Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

টিভিতে দেখা যাবে না ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজ, কিছুই করার নেই বিসিবির!

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৯০জন দেখেছেন
Image

অন্য আট-দশটা সিরিজ যেভাবে দেখা যায়, টাইগারদের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের ম্যাচগুলোও কি সেভাবে ঘরে বসে টেলিভিশনে দেখা যাবে? তা নিয়ে সংশয় তৈরি হয়েছিল আগেই।

অ্যান্টিগায় ক্যারিবীয়দের বিপক্ষে টাইগারদের প্রথম টেস্ট শুরুর ঠিক ৭২ ঘন্টা আগেও অবস্থার কোনোই রদবদল ঘটেনি। এ মুহূর্তে খবর, বর্তমান প্রেক্ষাপটে বাংলাদেশের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের ম্যাচগুলো টিভিতে দেখার সম্ভাবনা খুব কম।

বাংলাদেশ আর ওয়েস্ট ইন্ডিজের এবারের সিরিজের টিভি স্বত্ব পেয়েছে টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিং ‘টিএসএম’। সাম্প্রতিক সময় এই টিএসএমের কেনা স্বত্ব থেকে ‘ফিড’ নিয়েই বাংলাদেশের প্রচারমাধ্যম তথা রীতিমত কনসোর্টিয়ামের মত করে দেশের টিভিতে প্রচার করে আসছে।

আর সে ফিড থেকেই টি স্পোর্টস ও গাজী টিভিতে খেলা সম্প্রচার হয়ে আসছে। কিন্তু টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিং ‘টিএসএম’-এর সঙ্গে ওই কনসোর্টিয়ামের এক বড় ধরনের ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে।

জানা গেছে, সেই দ্বন্দ্বের কারণে কনসোর্টিয়াম নীতিগতভাবে টিএসএমের কাছ থেকে ফিড নিতে আগ্রহী নয়। আর যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড থেকে এ সিরিজের টিভি প্রচার স্বত্বটা টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিংয়ের কেনা, তাই তাদের কাছ থেকে ফিড না নিলে বাংলাদেশের টিভিতে খেলা দেখানো সম্ভব নয়।

কনসোর্টিয়াম তথা টি স্পোর্টস ও গাজী টিভির সঙ্গে টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিংয়ের দ্বন্দ্বের অবসান ঘটলে প্রেক্ষাপট পাল্টে যেত। কিন্তু একদম ভেতরের খবর, কনসোর্টিয়ামের পক্ষ থেকে টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিংয়ের সঙ্গে এখনও কোনো আপোষ-মীমাংসা হয়নি।

যে কারণে আজ মানে ১৩ জুন সোমবার দুপুর পর্যন্ত খবর, বাংলাদেশের মাটিতে বসে টাইগারদের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের খেলা টিভিতে দেখার সম্ভাবনা খুব কম।

সংশ্লিষ্ট একটি সূত্র জানিয়েছে, এখনও যদি কনসোর্টিয়ামের সঙ্গে ‘টিএসএম’-এর আপোষ হয়, তারপরও টিভিগুলোর পক্ষে বিজ্ঞাপন ও স্পন্সর জোগাড় করে যথাসময়ে খেলা দেখানো বেশ ঝক্কির ব্যাপার হয়ে দাঁড়াবে।

একটি বিকল্প পথ খোলা ছিল। যে টিভিগুলো সাধারণত বাংলাদেশের আন্তর্জাতিক ম্যাচ বা সিরিজগুলো টিভিতে সম্প্রচার করে, তাদের কেউ সরাসরি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের কাছ থেকে ফিড কিনে নিলে। কিন্তু ভেতরের খবর, কনসোর্টিয়ামের বৃহত্তর ঐক্য অটুট রাখার স্বার্থে এখন আর কোনো প্রাইভেট টিভি চ্যানেল তা করবে না।

এদিকে বিসিবিরও আসলে এ ব্যাপারে করণীয় কিছু নেই। বিসিবি মিডিয়া কমিটির চেয়ারম্যান তানভির আহমেদ টিটু আজ শনিবার দুপুরে জাগো নিউজের সাথে আলাপেও টিভিতে খেলা দেখানো ব্যাপারে পরিষ্কার কিছু বলতে পারেননি।

টিটু জানিয়ে দিয়েছেন, ‘আসলে এ ব্যাপারে আমাদের তথা বিসিবির কিছু করার নেই। এটা পুরোই ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ডের এখতিয়ার। তাদের কাছ থেকে যারা টিভি স্বত্ব কিনবে, তাদের কাছ থেকেই ফিড নিয়ে দেখাতে হবে।’

তারপরও যে প্রাইভেট চ্যানেলগুলো সাধারণত বিভিন্ন সিরিজ ও আন্তর্জাতিক ম্যাচ টিভিতে সম্প্রচার করে থাকে, তাদের প্রতি বিসিবি মিডিয়া কমিটি প্রধান টিটুর অনুরোধ, ‘আমাদের দেশের কোটি কোটি ক্রিকেট অনুরাগীর আগ্রহের কথা চিন্তা করে এবং তাদের আশা পূরণে সংশ্লিষ্ট টিভি চ্যানেলগুলো কোনো কার্যকর পদক্ষেপ নিয়ে এগিয়ে আসে, সে আহ্বানই থাকলো।’

টিটুর শেষ কথা, ‘এখনো তিন দিন সময় আছে। এর মধ্যে খেলা দেখানোর সব বন্দোবস্ত পাকা করা সম্ভব। আশা করছি একটা উপায় বের হবে।’


আরও খবর



যে কারণে সিরিজ হারতে হলো বাংলাদেশকে

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

শেষ ম্যাচে দলে যুক্ত হলেন ‘পঞ্চ পাণ্ডবে’র অন্যতম সদস্য মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ; কিন্তু তাতেও শেষ রক্ষা হলো না। জিম্বাবুয়ের কাছে তিন ম্যাচের টি-টোয়েন্টি সিরিজ ২-১ ব্যবধানে হারলো টাইগাররা।

আজ ২ আগস্ট, মঙ্গলবার হারারে স্পোর্টস ক্লাব মাঠে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত বাহিনীর ১০ রানের পরাজয়ে সত্যি হলো অনেকের সন্দেহ, সংশয়।

শীর্ষ তারকাদের ছাড়া কঠিন চ্যালেঞ্জ অতিক্রম করতে পারবে সোহানের দল?’- এই শিরোনামে গত ২৭ জুলাই জাগো নিউজে প্রকাশিত হয়েছিল এক প্রতিবেদন। শিরোনামই বলে দিচ্ছে কী ছিল তার প্রতিপাদ্য বিষয়?

সে প্রতিবেদনেই একটা বিষয় পরিষ্কার ছিল। তাহলো- পাঁচ শীর্ষ ও জনপ্রিয় তারকাকে ছাড়াই এবার জিম্বাবুয়ের সঙ্গে টি-টোয়েন্টি সিরিজ খেলবে টাইগাররা। এক যুগেরও বেশি সময় সব ফরম্যাটেই যারা ছিলেন টিম বাংলাদেশের প্রধান চালিকাশক্তি, তাদের ঘিরেই আবর্তিতত হতো সব কিছু।

বিশেষ করে সাকিব, তামিম, মুশফিক আর রিয়াদের অন্তত তিনজন ছাড়া ক্রিকেটের ছোট পরিসরে দল হয়েছে খুব কম। এবার তারা কেউ নেই। তাদের অনুপস্থিতিতে একঝাঁক তরুণ ও নবীন ক্রিকেটারে গড়া দল কী জিম্বাবুয়ের সঙ্গে পেরে উঠবে?

পাশাাপাশি আরও একটি প্রশ্ন ছিল কারো কারো মনে- এক বছর আগে দুই ম্যাচ জিতিয়ে সৌম্য সরকার যে সিরিজ সেরা হয়েছিলেন, এবার তার ভূমিকা কেউ নিতে পারবে কি না?

অনেকের মনেই সংশয় ছিল, সিনিয়র ও অভিজ্ঞ এবং অপরিহার্য্য সদস্যদের অনুপস্থিতিতে এসব তরুণরা কী পারবেন নিজেদের মেলে ধরে দলকে সাফল্যের বন্দরে পৌঁছে দিতে?

সে সংশয় সত্য বলেই প্রমাণ হলো। তরুণরা শেষ পর্যন্ত কুলিয়ে উঠতে পারলেন না জিম্বাবুয়ের সাথে। কেউ সৌম্য সরকারের ভূমিকাও নিতে পারেননি। সৌম্যর মত জোড়া অর্ধশতক উপহার দেয়া বহুদুরে, লিটন দাস ছাড়া আর কেউ একটি হাফ সেঞ্চুরিও হাঁকাতে পারেননি।

দিন শেষে টি-টোয়েন্টি হলো ব্যাটারদের খেলা। ব্যাটাররা জ্বলে উঠতে না পারলে সাফল্য পাওয়া কঠিন। এ সিরিজে একটি মাত্র ম্যাচ জেতানো ফিফটি এসেছে টাইগারদের ব্যাট থেকে। দ্বিতীয় ম্যাচে ৫৬ রান করেছিলেন লিটন দাস। এছাড়া ম্যাচ জয়ের মত আর কোনো ইনিংস উপহার দিতে পারেননি টাইগার ব্যাটাররা।

বোলিংয়ে পুরো সিরিজে একটিই ম্যাচ উইনিং পারফরমেন্স আছে। সেটা দ্বিতীয় ম্যাচে মোসাদ্দেক হোসেন সৈকতের ‘ম্যাজিক্যাল বোলিং স্পেলটি (৪ ওভারে ২০ রানে ৫ উইকেট)।

আজ শেষ ম্যাচেও সব বাটাররা ব্যর্থ। ১৫৭ রানের মাঝারিমানের টার্গেট ছুঁতে গিয়েও লিটন দাস, পারভেজ হোসেন ইমন, নাজমুল হোসেন শান্ত, মাহমুদউল্লাহ রিয়াদ, আফিফ হোসেন ধ্রুব, মোসাদ্দেক হোসেন সৈকত, শেখ মাহদির কেউই দল জিতিয়ে বিজয়ীর বেশে সাজঘরে ফিরতে পারেননি।

মূলতঃ ব্যাট হাতে ম্যাচ জেতানো ভূমিকা নিতে পারেননি কেউই। তার প্রমাণ তিন ম্যাচে একটি মাত্র ফিফটি। দ্বিতীয় ম্যাচে লিটন দাসের ৩৩ বলে ৫৬ রানের ঝড়ো ও আকর্ষণীয় ইনিংসটি ছাড়া আর একজন ব্যাটারও পুরো সিরিজে পঞ্চাশে পা রাখতে পারেননি।

একটি দলের ব্যাটারদের অবস্থা এমন হলে সেই দলের পক্ষে সিরিজ জেতা কঠিন হয়ে পড়ে। আজ শেষ দিনও কারো ব্যাট কথা বলেনি। সিনিয়রদের অনুপস্থিতিতে জুনিয়রদের কেউ হাল ধরতে পারেননি। এমনকি মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের কাছে যে প্রত্যাশা ছিল, সেটাও মেটাতে পারেননি তিনি। সুতরাং, ১৫৭ রানের টার্গেটও হয়ে থাকলো অধরা।


আরও খবর



ফেসবুকে থাকা ই-মেইল অ্যাকাউন্ট পরিবর্তনের উপায়

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৪০জন দেখেছেন
Image

বিশ্বের অন্যতম জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুক। বিশ্বে প্রতিদিন কয়েক কোটি ব্যবহারকারী রয়েছে সাইটটির। অনেকের তো একাধিক অ্যাকাউন্টও আছে ফেসবুকে।

তবে ফেসবুক অ্যাকাউন্ট খোলার সময় ই-মেইল অ্যাড্রেস দিয়েছেন নিশ্চয়। সেই ই-মেইল অ্যাড্রেস হয়তো এখন আর ব্যবহার করছনে না। এক্ষেত্রে আপনি বর্তমানে যে অ্যাড্রেস ব্যবহার করছেন সেটি ফেসবুকে যুক্ত করে দিতে পারেন। খুব সহজেই কাজটি করত পারবেন।

ফেসবুক অ্যাকাউন্টে থাকা পুরোনো ই-মেইল অ্যাড্রেস পরিবর্তনের জন্য প্রথমেই ফেসবুকে প্রবেশ করে ডান পাশের ওপরে থাকা প্রোফাইলে ক্লিক করতে হবে। এবার ‘সেটিংস অ্যান্ড প্রাইভেসি’ অপশনে গিয়ে ‘সেটিংস’ অপশনটি নির্বাচন করুন। সেখানে ‘জেনারেল অ্যাকাউন্ট সেটিংস’ অপশন দেখা যাবে।

‘কন্টাক্ট’ অপশনে ক্লিক করলে বর্তমানে ফেসবুকে ব্যবহৃত ই-মেইল অ্যাড্রেস দেখা যাবে। ঠিকানাটি পরিবর্তনের জন্য এডিটে ক্লিক করলেই ‘অ্যাড এনাদার ই-মেইল অর মোবাইল নম্বর’ অপশন দেখা যাবে। অপশনটিতে ক্লিক করে নতুন ই-মেইল অ্যাড্রেস লিখে অ্যাড চাপতে হবে।

এবার ফেসবুক অ্যাকাউন্টের পাসওয়ার্ড লিখলেই আপনার দেওয়া নতুন ই-মেইল অ্যাড্রেসে লিংকযুক্ত ই-মেইল পাঠাবে ফেসবুক। লিংকটিতে ক্লিক করলেই আপনার নতুন ই-মেইল অ্যাড্রেস ফেসবুক অ্যাকাউন্টে যুক্ত হয়ে যাবে।


আরও খবর



একদিনেই নবজাতকের ব্যাংক অ্যাকাউন্টে জমা হলো ৪৩ হাজার টাকা

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

ময়মনসিংহের ত্রিশালে ট্রাকচাপায় মায়ের পেট ফেটে জন্ম নেওয়া শিশু ও তার দুই ভাইবোনের সহায়তার জন্য খোলা ব্যাংক অ্যাকাউন্টে ৪৩ হাজার টাকা জমা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) দুপুর আড়াইটার দিকে ত্রিশাল উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মো. আক্তারুজ্জামান জাগো নিউজকে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ‘দুপুরের পরে ব্যাংক স্টেটম্যান্ট নিয়েছি। সেখান দেখা যায়, ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলার পর থেকে ৪৩ হাজার টাকা জমা পড়েছে। আশা করছি, আরও টাকা জমা পড়বে।’

এরআগে সোমবার (১৮ জুলাই) বিকেলে সোনালী ব্যাংকের ত্রিশাল শাখায় রত্না আক্তার রহিমার নবজাতক ও অপর দুই সন্তানের সহায়তায় ব্যাংক অ্যাকাউন্ট খোলা হয়। ওই ব্যাংক হিসাব নবজাতকের দাদা মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু, তার স্ত্রী সুফিয়া বেগম এবং উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মো. আক্তারুজ্জামান পরিচালনা করতে পারবেন।

নবজাতকটির দাদা মোস্তাফিজুর রহমান বাবলু বলেন, ‘ওই নবজাতক ছাড়াও এবাদত (৮) ও জান্নাত আক্তার (১০) নামে আমার আরও দুই নাতি আছে। ওদের জন্য প্রশাসন একটি অ্যাকাউন্ট খুলে দিয়েছে। দেশবাসী যদি সহায়তা করে তাহলে আমার নাতিদের মানুষের মতো মানুষ করে তুলবো।’

শনিবার (১৬ জুলাই) দুপুরের দিকে উপজেলার রাইমনি গ্রামের ফকির বাড়ির মোস্তাফিজুর রহমান বাবলুর ছেলে জাহাঙ্গীর আলম (৪০) তার অন্তঃসত্ত্বা স্ত্রী রত্না বেগম (৩০) ও মেয়ে সানজিদাকে (৬) নিয়ে আল্ট্রাসনোগ্রাফি করাতে ত্রিশালে আসেন। পৌর শহরের খান ডায়াগনস্টিক সেন্টারের সামনে রাস্তা পারাপারের সময় ময়মনসিংহগামী একটি ট্রাক তাদের চাপা দেয়। এতে ঘটনাস্থলেই জাহাঙ্গীর আলম ও স্ত্রী রত্না বেগম মারা যান। মেয়ে সানজিদা আক্তার গুরুতর আহত হয়। এ সময় ট্রাকচাপায় রত্না বেগমের পেট ফেটে কন্যাশিশুর জন্ম হয়।

পরে আহত সানজিদা ও নবজাতককে নিয়ে ত্রিশাল উপজেলা স্বাস্থ কমপ্লেক্সে নেওয়া হয়। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক সানজিদাকে মৃত ঘোষণা করে নবজাতক শিশুটিকে ময়মনসিংহ মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে রেফার করেন। তবে, অতিরিক্ত যানজটের কারণে নবজাতককে চুরখাই কমিউনিটি বেজড মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। পরে সেখান থেকে ময়মনসিংহ মহনগরীর চরপাড়া এলাকায় লাবিব হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। ওই নবজাতক বর্তমানে ওই হাসপাতালেই আছে।

রত্না আক্তার রহিমার নবজাতক ও অপর দুই সন্তানের সহায়তা হিসাব নম্বর 3324101028728।


আরও খবর



স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সভায় যাবে না কওমি কর্তৃপক্ষ

প্রকাশিত:Sunday ০৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ০৭ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

কওমি শিক্ষার মান উন্নয়নে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে হেফাজতের নায়েবে আমির অধ্যক্ষ মিজানুর রহমানে রহমানের ৮ দফা সুপারিশ সংবলিত চিঠি প্রত্যাখ্যান করেছে দেশের কওমি মাদরাসাসমূহের সরকার স্বীকৃত ইসলামি শিক্ষা বোর্ড আল-হাইআতুল উলয়া লিল জামিআতিল কওমিয়া।

রোববার (৭ আগস্ট) বোর্ডের অফিস ব্যবস্থাপক মু. অছিউর রহমান স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে মিজানুর রহমানের সুপারিশসমূহকে ব্যক্তিবিশেষের সুপারিশ বলে উল্লেখ করা হয়েছে।

এ বিষয়ে আল-হাইআতুল উলয়ার কোনো সম্পৃক্ততা নেই জানিয়ে মাদরাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের কোনো ধরনের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ার জন্য অনুরোধ করা হয়। বিষয়টি নিয়ে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ে অনুষ্ঠিতব্য সভায় না যাওয়ার সিদ্ধান্তও নিয়েছে আল-হাইআতুল উলয়া।

গত ২৫ জুন নিজেদের ফোরামে আলোচনা না করেই প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার কাছে ৮ দফা সুপারিশ জানিয়ে চিঠি লিখেছেন হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির অধ্যক্ষ মিজানুর রহমান। এ বিষয়ে ‘এক চিঠি নিয়ে একমাস পর হেফাজতে তোলপাড়!’ শিরোনামে সংবাদ প্রকাশ করে জাগো নিউজ। কওমি ধারার দ্বীনি শিক্ষা ও শিক্ষকের মান উন্নয়নকল্পে সদয় দৃষ্টি আকর্ষণ শীর্ষক চিঠিতে মিজানুর রহমান ৮টি সুপারিশ করেন। ওই চিঠির সূত্র ধরে আগামী ১০ আগস্ট বৈঠক ডেকেছে স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়। সেখানে ৮ দফা সুপারিশের বিষয়ে করণীয় নির্ধারণ করা হবে বলেও জানানো হয়।

গত ৪ আগস্ট স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় থেকে কওমি মাদরাসার বোর্ড প্রধানদের ওই বৈঠকে আমন্ত্রণ জানিয়ে চিঠি দেওয়া হয়েছে। ওই বৈঠকের খবর ও গণমাধ্যমের সংবাদে তোলপাড় শুরু হয় হেফাজত নেতাদের মধ্যে। এ নিয়ে জরুরি বৈঠকে বসে কওমি শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসমূহের সংশ্লিষ্টরা।

শনিবার (৬ আগস্ট) দুপুরে রাজধানীর মতিঝিলে আল-হাইআতুল উলয়া লিল জামিআতিল কওমিয়া বাংলাদেশের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বৈঠক করেন সংগঠনটির নেতারা। সংগঠনটির চেয়ারম্যান মাওলানা মাহমুদুল হাসানের সভাপতিত্বে স্থায়ী কমিটির সদস্যরা বৈঠকে উপস্থিত ছিলেন।

সূত্র জানায়, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলায় হেফাজতে ইসলামের নেতৃত্বে সংঘটিত কার্যকলাপের সঙ্গে আল-হাইআতুল উলয়ার অধীন ৬ বোর্ডের কোনো সম্পৃক্ততা নেই। একইভাবে হেফাজতে ইসলামের নায়েবে আমির অধ্যক্ষ মুহাম্মদ মিজানুর রহমান চৌধুরী, আল-হাইআতুল উলয়া ও ৬ বোর্ডের কেউ নন। তার প্রেরিত পত্রের সুপারিশমালা একান্তই তার ব্যক্তিগত। এর সঙ্গে আল-হাইআতুল উলয়ার অধীন ৬ বোর্ডের কোনো সম্পৃক্ততা নেই বলে বোর্ডের পক্ষ থেকে জানানোর সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে। এছাড়া যেহেতু স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের ডাকা ১০ আগস্টের সভার সঙ্গে আল-হাইআতুল উলয়ার অধীন ৬ বোর্ডের কোনো সম্পৃক্ততা নেই, সেহেতু সভায় অংশগ্রহণে ৬ বোর্ডের পক্ষ হতে অপারগতা প্রকাশ করা হয়।

জানা গেছে, শনিবার সন্ধ্যায় স্থায়ী কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী আল-হাইআতুল উলয়ার ৬ সদস্যের একটি প্রতিনিধিদল স্বরাষ্ট্রমন্ত্রীর সঙ্গে সাক্ষাৎ করেছেন এবং চেয়ারম্যানের পত্র হস্তান্তর করেছেন। সেই সঙ্গে ১০ আগস্টের সভায় অংশগ্রহণে আল-হাইআতুল উলয়ার অধীন ৬ বোর্ডের প্রতিনিধিগণের অপারগতার কথা জানিয়েছেন।

সূত্র আরও জানায়, স্থায়ী কমিটির সভায় এক প্রস্তাবে বলা হয়, কওমি মাদরাসার নিজস্ব বৈশিষ্ট্য ও স্বকীয়তা রক্ষা করে বাংলাদেশ জাতীয় সংসদে যে আইন (২০১৮ সনের ৪৮ নং আইন) পাস হয়েছে তা অক্ষুণ্ন রাখতে উলামায়ে কেরাম প্রতিশ্রুতিবদ্ধ। এর ব্যতিক্রম কিছু উলামায়ে কেরাম, কওমি মাদরাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষক এবং জাতীর কাছে কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য হবে না।

তাই কওমি মাদরাসার নিজস্ব বৈশিষ্ট্য ও স্বকীয়তা অক্ষুণ্ন রাখতে সংশ্লিষ্ট সবার প্রতি বিশেষভাবে আহ্বান জানায় সংগঠনটি। এ বিষয়ে মাদরাসার শিক্ষার্থী ও শিক্ষকদের কোনো ধরনের অপপ্রচারে বিভ্রান্ত না হওয়ারও অনুরোধ করা হয়।


আরও খবর



রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বন্ধু রাষ্ট্রের সহযোগিতা দরকার

প্রকাশিত:Wednesday ২০ July ২০22 | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৩৪জন দেখেছেন
Image

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, রোহিঙ্গা সমস্যা সমাধানে বন্ধু রাষ্ট্রের সহযোগিতা দরকার। না হলে মানবিক বিবেচনায় রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দেওয়া বাংলাদেশ সংকটে পড়বে। ইতোমধ্যে বাংলাদেশ রোহিঙ্গাদের আশ্রয় দিয়ে মাদক, অস্ত্র চোরাচালানসহ সীমান্তে নিরাপত্তা ঝুঁকিতে পড়েছে।

বুধবার (২০ জুলাই) দুপুরে রাজধানীর হোটেল রেডিসন ব্লুতে আয়োজিত এক সেমিনারে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

‘রোহিঙ্গা ও নার্কো টেরোরিজম’ শীর্ষক ওই সেমিনারের আয়োজন করে ডিপ্লোমেটস পাবলিকেশন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, মাদক বলতে ইয়াবা বাংলাদেশে তৈরি হয় না। কিন্তু এর চোরাচালান হচ্ছে বাংলাদেশে। ইয়াবা তৈরি হচ্ছে মিয়ানমারে। অথচ এর ভিকটিম বাংলাদেশ। এক্ষেত্রে রোহিঙ্গাদের বাহক ও চোরাচালানকারী হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে। মাদকের হাব হিসেবে ব্যবহার করা হচ্ছে রোহিঙ্গা এলাকাকে।

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর