Logo
আজঃ শনিবার ২৫ মে ২০২৪
শিরোনাম

উখিয়ায় মাটিকাটার সময় পাহাড় ধ্বসে তিন রোহিঙ্গা শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৩৩৭জন দেখেছেন

Image

আমান উল্লাহ, কক্সবাজার: কক্সবাজারের উখিয়ায় মাটি কাটার সময় পাহাড় ধ্বসে ৩ রোহিঙ্গা শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে।গতকাল  বুধবার (২৯ মার্চ) ভোর ৪টার সময়  উখিয়ার মুহুরীপাড়ায় মাটি কাটার সময় পাহাড় ধসে মাটি চাপা পড়ে তিনজনের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় নিখোঁজ একজনকে উদ্ধারে কাজ করছে ফায়ার সার্ভিস।

নিহতরা হচ্ছে,উখিয়ার কুতুপালং ১/ইস্ট ক্যাম্পের বি/১ ব্লকের মৃত মোঃওয়ারেসের পুত্র সৈয়দ আকবর (২০), ডব্লিউ /১ ক্যাম্পের সি/১৪ ব্লকের মৃত আবদুল মতলবের পুত্র জাহিদ হোসেন (২৪) ও ১৭ নম্বর ক্যাম্পের এইচ/১০৭ নম্বর ব্লকের সুলতান আহাম্মদের পুত্র নুর কবির (২৭)। প্রত্যক্ষদর্শী সূত্রে জানা গেছে, উখিয়ার মুহুরী  পাড়া এলাকার বাসিন্দা নেছার আহমদের বাড়ি সংলগ্ন পাহাড়ের মাটি কাটার কাজ করছিল এক দল  রোহিঙ্গা শ্রমিক।মাটি কাটার এক পর্যায়ে পাহাড়ের উপরিভাগের অংশ ধ্বসে  পড়ে। এ সময় কর্মরত ৩ শ্রমিক মাটি চাপা পড়ে ঘটনাস্থলেই মৃত্যুবরণ করেন।

উখিয়া ফায়ার সার্ভিস ও সিভেল ডিফেন্স এর স্টেশন ইনচার্জ এমদাদুল হক জানান, দুইজনের মরদেহ সকাল ৯টার সময়  উদ্ধার করা হয়। পরে দুপুর ১২টার দিকে যন্ত্রপাতি ব্যবহার করে ছৈয়দ আকবরের মরদেহ উদ্ধার করা হয়েছে।উখিয়া থানার ওসি শেখ মোহাম্মদ আলী জানান, সংবাদ পেয়ে উখিয়া থানা পুলিশ ঘটনাস্থল থেকে লাশ উদ্ধার করে ময়নাতদন্তের জন্য কক্সবাজার সদর হাসপাতালে প্রেরনের প্রস্তুতি গ্রহণ করেছেন। এ ঘটনায় তদন্ত সাপেক্ষে দোষী ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


আরও খবর



বিপণী বিতানে ক্ষতিগ্রস্তরা দোকান পাবেন: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৬৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখা হাসিনা বলেন বিপণী বিতানে ক্ষতিগ্রস্তরা দোকান পাবেন। নতুন করে ব্যবসা শুরু করতে কোনো আর্থিক সহযোগিতার প্রয়োজন হলে তা সরকারে দেবে৷ এই মার্কেট নতুন করে বাঁচার শক্তি দেবে ব্যবসায়ীদের। এ সময় জগন্নাথ বিশ্ববিদ্যালয়ের আধুনিক নতুন ক্যাম্পাস গড়ে তোলা হবে বলেও জানান তিনি।

শনিবার (২৫ মে) বঙ্গবাজারে নতুন মার্কেটসহ চার প্রকল্পের উদ্বোধন শেষে এসব কথা বলেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় নগরবাসীকে যেখানে সেখানে ময়লা-আবর্জনা না ফেলার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, নির্দিষ্ট জায়গায় ফেলবেন। সিটি করপোরেশনকে দ্রুত ময়লাগুলো অপসারণের জন্য ব্যবস্থা গ্রহণ করতে হবে। যেন শহর পরিস্কার পরিচ্ছন্ন থাকে।

এছাড়া আসন্ন ঈদুল আজহায় যেখানে সেখানে পশু কোরবানি না করার নির্দেশনা দিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, যত্রতত্র পশু কোরবানি দেবেন না৷ নির্দিষ্টস্থানে কোরবানি দেবেন। আগামীতে পশু কোরবানির জন্য আরও আধুনিক ব্যবস্থা রাখতে বলা হয়েছে সিটি করপোরেশনগুলোতে। শুধু সিটি করপোরেশন নয়, দেশব্যাপী আধুনিক ব্যবস্থা রাখতে হবে সেই নির্দেশনাও দেওয়া হয়েছে।

নগরবাসীর প্রতি আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, বিদ্যুৎ-পানি ঠিকমত পেত না নগরবাসী৷ স্বাস্থ্যকর পানি পেতে চাইলে, নিজের পানির ট্যাঙ্ক নিজেদেরই পরীক্ষা করে দেখতে হবে। মশার প্রজনন ক্ষেত্র যেন তৈরি না হয় সেদিকে খেয়াল রাখবেন৷ আগের চেয়ে বিদ্যুৎ ব্যবহার বেড়েছে।

অতিরিক্ত বিদ্যুৎ ব্যবহারে সাশ্রয়ী হওয়ার আহ্বান জানিয়ে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ঘর থেকে বের হওয়ার আগে লাইট-ফ্যান-চার্জারের সুইচ বন্ধ রাখবেন। চার্জারের লাল বাতি জ্বললেও বিল ওঠে। বিদ্যুৎ উৎপাদনের খরচ অবশ্যই আপনাকে দিকে দিতে হবে। না হলে বিদ্যুৎ আসবে কোথা থেকে।

সরকার প্রধান বলেন, পানি বিল কমাতে চাইলে পানি ব্যবহারেও সাশ্রয়ী হবেন। পানির কল ছেড়ে, শেভিং কিংবা কাপড় কাচা বা দাঁত মাজবেন না৷ পানি অপচয় করবেন না।

প্রকল্প-পরিকল্পনা নেওয়ার আগে জলাধারগুলো সংরক্ষণ রাখারা জন্য প্রকৌশলিদের আহ্বান জানান প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। জলাশায় থাকলে বাতাস ঠাণ্ডা থাকে। প্রধানমন্ত্রী বলেন, এক সময় ঢাকায় অনেক খাল-পুকুর, জলাশয় ছিল। তখন ঢাকার পরিবেশও সুন্দর ছিল। বাতাস ঠাণ্ডা ছিল। কিন্তু এখন সেগুলো দালান-কালভার্ট নির্মাণে ভরাট হয়ে গেছে। যদিও কিছু খাল উদ্ধার করা হয়েছে।

পার্কগুলো যেন মাদকসেবীদের আখড়া না হয়। শোভাবর্ধন-পরিস্কার পরিচ্ছন্নতা বজায়ে রাখতে ভূমিকা রাখতে হব কাউন্সিলরদের-এ কথা জানিয়ে তিনি বলেন, মাদক থেকে দূরে থাকবেন সবাই।

এসময় প্রধানমন্ত্রী বলেন, সাজাপ্রপ্ত তারেক জিয়া এখন বিদেশ থেকে দেশে অশান্তির হুকুম দেয়। অস্ত্র চোরাচালানের রুট ছিল বাংলাদেশ৷ সেটা বন্ধ করা হয়েছে। আত্মমর্যাদা-আত্মসম্মান নিয়ে চলার সক্ষমতা অর্জন করতে হবে তরুণ প্রজন্মকে।


আরও খবর



ইতিহাস সৃষ্টি করে সর্বকনিষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হলেন তানভীর রেজা

প্রকাশিত:শনিবার ১১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১৩৮জন দেখেছেন

Image

আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ইতিহাস সৃষ্টি করে সর্বকনিষ্ঠ ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছেন তানভীর রেজা। গত ৮ মে বুধবার সকাল ৮ টা থেকে বিকেল চার টা পর্যন্ত শান্তিপূর্ণ পরিবেশ ভোট গ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়। ভোট গ্রহণ শেষে নির্বাচনের সহকারী রিটার্নিং কর্মকর্তা ও নির্বাচন অফিসার চশম প্রতীকের প্রার্থী তানভীর রেজা কে বে সরকারী ভাবে ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে ঘোষণা করেন। তানভীর ৩৮ হাজার ৫৩৭ ভোট পান এবং তার নিকটতম প্রতিদ্বন্দ্বী তালা প্রতীক নিয়ে সোহেল রানা ভোট পান ২৪ হাজার ৬০১ টি। তালা প্রতীকের চেয়ে ১০ হাজার ৯৩৬ ভোট বেশি পান চশমা প্রতীক। যে কজন প্রার্থী ছিলেন তানভীর রেজা সবার চেয়ে কম বয়সী। তিনি এত পরিমান ভোট পেয়ে বিজয় লাভ করবেন কেউ ভাবতেই পারেন নি। তানভীর উপজেলার কলমা ইউনিয়ন ইউপির সেচ্ছাসেবক লীগের সভাপতি এবং আজিজুর গ্রামে বাড়ি। অপর প্রার্থী সোহেল রানা সাবেক ছাত্র লীগ নেতা ও তানোর পৌর মেয়র ইমরুল হকের ছোট ভাই। রানা বিগত ২০১৯ সালে ভাইস চেয়ারম্যান পদে চশমা প্রতীক নিয়ে ভোট করে হাতুড়ি প্রতীকের প্রার্থী আবু বাক্কার সিদ্দিকের কাছে পরাজিত হন। 

জানা গেছে, প্রয়াত এরশাদ সরকারের সময় উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন হত। এরপর ১৯৯১ সালে বিএনপি ও  ১৯৯৬ সালে আওয়ামী এবং ২০০১ সালে বিএনপি জামাত জোট সরকার উপজেলা পরিষদের নির্বাচন বাতিল করেন। ২০০৮ সালে আওয়ামী লীগ সরকার ক্ষমতায় আসার পর স্থানীয় সরকারের সেবা গ্রামগঞ্জে পৌছে দিতে উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান ও পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান এবং মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান পদে নির্বাচন করার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেন। সে মোতাবেক ২০০৯ সালে তানোর উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে পুরুষ ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হন চশমা প্রতীকের প্রার্থী জামায়াত নেতা আব্দুর রহিম। ২০১৪ সালেও আব্দুর রহিম পুনরায় নির্বাচিত হন। এর পরে ২০১৯ সালে দলীয় প্রতীকে উপজেলা পরিষদের নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। এনির্বাচনে ওয়ার্কার্স পার্টি থেকে হাতুড়ি প্রতীকের প্রার্থী আবু বাক্কার সিদ্দিক ভাইস চেয়ারম্যান নির্বাচিত হয়েছিলেন। এনির্বাচন দলীয় প্রতীক ছাড়াই অনুষ্ঠিত হয়। ভাইস চেয়ারম্যান হিসেবে সর্বকনিষ্ঠ তানভীর রেজা চশমা প্রতীকে নির্বাচিত হন।

ডলার নামের চশমা প্রতীকের এক কর্মী জানান, তানভীরের বয়স কম, তার সাথে সবাই কথা বলতে পারবে। কোন কাজ না করলেও তাকে অনেক কিছু বলা যাবে। কারন সে আমাদের বয়সের। তানভীর একেবারে কম বয়সে ভাইস চেয়ারম্যান হয়েছেন যা ইতিহাস হয়ে থাকবে।
মোসারফ নামের আরেক কর্মী জানান, তানভীর বয়সে ছোট তাকে ভোট দিবে কিনা সন্দেহ ছিল। কিন্তু তাকে মানুষ এত পরিমান ভালোবাসা দিয়েছে কল্পনাতীত। আমার জানা মতে তার মত কম বয়সে ভাইস চেয়ারম্যান কেউ হতে পারেনি।

বিজয়ী প্রার্থী তানভীর রেজা এক প্রতিক্রিয়ায় বলেন, আমার এবিজয় উপজেলা বাসীকে উৎসর্গ করেছি। আমি যে পরিমান ভালোবাসা পেয়েছি তার প্রতিদান অক্ষরে অক্ষরে পালন করার চেষ্টা করব। আমার দপ্তর সবার জন্য উন্মুক্ত থাকবে।

আরও খবর



সরকার ১ কোটি ২০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে

প্রকাশিত:বুধবার ০৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:১ কোটি ২০ লাখ লিটার সয়াবিন তেল কিনবে স্থানীয়ভাবে টিসিবির মাধ্যমে সরকার। মোট খরচ পড়বে ১৮২ কোটি ৪৪ লাখ টাকা। সায়বিন তেলের এরকম আরও কয়েকটি ক্রয় প্রস্তাবসহ উত্থাপিত ১২টি প্রস্তাবের সবগুলোই অনুমোদন করেছে সরকারি ক্রয় সংক্রান্ত মন্ত্রিসভা।

বুধবার (৮ মে) মন্ত্রিপরিষদ বিভাগের সমন্বয় ও সংস্কার সচিব মাহমুদুল হোসাইন এ তথ্য জানান।

মাহমুদুল হোসাইন জানান, টিসিবির মাধ্যমে ৪০ লাখ লিটার রাইস ব্র্যান তেলও কিনবে সরকার, যার মোট খরচ পড়বে ৫৯ কোটি ৫০ লাখ টাকা। এবার স্থানীয়ভাবে সংগ্রহের ক্ষেত্রে টিসিবির গুরুত্বই বেশি।

তিনি জানান, সংস্থাটির মাধ্যমে ৩ দফায় যথাক্রমে ৬ হাজার মেট্রিক টন, ১০ হাজার মেট্রিক টন ও ৬ হাজার মেট্রিক টন মসুর ডাল কিনবে সরকার। যার দাম পড়বে যথাক্রমে ৬১ কোটি ৯৪ লাখ টাকা, ১০৩ কোটি ৭৫ লাখ টাকা ও ৬০ কোটি ৮৪ লাখ টাকা।

মাহমুদুল হোসাইন আরও জানান, বরাবরের মতো সারও কিনবে সরকার। সংযুক্ত আরব আমিরাত থেকে ৩০ হাজার মেট্রিক টন গ্র্যানুলার ইউরিয়া সার কিনবে, যার খরচ পড়বে ৯৩ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। একই পরিমাণ ইউরিয়া সার কেনা হবে কাতার থেকে, যার মোট খরচ ৯৩ কোটি ২২ লাখ টাকা।

সচিব বলেন, তিন কার্গো এলএনজি কেনা হবে। দুই কার্গো কেনা হবে সিঙ্গাপুর থেকে, দুটোরই দাম পড়বে যথাক্রমে প্রতি ইউনিট ১০ দশমিক ৪৬ মার্কিন ডলার করে। তৃতীয় কার্গো কেনা হবে কাতার থেকে প্রতি ইউনিট মার্কিন ডলার দরে।


আরও খবর



মিল্টন সমাদ্দারের স্ত্রীকে ডিবিতে ডাকা হয়েছে: হারুন

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:চাইল্ড অ্যান্ড ওল্ড এজ কেয়ার আশ্রমের চেয়ারম্যান গ্রেপ্তার মিল্টন সমাদ্দারের স্ত্রীকে জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ডিবি কার্যালয়ে ডাকা হয়েছে,বলেছেন অতিরিক্ত পুলিশ কমিশনার (গোয়েন্দা) মোহাম্মদ হারুন অর রশীদ।

শনিবার (৪ মে) দুপুরে মিন্টো রোডের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি এ কথা জানান।

হারুন অর রশীদ বলেন, মিল্টন সমাদ্দার রিমান্ডে রয়েছেন। তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ সেসব বিষয়ে তাকে জিজ্ঞাসাবাদ করা হচ্ছে। তার আশ্রমের বিভিন্ন অনিয়ম-দুর্নীতির বিষয়ে মিল্টনের স্ত্রীকে আগামীকাল রোববার দুপুরে ডিবিতে ডাকা হয়েছে। তার স্ত্রীকেও আমরা জিজ্ঞাসাবাদ করব।

ডিবিপ্রধান বলেন, নিজের বাবাকে পিটিয়ে গ্রাম ছেড়ে ঢাকায় এসে মিল্টন সমাদ্দার সাইকোতে পরিণত হয়েছে। তার বিরুদ্ধে যেসব অভিযোগ এসেছে সেসব বিষয়ে তার কাছে জানতে চাওয়া হচ্ছে। তার উত্থান কীভাবে হলো, তথাকথিত মানবতার ফেরিওয়ালা কীভাবে হলেন, তার অর্থের উৎস কীভাবে আসে, কীভাবে সে দরিদ্র মানুষকে সংগ্রহ করত এবং কেনইবা তাদেরকে টর্চার সেলে এনে পেটাতেন সব বিষয়ে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে।

ডিবিপ্রধান আরও বলেন, সোশ্যাল মিডিয়া ব্যবহার করে মিল্টন কীভাবে অর্থ উপার্জন করতেন এবং কারা তাকে সহায়তা করতেন তাদেরকেও শনাক্ত করে জিজ্ঞাসাবাদ করা হবে। মিল্টন সমাদ্দারের তিন-চারটি ব্যাংক অ্যাকাউন্টের সন্ধান মিলেছে। সেসব অ্যাকাউন্টে কারা টাকা পাঠাতেন তদন্ত করে জানানো হবে।

মিল্টনের বিরুদ্ধে নানা প্রতারণার অভিযোগে সম্প্রতি বিভিন্ন গণমাধ্যমে সংবাদ প্রকাশিত হয়। মিল্টন ফেসবুকে ভিডিও দিয়ে এসব অভিযোগ অস্বীকার করেন। এরই মধ্যে তার সঙ্গে কাজ করা এবং সংশ্লিষ্ট কয়েকজন তার বিরুদ্ধে প্রতারণার অভিযোগ আনেন। গত ১ মে রাতে রাজধানীর মিরপুর এলাকায় অভিযান চালিয়ে মিল্টন সমাদ্দারকে আটক করে গোয়েন্দা-মিরপুর বিভাগ। পরে রাতে তার বিরুদ্ধে মিরপুর মডেল থানায় বিভিন্ন অভিযোগে তিনটি মামলা হয়। সেসব মামলায় আদালতে সোপর্দ করলে মিল্টনকে তিনদিনের রিমান্ড দেন আদালত।


আরও খবর



নওগাঁর রাণীনগরে মাছ ধরতে গিয়ে নদীর পানিতে ডুবে এক জেলের মৃত্যু

প্রকাশিত:শনিবার ১১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২৩ মে ২০২৪ | ৮১জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা নওগাঁ প্রতিনিধি:নওগাঁর রাণীনগরে মাছ ধরার সময় নদীর পানিতে ডুবে আনছার আলী প্রামানিক (৬৯) নামে এক জেলের মৃত্যু হয়েছে। শুক্রবার (১০ মে) সকালে ছোট যমুনা নদীর তারাপালের দহ নামকস্থানে এ ঘটনাটি ঘটে।নিহত জেলে আনছার আলী রাণীনগর উপজেলার পার্শ্ববতি নওগাঁ সদর উপজেলার দড়িয়াপুর মৎস্যজীবি পাড়া গ্রামের মৃত-মোহর আলী প্রামানিকের ছেলে। 

পরিবারের বরাদ দিয়ে রাণীনগর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আবু ওবায়েদ বলেন, এদিন সকালে আনছার ও তার ছেলে জাল দিয়ে ছোট যমুনা নদীর আতাইকুলা তারাপালের দহ নামকস্থানে জাল দিয়ে মাছ ধরছিলেন। এ সময় নদীর পানিতে ডুবে নিখোঁজ হয়। পরে আরো লোকজন মিলে খোঁজা খুজি করে আনছারের লাশ উদ্ধার করে বাড়ীদিতে নিয়ে যায়। তিনি আরো জানান, আনছার মৃগী রোগে আক্রান্ত ছিলেন। এ কারনেই মারা মারা যেতে পারে বলে ধারনা করছেন তিনি। তবে এ ঘটনায় কেউ কোন অভিযোগ করেনি। অভিযোগ পেলে আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হবে।


আরও খবর