Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

জয়যাত্রা টেলিভিশনের ৫ম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান পালিত হয়েছে

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০২ নভেম্বর 2০২3 | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৩৯৭জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:দর্শক-শুভানুধ্যায়ীর দোয়া ও ভালোবাসায় পালিত হয়ে গেলো দর্শক নন্দিত  জনপ্রিয় টেলিভিশন জয়যাত্রা টেলিভিশনের ৫ম বর্ষপূর্তি অনুষ্ঠান। ❝বিশ্বের চোখে অবিরাম যাত্রা❞ এই শ্লোগানকে সামনে রেখে বুধবার (১ নভেম্বর) দিনব্যাপি জয়যাত্রা টেলিভিশনের ৫ম বর্ষপূর্তি উপলক্ষে প্রতি বারের ন্যায় এবারও আয়োজন করা হয় মিলন মেলার।মিলনমেলাকে কেন্দ্র করে দর্শক-শুভানুধ্যায়ী,শিল্পী,তারকা,সাংবাদিক,কলা-কুশিলি,সুধিজনের উপস্থিতিতে কানায় কানায় পূর্ণ হয় সমগ্র জয়যাত্রা টেলিভিশন কার্যালয় ভবন।

নাচ,গান,কৌতুক পরিবেশন ও কেক কাটা সহ নানা আয়োজনে আনন্দে মাতিয়ে তোলা হয় আগতদের। নিজেদের মতো করে আড্ডাও দেয় সবাই। এতসব আয়োজনের মধ্য দিয়েও সবার মাঝে একটি শূন্যতা দৃশ্যমান ছিল। তার একটিই কারণ, যার অক্লান্ত পরিশ্রম ও দিক নির্দেশনায় খুব অল্প সময়ের মধ্যে জয়যাত্রা টেলিভিশন দর্শক নন্দিত হয়ে উঠেছে, সবার প্রিয় মানুষ জয়যাত্রা টেলিভিশনের মাননীয় চেয়ারম্যান হেলেনা জাহাঙ্গীর। তিনি অসুস্থতার কারণে অনুষ্ঠানে উপস্থিত হতে পারেনি। তার অনুপুস্থিতিতেও জয়যাত্রা টিভি চ্যানেলের বর্ষপূর্তির কর্মসূচি গুলোতে শতস্ফূর্ত অংশগ্রহণের মাধ্যমে স্বার্থক করায় অংশগ্রহণকারী সকলকে তিনি  শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানিয়েছেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



ভারতের রাষ্ট্রপতি ভবনে শেখ হাসিনাকে লালগালিচা সংবর্ধনা

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৮৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে নয়াদিল্লির রাষ্ট্রপতি ভবনে লালগালিচা সংবর্ধনা ও গার্ড অব অনার প্রদান করা হয়েছে। দুদিনের রাষ্ট্রীয় সফরে দ্বিতীয় দিনে শনিবার (২২ জুন) দিল্লির স্থানীয় সময় সকাল ৯টার দিকে রাষ্ট্রপতি ভবনে পৌঁছান শেখ হাসিনা।

এরপর প্রধানমন্ত্রীকে দেওয়া হয় রাজকীয় সংবর্ধনা ও গার্ড অব অনার। এরপর শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদিসহ দেশটির মন্ত্রী ও পদস্থ কর্মকর্তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন। এ সময় ভারতের প্রধানমন্ত্রীও সেখানে উপস্থিত বাংলাদেশের ঊর্ধ্বতন কর্মকর্তাদের সঙ্গে কুশল বিনিময় করেন।

আজ ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির সঙ্গে বৈঠক করবেন বাংলাদেশের সরকার প্রধান। দিল্লির হায়দরাবাদ হাউসে অনুষ্ঠিত এ দ্বিপক্ষীয় বৈঠক নিয়ে রাজনৈতিক বিশ্লেষকরা বলছেন, এবারের বৈঠকে নির্ধারণ হতে পারে ২০২২ সালের চুক্তি ও সমঝোতা স্মারকের বাস্তবতা এবং আগামী ৫ বছরের রূপরেখা। তবে তিস্তার পানি বণ্টন চুক্তি নিয়ে সফরে চুক্তি স্বাক্ষর না হলেও এ বিষয়ে নিজেদের স্পষ্ট অবস্থান জানাতে পারে ভারত। আসতে পারে বড় ধরনের বিনিয়োগের খবরও। এর আগে শুক্রবার (২১ জুন) নয়াদিল্লির তাজ হোটেলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সঙ্গে বৈঠক করেছেন ভারতের শিল্পপতিদের সংগঠন কনফেডারেশন অব ইন্ডিয়ান ইন্ডাস্ট্রি (সিআইআই)। এই বৈঠকে প্রধানমন্ত্রী বাংলাদেশে বিনিয়োগ বাড়াতে ভারতের শিল্পপতিদের আহ্বান জানান। সন্ধ্যায় একই হোটেলে সৌজন্য সাক্ষাৎ করেন ভারতের পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এস জয়শঙ্কর। পররাষ্ট্র সচিব বিনয় মোহন কোয়াত্রাসহ দুদেশের সংশ্লিষ্ট কর্মকর্তাদের উপস্থিতিতে প্রায় ঘণ্টাব্যাপী চলে এই সৌজন্য বৈঠক। মূলত শনিবার হাসিনা-মোদি শীর্ষ বৈঠকে যেসব বিষয় উপস্থাপিত হবে, সেসব নিয়েই বিস্তৃত পরিসরে আলোচনা করেন তারা।

প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির আমন্ত্রণে দুই দিনের রাষ্ট্রীয় সফরে শুক্রবার বিকেলে নয়াদিল্লি পৌঁছান।


আরও খবর



নানার বাড়ি ফেরা হলনা শিশু তাহমিদের! ট্রাকের চাপায় পিষ্ট হয়ে গেল প্রাণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৪৯জন দেখেছেন

Image
মিজান, বিরামপুর (দিনাজপুর) প্রতিনিধিঃনানার কবর জিয়ারত শেষে মায়ের সাথে নানার বাড়ি ফেরা হলনা নাতি তাহমিদ সরকারের। দিনাজপুর জেলার বিরামপুর পৌর শহরে নানার বাড়িতে আসা তাহমিদ সরকার (৮) নামে এক শিশু কুকুরের তাড়া খেয়ে ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে প্রাণ নিহত হয়েছে।

নিহয় শিশু তাহমিদ সরকার (৮) বিরামপুর উপজেলার পার্শ্ববর্তী ফুলবাড়ি উপজেলার লক্ষীপুর মধুপুর গ্রামের শামীম সরকারের ছেলে।

বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকালে সকাল ৭ টার দিকে বিরামপুর কলেজ বাজার পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন দক্ষিণ পার্শ্বে মহাসড়কের উপর মায়ের চোখের সামনে এ মর্মান্তিক দূর্ঘটনা ঘটে।

জানা যায়, বিরামপুর পৌর এলাকার চাঁদপুর (মাহালী) পাড়ার আফাজ উদ্দিন বার্ধক্যজনিত কারণে গত ৫দিন আগে মৃত্যু বরণ করেন। সেখানে আফাজ উদ্দিনের মেয়ে আজিজা বেগম স্বামীর বাড়ি থেকে তাঁর দুই শিশু সন্তানকে নিয়ে পিতার সৎকার অনুষ্ঠানে আসেন। বৃহস্পতিবার (২৭ জুন) সকালে মেয়ে আজিজা বেগম তাঁর শিশু পুত্র তাহমিদ সরকারকে (৮) কে সাথে নিয়ে বাবার কবর জিয়ারত শেষে বাবার বাড়ি ফেরার পথে পেট্রোল পাম্প সংলগ্ন দক্ষিণ পার্শ্বে শিশু তাহমিদকে কয়েকটি কুকুর তাড়া করে। কুকুরের তাড়া খেয়ে তাহমিদ দৌড়ে পালাতে গিয়ে মহাসড়কের উপর পণ্যবাহী ট্রাকের চাকায় পিষ্ট হয়ে ঘটনাস্থলেই মারা যায়। চোখের সামনে ছেলের মর্মান্তিক মৃত্যুতে মা আজিজা বেগম বাকরুদ্ধ হয়ে পড়েন। 

বিরামপুর থানার অফিসার ইনচার্জ (ওসি) সুব্রত কুমার সরকার জানান, ঘাতক ট্রাকটি আটক করা হয়েছে। শিশুর লাশ পরিবারের নিকট হস্তান্তর করা হয়েছে এবং এব্যাপারে মামলার প্রস্তুতি চলছে।

আরও খবর



কালিয়াকৈরে শিয়ালের কামড়ে আহত-১৫ আতঙ্কিত গ্রামবাসী, শিয়াল পিটিয়ে হত্যা

প্রকাশিত:শুক্রবার ২৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৩৭জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে পাশাপাশি পৃথক দুটি গ্রামে দুই দিনে শিয়ালের কামড়ে শিশু-নারীসহ কমপক্ষে ১৫ জন আহত হয়েছেন। এক শিয়াল পিটিয়ে হত্যা করলেও বাকী শিয়ালের আক্রমণ আতঙ্কে লাঠিসোটা নিয়ে পাহাড়া দিচ্ছেন আতঙ্কিত গ্রামবাসী। এদিকে আহতরা উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে গেলে ভ্যাকসিন না পেয়ে দুর্ভোগে পড়েছেন ভুক্তভোগী পরিবার।

এলাকাবাসী ও ভুক্তভোগী পরিবার সূত্রে জানা গেছে, কালিয়াকৈর পৌরসভার টানকালিয়াকৈর এলাকায় বৃহস্পতিবার ভোরে স্থানীয় রতন মিয়া ও তার স্ত্রী হনুফা বেগমকে একটি শিয়াল আক্রমণ করে এবং তাদের কামড়ে দেয়। এসময় স্থানীয় লোকজন ওই শিয়ালকে লাঠিসোটা দিয়ে পিটিয়ে হত্যা করে। পরে গুরুতর আহত অবস্থায় তাদের স্বামী-স্ত্রীকে উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যায়। সেখানে ঠিকমতো ভ্যাকসিন না পেয়ে তাদের ঢাকা মহাখালী হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এর আগে গত বুধবার বিকেলে ওই এলাকায় শিয়ালের কামড়ে নেওলা হকের ছেলে শামসুল হক(৫০), নজরুল ইসলামের ছেলে উসমান গণি (১০), কবির মিয়ার ছেলে আফনান হোসেন (১০), নুর আলমের স্ত্রী নাসিমা বেগম (৫০), আফসার আলীর ছেলে মেহমিত (৭), জলিল হোসেনের ছেলে শওকত হোসেন (৪০), শামসুল ইসলামের স্ত্রী হামিদা বেগম (৬০), জব্বার মিয়া (৪০) এবং ওইদিন সন্ধ্যায় পাশের জানেরচালা গ্রামের শাজাহান মিয়ার স্ত্রী বৃষ্টি বেগম (৩৫) ও তার নাতিন স্বর্ণা আক্তার (৬)সহ কমপক্ষে ১৫ জনকে আহত হন। আহতদের উদ্ধার করে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে নিয়ে যান তাদের পরিবারের সদস্যরা। ওই হাসপাতালে ভ্যাকসিন না পেয়ে আহতরা পার্শ্ববর্তী টাঙ্গাইলের মির্জাপুর কুমুদিনী মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল ও ঢাকা মহাখালীতে যান। দুদিনে শিশু ও নারীসহ ১৫জন শিয়ালের কামড়ে আহত হওয়ার ঘটনায় আতঙ্কিত হয়ে পড়েছেন গ্রামবাসী। এছাড়াও আতঙ্কে লাঠি নিয়ে যাতায়াত করছেন শিশুরাও। এদিকে এক শিয়াল পিটিয়ে হত্যা করলেও বাকী শিয়ালের আক্রমণ আতঙ্কে ওই ঘটনার পর স্থানীয় যুবকরা লাঠিসোটা নিয়ে গত বুধবার সন্ধ্যা থেকে গভীর রাত ও পরের দিন বৃহস্পতিবারও পাহাড়া অব্যাহত রেখেছে। তারা ক্ষিপ্ত হয়ে আগুন জ¦ালিয়ে দিয়েছেন কয়েকটি শিয়ালের গর্তেও।

