Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

আল ইত্তিহাদে আনুষ্ঠানিক চুক্তি করলেন বেনজেমা

প্রকাশিত:বুধবার ০৭ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৩৭২জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক:করিম বেনজেমা সৌদি আরবের ক্লাব আল ইত্তিহাদের সঙ্গে ৩ বছরের চুক্তি করছেন। গতকাল মঙ্গলবার দিনভর এই গুঞ্জন ছিল। এবার আনুষ্ঠানিকভাবেই তা ঘটল। ফ্রি ট্রান্সফার হিসেবে মরুর দেশটিতে গেলেন ফরাসি ফরোয়ার্ড। খবর গোল ডট কমের।

আগামী ২০২৬ সাল পর্যন্ত সৌদি প্রো লিগের দল আল ইত্তিহাদের সঙ্গে অফিসিয়ালি চুক্তি করলেন বেনজেমা। যেখানে প্রতি বছর সম্ভাব্য ২০০ মিলিয়ন ইউরো আয় করবেন তিনি।

এর আগে এই সপ্তাহেই বেনজেমার ক্লাব ছাড়ার আনুষ্ঠানিক ঘোষণা দিয়েছে রিয়াল মাদ্রিদ। মঙ্গলবার ক্লাব প্রেসিডেন্ট ফ্লোরেন্তিনো পেরেজের উপস্থিতিতে সান্তিয়াগো বার্নাব্যুতে তাকে ফেয়ারওয়েল দেওয়া হয়। এরইসঙ্গে গ্যালাকটিকোদের সঙ্গে ফরাসি ফরোয়ার্ডের ১৪ বছরের সম্পর্কের ইতি হয়।

এদিকে গত জানুয়ারিতে সৌদি ক্লাব আল নাসরের সঙ্গে চুক্তি করেছিলেন ক্রিস্টিয়ানো রোনালদো। এছাড়া দেশটির আরেক ক্লাব আল হিলাল নাকি লিওনেল মেসিকে পেতে রেকর্ড ট্রান্সফারের প্রস্তাব দিয়েছে।


আরও খবর



কোটা বাতিল আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ০৭ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:কোটা বাতিল আন্দোলনের কোনো যৌক্তিকতা নেই। আন্দোলনের নামে যা করা হচ্ছে তার যৌক্তিকতা আছে বলে মনে করি না,বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

রোববার (৭ জুলাই) গণভবনে বেলা পৌনে ১১টায় গণভবনে যুব মহিলা লীগের প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, কোটা বাতিলের আন্দোলন হচ্ছে। কোটা বন্ধ করা হয়েছিল। কিন্তু হাইকোর্টের রায়ে বহাল হয়েছে। পড়াশোনা বাদ দিয়ে ছেলেমেয়েরা আন্দোলন করছে। এর কোনো যৌক্তিকতা নেই।

মহিলা লীগের কর্মীদের পেনশন স্কিমে যোগ দেওয়ার পরামর্শ দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, সবার জন্য পেনশন স্কিম করা হয়েছে। জীবনের নির্ভরতার জন্য পেনশন। আমরা চাই সবাই একটু ভালোভাবে বাঁচুক।

বিএনপি ক্ষমতায় থাকার সময় যেভাবে নিযার্তন করেছে তা নিন্দারও যোগ্য নয় মন্তব্য করে তিনি বলেন, দলটি ভোট চুরি করে মাত্র দেড় মাস টিকেছে। গ্যাস বিক্রির মুচলেকা দিয়ে ২০০১ সালে ক্ষমতায় গিয়েছিল বিএনপি। ভোট চুরির অবপাদে ২ বার ক্ষমতাচ্যুত হয়েছে তারা।

সরকারপ্রধান বলেন, বিএনপি সমাজের বোঝা, তাদের সন্ত্রাসী চেহারা মানুষের সামনে তুলে ধরতে হবে। বিএনপি-জামায়াত যেন আর ক্ষমতায় ফিরতে না পারে, সেজন্য মানুষকে সচেতন থাকতে হবে।


আরও খবর



মেঢারাবি-৫ ধানমন্ডি অফিসকে স্মার্ট সেবার আওতায় নিয়ে এসেছেন এমদাদুল হক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ২০৪জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হাসানঃতিতাস গ্যাসের মেঢারাবি-৫ধানমন্ডি অফিসের উপ-মহাব্যাবস্থাপক এমদাদুল হক যোগদানের পর থেকে পাল্টে যাচ্ছে অনেক দৃশ্যপট। তিতাস গ্যাসের এমডির নির্দেশনাগুলোকে আমলে নিয়ে রাজস্ব আদায়,বকেয়া আদায় এবং অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করে প্রশংসাও পেয়েছেন এই কর্মকর্তা।কোম্পানীকে লোকসানমুক্ত করার আহবানে সাড়া দিয়ে যে কতজন কর্মকর্তা নিবেদিত প্রান হিসেবে কাজ করছেন তার মধ্যে অন্যতম মেঢারাবি-৫ধানমন্ডি অফিসের উপ-মহাব্যাবস্থাপক এমদাদুল হক।তিতাসের ১৮ টি জোন/আরএসও অফিসের মধ্যে মেঢারাবি-৫ধানমন্ডি অন্যতম।বর্তমান সরকারের উন্নয়নের ধারাকে বাস্তবায়ন করার লক্ষ্যে মাঠ পর্যায়ে নিরলসভাবে নিয়োজিত আছেন তিনি। যোগদানের পর থেকে বকেয়া আদায়ে লক্ষ্যমাত্রার চেয়ে বেশি বকেয়া আদায় করে প্রশংসায় ভাসছেন এমদাদুল হক।মেঢারাবি৫-ধানমন্ডি অফিসে যোগদানের আগে তিতাস গ্যাসের প্রধান কার্যালয়,ময়মনসিংহ, গাজীপুরে সফলতার সাথে  দায়িত্ব পালন করেন এই কর্মকর্তা।তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএলসি'র মেট্রো ঢাকা রাজস্ব বিভাগের (জোন-১০,১১) উপমহাব্যবস্থাপক মোঃ এমদাদুল হক সার্বক্ষণিক সেবামূলক কাজ করে মানবিক কর্মকর্তা হিসেবে সকলের নিকট পরিচিতি লাভ করতে সক্ষম হয়েছেন। তার কার্যালয়ে প্রবেশ করতে লাগে না কোন অনুমতি। ইচ্ছা করলে যে কেউ তার অফিসে বিনা-অনুমতিতে প্রবেশ করতে পারেন।তিনি অত্যন্ত সততা, নিয়মানুবর্তিতা ও আন্তরিকতার  সাথে এই অফিসে সেবা চালু করায় মেঢারাবি-ধানমন্ডিতে তিতাস গ্যাসের গ্রাহকদের ভোগান্তি অনেকাংশে লাঘব হয়েছে।তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএলসি'র ব্যবস্থাপনা পরিচালক (এমডি) হারুনুর রশিদ মোল্লাহ মেঢাবিবি-৫ ধানমন্ডি অফিসে আচমকা ঝটিকা সফর এসে  বকেয়া আদায়, অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন, গ্রাহক সেবার মান, এবং জোনাল অফিসের কাজকর্ম তদারকি করে সন্তোষ প্রকাশ করেন। দপ্তরের প্রতিটি টেবিল তিনি ঘুরে ঘুরে দেখেন। কর্মকর্তা, কর্মচারী, ঠিকাদার এবং সেবা গ্রহণের জন্য আসা উপস্থিত গ্রাহকের সাথে তিনি কথা বলেন। কর্মকর্তা, কর্মচারীদের গ্রাহকের সাথে ভাল আচরণ করার পরামর্শ দেন। এমন ঝটিকা সফরে গ্রাহক সেবার মান  বৃদ্ধিতে সহায়ক ভুমিকা পালন করে।

মেঢারাবি-৫ ধানমন্ডি অফিসের উপ-মহাব্যাবস্থাপক এমদাদুল হক বলেন,"তিতাস গ্যাস ট্রন্সমিসন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএলসি এর মেট্রো ঢাকা রাজস্ব বিভাগ-৫, ধানমন্ডি অফিসের উপমহাব্যাবস্থাপক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর তিনটি বিষয়কে সর্বোচ্চ গুরুত্ব দিয়েছি। তা হলো-১) দ্রুত সেবা প্রদানসহ গ্রাহক সেবার মান বৃদ্ধি;২) বকেয়া রাজস্ব আদায়;৩) গ্রাহকের সাথে মানবিক ব্যবহার।"

তিনি আরো জানান,"ধানমন্ডি অফিসে কর্মরত সকল কর্মকর্তা এবং কর্মচারী বিষয়টিকে অত্যন্ত গুরুত্বের সাথে গ্রহণ করে নানা প্রতিকূল অবস্থার মধ্যেও সার্বিক পরিস্থিতির উন্নতির জন্য আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে। যারা পরিস্থিতির উন্নয়নে বিরামহীনভাবে আপ্রাণ চেষ্টা করে যাচ্ছে সেই সকল দক্ষ এবং নিবেদিত প্রাণ কর্মকর্তা এবং কর্মচারীদের আন্তরিক ধন্যবাদ জানাই। আর যারা পরিস্থিতির উন্নয়নে এখনও যোগ না দিয়ে উল্টো পথে নিয়োজিত আছে তাদেরকে সতর্ক হওয়ার জন্য বিশেষ ভাবে অনুরোধ করছি। মনে রাখবেন তিতাস গ্যাসের সর্বোচ্চ কর্তৃপক্ষ তাদেরকে খুঁজে বের করে শাস্তির আওতায় আনার জন্য সকল প্রকার শক্তি নিয়োগ করেছে।"

মেঢারাবি-৫ ধানমন্ডি অফিসে সরজমিনে গিয়ে দেখা গেছে অফিসে গিয়ে দেখা গেছে আগত গ্রাহকরা সেবা নিয়ে সন্তুষ্ট হয়ে অফিস ত্যাগ করছে। এই অফিসে বেশ কিছু বৃক্ষ রোপন করেছেন এমদাদুল হক। তাছাড়া ও কর্মসূত্রে তিনি যেখানেই গিয়েছেন গিয়েছেন সেখানেই লাগিয়েছেন গাছ। ময়মনসিংহ তিতাস গ্যাস অফিসে এবং গাজীপুরেও শত শত বৃক্ষরোপণ করেছেন এই বৃক্ষপ্রেমী। তার বর্তমান কর্মস্থলেও অফিসের ভেতরে বাহিরে লাগিয়েছেন অসংখ্য গাছ।

মেঢারাবি-৫ ধানমন্ডি ২০২৪ সালের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত মাসিক গড় বিক্রয় ২৫ কোটি ৭৩ লক্ষ টাকা এবং এই সময়ে মাসিক গড় আদায়ের পরিমাণ ২৪ কোটি ৪৭ লক্ষ টাকা।গত ২০২৪ সালের জানুয়ারি থেকে জুন পর্যন্ত এই জোনাল অফিসের অধীনে বকেয়ার জন্য ৭৯৮ টি গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়। এছাড়াও অভিযান পরিচালনা করে ১০৮ টি অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করেছে মেঢারাবি-৫ ধানমন্ডি অফিস।এ সময় বৈধ সংযোগ নিয়ে অবৈধ চুলা ব্যাবহার করায় ৩৮ টি গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন করা হয়েছে।গ্যাস বিতরণ কোম্পানি তিতাসের অবৈধ সংযোগ বিচ্ছিন্ন করার ফলে গত দুই বছরে কোম্পানিটির সিস্টেম লস নিম্নমুখী সূচকে অবস্থান করছে।এই ধরনের কর্মকাণ্ড ধারাবাহিক ভাবে চলবে বলেও জানিয়েছেন তিতাস গ্যাস ট্রান্সমিশন এন্ড ডিস্ট্রিবিউশন পিএলসি'র মেট্রো ঢাকা রাজস্ব বিভাগের উপ মহাব্যবস্থাপক এমদাদুল হক।


আরও খবর



৬০ কিমি বেগে ঝড়সহ বজ্রবৃষ্টির আশঙ্কা

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৮৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আবহাওয়া অফিস দেশের সব বিভাগেই ঝড়বৃষ্টির পূর্বাভাস দিয়েছে। এর মধ্যে ২ অঞ্চলের ওপর দিয়ে সর্বোচ্চ ৬০ কিলোমিটার বেগে ঝড়সহ বজ্রবৃষ্টির আশঙ্কা করা হচ্ছে।

সোমবার (২৪ জুন) দুপুর ১টা পর্যন্ত দেশের অভ্যন্তরীণ নদীবন্দরগুলোর জন্য দেওয়া এক পূর্বাভাসে এ আশঙ্কার কথা জানানো হয়েছে।

আবহাওয়াবিদ মো. বজলুর রশিদ স্বাক্ষরিত বিজ্ঞপিতে বলা হয়, চট্টগ্রাম এবং কক্সবাজার অঞ্চলের ওপর ওপর দিয়ে দক্ষিণ অথবা দক্ষিণ-পূর্ব দিক থেকে ঘণ্টায় ৪৫ থেকে ৬০ কিলোমিটার বেগে অস্থায়ীভাবে দমকা অথবা ঝড়ো হাওয়া বয়ে যেতে পারে। সেইসঙ্গে বৃষ্টি অথবা বজ্রবৃষ্টি হতে পারে। তাই এসব এলাকার নদীবন্দরগুলোকে ১ নম্বর সতর্ক সংকেত দেখাতে বলা হয়েছে। এদিকে আবহাওয়া অফিসের অপর এক বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, সন্ধ্যা পর্যন্ত রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের অনেক জায়গায়; চট্টগ্রাম বিভাগের কিছু কিছু জায়গায় এবং রাজশাহী, ঢাকা, খুলনা ও বরিশাল বিভাগের দুয়েক জায়গায় অস্থায়ীভাবে দমকা হাওয়াসহ হালকা থেকে মাঝারি ধরনের বৃষ্টি অথবা বজ্রসহ বৃষ্টি হতে পারে। সেইসঙ্গে রংপুর, ময়মনসিংহ ও সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও মাঝারি ধরনের ভারি থেকে ভারি বর্ষণ হতে পারে। বৃষ্টিপাতের এ প্রবণতা কয়েক দিন অব্যাহত থাকতে পারে।


আরও খবর



খালেদা জিয়া কৃষকের ভাগ্য নিয়েও ছিনিমিনি খেলেছিল: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৭১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে কেবল জনগণের ভোট চুরি করে নাই, কৃষকের ভাগ্য নিয়ে ছিনিমিনি খেলেছে, হত্যা করেছে কৃষকদের বলে মন্তব্য প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা।

আজ শনিবার (১৫ জুন) সকালে গণভবনে কৃষক লীগের উদ্যোগে বৃক্ষরোপণ ২০২৪ কর্মসূচি উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে তিনি এসব কথা বলেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জিয়াউর রহমানের পরে তারই পদাঙ্ক অনুসরণ করে এরশাদ ক্ষমতায় এসে জনগণের ভোটের অধিকার নিয়ে ছিনিমিনি খেলে। এ দেশের কৃষক-শ্রমিকরা সব সময় অবহেলিতই থেকে যায়। এরপর খালেদা জিয়া ক্ষমতায় এসে শুধু জনগণের ভোট চুরি করাই না, দেশের কৃষকের ভাগ্য নিয়েও ছিনিমিনি খেলে। সার না পেয়ে কৃষক আন্দোলন করেছে। এ অপরাধে ১৮ জন কৃষককে গুলি করে হত্যা করেছিল।

তিনি বলেন, ‘বিএনপি বিদেশ থেকে বীজ আমদানি করতো, কেননা তাদের কয়েকজনের এটা নিয়ে ব্যবসা ছিল। ‘৯৬ সালে পদ্মা সেতু নির্মাণে বাধা দেয়া আন্তর্জাতিক সংস্থা, ক্ষমতায় যাওয়ার আগেই আমাকে প্রস্তাব দিয়েছিল যাতে কৃষিতে ভর্তুকি বন্ধ করে দিই। আমি বলেছিলাম, আপনারা টাকা না দিলে আমি দেশের টাকাতেই তাদের ভর্তুকি দেবো।

বিএনপি সরকার সামাজিক বনায়ন কর্মসূচির পুরো টাকাই মেরে খেতো জানিয়ে শেখ হাসিনা বলেন, বনজ-ভেষজ-ফলজ গাছ লাগাতে সাধারণ মানুষকে দলীয়ভাবে উদ্বুদ্ধ করে যাচ্ছে আওয়ামী লীগ।

কৃষকদের ভর্তুকি দেওয়া হয়। টাকা দিতে গেলেই তো মাঝখান থেকে কেউ কেউ আবার তোলা তুলেন, মানে টাকা নেন। কৃষকের বরাদ্দে যেন কেউ ভাগ বসাতে না পারে সেই কারণে কৃষি উপকরণকে কার্ড সহ ডিজিটাল পদ্ধতিতে এই অর্থ বরাদ্দের ব্যবস্থা নিয়েছে সরকার, যোগ করেন প্রধানমন্ত্রী।

শেখ হাসিনা বলেন, স্বাধীনতার পরে বঙ্গবন্ধু যে উদ্যোগ নিয়েছিলেন তার ফলে বাংলাদেশ এগিয়ে যাচ্ছিল। যখন তিনি এই ঘুনেধরা সমাজ ভেঙে নতুন সমাজ গড়ার পদক্ষেপ নেন এবং বাংলাদেশকে সম্পূর্ণভাবে আত্মমর্যাদাশীল করে গড়ে তোলার বিপ্লবের কর্মসূচি ঘোষণা দেন। আমাদের দুর্ভাগ্য সেই সময় জাতির পিতাকে নির্মমভাবে হত্যা করা হয়।

আওয়ামী লীগ ১৯৮৪ সাল থেকে বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করে আসছে জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বলেন, ‘তখন রাজনীতি নিষিদ্ধ ছিল। পরিবেশ রক্ষা বা জলবায়ু পরিবর্তন এসব কিন্তু তখনও বিশ্বে আসে নাই। কিন্তু আওয়ামী লীগ, আমরা উদ্যোগ নিই। সব সময় গাছ লাগানো আমাদের নীতি ছিল। তখন থেকে আমরা বৃক্ষরোপণ কর্মসূচি পালন করি এবং কৃষক লীগের ওপর দায়িত্ব দিই।

সরকার প্রধান বলেন, এটা আমরা শিখেছি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবের কাছ থেকে। তিনি এ দেশের ঘোড়দৌড় বন্ধ করে দিয়েছিলেন। রেসকোর্স ময়দানে প্রথম বৃক্ষরোপণ করেন। সেখানে অনেক পুরাতন নারকেল গাছগুলো তার সময়ে লাগানো। তিনি নিজে বৃক্ষরোপণ করেন। গণভবনের পুরোনো সব গাছগুলো বঙ্গবন্ধুর নির্দেশে খুব চমৎকারভাবে সাজিয়ে লাগানো।

