Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

সুলতান’স ডাইনের কাচ্চির মাংস নিয়ে তোলপাড়, ম্যানেজার যা বললেন

প্রকাশিত:শুক্রবার ১০ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৮৫জন দেখেছেন

Image

অনলাইন ডেস্ক: সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সুলতান’স ডাইনের কাচ্চির মাংস নিয়ে প্রশ্ন তুলেছেন এক ভোক্তা। বিষয়টি নিয়ে এরপর থেকে ব্যাপক আলোচনা সমালোচনার সৃষ্টি হয়েছে। অনেকে দাবি করেছেন, কাচ্চিতে খাসির মাংসের নামে অন্য প্রাণীর মাংস খাওয়ানো হচ্ছে। তবে সুলতান’স ডাইন বলছে, এসব অভিযোগ সত্য নয়। তারা মাংস নিয়ে ল্যাবে পরীক্ষার দাবি জানিয়েছেন।

সুলতান’স ডাইনের অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার আশরাফুল আলম বলেন, ‘তারা সরাসরি এসে খাবারটা নিয়ে যান। তারা একটি ব্যাংকে কর্মরত। সাতটা হাফ কাচ্ছি নিয়ে যান এখান থেকে। নিয়ে যাওয়ার আধাঘণ্টা থেকে ৪০ মিনিট পর তারা ফোন করে বিষয়টি আমাদের জানান। ফোন দিয়ে আমাদের একজনের সঙ্গে খারাপ ব্যবহারও করেন। তারা ফোন করে বলেন, ‘আপনারা বাটপাড়ি ব্যবসা করেন, খারাপ ব্যবসা করেন। আপনারা এই ধরনের খাবার কিভাবে দেন।’ আমি তাদের সঙ্গে কথা বলি। তারা (যারা কাচ্চি নিয়ে গিয়েছিলেন) আমাকে বলেন, ‘ওই ব্যাটা, তরা বাটপাড়ি ব্যবসা করস। তরা খাবারে এসব দেস।’ আমি তাকে জিজ্ঞেস করি কী দেই? তারা বলেন, ‘তরা হাতি-ঘোরা কী দেস! বিড়ালের মাংস দেস।’ বিষয়টি আমি তাদের বুঝিয়ে বলি। আমি তাকে বলি, ‘আপনারা চাইলে আমাদের রান্নাঘর পরিদর্শন করতে পারেন। এসে দেখেন আমরা কিভাবে খাবারটা প্রক্রিয়া করি।’

সুলতান’স ডাইনের এই অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার আরও বলেন, ‘আমাদের খাসিগুলো ছয় কেজি থেকে সাড়ে ছয় কেজি, আট কেজি বা ৯ কেজি ওজনের হয়ে থাকে। এর বেশি হতে পারে না। কারণ খাসি এর থেকে বেশি বড় হলে গোশত সিদ্ধ হবে না। এমন বেশি ওজনের খাসি দেওয়া যাবে না। আমাদের ম্যানেজমেন্ট থেকেই এমন নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

যারা কাচ্চি নিয়ে গিয়েছিলেন তাদের আবার খাবার পাঠানোর ব্যবস্থা করে সুলতান’স ডাইন- এমনটি জানিয়ে আশরাফুল আলম অভিযোগ করে বলেন, খাবার নিয়ে যেতে যেতেই আবার ফোন করে তারা। তারা আমাকে হুমকি দেয়। বলে, ‘আমি কী এটা ভাইরাল করে দেব। র‌্যাবকে ফোন করে কি ধরিয়ে দেব?’

তিনি দাবি করেছেন, ‘খাবার নিয়ে কিছুক্ষণ পরে সেখানে যান আমাদের কয়েকজন। যাওয়ার পর তারা কয়েকজন মিলে আমাদের লোকদের টর্চার করেন। সেখানে আমিও যাই। গিয়ে বিষয়টা বোঝানোর চেষ্টা করি। তাদের বলি, আপনারা চাইলে মাংসাটা ল্যাবেও পরীক্ষা করাতে পারেন। কিন্তু তারা আমাদের চাপ দিতে থাকেন।

যারা কাচ্ছি নিয়ে গিয়েছিলেন তারা টাকা দাবি করেন জানিয়ে আশরাফুল আলম বলেন, “তারা আমাকে র‌্যাব-দুদকের হুমকি দেখায়। তারা আমাকে যুবলীগের হুমকি দেখায়। একজন মহিলা এসে বলছেন, ‘র‌্যাবকে খবর দেওয়া হয়েছে। র‌্যাব আসছে। এদেরকে ধরিয়ে দেও।’ তারপর আমাকে তাদের বাসার নিচে যেতে বলেন, নিচে যাওয়ার পর একজন আমাকে বলেন, ‘কী করবেন এখন বলেন?’ আমি তাকে বলি, কী করতে হবে বলেন, সেটা আমি করব। তখন তিনি বলেন, ‘১০ হাজার টাকা দেন।’ আমি তাকে বললাম, ১০ হাজার টাকা দেব কেন ভাই? আমি খারাপ খাবার দিয়েছি? আমি যদি বিড়ালের মাংস দিয়ে থাকি সেটা বলেন? প্রমাণ করেন! আমি তো টাকা দেব না।

কয়েকজন তাদের সঙ্গে খারাপ ব্যবহার করে জানিয়ে সুলতান’স ডাইনের অ্যাসিস্ট্যান্ট জেনারেল ম্যানেজার আশরাফুল আলম বলেন, ‘ইজ্জতের ভয়ে আমি চলে আসি। তারপর ম্যানেজারকে জিম্মি করে রাখে। একটি ক্লাবে আটকে রেখে আমাদের ফোন করে। সন্ধ্যার দিকে তারা ম্যানেজারকে ছেড়ে দেয়। আমরা এ নিয়ে কিছু বলিনি। এই ঘটনার পর আমাদের নামে দুর্নাম ছড়ানো হচ্ছে। এই ঘটনার সুষ্ঠু তদন্ত চাই।


আরও খবর



আত্রাইয়ের প্রতিটি বাজারে পাওয়া যাচ্ছে সুস্বাদু লিচু, দাম চড়া

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | ১০৬জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:উত্তর জনপদের খাদ্যশষ্য ভান্ডার হিসেবে খ্যাত নওগাঁর আত্রাই উপজেলায় এখন প্রতিটি হাট-বাজারে পাওয়া যাচ্ছে সুস্বাদু রসালো ফল লিচু। তীব্র গরমে কদর বেড়েছে রসালো এই ফলের। এবার ফলন ভালো হওয়ার পাশাপাশি চড়া দাম পেয়ে খুশি চাষিরা। তবে দাম চড়া হওয়ায় ক্রেতারা অসন্তোষ প্রকাশ করেছেন।

সরেজমিনে উপজেলার বিভিন্ন এলাকা ঘুরে দেখা গেছে, বাড়ির আঙিনা, রাস্তার পাশে ও বাগানে সবুজ পাতার আড়ালে ঝুলছে থোকায় থোকায় লিচু। অনেক জায়গায় দেখা যায় লিচু যাতে পাখিতে নষ্ট করতে না পারে, সে জন্য গাছের সঙ্গে টিন, জাল টাঙিয়ে রক্ষা করার চেষ্টা করছেন বাগান মালিকেরা।

ব্যবসায়ীদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, তাঁরা এখন ব্যস্ত সময় পার করছেন। তবে অনেক মালিক লিচুবাগান আগেই বিক্রি করে দিয়েছেন।

ভবানীপুর বাজারে লিচু কিনতে আসা উপজেলার কাশিমপুর গ্রামে রানা বলেন, ‘বাড়িতে ছেলেমেয়ে আছে, তাই কিছু লিচু কিনলাম। দাম এখন অনেক বেশি। ১শত টি লিচুর দাম নিয়েছে ৩০০ টাকা।’

উপজেলা সদর সাহেবগঞ্জ মোড়ের লিচু ব্যবসায়ী রবিন বলেন, এখন লিচুর অনেক দাম। ১শতটি লিচু ৩০০ টাকায় বিক্রি হচ্ছে। লিচু বেশি দামে কিনতে হচ্ছে, তাই বেশি দামে বিক্রি করতে হচ্ছে।’

আরেক লিচু ব্যবসায়ী মুনিরুল ইসলাম বলেন, গরমে লিচুর আলাদা কদর রয়েছে। তা ছাড়া মৌসুমি ফল হিসেবে দাম বেশি হলেও ক্রেতারা কিনছেন।

তিনি আরও বলেন, লিচুবাগান পাহারা দিতে হয়। পাখি অনেক লিচু নষ্ট করে ফেলে। 

এ ব্যাপারে উপজেলা কৃষি কর্মকর্তা কৃষিবিদ প্রসেনজিৎ তালুকদার বলেন, আত্রাই উপজেলায় তেমন একটা লিচু উৎপাদিত হয়না। তবে দিন দিন এ উপজেলায় লিচুর গাছ বাড়ছে। ছোট-বড় সবার কাছে অন্যান্য সুস্বাদু মৌসুমি ফলের মতো লিচুরও কদর রয়েছে। লিচুর ভালো দাম পাওয়ায় অনেকে লিচু চাষে ঝুঁকছেন। বাজারে এখন পরিপক্ব লিচু পাওয়া যাচ্ছে। কৃষি অফিস থেকে লিচুচাষিদের বিভিন্ন পরামর্শ দেওয়া হচ্ছে। লিচুর ভালো দাম পেয়ে খুশি চাষিরা।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




'প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন'

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৫০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আবহাওয়া ভালো হলে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা ঘূর্ণিঝড়ে ক্ষতিগ্রস্ত এলাকা পরিদর্শনে যাবেন বলে জানিয়েছেন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক এবং সড়ক পরিবহন ও সেতুমন্ত্রী ওবায়দুল কাদের।

সোমবার (২৭ মে) দুপুরে রাজধানীর ধানমণ্ডিস্থ আওয়ামী লীগ সভাপতির রাজনৈতিক কার্যালয়ে সংবাদ সম্মেলনে তিনি এ কথা বলেন।

সেতুমন্ত্রী বলেন, ঘূর্ণিঝড়ের প্রভাবে উপকূলবর্তী এলাকায় জলোচ্ছ্বাস হয়েছে অনেক বেশি। বেড়িবাঁধ ভেঙেছে। ঘরবাড়ি বিধ্বস্ত হয়েছে। বৈদ্যুতিক লাইন, রাস্তাঘাট ক্ষতিগ্রস্ত হয়েছে। উপকূলবর্তী এলাকার দলীয় জনপ্রতিনিধি ও আওয়ামী লীগের নেতাকর্মীদের ক্ষতিগ্রস্ত মানুষের পাশে থাকার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে। অনেক এলাকা এখনও পানির নিচে।

ওবায়দুল কাদের বলেন, ক্ষতিগ্রস্ত এলাকায় পানীয় জলের ব্যবস্থা করা হয়েছে। নগদ অর্থ দিতে জেলা প্রশাসকদের নির্দেশ দেওয়া হয়েছে।

এসময় উপস্থিত ছিলেন- আওয়ামী লীগের যুগ্ম সাধারণ সম্পাদক আ ফ ম বাহাউদ্দিন নাছিম, সাংগঠনিক সম্পাদক বিএম মোজাম্মেল হক, এসএম কামাল হোসেন, মির্জা আজম, সুজিত রায় নন্দী, দপ্তর সম্পাদক বিপ্লব বড়ুয়া প্রমুখ।


আরও খবর



ইবিতে প্রজ্বলিত সন্ধ্যা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image
সাব্বির খান,ইবি প্রতিনিধি:ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয় (ইবি) প্রজ্বলিত ৩৫ ব্যাচের উদ্যোগে 'প্রজ্বলিত সন্ধ্যা' শীর্ষক সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। প্রতি বছরের মতো ব্যাচ-ডে এর চলমান আয়োজন হিসেবে ব্যাচকে নতুনভাবে উপস্থাপন ও বিশ্ববিদ্যালয়ের অনন্য নজির স্থাপন করতে এ আয়োজন করে শিক্ষার্থীরা। অনুষ্ঠানটিতে ২০২০-২১ শিক্ষাবর্ষের শিক্ষার্থীরা ছাড়াও বিশ্ববিদ্যালয়ের অন্যান্য সকল ব্যাচের শিক্ষার্থীরা স্বতঃস্ফূর্ত অংশগ্রহণ লক্ষ্য করা যায়। 

অনুষ্ঠানটি সফল করতে গত ১৩ মে বিশ্ববিদ্যালয়ের ডায়েনা চত্বরে প্রথম আলোচনায় বসে শিক্ষার্থীরা। সেখানে কার্যবিবরণী উপস্থাপন ও দায়িত্ব বণ্টন করা হয়। পরবর্তীতে ব্যাচকে ব্যতিক্রমভাবে উপস্থাপন করতে একের পর এক নিদারুণ প্রমো ভিডিও শুটিংয়ের আয়োজন করা হয়। সর্বশেষ সকল জল্পনা-কল্পনার অবসান ঘটিয়ে গত বুধবার (২৯ মে) বিশ্ববিদ্যালয়ের বাংলা মঞ্চে দুপুর ৩টা থেকে শুরু করে করে সন্ধ্যা সাড়ে ৭ টা পর্যন্ত সফলভাবে চলে এই অনন্য আয়োজন। 

অনুষ্ঠানটি সফল করতে অক্লান্ত পরিশ্রম করেছেন নাঈমুল ফারাবি, জান্নাতুল তামান্না, সাফিনুর তন্ময়, ফুয়াদ হাসান, রানা আহম্মেদ অভি, ফারিহা আঁখি, মোবারক হোসেন আশিক, জুবায়ের রনি, সিয়াম আহম্মেদ সিফাত, জো সিং, শাম্মী আক্তার, রাইসা আমীন লস্কর,  সাদিয়া আফরিন অমিন্তা, মাহবুবা নুপুর, সুদীপ রয়, মুজাহিদুর ইসলাম, মুবাশ্বির আমিন, ত্বাকি খাঁন, শাওয়ানা শামীম নিশু, শরীফ সৌরভ, আবু খায়ের, নয়ন পারভেজ, নাফিস তাহমিদ, আর্য পাল, সালমান শাওন, মাহমুদ খাঁন, আবু খায়ের, আবিদ ইমতিয়াজ, জুনাইদ মোস্তফাসহ আরও অনেকে। পুরো অনুষ্ঠানটির সঞ্চালনায় ছিলেন মিজানুর রহমান মিজান, রেজওয়ানা মিতীল, শাওয়ানা শামীম নিশু ও আব্দুল মাজেদ সাগর।

সাংস্কৃতিক সন্ধ্যাকে রাঙ্গিয়ে তুলতে গান করেন বিশ্ববিদ্যালয়ের জনপ্রিয় ব্যান্ড দ্য সোবার। এছাড়া পারফর্ম করে বিশ্ববিদ্যালয়ের জনপ্রিয় শিল্পী সাফিউর রহমান, নুরুন্নবী সরকার নিরব, প্রতীক দা, বর্ষণ, আব্দুল্লাহ পারভেজ, ইশতিয়াক ইমন, গোলাম হক্কানিসহ আরও অনেকে অনেক শিল্পিরা৷ তাছাড়া অনুষ্ঠানটি আরও সুন্দর করে তুলবার জন্য বিশ্ববিদ্যালয়ের সংবর্ত-৩৬ থেকে অংশগ্রহণ করেন- বর্ণালী বর্ণা, মিম জাহান খুশি, নুসরাত ঐশি, ইফতিয়াক, আহনাফ ফুয়াদ, বাশুদেব প্রমুখ। 

অনুষ্ঠানটি সম্পর্কে প্রজ্বলিত ৩৫ ব্যাচ এর শিক্ষার্থী সাফিনুর তন্ময় বলেন,  'আমারা সবাই মিলে প্রজ্বলিত সন্ধ্যা আয়োজনটি সফল করেছি। ইবিতে প্রথমবারের মতো সকল ব্যাচের অংশ গ্রহণের মাধ্যমে একটি ব্যাচের প্রোগ্রাম অনুষ্ঠিত হয়েছে। আমরা প্রজ্বলিত ৩৫ ব্যাচ আগামীতে আপনাদের সামনে নতুন কিছু নিয়ে আসবো এটা প্রত্যাশা রাখছি। তাছাড়া অনুষ্ঠানটি সফল করার জন্য যারা বিভিন্নভাবে সাহায্য সহযোগিতা করেছে তাদের সবার প্রতি ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জ্ঞাপন করছি।'

জান্নাতুল তামান্না বলেন, 'ক্যাম্পাসে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান করতে অনেক বেগ পোহাতে হয়। আমাদের আর্থিক সমস্যা ছিলো আমাদের শিক্ষকরা পাশে দাঁড়িয়েছেন এবং প্রশাসন সাহায্য করেছে। ক্লাস,পরিক্ষা থাকার পরও আমাদের ও আর্থিক সহযোগিতা করার কারণে আমরা প্রোগ্রামটি সুন্দর ভাবে সম্পন্ন করতে পেরেছি। দিনশেষে আমার সফল হয়েছি এমনকি অনেক মানুষের প্রচুর প্রশংসা কুড়িয়েছি এবং আমাদের শিক্ষকসহ, সিনিয়র-জুনিয়রদের অনেক ভালোবাসা পেয়েছি।ভবিষ্যতে এর থেকে ভালো কিছু করার আশা রাখছি। প্রত্যাশা রাখছি প্রজ্বলিত -৩৫ এই ক্যাম্পাসকে সামনে আরো বড় কিছু উপহার দিবে ইনশাআল্লাহ।'

সার্বিক বিষয়ে নাঈমুল ফারাবি বলেন, 'আয়োজনে অনেক প্রতিবন্ধকতা ছিল। পরিশেষে আয়োজন সফলতা পেয়েছে। প্রশাসন আমাদের সুন্দর আয়োজনের জন্য অভিবাদন জানিয়েছে, এটা আমাদের জন্য প্রাপ্তি। আমাদের আয়োজকদের কিছু ভুল ছিলো, তাছাড়া আয়োজনের আর কোনো সমস্যাই ছিলোনা। আমাদের প্রচারণা থেকে পারফরম্যান্স, স্টেজ ডেকোরেশন সবক্ষেত্রে নতুনত্বের ছোঁয়া ছিলো, এজন্য সবাই গ্রহণ করে নিয়েছে আমাদের। আমরা আশাবাদী ইসলামী বিশ্ববিদ্যালয়ের সংস্কৃতি চর্চা এভাবেই এগিয়ে যাবে, আমরা আরো প্রসিদ্ধ হবো। পরিশেষে বলতে চাই প্রোগ্রামের সফলতা প্রাণবন্ত দর্শকদের সর্বোচ্চ সংখ্যাক অংশগ্রহণেই ছিল। আমরা শিল্পকে ভালোবাসি, শিল্পীকে সম্মান করি।'

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




পুলিশকে গুলি করে হত্যা: কনস্টেবল কাওসার ৭ দিনের রিমান্ডে

প্রকাশিত:রবিবার ০৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:অভিযুক্ত পুলিশ সদস্য কাউসার আলী সহকর্মীকে গুলি করে হত্যার ঘটনায় জিজ্ঞাসাবাদের জন্য ৭ দিনের রিমান্ড মঞ্জুর করেছেন আদালত।

রোববার (৯ জুন) ঢাকার মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেট মো. শাকিল আহাম্মদ রিমান্ডের এ আদেশ দেন।

এদিন কাউসারকে আদালতে হাজির করে ১০ দিনের রিমান্ড আবেদন করে পুলিশ। শুনানি শেষে আদালত ৭ দিনের রিমান্ডের আদেশ দেন।

মামলার সূত্রে জানা গেছে, শনিবার (৮ জুন) রাত সাড়ে ১১টার দিকে রাজধানীর বারিধারায় ফিলিস্তিন দূতাবাসের সামনে নিরাপত্তার কাজে নিয়োজিত পুলিশ সদস্যকে গুলি করে হত্যার অভিযোগ পাওয়া গেছে আরেক পুলিশ সদস্যের বিরুদ্ধে। নিহত পুলিশ সদস্য ডিপ্লোম্যাটিক সিকিউরিটি ডিভিশনে কর্মরত ছিলেন।

গুলির ঘটনায় সাজ্জাদ হোসেন নামে জাপান দূতাবাসের এক গাড়িচালক আহত হন। তাকে ইউনাইটেড হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে। এ ঘটনায় রোববার (৯ জুন) গুলশান থানায় মামলা করেছেন নিহত মনিরুল হকের ভাই মো. মাহাবুবুল হক।


আরও খবর



তদন্তাধীন মামলায় গণমাধ্যমে বক্তব্য না দিতে আইনি নোটিশ

প্রকাশিত:বুধবার ২৯ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১৪১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:তদন্তাধীন মামলায় গণমাধ্যমে বক্তব্য প্রদান বন্ধ চেয়ে আইজিপিকে আইনি নোটিশ পাঠিয়েছেন এক আইনজীবী।

বুধবার (২৯ মে) জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব, পুলিশের মহাপরিদর্শক এবং পুলিশ কমিশনার বরাবর এ নোটিশ পাঠান বাংলাদেশ সুপ্রিম কোর্টের আইনজীবী মোহাম্মদ শিশির মনির।

নোটিশে তিনি লিখেন, আমরা সবাই জানি ঝিনাইদহ-৪ আসনের এমপি আনোয়ারুল আজিম আনার ভারতের পশ্চিমবঙ্গে চিকিৎসার উদ্দেশে গিয়ে নিখোঁজ হন। গণমাধ্যমে প্রকাশিত তথ্য অনুযায়ী তিনি নির্মম হত্যাকাণ্ডের শিকার হন। আজ পর্যন্ত তার মরদেহ উদ্ধার করা সম্ভব হয়নি। বিষয়টি জনমনে চাঞ্চল্যের সৃষ্টি করেছে। ‘টক অব দ্য কান্ট্রি’ হিসেবে পরিণত হয়েছে। ইলেকট্রনিক, প্রেস এবং সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে রিয়েল ‘টাইম আপডেট’ প্রচার করা হচ্ছে।

তিনি আরও লিখেন, এই বিষয়ে বাংলাদেশ ও ভারত সরকার সর্বোচ্চ গুরুত্বের সঙ্গে তদন্ত করছে। সময়ে সময়ে কর্তৃপক্ষ ঘটনার হালনাগাদ তথ্য আনুষ্ঠানিকভাবে প্রকাশ করছে। সাংবাদিকরা উদ্ভূত পরিস্থিতিতে নানান ধরনের প্রশ্ন উত্থাপন করছেন, কর্তৃপক্ষও উত্তর দিচ্ছেন। ছোট-খাট অনেক বিষয় উঠে আসছে, লাইভ সম্প্রচার হচ্ছে। বিভিন্ন গণমাধ্যম পছন্দ অনুযায়ী হেডলাইন করছে। ফ্রিল্যান্সাররা খণ্ডাংশ উল্লেখ করে ইউটিউব, ফেসবুক, টিকটকসহ জনপ্রিয় সামাজিক যোগাযোগমাধ্যমে সম্প্রচার করছেন। এ বিষয়ে হরেক-রকম বিভ্রান্তিও তৈরি হচ্ছে। পূর্বেও তদন্তাধীন চাঞ্চল্যকর ঘটনার ক্ষেত্রে একই ধরনের প্রবণতা দেখা গেছে। এর মধ্যে বুয়েটের ছাত্র আবরার হত্যা, ফেনীর নুসরাত হত্যাকাণ্ড, ফেনীর উপজেলা চেয়ারম্যান ইকরাম হত্যাকাণ্ড উল্লেখযোগ্য।

এ পরিস্থিতিতে আনোয়ারুল আজিম আনার হত্যাকাণ্ডসহ সব তদন্তাধীন মামলার ক্ষেত্রে গণমাধ্যমে বক্তব্য প্রদান বন্ধ চেয়ে সংশ্লিষ্ট সবাইকে অনুরোধ জানানো হয়েছে। অন্যথায় আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে বলেও এতে উল্লেখ করা হয়।


আরও খবর