স্থানীয় শাহিনুর ইসলাম বলেন, কয়েকটি শিয়াল পাগলা হয়ে গেছে। তাই সে সবাইকে কামড়ে দিয়েছে। আরো যাতে কামড়ে দিতে না পারে সেজন্য আমরা পাহাড়া দিচ্ছি। মুদি দোকানদার আজিজুল হক বলেন, সবাই এখন পাগলা শিয়ালের আতঙ্কে আছি। এই বুঝি শিয়াল এসে কামড়ে দিলো। হেলাল পারভেজ বলেন, আমার মেয়েও এখন লাঠি নিয়ে চলাচল করে। আর শিয়াল আতঙ্কে আমার মেয়ের মতো অন্যান্য শিশুরাও লাঠি নিয়ে চলে। কিন্তু বেশির ভাগ শিশুরা ভয়ে বাড়ির বাইরে যাচ্ছে না। তবে সংশিষ্টদের প্রতি তাদের দাবী অতিদ্রুত পাগলা শিয়ালগুলোর বন্য আইন অনুযায়ী প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হোক।

উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা লুৎফর রহমান জানান, শিয়ালে কামড়ে দিলে কয়েকজন হাসপাতালে আসে। কিন্তু এর ভ্যাকসিন সদর হাসপাতাল ও মহাখালীতে থাকে। একারণে আহতদের সদর হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

এব্যাপারে কালিয়াকৈর রেঞ্জ কর্মকর্তা মনিরুল ইসলাম জানান, আমাদের বনবিভাগের আরো একটি শাখা রয়েছে। তাদের কাজ হচ্ছে বন্যপ্রাণী উদ্ধার করা। তবে ওই শাখায় যোগাযোগ করা হলে তারা প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।


আরও খবর



রূপগঞ্জে পূর্বশত্রুতার জেরে যুবককে কুপিয়ে জখম

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | ১৫৩জন দেখেছেন

Image

আবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধিঃনারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে পুর্বশত্রুতার জেরে নুর আলম (২৪) নামে এক যুবককে কুপিয়ে জখম ও বাড়িঘর ভাংচুরের  ঘটনা ঘটেছে। গত ২৪ জুন সোমবার বিকেলে উপজেলার তারাবো পৌরসভার যাত্রামুড়া টাটকী এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। আহত নুর আলম যাত্রামুড়া টাটকী এলাকার  তোফাজ্জল হোসেন মিয়ার ছেলে। এ ঘটনায় আহতের বড় ভাই শাহীন মিয়া বাদী হয়ে  শাহিন ওরফে ডিস শাহিন (৩০), রফিক খান (৩০), রুবেল ভুইয়া (৩৫)।

শ্রাবণ (২০), মেহেদী (২৪), শান্ত (২৪), কাজল (২৫), হৃদয় (২২), মারুফ (১৯), বাদন মিয়া (২২), জাকির (৩৫), সাহেদ (২৩), হাসান (১৯), নিরব (২০) ও মোসাঃ সাথি আক্তারসহ (২৮) আরো অজ্ঞাত ১০/১৫ জনকে আসামী করে রূপগঞ্জ থানায় অভিযোগ দায়ের করেন।অভিযোগ সূত্রে জানাযায়, গত ২৪ জুন বিকেলে পূর্বশত্রুতার জেরে ২৫/৩০ সদস্যের এক দল সন্ত্রাসী দেশীয় অস্ত্র রাম দা, চাপাতি, চাইনিস কুড়াল, সুইচ গিয়ার, ছেন, দা, এসএস পাইপ ও লোহার রড নিয়ে টাটকি এলাকার তোফাজ্জল হোসেনের বাড়িতে হামলা চালিয়ে ঘরের আসবাবপত্র ভাংচুর করে।

এসময় তোফাজ্জল হোসেনের ছোট ছেলে নুর আলম বাধা দিলে সন্ত্রাসী তাকে এলোপাথারিভাবে পিটিয়ে ও শরীরের বিভিন্নস্থানে ধারালো অস্ত্র দিয়ে কুপিয়ে জখম করে। এসময় তার ডাক-চিৎকারে আশপাশের লোকজন ও তার মা মোসাঃ তলেমান নেছা এসে তাকে গুরুতর অবস্থায় উদ্বার করে ঢাকা মেডিকেল হাসপাতালে চিকিৎসার জন্য ভর্তি করা হয়।এ ব্যাপারে রূপগঞ্জ থানার ওসি দীপক চন্দ্র সাহা বলেন, এ ঘটনায় মামলা হয়েছে আসামিদের গ্ৰেফতারে পুলিশ তৎপর রয়েছে ।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



মাগুরা বাস টার্মিনাল জলমগ্ন খানাখন্দে জনদূর্ভোগ চরমে

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৭৩জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল দীর্ঘদিন যাবত সংস্কার না করয় বর্তমানে ব্যবহারের অনুপযোগী হয়ে জন দূর্ভোগের সৃষ্টি হয়েছে।বাস টার্মিনালের সর্বত্র পনিতে সয়লাব হয়ে পানির উপর ভাসছে। আর যাবাহনসহ যাত্রী সাধারণ নিদারুন সমস্যার সম্মুখিন হয়ে বাধ্য হয়ে কাঁদা পানি মেখে পরিবহনে উঠতে বাধ্য হচ্ছে। মাগুরা পৌর সভা জনগনের সুবিধার্থে শহরের পাশে পারনান্দুয়ালীতে ২০০১ সালে  কেন্দ্রীয় বাস টার্মিনাল নির্মান করে। নির্মানের পর থেকে বাস টার্মনালের উল্লেখযোগ্য উন্নয়ন না করলে ও প্রতি বছর টোল আদায় ঠিকই নিলাম দেয়া হয়। প্রতিবছর ৩০ থেকে ৩৫ লাখ টাকার টোল বিক্রি করলেও তেমন কোন উন্নয়ন বা সংস্কার করা হয়না। যার ফলে টার্মনালের ভিতরে খানাখন্দ সৃষ্ঠি হয়ে চলাচলের অযোগ্য হয়ে পড়েছে। খানাখন্দে পড়ে যাতে বিপদ না হয় তার জন্য সোহাগ পরিবহনের কাউন্টারের পক্ষ থেকে লাল নিশান লাগান হয়েছে। খানাখন্দ আর পানািতে সয়লাব হয়ে পড়ায় যাত্রী সাধারণ কাঁদা পানির জন্য পরিবহনে উঠতে সমস্যার সম্মুখীন হচ্ছে প্রতিনিয়ত। মাগুরা বাস টার্মিনাল থেকে ঢাকা, চট্রগ্রাম, বরিশাল, কুয়াকাটা, সেন্ট মার্টিন, কক্সবাজার, সিলেট, কুমিল্লাসহ বিভিন্ন স্থানে পরিবহন চলাচল করে। দীর্ঘদিন ধরে বাস টার্মিনালের এ করুণদশা হলেও পৌর কৃতপক্ষ কোন নজর দিচ্ছেনা। মাগুরা বাস টার্মিনালের বিভিন্ন পরিবহনের কাউন্টার থেকে বারবার আবেদন নিবেদন করলেও পৌর কতৃপক্ষ সংস্কার বা উন্নয়নের কোন পদক্ষেপ গ্রহন করছেনা। এ ব্যাপারে মাগুরা পৌর সভার সচিব রেজাউল করিম   জানান, ২ কোটি টাকার একটি প্রকল্প দাখিল করা হয়েছে, যা একনেকে অনুমোদন হলেও অর্থ ছাড় না করায় প্রকল্পের কাজ করা যাচ্ছেনা। অর্থ প্রাপ্তির পর টার্মনালের সমস্যা থাকবেনা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর