Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা
ডেমরা প্রেস ক্লাবের

সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ১৪৮জন দেখেছেন
Image

শরীফ আহমেদ : 

‘বর্তমান অন্ধকারে নিমজ্জিত সাংবাদিকতাকে সংস্কার করে নতুন আলোয় ফেরানোর প্রতিজ্ঞাবদ্ধ হয়ে একযোগে কাজ করতে সরকার ও জনগনের মধ্যে শক্ত দেশপ্রেম তৈরীর প্রত্যয়ে একঝাঁক নবীন প্রবীনদের  নিয়ে কমিটি কার্যকর করার উদ্যোগ গ্রহন করা হয়েছে। সকল শ্রেনী পেশার মানুষের সহযোগীতায় সৃষ্টি হবে রাজধানীতে মডেল সাংবাদিকতা। 


ডেমরা প্রেস ক্লাবের সভাপতি পদে নজরুল ইসলাম চৌধুরী ও সাধারণ সম্পাদক পদে নজরুল ইসলাম বাবু নির্বাচিত হয়েছেন।

শনিবার (৪.৬.২০২২ইং) প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত বার্ষিক সাধারণ সভায় ২০২২-২৫ইং ৩ বছরের ৬ষ্ঠ মেয়াদের জন্য ২১ সদস্য বিশিষ্ট একটি কার্যকরী কমিটি গঠন করা হয়।


রাজধানী ঢাকার ডেমরা প্রেস ক্লাবটি ২০০৬ সালে প্রতিষ্ঠিত হয়। সংগঠনটি ফেডারেশন অব বাংলাদেশ জার্নালিস্ট অর্গানাইজেশন এর অর্ন্তভুক্ত। ২০০৯ সালে সংগঠনটি নিবন্ধিত করা হয়।

শনিবার সন্ধ্যা ৭.৩০ ঘটিকায় প্রেস ক্লাব কার্যালয়ে বার্ষিক সাধারণ সভা ও ত্রি-বার্ষিক নির্বাচন অনুষ্ঠিত হয়। সভায় সভাপতিত্ব করেন প্রেস ক্লাবের সভাপতি নজরুল ইসলাম চৌধুরী।

সভায় প্রেস ক্লাবের বার্ষিক কার্যাবলী ও আয়-ব্যয়ের হিসাব বিবরণী উপস্থাপন করা হয়। এতে সাধারণ সদস্যরা আলোচনায় অংশগ্রহণ করেন এবং প্রেস ক্লাবের উন্নয়নে বিভিন্ন মতামত প্রকাশ করেন। 


নির্বাচিত কার্যকরী কমিটির সভাপতি পদে দৈনিক মুক্তখবরের বিশেষ প্রতিনিধি নজরুল ইসলাম চৌধুরী পুনরায় সভাপতি নির্বাচিত হন।

সহ সভাপতি পদে দৈনিক দেশ সংবাদের প্রধান সম্পাদক সাখাওয়াত হোসেন মাসুদ, এম এ সিদ্দিক মিয়া, দৈনিক আলোর জগতের সহ সম্পাদক মো. হুমায়ুন কবির, দৈনিক দিন প্রতিদিনের বার্তা সম্পাদক শামছুল আলম, সাধারণ সম্পাদক পদে দৈনিক দেশ আমারের প্রকাশক ও সম্পাদক নজরুল ইসলাম বাবু, যুগ্ম সম্পাদক পদে হাবিবুর রহমান হাবিব, দৈনিক স্বদেশ বিচিত্রা রেজাউল ইসলাম, দৈনিক গণতদন্ত মেহেদী হাসান, সাপ্তাহিক অপরাধ বিচিত্রার মো. ফারুকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক পদে দৈনিক মাতৃভূমির খবর সহকারি সম্পাদক রাসেল শিকদার, সহ সাংগঠনিক সম্পাদক পদে আরিফুর রহমান সুমন, অর্থ সম্পাদক পদে মোহাম্মদ হোসেন মিয়া, দপ্তর সম্পাদক পদে বাংলা সংবাদ টেলিভিশনের প্রধান সম্পাদক শাহাদাৎ হোসেন ভূঁইয়া, প্রচার সম্পাদক পদে দৈনিক স্বাধীন সংবাদ রাজিব হোসেন রাজু, ক্রীড়া ও সাংস্কৃতিক সম্পাদক পদে দৈনিক বাংলাদেশ সমাচার  মুশফিকুর রহমান স্বপন এবং কার্য নির্বাহি সদস্য পদে দৈনিক খোলা কাগজ শরিফ আহমেদ, নিউজ ২১ এর মিজানুর রহমান, রেডিও আমার রিপোর্টার শেখ রোমা, দৈনিক যুগযুগান্তর সালমান শুভ, দৈনিক গণজাগরণের নাসির মিয়া নির্বাচিত হয়েছেন।



