৎসার জন্য গিয়ে নিখোঁজের ছয়দিন পর কলকাতার একটি এলাকা থেকে ঝিনাইদহ-৪ আসনের সংসদ সদস্য আনোয়ারুল আজীমের মরদেহ উদ্ধার করেছে পুলিশ। পশ্চিমবঙ্গ পুলিশের কর্মকর্তারা কলকাতার নিউ টাউনের সঞ্জিভা গার্ডেন্সের একটি ফ্ল্যাট থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করা হয়।

সীমান্ত এলাকা ঝিনাইদহ-৪ আসনের টানা তিনবারের সংসদ সদস্য (এমপি) ও কালীগঞ্জ উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি ছিলেন আনোয়ারুল আজীম আনার।


আরও খবর



মূল্যস্ফীতি সাড়ে ৭ শতাংশে নেমে আসবে: সংসদে অর্থ প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:সোমবার ০৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সরকারি ব্যয়ে কৃচ্ছ্রতা সাধনসহ বিভিন্ন পদক্ষেপের ফলে চলতি অর্থবছরের শেষে মূল্যস্ফীতি নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা ৭ দশমিক ৫ শতাংশের মধ্যে নেমে আসবে বলে জানিয়েছেন অর্থ প্রতিমন্ত্রী ওয়াসিকা আয়শা খান।

রোববার (৫ মে) জাতীয় সংসদের বৈঠকে ‘২০২৩-২৪ অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকের বাজেট বাস্তবায়ন অগ্রগতি প্রতিবেদন’ উপস্থাপন করতে গিয়ে এই আশাবাদ ব্যক্ত করেন তিনি।

অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, মূল্যস্ফীতি নিয়ন্ত্রণ সরকারের নির্ধারিত অগ্রাধিকারগুলোর মধ্যে অন্যতম। মূল্যস্ফীতিকে সহনীয় পর্যায়ে রাখতে সরকার গত বছর থেকেই বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়ে আসছে। তবে রাশিয়া-ইউক্রেন সংঘাত, আন্তর্জাতিক বাজারে পণ্যের মূল্য বৃদ্ধি এবং মার্কিন ডলারের মূল্য বৃদ্ধির কারণে সারা বিশ্বে উচ্চ মূল্যস্ফীতির চাপ দেখা যায়, যার ফলশ্রুতিতে বাংলাদেশেও মূল্যস্ফীতির চাপ প্রকট হয়েছে।

মূল্যস্ফীতির মতো বৈদেশিক মুদ্রার মজুত শক্ত অবস্থানে ফিরে আসা, রাজস্ব সংগ্রহ বৃদ্ধি এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যও অর্জন সম্ভব হবে বলে ওই প্রতিবেদনে উল্লেখ করেছেন ওয়াসিকা আয়শা খান।

তিনি আরও বলেন, সরকার এরইমধ্যে বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ বাড়ানোর বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। তাই বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ খুব দ্রুত শক্ত অবস্থানে ফিরে আসবে।

সংসদে উপস্থাপিত প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, চলতি অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে রাজস্ব আয়, রপ্তানির প্রবৃদ্ধি, বার্ষিক উন্নয়ন কর্মসূচির ব্যয়, ব্যাপক মুদ্রার সরবরাহের মতো মৌলিক অর্থনৈতিক চলকগুলো সন্তোষজনক পর্যায়ে রয়েছে। রপ্তানি আয়ে ইতিবাচক প্রবৃদ্ধি হয়েছে। তবে সরকারের কৃচ্ছ্রসাধনের ফলে আমদানি ব্যয় নেতিবাচক। সার্বিকভাবে চলতি অর্থবছরে কাঙ্ক্ষিত লক্ষ্য অর্জন হবে বলে এই প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

প্রতিবেদনে আরও বলা হয়েছে, আগামী জুলাই থেকে কাস্টমস আইন-২০২৩ বাস্তবায়ন শুরু হবে। এছাড়া দশ লাখ বা তার বেশি টাকার মূল্য সংযোজন কর(মূসক) পরিশোধে ই-পেমেন্ট বা এ চালান ব্যবহার বাধ্যতামূলক করা হবে।

এছাড়া উৎসে কর কাটার জন্য ইলেক্ট্রনিক সিস্টেমের ব্যবস্থা করা করা হবে। এছাড়া ইলেক্ট্রনিক ফিসক্যাল ডিভাইস (ইএফডি) এবং সেলস ডেটা কন্ট্রোলার (এসডিসি) মেশিন বসানোর কার্যক্রম চলছে। থার্ড পার্টির মাধ্যমে এ কাজ দ্রুত করার পরিকল্পনা নেওয়া হয়েছে।

নতুন করদাতা সনাক্তকরণ, মিডিয়াম অ্যান্ড লং টার্ম রেভিনিউ স্ট্রাটেজি প্রনয়নের উদ্যোগ নেওয়া হয়েছে বলে জাতীয় সংসদকে জানানো হয়েছে। এতে অর্থবছরের দ্বিতীয় প্রান্তিকে রাজস্ব সংগ্রহ বাড়বে বলে অর্থ প্রতিমন্ত্রী মনে করেন।

অর্থ প্রতিমন্ত্রী বলেন, জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়ে কর রাজস্ব ১৩.৯ শতাংশ বেড়েছে। সরকারি ব্যয় হয়েছে ১ লাখ ৯৪ হাজার ৮৯৮ কোটি টাকা, যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ৫ দশমিক ৬২ শতাংশ বেশি। প্রথম ছয় মাসে এডিপি বাস্তবায়ন হয়েছে মোট বরাদ্দের ২৩ দশমিক ৩ শতাংশ , যা আগের অর্থবছরের তুলনায় ১ দশমিক ৫ শতাংশ বেশি। ডিসেম্বর শেষে রপ্তানি আয় দাড়িয়েছে ২৭ দশমিক ৫৪ বিলিয়ন ডলার, যা আগের অর্থবছরের একই সময়ের তুলনায় শুন্য ৮৪ শতাংশ বেশি।

অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসে আমদানি ব্যয় ১৯ দশমিক ৮০ শতাংশ কমেছে। বিলাসদ্রব্যের আমদানি পরিশোধ করা এবং মিতব্যয়িতার কারণে আমদানি কমেছে বলে প্রতিবেদনে উল্লেখ করা হয়েছে।

জুলাই থেকে ডিসেম্বর সময়ে প্রবাস আয় এসেছে ১০ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন ডলার, যা আগের অর্থবছরের প্রথম ছয় মাসের তুলনায় ২ দশমিক ৯১ শতাংশ বেশি।

ওয়াসিকা আয়শা খান বলেন, বিগত কয়েক বছর ধরে কোভিড এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধসহ অন্যান্য ভূরাজনৈতিক কারনে বৈশ্বিক অর্তনীতিতে এক ধরনের অস্থিরতা বিরাজ করছে। বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিস্থিতি ও সামগ্রিক পরিস্থিতি বিবেচনায় চলতি অর্থবছরে প্রবৃদ্ধির লক্ষ্যমাত্রা ৭ দশমিক ৫ শতাংশ থেকে কমিয়ে ৬ দশমিক ৫ শতাংশ নির্ধারণ করা হয়েছে।


আরও খবর



বিরামপুর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে বিজয়ী হলেন যারা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৯১জন দেখেছেন

Image

মিজানুর রহমান মিজান,বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃ২০২৪ইং সালের ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের ১ম পর্যায়ে বুধবার ( ৮ মে) অনুষ্ঠিত নির্বাচনে দিনাজপুর জেলার বিরামপুর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মো.পারভেজ কবীর, মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান মোছা: উম্মে কুলসুম বানু ও ভাইস-চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মো. আতাউর রহমান বেসরকারীভাবে নির্বাচিন হয়েছেন।

বুধবার (৮ মে) রাত সাড়ে ৯ টার দিকে ভোট গণনা শেষে বেসরকারিভাবে ফলাফল ঘোষণা করেন উপজেলা নির্বাচন অফিসার (ভারঃ) ও  সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা জোবায়ের হোসেন। সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা জোবায়ের হোসেন জানান, বিরামপুর উপজেলায় মোট ভোটার সংখ্যা ছিল ১ লাখ ৫১ হাজার ৬৪৬ জন। এর মধ্যে মধ্যে বৈধ ভোটরে সংখ্যা ছিল ৭৫ হাজার ৭ শত ৭৪টি।

বিরামপুর উপজেলা পরিষদে চেয়ারম্যান পদে ৪২ হাজার ৯'শত ৬৭ ভোট পেয়ে বেসরকারি ভাবে নির্বাচিত হয়েছেন বিরামপুর আ’লীগের যুগ্ম-সাধারণ আলহাজ্ব মো.পারভেজ কবীর । তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আলহাজ্ব মতিউর রহমান পেযেছেন ৩২ হাজার ৮'শত ৭ ভোট। মহিলা ভাইস-চেয়ারম্যান পদে হাঁস মার্কা প্রতীকে উম্মে কুলসুম বানু ২৯ হাজার ৮'শত ৭ ভোট পেয়ে নির্বাচিত হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থী আমেনা বেগম বৈদ্যুতিক পাখা মার্কা নিয়ে ভোট পেয়েছেন ২২ হাজার ৪'শত ২৩টি। ভাইস-চেয়ারম্যান (পুরুষ) পদে মো. আতাউর রহমান চশমা মার্কা প্রতীকে ৩২ হাজার ৬'শত ১৫ ভোট পেয়ে বেসরকারীভাবে নির্বাচিন হয়েছেন। তাঁর নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী খোরশেদ আলম মানিক টিউবওয়েল মার্কা পেয়েছেন ১৭ হাজার ১'শত ৮৩ টি ভোট।

নির্বাচন বিষয়ে উপজেলা নির্বাচন অফিসার (ভারঃ) ও  সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা জোবায়ের হোসেন জানান, এই নির্বাচনে উপজেলা প্রশাসনের পাশাপাশি অন্যান্য প্রশাসন ও আইন প্রয়োগকারী সংস্থার সার্বিক সহযোগিতা পেয়েছি। কোনো প্রকার অপ্রীতিকর ঘটনা ছাড়াই সুন্দর ও সুষ্ঠু ভাবে ভোট অনুষ্ঠিত হয়েছে। সেই সঙ্গে বেসরকারিভাবে নির্বাচনী ফলাফল ঘোষণা করেছি।


আরও খবর



সংসদ নির্বাচনের চেয়ে উপজেলা ভোট প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হচ্ছে: সিইসি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৪০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মন্ত্রী-এমপির স্বজনরা প্রার্থী হওয়ায় নির্বাচন কমিশন (ইসি) বেকায়দায় নেই,বলেছেন প্রধান নির্বাচন কমিশনার (সিইসি) কাজী হাবিবুল আউয়াল।

মঙ্গলবার (৭ মে) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে নির্বাচন ভবনে উপজেলা ভোট নিয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে সিইসি একথা বলেন।

সিইসি বলেন, এটা নিয়মরক্ষার ভোট নয়, নির্বাচন অনিবার্যভাবে প্রয়োজন। আমাদের কাজ নির্বাচন আয়োজন করা, কে কোন দলের প্রার্থী এটা কোনো বিষয় না।

এমপি-মন্ত্রীদের ভোটে প্রভাব বিস্তার প্রসঙ্গে কাজী হাবিবুল আউয়াল বলেন, আমরা কোনো বেকায়দায় নেই। নির্বাচন অবাধ হবে। নির্বাচন প্রভাবিত করতে চাইলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে।

তিনি বলেন, ১৪০ উপজেলায় ভোট হবে। ২২ উপজেলায় ইভিএমে ভোট হবে। প্রতিটি কেন্দ্রে ১৭-১৯ জন আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর সদস্য থাকবেন। পার্বত্য এলাকায় ১৯-২১ জন থাকবেন।

সিইসি আরও বলেন, জাতীয় সংসদ নির্বাচনের চেয়ে উপজেলা নির্বাচনের ভোট প্রতিদ্বন্দ্বিতাপূর্ণ হচ্ছে। নির্বাচন যাতে প্রভাবিত না হয় সে ব্যাপারে কমিশনের প্রচেষ্টা অব্যাহত রয়েছে।


আরও খবর