Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

তানোরে ঝলসে দেওয়া হয়েছে ধানগাছের পাতা

প্রকাশিত:বুধবার ১০ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৪৩৭জন দেখেছেন

Image
তানোর প্রতিনিধি: রাজশাহীর তানোরে পূর্ব বিরোধের জেরে রোপনকৃত ধানে ঘাষ মারা বিষ দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছেন প্রতিপক্ষ  বলে অভিযোগ উঠেছে। উপজেলার তালন্দ ইউনিয়ন(ইউপির) কালনা গ্রামে ঘটে রয়েছে এমন ঘটনা। রাতের আধারে এমন ভাবে বিষ  দেওয়া হয়েছে ধানের পাতা ঝলসে কালো আকার ধারন করেছে। এতে করে জমির মালিক ক্ষোভে আর জমিতে যান নি। এর আগে একই ভাবে আলুর গাছে বিষ প্রয়োগ করে সবকিছু নষ্ট করে দেয়। ফলে একের পর এক ফসলহানির ঘটনায় চরম দিশেহারা হয়ে পড়েছেন ফসল রোপনকারী গনো। গত মঙ্গলবার দুপুরের দিকে সরেজমিনে দেখা যায়, তানোর পৌর এলাকার চাপড়াগ্রাম পার হয়ে তালন্দ ইউপির কালনাগ্রামে প্রবেশের মুখে পাকা রাস্তার উত্তরে থোড় ধান গাছের পাতা মরে কালচে ও ঝলসে অবস্থায় আছে। সেখানে কিছু শ্রমিক রাস্তার গাছের নিচে বসে ছিলেন, তাদের কাছে ধান গাছের পাতার অবস্থা সম্পর্কে জানতে চাইলে তারা জানান, এসব জমি চাপড়াগ্রামের গনোর। ঘাষ মারা বিষ দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। কি কারনে জানতে চাইলে তারা জানান আমরা কিছুই জানিনা। এর আগে আলুর গাছেও বিষ দিয়ে নষ্ট করে দেয়। প্রায় ১০-১২ দিন আগে বিষ দেওয়া হয়েছে বলেও জানান স্থানীয়রা।

স্থানীয়রা জানান, ধান গাছে এমন ভাবে বিষ দেওয়া হয়েছে শীষ তো  দুরে থাক খড়ও পাবে না। ব্যক্তির আক্রোশ ফসলের উপর কেন পড়বে। এক বিঘা আলুর  জমিতে ধান  রোপন করতে খরচ প্রায় ৬-৭ হাজার টাকা  হয়। সময়মত সেচ পানি পাওয়া যায় না, দিনের পর দিন ঘুরে সেচ নিয়ে জমি রোপন করেছেন। পবিত্রা  রমজান মাসে প্রচন্ড খরতাপের সময় জমি রোপন করেছিলেন গনো। কিন্ত মাস না যেতেই সব ধান গাছ পুড়িয়ে ফেলেছে। আমরা এমন ঘটনা অতীতে দেখিনি।  বুধবার সকালের দিকে চাপড়া মোড়ে দেখা হয় গনোর সাথে। তিনি জানান, প্রায় তিন বিঘা জমির আলুর গাছে বিষ মেরে নষ্ট করা হয়েছিল। আলুর খরচ পর্যন্ত দুরে থাক প্রচুর লোকসান হয়েছে। আলু তুলে প্রায় পুনে তিন বিঘা জমিতে ধান রোপন করেছি। ধানের এক মাস বয়সের সময় ঘাস মারা বিষ দিয়ে পুড়িয়ে দিয়েছে। একের পর এক ফসল পুড়িয়ে ফেলছে। কারা এসব করছে জানতে চাইলে তিনি জানান আমার আপন ভাইরা আমিনুল, কি কারনে, তিনি জানান সে নাকি জমি পাবে। যদি জমি পায় তাহলে তো দিতে হবে।

তাকে বারবার বলা হচ্ছে কাগজপত্র নিয়ে আসেন দশজন বসে যদি জমি পায় ছেড়ে দিব। সেটা না করে শহর ও বিভিন্ন এলাকা থেকে দলবল এনে রাতের আধারে ফসল পুড়িয়ে ফেলছে এবং  বিভিন্ন ভাবে প্রান নাশের হুমকি পর্যন্ত দিচ্ছেন। এসব নিয়ে কোন অভিযোগ বা আইনের আশ্রয় নিয়েছেন কি জানতে চাইলে তিনি জানান, কার কাছে অভিযোগ করব, সে প্রভাবশালী, ভয়ে কিছুই বলতে পারিনি। সে শহরের ছোটবনগ্রাম এলাকায় থাকে।তবে গনোর ভাইরা আমিনুল অভিযোগ অস্বিকার করে বলেন আমার জমিতে জোরপূর্বক  ধান রোপন করে সে পুড়িয়ে আমার উপর দোষ দিচ্ছে, যা সম্পূর্ণ মিথ্যা। উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা সাইফুল্লাহ আহম্মেদ বলেন এঘটনা অজানা, তবে অভিযোগ পেলে তদন্ত করে দেখা হবে। তবে যাই হোক ফসল পুড়িযে নিজেকে বাহাদুর ভাবা ঠিক না।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পংকজ চন্দ্র দেবনাথ জানান, ফসল পুড়িয়ে ফেলা অমানুবিক। যারাই এমন ঘটনা ঘটায় তাদের বিবেক আছে কিনা সন্দেহ। অভিযোগ পেলে তদন্ত সাপেক্ষে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে।

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




সারা‌ দেশে কঠোরভাবে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৬৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সারা‌ দেশে কঠোরভাবে নিত‌্যপণ্যের দাম নিয়ন্ত্রণে বাজার মনিটরিংয়ের নির্দেশনা দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হা‌সিনা।

সোমবার (২০ মে) সকালে তেজগাঁও প্রধানমন্ত্রী কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত ম‌ন্ত্রিসভার বৈঠকে বা‌ণিজ‌্য প্রতিমন্ত্রী আহসানুল ইসলাম টি‌টুকে এ নির্দেশনা দেন তি‌নি।

বৈঠক শেষে বিকেলে স‌চিবালয়ে মন্ত্রিপরিষদ সচিব মো. মাহবুব হোসেন ব্রিফিংয়ে বলেন, আজকে নির্ধারিত ইস্যুর বাইরে দুইটি বিষয় ছিল। তার মধ্যে প্রধানমন্ত্রী আজকে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে কঠোরভাবে বলেছেন, বাজার মনিটরিং যেন জোড়ালোভাবে হয় এবং ভালোভাবে নজর দিতে বলেছেন। বাজারে সাপ্লাই যেন ঠিক থাকে।

তিনি  আরও বলেন, কিছু কিছু পণ্যে সরবরাহ ঠিক আছে, ক্রাইসিস না থাকার পরেও বাজারে কৃত্রিম মূল্যবৃদ্ধির প্রবণতা দেখা যাচ্ছে। সেজন্য কঠোরভাবে যাতে বাজার মনিটরিং শুরু করতে প্রধানমন্ত্রী সুনির্দিষ্টভাবে বাণিজ্য প্রতিমন্ত্রীকে নির্দেশনা দিয়েছেন।


আরও খবর



পত্নীতলায় মাদকদ্রব্য সহ ৩জনকে আটক করেছে র‌্যাব

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি অপারেশন দল শুক্রবার পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির মোসলেমের মোড়ে অভিযান চালিয়ে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা সহ সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের ৩সদস্যকে গ্রেফতার করেছে।

র‌্যাব-৫, রাজশাহীর এক প্রেস বিজ্ঞপ্তিতে জানান, প্রতিষ্ঠাকালীন সময় থেকেই দেশের সার্বিক আইন শৃঙ্খলা পরিস্থিতি সমুন্নত রাখার লক্ষ্যে সব ধরণের অপরাধীকে আইনের আওতায় নিয়ে আসার ক্ষেত্রে র‌্যাপিড এ্যাকশন ব্যাটালিয়ন র‌্যাব অগ্রণী ভূমিকা পালন করে আসছে। তারই ধারাবাহিকতায় র‌্যাব-৫, রাজশাহীর একটি চৌকস আভিযানিক দল গোয়েন্দা তথ্যের ভিত্তিতে পত্নীতলার ঘোষনগর এলাকায় কতিপয় সংঘবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্যরা অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজার একটি বড় চালানসহ অবস্থান করছে বলে জানতে পেরে সেখানে অভিযান পরিচালনা করে ৩ জনকে ২টি বস্তাসহ আটক করে। এসময় তাদের বস্তা তল্লাশী করে ৪৭.৫ কেজি অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা উদ্ধার করে।

আটককৃতরা হলো পত্নীতলা উপজেলার ঘোষনগর ইউপির নবীর উদ্দীনের ছেলে নূর নবী (৩৮), উপজেলার চাপড়া গ্রামের রামপদ এর ছেলে রজনী কান্ত (৩২) এবং চাপাই নবাবগঞ্জ জেলার নাচোল দেউপাড়া গ্রামের ইসাহাকের ছেলে মোঃ নবী (৩০)। এসময় তাদের কাছে থাকা ৩টি মোবাইল ফোন ও সীম উদ্ধার করে।

র‌্যাব জানায়, ধৃত আসামিগণ সঙ্গবদ্ধ মাদক চক্রের সদস্য। তারা নিজ পেশার আড়ালে দীর্ঘদিন যাবত আইন-শৃঙ্খলা বাহিনীর চোখ ফাঁকি দিয়ে সুকৌশলে অবৈধ মাদকদ্রব্য গাঁজা, ফেন্সিডিল সহ বিভিন্ন মাদক কৌশলে কুমিল্লা জেলার ভারতীয় সীমান্ত এলাকা হতে সংগ্রহ করে নওগাঁ সহ দেশের বিভিন্ন স্থানে বিক্রয় ও সরবরাহ করে আসছিল।

উপরোক্ত ঘটনায় থানায় একটি মামলা রুজু হয়েছে বলে পত্নীতলা থানার অফিসার ইনচার্জ মোজাফফর হোসেন নিশ্চিত করেছেন।

আরও খবর



হাটহাজারীতে বাস-অটোরিকশা মুখোমুখী সংঘর্ষে নিহত ২

প্রকাশিত:রবিবার ২৬ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image
তালহা চৌধুরী রুদ্র।নিজস্ব প্রতিনিধি:চট্টগ্রামের হাটহাজারীতে যাত্রীবাহী বাস-অটোরিকশা মুখোমুখী সংঘর্ষে দুইজন নিহত হয়েছেন। এঘটনায় আরও দুইজন আহত হয়েছেন।

শনিবার (২৫ মে) দুপুর সাড়ে ১২টার দিকে মির্জাপুর ইউনিয়নেরর মুহুরীহাট বটতল এলাকায় চট্টগ্রাম-খাগড়াছড়ি মহাসড়কে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

নিহত দুজন হলেন, হাটহাজারীর ফরহাদাবাদ ইউনিয়নের উদালিয়া এলাকার বাসিন্দা আব্দুল মোতালেব টুকু (৭০) ও ধলই ইউনিয়নের মনিয়াপুকুর এলাকার বাসিন্দা মো. আবছার (৫৫)। তারা দুজনই অটোরিকশার যাত্রী। এঘটনায় আহত দুজনের নাম জানা যায়নি। তাদের উদ্ধার করে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানায়, চট্টগ্রামমুখী একটি যাত্রীবাহী বাস বেপরোয়া গতিতে এসে বিপরীমুখী থাকা অটোরিকশায় ধাক্কা দিয়ে অটোরিকশাটি দুমড়ে মুচড়ে যায় এবং দুই যাত্রী ঘটনাস্থলে মারা যান। এরপর অটোরিকশার চালকসহ দুজনকে আহত অবস্থায় উদ্ধার করে স্থানীয় একটি বেসরকারি হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়েছে। চালকসহ অটোরিকশায় মোট ৪ যাত্রী ছিল।

নাজিরহাট হাইওয়ে থানার উপপরিদর্শক মো. আনিসুল ইসলাম বলেন, আমরা খবর পাওয়া মাত্র ঘটনাস্থলে এসে দুটি মরদেহ উদ্ধার করে হাসপাতালের মর্গে পাঠিয়েছি। তারা দুজন সিএনজি অটোরিকশার যাত্রী ছিলেন। আহত সিএনজি চালকসহ আরও এক যাত্রীকে আহত অবস্থায় একটি হাসপাতলে ভর্তি করা হয়েছে বলে শুনেছে।

এঘটনায় চালকসহ ওই বাসটিকে আটক করা হয়েছে। পরবর্তী আইনগত ব্যবস্থা নেওয়া হচ্ছে।

আরও খবর



হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আবারও পেঁয়াজ আমদানি শুরু

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৪ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:২০ দিন বন্ধ রাখার পর দিনাজপুরের হিলি স্থলবন্দর দিয়ে আবারো ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। দেশের বাজারে দেশীয় পেঁয়াজের দাম বাড়ায় আমদানি শুরু করেছে ব্যবসায়ীরা।

আজ মঙ্গলবার বিকেল ৫ টার দিকে ভারতীয় পেঁয়াজ বোঝাই দুটি  ট্রাক হিলি বন্দরের প্রবেশের মধ্য দিয়ে এই কার্যক্রম শুরু হয়। সততা বাণিজ্যালয় নামের একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান এসব পেঁয়াজ আমদানি করে। এই প্রতিবেদন লেখা পর্যন্ত দুটি ট্রাকে ৩৩ টন পেঁয়াজ আমদানি হয়েছে। 

আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানের সিএন্ডএফ এজেন্ট প্রতিনিধি মাহাবুব হোসেন জানান,দেশের বাজারে হঠাৎ করে দেশীয় পেঁয়াজের কেজি ৮০ টাকা হওয়ায় বাজার নিয়ন্ত্রণ রাখতে আজ থেকে ভারত থেকে পেঁয়াজ আমদানি শুরু হয়েছে। লোকসান হওয়ায় গেলো ২০ দিন ধরে আমদানি বন্ধ ছিলো। যদি বাজারে ভারতীয় পেঁয়াজের দাম পাওয়া যায় আমদানির  পাশাপাশি ঈদের আগে আমদানি আরো বাড়বে।


আরও খবর



ইরানের অন্তবর্তী প্রেসিডেন্ট হচ্ছেন মোহাম্মদ মোখবের

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৬৭জন দেখেছেন

Image

আন্তর্জাতিক ডেস্ক:ইরানের প্রেসিডেন্ট হিসেবে অন্তর্র্বতীকালীন মোহাম্মদ মোখবেরের নাম অনুমোদন করেছেন দেশটির সর্বোচ্চ ধর্মীয় নেতা আয়াতুল্লাহ আল খামেনি। তিনি দুই মাস এ দায়িত্ব পালন করবেন।

ইরানের সংবিধান অনুযায়ী, আগামী ৫০ দিনের মধ্যে প্রেসিডেন্ট নির্বাচন করতে হবে।

বিস্তারিত আসছে...


আরও খবর