Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

শাকিব খান অবশেষে ভারতীয় ভিসা পেলেন

প্রকাশিত:সোমবার ২৩ অক্টোবর 20২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩২৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:শাকিব খান প্রথমবার প্যান ইন্ডিয়ান সিনেমায় অভিনয় করতে চলেছেন। অনন্য মামুন পরিচালিত ছবির নাম ‘দরদ’। গেল ২০ অক্টোবর ভারতের উত্তর প্রদেশের বেনারস ও এলাহাবাদে এর শুটিংয়ের তারিখ চূড়ান্ত করা হয়েছিল। সেজন্য ১৫ অক্টোবর মুম্বাই উড়াল দেওয়ার কথা ছিল এ নায়কের। কিন্তু ভিসা জটিলতায় যেতে পারেননি এ ঢালিউড সুপারস্টার।

তবে এবার জটিলতা কেটে গেছে। ভারতের ভিসা পেয়েছেন শাকিব খান। গণমাধ্যমকে তথ্যটি নিশ্চিত করেছেন ছবির বাংলাদেশ অংশের পরিচালক অনন্য মামুন।

তিনি বলেন, ‘শুটিংয়ের যাবতীয় কাজ শুরু হয়েছে আরও আগে। গতকাল (রোববার) রাতে শাকিব ভাইসহ বাংলাদেশ অংশের সবার ভিসা হয়েছে। ভিসা পেতে দেরি হলেও আমাদের কোনো কাজ থেমে ছিল না। বারানসিতে টিম কাজ করছে।

মামুন আরও বলেন, ‘মুম্বাইয়ে হিরোইন সোনাল চৌহানকে নিয়ে আমরা গতকাল স্ক্রিপ্ট রিডিং সেসন করেছি। কাজ কিন্তু মোটেও থেমে নেই। চলছে গানের কাজও। শাকিব ভাই আসার পর লুক সেট, হিরোইনসহ স্ক্রিপ্ট রিডিং সেসন ও ফটোশুট হবে। এরপর ২৬ অক্টোবর আমরা উড়াল দেব বারানসিতে। ২৭ অক্টোবর থেকে বারানসি ও এলাহাবাদের বিভিন্ন লোকেশনে টানা শুটিং শেষ করে তারপর দেশে ফিরব।

ছবিটি যৌথভাবে প্রযোজনা করছে ভারতের এসকে মুভিজ, ওয়ান ওয়ার্ল্ড মুভিজ, বাংলাদেশের অ্যাকশন কাট এন্টারটেইনমেন্ট ও কিবরিয়া ফিল্মস। এতে আরও অভিনয় করছেন বাংলাদেশের শহীদুজ্জামান সেলিম, এলিনা শাম্মী, জেসিয়া ইসলাম, ভারতের রাহুল দেব প্রমুখ। বাংলা, হিন্দি, তামিল, মালয়ালম এই চার ভাষায় ছবিটি তৈরির কথা।


আরও খবর



পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্সের অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং প্রস্তুতি সভা ও বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | ৮৩জন দেখেছেন

Image

এস এম শফিকুল ইসলাম, জয়পুরহাট:পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের  উন্নয়ন কর্মকর্তাদের নিয়ে অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং প্রস্তুতি সভা  ও বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠান  অনুষ্ঠিত হয়েছে।

শুক্রবার (২১ জুন) সকালে ঢাকায়  কাকরাইলে ইনস্টিটিউশন অব ডিপ্লোমা ইঞ্জিনিয়ার্স, বাংলাদেশ (আইডিইবি) মিলনায়তনে এ অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং প্রস্তুতি সভা   ও বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।

পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের অতিরিক্ত ব্যবস্থাপনা পরিচালক বি এম শওকত আলীর  সভাপতিত্বে অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং প্রস্তুতি সভা ও বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর অনুষ্ঠানে সভায় প্রধান অতিথি হিসেবে বক্তব্য  রাখেন পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও, বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স ফোরামের প্রেসিডেন্ট ও বাংলাদেশ ইনস্যুরেন্স অ্যাসোসিয়েশনের কার্য নির্বাহী সদস্য  বি এম ইউসুফ আলী। 

বিশেষ অতিথি হিসেবে বক্তব্য রাখেন, পপুলার লাইফ ইনস্যুরেন্স কোম্পানী লিমিটেডের  একক বীমা প্রকল্পের উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক (ব্রাঞ্চ কন্ট্রোল) সৈয়দ মোতাহার হোসেন, উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক ( উন্নয়ন প্রশাসন) নওশের আলী নাঈম,  উর্দ্ধতন  উপ- ব্যবস্থাপনা পরিচালক এমাদ উদ্দিন আহমেদ প্রিন্স (অবলিখন),  ইসলামী বীমা তাকাফুল প্রকল্পের উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক হাবিবুর রহমান, আল আমিন বীমা প্রকল্পের উর্দ্ধতন  উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক আবু তাহের, জনপ্রিয় বীমা প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক কামাল হোসেন মহসিন,  ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক খলিলুর রহমান দুলাল, একক বীমা প্রকল্পের উপ-ব্যবস্থাপনা পরিচালক সৈয়দ সুলতান মাহমুদ। 

এ সময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন, আল বারাকাহ ইসলামী ডিপিএস প্রকল্পের উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প  পরিচালক সেলিম মিয়া, জনপ্রিয় একক বীমা প্রকল্পের  উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক জাহাঙ্গীর হোসেন, পপুলার ডিপিএস  প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক আবু মঈদ শাহীন, আল বারাকাহ ইসলামী একক বীমা প্রকল্পের উর্দ্ধতন নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প  পরিচালক  মোহাম্মদ এনামুল হক, আল আমিন বীমা প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক মোখলেছুর রহমান, আল বারাকা ইসলামী একক বীমা প্রকল্পের নির্বাহী পরিচালক ও প্রকল্প পরিচালক মাহাবুবুর রহমান।

অর্ধ বার্ষিক ব্যবসা ক্লোজিং প্রস্তুতি সভা   ও বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর  শেষে মেয়াদ উত্তীর্ণ বীমা গ্রাহকের হাতে বীমাদাবীর চেক হস্তান্তর করেন অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি কোম্পানীর ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও সিইও বি এম ইউসুফ আলী।


আরও খবর



আলোচিত সেই রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমান ওএসডি

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৮৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় রাজস্ব বোর্ডের (এনবিআর) সদস্য মতিউর রহমানকে বর্তমান দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হয়েছে। কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট আপিলাত ট্রাইবুনালের সভাপতি পদ থেকে সরিয়ে তাকে অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগে সংযুক্ত করা করেছে।

রোববার (২৩ জুন) অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগের উপসচিব মকিমা বেগম স্বাক্ষরিত এক প্রজ্ঞাপনে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, কাস্টমস, এক্সাইজ ও ভ্যাট আপিলাত ট্রাইব্যুনালের সভাপতি মো. মতিউর রহমানকে অর্থ মন্ত্রণালয়ের অভ্যন্তরীণ সম্পদ বিভাগে সংযুক্ত করা হলো। এই আদেশ অবিলম্বে কার্যকর হবে।

কোরবানির ঈদের আগে মতিউর রহমানের ছেলে ইফাত ১৫ লাখ টাকায় ছাগল কিনে আলোচনায় আসেন। এরপর বেরিয়ে আসে ইফাতের কোটি টাকার গাড়ি ও আভিজাত জীবনযাপনের নানা তথ্য। ধীরে ধীরে গণমাধ্যমে উঠে এসেছে মতিউর রহমানের স্ত্রী, ছেলে ও কন্যাদের সম্পদের নানা তথ্য।

মতিউর রহমানের বিরুদ্ধে কড়া ব্যবস্থা নেওয়ার নির্দেশ দিয়েছিলেন অর্থমন্ত্রী আবুল হাসান মাহমুদ আলী। এরপরই তাকে দায়িত্ব থেকে সরিয়ে দেওয়া হলো। পাশাপাশি সোনালী ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদ থেকেও বাদ পড়তে যাচ্ছেন মতিউর রহমান। এরই মধ্যে সোনালী ব্যাংক কর্তৃপক্ষ মৌখিকভাবে বিষয়টি মতিউর রহমানকে জানিয়েছে। ব্যাংকের সিইও আফজাল করিম এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন।

এদিকে, ঈদের ছুটির পর এখনও কর্মস্থলে যোগ দেননি মতিউর রহমান। রোববার সকালে ভ্যাট ও কাস্টমস আপিলাত ট্রাইবুনালের তাকে পাওয়া যায়নি। কর্মচারীরা জানান, ঈদের ছুটির পর কর্মস্থলে যোগ দেননি আলোচিত-সমালোচিত রাজস্ব কর্মকর্তা মতিউর রহমান।


আরও খবর



বুধবার সারাদেশে সকাল-সন্ধ্যা ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৯ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৭১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: সরকারি চাকরিতে কোটা বাতিলের দাবিতে সর্বাত্মক ‘বাংলা ব্লকেড’ কর্মসূচি ঘোষণা করেছেন শিক্ষার্থীরা।

মঙ্গলবার (৯ জুলাই) সন্ধ্যা সাড়ে ৬টার দিকে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের কেন্দ্রীয় গ্রন্থাগারের সামনে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এ ঘোষণা দেন বৈষম্যবিরোধী ছাত্র আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক নাহিদ ইসলাম।