প্রধানমন্ত্রী আরও বলেন, আমার খুব হাসি পায়, যখন দেখি বিএনপি ভোটের কথা উচ্চারণ করে, নির্বাচনের কথা বলে। জিয়াউর রহমান অবৈধভাবে ক্ষমতা দখল করে এ দেশের ভোটের সমস্ত অধিকারগুলো কেড়ে নিয়েছিল। তার সেই হ্যাঁ-না ভোট দিয়ে যাত্রা শুরু; অবৈধ ক্ষমতাকে বৈধ করার জন্য। একাধারে সেনাপ্রধান, তারপর আবার নিজেকে রাষ্ট্রপতি ঘোষণা দিয়ে ক্ষমতায় এসে রাষ্ট্রপতি নির্বাচনী প্রহসন। ক্ষমতার মসনদে বসেই দল গঠন। ক্ষমতার উচ্ছিষ্ট বিলিয়ে যে দলটি গঠন করে, তাকে আবার জিতিয়ে আনার জন্য ভোট চুরির একটা প্রক্রিয়া এ দেশের শুরু করেছিল।


আরও খবর



গেট খুলতে দেরী করায় দারোয়ানকে হত্যা করলেন ফ্ল্যাট মালিক

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image
মারুফ সরকার,স্টাফ রিপোর্টার:রাজধানীর শেরেবাংলা নগর থানাধীন পূর্ব রাজাবাজার এলাকায় গেট খুলতে দেরী হওয়ায় দারোয়ানকে গাড়ি চাপা দিয়ে মেরে ফেলার অভিযোগ উঠেছে ফ্ল্যাট মালিকের বিরুদ্ধে। এই ঘটনায় ওই এলাকায় চাঞ্চল্যকর পরিস্থিতি সৃষ্টি হয়েছে। 

বৃহস্পতিবার (৪ জুলাই) সকালে এ ধরনের হৃদয়বিদারক ঘটনা ঘটে। নিহত দারোয়ানের নাম ফজলুল হক (২৮)। বাড়ির মালিকের নাম ইঞ্জিনিয়ার মফিদুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শী ও এলাকাবাসী জানান, গেট খুলতে দেরী হওয়ায় রাগের মাথায় ইচ্ছাকৃতভাবে বাড়ির মালিক মফিদুল ইসলাম দারোয়ানের ওপর গাড়ি উঠিয়ে দেন। কিন্তু পুলিশ বলছে অন্য কথা।  এতে ঘটনাস্থলেই ফজলুল হকের মৃত্যু হয়।

এক প্রত্যক্ষদর্শী জানান, বাসা থেকে মালিক গাড়ি বের করছিলেন। এ সময় দারোয়ান ফজলুল হক গেটের দরজা লাগিয়ে বাইরের দিকে তাকিয়ে ছিলেন। এসময় পেছন দিক থেকে গাড়িটা ফজলুল হককে চাপা দিয়ে গেট ভেঙে বাইরে বেরিয়ে যায়। এতে ঘটনাস্থলেই মারা যান ফজলুল হক। 

নিহত ফজলুল হকের বোন জানান, ‘সকাল ১০টার দিকে খবর পাইলাম একটা দুর্ঘটনা ঘটছে। আমার ভাইরে মাইরা ফালাইছে। কে বা কারা মারছে জানতে চাইলে জানতে পারি বাড়িওয়ালা মাইরা পালাইছে। আমি প্রধানমন্ত্রীর কাছে এর সুষ্ঠু বিচার চাই।’

শেরেবাংলা নগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) জানান, ধারণা করা হচ্ছে ব্রেকে চাপ না দিয়ে এসকেলেটরে চাপ দেয়ায় এ দুর্ঘটনা ঘটে। ‘খবর পেয়ে আমরা দুর্ঘনাস্থল পরিদর্শন করেছি। সিসি ক্যামেরার ফুটেজ সংগ্রহ এবং গাড়িটি জব্দ করা হয়েছে। ভিকটিমের পরিবারের লোকজন এলে আইনানুগ ব্যবস্থা নেয়া হবে।’

পুলিশের এ কর্মকর্তা আরো জানান, নিহত ফজলুল হকের মরদেহ ময়নাতদন্তের জন্য শহীদ সোহরাওয়ার্দী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠানো হয়েছে।

আরও খবর