Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

বহু নাটকীয়তার পর মাহির জামিন

প্রকাশিত:শনিবার ১৮ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২৬৫জন দেখেছেন

Image

গাজীপুর প্রতিনিধি ;বহু নাটকীয়তার পর অবশেষে জামিন পেলেন চিত্রনায়িকা মাহিয়া মাহি। আজ শনিবার বিকেলে তার জামিন মঞ্জুর করেন গাজীপুর মহানগর মুখ্য মহানগর হাকিমের (সিএমএম) আদালত-৫-এর বিচারক মো. ইকবাল হোসেন। প্রেগনেন্সি ও সেলিব্রেটি বিবেচনায় আদালত এই আদেশ দেন বলে জানা গেছে।

মাহির আইনজীবী অ্যাডভোকেট আনোয়ার সাদত সরকার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন। এ সময় তার সঙ্গে বেশ কয়েকজন আইনজীবী মাহির পক্ষে আদালতে উপস্থিত ছিলেন। 

এর আগে আজ শনিবার দুপুর দেড়টার দিকে ওই আদালতের একই বিচারক মাহিকে গাজীপুর জেলা কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন। তার আগে আজ বেলা ১১টার দিকে রাজধানীর হজরত শাহজালাল আন্তর্জাতিক বিমানবন্দর থেকে মাহিকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। এদিন সকাল ১০টা ৫০ মিনিটে মাহিয়া মাহি সৌদি আরব থেকে বাংলাদেশ বিমানের একটি ফ্লাইটে বিমানবন্দরে অবতরণ করেন।

এদিকে, শনিবার গ্রেপ্তার পরবর্তী এক সংবাদ সম্মেলনে গাজীপুর মহানগর পুলিশের (জিএমপি) কমিশনার মোল্যা নজরুল ইসলাম বলেন, ‘মাহি দেশের ফেরার পর বিমানবন্দর থেকে তাকে গ্রেপ্তার করেছি। বাকি প্রক্রিয়া শেষে আমরা দ্রুতই তার রিমান্ড চাইব।’ মাহির স্বামী রকিব সরকার এখনো পলাতক রয়েছে বলেও জানান মোল্যা নজরুল ইসলাম।

উল্লেখ্য, শুক্রবার ভোরে স্বামীর সঙ্গে ওমরাহ পালন করতে যাওয়া চিত্রনায়িকা মাহি সৌদি আরবের মক্কা শহর থেকে ফেসবুক লাইভে রকিবের গাড়ির শোরুমে ভাঙচুর ও হামলার অভিযোগ করেন। ফেসবুকে গাজীপুর মহানগর পুলিশের বিরুদ্ধে ‘ঘুষ’ নেওয়ারও অভিযোগ তোলেন এই নায়িকা।

এ ঘটনায় পুলিশের ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ণ করার অভিযোগে মাহিয়া মাহি ও তার স্বামী রকিব সরকারের বিরুদ্ধে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা করেছে পুলিশ।

জানা গেছে, মাহি ও তার স্বামী রকিব সরকারের বিরুদ্ধে গাজীপুরে দুটি মামলা হয়েছে। ভাবমূর্তি ক্ষুণ্ন করার অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলাটি করেছেন বাসন থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রোকন মিয়া। এ ছাড়া জমি দখলের অভিযোগে তাদের নামে হুকুমের আসামি করে আরও একটি মামলা করেছেন স্থানীয় বাসিন্দা ইসমাইল হোসেন।


আরও খবর



মিরসরাইয়ে ১ হাজার কেজির কালা পাহাড়ের দাম ৭ লাখ টাকা

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৯জন দেখেছেন

Image

এম আনোয়ার হোসেন, মিরসরাই (চট্টগ্রাম) প্রতিনিধি:৪ বছরে ষাড় বাচ্চা কালা পাহাড় এখন এক হাজার কেজি ওজনের একটি সুবিশাল গরু। হলেস্টিয়ান ফ্রিজিয়ান জাতের গরুটির দাম হাঁকানো হয়েছে ৭ লাখ টাকা। এরই মধ্যে আসন্ন কোরবানি মৌসুমে মিরসরাইয়ে চমক হয়ে উঠেছে কালা পাহাড়। গরুটির মালিক মিরসরাই উপজেলার ১১ নং মঘাদিয়া ইউনিয়নের মজুমদারহাট এলাকার হাশিমনগরের বাসিন্দা সোহেল। ক্ষুদ্র খামারী সোহেল শখের বশেই গরু লালনপালন করেন। দেখতে কালো এবং সুবিশাল হওয়ার কারণেই গরুটির নামকরণ করা হয় কালা পাহাড়। কালা পাহাড় লম্বায় প্রায় আট থেকে নয় ফিট। দৈনিক দানাদার, খড় ও কাঁচা ঘাস মিলে অন্তত ২৫-৩০ কেজি খাবার খায় গরুটি। প্রতিদিন ৪-৫ বার গোসল করাতে হয় তাকে।

খামারি সোহেল জানান, কালা পাহাড়কে কখনও ইনজেকশন বা ফিড খাওয়ানো হয়নি। কিন্তু বর্তমান বাজারে পশু খাদ্যের দাম খুব বেশি। কালা পাহাড়কে গড়ে প্রতিদিন ৪০০ থেকে ৫০০ টাকার খাবার খাওয়াতে হয়। সে হিসাবে ৪ বছরে অনেক টাকা তার পিছনে ব্যয় হয়। এসব হিসাব করে কালা পাহাড়ের সুলভ মূল্য ধরা হয়েছে ৭ লাখ টাকা। লাইভ ওয়েটে গরুটি সাড়ে ৫ শত টাকা করে বিক্রি করা হবে। 

সোহেল বলেন, ‘কোনো হাটে কালা পাহাড়কে ওঠানোর ইচ্ছা নেই। বাড়ি থেকে বিক্রি করার ইচ্ছে। তবে মিরসরাইয়ের মধ্যে গরুটি বিক্রি হলে প্রয়োজনে ঈদ পর্যন্ত গরুকে আমার বাড়িতে রাখার সুযোগ দিবো।’

প্রতিবেশী জিল্লুর রহমান বলেন, ‘সোহেলের গরু পালনের কথা এলাকার সবাই জানে। কিন্তু তার লালনপালন করা কালা পাহাড় এর মতো এত বড় গরু এ এলাকায় আগে কখনও দেখা যায়নি।’


আরও খবর



মাগুরায় দূর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা ও চেক বিতরণ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১২১জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:সবাই মিলে গড়বো দেশ দূনীতিমুক্ত বাংলাদেশ এ প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে মাগুরায় দূর্নীতি প্রতিরোধ বিষয়ক আলোচনা সভা ও শিক্ষা প্রতিষ্ঠানে সততা স্টোরের অনুকূলে অর্থ প্রদান অনুষ্ঠিত হয়। বুধবার ২৯ মে সকালে স্থানীয় আছাদুজ্জামান মিলনায়তনে অনুষ্ঠিত এ সভায় সভাপতিত্ব করেন মোঃ শফি উল্লাহ  উপ পরিচালক দূর্নীতি দমন কমিশন সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঝিনাইদহ।  অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবু নাসের বেগ। বিশেষ অতিথি ছিলেন অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক আব্দুল কাদের, দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির মাগুরা জেলা শাখার সভাপতি ডাঃ সুশান্ত কুমার বিশ্বাস, জেলা শিক্ষা অফিসার আলমগীর কবীর। অনুষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন মাগুরা জেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটির সাধারণ সম্পাদক কাজী সঞ্জয় জামান। অনুষ্ঠনে  সততা  স্টোরের জন্য জেলার ৪ উপজেলার ৭২ টি শিক্ষা  প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ১০ হাজার টাকা করে মোট  ৭ লাখ ২০ হাজার টাকা প্রদান করা হয়। অনুষ্ঠানের প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মোহাম্মদ আবু নাসের বেগ অনুদানের চেক প্রদান করেন।  দূর্নীতি দমন কমিশন,  সমন্বিত জেলা কার্যালয় ঝিনাইদহ জেলা ও উপজেলা দূর্নীতি প্রতিরোধ কমিটি মাগুরা এ অনুষ্ঠানের আয়োজন করে।


আরও খবর



সুন্দরগঞ্জে ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্হ পরিবারের মাঝে ত্রাণ বিতারণ

প্রকাশিত:শুক্রবার ৩১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

সুন্দরগঞ্জ(গাইবান্ধা)প্রতিনিধিঃগাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার ধোপাডাঙ্গায় গত২৯মে দিবাগত মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্হ্য পরিবারের মাঝেত্রান সামগ্রী বিতারণ।গত৩১ মে শুক্রবার সকাল দশটায় উপজেলার দক্ষিণ ধোপাডাঙ্গা ইন্দ্রিরার পাড় মোড়ে,,২৯মে মধ্যরাতে রেমালের আঘাতে ক্ষতিগ্রস্হ ৫০ পরিবারের মাঝে পরিবার প্রতি ১০কেজিল চাল,১লিটার সয়াবিন তৈল,১কেজি চিনি,১কেজি মসুর ডাল,১কেজি লবন ও মসলার গুড়া,মরিচের গুড়া,হলুদসহ ১৪কেজি করে ত্রান সামগ্রী বিতারন করা হয়।এসময় উপস্হিত ছিলেন,ধোপাডাঙ্গা ইউপি চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোকলেছুর রান মণ্ডল,সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সহ-সভাপতি একেএম শামছুল হক,দক্ষিণ ধোপাডাঙ্গা ওয়াডের মেম্বার,,জাহাঙ্গীর আলম,৪,৫,ও৬নং সংরক্ষিত ওয়াডের মেম্বার মেহেনুর আকতার স্বপ্না।উল্লেখ্য যে,,গত২৯ মে দিবাগত মধ্যরাতে ঘূর্ণিঝড় রেমালের আঘাতে ধোপাডাঙ্গার কিশামত,উত্তর,ওদক্ষিন ধোপাডাঙ্গার ৫গ্রামের শতাধিক ঘর-বাড়ি ও গাছপালা বিধস্ত হয়।বিষয়টি তাৎক্ষণিক ভাবে চেয়ারম্যান আলহাজ্ব মোকলেছুর রহমান ইউএনও মহোদ্বয়কে অবহিত করলে তিনি তাৎক্ষণিক এই ত্রাণ সামগ্রী বরাদ্ধ দেন।


আরও খবর



শিল্পী সমিতির সম্পাদক পদ ফিরে পেলেন ডিপজল

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ২২৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন প্রতিবেদক:বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির ২০২৪-২৬ মেয়াদি নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে জয়ী হয়েও আইনি বাধায় পড়েছিলেন মনোয়ার হোসেন ডিপজল। সে বাধা কেটে গেছে। তিনি সাধারণ সম্পাদক পদে দায়িত্ব পালন করতে পারবেন জানিয়েছে, আজ সোমবার চেম্বার বিচারপতি এম ইনায়েতুর রহিম এ আদেশ দেন। এর ফলে দায়িত্ব পালনে বাঁধা নেই ডিপজলের।

গতকাল রবিবার বাংলাদেশ চলচ্চিত্র শিল্পী সমিতির (২০২৪-২৬) মেয়াদি নির্বাচনে পদ ফেরত চেয়ে চেম্বার আদালতে আবেদন করেন এই খল অভিনেতা।

গেল ২০ মে বিচারপতি নাইমা হায়দার ও বিচারপতি কাজী জিনাত হকের হাইকোর্ট বেঞ্চ শিল্পী সমিতির নির্বাচনে সাধারণ সম্পাদক পদে বিজয়ী ডিপজল তার পদে বসতে পারবেন না বলে আদেশ দেন। সেই সঙ্গে পরাজিত সাধারণ সম্পাদক প্রার্থী নিপুণ আক্তারের অভিযোগ তদন্তের নির্দেশ দিয়েছেন হাইকোর্ট।

উল্লেখ্য, ১৫ মে নিপুণের পক্ষে আইনজীবী অ্যাডভোকেট পলাশ চন্দ্র রায় শিল্পী একটি রিট আবেদন করেন। রিটে নির্বাচনে অনিয়ম ও কারচুপির অভিযোগ এনে এ ঘটনা তদন্তে কমিটি গঠনের পাশাপাশি নতুন করে নির্বাচনের তফসিল ঘোষণা ও মিশা-ডিপজলের নেতৃত্বাধীন কমিটির দায়িত্ব পালনে নিষেধাজ্ঞা চাওয়া হয়।


আরও খবর



হোমনা উপজেলা পরিষদ নির্বাচন, কেন্দ্র দখলের চেষ্টা পুুলিং এজেন্টসহ ২ জনের জরিমানা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | ৫৭জন দেখেছেন

Image

শাজু, হোমনা (কুমিল্লা) প্রতিনিধি:কুমিল্লার হোমনায় চতুর্থ পর্যায়ে ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়েছে। এতে বিভিন্ন কেন্দ্রে অধিপত্য বিস্তার ও কেন্দ্র দখলের চেষ্টা করেছে চেয়ারম্যান ও ভাইস চেয়ারম্যান পদের প্রতিদ্বন্দ্বী প্রার্থীর সমর্থকেরা। বেলা দুইটার দিকে উপজেলার জয়পুর ইউনিয়নের পূর্ব কাশিপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় কেন্দ্রে দায়িত্বরত একজন পুলিং এজেন্ট ও তার বাবাকে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমানা করা হয়। জরিমানপ্রাপ্তরা হলেন পুলিং এজেন্ট মো. আনোয়ার হোসেন; তাকে পনেরো হাজার টাকা জরিমানা করে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয় এবং তার বাবা মো. ধনু মিয়াকেও দশ হাজার টাকা জরিমান করা হয়। 

জানা যায়, ওই কেন্দ্রের ভাইস চেয়ারম্যান প্রার্থীর তালা প্রতীকের পুলিং এজেন্ট মো. আনোয়ার হোসেন বারবার বাইরে যেতে চাইলে ওই কক্ষের পুলিং অফিসার তাকে বারণ করেন। এতে তিনি উত্তেজিত হয়ে তার সঙ্গে তর্কাতর্কি শুরু করেন। এক পর্যায়ে কেন্দ্রের বাইরে থেকে তার বাবা ধনু মিয়া লোকজন নিয়ে কেন্দ্রে প্রবেশ করে জবর দখলের চেষ্টা চালায়। এতে পুলিং অফিসার মোরশিদা বেগম হাতে আঘাত পান। এমতাবস্থায় নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেটসহ আইনশৃঙ্খলাবাহিনীর মোবাইল টিম ঘটনাস্থলে উপস্থিত হয়ে আনোয়ার হোসেন ও তার পিতা ধনু মিয়াকে আটক করা হয়। পরে ভ্রাম্যমাণ আদালতের মাধ্যমে পুলিং এজেন্ট আনোয়ার হোসেনকে তার দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি দিয়ে ১৫ হাজার টাকা এবং তার বাবা ধনু মিয়াকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেন। এসময় ভোটাররা হুড়োহুড়ি করে দিকবিদিক চলে গেলে কিছুক্ষণের জন্য ভোটগ্রহণ থেমে যায়। 

এ ব্যাপারে প্রিজাইডিং অফিসার মো. মহসিন বলেন, তালা প্রতীকে পুলিং এজেন্ট আনোয়ার হোসেন ও তার পিতা ধনু মিয়া কেন্দ্রে ভোট দখলের চেষ্টা চালালে ম্যাজিস্ট্রেটকে খবর দেওয়া হয়। তাদের ভ্রাম্যামাণ আদালতের মাধ্যমে জরিমান করা হয়েছে।

নির্বাহী ম্যােিজস্ট্রে মো. আশিকুর রহমান বলেন, কেন্দ্র দখলের চেষ্টা চালানোয় নির্বাচনী আচরণবিধি অনুযায়ী পুলিং এজেন্ট আনোয়ার হোসেনকে দায়িত্ব থেকে অব্যাহতি এবং পনেরো হাজার টাকা এবং তার বাবা ধনু মিয়াকে দশ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে।

অপরদিকে উপজেলার মাথাভাঙা ইউনিয়নের জগন্নাথকান্দি কেন্দ্রে চেয়ারম্যান পদের আনারস ও মোটর সাইকেল প্রতীকের সমর্থকদের আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে দুই পক্ষের মধ্যে উত্তেজনা ও ধাওয়া পাল্টা ধাওয়া হয়। এতে মোটর সাইকেল প্রতীকের প্রার্থীর ছোট ভাই নাজিরুল হক ভূঁইয়া ও আনারস প্রতীকের সমর্থক সাজনু আহত হন। এ ঘটনায় নাজিরুল হকের ছোট ভাই জসিম উদ্দিন লিটন বাদি হয়ে সাজনু ও কাউছারসহ ৯ জনের নামে হোমনা থানায় লিখিত অভিযোগ দিয়েছেন। 

 হোমনায় উপজেলায় ভোটার রয়েছে ১ লাখ ৭৯ হাজার ২৪৩ জন। এদের মধ্যে পুরুষ ৯৪ হাজার ২৭৪ জন এবং মহিলা ৮৫ হাজার ৬৯ ভোট। মোট ৬১টি কেন্দে ৪১৯ টি স্থায় কক্ষ ও ৬১ টি অস্থায়ী ভোট  কক্ষে ভাটগ্রহণ চলে।


আরও খবর