Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

দেশে সোলার প্রযুক্তি খাতের উন্নয়নে হুয়াওয়ের কর্মশালা

প্রকাশিত:রবিবার ০৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ২৭৬জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক :বাংলাদেশের সোলার প্রযুক্তি খাতকে নতুন উচ্চতায় নিয়ে যাওয়ার লক্ষ্যে একটি কর্মশালার আয়োজন করেছে তথ্য ও যোগাযোগ প্রযুক্তি (আইসিটি) সেবাদানকারী প্রতিষ্ঠান হুয়াওয়ে। সোলার পাওয়ার প্ল্যান্ট ইনস্টলার বা সৌর বিদ্যুৎ কেন্দ্র স্থাপনকারীদের জন্য এ কর্মশালার আয়োজন করে হুয়াওয়ে সাউথ এশিয়া। এতে ৭০ জনেরও বেশি ইঞ্জিনিয়ারসোলার ইনভার্টার ইনস্টলার ও টেকনিশিয়ান অংশগ্রহণ করেন। রাজধানী ঢাকার হুয়াওয়ে বাংলাদেশ একাডেমিতে সম্প্রতি এ কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়।

 

হুয়াওয়ে বাংলাদেশ ইনস্টলার ওয়ার্কশপ ২০২৩” শীর্ষক এ কর্মশালায় অংশগ্রহণকারীরা অন-গ্রিড ও অফ-গ্রিড সোলার সিস্টেমের সর্বশেষ অগ্রগতি সম্পর্কে জানার সুযোগ পেয়েছেন। তারা সর্বোত্তম কার্যকারিতা ও নির্ভরযোগ্যতা নিশ্চিত করার জন্য সর্বোত্তম ইনস্টলেশন অনুশীলনের বিষয়ে বিশেষজ্ঞ নির্দেশনা পান।

 

হুয়াওয়ে সাউথ এশিয়া ডিজিটাল পাওয়ার বিজনেস বিভাগের ব্যবস্থাপনা পরিচালক লিয়াং উইক্সিং (জ্যাক) বলেন, “বাংলাদেশে শক্তির সহজলভ্যতাস্থায়িত্ব ও অর্থনৈতিক প্রবৃদ্ধির ক্ষেত্রে একটি নতুন যুগের সূচনা করতে সৌরশক্তি অত্যন্ত গুরুত্বপূর্ণ। সৌরবিদ্যুৎ জীবাশ্ম জ্বালানির ওপর দেশের নির্ভরতা হ্রাস করছেপরিবেশগত অবক্ষয় কমাচ্ছে এবং জলবায়ু পরিবর্তন মোকাবিলার বিশ্বব্যাপী প্রচেষ্টায় অবদান রাখছে। এই ধরনের কর্মশালা আমাদের সৌর প্রযুক্তিতে নতুন মাইলফলক অর্জন করতে সহায়তা করে।”

 

হুয়াওয়ের ইপিসি সহযোগী প্রতিষ্ঠান সোলার ইপিসি ডেভেলপমেন্ট লিমিটেডের টেকনিক্যাল সল্যুশন ম্যানেজার মুহাম্মদ নাজিবুল আহামেদ বলেন, “হুয়াওয়ে বাংলাদেশ ইন্সটলার ওয়ার্কশপ ২০২৩- একটি অনুকরণীয় উদ্যোগ। বিশেষজ্ঞ সেশনহাতে-কলমে প্রশিক্ষণ এবং অনন্য নেটওয়ার্কিং সুযোগ তৈরির ক্ষেত্রে এই ওয়ার্কশপের এজেন্ডাটি অত্যন্ত সামঞ্জস্যপূর্ণ। এই কর্মশালা শুধু অংশগ্রহণকারী ব্যক্তিদেরই উপকার করছে না বরং বাংলাদেশের সৌর শক্তি খাতের বৃদ্ধি ও উন্নয়নেও অবদান রাখছে।”

 

হুয়াওয়ে সাউথ এশিয়া ডিজিটাল পাওয়ার’ সৌর বিদ্যুতের মাধ্যমে পাওয়া সুযোগ-সুবিধাগুলোরর ওপর ভিত্তি করে এর সর্বাধিক ব্যবহারের উপায়সমূহ নিয়ে কাজ করছে। এ পর্যন্তকোম্পানিটি দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের সোলার প্ল্যান্টে স্ট্রিং ইনভার্টার সল্যুশন স্থাপন করেছে এবং বাংলাদেশে ৫০ মেগাওয়াট (এসি)৩০ মেগাওয়াট (এসি) ক্ষমতাসম্পন্ন কিছু সোলার ইন্ডিপেন্ডেন্ট পাওয়ার প্রোডিউসার (আইপিপি) প্রকল্পসহ বেশ কয়েকটি রুফটপ প্রকল্পে কাজ করেছে। সিএন্ডআই (কমার্শিয়াল অ্যান্ড ইন্ডাস্ট্রিয়াল) খাতের জন্য হুয়াওয়ে ৩.০০ মেগাওয়াট২.৪৮ মেগাওয়াট২.৪০ মেগাওয়াট২.৩৯ মেগাওয়াট ও ২.১০ মেগাওয়াট এসি ক্যাপাসিটির প্রকল্প সম্পন্ন করেছে। হুয়াওয়ে মোট ১০৫ মেগাওয়াট এরও বেশি সক্ষমতার বিভিন্ন রুফটপ প্রকল্প বাস্তবায়ন করছেযেগুলো স্থাপনা পর্যায়ে রয়েছে। এবং খুব দ্রুত এগুলো গ্রিডে যুক্ত করা হবে। দেশকে ডিজিটাল শক্তির দিকে এগিয়ে নিয়ে যাওয়ার প্রচেষ্টার ধারাবাহিকতার অংশ হিসেবে হুয়াওয়ে সাউথ এশিয়া বিভিন্ন অনুষ্ঠানের আয়োজন করে আসছে। এই রূপান্তরকে ত্বরান্বিত করতে অন্যান্য সহযোগীদের সঙ্গে কাঁধে কাঁধ মিলিয়ে কাজ করে যাচ্ছে প্রতিষ্ঠানটি।


আরও খবর



ডোমার কাঁচা বাজরে অগ্নিসংযোগের ঘটনায় ১০টি দোকান পুড়ে ছাই, প্রায় ১ কোটি টাকা ক্ষতি

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৭২জন দেখেছেন

Image

মানিক, ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে কাঁচা বাজার ও নূর মার্কেটে অগ্নি সংযোগের ঘটনায় ১০টি দোকান পুড়ে ছাই হয়েছে, এতে করে প্রায়  কোটি টাকার মালামাল ক্ষতি সাধন হয়েছে বলে ভুক্তভুগি দোকানীরা জানান। 

শুক্রবার (৪ এপ্রিল) রাত ১,৩০ মিনিটে ডোমার কাঁচা বাজার ডিম ব্যবসায়ী রুবেল ইসলামের দোকানে বিদ্যুৎ এর স্টট সার্কিট থেকে আগুনের সুত্রপাত ঘটে। মুহুর্ত্তেই আগুনের লেলিহান শিখা চারিদিক ছড়িয়ে পড়লে ১০টি দোকানের মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে যায়। সংবাদ পেয়ে ডোমার ও দেবীগঞ্জ এলাকার ফায়ার সার্ভিসের ২টি ইউনিট অক্লান্ত পরিশ্রম করে আগুন নিয়ন্ত্রনে আনে। এ সময় ডোমার থানার অফিসার ইনচার্জ মহসীন আলীসহ সঙ্গীয় ফোর্স উদ্ধার কাজে অংশ নেয়। শনিবার সকালে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন ডোমার উপজেল নির্বাহী কর্মকর্তা নাজমুল আলম (বিপিএএ) এবং পৌর কাউন্সিলর আখতারুজ্জামান সুমন। 

কাচাঁ বাজারের ডিম ব্যবসায়ী রুবেল ইসলাম, আনারুল ইসলাম,মুদি দোকানী জেনারুল ইসলাম ভুট্টু, ঔষধ ব্যবসায়ী ডাঃ আব্দুল আজিজ এর দোকান আগুনে পুড়ে ভস্মীভুত হয়। অপরদিকে কাচাঁ বাজারের আগুন নুর মার্কেটে ছড়িয়ে পড়লে কিটনাশক ও সার ব্যবসায়ী রওশন কামাল হিপ্পু, হ্যার্ডওয়ার ও সাইেকেল, অটো পার্স ব্যবসায়ী আবুল কালাম আজাদ, আব্দুস সালাম এবং হোমিও ফার্মেসী ডাঃ মহিউদ্দিনের দোকানে ব্যপক ক্ষতি সাধন হয়। ভুক্তভুগি দোকানীরা জানান ১০টি দোকন মিলে প্রায় কোটি টাকার মতো ক্ষতি সাধন হয়েছে। কিছুটা হলেও ক্ষতি লাঘবের আশায় সরকারের সহযোগিতা কামনা করেন দোকানীরা।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



ঢাবিতে অনির্দিষ্টকালের জন্য ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ

প্রকাশিত:রবিবার ৩০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধের ঘোষণা দিয়েছে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি,সর্বজনীন পেনশন স্কিম সংক্রান্ত ‘বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন’ প্রত্যাহারের দাবিতে সর্বাত্মক আন্দোলনের কর্মসূচি হিসেবে।

বৈষম্যমূলক প্রত্যয় স্কিম থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি প্রত্যাহার, শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তন, প্রতিশ্রুত সুপারগ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তির দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ কর্মবিরতি পালিত হবে।

রোববার (৩০ জুন) ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির সভাপতি অধ্যাপক ড. মো. নিজামুল হক ভূইয়া এবং সাধারণ সম্পাদক অধ্যাপক ড. জিনাত হুদা স্বাক্ষরিত বিবৃতিতে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

বিবৃতিতে বলা হয়, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতির ঘোষিত এ সর্বাত্মক আন্দোলনে আপনারা সকলেই আমাদের সংগ্রামের সারথি। আপনাদের বিপুল সমর্থন ও ম্যানডেট নিয়ে শিক্ষক সমিতি এ সর্বাত্মক আন্দোলনের রূপরেখা প্রণয়ন করেছে। আমাদের এ আন্দোলন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষক সমাজের সম্মান ও মর্যাদা রক্ষার আন্দোলন। ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের স্বায়ত্বশাসনে হস্তক্ষেপের বিরুদ্ধে আন্দোলন। বৈষম্যমূলক ও মর্যাদাহানিকর প্রত্যয় স্কিম থেকে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তি প্রত্যাহার, শিক্ষকদের জন্য স্বতন্ত্র বেতনস্কেল প্রবর্তন, প্রতিশ্রুত সুপারগ্রেডে বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষকদের অন্তর্ভুক্তির দাবি আদায় না হওয়া পর্যন্ত এ সর্বাত্মক কর্মবিরতি পালিত হবে।

বিবৃতিতে শিক্ষক নেতৃবৃন্দ বিভিন্ন কর্মসূচির ঘোষণা করেন। সর্বাত্মক আন্দোলনের কর্মসূচি নিম্নরূপ-

১. ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের সকল বিভাগের সকল ক্লাস-পরীক্ষা বন্ধ থাকবে।

২. অনলাইন, সান্ধ্যকালীন ক্লাস, শুক্র ও শনিবারের প্রফেশনাল কোর্সের ক্লাস বন্ধ থাকবে।

৩. সকল পরীক্ষা বর্জন করা হবে। মিডটার্ম, ফাইনাল ও ভর্তি পরীক্ষাসহ কোনও পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হবে না।

৪. বিভাগীয় চেয়ারম্যান বিভাগীয় অফিস, সেমিনার, কম্পিউটার ল্যাব ও গবেষণাগার বন্ধ রাখবেন। অ্যাকাডেমিক কমিটি, সমন্বয় ও উন্নয়ন কমিটি, প্রশ্নপত্র সমন্বয় সভা অনুষ্ঠিত হবে না।

৫. অনুষদের ডিনবৃন্দ ডিন অফিস, ভর্তি পরীক্ষাসহ সংশ্লিষ্ট কর্যক্রম বন্ধ রাখবেন। নবীন বরণ অনুষ্ঠানের কর্মসূচি গ্রহণ করা যাবে না। কোনও সিলেকশন বোর্ডের সভা অনুষ্ঠিত হবে না।

৬. বিভিন্ন ইন্সসিস্টটিউটের পরিচালকবৃন্দ ইন্সস্টিটিউটের অফিস, ক্লাস ও পরীক্ষা বন্ধ রাখবেন। সান্ধ্যকালীন, শুক্রবার ও শনিবারের ক্লাস বন্ধ থাকবে।

৭. বিভিন্ন গবেষণাধর্মী সেন্টারের পরিচালকরা কোনও সেমিনার, কনফারেন্স ও ওয়ার্কশপের কর্মসূচি গ্রহণ করা থেকে বিরত থাকবেন।

৮. বিভিন্ন হলের প্রাধ্যক্ষগণ প্রাধ্যক্ষ অফিস বন্ধ রাখবেন।

৯. প্রধান গ্রন্থাগারিক কেন্দ্রীয় লাইব্রেরি বন্ধ রাখবেন।

প্রসঙ্গত, গত ২০ মে সর্বজনীন পেনশন স্কিম সংক্রান্ত ‘বৈষম্যমূলক প্রজ্ঞাপন’ প্রত্যাহার এবং পূর্বের পেনশন স্কিম চালু রাখার দাবিতে সংবাদ সম্মেলন করে বাংলাদেশ বিশ্ববিদ্যালয় শিক্ষক সমিতি ফেডারেশন। তারই ধারাবাহিকতায় ২৬ জুন বেলা সাড়ে ১১টায় ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়সহ সারাদেশের ৩৬টি বিশ্ববিদ্যালয়ে একযোগে মানববন্ধন করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষকরা। এরপর ২৮ মে দুই ঘণ্টা এবং ২৫-২৭ জুন তিনদিন সারাদেশে অর্ধদিবস কর্মবিরতি পালন করা হয়। তাছাড়া আজ ৩০ জুন পূর্ণ কর্মবিরতি পালন করা হচ্ছে।


আরও খবর



বেনজীরের ৭টি পাসপোর্টের সন্ধান পেয়েছে দুদক

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ১২৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক) পুলিশের সাবেক মহাপরিদর্শক বেনজীর আহমেদের ৭টি পাসপোর্টের সন্ধান পেয়েছে। তার পাসপোর্ট জালিয়াতির অভিযোগে পাসপোর্ট অধিদপ্তরের আট কর্মকর্তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।

মঙ্গলবার (২৫ জুন) দুদকের প্রধান কার্যালয়ে সকাল থেকে তাদের জিজ্ঞাসাবাদ করা হয়।

সাবেক এ আইজিপির বিরুদ্ধে অভিযোগ রয়েছে, তিনি পাসপোর্টে আড়াল করেছেন তার পুলিশ পরিচয়। শুরু থেকে এখন পর্যন্ত তিনি সরকারি চাকরিজীবী পরিচয়ে নীল রঙের অফিশিয়াল পাসপোর্ট ব্যবহার করেননি। আবার সুযোগ থাকার পরও নেননি লাল পাসপোর্ট। এমনকী বেসরকারি চাকরিজীবী পরিচয়ে সাধারণ পাসপোর্ট তৈরির ক্ষেত্রেও আশ্রয় নিয়েছেন নজিরবিহীন জালিয়াতির।

তবে নবায়নের সময় ধরা পড়লে নবায়ন কার্যক্রম আটকে দেয় পাসপোর্ট অধিদফতর। ওই সময় তিনি র‌্যাবের মহাপরিচালক থাকায় চিঠি দেওয়া হয় র‌্যাব সদর দপ্তরে। তবে অবৈধ প্রভাব খাটিয়ে ম্যানেজ করেন সবকিছু। পাসপোর্ট অফিসে না গিয়েই নেন বিশেষ সুবিধাও এমন তথ্য উঠে এসেছে।

সম্প্রতি দেশের বেশ কিছু গণমাধ্যমে পুলিশের সাবেক এ মহাপরিদর্শকের অবৈধ সম্পদ অর্জনের বিষয়ে প্রতিবেদন প্রকাশ হয়। এ সময় তার বিরুদ্ধে ওঠা অভিযোগ তদন্তে একটি কমিটিও গঠন করে দুদক।

দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে এখন পর্যন্ত তিন দফায় বেনজীর ও তার পরিবারের সদস্যদের স্থাবর-অস্থাবর সম্পদ ক্রোক ও ফ্রিজের আদেশ দিয়েছেন আদালত। আদালতের আদেশে তার জব্দ করা সম্পত্তি নেওয়া হয়েছে রাষ্ট্রের হেফাজতে।

এদিকে বেনজীর আহমেদ ও তার স্ত্রী ও দুই মেয়েকে দুদক থেকে দুই দফা তলব করা হলেও তাঁরা সংস্থাটির ডাকে হাজির হননি। তবে তাঁরা হাজির না হয়ে আইনজীবীর মাধ্যমে লিখিত বক্তব্য পাঠিয়েছেন।


আরও খবর



মধুপুর পৌরসভা আজ নগর পিতার ছোঁয়ায় আলোকিত মডেল শহর

প্রকাশিত:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৩৩জন দেখেছেন

Image

বাবুল রানা বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:টাঙ্গাইলের মধুপুর পৌরসভা আজ নগর পিতা সিদ্দিক হোসেন খান এর বিভিন্ন  উন্নয়ন মুলক কর্মকান্ডের জন্য একটি  আলোকিত মডেল পৌর শহরে পরিনত হয়েছে।

দীর্ঘদিন অন্ধকারে থাকা মধুপুর পৌর শহরের বিভিন্ন এলাকার সড়ক আজ আলোয় আলোকিত। মধুপুর বাসস্ট্যান্ড এলাকার রাতের দৃশ্য আজ দিনের মতো আলো জ্বলমলে। এ ছাড়াও শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ স্থানে পাবলিক টয়লেট স্থাপন, বিভিন্ন পৌর এলাকায় পানি নিষ্কাশনের জন্য ড্রেনেজ ব্যবস্থার উন্নতি, বিভিন্ন রাস্তাঘাট পাকাকরণ, বাসস্ট্যান্ড প্রশস্তকরণ, শতভাগ বিদ্যুৎ সংযোগের মতো জনগুরুত্বপূর্ণ কাজ এবং  বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে বিশুদ্ধ ওয়াটার সাপ্লাই প্রকল্পের কাজ প্রায় শেষের দিকে। এই বিশুদ্ধ পানি পৌর শহরের বিভিন্ন বাসাবাড়িতে পৌঁছে দেওয়ার জন্য দ্রুত কাজ এগিয়ে চলছে।

এ ছাড়াও পৌর শহরকে  মাদক, সন্ত্রাস, চাঁদাবাজি, মামলাবাজি মুক্ত রেখে শহরের আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে তিনি জিরো টলারেন্স হিসেবে কাজ করে যাচ্ছেন। প্রথম মেয়াদে শুরু করা অসম্পন্ন উন্নয়নমূলক কাজগুলো সমাপ্ত করে খুব শীঘ্রই  ঐতিহ্যের মধুপুরকে আধুনিক ও উন্নত শহর হিসেবে সারা দেশে পরিচিতি ঘটাবে এমনটাই প্রত্যাশা করেন তিনি।

পৌরসভার বিভিন্ন ওয়ার্ডের গুরুত্বপূর্ণ রাস্তাঘাট দীর্ঘ স্থায়ীত্বের জন্য ডালাইয়ের মাধ্যমে শেষ করেছেন।

ইতিমধ্যে নগর এলাকা পরিস্কার  পরিছন্ন রাখতে বাসাবাড়ি, জনবহুল এলাকা ও গুরুত্বপূর্ণ স্থানে প্রায় সাড়ে চার হাজার ডাস্টবিন স্থাপনের কাজ চলছে। খুব শীঘ্রই তিনি পৌরবাসীর জন্য একটি পার্ক উপহার দিবেন। যেখানে সব বয়সের মানুষ বিনোদনের জন্য সময় কাটাতে পারবে।

তিনি প্রতিদিনের রুটিন মাফিক ফজরের নামাজ আদায় করে পায়ে হেটে বিভিন্ন এলাকার সাধারণ মানুষের সাথে দেখা করেন। তাদের কোনো সমস্যা বা অভিযোগ পেলে সেখানেই তা সমাধান করার চেষ্টা করেন। এ সকল কাজের স্বীকৃতি স্বরূপ পৌরবাসী আজ তাকে নগর পিতা নামে আখ্যায়িত করেন। 

মধুপুরের বিভিন্ন সংগঠনের দায়িত্বে থেকে মানবসেবায় গুরুত্বপূর্ণ ভুমিকা রেখেছেন এই সাদা মনের মিষ্টহাসির  মানুষটি।

তার কর্মদক্ষতা ও নিষ্ঠার কারণে এবার টাঙ্গাইল জেলার চালকল মালিক সমিতির সভাপতি হিসেবে নির্বাচিত হয়েছেন। নগর পিতার এ বিজয় মধুপুরবাসীর অন্তরে একটি মাইলফলক হিসেবে গচ্ছিত থাকবে এমনটাই প্রত্যাশা নগরবাসীর। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



হিন্দিতে মুক্তি পেলো সুমন ফারুকের ‘সুলতানপুর’!

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৬৭জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিবেদক:গতবছরের ২ জুন দেশীয় প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছিল সৈকত নাসির পরিচালিত পলিটিক্যাল থ্রিলার সিনেমা ‘সুলতানপুর’। দুই দেশের সীমান্তবর্তী একটি এলাকার রোমাঞ্চকর গল্প নিয়ে তৈরি হয়েছে সিনেমাটি। এর পরতে পরতে আছে উত্তেজনা। সীমান্ত মানেই বহু সংস্কৃতির মেলবন্ধন। বিচিত্র বাণিজ্যের মেঘ ওড়ে এই অঞ্চলের আকাশে-বাতাসে। সীমান্ত এলাকার চোরাচালান, বাটপারি, ক্ষমতার বড়াই, মাদক পাচারসহ এমন আরও অনেক বিষয় সামনে রেখেসিনেমাটি নির্মাণ করেেেছন বাংলা সিনেমার আলোচিত নির্মাতা সৈকত নাসির। এই নির্মাতা রহস্য, রোমাঞ্চ আর এক অচেনা জগতের কৌতূহলী ঘ্রাণ ছড়িয়েছে সিনেমাটির মাধ্যমে।

সিনেমাটিতে একজন পুলিশ অফিসারের চরিত্রে অভিনয় করে দেশীয় দর্শকদের বাহবা কুড়িয়েছেন বাংলা সিনেমার নবাগত অভিনেতা সুমন ফারুক। সিনেমাটিতে সুমন ফারুকের বিপরীতে দেখা গেছে অধরা খানকে। শুধু সুমন ফারুক আর অধরাই নন, সিনেমাটিতে আরও এক ঝাঁক অভিনেতা-অভিনেত্রীকে দেখা গেছে অভিনয় করতে। এই তালিকায় আছেন আশীষ খন্দকার, সাঞ্জু জন, রাশেদ মামুন অপু, মৌমিতা মৌ, শাহিন মৃধারা।

দেশে মুক্তির এক বছর পর ‘সুলতানপুর’ নিয়ে আরও এক সুখবর দিলেন সৈকত নাসির। নির্মাতা জানিয়েছেন, ‘সুলতানপুর’ দেশে মুক্তির পর থেকেই ভারতের বেশ কয়েকটি বড় প্রযোজনা সংস্থা থেকে হিন্দি ভাষায় মুক্তির লক্ষে আমার সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়েছে। অবশেষে ভারতের স্বনামধন্য অনলাইন প্ল্যাটফর্ম ‘আল্ট্রার’র সঙ্গে চুক্তি হয়েছে। এরইমধ্যে হিন্দি ভাষায় ‘সুলতানপুর’ ডাবিং করে ‘আল্ট্রার’য়স্ক্রিনিংও করা হয়েছে।’

এই নির্মাতা আরও জানিয়েছেন, ‘শুধু হিন্দি ভাষায়ই নয়, অচিরেই সুমন ফারুকদের ‘সুলতানপুর’ মুক্তি পাবে চায়নিজ ভাষায়ও। ইতোমধ্যেই চায়নার নামকরা একটি কোম্পানির সঙ্গে চূড়ান্ত আলাপও সম্পন্ন হয়েছে।’ সব কিছু ঠিক থাকলে শিগগিরই সুখবরটি দিতে পারবেন এই নির্মাতা। 

শুধু কি ‘সুলতানপুর’? না, এই নির্মিত আরও বেশ কয়েকটি সিনেমা এরইমধ্যে হিন্দি ভাষায় ডাবিং শেষে স্ক্রিনিং হয়েছে ভারতের নামজাদা কয়েকটি অনলাইন প্ল্যাটফর্মে। সেই তথ্যও গণমাধ্যমে অকপটেই স্বীকার করেছেন সৈকত।জানিয়েছেন, ইতোমধ্যেই তার নির্মিত আদর আজাদ ও শবনম বুবলী অভিনয় ‘তালাশ’ সিনেমাটিও হিন্দি ভাষায় স্ক্রীনিং হয়েছে। নির্মাতার আরও বেশ কয়েকটি সিনেমা রয়েছে স্ক্রিনিংয়ের অপেক্ষায়।

এদিকে ক্যারিয়ারে মাত্র চারটি সিনেমায় অভিনয় করে বাংলা সিনেমা ইন্ডাস্ট্রিতে বেশ আলোচনার জন্ম দিয়েছেন ঢালিউডের সম্ভবনাময় অভিনেতা সুমন ফারুক। ক্যারিয়ারের শুরুতেই নিজের সিনেমা হিন্দি ভাষায় মুক্তি উপলক্ষে এই অভিনেতা জানিয়েছেন, ‘দেশীয় সিনেমা ইন্ডাস্ট্রির পাশাপাশি এটি তাঁর জন্যও বেশ আনন্দের খবর। এই অভিনেতার বিশ্বাস দেশীয় দর্শকদের পাশাপাশি আন্তর্জাতিক অঙ্গনের দর্শকরাও বেশ ভালো ভাবেই গ্রহণ করবেন‘সুলতানপুর’। সুমন ফারুক মনে করেন অসাধারণ একটি গল্পের সিনেমা এটি। কোনো দর্শক যদি সিনেমাটি দেখতে বসেন তাহলে তাকে শেষ অবদি ধরে রাখবে রোমাঞ্চে ভরপুর এই গল্পটি।’

সুমন ফারুক জানিয়েছেন, ক্যারিয়ারের শুরুতে যে চারটি সিনেমায় তিনি অভিনয় করেছেন এর মধ্যে ইতোমধ্যেই তিনটি সিনেমা দর্শক উপভোগ করেছেন। তিনটি সিনেমাতেই অভিনেতাকে প্রসংশায় ভাসিয়েছেন দর্শকরা। তাঁর আরও একটি সিনেমা রয়েছে মুক্তির মিছিলে। ‘ফেরশতে’ নামের এই সিনেমাটিও মুক্তির আগেই দেশীয় ও আন্তর্জাতিক বেশ কয়েটি চলচ্চিত্র উৎসবে দর্শক মাতিয়েছেন। বাহবা কুড়িয়েছেন বাঘা বাঘা অভিনেতা-অভিনেত্রীদের। ইরান-বাংলাদেশের যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত‘ফেরেশতে’তে সুমন ফারুকের বিপরীতে অভিনয় করেছেন দুই বাংলার জনপ্রিয় অবিনেত্রী জয়া আহসান।

হিন্দিতে ‘সুলতানপুর’ উপভোগ করা যাবে চিনের লিঙ্কে: https://www.youtube.com/watch?v=7_cJGpxX56w



আরও খবর