Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

অবিশ্বাস্য দামে দারাজে পাওয়া যাচ্ছে রিয়েলমি স্মার্টফোন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৫ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৩৭৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রিয়েলমি’র নতুন উন্মোচিত হওয়া অত্যাধুনিক সব স্মার্টফোন দারাজ থেকে সাশ্রয়ী দামে কেনার এখনই সুযোগ! দেশের শীর্ষস্থানীয় ই-কমার্স প্ল্যাটফর্ম দারাজের নবম প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে দারাজে অবিশ্বাস্য দামে পাওয়া যাচ্ছে রিয়েলমি’র বিভিন্ন স্মার্ট ডিভাইস। গতকাল (১২ সেপ্টেম্বর) শুরু হওয়া এ অ্যানিভার্সারি ক্যাম্পেইন চলবে আগামী ২৪ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত। এ ক্যাম্পেইনে রিয়েলমি’র জিটি মাস্টার এডিশন ও ৯ প্রো প্লাস সহ ব্র্যান্ডটির বিভিন্ন স্মার্টফোন কেনার সুযোগ থাকছে দুর্দান্ত দাম ও আকর্ষণীয় ডিলে। ক্যাম্পেইন চলাকালে, ক্রেতারা নির্বাচিত স্মার্টফোনে দারাজের ডিসকাউন্ট কুপন ব্যবহার করে সর্বোচ্চ ২,৮০০ টাকা পর্যন্ত ৫ শতাংশ ছাড় উপভোগ করতে পারবেন; সাথে থাকছে শূন্য শতাংশ ইএমআই ও ব্র্যান্ড ওয়্যারেন্টি সুবিধা। এছাড়াও, এসব স্মার্টফোন কেনা যাবে পেমেন্ট পার্টনারদের বিস্তৃত পরিসরের আকর্ষণীয় ডিলের মাধ্যমে। ক্যাম্পেইনে রিয়েলমি’র যেসব ডিভাইস পাওয়া যাবে তার মধ্যে রয়েছে রিয়েলমি সি৩০ (২জিবি র‍্যাম/৩২জিবি রম), রিয়েলমি সি৩৩ (৪জিবি/১২৮ জিবি), রিয়েলমি সি৫৫ (৮জিবি/২৫৬ জিবি), রিয়েলমি সি৫৫ (৬জিবি/১২৮জিবি), রিয়েলমি সি৩০এস (৩জিবি/৬৪জিবি), রিয়েলমি সি৫৩ (৬জিবি/১২৮জিবি), রিয়েলমি জিটি মাস্টার এডিশন (৮জিবি/১২৮জিবি), রিয়েলমি ৯ প্রো প্লাস (৮জিবি/১২৮ জিবি) এবং রিয়েলমি সি৫১ (৪জিবি/৬৪জিবি)। রিয়েলমি’র মান ও সাশ্রয়ী দামের মধ্যে সমন্বয়ের কারণে তরুণ-কেন্দ্রিক এ ব্র্যান্ডটি তরুণ প্রজন্মের মধ্যে ব্যাপক জনপ্রিয়তা অর্জন করেছে। সবার জন্য স্মার্টফোন ব্যবহারের সুযোগ নিশ্চিত করার পাশাপাশি রিয়েলমি উদ্ভাবনী, প্রতিযোগিতামূলক ফিচার সমৃদ্ধ এবং আকর্ষণীয় ডিজাইনের স্মার্টফোন নিয়ে আসছে। তাহলে আর অপেক্ষা কেন? এ লিঙ্কে ক্লিক করে উপভোগ করুন আকর্ষণীয় ডিল।


আরও খবর



মিরসরাইয়ে স্কুল মাঠে জলাবদ্ধতা, শিক্ষার্থীদের দুর্ভোগ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৪৯জন দেখেছেন

Image

মিরসরাই প্রতিনিধি:সামান্য বৃষ্টিতেই জলাবদ্ধতা সৃষ্টি হয় স্কুলের মাঠে। এতে দুর্ভোগে পড়তে হয় মিরসরাইয়ের ওচমানপুর হাই সংলগ্ন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের শিক্ষক ও শিক্ষার্থীদের। বিদ্যালয়ের মাঠ ও রাস্তা নিচু হওয়ায় এবং পানি নিষ্কাশনের পথ না থাকায় মাঠটির বেশিরভাগ অংশই জলমগ্ন হয়ে আছে। পানিতে বেড়ে উঠেছে আগাছা। শিক্ষা প্রতিষ্ঠান খোলা থাকলেও শিক্ষার্থীরা শ্রেণিকক্ষ ছেড়ে মাঠে নামতে পারছেন না। বিদ্যালয়ে শিক্ষার্থীদের প্রতিদিনের শরীরচর্চা ও জাতীয় সংগীত অনুষ্ঠান ব্যাহত হচ্ছে।

৫ম শ্রেণির শিক্ষার্থী মিফতাহুল জান্নাত জানায়, স্কুলে আসার সময় জামা ভিজে যায়। কাঁদার জন্য হাঁটতে পারি না। সাপ ও জোঁকের ভয়ে বারান্দা থেকে তো নিচে নামাই যায় না। কখনো ভিজে গেলে ক্লাস করতে পারিনা।

বিদ্যালয় পরিচালনা কমিটির সভাপতি মাহফুজুর রহমান বলেন, জলাবদ্ধতা ও কর্দমাক্ত পরিবেশের কারণে শ্রেণিকক্ষে যাতায়াতের সময় কোমলমতি শিক্ষার্থীদের অনেকেরই পা পিছলে পড়ে যাওয়ার ঘটনা ঘটেছে। এছাড়া শিক্ষার্থীর উপস্থিতিও আগের চেয়ে কমেছে। জলাবদ্ধতা নিরসনে সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষের নিকট আবেদন করা হয়েছে।

বিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত প্রধান শিক্ষক হাছিনা আক্তার বলেন, বিদ্যালয়ে ৮০ জন শিক্ষার্থী ও ৫ জন শিক্ষক রয়েছে। ১৯৯৪ সালে নির্মিত স্কুল ভবনের বিভিন্ন শ্রেণি কক্ষে ফাটলসহ স্কুলের মাঠে জলাবদ্ধতার সৃষ্টি হওয়ায় স্কুলের শিক্ষা কার্যক্রম ব্যাহত হচ্ছে। এ পরিস্থিতিতে দ্রুততার সঙ্গে বিদ্যালয় মাঠের জলাবদ্ধতা নিরসনসহ ভবন নির্মাণের জন্য উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসারকে অবহিত করেছি।

উপজেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার এ.কে.এম ফজলুল হক জানান, জলাবদ্ধতা নিরসনে স্কুল মাঠ ভরাটের জন্য অধিদপ্তরে বরাদ্ধ চেয়ে চিঠি পাঠানো হবে। এছাড়া বিদ্যালয় ভবন ঝুঁকিপূর্ণ কিনা তা পরিদর্শন করে নতুন ভবন নির্মাণের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



কোটা আন্দোলনে আহতদের পাশে দাঁড়াতে চান সালমান

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিবেদক:কোটা সংস্কার আন্দোলনে যে সকল আহত শিক্ষার্থী যারা চিকিৎসা সহায়তা নিতে চান তাদের পাশে দাঁড়াতে চান আলোচিত ইউটিউবার, কনটেন্ট ক্রিয়েটর ও অভিনেতা সালমান মুক্তাদির।

মঙ্গলবার (১৬ জুলাই) সকালে এক ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি জানান, যে সকল ছাত্র হলে ঢুকতে পারছেন না বা হামলার শিকার হয়েছেন তাদের দায়িত্ব নেবেন তিনি।

ফেসবুক স্ট্যাটাসে তিনি লিখেছেন,‘এমন কোনো ছাত্র আছেন যিনি হামলার শিকার হয়েছেন বা হলে ঢুকতে পারছেন না? আমি আপনাদের দায়িত্ব নিব। যদিও লাখ লাখ মেসেজ বা পোস্টের মাঝে তোমাদের ফিল্টার করা আমার পক্ষে অসম্ভব। তাই, যদি তোমাদের কোনো বন্ধু থাকে আমার বন্ধু তালিকাতে তাদের মাধ্যমে আমার সঙ্গে  যোগাযোগ করো। আমি দুঃখিত, এটাই সর্বোচ্চ হয়তো এখন করতে পারতাম।

সালমান আরও লিখেছেন, ‘যদি তোমাদের কোনো থাকার জায়গা প্রয়োজন হয় বা চিকিৎসা সেবার প্রয়োজন হয়, আমি আছি। মাত্রই কিছূ ভিডিও দেখলাম, যেখানে কিছু ছাত্র তাদের হলে প্রবেশ করতে পারছে না। আমি আবারও ক্ষমা চেয়ে নিচ্ছি যদি এতটুকু যথেষ্ট না হয়। আমি সত্যিই ভেঙে পড়েছি, বিব্রত বোধ করছি। জনপ্রিয় হয়েও খুবই লজ্জাবোধ করছি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



নবীনগর সেমন্তঘর গ্রামে ফেসবুক লাইভে এসে আত্মহত্যা করেছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ২২৪জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মদ হেদায়েতুল্লাহ নবীনগর(ব্রাহ্মণবাড়িয়া)প্রতিনিধিঃব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগরে ফেসবুক লাইভে এসে নিজ ঘরে রশি পেঁচিয়ে আব্দুর রশিদ (৩০) নামে এক যুবক আত্মহত্যা করেছেন। বুধবার দিবাকত গভীর রাতে উপজেলার বিদ্যাকুট ইউনিয়নের সেমন্তঘর গ্রামে এ ঘটনা ঘটে। নিহত ঐ যুবক সেমন্তঘর উত্তর পাড়ার মো. জালাল মিয়ার ছেলে।নিহত আব্দুর রশিদ এর ফেসবুক ওয়ালে ৬ মিনিটের ভিডিওতে দেখা যায়, তিনি বৃহস্পতিবার রাতে তার ফেসবুক লাইভে আসেন। এর আগে তিনি তার ঘরের সিলিংয়ে একটি রশি বেঁধে রাখেন। লাইভ চালু করে তিনি একটি টেবিলে উঠে গলায় রশি পেঁচিয়ে আত্মহত্যা করেন।

পরিবার সূত্রে জানা যায়, সে চট্টগ্রামে বেকারির লাইন চালাইতো, সে মাদকাসক্ত ছিল গতকাল চট্টগ্রাম থেকে বাড়িতে এসে তার নিজঘরে তার ফেসবুক প্রোফাইল থেকে ফেসবুকে লাইভে এসে সিলিং এর সাথে দড়ি দিয়ে গলায় ফাঁস লাগিয়ে আত্মহত্যা করে।শিবপুর পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ এসআই আবু বক্কর ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, খবর পেয়ে রশিদকে জুলন্ত অবস্থায় তার নিজ ঘর থেকে উদ্ধার করি। পরিবার সুত্রে জানতে পারি সে মাদকাসক্ত ছিল। মরদেহ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেনারেল হাসপাতালের মর্গে পাঠানো হয়েছে। এ ঘটনায় একটি অপমৃত্যুর মামলা হয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



প্রাইম ব্যাংক ও আইএফসি’র মধ্যে ৯০ মিলিয়ন ডলারের চুক্তি স্বাক্ষর

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৬৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশের আমদানি-রপ্তানি নির্ভর মাইক্রো, ক্ষুদ্র ও মাঝারি উদ্যোগের (এমএসএমই) সহায়তায় ৯০ মিলিয়ন ডলারের টার্ম লোন চুক্তি করেছে বেসরকারি প্রাইম ব্যাংক পিএলসি এবং বিশ্ব ব্যাংক গ্রুপের সদস্য ইন্টারন্যাশনাল ফাইন্যান্স করপোরেশন (আইএফসি)। এই বিনিয়োগের উদ্দেশ্য হলো- বাংলাদেশের এমএসএমই উদ্যোক্তাদের জন্য আর্থিক সুবিধা উল্লেখযোগ্যভাবে বাড়ানো, যার মাধ্যমে দেশের সার্বিক অর্থনৈতিক অগ্রগতি এবং স্থিতিশীলতা বাড়বে।

বাংলাদেশের এসএমই খাতে প্রায় ১০ মিলিয়ন উদ্যোক্তা রয়েছেন, যেখানে প্রায় ২৪ মিলিয়ন মানুষ নিয়োজিত রয়েছেন। দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে এখাতের ভূমিকা গুরুত্বপূর্ণ। বর্তমানে দেশের জিডিপিতে এ খাতের অবদান ২৫ শতাংশ, ২০৩০ সালে এ অবদান বেড়ে দাঁড়াবে ৩৫ শতাংশে। যদিও এ খাতের উদ্যোক্তারা মূল্যস্ফীতি ও আর্থিক সীমাবদ্ধতাসহ নানামুখী চ্যালেঞ্জের সম্মুখীন হচ্ছেন। তবে এখাতের প্রবৃদ্ধি ও উন্নয়নে অনেক সম্ভাবনা আছে। বর্তমানে এ খাতের ৩৯ বিলিয়ন ডলারের অর্থায়ন ঘাটতি কমাতে নানা ধরনের উদ্যোগ গ্রাহণ করা হয়েছে।

আইএফসি’র এই বিনিয়োগের প্রধান লক্ষ্য প্রাইম ব্যাংকের সক্ষমতা বাড়িয়ে এমএসএমই খাতে অর্থায়ন বাড়ানো এবং এ খাতের অর্থায়ন ঘাটতি কমাতে সেতুবন্ধন হিসেবে কাজ করা। এই উদ্যোগ এখাতে শুধু তাৎক্ষণিক তারল্য চাহিদাই পূরণ করবে না বরং বাংলাদেশের অর্থনৈতিক কাঠামোর জন্য অত্যাবশ্যকীয় খাতগুলোকেও সহায়তা করবে, বিশেষ করে বৈশ্বিক অর্থনৈতিক পরিবর্তনের ফলে যেসব খাত ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে।

সম্প্রতি আয়োজিত এক অনুষ্ঠানে প্রাইম ব্যাংক পিএলসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান ও. রশীদ এবং আইএফসি’র এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের রিজিওনাল ইন্ডাস্ট্রি ডিরেক্টর অ্যালেন ফরলেমু নিজ নিজ প্রতিষ্ঠানের পক্ষে চুক্তিতে স্বাক্ষর করেন।

প্রাইম ব্যাংক পিএলসি’র প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা হাসান ও. রশীদ বলেন, ‘এই সহযোগীতা প্রাইম ব্যাংকের প্রতি আইএফসি’র আস্থা এবং বাংলাদেশের অর্থনৈতিক স্থিতিশীলতার প্রতিফলন। আমাদের কার্যক্রম সম্প্রসারণে আইএফসি’র সাথে দশকব্যাপী দীর্ঘ অংশীদারিত্ব সহায়ক ভূমিকা পালন করেছে। আমাদের প্রতি ধারাবাহিক সমর্থনের জন্য আমরা আইএফসি’র প্রতি কৃতজ্ঞ। আমাদের এমএসএমই ক্লায়েন্টদের সহায়তার জন্য ৯০ মিলিয়ন ডলারের নতুন এই অর্থায়ন নিঃসেন্দেহে আমাদের এমএসএমই পোর্টফোলিও বাড়াতে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখবে।’

আইএফসি’র এশিয়া ও প্যাসিফিক অঞ্চলের রিজিওনাল ইন্ডাস্ট্রি ডিরেক্টর অ্যালেন ফরলেমু বলেন, ‘প্রাইম ব্যাংকে আমাদের বিনিয়োগ বাংলাদেশে নতুন কর্মসংস্থান সৃষ্টি, বিশেষ করে নারী নেতৃত্বে পরিচালিত এমএসএমই খাতকে ক্ষমতায়ন করা এবং অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির প্রতি আমাদের প্রতিশ্রুতির প্রতিফলন। এমএসএমই খাতে আর্থিক সুবিধা বাড়ানো এবং আর্থিক ইকোসিস্টেম শক্তিশালী করার মাধ্যমে আমরা বাংলাদেশের সমন্বিত প্রবৃদ্ধি এবং অর্থনীতির ভিত্তি মজবুত করতে চাই। আমরা আশা করি যে, আমাদের সমর্থন এমএসএমই খাতে শুধু আর্থিক সুবিধাই বাড়াবে না বরং বৃহত্তর বাজারের স্থিতিশীলতা বাড়াবে, যা বাংলাদেশের এমএসএমই খাতে আরও বিনিয়োগ আকর্ষণে সক্ষম হবে।’

প্রাইম ব্যাংক পিএলসি, বাংলাদেশের একটি নেতৃস্থানীয় বেসরকারি খাতের বাণিজ্যিক ব্যাংক। ২০২৩ সালে ব্যাংকের গ্লোবাল ট্রেড ফাইন্যান্স প্রোগ্রাম (জিটিএফপি)-এর অধীনে আইএফসি কর্তৃক ব্যাংকটি স্বীকৃত এবং পুরস্কৃত হয়েছিল। এই সুবিধাটি আইএফসি থেকে প্রাইম ব্যাংকের বিদ্যমান আর্থিক সহায়তা পেতে সহায়তা করে। আইএফসি থেকে পাওয়া সহায়তাগুলোর মধ্যে রয়েছে- ৫০ মিলিয়ন ডলারের ক্যাপিটাল লোন সুবিধা এবং গ্লোবাল ট্রেড ফাইন্যান্স প্রোগ্রামের আওতায় ৮০ মিলিয়ন ডলারের ক্রেডিট গ্যারান্টি সুবিধা।


আরও খবর



সেনাপ্রধানের দায়িত্ব নিলেন জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান

প্রকাশিত:রবিবার ২৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান সেনাবাহিনীর প্রধান হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণ করেছেন । তিনি জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হলেন।

রবিবার (২৩ জুন) এ তথ্য জানায় আন্তঃবাহিনী জনসংযোগ পরিদপ্তর (আইএসপিআর)। আগামী তিন বছরের জন্য সেনাপ্রধানের দায়িত্বে থাকবেন তিনি।

গত ১১ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের প্রজ্ঞাপনে বলা হয়, সেনাবাহিনীর লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানকে ২৩ জুন থেকে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে জেনারেল পদে পদোন্নতি দিয়ে তিন বছরের জন্য সেনাবাহিনী প্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে।

এর আগে এক বিজ্ঞপ্তিতে আইএসপিআর জানায়, ওয়াকার-উজ-জামান ১৯৮৫ সালের ২০ ডিসেম্বর ১৩তম দীর্ঘমেয়াদি কোর্সের সঙ্গে বাংলাদেশ সেনাবাহিনীতে কমিশন লাভ করেন। তিনি ডিফেন্স সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ, মিরপুর এবং যুক্তরাজ্যের জয়েন্ট সার্ভিসেস কমান্ড অ্যান্ড স্টাফ কলেজ থেকে গ্র্যাজুয়েশন সম্পন্ন করেন। এ ছাড়া তিনি জাতীয় বিশ্ববিদ্যালয় থেকে ‘মাস্টার্স অব ডিফেন্স স্টাডিজ’ এবং যুক্তরাজ্যের কিংস কলেজ, ইউনিভার্সিটি অব লন্ডন থেকে ‘মাস্টার্স অব আর্টস ইন ডিফেন্স স্টাডিজ’ ডিগ্রি অর্জন করেন।

ওয়াকার-উজ-জামান সুদীর্ঘ ৩৯ বছরের বর্ণাঢ্য সামরিক জীবনে বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ পদের পাশাপাশি নবম পদাতিক ডিভিশনের জেনারেল অফিসার কমান্ডিং এবং সাভার এরিয়ার এরিয়া কমান্ডার, সেনা সদরে সামরিক সচিব এবং বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর চিফ অব জেনারেল স্টাফ হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আর্মড ফোর্সেস ডিভিশনে প্রধানমন্ত্রীর প্রিন্সিপাল স্টাফ অফিসার হিসেবে দায়িত্ব পালন করেছেন।

এরিয়া কমান্ডার সাভার এরিয়া ও জেনারেল অফিসার কমান্ডিং (জিওসি) নবম পদাতিক ডিভিশন হিসেবে ওয়াকার-উজ-জামান টানা তিন বছর অত্যন্ত সফলভাবে বিজয় দিবস প্যারেড ২০১৪, ২০১৫ ও ২০১৬-এর প্যারেড কমান্ডারের দায়িত্ব পালন করেন। বিরল এই কৃতিত্বের স্বীকৃতিস্বরূপ তিনি ‘সেনাগৌরব পদক’ (এসজিপি) পান।

ওয়াকার-উজ-জামান স্টাফ হিসেবে পার্বত্য চট্টগ্রামে নিয়োজিত একটি ব্রিগেড, স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস (এসআইএন্ডটি) এবং সেনা সদরে বিভিন্ন পদবি ও নিয়োগে দায়িত্ব পালন করেন। এ ছাড়া তিনি প্রতিক্ষণ হিসেবে জেসিও এনসিও একাডেমি (জেএনএ), স্কুল অব ইনফ্যান্ট্রি অ্যান্ড ট্যাকটিকস ও বাংলাদেশ ইনস্টিটিউট অব পিস সাপোর্ট অ্যান্ড ট্রেনিংয়ে (বিপসট) অত্যন্ত সুনামের সঙ্গে সব পদবির দেশি-বিদেশি সেনাসদস্যদের প্রশিক্ষণ দেন।

জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামান জাতিসংঘের ব্যানারে মিলিটারি অবজারভার হিসেবে অ্যাঙ্গোলা এবং সিনিয়র অপারেশন অফিসার হিসেবে লাইবেরিয়াতে দায়িত্ব পালন করেন। সেনাবাহিনীতে কৃতিত্বপূর্ণ অবদানের জন্য তিনি ‘অসামান্য সেবা পদকে’ (ওএসপি) ভূষিত হন। তার স্ত্রীর নাম সারাহনাজ কমলিকা জামান। এ দম্পতির সামিহা রাইসা জামান ও শাইরা ইবনাত জামান নামে দুই কন্যাসন্তান রয়েছে।


আরও খবর