Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

স্বাধীন দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন গঠনের দাবি ববি হাজ্জাজের

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৯৬জন দেখেছেন
Image

দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন গঠনের দাবি জানিয়েছে জাতীয়তাবাদী গণতান্ত্রিক আন্দোলনের (এনডিএম) চেয়ারম্যান ববি হাজ্জাজ।

তিনি বলেছেন, উন্নয়নের নামে মানুষের জীবনযাত্রা অসহনীয় করে তুলছে সরকার। নিত্যপ্রয়োজনীয় দ্রব্যমূল্য মানুষের ক্রয় ক্ষমতার বাইরে চলে গেছে। দেশের চলমান মূল্যস্ফীতি ও দ্রব্যমূল্যের লাগামহীন ঊর্ধ্বগতি নিয়ন্ত্রণে শক্তিশালী এবং স্বাধীন ‘দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন’ গঠন অত্যন্ত জরুরি।

রোববার (৫ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবের সাজ্জাদ হোসেন মানিক মিয়া হলে এনডিএমের আয়োজিত আলোচনা সভায় তিনি এসব কথা বলেন।

ববি হাজ্জাজ বলেন, সাধারণ মানুষের জীবনযাত্রার ব্যয় অস্বাভাবিক হারে বাড়লেও মূল্যস্ফীতিতে এর প্রভাব কম। ধানের মৌসুমেও পাইকারি ও খুচরা বাজারে চালের দাম বাড়ছে। সরকারি গুদামে গমের মজুত কমে আসায় আতঙ্কে রয়েছে সাধারণ মানুষ। মাছ-মাংসের বাজারে ক্রেতা কমেছে। উচ্চপর্যায়ের কর্মক্ষম একজন মানুষের দৈনিক পুষ্টি চাহিদা পূরণের ব্যয় বেড়েছে প্রায় দ্বিগুণ।

তিনি বলেন, সদিচ্ছার অভাবে দ্রব্যমূল্য সহনীয় পর্যায় রাখতে এই সরকার পুরোপুরি ব্যর্থ হয়েছে। তাই আপিল বিভাগের একজন অবসরপ্রাপ্ত বিচারপতির নেতৃত্বে জনপ্রশাসন, নাগরিক সমাজ এবং রাজনৈতিক দলের প্রতিনিধিদের সমন্বয়ে আমরা একটি উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন এবং স্বাধীন দ্রব্যমূল্য নিয়ন্ত্রণ কমিশন গঠনের প্রস্তাব করছি।

তিনি আরও বলেন, এই কমিশন চাপ কমানোর জন্য উচ্চ আমদানি ব্যয় নিয়ন্ত্রণে কাজ করবে। এই কমিশনের অনুমোদন ছাড়া কোনোভাবেই গ্যাস, বিদ্যুৎ ও পানির মূল্য বাড়ানো যাবে না। অপ্রয়োজনীয় উন্নয়ন ব্যয় কমিয়ে আনা এবং কৃষিপণ্য কোথায় ভর্তুকি বাড়ানো যায় এসব ব্যাপারেও এই কমিশন সরকারকে সুপারিশ করবে। এছাড়া ব্যবসায়ী, সাধারণ জনগণ ও সংশ্লিষ্ট বিশেষজ্ঞদের সঙ্গে নিয়মিত আলোচনা করে এই কমিশন সংকট মোকাবিলায় সরকারকে নিয়মিত সুপারিশ করবে।

আলোচনা সভায় আরও উপস্থিত ছিলেন- এনডিএমের যুগ্ম মহাসচিব মোমিনুল আমিন, সাংগঠনিক সম্পাদক লায়ন নুরুজ্জামান হীরাসহ দলের নেতারা।


আরও খবর



কোম্পানীগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা সভায় দুই চেয়ারম্যানের হট্টগোল

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ০৫ August ২০২২ | ২০জন দেখেছেন
Image

নোয়াখালীর কোম্পানীগঞ্জে আইনশৃঙ্খলা কমিটির সভায় দুই ইউপি চেয়ারম্যানের মধ্যে বাগবিতণ্ডার জেরে হট্টগোলের ঘটনা ঘটেছে। এদের একজন সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরের ভাগনে রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকীন রিমন ও অন্যজন মেয়র কাদের মির্জার অনুসারী মুছাপুর ইউপি চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলী।

রোববার (৩১ জুলাই) দুপুরে উপজেলা পরিষদ সভাকক্ষে মাসিক আইনশৃঙ্খলা সভা চলাকালে এ ঘটনা ঘটে।

এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন, উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেজবা উল আলম ভূঁইয়া, থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. সাদেকুর রহমান, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান আজম পাশা চৌধুরী রুমেলসহ সব ইউপি চেয়ারম্যান ও সরকারি কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

সভায় উপস্থিত একাধিক ব্যক্তি জানান, মুছাপুরের চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলী কর্তৃক সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদেরকে ফেসবুকে ‘কটূক্তি’ এবং ছোটফেনী নদী থেকে বালু উত্তোলন নিয়ে প্রতিবাদ করেন রামপুরের চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকীন রিমন। এসময় উভয়ের মধ্যে কথা বাগবিতণ্ডার একপর্যায়ে হট্টগোলের সৃষ্টি হয়। পরে পুলিশ ও উপজেলা চেয়ারম্যান গিয়ে তাদের গণ্ডগোল থামান।

রামপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকীন রিমন বলেন, আমি কারও নাম উচ্চারণ না করে সার্বিক পরিস্থিতি নিয়ে কথা বলার একপর্যায়ে মুছাপুরের চেয়ারম্যান উচ্চবাচ্য করলে আমি সেটার কাউন্টার দিয়েছি।

মুছাপুর ইউনিয়নের চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলী জাগো নিউজকে বলেন, আমাদের মধ্যে যে ভুলবোঝাবুঝি হয়েছে তা মীমাংসা করে দেওয়া হয়েছে।

এদিকে, এ ঘটনার একটি ভিডিও ছড়িয়ে পড়েছে। এতে দেখা যায়, মুছাপুরের চেয়ারম্যান মো. আইয়ুব আলীর সঙ্গে অন্য ইউপি চেয়ারম্যানরা তর্কে জড়িয়ে কথা কাটাকাটি করছেন। এসময় রামপুর ইউপি চেয়ারম্যান সিরাজিস সালেকীন রিমন বারবার তার দিকে তেড়ে যেতে থাকেন। থানার কনস্টেবল রিফাত তাকে নিবৃত্ত করার চেষ্টা করেন। এসময় উপজেলা চেয়ারম্যান মো. শাহাব উদ্দিন উঠে এসে দুইজনকে দুইদিকে সরিয়ে দেন।

এ বিষয়ে উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, মুছাপুরে বালু উত্তোলন নিয়ে দুই চেয়ারম্যানের মধ্যে কথাকাটাকাটি হয়েছে। পরে আমি উপস্থিত হয়ে তা মীমাংসা করে দিয়েছি এবং আমার কার্যালয়ে ডেকে দুইজনেক মিলমিশ করে দিয়েছি।

জানতে চাইলে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) মেজবা উল আলম চৌধুরী বলেন, বিভিন্ন বিষয়ে কথা বলার একপর্যায়ে দুই চেয়ারম্যান উত্তেজিত হয়ে গিয়েছিলেন। পরে উপজেলা চেয়ারম্যান, ভাইস চেয়ারম্যানসহ আমরা তা নিয়ন্ত্রণ করি।

খোঁজ নিয়ে জানা গেছে, সভা শেষে উপজেলা চেয়ারম্যান মোহাম্মদ শাহাব উদ্দিন উপজেলার আট ইউপি চেয়ারম্যানসহ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তাকে নিয়ে তার কার্যালয়ে সমঝোতা বৈঠক করে ওই দুজনের মধ্যে ভুলবোঝাবুঝির মীমাংসা করে দেন। পরে তিনি সবাইকে মিষ্টি মুখ করান।


আরও খবর



মাথাপিছু আয় বেশি দেখাতে জনসংখ্যা কম দেখানো হয়েছে: ফখরুল

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

মাথাপিছু আয় বেশি দেখাতে জনসংখ্যা কম দেখানো হয়েছে বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপি মহাসচিব ফখরুল ইসলাম আলমগীর। তিনি বলেন, জনশুমারি সঠিক হয়নি।

বৃহস্পতিবার (২৮ জুলাই) দুপুরে গুলশানে বিএনপি চেয়ারপারসনের রাজনৈতিক কার্যালয়ে আয়োজিত সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

নড়াইলে সহিংসতার ঘটনায় গত ১৮ জুলাই বিএনপির পক্ষ থেকে দলের ভাইস চেয়ারম্যান অ্যাডভোকেট নেতাই রায় চৌধুরীর নেতৃত্বে ৫ সদস্যের তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। গত শনিবার (২৩ জুলাই) তদন্ত কমিটির সদস্যরা ঘটনাস্থলে গিয়ে ক্ষতিগ্রস্তদের সঙ্গে কথা বলেন। তাদের সেই তদন্ত প্রতিবেদন নিয়ে এই সংবাদ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়।

বিশ্বব্যাপী এই শুমারিকে আদমশুমারি বলা হলেও সরকার এটাকে জনশুমারি বলছে উল্লেখ করে তিনি বলেন, সরকার সবক্ষেত্রে প্রতারণা করছে। সরকার প্রতারণার ওপর দাঁড়িয়ে আছে। ফেক গভর্নমেন্ট।

নড়াইলের লোহাগাড়া উপজেলার দিঘলিয়া গ্রামের হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলার ঘটনা অত্যন্ত সুপরিকল্পিত দাবি করে বিএনপি মহাসচিব বলেন, আওয়ামী লীগের স্থানীয় নেতাদের অন্তর্কোন্দল, দ্বিধাবিভক্তির কারণেই হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর হামলা।

এই ঘটনায় অবিলম্বে দোষীদের শাস্তি দাবি করে তিনি বলেন, আওয়ামী লীগ ক্ষমতায় আসার পরেই হিন্দু সম্প্রদায়ের ওপর সবচেয়ে বেশি হামলা হয়। তাদের সম্পদ দখল হয়। নির্দলীয় সরকারের দাবি পাশ কাটাতে সাম্প্রদায়িক হামলার মতো নানা কৌশলের আশ্রয় নিয়েছে সরকার।

তিনি বলেন, গণতন্ত্র পুরোপুরি ধ্বংস হয়েছে। আওয়ামী সরকারের অধীনে ইলেকশন হতে পারে না। তারা নির্বাচনী ব্যবস্থা এমন জায়গায় নিয়ে গেছে, যেখানে শিশু পর্যন্ত রক্ষা পায় না। পুলিশের গুলিতে ঠাকুরগাঁওয়ে ইউপি নির্বাচনে শিশু হত্যার প্রতিবাদ জানিয়ে দায়ীদের গ্রেফতারের দাবিও জানান মির্জা ফখরুল।

মির্জা ফখরুল বলেন, আদমশুমারিতে হিন্দু সম্প্রদায়ের সংখ্যা কমে গেছে শতকরা এক শতাংশেরও বেশি। বারবার এই অত্যাচার হয়েছে। আওয়ামী লীগ যখন ক্ষমতায় এসেছে তখনই সাম্প্রদায়িক হামলার ঘটনা ঘটেছে। ভিন্ন সম্প্রদায়ের সম্পত্তি দখল করেছে তারা।

এই বিএনপি নেতা বলেন, গণতন্ত্রের অভাবেই ভিন্ন সম্প্রদায়ের মানুষের অধিকার রক্ষা করা সম্ভব হচ্ছে না। পরিকল্পিতভাবে হিন্দু সম্প্রদায়কে দেশ থেকে তাড়িয়ে সম্পত্তি দখল করাই উদ্দেশ্য।

রেলের অব্যবস্থাপনা নিয়ে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের শিক্ষার্থী মহিউদ্দিন রনি যে আন্দোলন করছেন সেটাও আওয়ামী লীগের কৌশল বলে মন্তব্য করেন এই বিএনপি মুখপাত্র।

এসময় বিএনপির তদন্ত কমিটির আহ্বায়ক অ্যাডভোকেট নিতাই রায় চৌধুরী বলেন, নড়াইলের দিঘলীয় গ্রামে ৭০ শতাংশ হিন্দু সম্প্রদায়ের মানুষ। অথচ পুলিশের নাকের সামনে তাদের ওপর হামলা হলো। হামলায় ২২টি পরিবার এবং ৯টি মন্দির ক্ষতিগ্রস্ত হয় বলে দাবি করেন তিনি।

সংবাদ সম্মেলনে অন্যদের মধ্যে অনিন্দ্য ইসলাম অমিত, জয়ন্ত কুমার কুন্ডু, অ্যাডভোকেট ফাহিমা নাসরীন মুন্নি, ব্যারিস্টার রুমিন ফারহানা এমপি, অমলেন্দু দাস অপু ও নিপুন রায় চৌধুরী উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মিরসরাইয়ে দুর্ঘটনার কবলে প্রিজনভ্যান, ৪ পুলিশ সদস্য আহত

প্রকাশিত:Tuesday ০২ August 2০২2 | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১৮জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের মিরসরাইয়ে ঢাকা থেকে কক্সবাজারগামী আসামি বহনকারী পুলিশের একটি গাড়ি (প্রিজনভ্যান) দুর্ঘটনার কবলে পড়েছে।

মঙ্গলবার (২ আগস্ট) দুপুরে উপজেলার বড়তাকিয়া এলাকায় এ দুর্ঘটনা ঘটে।

দুর্ঘটনায় জোরারগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) রতন কান্তি দে, কনস্টেবল আরিফ হোসেন, মোবারক হোসেন ও চালক জহির আহত হন। তাদের উদ্ধার করে উপজেলা সদরে একটি বেসরকারি হাসপাতালে প্রাথমিক চিকিৎসা শেষে উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠানো হয়েছে। এদের মধ্যে কনস্টেবল আরিফ হোসেনের অবস্থা গুরুতর।

জোরারঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) নুর হোসেন মামুন দুর্ঘটনার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

তিনি বলেন, ঢাকা থেকে আসামি নিয়ে একটি প্রিজনভ্যান কক্সবাজার যাচ্ছিল। বড়তাকিয়া এলাকায় একজন পাগলকে (মানসিক রোগী) বাঁচাতে গিয়ে চট্টগ্রামগামী একটি কাভার্ডভ্যান হঠাৎ ব্রেক দেয়। এর পেছনে থাকা দেশ ট্রাভেলসের একটি বাস, তার পেছনে প্রিজনভ্যান এবং তার পেছনে আমাদের থানার একটি গাড়ি ছিল। এর পেছনে আবার পুলিশের আরেকটি ভ্যান ছিল। হঠাৎ ব্রেক দেওয়ায় সব গাড়ি দুর্ঘটনার কবলে পড়ে।

‘এ সময় অন্যান্য গাড়িতে থাকা যাত্রী-চালকদের তেমন ক্ষতি হয়নি। তবে জোরারগঞ্জ থানা পুলিশের গাড়িতে থাকা পুলিশের একজন এসআই ও তিনজন কনস্টেবল আহত হয়েছেন। পরে গাড়িগুলো যার যার গন্তব্যে চলে যায়।’


আরও খবর



দুই হাত হারানো শিশুকে ক্ষতিপূরণ দিতে রুল

প্রকাশিত:Sunday ২৪ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ উপজেলার মুছাপুরে বিদ্যুৎস্পৃষ্টে দুই হাত হারানো শিশু আবদুল্লাহ আল মামুনকে (১২) পর্যাপ্ত ক্ষতিপূরণ কেন দেওয়া হবে না, তা জানতে চেয়ে রুল জারি করেছেন হাইকোর্ট। খনিজ সম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব, পিডিবির চেয়ারম্যানসহ সংশ্লিষ্ট নয়জন বিবাদীকে এ রুলের জবাব দিতে বলা হয়েছে।

রোববার (২৪ জুলাই) হাইকোর্টের বিচারপতি মো. মজিবুর রহমান মিয়া ও বিচারপতি কাজী মো. ইজারুল হক আকন্দের সমন্বয়ে গঠিত বেঞ্চ এ রুল জারি করেন। আদালতে রিটের পক্ষে শুনানি করেন ব্যারিস্টার অনীক আর হক ও আইনজীবী ইশরাত হাসান।

জানা যায়, আবদুল্লাহ আল মামুন মুছাপুর ইউনিয়নের ওয়ার্কশপ ব্যবসায়ী মো. আব্দুল আলিমের ছেলে। ২০২১ সালের ২৫ মে আলিমের দোকানের পাশে একটি দোতলা ভবনে মিস্ত্রিরা অ্যালুমিনিয়ামের কাজ করছিলেন। মামুন ওই ভবনের ছাদে কাজ দেখতে যায়। ভবনে ছাদের নিয়মবহির্ভূতভাবে ক্যাপ ও কভারহীন বিদ্যুতের লাইন স্থাপন করা হয়েছিল। মামুনের হাত বিদ্যুৎ লাইনের তারে স্পর্শ লাগলে বিদ্যুতায়িত হয়। পরে তাকে অচেতন অবস্থায় উদ্ধার করে প্রথমে স্থানীয় স্বর্ণদ্বীপ হাসপাতালে নেওয়া হয়। সেখানে তার অবস্থা গুরুতর হওয়ায় চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চামেক) হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। চমেক হাসপাতালে সাতদিন চিকিৎসা শেষে তাকে শেখ হাসিনা জাতীয় বার্ন ও প্লাস্টিক সার্জারি ইনস্টিটিউটে নেওয়া হয়। বার্ন ইনস্টিটিউটের চিকিৎসকদের পরামর্শে মামুনের দুই হাত কনুই পর্যন্ত কেটে ফেলা হয়।

এ ঘটনায় মামুনের বাবা ক্ষতিপূরণ চেয়ে চট্টগ্রামের সন্দ্বীপ বিদ্যুৎ সরবরাহ কেন্দ্রে আবেদন জানান। ওই আবেদনে সাড়া না পেয়ে সংশ্লিষ্টদের আইনি নোটিশ পাঠান সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী ইশরাত হাসান। নোটিশ পাঠানোর পরও কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় গত মে মাসে হাইকোর্টে রিট করা হয়।


আরও খবর



চালু হলো ভ্রাম্যমাণ প্রাণী চিকিৎসা ক্লিনিক

প্রকাশিত:Thursday ২১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ৩২জন দেখেছেন
Image

দেশে চালু হলো ভ্রাম্যমাণ প্রাণী চিকিৎসা ক্লিনিক। বৃহস্পতিবার (২১ জুলাই) রাজধানীর আগারগাঁওয়ে এর উদ্বোধন করেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী শ ম রেজাউল করিম। ২৯৯ উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ এই ক্লিনিক দেওয়া হবে।

প্রাণিসম্পদ মন্ত্রী বলেন, মানুষ অসুস্থ হলে অ্যাম্বুলেন্সে তাকে দ্রুত হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া যায়। কিন্তু বড় আকারের গবাদিপশুকে অ্যাম্বুলেন্সে নিয়ে যাওয়া সম্ভব নয়। ফলে তাকে যথাযথভাবে চিকিৎসা দেওয়ার সুযোগ ছিল না এতদিন। সে জন্য সরকার পরিকল্পনা নেয় হাসপাতালে প্রাণী নয়, প্রাণীর কাছে চলে যাবে হাসপাতাল। এটি ভালো উদ্যোগ। দেশে এখন পর্যন্ত মানুষের চিকিৎসার জন্য মোবাইল ক্লিনিক হয়নি। কিন্তু পশুপাখি ও প্রাণীর জন্য ভ্রাম্যমাণ চিকিৎসার ব্যবস্থা হয়েছে।

দেশের উন্নয়নের সব জায়গায় শেখ হাসিনার পরশ পাওয়া যাবে উল্লেখ করে শ ম রেজাউল করিম বলেন, এ দেশ ছিল তলাবিহীন ঝুড়ির তকমাযুক্ত। এ দেশকে বলা হত প্রাকৃতিক দুর্যোগের রাষ্ট্র। আজ সে দেশ বিশ্বের কাছে বিস্ময়, উন্নয়নের রোল মডেল।

মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাতে আমূল পরিবর্তন এসেছে উল্লেখ করে মন্ত্রী আরও বলেন, এ পরিবর্তনের কৃতিত্ব বঙ্গবন্ধু কন্যা শেখ হাসিনার। আমরা সবাই মিলে তার নির্দেশনায় কাজ করেছি বিধায় এখানে পৌঁছাতে পেরেছি। মাছ, মাংস ও ডিমে আমাদের স্বয়ংসম্পূর্ণতা এসেছে। অদূর ভবিষ্যতে দুধেও স্বয়ংসম্পূর্ণতা আসবে।

তিনি আরও বলেন, খাবারের একটা বড় যোগান মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ খাত থেকে আসে। এ খাতের উদ্যোক্তাদের বেকারত্ব দূর হচ্ছে। এ খাত এগিয়ে যাওয়ায় গ্রামীণ অর্থনীতি সচল হচ্ছে। খাদ্যের স্বয়ংসম্পূর্ণতা, জিডিপির অর্জন, গ্রামীণ অর্থনীতি সচল করা, বেকারত্ব দূর করাসহ নানা ক্ষেত্রে এ খাতের ভূমিকা রয়েছে।

চালু হলো ভ্রাম্যমাণ প্রাণী চিকিৎসা ক্লিনিক

প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তাদের উদ্দেশে মন্ত্রী বলেন, গতানুগতিকতায় নয় বরং প্রাণীদের মায়া-মমতা দিয়ে চিকিৎসা করুন, সহায়তা করুন। প্রাণীর চিকিৎসা করা আপনার দায়িত্ব। রাষ্ট্র আপনাদের পৃষ্ঠপোষকতা দিচ্ছে। জরুরি প্রয়োজনে নির্দেশনার অপেক্ষায় না থেকে নিজের মেধা খাটিয়ে কাজ করতে হবে। ভেটেরিনারি সার্জনরা ভ্যাকসিন প্রদান, কৃত্রিম প্রজনন ও প্রাণীর চিকিৎসা প্রদানের জন্য অন্যায়ভাবে কারও কাছে অর্থ আদায় করতে পারবেন না।

প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তরের মহাপরিচালক ডা. মনজুর মোহাম্মদ শাহজাদার সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন মৎস্য ও প্রাণিসম্পদ মন্ত্রণালয়ের সচিব ড. মুহাম্মদ ইয়ামিন চৌধুরী।

স্বাগত বক্তব্য দেন প্রাণিসম্পদ ও ডেইরি উন্নয়ন প্রকল্পের পরিচালক মো. আব্দুর রহিম। ভ্রাম্যমাণ প্রাণী চিকিৎসা ক্লিনিকের সারসংক্ষেপ উপস্থাপন করেন সংশ্লিষ্ট প্রকল্পের প্রধান কারিগরি সমন্বয়ক ড. মো. গোলাম রব্বানী।


আরও খবর