নাহিদ ইসলাম বলেন, সংবিধানে উল্লিখিত অনগ্রসর গোষ্ঠীর জন্য কোটাকে ন্যূনতম মাত্রায় এনে সংসদে আইন পাস করে কোটাপদ্ধতিকে সংশোধন করার দাবি জানাচ্ছি। দাবি আদায়ে আগামীকাল সকাল-সন্ধ্যা ব্লকেড কর্মসূচি পালিত হবে। কর্মসূচি চলাকালে দেশের গুরুত্বপূর্ণ সড়ক ও রেলপথ এর আওতাভুক্ত থাকবে। দেশের বিভিন্ন কলেজ ও বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীদের প্রতিষ্ঠানের নিকটবর্তী সড়ক অবরোধের আহ্বান জানান তিনি।

তিনি বলেন, বুধবার যে শুনানি আছে তাতে যদি ইতিবাচক কোনো সমাধান আসে তাহলে কোনো কথা নেই। তবে প্রতিটি ক্ষেত্রে বৈষম্য দূর না হলে দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত আন্দোলন চলবে।

নাহিদ বলেন, ৫ জুলাই থেকে আমরা আন্দোলনে আছি। আন্দোলন শিক্ষার্থীরা নিজ উদ্যোগে করেনি। হাইকোর্টের রায়ের কারণে আন্দোলনের প্রেক্ষাপট তৈরি হয়েছে। অনেকে সাধারণ মানুষের ভোগান্তির কথা বলছেন। আমরাও চাই না সাধারণ মানুষের কোনো ভোগান্তি তৈরি হোক। কিন্তু এখনো নির্বাহী বিভাগ থেকে আমরা কোনো আলোচনা বা আশ্বাস পাইনি। সংসদে আইন পাসের মাধ্যমে কোটা বৈষম্য নিরসনের কথা বলছি আমরা।

আমাদের এখন আদালতের কাছে কোনো দাবি নেই, আমাদের দাবি এখন নির্বাহী বিভাগের কাছে বলে মন্তব্য করেন নাহিদ ইসলাম। এ সময় আরও বক্তব্য দেন আন্দোলনের অন্যতম সমন্বয়ক হাসনাত আব্দুল্লাহ, সারজিস আলম ও আসিফ মাহমুদ বক্তব্য দেন।


আরও খবর



২০২৪-২৫ অর্থ বছরের হাকিমপুর পৌরসভার উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা

প্রকাশিত:শনিবার ২৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:দিনাজপুরের হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার চলতি ২০২৪-২৫ অর্থবছরের ২৬ তম উন্মুক্ত বাজেট ঘোষণা করা হয়েছে। গতকাল শুক্রবার সাড়ে ৪ টায় হাকিমপুর (হিলি) পৌরসভার সভাকক্ষে পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্ত এ বাজেট ঘোষণা করেন।  সাধারন সংস্থাপন,শিক্ষা,সংস্কৃতি ও খেলাধুলা,জনস্বাস্থ্য, পরিবেশ ও বর্জ্য ব্যবস্থাপনা,দূর্যোগ ব্যবস্থাপনা ও জরুরী ত্রানসহ জনগণের সেবার মান বাড়ানোর লক্ষ্যে মোট ৩৯ কোটি ৫৩ লাখ ৯৭ হাজার ৩৩৬ টাকার এ বাজেট ঘোষণা করেন তিনি।

পৌর বাজেটে চলতি অর্থবছরের জন্য রাজস্ব আয় ধরা হয়েছে ২ কোটি ৩ লাখ ৫৯ হাজার ২১২ টাকা। বিভিন্ন সংস্থা থেকে উন্নয়ন বাবদ আয় ধরা হয়েছে ৩৭ কোটি ৫০ লাখ ৩৮ হাজার ১২৪ টাকা। বাজেটে রাজস্ব ব্যয় ধরা হয়েছে ২  কোটি ১ লাখ ৯৮ হাজার ৪৭৪ টাকা। এর মধ্যে বিভিন্ন উন্নয়নমূলক কর্মকান্ডের জন্য ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৭ কোটি ৫০ লাখ ৩৮ হাজার ১২৪  টাকা। আর রাজস্ব স্থিতি থাকবে ১ কোটি ৬০ হাজার ৭৩৮ টাকা।

পৌর মেয়র জামিল হোসেন চলন্তের সভাপতিত্বে বাজেট ঘোষণা অনুষ্ঠানে প্যানেল মেয়র মিনহাজুল ইসলাম,কাউন্সিলর দুলাল হোসেন,কাউন্সিলর বাবুল হোসেন,কাউন্সিলর শামীম সরদার, কাউন্সিলর ফারুক মল্লিক,কাউন্সিলর রতন চন্দ্র, মহিলা কাউন্সিলর ইয়াসমিন সরকার চায়না,মহিলা কাউন্সিলর মোছা সেতু, মহিলা কাউন্সিলর উম্মে কুলছুমসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



নয় প্রাণ নাশের পর টনক নরেছে উপজেলা প্রকৌশলীর!

প্রকাশিত:বুধবার ২৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image

আব্দুল্লাহ আল নোমান,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:নয় প্রাণ নাশের পরে টনক নরেছে আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুনের।  মঙ্গলবার তিনি  আমতলী উপজেলার ২০ টি অতি ঝুকিপুর্ণ সেতুতে সতর্কীকরণ নোটিশ বোর্ড ও বেড়া দিয়েছেন। তিনি ভেঙ্গে যাওয়া হলদিয়া হাট সেতুতেও নতুন করে নোটিশ ও বেড়া দিয়েছেন।

জানাগেছে, আমতলী উপজেলার ২০০৭-০৮ অর্থ বছরের পরে ২০ টি লোহার সেতু নির্মাণ করে উপজেলা প্রকৌশল অধিদপ্তর। ওই সেতুগুলো নির্মাণে অনিয়ম ছিল বলে অভিযোগ স্থানীয়দের। সেতুগুলোতে রেলপাটির বীম বসানোর কথা থাকলেও ঠিকাদারগণ নরমাল বীম বসিয়ে সেতু নির্মাণ করেছেন। ওই সেতুগুলোর ঠিকাদার ছিলেন হলদিয়া ইউনিয়ন পরিষদ সাবেক চেয়ারম্যান শহীদুল ইসলাম মৃধাসহ বেশ কয়েকজন। ওই সময় তারা প্রভাব খাটিয়ে দায়সারা সেতু নির্মাণ করে টাকা তুলে নেয়। অল্প দিনের মধ্যেই ওই সেতু গুলোর লোহার বীম অকেজো হয়ে যায়। ফলে সেতুগুলো অত্যান্ত ঝুকিপুর্ণ  হয়ে পড়ে।  গত ১৬ বছরে ওই সেতুগুলো ঝুকিপুর্ণ অবস্থায় থাকলেও উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুনের নজরে আসেনি। গত শনিবার বৌভাত অনুষ্ঠানে যাওয়ার পথে চাওড়া নদীর ওপর নির্মিত চাওড়া ও হলদিয়া ইউনিয়নের সংযোগ হলদিয়া হাট সেতুর মাঝখান ভেঙ্গে মাইক্রোবাস পানিতে তলিয়ে যায়। এতে কনে মরিয়ম বিল্লাহ হুমায়রার মামা বাড়ীর ৭ জন ও বাবার  বাড়ীর ২ জন  নিহত হয়। নয় প্রাণ নাশের পর মঙ্গলবার তিনি উপজেলার ২০ টি ঝুকিপুর্ণ সেতুতে সতর্কীতরণ নোটিশ টানিয়েছেন এবং বেড়া দিয়েছেন। 

কাউনিয়া গ্রামের জিয়া উদ্দিন জুয়েল, নজরুল ইসলাম ও দক্ষিণ তক্তাবুনিয়া গ্রামের নাশির উদ্দিন বলেন, নয়টি প্রাণ নাশের পরে টনক নরেছে উপজেলা প্রকৌশলীর। তিনি সেতুর মাঝখানে পিলার গেড়ে দিয়েছেন। যাতে যানবাহন চলাচল করতে না পারে। এই পিলারটা আগে গেড়ে দিলে নয়টি প্রাণ ঝড়ে যেতো না।  তার অবহেলার কারনে এমন দুর্ঘটনা ঘটেছে। 

আমতলী উপজেলা প্রকৌশলী আব্দুল্লাহ আল মামুন বলেন, উপজেলার ২০ টি অতি ঝুকিপুর্ণ লোহার সেতুতে সতর্কীকরণ নোটিশ ও বেড়া দেয়া হয়েছে। আগে কেন সতর্কীকরণ নোটিশ ও বেড়া দেননি এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, আগেই নোটিশ টানিয়ে দিয়েছিলাম কিন্তু স্থানীয়রা সরিয়ে ফেলেছেন।

বরগুনা নির্বাহী প্রকৌশলী মেহেদী হাসান বলেন, ঝুকিপুর্ণ সেতুগুলোকে সতর্কীকরণ নোটিশ ও বেরিকেট দিতে নির্দেশ দেয়া হয়েছে। তিনি আরো বলেন, আমরা চেষ্টা করছি স্থায়ীভাবে বেরিকেট দেয়ার যাতে ভারী যানবাহন সেতুতে না উঠতে পারে।


আরও খবর

আমতলীতে ৩দিন ব্যাপী কৃষি মেলা শুরু

বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