Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

বিরাট কোহলির ফিফটি সেঞ্চুরি

প্রকাশিত:বুধবার ১৫ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ২৪৮জন দেখেছেন

Image

খবর প্রতিদিন ২৪ডেস্ক : একটা সময় বলা হতো শচীন টেন্ডুলকারের সব রেকর্ড ছাড়িয়ে যাবে কোহলি । লম্বা সময় ধরে অফ-ফর্মে ছিলেন বিরাট কোহলি। সেই খারাপ সময়ে তাকে নিয়ে কত হাসাহাসি হলো। 

কিন্তু বিরাট আবার ফর্মে ফিরেছেন, ফিরেই করে চলছেন একের পর এক রেকর্ড। দক্ষিণ আফ্রিকার বিপক্ষে ১০১ রানের অপরাজিত ইনিংস খেলে ভাগ বসান ওয়ানডেতে শচীনের ৪৯টি সেঞ্চুরির রেকর্ডে। এক ম্যাচ বাদে আজ নিউজিল্যান্ডের বিপক্ষে সেমি-ফাইনালের মতো গুরুত্বপূর্ণ ম্যাচে সেঞ্চুরি হাঁকিয়ে পেছনে ফেললেন শচীনকে।

ম্যাচের ৪২তম ওভারের চতুর্থ বল। লকি ফার্গুসনকে স্কয়ার লেগের দিকে খেলে ডাবলস। ক্যারিয়ারের পঞ্চাশতম শতক। কিউইদের বিপক্ষে সেঞ্চুরি ছাড়াও এক বিশ্বকাপে শচীনের করা সর্বোচ্চ রানের রেকর্ডও গড়েছেন বিরাট। 

২০০৩ সালে ফাইনাল খেলেছিল ভারত। সেবার টেন্ডুলকার করেছিলেন ৬৭৩ রান। ১টি শতকের সঙ্গে ৬টি অর্ধশতক ছিল লিটল মাস্টারের। কোহলি ৩টি শতকের সঙ্গে এখন পর্যন্ত করেছেন ৫টি অর্ধশতক।


আরও খবর



রূপগঞ্জে জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে একটি বাড়ি ঘেরাও

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৪১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জঙ্গি আস্তানা সন্দেহে চারতলা একটি বাড়ি নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে ঘিরে রেখেছে অ্যান্টি টেরোরিজম ইউনিট (এটিইউ)। মঙ্গলবার (২ জুলাই) সকাল থেকেই পুলিশ ও এটিইউ সদস্য বাড়িটি ঘিরে রেখেছে বলে জানিয়েছেন নারায়ণগঞ্জের পুলিশ সুপার গোলাম মোস্তফা রাসেল।

পুলিশের একটি সূত্র জানিয়েছে, নেত্রকোনা জেলার জঙ্গি ঘটনায় একজন নারীকে কক্সবাজার থেকে গ্রেপ্তার করা হয়েছে। তার দেওয়া তথ্য মতে নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে বড়পা এলাকায় একটি বাড়ি ঘিরে রেখেছে এটিইউ সদস্যরা।

পুলিশ সুপার বলেন, এখনই বিস্তারিত বলা যাচ্ছে না। কিছু সময়ের মধ্যে অভিযান শুরু হবে বলেও তিনি উল্লেখ করেন।


আরও খবর



দুই হাজার গ্রাহকের তিন কোটি টাকা হাতিয়ে লাপাত্তা এনজিও

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৯৯জন দেখেছেন

Image

মাজহারুল ইসলাম,রৌমারী (কুড়িগ্রাম) প্রতিনিধি:জামালপুর দেওয়ানগঞ্জ উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নে,ইন্টারন্যাশনাল ডেভেলপমেন্ট এন্টারপ্রাইজ (আইডিই) এনজিওর লোকজন ঘর ও শিশু কার্ড দেয়ার কথা বলে দুই হাজার ভুক্তবোগীকে প্রতারনার ফাঁদে ফেলে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে  নিয়ে লাপাত্তার অভিযোগ পাওয়া গেছে। অনেক কষ্টে ঘরের নামে টাকা জমা দেয়া ভুক্তভোগীরা চেয়ারম্যান ও স্থানীয়দের মৌখিক অভিযোগ করেছেন। 

জানা যায়, উপজেলার ডাংধরা ইউনিয়নের নিমাইমারী গ্রামে সাজেদুল ইসলামের বাড়িতে দুটি রুম সাত মাস আগে ভাড়া নেয় এবং ঘরের দেয়ালে এনজিওর সাইন বোর্ড ঝুলিয়ে দিয়ে কার্যক্রম পরিচালনা করেন। এতে ফিল্ড অফিসার রেজাউল করিম রেজা, একাউন্টস অফিসার সাজু আহমেদ, ম্যানেজার রনি আহমেদ ও অডিট ম্যানেজার হিসেবে কামরুজ্জামান বন্ধন অফিসটি পরিচালনা করতেন। পরে ইউনিয়নের মাঠ পর্যায়ে বিভিন্ন গ্রাম থেকে ১৩ জন কর্মী নিয়োগ দিয়ে সদস্য সংগ্রহ করেন। ঘর ও শিশু কার্ড দেয়ার প্রলোভনে প্রত্যেক সদস্যের কাছে থ্রি কোয়ার্টার ঘরের জন্য ৪৫/৫০ হাজার টাকা ও শিশু কার্ডের নামে ৭৭৫ টাকা করে নেয়া হয়। এতে চর আমখাওয়া ও ডাংধরা ইউনিয়ন এর বিভিন্ন গ্রামের সহজ সরল মানুষের কাছ থেকে প্রায় তিন কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে এখন লাপাত্তা ভুয়া এনজিওটি। এতে দিশেহারা ভুক্তভোগীরা। 

ভুক্তভোগী মালা খাতুন  বলেন, আমি ভিক্ষা করে খাই। ঋণ, ধারদেনা করে সেই অফিসের কর্মী পারভীন এর কথা শুনে অনেক কষ্ট করে ৪৫ হাজার টাকা দিয়েছি। আমি অফিসে গিয়ে দেখি ঘরের দরজা তালা বদ্ধ। পরে লোক মুখে শুনি পালাইয়া গেছে। এখন আমি কি করবো, আমার সব শেষ। আমি কি ভাবে ঋণ ধারদেনা পরিশোধ করবো। 

অন্য ভুক্তভোগী আলামিন বলেন, অলিখিত পরিচালনা দায়িত্বে স্থানীয় মেম্বার বখতিয়ার (বক্তো) এর কথা শুনে ২৫ হাজার টাকা দিয়েছি পনেরো হাত ঘরের জন্য। আমায় শুধু খুটি দিছে, পরে শুনি এনজিও পালাইয়া গেছে। তবে এই অফিসের প্রায় সব কাজ অলিখিতভাবে পরিচালনা করতো মেম্বার বখতিয়ার (বক্তো)। 

ওই অফিসে কর্মরত আসমাউল হুসনা নামে এক কর্মী বলেন, বিভিন্ন গ্রাম থেকে আমাদের ১৩ জন কর্মীকে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে। সাত হাজার থেকে আট হাজার টাকার মধ্যেই আমাদের বেতন নির্ধারণ করা হয়েছিল। আমাদের মূল কাজ ছিল, গ্রামে গ্রামে গিয়ে মানুষকে ঘর ও শিশু ভাতার কার্ডের  নাম দেওয়ার কথা  বলে টাকা নিয়ে অফিসে জমা দেওয়া। বিশ হাত ঘরের জন্য অফিস নির্ধারিত  ৪৫/৫০ হাজার টাকা ও শিশু ভাতার জন্য ৭৭৫ টাকা করে অফিসে জমা দেওয়া হয়েছে। হুসনা আরো বলেন, অফিসের নির্ধারিত টাকার চেয়েও অনেক কর্মীরা মানুষের কাছ থেকে বেশি টাকা নিয়েছে।

এ বিষয়ে মেম্বার বখতিয়ারের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, আমার দুই মেয়ে ওই অফিসের কর্মী হিসেবে কাজ করতো। ডাংধরা  ইউনিয়নের চেয়ারম্যান আজিজুর রহমান ও চর আমখাওয়া ইউনিয়নের চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম জিয়া, এই অফিসের একটি কাগজে সহি করে দিয়েছে। যেটা আমরা দেখে বিষয়টিকে আরো সত্যি ভেবে মানুষের কাছ থেকে টাকা এনে অফিসে জমা দিয়েছি । তিনি আরো বলেন, চেয়ারম্যানরা যেহেতু বিষয়টি জানে তাই কোন সমস্যা হবে না এটাই ভেবেছি আমরা।

এই বিষয়ে ডাংধরা ইউনিয়ন এর চেয়ারম্যান মোঃ আজিজুর রহমান বলেন, বিভিন্ন মাধ্যমে আমার কাছে কিছু মানুষ অভিযোগ করেন। ঘর দেওয়ার নামে ৪৫/৫০ হাজার টাকা নিচ্ছে। আমি এনজিও পরিচালকদের ডেকেছিলাম। তাদের কাজ সঠিক আছে কিনা জানার জন্য। পরে আমি ও চর আমখাওয়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান জিয়াউল ইসলাম জিয়া মিলে তাদের কাছে জানতে পারি হতদরিদ্রদেরকে ২০ হাত করে ঘর দেবে। দরিদ্রদেরকে দিয়ে উপকারের জন্য তাদের কাগজে সহি করে দেই। পরে শুনতে পাই ভুক্তভোগীদের কাছ থেকে প্রায় ৩ কোটি টাকা হাতিয়ে নিয়ে এনজিও পালিয়ে গিয়েছে।

এ ব্যাপারে দেওয়ানগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা জাহিদ হাসান প্রিন্স বলেন, এই এনজিও টাকা নিয়ে লাপাত্তার বিষয়ে আমার কাছে অভিযোগ এসেছে। ৫ সদস্য বিশিষ্ট তদন্ত কমিটি করা হয়েছে তদন্ত রিপোর্ট অনুযায়ী আইনগত  ব্যবস্থা নেয়া হবে।


আরও খবর



মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে?

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা প্রশ্ন তুলেছেন,সরকারি চাকরিতে বীর মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা কোটা সুবিধা পাবে না, তাহলে কি রাজাকারের নাতি-নাতনিরা কোটা সুবিধা পাবে?।

রোববার (১৪ জুলাই) বিকেলে চীন সফর নিয়ে গণভবনে অনুষ্ঠিত সংবাদ সম্মেলনে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, মহান মুক্তিযুদ্ধ ও বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে এত ক্ষোভ কেন? মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা কোটা পাবে না, তাহলে কি রাজাকারের নাতিরা কোটা পাবে? তা তো আমরা দিতে পারি না।

সরকারপ্রধান বলেন, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের বিরুদ্ধে কথা বলার অধিকার তাদের কে দিয়েছে? তারা দেশ স্বাধীন করার জন্য জীবনপণ লড়েছেন। তাদের বিরুদ্ধে কথা বলার সাহস পায় কীভাবে? মুক্তিযুদ্ধ তাদের এখন ভালো লাগে না।

এর আগে এক প্রশ্নের জবাবে প্রধানমন্ত্রী জানান, ২০১৮ সালে আন্দোলন ও সহিংসতার ঘটনায় বিরক্ত হয়ে তিনি কোটা বাতিল করেছিলেন।

তিনি বলেন, একবার তারা এ ধরনের আন্দোলন করেছিল। আন্দোলন তো না সহিংসতা। ভাঙচুর, অগ্নিসংযোগ করেছিল। তখন আমি বিরক্ত হয়ে বলেছিলাম সব কোটা বাদ দিয়ে দিলাম। তখনই বলেছিলাম যে কোটা বাদ দিলে দেখেন কী অবস্থা হয়। এখন দেখেন কী অবস্থা তৈরি হয়েছে?

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



কোটা আন্দোলনকারীদের ব্লকেড থেকে সরে আসতে বলল ছাত্রলীগ

প্রকাশিত:শুক্রবার ১২ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৬৬জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার,স্টাফ রিপোর্টার:কোটা আন্দোলনকারীদের ব্লকেড থেকে সরে আসতে বলল ছাত্রলীগ অনতিবিলম্বে ব্লকেড থেকে সরে এসে শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে শান্তিপূর্ণ কর্মসূচি পালনের আহ্বান জানিয়েছেন ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেন।বৃহস্পতিবার (১১ জুলাই) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে সরকারি চাকরিতে কোটাব্যবস্থা বাতিল করে ২০১৮ সালের পরিপত্র পুনর্বহালের দাবিতে চলমান আন্দোলন নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেন তিনি। সরকারি চাকরিতে কোটা সংস্কারের দাবিতে চলমান আন্দোলনের মধ্যে ‘জনদুর্ভোগ তৈরি না করে ক্লাস-পরীক্ষায় ফিরে আসা ও কোটার যৌক্তিক সমাধান’ নিয়ে সংবাদ সম্মেলনে কথা বলেন ছাত্রলীগের নেতারা।

ছাত্রলীগ সভাপতি সাদ্দাম হোসেনের আগে কথা বলেন সাধারণ সম্পাদক শেখ ওয়ালী আসিফ ইনান। তিনি বলেন, বুধবার আদালত একটি সিদ্ধান্ত দিয়েছেন। আপিল বিভাগে চার সপ্তাহের সময় নিয়েছেন। কারো কোন কথা থাকলে তা আদালতে বিস্তারিত বলতে পারবে। এমন অবস্থায় আদালতের এই আদেশ নিয়ে মন্তব্য করা ঠিক হবে না। কোন কোন ক্ষেত্রে তা আদালত অবমাননার শামিল হবে বলেই মনে করি। এসময় তিনি আহ্বান জানিয়ে বলেন, যারা আন্দোলন করছেন তারা ক্লাস-পরীক্ষায় ফিরবেন এবং জনদুর্ভোগ সৃষ্টি হয় এমন কোন কর্মসূচি দেবেন না।

এদিকে নারীদের জন্যে আলাদা করে কোটা না রাখার ব্যাপারটি প্রত্যাখ্যান ছাত্রলীগ সভাপতি বলেন, অবশ্যই সমতা প্রদর্শন করতে অনগ্রসর নাগরিকদের দিকে আমাদের লক্ষ রাখতে হবে। তাদের প্রতি থাকতে হবে সংবেদনশীলতা। মেট্রোপলিটন নির্ভর চাকরি ব্যবস্থাকে দৃঢ়তার সঙ্গে প্রত্যাখ্যান করে ছাত্রলীগ।’

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



নাসিরনগর চাতলপাড়ে কাজী নিয়োগে অনিয়মের অভিযোগ

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ২১৬জন দেখেছেন

Image

মোঃ আব্দুল হান্নান,নাসিরনগরব্রাহ্মণবাড়িয়াঃ- জেলার নাসিরনগর নগর উপজেলার চাতলপার ইউনিয়নে কাজী নিয়োগের বিষয়ে অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে।তা নিয়ে সামাজিক যোযাযোগ মাধ্যমে বিভিন্ন বিভ্রান্তিকর তথ্য ছড়াচ্ছে লোকজন।সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম থেকে জানা গেছে।


ইউনিয়নে সাতাইশ জন প্রার্থী থাকলেও একটি রাজাকার পরিবারের  তিন জনকে ডিওলেটার দিয়েছেন স্থানীয় সংসদ সদস্য বলে জানা গেছে।তার সত্যতা যাচাই করতে স্থানীয় সংসদ সদস্য সৈয়দ একরামুজ্জামানের সাথে কথা হয়। তিনি কারো জন্য বিশেষ সুপারিশ করবেন না বলে জানিয়েছেন। যোগ্যতার ভিত্তিতে নিয়োগ প্রক্রিয়া সম্পন্নের প্রতি জোর দেন তিনি।

জানা  এক বিএনপি নেতা জোর পূর্বক উক্ত পদটি ভাগিয়ে দখলে নেয়ার চেষ্টা চালাচ্ছে।সেই জন্য তার নিজস্ব তিনজন লোকের নামে তিনটি ডিও লেটারও নিয়ে নিচ্ছে।প্রার্থী মাজহারুল করিমের শিক্ষাগত যোগ্যতা সম্পর্কেও সন্দেহ পোষণ করছেন অনেকেই।

চাতলপার ইউনিয়নের চেয়ারম্যানসহ সর্বস্তরের মানুষের একটাই দাবি- কাজী নিয়োগটি যেন স্বচ্ছতার ভিত্তিতে হয়।বলপ্রয়োগ করে যেন কেউ প্রশাসনের স্বাভাবিক কাজে বাধা সৃষ্টি  না করতে পারে।

        -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর