Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

‘তৃতীয় ধাপে ভোট পড়েছে ৩৮ শতাংশ’

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৭৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:ইসি সচিব জাহাংগীর আলম জানিয়েছেন উপজেলা নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে ৮৭ উপজেলায় ভোট পড়েছে ৩৮ শতাংশ। এই সংখ্যা আরও বাড়তে পারে বলে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) সকালে আগারগাঁও নির্বাচন ভবনের মিডিয়া সেন্টারে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এই তথ্য জানান।

বিদায়ী সচিব সাংবাদিকদের উদ্দেশ্যে বলেন, আপনারা আমার কাছে তথ্য চাইতেন। অনেক সময় তথ্য থাকতো না। আপনারা আমাকে খোঁচা দিতেন। আমি হয়তো বা আপনাদের সঙ্গে এমন আচরণ করছি যা শোভন না। তবে আমাদের স্বচ্ছতার কোনো ঘাটতি ছিল না।

তিনি বলেন, আমার আচরণে আপনাদের সহসা কষ্ট দিতে চাইনি। তবুও বিদায় বেলায় আপনারা ক্ষমা সুন্দর দৃষ্টিতে দেখবেন।

গত ২১ মে জনপ্রশাসন মন্ত্রণালয় থেকে জাহাংগীর আলমকে জননিরাপত্তা বিভাগের সচিব পদে বদলির আদেশ হয়।

ষষ্ঠ উপজেলা পরিষদ নির্বাচনের তৃতীয় ধাপে দেশের ৮৭ উপজেলায় ভোটগ্রহণ অনুষ্ঠিত হয়েছে। বুধবার সকাল ৮টা থেকে বিকেল ৪টা পর্যন্ত টানা ভোটগ্রহণ চলে।


আরও খবর



জয়পুরহাটের ক্ষেতলালের সন্যাসতলীতে ঐতিহ্যবাহী ঘুরির মেলা

প্রকাশিত:শনিবার ১৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৮জন দেখেছেন

Image

এস এম শফিকুল ইসলাম,জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটের ক্ষেতলাল উপজেলার তুলশীগঙ্গা নদী তীরবর্তী সন্যাসতলী মন্দিরের পাশে  বসেছে গ্রাম বাংলার ঐতিহ্য ঘুড়ির মেলা শুরু হয়েছে। গ্রামীণ এ মেলাকে ঘিরে আশপাশের গ্রামগুলোতে চলছে উৎসবের আমেজ।

প্রতি বছর জৈষ্ঠ্যমাসের শেষ শুক্রবারে এ মেলা বসে। সেই মোতাবেক শুক্রবারও (১৬ জুন)  বসেছে ঘুড়ির মেলা। মেলার আইন শৃংখলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সব ধরনের প্রস্ততি গ্রহন করেছিলেন মেলার আয়োজক।

এ মেলার সঠিক ইতিহাস জানা যায় না। তবে সন্যাসী পূজাকে ঘিরে চার- পাঁচশ বছরেরও আগে এ মেলার উৎপত্তি হয়েছে বলে জনশ্রুতি রয়েছে সন্যাসতলীর এ ঘুড়ির মেলায় আশপাশের গ্রাম ছাড়াও দূর-দূরান্ত থেকে হাজার হাজার মানুষ

আসেন। এ দিন সনাতন ধর্মের লোকজন মন্দিরে সন্যাসীকে পূজা দিয়ে দিনটি উৎযাপন করলেও এটি মুলত হিন্দু মুসলমানের মিলন মেলা।

মেলায় প্রবেশ করলেই প্রথমে নজরে পড়বে তুলশীগঙ্গা নদীর তীরে অনেকের হাতে নাটাই ও কারো কাছে  ঘুড়ি। চেষ্টা চলছে কার ঘুড়ি কত উপরে উঠতে পারে। আর বিভিন্ন ধরণের  রঙ বেরঙের ঘুড়ি দেখিয়ে ক্রেতাদের মন জয় করার চেষ্টা করছেন বিক্রেতারা। ঘুড়ি ছাড়াও গ্রামীন তৈজষপত্র ও সংসারের কাজের জিনিষপত্র, মিঠাই- মিষ্টান্ত দেখতে  মেলায় ঢল নামে সব বয়সী মানুষের। সেই সেই সাথে  মেলাকে ঘির আশপাশের গ্রামগুলোতে ধুম পড়ে যাঢ উৎসবের। মেলায় নজর  কেড়েছে বিভিন্ন জেলা থেকে আসা দর্শনার্থীদের।

মেলার পাশে আমিড়া গ্রামের গোলাম রব্বানী বলেন,মেলার বয়স তার জানা নাই। বাপ দাদার সাথে তিনি মেলায় আসতেন। এখন তার বয়স ৭০ বছর পার হয়েছে। এবারও তিনি মেলায় এসেছেন। এসময় তিনি আবেগ কন্ঠে বলেন,

মাঠ জুড়ে এসব ঘুরি ওড়ানো হয়। ঘুরি আর লাটাই কিনতে দোকানে ভিড় করেন বিভিন্ন বয়সী মানুষ। মেলাকে ঘিরে স্বজনদের আপ্যায়ন চলে মেলা সংলগ্ন আশপাশের গ্রামগুলোতে। 

রং বেরংয়ের ঘুড়ি মেলার মূল আকর্ষণ হলেও মেলায়  মিঠাই-মিষ্টান্ন, প্রসাধনী, মাটির হাড়ি পাতিল, হাতপাখা, লোহার জিনিষপত্র ও শিশুদের খেলনা সামগ্রীসহ গ্রাম বাংলার ঐতিহ্যবাহী নাগরদোলা নজর কেড়েছে মানুষের।

জিয়াপুর গ্রামের বাসিন্দা নজরুল ইসলাম  বলেন, প্রচলিত রেওয়াজ অনুযায়ী মেলা উপলক্ষে  মেয়ে জামাই এবং স্বজনদের আপ্যায়ন চলে কয়েক গ্রামেজুড়ে। আর মেলাকে ঘিরে উৎসবের আমেজ বিরাজ করে সকল ধর্মের মানুষের।

বগুড়ার ঘোড়াধাপ গ্রামের ঘুড়ি বিক্রেতা আব্দুর রশিদ বলেন,  তিসি পঞ্চাশ বছর ধরে প্রতি বছর জৈষ্ঠ্যমাসের শেষ শুক্রবারে সন্যাসতলী মেলায় ঘুড়ি বিক্রি করতে এসেছেন। যুগের সাথে তাল মিলিয়ে ঘুড়িরও প্রকার বদলে গেছে। ঘুড়ি ক্রেতাদের আকৃষ্ট করতে নানা রঙের ঘুড়ি ও নাটাই মেলায় এনে বিক্রি করছেন। একটি ঘুড়ি পঞ্চাশ টাকা থেকে শুরু করে  দেড় হাজার টাকাতে বিক্রি করছেন। এবছর মেলার দিন আবহাওয়া  ভাল থাকাতে বেচাকেনা ভাল হওয়াতে খুশি তিনি।

বগুড়া বিয়াম মডেল স্কুলের তৃতীয় শ্রেণির শিক্ষার্থী রাফান নিশায বলেন, আমার দাদার বাড়ি আক্কেলপুরে। এখন আমরা বগুড়াতেই স্থায়ীভাবে বসবাস করছি। আমি শুনেছি সন্যাসতলীতে ঘুড়ির মেলা বসে কখনও যাওয়া হয়নি। আজ বাপ্পির সাথে মেলায় এসে হরেক রকমের ঘুড়ি দেখলাম। হাজার হাজার মানুষ তাদের পছন্দমত ঘুড়ি কেনার আগে ঘুড়ি উড়িয়ে দেখে কিনছেন। আমিও একটি ঘুড়ি ও সুতাসহ নাটাই কিনলাম। মেলায় এসে খুব ভাল লেগেছে।সন্যাসতলী মেলা কমিটির সভাপতি শাজাহান আলী ভুট্রু বলেন, 

প্রতি বছরের মত এবারেও সন্যাসতলী মেলা বসেছে। প্রায় চারশ  বছরের অধিক পুরাতন এ মেলায় আমরা হিন্দু মুসলিম সবাই মিলে পরিচালনা করি। দেশের বিভিন্ন অঞ্চলের ক্রেতা বিক্রেতা,  ব্যবসায়ীসহ সব বয়সী মানুষের পদচারণায় মেলা প্রাঙ্গন ও আশে পাশের গ্রামে উৎসবে মেতে উঠেন।

মেলার আইনশৃঙ্খলা পরিস্থিতি স্বাভাবিক রাখতে সব ধরনের প্রস্তুতি থাকাই শান্তিপূর্ণ ভাবে মেলা অনুষ্ঠিত হয়ে থাকে।


আরও খবর



ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্তদের যা কিছু প্রয়োজন সব করে দেব: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ৩০ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১১১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা জানিয়েছেন ঘূর্ণিঝড় রেমালের প্রভাবে ক্ষতিগ্রস্তদের বাড়িঘরসহ যার যা কিছু প্রয়োজন তা দেওয়ার দ্রুত পদক্ষেপ নেওয়া হবে।

বৃহস্পতিবার (৩০ মে) পটুয়াখালীর কলাপাড়া পৌর শহরে সরকারি মোজাহার উদ্দিন বিশ্বাস ডিগ্রি কলেজ মাঠে ত্রাণ বিতরণের পরে এলাকাবাসীর উদ্দেশ্যে দেওয়া বক্তব্যে এ কথা বলেন তিনি। এর আগে ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শন করেন প্রধানমন্ত্রী।

তিনি বলেন, ঘূর্ণিঝড় রেমালে ক্ষতিগ্রস্ত ঘরবাড়ি, রাস্তাঘাট, বাঁধ দ্রুত মেরামতে আওয়ামী লীগ সরকার কাজ করছে। ইতোমধ্যে যে সমস্ত রাস্তাঘাট ও বাঁধ ভেঙ্গে ভেঙে গেছে সেগুলোও মেরামতের কাজ শুরু করে দিয়েছি। যাতে বর্ষার আগেই আমরা বাঁধগুলো নির্মাণ করে জলোচ্ছ্বাস বা পানির হাত থেকে মানুষকে বাঁচাতে পারি।

সরকারপ্রধান বলেন, যাদের ঘরবাড়ি ভেঙে গেছে ইতোমধ্যে আমরা খোঁজ নিতে বসেছি। তাছাড়া আমি আবার সবার সঙ্গে বসবো। যেখানে যেখানে যাদের বাড়িঘর ভেঙেছে, তাদের ঘরবাড়ি করে দেবো, এইটুকু ভরসা আপনারা রাখবেন।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জলোচ্ছ্বাসের কারণে অনেক পুকুরের পানি নোনতা হয়ে গেছে। অনেক জায়গায় মাছের ঘের ভেসে গেছে। আমাদের ভাগ্য ভালো যে, ধানকাটা শেষ হয়ে গিয়েছিল। তারপরেও তরিতরকারি যা নষ্ট হয়েছে, কৃষক যাতে আবার সেগুলো বপন করতে পারে, সেজন্য বীজ, সার, যা যা লাগে সেগুলোর ব্যবস্থা ইনশাল্লাহ আমি করে দেবো। নতুন উদ্যমে আপনারা যাতে চাষ করতে পারেন, আমি চাই আমাদের এক ইঞ্চি জমিও অনাবাদী থাকবে না। আর সেই লক্ষ্য নিয়েই আমরা পদক্ষেপ নিই। আর সেই ব্যবস্থা আমরা করে দেবো।

ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে দাঁড়ানোয় দলীয় নেতাকর্মীদের ধন্যবাদ জানিয়ে তাদের কর্মসূচি অব্যাহত রাখার আহ্বান জানান শেখ হাসিনা।


আরও খবর



বিএনপি দুর্যোগে সহযোগিতার নামে ফটোসেশন করে: ওবায়দুল কাদের

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৭৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের মন্তব্য করেছেন,বিএনপি নেতাকর্মীরা দুর্যোগে সহযোগিতার নামে ফটোসেশন করে।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে এ মন্তব্য করেন তিনি।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকায় জলোচ্ছ্বাস হয়েছে অনেক বেশি। বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। বৈদ্যুতিক লাইন, রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকার দলীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অনেক এলাকা এখনও পানির নিচে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নগদ অর্থ দিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে। আবহাওয়া ভালো হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন বলে জানান তিনি।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।


আরও খবর



ঈদের দিন বৃষ্টির পূর্বাভাস

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:১৭ জুন পবিত্র ঈদুল আজহা। গত এক সপ্তাহের বেশি সময় থেকে সারাদেশে বৃষ্টির আভাস দিয়ে আসছে আবহাওয়া অধিদপ্তর। সে অনুযায়ী, ঈদের দিনও দেশের বিভিন্ন জায়গায় বৃষ্টি সম্ভাবনা রয়েছে।

এ বিষয়ে আবহাওয়াবিদ শাহনাজ সুলতানা সংবাদমাধ্যমকে বলেন, সারাদেশে কমবেশি বৃষ্টিপাত হচ্ছে। সে ক্ষেত্রে ঈদের দিনও বৃষ্টি হবে এটা স্বাভাবিক। তবে অঞ্চলভেদে বৃষ্টির পরিমাণ কমবেশি হতে পারে।

তিনি আরও বলেন, রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট ও চট্টগ্রামে বিভাগে বৃষ্টির সম্ভাবনা সবচেয়ে বেশি। এই অঞ্চলগুলোতে হালকা থেকে মাঝারি বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে। তবে রংপুর, ময়মনসিংহ, সিলেট বিভাগের কোথাও কোথাও ভারি থেকে অতি ভারি বৃষ্টি হতে পারে। ঢাকা বিভাগের কয়েকটা জেলায় সামান্য পরিমাণে বৃষ্টির সম্ভাবনা রয়েছে।

এদিকে, রাজশাহী খুলনা ও বরিশালে খুবই সামান্য বৃষ্টি হওয়ার সম্ভাবনা রয়েছে।ঈদের পর থেকে সারাদেশে বৃষ্টির প্রবণতা বাড়বে বলে জানান আবহাওয়াবিদ শাহিনুল ইসলাম। ঈদের দিন তাপমাত্রা নিয়ে তিনি বলেন, যে অঞ্চলে বৃষ্টির সম্ভাবনা কম সে জায়গায় তাপপ্রবাহ থাকবে। সে অনুযায়ী খুলনা, বরিশাল, রাজশাহীতে তাপপ্রবাহ থাকার সম্ভাবনা রয়েছে।


আরও খবর



মধুপুরে প্রবাসীর বাড়িতে আগুন থানায় অভিযোগ দেওয়ার কারণে বাদীকে হুমকি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

বিশেষ প্রতিনিধি মধুপুর টাঙ্গাইল:- টাঙ্গাইলের মধুপুর উপজেলাধীন আলোকদিয়া ইউনিয়নের রক্তিপাড়া গ্রামে অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী শামসুল আবিদ শিমুলের বাড়িতে গাড়ি পার্কিং করা টিনের গ্যারেজে সুপরিকল্পিত ভাবে কেরোসিন ঢেলে দিয়ে আগুন ধরিয়ে দেওয়ার অভিযোগ পাওয়া গেছে। এ ব্যাপারে থানায় অভিযোগ দেওয়ার কারণে বাদীকে হুমকি দেয়ার অভিযোগও উঠেছে।


ঘটনার প্রত্যক্ষদর্শী সোনিয়া জানান, গত সোমবার (৩ জুন) দিবাগত রাত দেড়টার দিকে কে বা কাহারা আমাদের গাড়ি রাখার টিনশেড গ্যারেজে আগুন লাগিয়ে দেয়।

আগুন লাগার কিছুক্ষণের মধ্যেই মধুপুর থানার টহল পুলিশ আগুন জ্বলতে দেখে আমাদেরকে ডেকে তুলে। 


আমরা বাসা থেকে বেরিয়ে দেখতে পাই আমার বাসা সংলগ্ন গাড়ি রাখার গ্যারেজে দাউদাউ করে আগুন জ্বলছে। সাথে সাথে টহল পুলিশ ফায়ার সার্ভিসকে ফোন দিলে ফায়ার সার্ভিস ও এলাকাবাসীর সহযোগীতায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আসে।


এলাকাবাসী সূত্রে জানা যায়, এ সময় টহল পুলিশ বাসার লোকজনকে ডেকে না উঠালে বাসায় ঘুমিয়ে থাকা  অস্ট্রেলিয়া প্রবাসী শিমুলের স্ত্রী ও দুই কন্যা সন্তান সিহা (২২) ও সাফা(১২)  এবং তার নাতি সিহার মেয়ে এ্যামিলি বড় ধরনের দুর্ঘটনার শিকার হতো। 


এই দুর্ঘটনার খবর শোনার পর শামসুল আবিদ শিমুলের বড় ভাই সামছুল কবির বাদল স্ট্রোক করে বর্তমানে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে মৃত্যুর সাথে পান্জা লড়ছে বলে জানান পরিবারের লোকজন। 


পারিবারিক সূত্রে জানা যায়, বেশ কিছুদিন যাবৎ মধুপুর পৌর বিএনপির সাধারণ সম্পাদক খঃ মোতালিব হোসেনের দুই ভাগিনা একই এলাকার রক্তিপাড়া গ্রামের ইউনুসের ছেলে মাফিজুর (৩৫) ও তার ছোট ভাই সেলিম(৩০)এর সাথে শামসুল আবিদ শিমুলের বড় ভাই মুকুলের বাকবিতন্ডা হয়।


এরই জের ধরে মাফিজুর গং আগুন লাগাতে পারে এমনটাই ধারণা করছেন এবং ঘটনা স্থলে কেরোসিনের গন্ধ পাওয়া গেছে বলেও ভুক্তভোগী পরিবার জানান। ঘটনার দুইদিন আগে মাফিজুর তার বাহিনী নিয়ে প্রবাসীর ভাই মুকুলের বাড়িতে গিয়ে মুকুলকে না পেয়ে মুকুলের বড় ভাই বাদল ও ছোট ভাই বিপুলকে মেরে ফেলার হুমকি দিয়ে আসে।


এরই ধারাবাহিকতায় গ্যারেজে আগুন দেয়ার ঘটনায় এরাই জড়িত বলে প্রবাসীর পরিবারের লোকজন ধারণা করছেন। 

এই ঘটনায় প্রবাসীর পরিবার নিরাপত্তাহীনতায় ভুগছেন। ছোট ছোট ছেলে মেয়েদের নিয়ে আতংকে দিন কাটাচ্ছেন বলে জানান তারা। 

উক্ত ঘটনায় শামসুল আবিদ শিমুলের স্ত্রী সোনিয়া শারমিন বাদী হয়ে মধুপুর থানায় একটি লিখিত অভিযোগ দায়ের করেছেন।

   -খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর