Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

স্টপেজে বাস ও যাত্রীদের ছবি তুলে রাখার নির্দেশ

প্রকাশিত:সোমবার ১৩ নভেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৪৩জন দেখেছেন

Image

বিএনপিসহ বিভিন্ন রাজনৈতিক দলের ডাকা অবরোধে যানবাহনে অগ্নিসংযোগ প্রতিরোধে স্টপেজে বাস ও যাত্রীদের ছবি তুলে রাখাসহ মালিক শ্রমিকদের ১০ নির্দেশনা দিয়েছে ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি)।

রোববার (১২ নভেম্বর) রাতে গণমাধ্যমকে এ তথ্য নিশ্চিত করেছেন ডিএমপি কমিশনার হাবিবুর রহমান।

তিনি বলেন, আমরা মালিক শ্রমিকদের বলেছি তারা যেন যাত্রীদের ছবি তুলে রাখে। এছাড়া আমরা আরও বেশ কয়েকটি নির্দেশনা দিয়েছি।

ডিএমপির নির্দেশনাগুলো হলো:

১। স্টপেজগুলোতে বাসের ও যাত্রীদের ছবি তুলে রাখতে হবে।

২। স্টপেজ ছাড়া যাত্রী ওঠানামা করানো যাবে না।

৩। বাসে থাকা যাত্রীদের বাসের সহকারী সচেতন করবে।

৪। রাতে বিচ্ছিন্নভাবে বাস পার্কিং না করে কোনো উন্মুক্ত স্থানে একত্রে একাধিক বাস রেখে নিজস্ব প্রহরার মাধ্যমে নিরাপত্তার ব্যবস্থা করতে হবে।

৫। চালক ও সহকারী কখনই একই সঙ্গে গাড়ি রেখে খেতে বা বিশ্রামে যাবে না।

৬। ইতোমধ্যে নাশকতাকারীর তথ্য প্রদানকারীর জন্য বিশেষ পুরস্কার ঘোষণা করা হয়েছে।

৭। সহকারী ছাড়া চালককে একা গাড়ি চালাতে দেওয়া যাবে না।

৮। রাতে গাড়ির মধ্যে ঘুমানো যাবে না, অন্তত একজনের মাধ্যমে হলেও প্রহরার ব্যবস্থা করতে হবে।

৯। বাসের দুটো দরজা থাকলে পেছনের দরজা অবশ্যই বন্ধ রাখতে হবে এবং মালিক পক্ষ থেকে চালক ও সহকারীদের অবশ্যই নিরাপত্তা সংক্রান্ত নির্দেশনা প্রদান করতে হবে।

১০। এছাড়া যাত্রীদের জন্য সতর্কতামূলক স্টিকার বাসে লাগিয়ে দিতে হবে।


আরও খবর



গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরি নিয়ে নতুন নির্দেশনা দেবে সরকার: তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী

প্রকাশিত:বুধবার ১৪ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১০০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:গণমাধ্যমকর্মীদের চাকরির নিরাপত্তা বিষয়ে সরকার সংশ্লিষ্ট স্টেকহোল্ডারদের সঙ্গে আলোচনা করে নতুন নির্দেশনা দেবে,বলেছেন তথ্য ও সম্প্রচার প্রতিমন্ত্রী অধ্যাপক মোহাম্মদ এ আরাফাত ।

বুধবার (১৪ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে ব্রডকাস্ট জার্নালিস্ট সেন্টারের নেতাদের সঙ্গে বৈঠকে প্রতিমন্ত্রী এ কথা জানান।

তিনি বলেন, কোনো গণমাধ্যম, কর্মীদেরকে নোটিশ না দিয়ে কিংবা হঠাৎ করে চাকরিচ্যুত করতে পারবে না। একইভাবে গণমাধ্যমকর্মীরাও প্রতিষ্ঠানকে সময় না দিয়ে, যে কোনো মুহূর্তে চাকরি ছেড়ে দিতে পারবেন না।

খুব শিগগিরই এ বিষয়ে তথ্য মন্ত্রণালয় নির্দেশনা জারি করবে বলে জানান প্রতিমন্ত্রী। এ সময় ফেসবুক-ইউটিউবসহ বিভিন্ন সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে সংবাদ ও বিভিন্ন তথ্য প্রচারিত হচ্ছে। এসব বিষয় জবাবদিহিতায় আনতে নীতিমালা গঠনের দাবি জানান সাংবাদিকরা। প্রতিমন্ত্রী এ দাবির সঙ্গে একমত হন। তিনি বলেন, অপতথ্য রোধ করতে গিয়ে মত প্রকাশের স্বাধীনতায় যেন ব্যাঘাত না ঘটে, সেদিকে সরকারের সতর্ক দৃষ্টি রয়েছে।


আরও খবর



মনগড়া কমিটিতে আইন শৃঙ্খলা অবনতির আশঙ্কা

প্রকাশিত:শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১০৪জন দেখেছেন

Image

সাগর আহম্মেদ,কালিয়াকৈর (গাজীপুর) প্রতিনিধি:গাজীপুরের কালিয়াকৈরে সস্প্রতি নতুন করে আইন শৃঙ্খলা কমিটি ঘোষণা ও সভা করেছে উপজেলা প্রশাসন। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা তার নানা অপকর্ম, অনিয়ম-দুর্নীতি ধামাচাপা দিতেই মনগড়া এই কমিটি করছে বলেও বঞ্চিতদের অভিযোগ। অপর দিকে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা আরো অবনতি হওয়ার আশঙ্কায় ওই মনগড়া কমিটি নিয়ে ক্ষুব্দ স্থানীয়রাও।

উপজেলা প্রশাসন ও কমিটি থেকে বঞ্চিতদের সূত্রে জানা গেছে, গত দ্বাদশ জাতীয় নির্বাচন সুষ্ঠ, সুন্দও, নিরপক্ষ ও গ্রহণযোগ করার লক্ষে প্রশাসনের রতবদল করে নির্বাচন কমিশন। এর ধারাবাহিকতায় ঢাকার ধামরাই উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ হাই জকীকে গাজীপুরের কালিয়াকৈরে বদলী করা হয়। এখানে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হিসেবে যোগদান করে তিনি নৌকার বিপক্ষে কাজ শুরু করেন। বিষয়টি জানাজানি হলে নির্বাচন কমিশন ওই কর্মকর্তাকে একাধিকবার থেকে ফোনে শর্তকও করা হয়। এছাড়াও তার বিরুদ্ধে ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনার নামে টাকা আদায়, মাটি ব্যবসায়ীদের কাছ থেকে টাকা হাতিয়ে নেওয়া ও বিভিন্ন লোকজনের সাথে অসাদাচরণ করাসহ নানা অনিয়মের অভিযোগ উঠেছে। তার অনিয়ম নিয়ে সংবাদ প্রচার হওয়ায় তিনি ক্ষিপ্ত হন এবং সাংবাদিকদের ক্ষতি সাধনের চেষ্টা করে। শুধু তাই নয়, উপজেলা প্রশাসনের নানা অনিয়ম-দুর্নীতি ও অপকর্ম ধামাচাপা দিতে সম্প্রতি নতুন উপজেলা আইন শৃঙ্খলা কমিটি ঘোষণা করেন ওই নির্বাহী কর্মকর্তা। ওই কমিটি থেকে উপজেলা আওয়ামীলীগের সভাপতি, সেক্রেটারী, বীর মুক্তিযোদ্ধা ও সাংবাদিকসহ অনেকের নাম বাদ দেওয়া হয়েছে। অপর দিকে নৌকার বিপক্ষের যারা নৌকার বিপক্ষে কাজ করেছে তাদের নাম ওই কমিটিতে রাখা হয়। ৪০ সদস্য বিশিষ্ট ওই আইন শৃঙ্খলা কমিটিতে রয়েছে মামলার আসামীও। এতে করে উপজেলা আইন শৃঙ্খলা আরো অবনতি হওয়ার আশঙ্কা প্রকাশ করেছেন স্থানীয়রা।

বীর মুক্তিযোদ্ধা আবদুল রশিদ বলেন, এই ইউএনও যোগদান করার পর থেকে এখানে অরাজকতার সৃষ্টি হয়েছে। সে নৌকার বিরুদ্ধেও কাজ করেছে।আমরা যারা বীর মুক্তিযোদ্ধা, যারা নৌকার হয়ে কাজ করেছি। তাদের এই কমিটিতে রাখা হয়নি। এটা খুবই অন্যায় করেছেন তিনি। তার মনগড়া একটা আইন শৃঙ্খলা কমিটি করেছেন।কালিয়াকৈর পৌর আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক সিকদার জহিরুল ইসলাম জয় জানান, বরাবর যারা ওই কমিটিতে ছিলেন, তাদের নাম বাদ দেওয়াটা ঠিক হয়নি। এটা নিয়ে আমরা আওয়ামী লীগ পরিবার আলোচনা করবো।

উপজেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি মুরাদ কবির বলেন, যে কমিটি করা হয়েছে, এটা সঠিক হয়নি। তিনি যদি একাই একাই এটা করে থাকে। তাহলে তিনি নিজেই এটার দায় ভার নিবে। তাছাড়া তিনি কি একাই কারও পরামর্শ ছাড়া এই কমিটি করতে পারেন? গাজীপুর আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আকবর আলী জানান, যে ব্যক্তি, নৌকার বিরুদ্ধে কাজ করতে পারে। সে আবার আওয়ামীলীগ নেতাদের, বীর মুক্তিযোদ্ধাদের ও সাংবাদিকদের নাম বাদ দিবেন না কেন? ইউএনও কারও সাথে কোন পরামর্শ ছাড়াই এ কমিটি করেছেন। এটা খুব খারাপ হয়েছে। কিন্তু দুঃখজনক যে, নৌকার বিরোধীতা করেছে যারা। তাদের নাম এ কমিটিতে ঠিকই রয়েছে।

উপজেলা প্রেসক্লাবের সভাপতি আরিফ হোসেন খোকন জানান, এটা বৈষম্যমূলক কমিটি হয়েছে। আমি এর তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানাচ্ছি। কালিয়াকৈর মডেল প্রেসক্লাবের সভাপতি ইমারত হোসেন বলেন, এই কমিটি মনগড়া হয়েছে। এই কমিটির মাধ্যমে কালিয়াকৈরবাসী ভাল কিছু পাবে না। কারণ এখানে সচেতন মানুষ অভাব রয়েছে।

এ ব্যাপারে জানতে কালিয়াকৈর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা হোসাইন মোহাম্মদ জকীর কাছে একাধিক বার ফোন দিলেও তিনি মুঠোফোন ফোনটি তুলেননি।


আরও খবর



জাবিতে ধর্ষণকাণ্ডে দুই আসামির দোষ স্বীকার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী মামুনুর রশিদ মামুন ও তার সহযোগী মো. মুরাদ আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়ার থানার পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. মিজানুর রহমান আসামিদের আদালতে হাজির করে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন।

যার প্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মুজাহিদুল ইসলাম তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে, বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) মামুনকে রাজধানীর ফার্মগেট এলাকা থেকে এবং মুরাদকে নওগাঁ থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

এদিকে এ মামলার অপর চার আসামি- জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, ৪৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাব্বির হাসান সাগর, ৪৬তম ব্যাচের সাগর সিদ্দিক ও ৪৫তম ব্যাচের হাসানুজ্জামানকে তিন দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৯টার দিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মোশাররফ হোসেন আবাসিক হলের ৩১৭ নম্বর কক্ষে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে বোটানিক্যাল গার্ডেনে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আসামি মোস্তাফিজ ও মামুনুর রশীদ মামুন।

ভিকটিমের স্বামী রাতেই বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় ছয় জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন।


আরও খবর



হিলিতে দুই প্রতিষ্ঠানকে ২০ হাজার টাকা জরিমানা

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৫ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১৫জন দেখেছেন

Image

মাসুদুল হক রুবেল,হিলি (দিনাজপুর) প্রতিনিধি:অবৈধ ভাবে ধান ও চালের মজুদের দায়ে দিনাজপুরের হিলিতে একটি সেমি অটো রাইস মিলে ১০ হাজার ও একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠানকে ১০ হাজার টাকা জরিমানা করেছে ভ্রাম্যমান আদালত।

আজ বুধবার (২৪ জানুয়ারী) দুপুর ২ দিকে ঘন্টাব্যাপী অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা আদায় করা হয়। নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট ও উপজেলা সহাকারী কমিশনার (ভূমি) লায়লা ইয়াসমিন এই ভ্রাম্যামান আদালত পরিচালনা করেন। এ সময় উপজেলা খাদ্য নিয়ন্ত্রণ অফিসার মঈন উদ্দিনসহ অনেকে উপস্থিত ছিলেন।

হাকিমপুর উপজেলা নির্বাহী ম্যাজিস্ট্রেট লাইলা ইয়াসমিন জানান,উপজেলা সদরে শমসের সেমি অটো রাইচ মিলে অবৈধ ভাবে ধান মজুদ ও বরাদ্দের চাল সরকারী খাদ্যগুদামে সরবরাহ না করায় ১০ হাজার টাকা এবং মেসার্স সুমন এন্ড ব্রাদার্স নামের একটি আমদানিকারক প্রতিষ্ঠান ভারত থেকে চাল আমদানি করে গুদামে মজুত রাখায় ১০ হাজার টাকা জরিমানা আদায় করা হয়েছে। তিনি আরো জানান, চলমান চালের অস্থির বাজার নিয়ন্ত্রণে এ ধরণের অভিযান অব্যহত থাকবে।


আরও খবর



ডোমারে শাওন হিমাগারে এজেন্ট, ব্যবসায়ী ও আলু চাষী সম্মেলন অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ৫৯জন দেখেছেন

Image

ডোমার (নীলফামারী) প্রতিনিধি:নীলফামারীর ডোমারে সুনামধন্য প্রতিষ্ঠান শাওন হিমাগারে এজেন্ট, ব্যবসায়ী ও আলু চাষী সম্মেলন অনুষ্ঠিত হয়েছে।

রবিবার (১৮ ফেব্রুয়ারি) সকাল ১১টায় ছোট রাউতা হিমাগার প্রাঙ্গণে শাওন হিমাগারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ডোমার পৌরসভার সফল মেয়র আলহাজ¦ মনছুরুল ইসলাম দানু’র সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ইসলামী ব্যাংক নীলফামারী শাখার ভাইস প্রেসিডেন্ট ও শাখা ব্যবস্থাপক আনোয়ার হোসেন। স্টোরকিপার ছামিউল ইসলামের সঞ্চালনায় বিশেষ অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উক্ত ব্যাংক এর লিগ্যাল এ্যাডভাইজার এ্যাড. শহিদুল ইসলাম শাহ, ইনভেষ্টমেন্ট অফিসার জিল্লুর রহমান, রাকাব এর সাবেক এজিএম তাপস কুমার ঘোষ, হিমাগারের পরিচালক শাহেদ ইসলাম শাওন, কৃষিবিদ সুবাস চক্রবর্তী, ব্যবস্থাপক জাহিদুল হক প্রমূখ।

অনুষ্ঠানে আমন্ত্রিত অতিথি হিসাবে, ডোমার কেন্দ্রীয় জামে মসজিদের পেশ ঈমাম ও খতিব আলহাজ¦ মুফতি মাহমুদ বীন আলম, ডোমার আইডিয়াল একাডেমীর অধ্যক্ষ মাওঃ মোসলেহুদ্দীন শাহ্ধসঢ়;’র আলু চাষী ও এজেন্ট ফরিদ আহমেদ, আব্দুল হামিদ, রেজাউল করিম, আমিনুর রহমান বক্তব্য রাখেন।

আলোচনা শেষে হিমাগারে সর্বচ্চো আলু সংরক্ষণকারী চাষী হিসাবে আসাদুজ্জামান মিঠুকে প্রথম পুরস্কার ২ লক্ষ টাকা, আব্দুল হামিদকে ২য় পুরস্কার ১ লক্ষ টাকা এবং ৩য় স্থান অধিকারী মশিয়ার রহমানকে ৫০ হাজার টাকা পুরস্কার হিসাবে প্রদান করেন হিমাগারের ব্যবস্থাপনা পরিচালক ও ডোমার পৌরসভার মেয়র আলহাজ¦ মনছুরুল ইসলাম দানু।


আরও খবর

গাংনীতে বালাইনাশক ব্যবহারে উদাসিন কৃষকরা

শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