আরও খবর



শত শত চালের বস্তা রেখে পালালেন কৃষি মার্কেটের ব্যবসায়ীরা

প্রকাশিত:Friday ০৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
Image

দেশে চালের বাজারে চলছে অস্থিরতা। এ অবস্থায় বিভিন্ন জায়গায় অভিযান চালাচ্ছে সরকার। সেই ধারাবাহিকতায় রাজধানীর মোহাম্মদপুরে কৃষি মার্কেটে যান জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা। এই খবর পেয়ে শত শত চালের বস্তা দোকানে রেখেই পালিয়ে যান ব্যবসায়ীরা।

জাতীয় ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের কর্মকর্তারা বলছেন, জরিমানা এড়াতেই ব্যবসায়ীরা এমন করেছেন।

jagonews24

শুক্রবার (৩ জুন) দুপুরে কৃষি মার্কেটে অভিযান চালায় অধিদপ্তর। এসময় দোকান ফেলেই ব্যবসায়ীরা যে যার মতো পালিয়ে যান। তাদের বারবার অনুরোধের পরও দোকানে আসেননি।

এদিকে অভিযানের সময় দেখা যায়, অনেক দোকানে চালের মূল্য তালিকায় অসঙ্গতি। ফলে সেখানে আনোয়ার ট্রেডার্সকে ৫০ হাজার, মদিনা রাইস এজেন্সিকে ৫০ হাজার ও সাইকা রাইস এজেন্সি নামের তিনটি দোকানসহ মোট এক লাখ ২০ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

jagonews24

এর আগেও ৩১ মে একই মার্কেটে অভিযান চালিয়েছিল ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর। তখনও চাল রেখে পালিয়ে যান ব্যবসায়ীরা। তখন দুই চালের দোকানকে চার হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের উপ-পরিচালক বিকাশ চন্দ্র দাস জাগো নিউজকে বলেন, আমরা আজ এসেছি চালের দাম কেন বেড়েছে, তার খোঁজ নিতে। আমাদের আসার খবর পেয়ে অনেক ব্যবসায়ী দোকান থেকে পালিয়ে যান।

তিনি বলেন, চাল যে দামে কেনে, সেখান থেকে দোকান পর্যন্ত আসতে প্রতি কেজিতে ব্যবসায়ীদের আরও দুই টাকা খরচ হয়। পরে এক টাকা (প্রতি কেজি) লাভে সেই চাল বিক্রি করেন তারা। যদিও মূল্য তালিকায় প্রতি কেজিতে ১০-১২ টাকা বেশি দেখা গেছে।


আরও খবর



পূর্বাচলে নতুন ডিপ্লোমেটিক জোন গঠনে ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে

প্রকাশিত:Sunday ২৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৭জন দেখেছেন
Image

রাজউকের মাধ্যমে পূর্বাচলে নতুন ডিপ্লোমেটিক জোন হিসেবে চিহ্নিত করার ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছেন পররাষ্ট্রমন্ত্রী ড. এ কে আব্দুল মোমেন। অদূর ভবিষ্যতে বাংলাদেশে অনেক দেশেরই মিশন খোলার আগ্রহ রয়েছে বলে জানান তিনি।

রোববার (২৬ জুন) জাতীয় সংসদ অধিবেশনে প্রশ্নোত্তর পর্বে তিনি এ তথ্য জানান। স্পিকার ড. শিরীন শারমিন চৌধুরীর সভাপতিত্বে অধিবেশনে এ সংক্রান্ত প্রশ্নটি উত্থাপন করেন সরকারি দলের সংসদ সদস্য মো. মোজাফফর হোসেন।

লিখিত জবাবে মন্ত্রী বলেন, পর্যায়ক্রমে বাংলাদেশে যেসব দেশ ভাড়ায় তাদের অফিস পরিচালনা করছে একময় তাদেরকেও অফিসভবন নির্মাণের জন্য নতুন জমির দাবি উঠতে পারে। এ কারণেই নতুন ডিপ্লোমেটিক জোন করার সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে।

পররাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, বর্তমান গুলশান ও বারিধারা এলাকায় কূটনৈতিক মিশনের জন্য বরাদ্দ দেওয়ার মতো জায়গা খালি নেই। রাজধানী উন্নয়ন কর্তৃপক্ষ (রাজউক) তার শহর সম্প্রসারণ পরিকল্পনার অংশ হিসেবে পূর্বাচলে ডিপ্লোমেটিক জোন গঠনের ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। গুলশান ও বারিধারা এলাকায় মিশনসমূহকে বরাদ্দ দেওয়ার মতো জমির সংকট থাকায় এ ব্যবস্থা নেওয়া হয়েছে। পূর্বাচলের ২৭ নং সেক্টরে ডিপ্লোমেটিক জোন করার জন্য প্লট নির্ধারিত রয়েছে। বিদেশি মিশনগুলো সম্মত হলে প্রক্রিয়াটি দ্রুত গতিতে শুরু করা যাবে।

তিনি বলেন, প্রতি বছরই বিভিন্ন দেশ থেকে বাংলাদেশে নতুন নতুন কূটনৈতিক মিশন খোলার বিষয়ে আগ্রহ দেখা যাচ্ছে। আন্তর্জাতিক সংস্থাসমূহও বাংলাদেশে সক্রিয়ভাবে কাজ করতে আগ্রহ প্রকাশ করছে। এসব আন্তর্জাতিক সংস্থা এবং মিশনগুলোকে প্রদেয় নিজস্ব অফিসভবন নির্মাণের ক্ষেত্রে প্রধানমন্ত্রীর একটি অগ্রাধিকারমূলক যৌক্তিক নির্দেশ রয়েছে। কারণ সমগ্র বিশ্বেই জমির দাম ও ভাড়া করা অফিসের মূল্য উত্তরোত্তর বৃদ্ধি পাচ্ছে।

মন্ত্রী আরও বলেন, দূতাবাস ভবনের জন্য ভূমি বিনিময় এখন একটি যৌক্তিক রাষ্ট্রাচারে পরিণত হয়েছে। এক্ষেত্রে আমরা বেশ কয়েকটি দেশের সঙ্গে ভূমি বিনিময় কার্যক্রম সম্পন্ন করেছি। এই মুহূর্তেও কিছু কার্যক্রম চলমান রয়েছে। তারই ধারাবাহিকতায় ভিয়েনা কনভেনশন-১৯৬১ অনুযায়ী বিদেশি মিশনগুলোকে তাদের নিজস্ব ভবন তৈরির ক্ষেত্রে নতুন করে জমি বরাদ্দ দেওয়া প্রয়োজন।


আরও খবর



কুমিল্লা নির্বাচনে বাড়ছে অপরাধী প্রার্থী: সুজন

প্রকাশিত:Monday ১৩ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

কুমিল্লা সিটি করপোরেশন (কুসিক) নির্বাচনকে কেন্দ্র করে অতীতের নির্বাচন ও আগামী নির্বাচনের প্রতিদ্বন্দ্বিতাকারী প্রার্থীদের ওপর জরিপ চালিয়ে তথ্য প্রকাশ করেছে সুশাসনের জন্য নাগরিক (সুজন)। জরিপে— শিক্ষিত, অপরাধের সঙ্গে জড়িত ও মামলা আছে এমন ব্যক্তির সংখ্যা বেড়েছে বলে জানিয়েছে সুজন।

সোমবার (১৩ জুন) জাতীয় প্রেস ক্লাবের জহুর হোসেন চৌধুরী হলে আয়োজিত সংবাদসম্মেলনে এ তথ্য প্রকাশ করেন সুজনের কেন্দ্রীয় প্রধান সমন্বয়ক দিলীপ কুমার সরকার।

সংবাদ সম্মেলনে কুসিক নির্বাচনে মেয়র পদে পাঁচজন, সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর পদে ১০৬ জন এবং সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর পদে ৩৬ জনসহ মোট ১৪৭ জন প্রার্থীর সাত ধরনের তথ্য উপস্থাপন করে সুজন। এর মধ্যে প্রার্থীদের শিক্ষাগত যোগত্যা, পেশা সংক্রান্ত, মামলা সংক্রান্ত তথ্য, প্রার্থী ও নির্ভরশীলদের বাৎসরিক আয়, সম্পদের তথ্য, বাৎসরিক গড় সম্পদ, দায়-দেনা ও ঋণ সংক্রান্ত তথ্য উল্লেখ করা হয়।

প্রার্থীর শিক্ষাগত যোগ্যতা
৫ জন মেয়রপ্রার্থীর মধ্যে একজন স্নাতকোত্তর, দুইজন স্নাতক, একজন এইচএসসি ও একজন এসএসসি পাস। ১০৫ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ৩০ জন এসএসসির (মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট) নিচে, ১৫ জন এসএসসি, ২৩ জন এইচএসসি (উচ্চ মাধ্যমিক স্কুল সার্টিফিকেট), স্নাতক ২৭ জন ও একজন স্নাতকোত্তর পাস। এ ছাড়া কয়েকজন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থী শিক্ষাগত যোগ্যতার ঘর পূরণ করেননি।

অন্যদিকে, ৩৬ জন সংরক্ষিত আসনের কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে ৩৪ জন তথ্য পাওয়া গেছে। তাদের মধ্যে এসএসসির নিচে নয়জন, সাতজন এসএসসি, সাতজন এইচএসসি, স্নাতক ছয়জন ও তিনজন স্নাতকোত্তর পাস। বাকি দুইজন শিক্ষাগত যোগ্যতার ঘর পূরণ করেননি।

বিশ্লেষণে অন্যান্য নির্বাচনের মতো কুমিল্লা সিটি করপোরেশন নির্বাচনেও ব্যবসায়ীদের সংখ্যা বেশি। তবে বিগত নির্বাচনের তুলনায় এ হার কমে ৬৭ শতাংশ থেকে ৫৯ শতাংশ হয়েছে।

মামলা ও অপরাধ সংক্রান্ত তথ্যে বলা হয়েছে, পাঁচজন মেয়রপ্রার্থীর মধ্যে চারজনের ফৌজদারি মামলা সংশ্লিষ্টতা পাওয়া গেছে। অন্যদিকে, ১০৫ জন সাধারণ ওয়ার্ড কাউন্সিলর প্রার্থীর মধ্যে বর্তমানে মামলা আছে ৩১ জনের। অতীতে মামলা ছিল ৩৫ জনের বিরুদ্ধে। বর্তমানে ৩০২ ধারায় মামলা আছে ৫ জনের বিরুদ্ধে, অতীতে ছিল ৪ জনের বিরুদ্ধে। ৩৪ জন সংরক্ষিত আসনের প্রার্থীর মধ্যে মাত্র একজনের বিরুদ্ধে বর্তমানে মামলা আছে এবং একজনের বিরুদ্ধে অতীতে মামলা ছিল।

সুজন বলছে, আগের নির্বাচনের সঙ্গে তুলনা করলে দেখা যায়, অতীত-বর্তমান এমনকি উভয় সময়ে মামলা-সংশ্লিষ্ট প্রার্থীর হার বেড়েছে। তার অর্থ এ দাড়ায় যে, অপরাধ সংশ্লিষ্ট ব্যক্তিদের নির্বাচনে অংশগ্রহণের প্রবণতা বাড়ছে।


আরও খবর



জুমা পড়লেই পাবেন জান্নাতের যে পুরস্কার

প্রকাশিত:Friday ২৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

জুমা আদায়কারী ব্যক্তির মনোরঞ্জনের জন্য বিশেষ সুখবরের ঘোষণা এসেছে হাদিসে। যারা দুনিয়াতে জুমা পড়বেন, তারা জান্নাতেও জুমার দিন একত্রিত হবেন। হাদিসের বর্ণনায় সে ঘটনা এভাবে ওঠে এসেছে-

‘জান্নাতেও প্রত্যেক জুমার দিন জান্নাতি ব্যক্তিদের হাট বসবে। জান্নাতি লোকেরা প্রত্যেক সপ্তাহে সেখাবে একত্রিত হবে। তখন সেখানে এমন মনমুগ্ধকর বাতাস প্রবাহিত হবে, যে বাতাসে জান্নাতিদের সৌন্দর্য অনেক গুণে বেড়ে যাবে। আর তাদের স্ত্রীরা তাদের সৌন্দর্য দেখে অভিভূত হয়ে যাবে। (শুধু তাই নয়, ওই সব ব্যক্তিদের) স্ত্রীদের বেলায়ও অনুরূপ সৌন্দর্য বেড়ে যাবে (যা দেখে জান্নাতি ব্যক্তিরাও অভিভূত হয়ে যাবে)।’ (মুসলিম)

দুনিয়াতে মানুষ যেভাবে সুন্দর ও উত্তম পোশাকে সজ্জিত হয়ে জুমার নামাজ আদায় করে। ঠিক জান্নাতেও আল্লাহ তাআলা তার ওই সব জান্নাতি বান্দাকে জান্নাতের মনমুগ্ধকর বাতাস ও সৌন্দর্য দ্বারা আলোকিত করে দেবেন। তাদের স্ত্রীদের রূপ সৌন্দর্যও বাড়িয়ে দেবেন। যাতে তারা তা উপভোগ করতে পারে।

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দুনিয়াতে উত্তম ও যথাযথভাবে জুমার নামাজ আদায় করার তাওফিক দান করুন। উত্তম রিজিক ও সর্বোত্তম প্রতিদান লাভের তাওফিক দান করুন। হাদিসের ওপর যথাযথ আমল করার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর



মাদককাণ্ডে জামিনে মুক্ত শক্তি কাপুরের ছেলে

প্রকাশিত:Tuesday ১৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

মাদক সেবনের অভিযোগে গ্রেফতার করা হয়েছিল প্রবীণ অভিনেতা শক্তি কাপুরের ছেলে সিদ্ধান্ত কাপুরকে। সোমবার রাতে তিনিসহ ওই ঘটনায় গ্রেপ্তার পাঁচজন মুক্তি পান বলে পুলিশের বরাত দিয়ে জানিয়েছে ভারতীয় গণমাধ্যম হিন্দুস্তান টাইমস ।

বেঙ্গালুরু সিটি পুলিশের ডেপুটি কমিশনার (পূর্ব) ভীমশঙ্কর এস গুলেদ বলেন, সিদ্ধান্ত কাপুরসহ পাঁচজনকে জামিনে মুক্তি দেয়া হয়েছে। তবে পুলিশ ডাকলে তাদের থানায় উপস্থিত হতে হবে।

শহরের একটি পার্টি থেকে রোববার রাতে ওই পাঁচজনকে গ্রেপ্তার করে পুলিশ। সোমবার বিষয়টি নিশ্চিত করা হয়।

পুলিশ জানিয়েছে, গোপন সংবাদে পুলিশ শহরের এমজি রোডের একটি হোটেলে অভিযান চালায়। সেখানে একটি পার্টির আয়োজন করা হয়েছিল।

এর আগে ২০২০ সালে সুশান্ত সিং রাজপুত মৃত্যুর মামলায় যে কজন তারকাকে মাদকদ্রব্য নিয়ন্ত্রণ ব্যুরো জিজ্ঞাসাবাদ করেছিল, তাদের মধ্যে শ্রদ্ধা কাপুরও ছিলেন।


আরও খবর