Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

বিটঘর ইউনিয়ন প্রবাসী সমাজ কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে প্রায় ৬ শতাধীক শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ

প্রকাশিত:শনিবার ২০ মে ২০23 | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৩৫জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মাদ হেদায়েতুল্লাহ্ ,নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি

ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলার বিটঘর ইউনিয়ন প্রবাসী সমাজ কল্যাণ ফাউন্ডেশন এর উদ্যোগে বিটঘর ইউনিয়নের প্রতিটি প্রাথমিক বিদ্যালয়,কিন্ডার গার্টেন,উচ্চ বিদ্যালয়,আলিয়া,কওমি হাফেজিয়া মাদ্রাসা ৬০ টি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের প্রথম,দ্বিতীয়,তৃতীয় স্থান অধিকারকারী ও নতুন হাফেজদের সহ প্রায় ৬ শতাধীক ছাত্র ছাত্রীদের কে পুরস্কার বিতরণ করা হয়েছে।আজ শনিবার সকালে বিটঘর রাধানাথ উচ্চ বিদ্যালয় মাঠে এই অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।


এসময় অত্র সংগঠনের প্রধান উপদেষ্টা হাজ্বী ইউসুফ আলীর সভাপতিত্বে ও ব্রাহ্মণবাড়িয়া সিটি মডেল কলেজের অধ্যক্ষ মোস্তফা কামাল এর সঞ্চালণায় প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন,নর্থ সাউথ ইউনিভার্সিটির ভিসি ডা: মো. আতিকুল ইসলাম আলমগীর।অনুষ্ঠান টি উদ্বোধক করেন অত্র ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মেহেদী জাফর দস্তগীর।


বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন,বিটঘর ইউনিয়ন পরিষদের সাবেক চেয়ারম্যান আব্দুল কাইয়ুূম,সাবেক চেয়ারম্যান শরীফ শওকত ওসমান,বিটঘর দানবীর মহেশচন্দ্র ভট্রাচার্য্য কলেজের অধ্যক্ষ একেএম রমজান আলী,ভোলাচং উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক আমীর ফয়সাল,অত্র সংগঠনের যুগ্ন সাধারণ সম্পাদক মো. মোছা ভূইয়া বকুল,প্রচার সম্পাদক মো. হিমেইল ভূইয়া সহ অত্র ইউনিয়নের গন্যমান্য ব্যক্তিবর্গ উপস্থিত ছিলেন।


অনুষ্ঠানের শুরুতে,পবিত্র কোরআন তেলাওয়াত পাঠ করেন মাইনুদ্দিন আহমেদ অনিক,গীতা পাঠ করেন রাজন চন্দ্র শাহা।


সংগঠনের সদস্যরা তাদের বক্তব্যে বলেন,সংগঠনের সাবেক সভাপতি আবু হানিফ ও বর্তমান সভাপতি মেহেদী হাসান সুহেল এর দিক নির্দেশনায় আমরা আমাদের সংগঠনের মাধ্যমে আমাদের ইউনিয়নের অসহায় হতদরিদ্র মানুষদের সহযোগিতা করে আসছি।আজকেও প্রায় ৬ শতাধীক শিক্ষার্থীদের মাঝে স্কুল ব্যাগ বিতরণ করেছি।আমরা যেন আমাদের কার্যক্রম অব্যাহত রাখতে পারি সকলে আমাদের জন্য দোয়া করবেন।


প্রধান অতিথি তার বক্তব্যে বলেন,বিটঘর ইউনিয়ন প্রবাসী সমাজ কল্যাণ ফাউন্ডেশন প্রতিষ্ঠিত হওয়ার পর থেকে ইউনিয়নের গরিব অসহায় মানুষদের সহযোগিতা করে আসছে।মহামারি করোনার সময়ও তারা অসহায়দের পাশে থেকে সহযোগিতা করেছে।অনেকে টাকার জন্য চিকিৎসা করতে পারেনি এই সংগঠনের সদস্যরা অর্থ দিয়ে সহযোগিতা করেছে। তাদের এই কাজ গুলি সত্যি প্রশংসার দাবি রাখে।অত্র সংগঠনের সদস্যরা যদি আমাকে সদস্য করে নির্বাচিত করে তাহলে একজন সদস্য হয়ে সংগঠনের সকলের সাথে আমিও গরিব অসহায়দের সহযোগিতা করতে চাই।


দেশে অবস্থানরত সংগঠনের যে সকল সদস্যরা অনুষ্ঠানকে সুন্দর ও সার্থক করার জন্য অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন তারা হলেন,নির্বাহী উপদেষ্টা,মোহাম্মদ আমীন বস,যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক,মোঃ আনিসুর রহমান,সহ সাধারণ সম্পাদক: মোঃ সুমন ভূঁইয়া বকুল সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক মোস্তফা ভূঁইয়া।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



ভূমিকম্পে কাঁপলো জাপান

প্রকাশিত:সোমবার ০৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২৩জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনেছে জাপানের মধ্যাঞ্চল ইশিকাওয়াতে। জাপানের আবহাওয়া সংস্থা (জেএমএ) এ তথ্য নিশ্চিত করেছে।

মার্কিন বার্তাসংস্থা এপি জানিয়েছে, স্থানীয় সময় সোমবার (৩ জুন) কয়েক মিনিটের ব্যবধানে ৫ দশমিক ৯ এবং ৪ দশমিক ৮ মাত্রার দুটি ভূমিকম্প আঘাত হানে।

জেএমএ জানায়, এতে এখন পর্যন্ত ক্ষয়ক্ষতি বা হতাহতের বিষয়ে কোনো তথ্য জানা যায়নি। ভূমিকম্পে দেশটিতে কোনো সুনামি সতর্কতাও জারি করা হয়নি। জাপানের আবহাওয়া কর্মকর্তা সাতেশি হারদা বলেন, সোমবারের ভূমিকম্পগুলোকে গত ১ জানুয়ারি ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পের আফটারশক বলে মনে করা হচ্ছে।

ভূমিকম্পের কারণে স্থানীয় রেল পরিষেবা সাময়িকভাবে বন্ধ করে দেয়া হয়। তবে কিছু সময়রে পর আবার বেশিরভাগ রেল পরিষেবা চালু হয়।

জাপানে ভূমিকম্প নিত্যদিনের ঘটনা। দেশটিতে প্রায়ই শক্তিশালী ভূমিকম্প আঘাত হেনে থাকে। চলতি বছরের জানুয়ারি মাসের প্রথমদিনে ইশিকাওয়া অঞ্চলে ৭ দশমিক ৬ মাত্রার ভূমিকম্পে ব্যাপক ক্ষয়ক্ষতি হয়। ওই ভূমিকম্পে ২৪১ জনের মৃত্যুর তথ্য জানা যায়।


আরও খবর



মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ দিল্লি যাচ্ছেন প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ভারতের প্রধানমন্ত্রী নরেন্দ্র মোদির শপথ অনুষ্ঠানে যোগ দিতে আজ শনিবার (৮ জুন) দিল্লি যাচ্ছেন। রোববার (৯ জুন) নরেন্দ্র মোদির শপথ নেওয়ার কথা রয়েছে। এ নিয়ে টানা তৃতীয় মেয়াদে প্রধানমন্ত্রী হিসেবে শপথ নিচ্ছেন নরেন্দ্র মোদি।

প্রধানমন্ত্রীর স্পিচ রাইটার এম নজরুল ইসলাম বলেন, প্রধানমন্ত্রী শনিবার বেলা ১১টায় নয়াদিল্লির উদ্দেশ্যে ঢাকা ত্যাগ করবেন। নরেন্দ্র মোদির শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগদান শেষে ১০ জুন দুপুরে দেশে ফিরবেন শেখ হাসিনা।

এর আগে বুধবার টেলিফোনে আলাপকালে তার সরকারের শপথ গ্রহণ অনুষ্ঠানে যোগ দেওয়ার জন্য বাংলাদেশের প্রধানমন্ত্রীকে আমন্ত্রণ জানান নরেন্দ্র মোদি। শেখ হাসিনা এ আমন্ত্রণ সাদরে গ্রহণ করেন। ৯ জুন নরেন্দ্র মোদির শপথ নেওয়ার কথা রয়েছে।

ভারতের ১৮তম লোকসভা নির্বাচনে বিজেপি-নেতৃত্বাধীন এনডিএ জোট ২৯৩টি এবং ইন্ডিয়া জোট ২৩৩টি আসনে জয় লাভ করে। এর আগে ৮ জুন মোদীর শপথ অনুষ্ঠানের কথা ছিল।


আরও খবর



ঈদ উপলক্ষে জয়পুরহাটে তরুনদের স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন "শুকরিয়া"এর নগদ অর্থ প্রদান

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃ"এখন যৌবন যার, সমাজ সেবা করার সুবর্ণ সুযোগ তার " এই শ্লোগানকে সামনে রেখে জয়পুরহাট পৌর এলাকার দেওয়ান পাড়ার কয়েকজন যুবক নিজেদের আয়ের টাকায় গরীব, অসহায়,দুস্থ পরিবারকে ঈদ উপলক্ষে নগদ অর্থ দিয়ে সহায়তা করেছেন।শুক্রবার  (১৪ জুন) বিকেলে দেওয়ানপাড়া জুবিলি হল মাঠে  অসহায়দের হাতে নগদ অর্থ  তুলে দেন শুকরিয়া নামের এই স্বেচ্ছাসেবী সংগঠন। 

এটি একটি স্থানীয় স্বেচ্ছাসেবী উন্নয়ন সংগঠন, এই সংগঠনের উদ্দেশ্য হচ্ছে এলাকাবাসীর জীবনমান উন্নয়ন, সৌহার্দ্য সম্প্রীতি বাড়ানো এবং একটি অনুকরণীয় নিরাপদ এলাকা হিসেবে নিজেদের সু-প্রতিষ্ঠিত করা। এছাড়া এলাকাটি যেন মাদক মুক্ত থাকে সেলক্ষ্যে কাজ করা।

পাশাপাশি এলাকার দরিদ্র, বঞ্চিত, অবহেলিত মানুষের কল্যাণ ও উন্নয়নে কাজ করা। তাদের ভাগ্যোন্নয়নে ও পরিবর্তনে তাদের সঙ্গে একযোগে কাজ করা।সদস্য খুরশিদ আলম নয়ন মুঠোফোনে বলেন, যুব সমাজকে মাদক, সন্ত্রাস,এবং দুর্নীতি থেকে দূরে রাখতে আমরা কয়েকজন যুবক ২০২২ সালে এই সংগঠনের শুরু করেছিলাম।আমরা এই সংগঠনের পক্ষ থেকে ৫০ জন পরিবারকে সহায়তা প্রদান করতে পেরে আমরা খুঁশি।আল্লাহতালা সহায়তা করলে সামনের দিনে আরও ব্যাপকভাবে সহায়তা প্রদান করার ইচ্ছে আছে।

আরেক সদস্য ওমর নাসিফ বলেন,এটা আমাদের স্বেচ্ছাসেবী উন্নয়ন সংগঠন, এই সংগঠনের উদ্দেশ্য হচ্ছে এলাকাবাসীর জীবনমান উন্নয়ন করার চেষ্টা করা।আপনারা আমাদের জন্য দোয়া করবেন, আমরা যেনো আপনাদের পাশে সব সময় থাকতে পারি।এই সময় উপস্থিত ছিলেন সংগঠনের সদস্য  আলী আসলাম,ওহেদুর রহমান বকুল,আলী আসলাম,বুলবুল আহম্মেদ, সাংবাদিক জনি সরকার ও মিনহাজুর রহমান ছোটন।

আরও খবর



যবিপ্রবি'র ছাত্রাবাসে শিক্ষার্থীকে রাতভর নির্যাতনের অভিযোগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭০জন দেখেছেন

Image

ইয়ানূর রহমান শার্শা,যশোর প্রতিনিধি:যশোর বিজ্ঞান ও প্রযুক্তি বিশ্ববিদ্যালয়ের (যবিপ্রবি) এক আবাসিক শিক্ষার্থীকে জোরপূর্বক তুলে নিয়ে নির্যাতনের অভিযোগ উঠেছে। মঙ্গলবার (৪ জুন) গভীর রাতে যবিপ্রবির শহীদ মসিয়ূর রহমান ছাত্রাবাসের ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানার ৩০৬ নম্বর কক্ষে এ ঘটনা ঘটে।

ঘটনার শিকার শিক্ষার্থী শাহরীন রহমান প্রলয় (২৪) বিশ্ববিদ্যালয়ের শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান বিভাগের চতুর্থ বর্ষের শিক্ষার্থী ও ছাত্রাবাসের আবাসিক ছাত্র।

গুরুতর আহত অবস্থায় ওই শিক্ষার্থী যশোর জেনারেল হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন। এই ঘটনায় ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী যবিপ্রবি প্রশাসনের কাছে মৌখিক অভিযোগ দিয়েছেন।

ভুক্তভোগীর অভিযোগ, ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানার নেতৃত্বে তার সমর্থকরা তার ওপর রাতভর নির্যাতন করেছে। এর পর তাকে গুলি করে হত্যার হুমকিও দেওয়া হয়েছে। বিষয়টি তদন্ত করে ব্যবস্থা নেওয়ার আশ্বাস দিয়েছেন বিশ্ববিদ্যালয়টির উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন।

বিশ্ববিদ্যালয় ও ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী সূত্রে জানা গেছে, সোমবার (৩ জুন) ক্যাম্পাসে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে শাহরীনকে মারধর করেন শারীরিক শিক্ষা ও ক্রীড়া বিজ্ঞান ২০২৮-১৯ শিক্ষাবর্ষের ছাত্র ও ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানার অনুসারী শাহীনুর রহমান। এ ঘটনায় শাহীনুরের বিরুদ্ধে প্রক্টর বরাবর অভিযোগ দেন শাহরীন। এ ঘটনার জের ধরে মঙ্গলবার দিবাগত রাত ২টার দিকে ছাত্রাবাসের নিজ কক্ষ থেকে শাহরীনকে ঘুম থেকে ডেকে তুলে ছাত্রলীগের সভাপতির কক্ষে নিয়ে যাওয়া হয়। এসময় ছাত্রলীগের সভাপতিসহ তার কয়েকজন অনুসারী উপস্থিত ছিলেন। এসময় শাহরীনকে এলোপাতাড়ি মারধর ও রড দিয়ে পেটানো হয়। দফায় দফায় নির্যাতন চলে রাত ২টা থেকে ভোর ৫টা পর্যন্ত। ঘটনাটি যাতে ভুক্তভোগীরা কাউকে জানাতে না পারেন, সেজন্য শাহরীন ও তার রুমমেট (সহপাঠী) আমিনুল ইসলামের ফোন কেড়ে নেন অভিযুক্তরা। একপর্যায়ে ঘটনা জানাজানির ভয়ে বুধবার সকালে মোটরসাইকেলযোগে কালিগঞ্জ বারোবাজার গ্রামের বাড়ি চলে যান শাহরীন। দুপুরে তার মায়ের ফোনে একটি অজ্ঞাত নম্বর থেকে ফোন আসে। বিষয়টি যাতে কাউকে না জানানো হয়, সেজন্য হুমকি দেওয়া হয়। এমনকি এ বিষয়ে কাউকে জানালে বাড়িতে বোমা মেরে উড়িয়ে দেওয়ার হুমকিও দেয় দুবৃর্ত্তরা।

ভুক্তভোগী শিক্ষার্থী শাহরীন বলেন, সোমবার আমার মাথা ফাটিয়ে দেওয়ায় ঘটনায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছিলাম। এ ঘটনায় ঘুম থেকে তুলে রাত ২টায় ক্যাম্পাস ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানা ভাইয়ের নির্দেশে তার কক্ষে ডেকে নিয়ে যায় ছাত্রলীগ কর্মী আমিনুল ইসলাম ও সিয়াম। সভাপতির কক্ষে প্রবেশ করার সঙ্গে সঙ্গে ছাত্রলীগ নেতা আশিকুজ্জামান লিমন, ইসাদ, রায়হান রহমান রাব্বি, বেলাল হোসেন, শেখ বিপুল, রাইসুল হক রানাসহ প্রায় ১০-১৫ জন আমাকে মারধর শুরু করে। এসময় রুমের মেঝেতে লুটিয়ে পড়ি। তখন তারা আমাকে লাথি মারতে থাকে। তারা আমাকে বলতে থাকে কেন প্রক্টরের কাছে লিখিত অভিযোগ দিয়েছিস? এসময় তারা আমার মোবাইল ফোন কেড়ে নেয়। একপর্যায়ে মোটা রড দিয়ে আমার সারা শরীরে পেটাতে শুরু করে। ভোর ৫টা পর্যন্ত চলে দফায় দফায় নির্যাতন। আমার মনে হচ্ছিল আমিও মনে হয় বুয়েটের আবরার ফাহাদের মতো মরে যাব। প্রাণে বাঁচতে আমি ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানা ভাইয়ের পা জড়িয়ে ধরে বাঁচার আকুতি জানাই।এসময় সোহেল রানা বলেন, কালকের মধ্যে অভিযোগ তুলে নিবি, নাহলে তোকে গুলি করে মারব। এসময় সোহেল আমাকে বুকে লাথি মেরে মেঝেতে ফেল দেয়। ভোর হওয়ার সঙ্গে সঙ্গে ব্যাগ গুছিয়ে বাড়ি চলে যাবি বলে নির্দেশ দেয়।

হাসপাতালে কান্নাজড়িত কণ্ঠে শাহরীন বলেন, আমি ও আমার পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছি। অভিযুক্তরা আমার পরিবারের ওপর বোমা মারার হুমকি দিচ্ছে। এ ঘটনার বিচার চাই। তবে অভিযোগ অস্বীকার করে যবিপ্রবি ছাত্রলীগের সভাপতি সোহেল রানা বলেন, ছাত্রলীগের বিভিন্ন গ্রুপিং-দ্বন্দ্ব থাকে। এসব গ্রুপিংয়ে বারবার আমার নামে অপপ্রচার চালানো হচ্ছে।

তিনি আরও বলেন, ক্যাম্পাসে ফুটবল খেলাকে কেন্দ্র করে যা হয়েছে, সেটা মাঠের মধ্যে সীমাবদ্ধ ছিল। ঘটনার দিন আমি ক্যাম্পাসে ছিলাম না। যশোরের বাইরে ছিলাম। মঙ্গলবার রাত ৩টার দিকে ছাত্রাবাসে প্রবেশ করেছি।রাজনীতিকভাবে আমি প্রতিহিংসার শিকার।

যবিপ্রবি উপাচার্য অধ্যাপক ড. আনোয়ার হোসেন বলেন, আমি ভুক্তভোগী শিক্ষার্থীকে দেখে এসেছি। সে আমার কাছে অভিযোগ জানিয়েছে। এ ঘটনা তদন্ত করে জড়িতদের বিরুদ্ধে ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।


আরও খবর



বাংলাদেশকে ২৫ কোটি ডলার ঋণ দিচ্ছে এডিবি

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১১৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশকে ঋণ দিচ্ছে এশীয় উন্নয়ন ব্যাংক (এডিবি)দেশের সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করতে । বাংলাদেশি মুদ্রায় এ অর্থের পরিমাণ ২ হাজার ৯৩৫ কোটি ৫০ লাখ টাকা (প্রতি ডলার ১১৭.৪২ টাকা ধরে)।

সোমবার (১০ জুন) অর্থনৈতিক সম্পর্ক বিভাগের (ইআরডি) সঙ্গে এডিবি ঋণ চুক্তি সই করে। বাংলাদেশ সরকারের পক্ষে ইআরডি সচিব সচিব মো. শাহরিয়ার কাদের সিদ্দিকী এবং এডিবির কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিনটিং নিজ নিজ পক্ষে চুক্তিতে সই করেন।

এডিবি কান্ট্রি ডিরেক্টর এডিমন গিন্টিং বলেন, দ্বিতীয় শক্তিশালীকরণ সামাজিক স্থিতিস্থাপকতা কর্মসূচির লক্ষ্য হলো সুরক্ষার কভারেজ এবং দক্ষতা বৃদ্ধি, সুবিধাবঞ্চিত মানুষের আর্থিক অন্তর্ভুক্তি উন্নত করা এবং বৈচিত্র্যপূর্ণ সুরক্ষা চাহিদার প্রতিক্রিয়া জোরদার করার ক্ষেত্রে সংস্কারমূলক কাজকে ত্বরান্বিত করা। এ কর্মসূচির প্রথম ধাপ ২০২২ সালের জুনে শেষ হয়েছে।

তিনি বলেন, নতুন এই প্রোগ্রামটি বাংলাদেশের সামাজিক সুরক্ষা ব্যবস্থার প্রতিরক্ষামূলক এবং প্রতিরোধমূলক ক্ষমতা জোরদার করার জন্য সরকারের জাতীয় সামাজিক নিরাপত্তা কৌশলের দ্বিতীয় ধাপের কর্মপরিকল্পনাকে সমর্থন করে। প্রোগ্রামটি সামাজিক সুরক্ষা প্রোগ্রাম পরিচালনায় দক্ষতা উন্নত করতে, সবচেয়ে দুর্বলদের জন্য সুরক্ষা বাড়াতে এবং অবদানকারী সুরক্ষা প্রকল্পগুলো প্রবর্তনের মাধ্যমে সামাজিক সুরক্ষার সুযোগ উন্নত করতে সহায়তা করবে। এটি দুর্বলতা, বর্জন এবং আরও দারিদ্রের মধ্যে পড়ার ঝুঁকি কমাতে সাহায্য করবে।

সংস্থাটি জানায়, এই প্রোগ্রামটি দক্ষতা এবং কার্যকারিতা উন্নত করার জন্য প্রতিবন্ধী ব্যক্তিদের জন্য দুটি নগদভিত্তিক সুরক্ষা প্রোগ্রামকে একীভূত করবে। এই প্রোগ্রামটি জলবায়ু পরিবর্তনজনিত দুর্যোগের জন্য সবচেয়ে বেশি ঝুঁকিতে থাকা ব্যক্তিদেরও শনাক্ত করাসহ জলবায়ু দুর্বলতার বিরুদ্ধে স্থিতিস্থাপকতা জোরদার করার জন্য সামাজিক সুরক্ষায় জলবায়ু অভিযোজিত ব্যবস্থাগুলোকে একীভূত করতে সহায়তা করবে।

এডিবির সহায়তা বিধবা ভাতা কর্মসূচির আওতায় সুবিধাভোগীর সংখ্যা বৃদ্ধি করবে এবং ট্রান্সজেন্ডারদের জন্য জীবিকা সহায়তা কর্মসূচির কভারেজ সম্প্রসারণের মাধ্যমে অসহায় নারী ও ট্রান্সজেন্ডারদের সুরক্ষাকে শক্তিশালী করবে। এ ছাড়া বাংলাদেশ ব্যাংক মহিলা উদ্যোক্তাদের জন্য ক্ষুদ্র উদ্যোগ পুনঃঅর্থায়ন প্রকল্পের জন্য তার তহবিল দ্বিগুণ করছে, যাতে আর্থিক পরিষেবাগুলোতে মহিলা ক্ষুদ্র ব্যবসা অপারেটরদের অংশগ্রহণ সম্প্রসারিত করা যায়।

এডিবি জানায়, কর্মসূচির আরেকটি লক্ষ্য হলো তৈরি পোশাক খাতের শাসন ব্যবস্থাকে শক্তিশালী করা। এ ছাড়া এটি একটি ত্রিপক্ষীয় কমিটি গঠনে সমর্থন করে, যার মধ্যে রয়েছে শ্রম ও কর্মসংস্থান মন্ত্রণালয়ের অধীনে কর্মীদের জন্য সামাজিক সুরক্ষার ওপর কর্মী সমিতি, নিয়োগকর্তা সমিতি এবং দেশের সামাজিক বিমা প্রকল্পগুলোকে আরও বিকাশের ক্ষেত্রে একটি মূল প্রাতিষ্ঠানিক ব্যবস্থা হিসেবে সহায়তা করা।


আরও খবর