Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

সুন্দরগঞ্জে সাংবাদিক মিঠু'র মৃত্যুতে প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৪৪জন দেখেছেন

Image
একেএম শামছুল হক,সুন্দরগঞ্জ (গাইবান্ধা) প্রতিনিধি:দৈনিক মানবজমিন পত্রিকার গাইবান্ধার সুন্দরগঞ্জ উপজেলার প্রতিনিধি মশিউর রহমান মিঠুর (৫৩) মৃত্যুতে সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবের শোক প্রকাশ বৃহস্পতিবার (২০ জুন) বিকেল ৩টার দিকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন তিনি।মশিউর রহমান মিঠু উপজেলার কঞ্চিবাড়ি ইউনিয়নের দুলাল গ্রামের মৃত আজিজুল হক সরকারের ছেলে। 

স্বজনরা জানান, সাংবাদিক মশিউর রহমান মিঠু কয়েক বছর ধরে শারীরিকভাবে অসুস্থ্য ছিলেন। বৃহস্পতিবার সকাল ১০ টার দিকে তিনি হার্ড অ্যাটাক করেন। এসময় পরিবারের লোকজন তাকে রংপুর মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের আইসিইউতে ভর্তি করান। বিকেল ৩টার দিকে অবস্থার অবনতি হয়ে চিকিৎসাধীন অবস্থায় শেষ নিশ্বাস ত্যাগ করেন । মৃত্যুকালে তার বয়স হয়েছিল ৫৩ বছর। তিনি স্ত্রী ও এক ছেলে ও এক মেয়ে, ভাই-বোনসহ অনেক শুভাকাঙ্ক্ষী রেখে যান।

সাংবাদিক মশিউর রহমান মিঠুর মৃত্যুতে উপজেলা প্রশাসন, স্থানীয় রাজনৈতিক, সামাজিক, সাংস্কৃতিক ও সাংবাদিক সহকর্মীরা গভীর শোক ও সমবেদনা জ্ঞাপন করেছেন।গতকাল শনিবার সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবের পক্ষ থেকে এক শোকবার্তায় সুন্দরগঞ্জ প্রেসক্লাবের সভাপতি মোশার্রফ হোসেন বুলু সিঃ সহ-সভাপতি একেএম শামছুল হক,সাধারণ সম্পাদক শফিকুল ইসলাম অবুঝ সহ প্রেসক্লাবের অন্যান্য সাংবাদিক গন সহ কর্মি মিঠুর বিদেহী আত্নার মাগফেরাত কামনাকরেন ও শোকসন্তোত্ত পরিবারের প্রতি সমবেদনা জ্ঞাপন করেন।

আরও খবর



বরগুনায় সেতু ধসে ১০ বরযাত্রী নিহত, আহত অনেক

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৮জন দেখেছেন

Image

বরগুনা প্রতিনিধি:সেতু ধসে ১০ বরযাত্রী নিহত হয়েছেন বরগুনার আমতলীতে। এতে আহত হয়েছেন বেশ কয়েকজন। তাৎক্ষণিকভাবে নিহতদের নাম-পরিচয় জানা যায়নি।

শনিবার (২২ জুন) দুপুরে এ দুর্ঘটনা ঘটে।

জানা গেছে, দুপুরে হলদিয়া ইউনিয়নের ঝুঁকিপূর্ণ ব্রিজ দিয়ে একটি মাইক্রোবাস ও অটোরিকশা পার হওয়ার সময় ব্রিজ ভেঙে খালে পড়ে যায়। এ সময় অটোরিকশার যাত্রীরা বের হয়ে এলেও মাইক্রোবাসের যাত্রীরা বের হতে পারেনি। স্থানীয় লোকজন ও পরবর্তীতে ফায়ার সার্ভিসের উদ্ধার কর্মীরা ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করে আমতলী স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে পাঠিয়েছেন।

আমতলী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) কাজী শাখাওয়াত হোসেন তপু জানান, হলদিয়া এলাকায় বৌভাতে যাওয়ার সময় একটি ব্রিজ ভেঙে মাইক্রোবাস খালে পড়ে যায়। এ সময় স্থানীয়দের মাধ্যমে খবর পেয়ে ফায়ার সার্ভিস ও পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে উদ্ধার কার্যক্রম শুরু করে। এখন পর্যন্ত ১০ জনের মরদেহ উদ্ধার করেছে ফায়ার সার্ভিস। এখন পর্যন্ত নিহতদের নাম-পরিচয় পাওয়া যায়নি। নিহতের সংখ্যা আরও বাড়তে পারে।


আরও খবর



ব্যবসা-বাণিজ্য সহজ করতে কাজ করছে সরকার: প্রধানমন্ত্রী

প্রকাশিত:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব সরকার। ব্যবসা-বাণিজ্য যাতে সহজ হয়, উদ্যোক্তারা যাতে উৎসাহ পায়, আমরা সর্বদা সেই কাজই করছি,বলেছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা । আমাদের সরকার ব্যবসায় নানা প্রণোদনা প্রদান করে আসছে।

‘জাতীয় রপ্তানি ট্রফি’ প্রদান উপলক্ষে দেওয়া এক বাণীতে তিনি এসব কথা বলেন। আজ (১৪ জুলাই) এই রপ্তানি ট্রফি প্রদান করা হবে।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, রপ্তানি বাণিজ্যের মাধ্যমে বৈদেশিক মুদ্রা অর্জন করে দেশের অর্থনীতিতে অসামান্য অবদানের স্বীকৃতিস্বরূপ ২০২১-২২ অর্থবছরের জাতীয় রপ্তানি ট্রফি প্রদান করা হচ্ছে জেনে আমি আনন্দিত। এ উপলক্ষে সফল রপ্তানিকারকদের আমি আন্তরিক শুভেচ্ছা ও অভিনন্দন জানাই।

শেখ হাসিনা বলেন, সর্বকালের সর্বশ্রেষ্ঠ বাঙালি, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের স্বপ্নের সোনার বাংলাদেশ বিনির্মাণে আওয়ামী লীগ সরকার ব্যবসাবান্ধব পরিবেশ বজায় রাখতে বদ্ধপরিকর। ২০০৯ সাল থেকে ধারাবাহিকভাবে সরকার পরিচালনা করে আমরা বাংলাদেশকে অর্থনৈতিকভাবে শক্তিশালী রাষ্ট্র হিসেবে পরিণত করতে কার্যকর পদক্ষেপ গ্রহণ ও বাস্তবায়ন করে যাচ্ছি। একটি দেশের সামগ্রিক অর্থনৈতিক অগ্রগতি ও উন্নয়নে রপ্তানি বাণিজ্যের অবদান অনস্বীকার্য। বাংলাদেশের রপ্তানিকারকরা বিশ্ববাজারে দেশীয় উৎপাদিত মানসম্পন্ন পণ্য রপ্তানি করে দেশের অর্থনীতিতে অবদান রাখছেন। বিশ্ব অর্থনীতির এ কঠিন সময়েও পণ্য ও সেবাখাতে ২০২২-২৩ অর্থবছরে ৩ দশমিক ৪২ শতাংশ প্রবৃদ্ধিতে ৬৩ দশমিক ৫ বিলিয়ন মার্কিন ডলার রপ্তানি আয় অর্জিত হয়েছে।

২০২৭ সালে রপ্তানির লক্ষ্যমাত্রা ১১০ বিলিয়ন মার্কিন ডলার নির্ধারণ করা হয়েছে জানিয়ে তিনি আরও বলেন, এ লক্ষ্য অর্জনে সরকার এবং রপ্তানিকারকসহ সংশ্লিষ্ট অংশীজনদের সমন্বিতভাবে কাজ করতে হবে। পণ্য রপ্তানির পাশাপাশি সেবা খাতের সম্প্রসারণ ও রপ্তানিতে বাংলাদেশের সক্ষমতা বৃদ্ধির লক্ষ্যে আমাদের সরকার ব্যবসায়ীদের সঙ্গে নিবিড়ভাবে কাজ করে যাচ্ছে। তিনি দৃঢ়ভাবে আস্থা প্রকাশ করেন, পণ্য খাতের মতো সেবা খাতেও আমরা সফলতা অর্জন করতে সক্ষম হবো।

প্রধানমন্ত্রী বলেন, জাতীয় রপ্তানি ট্রফি প্রদান কার্যক্রম দেশের রপ্তানিকারকদের উৎসাহ প্রদানসহ রপ্তানি বাণিজ্য সম্প্রসারণে বিশেষ ভূমিকা রাখছে। রাষ্ট্রের সর্বোচ্চ পর্যায় থেকে প্রদত্ত এ ধরনের স্বীকৃতি দেশের শিল্পায়ন ত্বরান্বিত করার মাধ্যমে রপ্তানির চলমান প্রবৃদ্ধির ধারা অব্যাহত রাখার পাশাপাশি দেশের সামগ্রিক অর্থনীতিতে গতি সঞ্চার করবে বলে তিনি দৃঢ় আস্থা প্রকাশ করেন।

প্রধানমন্ত্রী জাতীয় রপ্তানি ট্রফি ২০২১-২২ প্রদান অনুষ্ঠানের সার্বিক সাফল্য কামনা করেন।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



গলাচিপায় শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৭৯জন দেখেছেন

Image

রিয়াদ হোসাইন,গলাচিপা (পটুয়াখালী) প্রতিনিধি:ঐতিহ্যবাহী গলাচিপা শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন করা হয়েছে। উপজেলা নির্বাহী অফিসার মো. মহিউদ্দিন আল হেলালের পরিকল্পনা ও বাস্তবায়নে মঙ্গলবার বেলা ২টায় শহরের প্রাণকেন্দ্রে অবস্থিত শিল্পকলা একাডেমি সংস্কার ও আধুনিকায়নের উদ্বোধন করেন প্রধান অতিথি জেলা প্রশাসক মো. নূর কুতুবুল আলম। 

ইউএনও মো. মহিউদ্দিন আল হেলালের সভাপতিত্বে ও গলাচিপা বেইজ বিল্ড ডিজিটাল একাডেমির সিনিয়র শিক্ষক লুৎফর রহমান আওলাদের সঞ্চালনায় অনুষ্ঠানে বিশেষ অতিথি ছিলেন উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ওয়ানা মার্জিয়া নিতু।

অন্যান্যের মধ্যে উপস্থিত ছিলেন সহকারী কমিশনার (ভূমি) মো. নাসিম রেজা, জেলা প্রশাসক কার্যালয়ের সহকারী কমিশনার ও এক্সিকিউটিভ ম্যাজিস্ট্রেট নুসরাত জাহান ইথিনা, উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা খোকন চন্দ্র দাস, গলাচিপা শিল্পকলা একাডেমির সাধারণ সম্পাদক সমিত কুমার দত্ত মলয়, বীর মুক্তিযোদ্ধা মো. নিজাম উদ্দিন তালুকদার, শিল্পকলা একাডেমির সঙ্গীত শিক্ষক কার্তিক চন্দ্র দাস, বেইজ বিল্ড ডিজিটাল একাডেমির প্রধান শিক্ষক রেদওয়ান করিম তালাল প্রমুখ। 

জেলা প্রশাসক নূর কুতুবুল আলম বলেন, ‘এক সময় এখান থেকে অনেক কন্ঠ শিল্পী তৈরি হতো, এখন কেন নয়? তোমরা কন্ঠ শিল্পীরা তাদের মতো হওয়ার চেষ্টা কর। তোমাদের গান শুনে আমি আনন্দিত ও মুগ্ধ হয়েছি। শিল্পীরা স্বতঃস্ফূর্ত ও আনন্দের সাথে গান গেয়েছে। এর সাথে কলকুশলীরাও ভাল পারফরমেন্স করেছেন। শিল্পকলা একাডেমির পক্ষ থেকে আপনারা যা দাবি করেছেন তার চেয়ে বেশি দেওয়ার চেষ্টা করব। ছোট ছোট শিশুরা শিল্পকলা একাডেমিতে যাতে স্বাচ্ছন্দে সঙ্গীত শিখতে পারে সেজন্য যথাযথ পরিবেশ ও সুযোগ-সুবিধার ব্যবস্থা করতে হবে। তবেই শিশুরা উৎসাহ ও উদ্দীপনার সাথে সঙ্গীত শিক্ষা করে দেশের সুনাম অর্জন করে আন্তর্জাতিক পর্যায়ে খ্যাতি ছড়িয়ে দিতে পারবে।’  

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



উলিপুরে তিস্তায় নৌকাডুবির ঘটনায় ২৪ ঘন্টা পরেও ৬ জনকে উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৪৩জন দেখেছেন

Image
সহিদুল আলম বাবুল, কুড়িগ্রাম ব্যুরো:কুড়িগ্রামের উলিপুরে ঈদের তৃতীয় দিন সন্ধ্যার পূর্বক্ষণে তিস্তা নদীতে নৌকা ডুবির ঘটনা ঘটে lসরেজমিনে খোঁজ নিয়ে জানা যায়, নৌকায় শিশু ও নারীসহ ২৬ জন যাত্রী ছিল lএ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত ডুবে যাওয়া নৌকার এক শিশুর মৃতদেহ ও ১৯ জন যাত্রীকে জীবিত উদ্ধার হলেও ঘটনার প্রায় ২৪ ঘন্টা পরেও একই পরিবারের ৪ জনসহ ৬ জনকে খুঁজে পাওয়া যায়নি lঘটনার পর পরই উলিপুর উপজেলা প্রশাসন, ফায়ার সার্ভিস, থানা প্রশাসন ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন l

রাতেই ফায়ার সার্ভিসের লোকজন উদ্ধার কাজের জন্য ঘটনাস্থলে এসেছিলেন l বৈরী আবহাওয়ার কারণে উদ্ধার কাজে কিছুটা বিঘ্ন ঘটে lআজ বৃহস্পতিবার দুপুরে ফায়ার সার্ভিসের ডুবুরী দল নিখোঁজদের উদ্ধারের জন্য প্রস্তুতি নিচ্ছেন lঘটনাস্থলের প্রত্যক্ষদর্শী ও নিখোঁজদের পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, গতকাল বুধবার বিকেল পাঁচটার দিকে উলিপুর উপজেলার বজরা ইউনিয়নের পশ্চিম বজরা ঘাট থেকে ভাড়া করা একটি ইঞ্জিন চালিত ছোট শ্যালো নৌকা যোগে ২৬ জন যাত্রী যাত্রা শুরু করে l

উদ্দেশ্য ছিল উপজেলার থেতরাই ইউনিয়নের বিরহীমের চর এলাকায় বিয়ের এক বছর পর সাগাই ফিরাইনি দাওয়াত খাওয়া lবজরা ঘাট থেকে নৌকা ছেড়ে দেয়ার পর তিস্তার প্রবল স্রোতের বিপরীত দিকে প্রায় ২ কিলোমিটার পথ অতিক্রম করে নৌকাটি l  নৌকাটি একই ইউনিয়নের সাদুয়া দামার হাট নামক স্থানের বিপরীত পাড়ে অর্থাৎ  আলিবাবা থিম পার্কের সন্নিকটে পৌঁছাতেই প্রবল স্রোতের মুখে পড়ে l এ সময় নদীতে বৈরী আবহাওয়া বিরাজ করছিল l ফলে মুহূর্তের মধ্যেই নৌকাটি ডুবে যায় lতাৎক্ষণিকভাবে ১০ জন যাত্রী সাঁতরিয়ে  তীরে পৌঁছায় l

খবর পেয়ে দ্রুত উলিপুর ফায়ার সার্ভিসের টিম, উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আতাউর রহমান, উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান সাজাদুর রহমান তালুকদার সাজু, উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা গোলাম মর্তুজা রাতের বেলায় ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন lখবর পেয়ে রাতেই জেলা প্রশাসক মোঃ সাইদুল আরিফ, পুলিশ সুপার আল আসাদ মোঃ মাহফুজুল ইসলামসহ ফায়ার সার্ভিসের জেলা প্রশাসনের কর্মকর্তাগণ মর্মান্তিক এ দুর্ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন lপরবর্তীতে আরও ৯ জনকে জীবিত উদ্ধার করা সম্ভব হয়েছে l এদের মধ্যে চারজনকে উলিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয় l

উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স এ ভর্তিকৃতরা হলেন, আনজু বেগম (৪৫), চায়না বেগম (২৪),শরিফা বেগম ( ২৫), ও রাশেদা বেগম (৪৮) lওই রাতের মধ্যেই ১৩/১৪  মাস বয়সী আয়েশা সিদ্দিকা নামের এক শিশুর মরদেহ উদ্ধার করে ফায়ার সার্ভিস lআয়েশা সিদ্দিকার মা চায়না বেগম (২৪) ও পিতা আজিজুল হককে উদ্ধার করা সম্ভব হলেও তাদের আরেক সন্তান শামীম (৭) এখন পর্যন্ত নিখোঁজ রয়েছে l  উদ্ধারের পর অসুস্থ চায়না বেগমকে উলিপুর উপজেলা স্বাস্থ্য কেন্দ্রে ভর্তি করা হয় lতাদের বাড়ি বজরা ইউনিয়নের মিয়াজি পাড়া গ্রামে l

অপরদিকে, পশ্চিম বজরা এলাকার একই পরিবারের চারজন এ রিপোর্ট লেখা পর্যন্ত  নিখোঁজ রয়েছে, নিখোঁজরা হলেন, আনিসুর রহমান (২৫), আনিসুর রহমানের স্ত্রী রূপালী বেগম (২৩), তাদের একমাত্র দশ বছরের কন্যা সন্তান আইরিন বেগম, এবং রুপালির বোনের সন্তান ইরামনি(৯),এছাড়াও নিখোঁজের তালিকায় রয়েছে, কয়জল এর পাঁচ বছরের কন্যা সন্তান কুলসুম l
এদিকে, আজ ২০ জুন বৃহস্পতিবার দুপুর বেলা ২৭ কুড়িগ্রাম-৩ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য সৌমেন্দ্র প্রসাদ পান্ডে গবা,  উলিপুর উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান, উপজেলা নির্বাহী অফিসার, উলিপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আবু সাঈদ সরকার পশ্চিম বজরা তিস্তা নদীর ঘাট পরিদর্শনে যান l এ সময় ফায়ার সার্ভিসের একটি ডুবুরি দল নিখোঁজদের উদ্ধারে পশ্চিম বজরার ঘাট এলাকায় অভিযান করার জন্য অপেক্ষা করছিলেন l দুপুর আড়াইটার দিকে পশ্চিম বজরা ঘাট এলাকায় নৌ পুলিশের একটি নৌকা পৌঁছায় lশেষ খবর পাওয়া পর্যন্ত নিখোঁজ ৬ জনকে উদ্ধারের জন্য ফায়ার সার্ভিসের একটি চৌকস ডুবুরি দল উদ্ধার অভিযান অব্যাহত রেখেছে l

আরও খবর



নওগাঁয় বিলের অবৈধ দখল ও খননের বিরুদ্ধে মৎস্যজীবীদের মানববন্ধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৪জন দেখেছেন

Image
নওগাঁ জেলা প্রতিনিধি:নওগাঁর সদর উপজেলার  মুনসুর ও যমুনী ফতেপুর বিল সরকারি খাঁস সম্পত্তি জলমহাল অবৈধ দখল ও খননকারীদের বিরুদ্ধে মৎস্যজীবীদের মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়েছে। সোমবার (১জুলাই) বেলা ১২ টায় শহরের কেন্দ্রীয় শহীদ মিনারের সামনে শতাধিক মৎস্যজীবীদের উপস্থিতিতে এই মানববন্ধন অনুষ্ঠিত হয়। পরে সেখান থেকে সকল মৎজীবীরা জেলা প্রশাসকের কার্যালয়ে স্মারকলিপি প্রদান করতে যায়। 

মানববন্ধনে মো. আব্দুর রহমান এর সভাপতিত্বে ঘন্টা ব্যাপী সমাবেশে অন্যান্যদের মাঝে উপস্থিত ছিলেন জেলা সাংবাদিক ইউনিয়নের সভাপতি এস এম আজাদ হোসেন মুরাদ, মোসলেম উদ্দিন, তোমসের, সাইদুর রহমান, ইসলাম আলী, ইব্রাহিম মোল্লাসহ প্রমুখ বক্তব্য রাখেন।

এসময় বক্তারা বলেন,  জেলার সদর উপজেলাধীন দুবলহটি, হাসাইগড়ী, বলিহার, শিকারপুর এর হত দরিদ্র মৎজীবি পরিবার। দুবলহাটি শৈলগাছী ইউনিয়নের মধ্যেবর্তী গুন্ডি বিল মুনসুর ও যমুনী ফতেপুর বিল উক্ত বিল দুইটির জলাশয়ের পরিমান ৫১৭ একর সরকারি খাঁস সম্পতি,জলমহাল। উক্ত জলাশয়কে কেন্দ্র করে গড়ে উঠেছে প্রায় ১২/১৪ হাজার মৎস্যজীবি সম্প্রদায়, যাদের জীবন জীবিকা একমাত্র সবলম্বন মৎস্য আহরণ ও বাজার জাত করণ।

দেশ স্বধীন হওয়ার পরে প্রথমে এই বিশাল মৎস্য জীবি সম্প্রদায়ের উন্নয়নের লক্ষে সকল জলাশয় কেবল মাত্র মৎস্যজীবি সমবায় সমিতির মাধ্যমে মৎস্যজীবিদের মধ্য ইজারা ব্যবস্থা করেন জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবর রহমান পরবর্তীতে ইজারা প্রথা বাতিল করে জাল যার জলা তার মৎস্য জীবি অধিকার নীতিমালা বাস্তবায়ন করে ভরাট জলাশয় গুলো সরকারি ভাবে খনন করা হয়েছে। জলাশয় গুলি মৎস্যজীবি সম্প্রদায়কে বন্দবস্ত দেওয়ার সিদ্ধান্ত হয়। কিন্তু প্রভাবশালী বাক্তি উক্ত নীতিমালার অপবাখ্যা দিয়ে উল্লেখিত জলাশয়ের জমিগুলো সনামে বেনামে বন্দবস্ত নিয়ে ইচ্ছা মতো পুকুর খনন করে জবর দখল করে নিয়েছেন। ফলে প্রকৃত মৎস্যজীবিদের জন্য সরকার কর্তৃক গৃহীত প্রকল্পের সুফল হতে বঞ্চিত হয়েছে। ইতিমধ্য জীবন বাঁচানোর তাগিদে অনেকেই তাদের পৈত্রিক পেশা ছেড়ে দিয়ে বিভিন্ন পেশায় জীবিকা নির্বাহ করছেন। বিধায় জরুরী ভাবে অবৈধ দখলদারকে উচ্ছেদ করে সরকার যাদের জন্য জাল যার জলা তার প্রকল্প গ্রহণ করেছিলেন। সেটাকে বাস্তবায়ন করে মৎস্যজীবি সম্পদায়ের জীবন জীবিকার জন্য  সুব্যবস্থার দাবি জানান।

আরও খবর