Logo
আজঃ রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
মুক্তিযোদ্ধার নাতি-নাতনিরা পাবে না তো রাজাকারের নাতিরা পাবে? কর্মীদের দক্ষ করে বিদেশে পাঠাতে হবে : প্রতিমন্ত্রী বাংলাদেশকে কত বিলিয়ন অনুদান-ঋণ দেবে চীন, জানালেন প্রধানমন্ত্রী নাসিরনগরে খুনের মামলার বাদীর এখন দিন কাটছে আতংকে মধুপুরে ক্লিনিং স্যাটারডে কার্যক্রম অনুষ্ঠিত এবার কোটা আন্দোলনের পক্ষে কথা বললেন আয়মান সাদিক ভারতে পাচার হওয়া ৫ বাংলাদেশি সাজাভোগ শেষে দেশে ফিরেছে শিক্ষার্থীরাই হবে আগামী বাংলাদেশের কর্ণধার: ধর্মমন্ত্রী দেশের অর্থনীতি এখন যথেষ্ট শক্তিশালী: প্রধানমন্ত্রী বীরগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্স পরিদর্শন করলেন স্বাস্থ্যমন্ত্রী ডাঃ সামন্ত লাল সেন

সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১৯ সেপ্টেম্বর ২০২৩ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

রাকিবুল ইসলাম রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার আয়োজনে কেন্দ্রীয় কর্মসূচি অংশ হিসেবে জেলা যুবলীগের প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন হয়েছে।

সোমবার (১৮ সেপ্টেম্বর) সকাল ১১ টায় এস.এস.রোডস্থ দলীয় কার্যালয়ে সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সদস্য ও জেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব রাশেদ ইউসুফ জুয়েল প্রাথমিক সদস্য সংগ্রহ ও নবায়ন কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করেন।

উপস্থিত ছিলেন, জেলা যুবলীগের যুগ্ন- আহবায়ক সঞ্জয় সাহা, যুগ্ন আহবায়ক হাসান শহিদ চঞ্চল,যুগ্ন -আহ্বায়ক মোহাম্মদ আলহাজ্ব সরকার সহ জেলা যুবলীগের নেতৃবৃন্দ ও বিভিন্ন উপজেলা থেকে আগত যুবলীগের নেতা কর্মী বৃন্দ। 

এসময় সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামী লীগের সদস্য ও জেলা যুবলীগের আহবায়ক আলহাজ্ব রাশেদ ইউসুফ জুয়েল বলেন,বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগের সম্মানিত চেয়ারম্যান ও সাধারণ সম্পাদক এর নির্দেশক্রমে সিরাজগঞ্জ জেলা যুবলীগের ইউনিট কে শক্তিশালী করতে এই প্রাথমিক সদস্য ও নবায়ন সংগ্রহ কার্যক্রম শুভ উদ্বোধন করলাম। জেলার প্রতিটি উপজেলা ও ইউনিয়ন পর্যায়ে যুবলীগের নেতাকর্মীদের কে গতিশীল করতে এই ধরনের উদ্যোগ। বিএনপির,জামাত সকল ষড়যন্ত্র, অগ্নি সন্ত্রাস, নৈরাজ্যের বিরুদ্ধে জেলা যুবলীগের প্রতিটি নেতাকর্মীরা সিরাজগঞ্জ জেলা আওয়ামীলীগের সিদ্ধান্ত'র সাথে স্ট্রাকিং ফোর্স হিসেবে মাঠ পর্যায়ে কাজ করবে। ২০২৪ সালের আগামী দ্বাদশ জাতীয় সংসদ নির্বাচনে বাংলাদেশ আওয়ামী যুবলীগ সিরাজগঞ্জ জেলা শাখার প্রতিটি নেতাকর্মীরদের কে নিয়ে বাংলাদেশ আওয়ামীলীগের সভাপতি ও হাজার বছরের শ্রেষ্ঠ বাঙালি জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু'র সুযোগ্য কন্যা গণপ্রজাতন্ত্রী বাংলাদেশ সরকারের মাননীয় প্রধানমন্ত্রীর স্বপ্ন ২০৪১ সালের আগে স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মাণ করতে মাঠ পর্যায়ে কাজ করব ইনশাআল্লাহ।

আরও খবর



বাজারে চাহিদার তুলনায় গরু বেশী শেষ সময়ে পশুর দাম কম

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১৭০জন দেখেছেন

Image

আব্দুল্লাহ আল নোমান,আমতলী (বরগুনা) প্রতিনিধি:পবিত্র ঈদুল আজহার বাকী আর মাত্র ২ দিন। বাজারে চাহিদার তুলনায় গবাদি পশু বেশী ওঠায় দাম কম। এতে বাজারে গরু কম বিক্রি হচ্ছে। বিপাকে পরেছে গরু ব্যবসায়ীরা।

আমতলী প্রাণী সম্পদ অফিস সূত্রে জানাগেছে, উপজেলায় কোরবানীর জন্য ৮ হাজার ৬’শ ২৩ টি গবাদি পশুর চাহিদা রয়েছে। চাহিদার বিপরীতে এ উপজেলার ৮ হাজার ৯’শ ৫ টি পশু আছে। এর মধ্যে ৫ হাজার ৭’শ ৮৭ টি গরু, ৬ ’শ২১ টি মহিষ,২ হাজার ৪’শ ৯৭ টি ছাগল। চাহিদার তুলনায় ২’শ ৯২ টি পশু বেশী রয়েছে। শেষ সময়ে ভালো লাভের আশায় ব্যস্ত খামারীরা। খুব যতœ সহকারে গবাদি পশুর দেখভাল করছেন তারা। কিন্তু চাহিদার তুলনায় বেশী পশু উৎপাদন হওয়ায় বাজারে দাম কম। ফলে দিশেহারা খামারীরা।  খোঁজ খবর নিয়ে জানাগেছে, বাজারে চাহিদার তুলনায় বেশী গরু উঠেছে। ফলে কম দামে পশু বিক্রি হচ্ছে। আমতলী পৌর শহরের একে এম জিল্লুর রহমান বলেন, তুলনামুলক ভাবে বাজারে গরুর দাম অনেক কম।

হলদিয়া গ্রামের খামারী জালাল গাজী বলেন, ৭৫ হাজার টাকার একটি গরু ক্রয় করে দুই বছর লালন পালন করেছি। দুই বছরে গরুর পিছনে ৯০ হাজার টাকা খরচ করেছি। ওই গরু দুই লক্ষ ১০ হাজার টাকায় বিক্রি করেছি। বাজারে দাম কম থাকায় আসল ও খরচ মিলে তেমন লাভ হয়নি।  

আমতলী গাজীপুর বন্দরের গরু ব্যবসায়ী আলহাজ্ব মাহবুবুর রহমান হাওলাদার বলেন, বাজারে গরু দাম অনেক কম। গত বছরের তুলনায় এ বছর বড় ও মাঝারী ধরনের গরু ২০ থেকে ২৫ হাজার টাকা কম দামে বিক্রি হচ্ছে। তিনি আরো বলেন, এখন পর্যন্ত কোরবানী উপযুক্ত ১১৫ টি গরু বিক্রি করেছি।  বাজারে দাম কম থাকায় কাঙ্খিত লাভ হয়নি।  

আমতলী গরু হাটের ইজারাদার মোঃ মোতাহার উদ্দিন মৃধা বলেন, বাজারে চাহিদার তুলনায় বেশী গরু আসে। ফলে গত বছরের তুলনায় এ বছর গরুর দাম কম।   

আমতলী থানার ওসি কাজী সাখাওয়াত হোসেন তপু বলেন, উপজেলার সকল বাজারে পযাপ্ত নিরাপত্তা রয়েছে। বাজারে আসা ক্রেতা-বিক্রেতারা পশু ক্রয়-বিক্রয় করে যাতে নির্বিঘেœ বাড়ী ফিরতে পারে সেই ব্যবস্থা নিয়েছি। 

আমতলী উপজেলা প্রাণী সম্পদ কর্মকর্তা ডাঃ নাজমুল হক বলেন, উপজেলায় চাহিদার তুলনায় বেশী গবাদি পশু বেশী রয়েছে।  বাজারে গরু বেশী উঠায় দাম কম। 


আরও খবর

আমতলীতে ৩দিন ব্যাপী কৃষি মেলা শুরু

বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪




শিশুকুঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

ঝিনাইদহ কামরুজ্জামান:জাকজমকপূর্ণ আয়োজনের মধ্যদিয়ে ঝিনাইদহ শিশুকুঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজের প্রাক্তন শিক্ষার্থীদের ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠিত হয়েছে। কলেজ প্রাঙ্গনে এ পুনর্মিলনী আয়োজন করে এক্স স্টুডেন্ট এসোসিয়েশন অব শিশুকুঞ্জ। প্রধান অতিথি হিসাবে উপস্থিত ছিলেন ঝিনাইদহ-২ আসনের সংসদ সদস্য মোঃ নাসের শাহরিয়ার জাহেদী মুহুল। আরোও উপস্থিত ছিলেন- কর্নেল এসএম রাকিব ইবনে রেজওয়ান, ঝিনাইদহ অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ইমরান জাকারিয়া, ঝিনাইদহ পৌরসভার মেয়র কাইয়ুম শাহরিয়ার জাহেদী হিজল, শিশুকুঞ্জ স্কুল এন্ড কলেজের অধ্যক্ষ আবুল কাশেম। অনুষ্ঠানের পূর্বে এক বর্নাঢ্য র‌্যালী প্রতিষ্ঠান প্রাঙ্গন থেকে শুরু হয়ে শহর প্রদক্ষিণ পর পুনরায় কলেজ প্রাঙ্গনে এসে শেষ হয়। বিকালে স্থানীয় শিল্পী ও সন্ধ্যার পর ঢাকা থেকে আগত শিল্পদের সমন্বয়ে এক মনোজ্ঞ সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠানের মাধ্যমে ঈদ পুনর্মিলনী অনুষ্ঠান শেষ হয়।  


আরও খবর



শেরপুরে প্রধান শিক্ষকের অনিয়ম ও দুর্নীতির প্রতিরোধে শিক্ষার্থীদের সড়ক অবরোধ,বিক্ষোভ

প্রকাশিত:সোমবার ০৮ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ৬১জন দেখেছেন

Image
শেরপুর প্রতিনিধি:শেরপুর জেলার সদর উপজেলায়  গাজীরখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল এর বিরুদ্ধে অসহনীয়  অনিয়ম ও দুর্নীতির কারণে দুইদিন ব্যাপী ৭ জুলাই রোববার অত্র বিদ্যালয়ের শিক্ষার্থীরা শেরপুর - নালিতাবাড়ী  সড়ক অবরোধ এবং বিক্ষোভ কর্মসূচি পালন করেছে। খবর পেয়ে সদর থানার পুলিশ বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অবরোধ তুলে নেয়ার জন্য বলেন এবং পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণ আনেন। 

সরেজমিনে গিয়ে জানা গেছে, সদর উপজেলার গাজীরখামার উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল ওই বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক হিসেবে দায়িত্ব গ্রহণের পর থেকেই সে বিভিন্ন অনিয়ম ও দুর্নীতির সাথে জড়িয়ে পড়েন। এদিকে ম্যানেজিং কমিটির সিদ্ধান্ত ছাড়াই ওই বিদ্যালয়ের ছাত্রছাত্রীদের ১০ম শ্রেণির মাসিক বেতন ৬০ টাকার স্থলে ১৫০ টাকা করে আদায় এবং অন্যান্য শ্রেণির বেতন বৃদ্ধি করার ফলে ছাত্রছাত্রীরা বিক্ষুদ্ধ হয়ে পড়ে।যদিও সরকারী নির্দেশনায় সরকার  বা বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠানের অধ্যয়নত উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের টিউশন ফি বা বেতন মওকুফ থাকবে। বেসরকারি শিক্ষা প্রতিষ্ঠান কে উপবৃত্তি প্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের অনুকূলে স্কিম ডকুমেন্ট মোতাবেক নির্ধারিত হারে টিউশন ফি বা বেতন দেয়া হবে। উপবৃত্তিপ্রাপ্ত শিক্ষার্থীদের কাছ থেকে কোনক্রমেই টিউশন ফি বা বেতন আদায় করা যাবে না। 

এছাড়াও গরীব, অসহায় ও প্রতিবন্ধী শিক্ষার্থী এবং একই পরিবারের দুই শিক্ষার্থী পড়ালেখা করলেও পরীক্ষার ফিসহ অন্যান্য কোন সুযোগ সুবিধা দেন না প্রধান শিক্ষক। 

বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ বিগত দুই বছর পূর্বে পরিচয় পত্র দেয়ার জন্য প্রত্যেক শিক্ষার্থীর কাছ থেকে ২০০ শত করে টাকা নেয়ার পরেও অদ্যবধি তাদের পরিচয় পত্র দেয়া হয়নি বলে অভিযোগ করে তারা। 

অপরদিকে প্রধান শিক্ষক মাহবুবুর রহমান বুলবুল ২২ জন শিক্ষকের মধ্যে তার কাছের ৪ জন শিক্ষক ছাড়া অন্যান্য ১৮ জন শিক্ষককে বাদ দিয়ে সে বিদ্যালয় পরিচালনা করেন এবং ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি ও সদস্যদের সিদ্ধান্ত ছাড়াই নিজেই মনগড়া বিদ্যালয় পরিচালনা করে থাকেন বলে প্রকাশ্যে ওই বঞ্ছিত শিক্ষকরা অভিযোগ করেন। এমন উদ্বৃত পরিস্থিতির খবর পেয়ে জেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ রেজুয়ার, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মোঃ চাঁন মিয়া, গাজীরখামার ইউনিয়ন পরিষদ চেয়ারম্যান মোঃ আওরাদুল ইসলাম ঘটনাস্থলে যান। এসময় বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ গুলো শুনেন শিক্ষা অফিসারসহ অন্যান্যরা। পরে ছাত্রছাত্রীদের দাবি দাওয়া ও সমস্যার সমাধান করার আশ্বাস দিয়ে বক্তব্য রাখেন জেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ রেজুয়ান, উপজেলা শিক্ষা অফিসার মোঃ চাঁন মিয়া, ইউপি চেয়ারম্যান মোঃ আওলাদুল ইসলাম, ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি বেলাইয়ের হোসেন, বাংলা শিক্ষক জিকরুল ইসলাম, অভিভাবক সাহাদত হোসেন খান মিন্টু প্রমুখ। পরে বিক্ষুদ্ধ ছাত্রছাত্রীরা তাদের দেয়া আশ্বাসের প্রেক্ষিতে সড়ক অবরোধ ও বিক্ষোভ কর্মসূচি তুলে নেন এবং পরিস্থিতি শান্ত হয়। 

এব্যাপারে প্রধান শিক্ষক মোঃ মাহবুবুর রহমান বুলবুল এর বিরুদ্ধে ছাত্রছাত্রীদের অভিযোগ এবং বিক্ষোভের বিষয়ে জানতে চাইলে তিনি বলেন, একটি মহল তার বিরুদ্ধে ষড়যন্ত্র এবং ছাত্রছাত্রীদের উস্কানি দিয়ে তার বিরুদ্ধে মিথ্যা অভিযোগ করেছে। তবে এঘটনায় বিষয় গুলো তিনি শীঘ্রই সমাধান করে বিদ্যালয়ের ভালো পরিবেশ ফিরিয়ে আনার জন্য চেষ্টা করবেন বলে এমনটাই বলেন তিনি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



একনেকে সাড়ে ৫ হাজার কোটি টাকার ১১ প্রকল্প অনুমোদন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:রবিবার ১৪ জুলাই ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) ঢাকা অঞ্চলের কৃষি উন্নয়নসহ ১১ প্রকল্প অনুমোদন দিয়েছে। এগুলো বাস্তবায়নে মোট ব্যয় ধরা হয়েছে ৫ হাজার ৪৫৯ কোটি ৮৭ লাখ টাকা। এরমধ্যে সরকারি তহবিল থেকে ৫ হাজার ২১৪ কোটি ৩৪ লাখ টাকা , বৈদেশিক ঋণ সহতায় থেকে ১৪০ কোটি ৪৪ লাখ টাকা এবং বাস্তবায়নকারী সংস্থা থেকে ১০৫ কোটি টাকা ব্যয় করা হবে।

মঙ্গলবার (২ জুলাই) রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইনি সম্মেলন কক্ষে অনুষ্ঠিত বৈঠকে এ অনুমোদন দেওয়া হয়। এতে সভাপতিত্ব করেন প্রধানমন্ত্রী ও একনেক চেয়ারপার্সন শেখ হাসিনা।

একনেকে অনুমোদিত প্রকল্প গুলো হচ্ছে- ঢাকা অঞ্চলের কৃষির উন্নয়ন প্রকল্প। বরগুনা ও মুন্সীগঞ্জ জেলার গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো উন্নয়ন প্রকল্প। রায়পুরা ১২০ মেগাওয়াট এসি পিক গ্রিড টাইড সোলার পাওয়ার প্ল্যান্টের জন্য ভূমি অধিগ্রহণ প্রকল্প। বিসিক মুদ্রণ শিল্প নগরী (২য় সংশোধিত) প্রকল্প। কিশোর উন্নয়ন কেন্দ্র কিশোরগঞ্জ, জয়পুরহাট ও চট্টগ্রাম স্থাপন প্রকল্প। ইসলামি আরবি বিশ্ববিদ্যালয় স্থাপন (প্রথম সংশোধিত) প্রকল্প। কুমিল্লা-সালদা ও কসবা (সৈয়দাবাদ) সড়কে (এন১১৪) জাতীয় মহাসড়ক মানে উন্নীত করা প্রকল্প। নগরাঞ্চলের ভবন সুরক্ষা প্রকল্প। বুড়িগঙ্গা, শীতলক্ষ্যা, তুরাগ ও বালু নদীর তীর ভূমিতে পিলার স্থাপন, তীররক্ষা, ওয়াকওয়ে ও জেটিসহ আনুষঙ্গিক অবকাঠামো নির্মাণ (দ্বিতীয় পর্যায়) (দ্বিতীয় সংশোধিত) প্রকল্প। দেশের বিভিন্ন স্থানে বাংলাদেশ পুলিশের থানার প্রশাসনিক কাম ব্যারাক ভবন নির্মাণ প্রকল্প।

পরিকল্পনামন্ত্রী মেজর জেনারেল (অব.) আব্দুস সালাম এবং পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী শহীদুজ্জমান সরকার বৈঠক শেষে সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

তিনি বলেন, একটি একনেক বা মন্ত্রী পরিষদ বৈঠক হওয়া মানে এক ধাপ এগিয়ে যাওয়া নয়, এই বৈঠক হওয়া মানে একটি লম্ফ। এ অর্থবছর অষ্টম পঞ্চবার্ষিক পরিকল্পনার শেষ বছর। সামনে আমরা এলডিসিতে উত্তরণ করছি। একনেকে প্রকল্প পাশ হওয়ার মধ্যদিয়ে প্রকল্প বাস্তববায়ন পর্যায়ে গেলে উন্নয়নকে আমরা এগিয়ে নিতে পারবো। আমরা উন্নয়নকে এগিয়ে নিতেই কাজ করে যাচ্ছি।

পরিকল্পনামন্ত্রী আরও জানান, প্রেক্ষিত পরিকল্পনা ৪১ এর বাস্তবায়ন বাড়ানোর নির্দেশ দিয়েছেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। এছাড়া সদ্য সমাপ্ত ২০২৩-২৪ অর্থবছরের শেষ সময়ে যেসব প্রকল্পের অনুকূলে অর্থ বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে সেই টাকা কীভাবে খরচ হয়েছে সেটি খতিয়ে দেখার নির্দেশ দিয়েছেন তিনি।


আরও খবর



বেনজীরের স্ত্রী-সন্তানরাও দুদকে হা‌জির হন‌নি

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ১৩ জুলাই ২০২৪ | ১৪৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:অবৈধ সম্পদ অর্জনের অভিযোগের বিষ‌য়ে বক্তব্য দি‌তে দ্বিতীয় দফা সময় পাওয়ার পরও দুর্নী‌তি দমন ক‌মিশ‌নে (দুদ‌ক) হা‌জির হন‌নি সা‌বেক আইজি‌পি বেনজীর আহ‌মেদের স্ত্রী জীশান মির্জা ও দুই কন্যা।

সোমবার (২৪ জুন) সকাল ১০টায় সংস্থা‌টির প্রধান কার্যাল‌য়ে হা‌জির হওয়ার কথা ছিল তাদের।

গত মে মাসের শুরুতেই বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যরা দেশ ছেড়েছেন বলে জানা গেছে।

এর আগে, বেনজীর আহমেদ ও তার পরিবারের সদস্যরা গত ৬ ও ৯ জুন দুদকে হাজির হন‌নি। এরপর তাদের আবেদনের প্রেক্ষিতে দুদক ২৩ ও ২৪ জুন হাজিরার দিন নির্ধারণ করে। গতকাল রোববার বেনজীর আহ‌মেদেরও হা‌জিরার দিন ছিল। কিন্তু তি‌নি না এসে ২১ জুন দুদক চেয়ারম্যান বরাবর এক‌টি চি‌ঠি পাঠান। সে চি‌ঠি‌তে নি‌জে‌কে নি‌র্দোষ দা‌বি ক‌রে অভিযোগ থে‌কে অব্যাহতি চান। যদিও বেনজী‌রের সে আবেদন নাকচ ক‌রে দেওয়া হ‌য়ে‌ছে।

বেনজীর আহমেদের বিরুদ্ধে বিপুল পরিমাণ সম্পদ অর্জনের অভিযোগ এনে জাতীয় দৈনিকে সংবাদ প্রকাশ হয় গত মার্চে। এরপরই বেনজীর আহমেদ, তার স্ত্রী জিশান মির্জা, মেয়ে ফারহিন রিশতা বিনতে বেনজীর ও তাহসিন রাইসা বিনতে বেনজীরের জ্ঞাত আয়বহির্ভূত সম্পদের খোঁজে গত ১৮ এপ্রিল অনুসন্ধান শুরু করে দুদক।

দুদকের আবেদনের প্রেক্ষিতে গত ২৩ ও ২৬শে মে বেনজীর, তার স্ত্রী ও দুই কন্যার নামে থাকা অবৈধ বিশাল সম্পদ জব্দের আদেশ দেন আদালত। একইসঙ্গে তাদের ব্যাংক হিসাব ও শেয়ার অবরুদ্ধ করারও আদেশ দেওয়া হয়।

এছাড়া তাদের নামে থাকা ৬২৭ বিঘা জমি ও গুলশানের চারটি ফ্ল্যাট জব্দ এবং ৩৮টি ব্যাংক হিসাব ও বিভিন্ন কোম্পানির শেয়ার অবরুদ্ধ করার আদেশ দেন ঢাকা মহানগর সিনিয়র স্পেশাল জজ মোহাম্মদ আসসামছ জগলুল হোসেন।


আরও খবর