Logo
আজঃ শুক্রবার ০৯ জুন ২০২৩
শিরোনাম

সুপ্রিম কোর্ট বার নির্বাচন বাতিল চায় বিএনপি

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৭ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:শুক্রবার ০৯ জুন ২০২৩ | ১২৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচন বাতিলের দাবি জানিয়েছে বিএনপি। দলটির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর এ দাবি জানান। পাশাপাশি নির্বাচন ঘিরে উদ্ভুত পরিস্থিতিতে প্রধান বিচারপতির উদ্যোগ চান তিনি।

আজ শুক্রবার নয়াপল্টনে বিএনপির কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে এক সংবাদ সম্মেলনে মির্জা ফখরুল এ দাবি করেন।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আওয়ামী লীগ সরকারের অধীনে কোনো নির্বাচনই সম্ভব নয়। এদের চরিত্র হয়ে গেছে যে, তারা জোর করে সব কিছু দখলে করে নিবে। যখনই তারা ক্ষমতায় থাকবে, আর সে সময় যেখানেই নির্বাচন হবে, সব নির্বাচনই তারা নিয়ন্ত্রণে নেবে এবং তাদের প্রার্থীদের জয়ী ঘোষণা করবে। সুতরাং কোনো মতেই এ সরকারের অধীনে গণতান্ত্রিক নির্বাচন সম্ভব না।’

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘রাজনৈতিকভাবে আওয়ামী লীগ আজ এমন একটি দেউলিয়া দলে পরিণত হয়েছে যে- আইনজীবী সমিতির নির্বাচনেও পুলিশ, বহিরাগতদের ব্যবহার করে নিজেদের প্রার্থীদের বিজয়ী ঘোষণা করতে হয়। এটা বড়ই লজ্জার বিষয়। আমি প্রত্যাশা করি প্রধান বিচারপতি যিনি রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ বিচারালয় সুপ্রিম কোর্টের পবিত্রতা রক্ষায় এগিয়ে আসবেন এবং প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করবেন।

একই সঙ্গে সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির ‘একতরফা’ নির্বাচনের ফলাফল বাতিল ও নতুন নির্বাচনের দাবিও জানান বিএনপি মহাসচিব।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আইনগতভাবে কোনো নির্বাচন না হলেও নির্বাচনের নাটক সাজিয়ে একতরফাভাবে ক্ষমতাসীন দলের প্রার্থীদের অবৈধভাবে নির্বাচিত ঘোষণা করা হয়েছে। আমি অবিলম্বে সুপ্রিম কোর্টে যে তথাকথিত নির্বাচন হয়েছে তা বাতিল করে, আবারও নতুন ভাবে সুষ্ঠু নির্বাচন অনুষ্ঠানের দাবি জানাচ্ছি।

তিনি বলেন, ‘আমরা মনে করি, সুপ্রিম কোর্ট আইনজীবী সমিতির নির্বাচনকে কেন্দ্র করে ভোট ডাকাতিতে আওয়ামী লীগের যে চরিত্র, সেই মুখোশ আরেকবার উন্মোচিত হলো।

বিএনপি মহাসচিব বলেন, ‘আমরা কল্পনাও করতে পারি না সুপ্রিম কোর্টে পুলিশ ঢুকে আইনজীবীদের আক্রমণ করবে। আমরা যখন ছাত্র ছিলাম, ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ভিসি কোনোদিন পুলিশ অ্যালাউ করতেন না। এখন বিশ্ববিদ্যালয়ে পুলিশ সবচেয়ে বেশি তাণ্ডব চালায়। এতোদিন সুপ্রিম কোর্ট বাইরে ছিল, কারণ সেখানে আমরা বিচারপ্রার্থী হই, মনে করতাম পুলিশ আমাকে এখানে কিছু করবে না। অথচ সেই জায়গাটাও প্রশ্নবিদ্ধ হয়ে গেল। এটা ছোট কথা নয়, হালকা করে দেখার বিষয় নয়।

বিএনপি মহাসচিব প্রশ্ন করে বলেন, ‘এসব ঘটনায় রাষ্ট্রের চরিত্র কী দাঁড়াচ্ছে? আমরা যেটা বলছি যে, এটা একটা ব্যর্থ রাষ্ট্রে পরিণত হচ্ছে তারই প্রমাণ দেখা গেলো।

মির্জা ফখরুল বলেন, ‘আমি আবারও পূনর্ব্যক্ত করতে চাই যে, এখন রাষ্ট্রের বিভিন্ন বিভাগে যারা দায়িত্বরত রয়েছেন, কর্মরত রয়েছেন তাদের পবিত্র কর্তব্য এই রাষ্ট্রকে রক্ষা করা। আমি বাংলাদেশকে রক্ষায়, এসব প্রতিষ্ঠানগুলোকে রক্ষায় সংশ্লিষ্ট সকলকে এগিয়ে আসার আহ্বান জানাবো।

তিনি বলেন, ‘আমরা বার বার বলে এসেছি যে, বাংলাদেশ এখন আর সত্যিকার অর্থে কার্যকর গণতান্ত্রিক রাষ্ট্র নেই। দেশে যত গণতান্ত্রিক প্রতিষ্ঠান রয়েছে সবই আওয়ামী লীগ সরকার পরিকল্পিতভাবে ধবংস করে দিচ্ছে। তার ন্যাক্কারজনক উদারহরণ আমরা সর্বোচ্চ আদালতে দেখলাম। আওয়ামী লীগ মধ্যযুগীয় কায়দায় পুলিশ বাহিনীকে ব্যবহার করে পূর্বের সুনাম ধ্বংস করে দিয়েছে। আওয়ামী লীগ দেশে একদলীয় শাসন প্রতিষ্ঠা করতে চায়, বিচার বিভাগকে সম্পূর্ণ করায়াত্ব করে নিয়ে এখন বারগুলোকেও জোর করে দখল করে নিতে চায়।’

সংবাদ সম্মেলনে বিএনপির সহ দফতর সম্পাদক তাইফুল ইসলাম টিপু ও বিএনপি চেয়ারপারসনের প্রেস উইংয়ের সদস্য শামসুদ্দিন দিদার উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



মুম্বাইকে হারিয়ে ফাইনালে গুজরাট

প্রকাশিত:শনিবার ২৭ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুন ২০২৩ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

স্পোর্টস ডেস্ক: শুভমন গিলের অন্যবদ্য সেঞ্চুরি ও মোহিত শর্মার দারুণ বোলিংয়ে মুম্বাই ইন্ডিয়ান্সকে ৬২ রানে হারিয়ে টানা দ্বিতীয়বারের মতো আইপিএলের ফাইনালে পৌঁছে গেল গুজরাট টাইটান্স। আগামী রোববার শিরোপা লড়াইয়ে চেন্নাই সুপার কিংসের মুখোমুখি হবে গুজরাট। এই গুজরাটকেই প্রথম কোয়ালিফায়ারে হারিয়ে ফাইনালে উঠেছিল মহেন্দ্র সিং ধোনির দল।

শুক্রবার আসরের দ্বিতীয় কোয়ালিফায়ারে প্রথমে ব্যাট করা গুজরাট নির্ধারিত ২০ ওভার শেষে ৩ উইকেট হারিয়ে ২৩৩ রানের বিশাল সংগ্রহ গড়ে। জবাবে ১৮.২ ওভারে ১৭১ রানে গুটিয়ে যায় মুম্বাই।

টস হেরে প্রথমে ব্যাট করতে নামা গুজরাটের হয়ে গিল ফিফটি পূর্ণ করেন তিনি ৩২ বলে। এরপর তোলেন ঝড়। পরের পঞ্চাশ করতে লাগে স্রেফ ১৭ বল! ৪৯ বলে পূর্ণ করেন টি-টোয়েন্টিতে নিজের পঞ্চম সেঞ্চুরি। চার ইনিংসের মধ্যে তৃতীয় সেঞ্চুরিতে ৬০ বলে ১২৯ রানের ইনিংস খেলে গুজরাটের জয়ের নায়কদের একজন গিল। ১০ ছক্কা ও ৭ চারে গড়া তার ইনিংসটি

সপ্তদশ ওভারে ক্যাচ দিয়ে থামেন গিল। ভাঙে ৬৪ বলে ১৩৮ রানের জুটি। সুদর্শন রিটায়ার্ড আউট হয়ে ফেরেন ৩১ বলে ৪৩ রান করে। শেষ দিকে পান্ডিয়ার ১৩ বলে অপরাজিত ২৮ রানের ক্যামিওতে প্লে অফে সর্বোচ্চ রানের রেকর্ড গড়ে গুজরাট।

২৩৪ রানের লক্ষ্যে ব্যাট করতে নেমে প্রথম তিন ওভারের মধ্যে নেহাল ওয়াধেরা ও রোহিত শর্মাকে হারিয়ে বড় ধাক্কা খায় মুম্বাই। এর মাঝে পান্ডিয়ার বলে হাতে আঘাত পেয়ে ক্রিজে ছেড়ে যান গ্রিন। ফিল্ডিংয়ের সময় চোট পাওয়ায় ব‍্যাটিংয়েই নামতে পারেনি ইশান কিষান।

পাঁচ নম্বরে নেমে ঝড় তোলেন তিলক ভার্মা। মোহাম্মদ শামির এক ওভারে পাঁচটি চার ও একটি ছক্কায় তোলেন ২৪ রান। পাওয়ার প্লের পর আক্রমণে এসেই তিলকের ১৪ বলে ৪৩ রানের ইনিংস থামিয়ে দেন রশিদ খান। গ্রিন পরে আবার ব্যাটিংয়ে নামলেও ইনিংস বড় করতে পারেননি (২০ বলে ৩০)। মুম্বাইয়ের আশা বাঁচিয়ে রাখেন সূর্যকুমার যাদব। ফিফটি তুলে নেন তিনি ৩৩ বলে।

পঞ্চদশ ওভারে আক্রমণে এসে একই ওভারে সূর্যকুমার ও বিষ্ণু বিনোদকে ফিরিয়ে মুম্বাইকে ম্যাচ থেকে প্রায় ছিটকে দেন মোহিত। নিজের পরের ওভারে তিনি আবার ধরেন জোড়া শিকার। মাঝে রশিদ খান ফিরিয়ে দেন ডেভিডকে।

পরে কুমার কার্তিকেয়াকে ফিরিয়ে ম্যাচের ইতি টেনে দেওয়ার পাশাপাশি টি-টোয়েন্টি ক্রিকেটে প্রথমবার পাঁচ উইকেটের স্বাদ পান মোহিত।


আরও খবর



লোডশেডিং পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে কিছুটা সময় লাগবে: নসরুল হামিদ

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ জুন ২০২৩ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক: লোডশেডিংয়ের পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে কিছুটা সময় লাগবে বলে জানিয়েছেন বিদ্যুৎ, জ্বালানি ও খনিজসম্পদ প্রতিমন্ত্রী নসরুল হামিদ। আজ রোববার সচিবালয়ের নিজ কার্যালয়ে এক ব্রিফিংয়ে তিনি এসব কথা বলেন।

তিনি বলেন, সুখবর হচ্ছে মোখার যে ভয়াবহতা আশঙ্কা করা হয়েছিল সেটা কেটে গেছে। ক্ষয়ক্ষতির পরিমাণও খুব বেশি একটা হয়নি। খুব দ্রুতই বিদ্যুৎ ও গ্যাসের পরিস্থিতি ঠিক হয়ে যাবে।

প্রতিমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ে ভাসমান টার্মিনালের একটি লাইন থেকে খুলে গেছে, অন্যটি সংযুক্ত আছে। সংযুক্ত থাকা টার্মিনালের মাধ্যমে দুই একদিনের মধ্যেই গ্যাস সরবরাহ শুরু করা হবে। সংযোগহীন টার্মিনালের মেরামতের কাজ করতে ১২ থেকে ১৫ দিন সময় লাগবে। এতে ৪০০ এমএমসিএফ গ্যাসের ঘাটতি হতে পারে। ফলে কিছু কিছু জায়গায় লোডশেডিং হবে। তবে গতকালের (শনিবার) মতো বড় আকারে হবে না।

অন্যদিকে ‘মোখা’র প্রভাবে গ্যাসের সরবরাহ কমায় কয়েকটি বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করে দেওয়া হয়েছে বলে জানিয়েছে বিদ্যুৎ উন্নয়ন বোর্ড (পিডিবি)। সংস্থাটির কর্মকর্তারা বলছেন, চট্টগ্রাম, মেঘনাঘাট, হরিপুর ও সিদ্ধিরগঞ্জ এলাকায় গ্যাসচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র বন্ধ করা হয়েছে। ফলে গত শুক্রবার মধ্যরাত থেকেই বিদ্যুৎ উৎপাদন কমতে শুরু করেছে। চাহিদার তুলনায় বিদ্যুৎ সরবরাহের ঘাটতি তিন হাজার মেগাওয়াট ছাড়িয়ে গেছে। এতে লোডশেডিং বেশি হচ্ছে।

দিনে এখন বিদ্যুতের সর্বোচ্চ চাহিদা প্রায় ১৪ হাজার মেগাওয়াট। উৎপাদন হচ্ছে ১১ হাজার মেগাওয়াটের কম। গ্যাসচালিত বিদ্যুৎকেন্দ্র থেকে দিনে সাড়ে ছয় হাজার মেগাওয়াট বিদ্যুৎ উৎপাদন করা হলেও এখন হচ্ছে পাঁচ হাজার মেগাওয়াট।


আরও খবর



আজ থেকে আবারও শুরু হচ্ছে করোনার বুস্টার ডোজ

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ জুন ২০২৩ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:সারা দেশে আবারও শুরু হচ্ছে করোনাভাইরাসের টিকার তৃতীয় ও চতুর্থ ডোজের কার্যক্রম। প্রায় দেড় মাস বন্ধ থাকার পর বুধবার থেকে এ কার্যক্রম শুরু হচ্ছে।

মঙ্গলবার কোভিড-১৯ ফাইজার ভ্যারিয়েন্ট কনটেইনিং ভ্যাকসিন (ভিসিভি) কার্যক্রম সংক্রান্ত দিকনির্দেশনা বাস্তবায়ন প্রসঙ্গে দেওয়া এক নির্দেশনায় এসব তথ্য জানায় স্বাস্থ্য অধিদপ্তর।

বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের এমএনসিএএইচ’র লাইন ডিরেক্টর ডা. মোহাম্মদ নিজাম উদ্দিন।

বলা হয়েছে, বুধবার থেকে কোভিড-১৯ ফাইজার ভ্যারিয়েন্ট কনটেইনিং ড্যাকসিন কার্যক্রম শুরু হবে। বাংলাদেশ সরকারের স্বাস্থ্য ও পরিবার কল্যাণ মন্ত্রণালয়ের স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনামন্ত্রী গত ২৫ মে এ কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন। পরবর্তীতে এ কার্যক্রম পর্যায়ক্রমে দেশব্যপী প্রদান নিশ্চিতকল্পে নিম্নবর্ণিত অবশ্য পালনীয় নির্দেশনাসমূহ বাস্তবায়নের জন্য যথাযথ পদক্ষেপ গ্রহণে নির্দেশক্রমে অনুরোধ করা যাচ্ছে।

দ্বিতীয় ডোজ কোভিড-১৯ ভ্যাকসিন প্রদানের কমপক্ষে ৪ মাস তৃতীয় ডোজ (বুস্টার) ভ্যাকসিন প্রদান করতে হবে। তৃতীয় ডোজ প্রদানের কমপক্ষে ৪ মাস পর চতুর্থ ডোজ (বুস্টার) ভ্যাকসিন প্রদান করতে হবে।

৪র্থ ডোজ (বুস্টার) ভ্যাকসিন অগ্রাধিকারের ভিত্তিতে ৬০ বছর বা ঊর্ধ্ব জনগোষ্ঠী, দীর্ঘমেয়াদি রোগে আক্রান্ত ১৮ বছর বয়সী জনগোষ্ঠী, স্বল্প রোগ প্রতিরোধ ক্ষমতা সম্পন্ন জনগোষ্ঠী (ইম্যুনোকম্প্রোমাইজ), গর্ভবর্তী মা এবং ফ্রন্ট লাইনারদের ভিসিডি ভ্যাকসিন প্রদান করতে হবে।


আরও খবর



ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনের মামলা

ইভ্যালির রাসেল হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০৬ জুন ২০২৩ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ০৮ জুন ২০২৩ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

আদালত প্রতিবেদক:প্রতারণার মাধ্যমে গ্রাহকের টাকা আত্মসাতের অভিযোগে ডিজিটাল নিরাপত্তা আইন করা মামলায় হাইকোর্ট থেকে জামিন পেলেন ইভ্যালির প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা (সিইও) মো. রাসেল। আজ মঙ্গলবার বিচারপতি মোস্তফা জামান ইসলাম ও বিচারপতি মো. আমিনুল ইসলামের হাইকোর্ট বেঞ্চ এ আদেশ দেন।

আদালতে জামিন আবেদনের পক্ষে শুনানিতে ছিলেন জ্যেষ্ঠ আইনজীবী অ্যাডভোকেট আহসানুল করীম। শুনানিতে রাষ্ট্রপক্ষে ছিলেন ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পী।

অ্যাডভোকেট আহসানুল করিম বলেন, রাসেলের বিরুদ্ধে আরও মামলা থাকায় তিনি এখনই কারামুক্তি পাচ্ছেন না।

অন্যদিকে, ডেপুটি অ্যাটর্নি জেনারেল সারওয়ার হোসেন বাপ্পী বলেন, রাসেলের জামিন আদেশ স্থগিত চেয়ে আপিল বিভাগে আবেদন করা হবে।

২০২১ সালের ১৬ সেপ্টম্বর প্রতারণার অভিযোগে স্ত্রীসহ গ্রেপ্তার হন মো. রাসেল। পরে তার স্ত্রী জামিনে মুক্তি পান। ২০২১ সালের ৩০ সেপ্টেম্বর ইভ্যালির গ্রাহক মোহাম্মদ আলমগীর হোসেন বাদী হয়ে ওই দম্পতিসহ অজ্ঞাত ১৫ থেকে ২০ জনকে আসামি করে বাড্ডা থানায় মামলাটি করেন।

মামলায় বলা হয়, ২০২০ সালের ১ জানুয়ারি থেকে সেপ্টেম্বর পর্যন্ত ইভ্যালি থেকে ইলেকট্রনিক পণ্য কেনার জন্য বিকাশ ও নগদের মাধ্যমে ২৮ লাখ টাকা পাঠান অভিযোগকারী। ইভ্যালির অর্ডার দেওয়ার ৪৫ দিনের মধ্যে পণ্য ডেলিভারি দেওয়ার কথা থাকলেও ৭ মাস পেরিয়ে গেলেও তিনি তা পাননি।

চলতি বছরের ২ মার্চ ঢাকার সাইবার ট্রাইব্যুনালের বিচারক এ এম জুলফিকার হায়াত এ মামলায় অভিযোগ গঠন করে আদেশ দেন। মামলার তদন্তকারী কর্মকর্তা, পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) উপপরিদর্শক (এসআই) প্রদীপ কুমার দাস গত বছরের ১৬ সেপ্টেম্বর আদালতে অভিযোগপত্র দাখিল করেন।


আরও খবর



সৌদির বড় বড় কোম্পানিগুলো বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে

প্রকাশিত:রবিবার ২১ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ০৭ জুন ২০২৩ | ৭৪জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:কুয়েতের পরে বাংলাদেশ দ্বিতীয় দেশ যেখানে মোবাইল ওমরাহ ভিসা কার্যকর করা হয়েছে বলে জানিয়েছেন বাংলাদেশে নিযুক্ত সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত ঈসা ইউসেফ ঈসা আল-দুহাইলান। এ সময় দেশটির বড় বড় অনেক কোম্পানি বাংলাদেশে বিনিয়োগে আগ্রহ দেখাচ্ছে বলেও জানান তিনি।

রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে আজ রোববার সৌজন্য সাক্ষাতে এসব কথা বলেন সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত। এদিন দুপুরে বঙ্গভবনে এই সাক্ষাৎ অনুষ্ঠিত হয়।

সাক্ষাৎকালে রাষ্ট্রপতি বলেন, সৌদি আরবের সঙ্গে বাংলাদেশের সম্পর্ক অত্যন্ত চমৎকার। এ সময় বাংলাদেশিদের জন্য হজ প্রক্রিয়া সহজ করা এবং ই-ভিসা চালু করায় সৌদি সরকারকে ধন্যবাদ জানান তিনি।

সৌদি আরব বাংলাদেশের জনশক্তি রপ্তানির সবচেয়ে বড় গন্তব্য উল্লেখ করে মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, সৌদি আরবে প্রবাসী বাংলাদেশিরা উভয় দেশের অর্থনৈতিক উন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা রাখছে। দুদেশের মধ্যে বাণিজ্য বিনিয়োগ বাড়াতে সরকারি ও বেসরকারি পর্যায়ে পারস্পরিক সফর বিনিময়ের উপর জোর দেন তিনি।

সাক্ষাৎকালে বাংলাদেশের সঙ্গে সম্পর্ক উন্নয়নের সঙ্গে সঙ্গে বিদ্যুৎ ও জ্বালানিসহ বিভিন্ন খাতে সৌদি বিনিয়োগও ক্রমান্বয়ে বাড়ানোর কথা জানান সৌদি আরবের রাষ্ট্রদূত।

এ সময় রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিব সম্পদ বড়ুয়া, সামরিক সচিব মেজর জেনারেল এস এম সালাহ উদ্দিন ইসলাম, প্রেস সচিব মো. জয়নাল আবেদীন এবং সচিব (সংযুক্ত) মো. ওয়াহিদুল ইসলাম খান উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর