Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম

সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কোনো আপস নয়, প্রয়োজনে পদত্যাগ: ইসি আলমগীর

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৬ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৩৭৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: নির্বাচন কমিশনার (ইসি) মো. আলমগীর বলেছেন, ‘সুষ্ঠু নির্বাচনের স্বার্থে কোনো কম্প্রোমাইজ (আপস) করব না। প্রয়োজনে নির্বাচন কমিশনারের দায়িত্ব থেকে আমরা সরে যাব। আমাদের কম্প্রোমাইজ করতে হলে এ চেয়ারে দেখবেন না। আমরা যে কাজের জন্য শপথ করেছি সেটা যদি না-ই করতে পারি তাহলে এই চেয়ারে থাকব কেন

আজ বৃহস্পতিবার রাজধানীর আগারগাঁওয়ের নিজ কার্যালয়ে সাংবাদিকদের প্রশ্নের জবাবে তিনি এসব কথা বলেন।

ইসি আলমগীর বলেন, ‘আমাদের কমিশনে যারা আছি সকলের মনোভাব একইরকম। আমরা সুষ্ঠু নির্বাচন করতে পারব না, এটা বিশ্বাস করি না। প্রয়োজনে দায়িত্ব থেকে সরে যাব। দেশি-বিদেশি কেউ কোনো চাপ দেয় না।

দলীয় সরকারের অধীনে ভোট সুষ্ঠু হবে না- এ ধারণা ভাঙার দায়িত্ব কার? এমন প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, ‘এটা ভাঙার দায়িত্ব রাজনীতিবিদদের। এখানে নির্বাচন কমিশনের কিছু করার নেই। এটা রাজনৈতিক সমস্যা। রাজনৈতিক সমস্যা, রাজনৈতিকভাবে সমাধান করতে হবে। এ বিষয়টিতে আমাদের কিছু করার নেই। সংবিধানও সেই দায়িত্ব আমাদের দেয়নি।

নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব সম্পর্কে এ নির্বাচন কমিশনার বলেন, ‘নির্বাচন কমিশনের দায়িত্ব হচ্ছে ভোট সুষ্ঠুভাবে পরিচালনা করা। নির্বাচনের তফসিল ঘোষণার আগে থেকেই লেভেল প্লেয়িং ফিল্ড নিশ্চিত করা। নির্বাচনে যারা অংশ নেবেন তারা যেন স্বাধীনভাবে প্রচার করতে পারেন, ভোটাররা যাতে ভোটকেন্দ্রে এসে তাদের ইচ্ছেমত পছন্দের প্রার্থীকে ভোট দিতে পারেন, ভোট গণনা যাতে সুষ্ঠুভাবে হয়, নির্বাচনের ফলে যাতে ভোটারদের ইচ্ছার প্রতিফলন ঘটে, সেসব বিষয় নিশ্চিত করা আমাদের দায়িত্ব।

তিনি বলেন, ‘আমরা সে দায়িত্ব পালনের প্রতি শতভাগ অঙ্গীকারবদ্ধ রয়েছি। আমরা সেটা করব। আমরা শুধু এটুকু বলতে পারি, যে ধরনের সরকারই থাকুক না কেন বর্তমান ইসি শতভাগ সৎ, নিরপেক্ষ নির্বাচন করবে।’


আরও খবর



জয়পুরহাটে শেষ হলো তিন দিন ব্যাপী মোবাইল জার্নালিজম প্রশিক্ষণ

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৩০জন দেখেছেন

Image
এস এম শফিকুল ইসলাম জয়পুরহাট প্রতিনিধিঃজয়পুরহাটে শেষ হলো তিন দিন ব্যাপী মোবাইল জার্নালিজম প্রশিক্ষণ ।শুক্রবার (২৪ মে) বিকেলে জয়পুরহাট  সদর উপজেলা পরিষদ মিলনায়তনে সরকারের তথ্য ও সম্প্রচার মন্ত্রণালয়ের অধীন প্রেস ইন্সটিটিউট বাংলাদেশ (পিআইবি)’র আয়োজনে সমাপনী অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্য দেন স্থানীয় সংসদ সদস্য ও স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত স্থায়ী কমিটি সদস্য এ্যাড. সামছুল আলম দুদু।

এসময় অন্যান্যদের মধ্যে বক্তব্য রাখেন জয়পুরহাট সদর উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান এস এম সোলাইমান আলী ও পিআইবির প্রশিক্ষক মোহাম্মদ শাহ আলম।

এসময় প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়া জেলার দায়িত্ব পালন করা ৩০জন ইলেকট্রনিক  ও প্রিন্ট মিডিয়ার সাংবাদিকদের হাতে সনদপত্র তুলে দেন প্রধান অতিথি।

প্রশিক্ষণে অংশ নেওয়া  সাংবাদিকদের মোবাইলে কনটেন্ট সংরক্ষণ ও তথ্য যাচাইকরণ, মোবাইল ক্যামেরার ফ্রেমিং এবং ভিডিও ধারণের ব্যবহারিক কৌশল সম্পর্কে ধারনা দেওয়া হয়।

আরও খবর



শাকিব খান কত কোটি টাকার মালিক?

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৫৬জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:তারকাদের অর্থ-সম্পর্দের হিসাব কম-বেশি সবার জানা।একাধিক খবর পাওয়া যাবে গুগলে সার্চ করলে এ সম্পর্কিত । বাংলাদেশের সুপারস্টার শাকিব খানের সম্পত্তির পরিমাণ কত? আপনি কি জানেন  এ সম্পর্কিত ঢালাও কোনো তথ্য না থাকলেও সম্প্রতি বিষয়টি নিয়ে জোর চর্চা হচ্ছে।

শাকিবের ‘তুফান’ সিনেমা সদ্য মুক্তি পেয়েছে। প্রেক্ষাগৃহে ভিড় করছেন দর্শক অ্যাকশন আর মিমি চক্রবর্তীর সঙ্গে তার রসায়ন দেখতে । এর মাঝেই প্রকাশ্যে আসল কিং খানের সম্পত্তির পরিমাণ।

ভারতীয় গণমাধ্যমের প্রতিবেদন থেকে জানা গেছে, এই মুহূর্তে শাকিব ২০ মিলিয়ন ডলারের মালিক। যা বাংলাদেশি মুদ্রায় ২৩৫ কোটি টাকার বেশি। এ ছাড়া তার সম্পত্তির পরিমাণও বিস্তর। তবে প্রকাশিত তথ্যটির সত্যতা নিয়ে প্রশ্ন থেকেই যায়।

অভিনয় ছাড়াও বিভিন্ন ইভেন্ট-বিজ্ঞাপন থেকে আয় করেন শাকিব। নানা ব্র্যান্ডের সঙ্গেও যুক্ত তিনি। আছে ব্যবসাপ্রতিষ্ঠান।

সম্প্রতি চলচ্চিত্রজগতে পথচলার ২৫ বছর পার করলেন শাকিব খান। এর মধ্যে দেড় দশকেরও বেশি সময় ধরে শীর্ষ নায়ক হিসেবে ঢালিউডে রাজত্ব করছেন তিনি।


আরও খবর



মাগুরায় ১ লাখ ১৯৫৯৩ জন শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৭৪জন দেখেছেন

Image

স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরা জেলার ৪ উপজেলায় আগামী ১ জুন ১ লাখ ১৯ হাজার ৫৯৩   শিশুকে ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। মাগুরার সিভিল সার্জন ডাঃ মোঃ শামীম কবির তার সম্মেলন কক্ষে আয়োজিত সংবাদ সম্মলনে এ কথা জানান। জাতীয় ভিটামিন এ প্লাস ক্যাম্পেইন বাস্তবায়ন উপলক্ষে ২৯ মে বুধবার বিকেল ৩ টায় এ সম্মেলনের আয়োজন করা হয়। সংবাদ সম্মেলনে জানান হয় জেলায় মোট ৯৪০ টি কেন্দ্রের মাধ্যমে ১ লাখ ১৯ হাজার ৫৯৩  জন শিশুকে  ভিটামিন এ প্লাস খাওয়ানো হবে। দিনব্যাপী এ কর্মসুচি বাস্তবায়নে ২ হাজার ২৭১  জন    কর্মী   নিয়োজিত থাকবে। এ সময় অন্যান্যের মধ্যে   উপস্থিত ছিলেন   ডাঃ  সিনিয়র স্বাস্থ্য শিক্ষা কর্মকর্তা জিল্লুর রহমান,ডাঃ মোঃ এজাজ আহম্মেদ রোচি,ডাঃ রোকেয়া শান্তা।

সংবাদ সম্মলনে জেলায় কর্মরত প্রেস ও ইলেকট্রনিক্স মিডিয়ার ৪০  জন সাংবাদিক উপস্থিত ছিলেন।

আরও খবর



আক্কেলপুরে মুক্তিযোদ্ধা গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৬৫জন দেখেছেন

Image

নিশাত আনজুমান, আক্কেলপুর(জয়পুরহাট) প্রতিনিধি:জয়পুরহাটের আক্কেলপুরে রায়কালী ইউনিয়নের আমির উদ্দীনকে অ-মুক্তিযোদ্ধা দাবী করে জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল কর্তৃক তাকে মুক্তিযোদ্ধা হিসেবে গেজেট প্রদানের প্রতিবাদে ও গেজেট বাতিল চেয়ে সংবাদ সম্মেলন ও প্রতিবাদ সমাবেশ হয়েছে। সোমবার বেলা ১১ টায় রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  আয়োজনে এই সংবাদ সম্মেলন হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন জয়পুরহাট জেলা ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আমজাদ হোসেন, উপজেলা বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান, রেলওয়ে মুক্তিযোদ্ধা সংসদের ইউনিট কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আব্দুল বারি, রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম, যুদ্ধকালীন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা আজাদ আশাদুজ্জামান সহ আরো অনেক বীরমুক্তিযোদ্ধা ও তাদের পরিবারের সদস্যরা। এসময় লিখিত বক্তব্য পাঠ করেন রায়কালী ইউনিয়ন কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা শামছুল আজম।

লিখিত বক্তব্যে তিনি বলেন, আমির উদ্দীনের বিরুদ্ধে ২০১৭ সালে উপজেলা যাচাই-বাছাই কমিটির নিকট আমরা একটি অভিযোগ করি, সেই কমিটিতে আমির উদ্দীন কোন স্বাক্ষী ও কাগজপত্র দেখাতে পারেনি। সেই সময় তাকে বাতিল বলে গণ্য করা হয়। পরবর্তীতে সে যোগসাযোজ করে জা,মু,কা (জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিল) থেকে গেজেট পাশ করে নিয়ে আসে। তার গেজেট বাতিলের জন্য আমরা জাতীয় মুক্তিযোদ্ধা কাউন্সিলের মহাপরিচালক বরাবর ও আক্কেলপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার বরাবর লিখিতও দিয়েছিলাম। আসলে সে কোন প্রকৃত মুক্তিযোদ্ধা নয়, তিনি বাংলাদেশের অভ্যন্তরে বা ভারতে কোন ক্যাম্পেই ভর্তি হননি। আমরা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের সকলেই চাই অবিলম্বে তার এই গেজেটটি বাতিল করা হোক।  

সংবাদ সম্মেলন শেষে বীর মুক্তিযোদ্ধারা রায়কালী ইউনিয়ন মুক্তিযোদ্ধা সংসদের  সামনে আমির উদ্দীনের গেজেট বাতিলের জন্য স্লোগান দিয়ে মানববন্ধন ও র‌্যালি করেছেন।
উপজেলার বর্তমান দায়িত্বপ্রাপ্ত কমান্ডার বীরমুক্তিযোদ্ধা নবীবুর রহমান বলেন, তিনি কোন যুদ্ধেই অংশগ্রহণ করেননি। তিনি অপচেষ্টার মাধ্যমে গেজেটে নাম ঢুকিয়েছেন। আমারা তার গেজেট বাতিল চাই। 

অভিযুক্ত অবসরপ্রাপ্ত শিক্ষক আমির উদ্দীন উপজেলার রায়কালী ইউনিয়নের চিয়ারিগ্রামের বাসিন্দা এবং ওই ইউনিয়নের ইউপি সদস্য।অভিযুক্ত আমির উদ্দীন বলেন, ১৯৭১ সালে ১৫ সেপ্টেম্বর ভারতের ত্রিমুনী ক্যাম্পে মুক্তিযুদ্ধে অংশগ্রহণের জন্য ভর্তি হই এবং আমার রেজি নং: ৪১৬। সেখোন থেকে এসে আমি চিয়ারিগ্রাম, গুডুম্বা, ঢেকুঞ্চা মাঠে হানাদার বাহিনীর সাথে মুখোমুখী যুদ্ধ করি। সেই যুদ্ধ দুপচাঁচিয়া গিয়ে শেষ হয়। আমার বিরুদ্ধে করা অভিযোগ সত্য নয়। আমার কাছে এক মুক্তিযোদ্ধা ৫ লক্ষ টাকা দাবী করেছিল, সেই টাকা না দেওয়ায় তারা একত্রিত হয়ে আমার বিরুদ্ধে আভিযোগ করছে।

আরও খবর



স্বাস্থ্যমন্ত্রীর রাসেলস ভাইপার নিয়ে জরুরি নির্দেশনা

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৪৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণমন্ত্রী ডা. সামন্ত লাল সেন সারাদেশের হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত এন্টিভেনম মজুদ রাখার নির্দেশ দিয়েছেন ।

আজ শনিবার সকাল ১০টায় সারাদেশের সিভিল সার্জন, পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা, বিভাগীয় পরিচালক, মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালকদের সঙ্গে অনলাইন প্লাটফর্ম জুম মিটিংয়ে তিনি এ নির্দেশনা দেন।

সভায় স্বাস্থ্যমন্ত্রী দেশের বিভিন্ন জেলার সিভিল সার্জন ও মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের পরিচালক, বিভাগীয় পরিচালকদের সঙ্গে সর্পদংশন ও রাসেলস ভাইপার নিয়ে কথা বলেন এবং সামগ্রিক পরিস্থিতি নিয়ে খোজ খবর নেন।

স্বাস্থ্যমন্ত্রী বলেন, ‘রাসেল'স ভাইপার নিয়ে স্বাস্থ্যমন্ত্রী হিসেবে আমি জনগণকে বলব আপনারা আতংকিত হবেন না। রাসেলস ভাইপারের যে এন্টিভেনম সেটা আমাদের হাসপাতালগুলোতে পর্যাপ্ত মজুদ আছে। আমি পরিষ্কার নির্দেশ দিয়েছি কোনো অবস্থাতেই এন্টিভেনমের ঘাটতি থাকা যাবে না।’

স্বাস্থ্যমন্ত্রী আরও বলেন, সর্পদংশনের ক্ষেত্রে সবচেয়ে গুরুত্বপূর্ণ বিষয় হচ্ছে রোগীকে দ্রুত ডাক্তারের কাছে নিয়ে যাওয়া। অনতিবিলম্বে ডাক্তারের কাছে নিয়ে গেলে যথাযথ চিকিৎসার মাধ্যমে রোগীকে সম্পূর্ণ সুস্থ করে তোলা সম্ভব।

তিনি বলেন, সর্পদংশনের বিষয়ে জনগণকে সচেতন করা খুবই জরুরি। রোগীকে হাসপাতালে আনতে যাতে দেরি না হয় সে বিষয়ে সবাইকে সচেতন ও উদ্বুদ্ধ করতে হবে।

সভায় স্বাস্থ্যসেবা স্বাস্থ্য সেবা বিভাগের সচিব মো. জাহাঙ্গীর আলম, স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের পরিচালক প্রফেসর ডা. রুবেদ আমিনসহ স্বাস্থ্য বিভাগের বিশেষজ্ঞ ব্যক্তিরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর