Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

শিবপুরে প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত স্বামী,রাজ মিস্ত্রী কাজ করে সংসারের হাল ধরলেন স্ত্রী।

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৫ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৪০১জন দেখেছেন

Image

মোহাম্মাদ হেদায়েতুল্লাহ্ ,নবীনগর (ব্রাহ্মণবাড়িয়া) প্রতিনিধি: ব্রাহ্মণবাড়িয়া নবীনগর উপজেলা শিবপুর ইউনিয়ন শিবপুর গ্রামের মোঃ কামাল মিয়া দীর্ঘ ৯ বছর ধরে প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত।স্বামী অসুস্থ হওয়ার পর রাজ মিস্ত্রী কাজ করে সংসারের হাল ধরলেন স্ত্রী লিপি বেগম।স্থানীয় লোকেরা বলেন,মোঃ কামাল হোসেন সুস্থ্য সবল ছিলেন। আজ থেকে নয় বছর পূর্বে প রোগে আক্রান্ত হয়ে স্বাভাবিক ভাবে চলতে পারে না।এক বছর চিকিৎসা করানোর পর অর্থের অভাবে আর চিকিৎসা করাতে পারেনি তার পরিবার।কামাল হোসেন এর দুই মেয়ে।স্ত্রী লিপি বেগম রাজমিস্ত্রী কাজ করে দুই মেয়ে ও স্বামী কে নিয়ে সংসারের হাল ধরলেন।

এক মেয়ে কে বিয়ে দিয়েছে আশেপাশের বৃত্তভানদের সহযোগিতায়।রাজ মিস্ত্রী কাজ করে যে টাকা উপার্জন করে তা দিয়ে সংসার চালিয়ে স্বামীর চিকিৎসা করা সম্ভব হচ্ছে না।সমাজের বৃত্তভান ব্যাক্তিরা পরিবারটির পাশে দাড়াঁনোর জন্য আহবান করছি।কামাল হোসেন এর স্ত্রী লিপি বেগম বলেন,আমার পরিবারের এক মাত্র ভরসা ছিল আমার স্বামী।প্রতিদিন যে টাকা উপার্জন করত তা দিয়ে আমাদের সংসার চলত।৯ বছর পূর্বে হঠাৎ আমার স্বামী প্যারালাইসিস রোগে আক্রান্ত হয়।এর পর থেকে কথা বলতে পারে না,স্বাভাবিক ভাবে চলাচল করতে পারে না।

এক বছর চিকিৎসা করানোর পর আর চিকিৎসা করাতে পারি নাই অর্থের অভাবে।আমার স্বামী অসুস্থ হওয়ার পর পরিবারের হাল ধরার মত কেউ ছিলনা,আমি রাজ মিস্ত্রী কাজ করে সংসার এর হাল ধরেছি।আশেপাশের লোকদের সহযোগিতায় এক টি মেয়ে বিবাহ দেয়।বর্তমানে রাজ মিস্ত্রী কাজ করে যে টাকা উপার্জন করি তা দিয়ে কোন রকমে সংসার চলে,তাই আমার স্বামীর চিকিৎসা করাতে পারছিনা।সমাজের বৃত্তভান ব্যাক্তি সহ সরকারের কাছ থেকে আমার পরিবারের জন্য সহযোগিতা কামনা করছি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




তানোরে গাছের ডালে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্মহত্যা

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৭০জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে গাছের ডালের সাথে  গলায় ফাঁস দিয়ে আপেল নামের (১৫) এক কিশোরের  ঝুলন্ত লাশ উদ্ধার করেছে থানা পুলিশ। তার বাড়ি উপজেলার কলমা ইউনিয়ন ইউপির গঙ্গারামপুর গ্রামে। সে আতাউর রহমানের ছেলে। রবিবার বিকেলের দিকে মুন্ডুমালা পৌর এলাকার প্রকাশনগর খালের পার্শের গাছের ডালে গলায় ফাঁস দিয়ে ঘটে  আত্মহত্যার ঘটনা । 
 
এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে,নিহত কিশোর  আপেল দীর্ঘদিন ধরে মানুষিক ভারসাম্যহীন। রোববার দুপুরের পরে মুন্ডুমালা পৌরসভার প্রকাশনগর গ্রামের পানি নিষ্কাসনের খাড়ির ধারে লাগানো গাছের সাথে গলায় ফাঁস দিয়ে আত্নহত্যা করেন। স্থানীয়রা আপেল কে গাছের ডালের সাথে  ঝুলন্ত অবস্থায় দেখতে পান। এসময় স্থানীয়রা থানা পুলিশ কে খবর দিলে পুলিশ ঘটনাস্থলে গিয়ে লাশ উদ্ধার করেন। 

এবিষয়ে  থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রহিম জানান,  খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে পুলিশ পাঠিয়ে লাশ উদ্ধার করা হয়েছে। তদন্ত সাপেক্ষ আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

আরও খবর



পুঠিয়া উপজেলা নির্বাচনে ৭৮টি কেন্দ্রের মধ্যে ৩৩টি কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ

প্রকাশিত:সোমবার ২০ মে ২০24 | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ১০৯জন দেখেছেন

Image
সাজেদুর রহমান পুঠিয়া (রাজশাহী) প্রতিনিধিঃ৬ষ্ঠ উপজেলা পরিষদ সাধারণ নির্বাচনে দ্বিতীয় ধাপে আগামী মঙ্গলবার (২১ মে) পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচন অনুষ্ঠিত হতে যাচ্ছে। পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ ২টি থানা, ১টি পৌরসভা ও ৬টি ইউনিয়ন নিয়ে গঠিত। এসব এলাকায় ৭৮টি ভোট কেন্দ্রে রয়েছে। ৭৮টি ভোট কেন্দ্রের মধ্যে ৩৩টি ভোট কেন্দ্রকে গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে ঘোষনা করেছে পুলিশ প্রশাসন। গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলো হলো, পুঠিয়া থানার মধ্যে, পীরগাছা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বারইপাড়া নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয়, কান্দ্রা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বানেশ^র উচ্চ বিদ্যালয়, দিঘলকান্দি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, হাতিনাদা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বিড়ালদহ সৈয়দ করম আলী সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বিড়ালদহ সৈদয় করম আলী উচ্চ বিদ্যালয়, শাহবাজপুর উচ্চ বিদ্যালয়, ফুলবাড়ি সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, নন্দনপুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, সাধনপুর হাইস্কুল এন্ড কলেজ, পচামাড়িয়া দ্বি-মখী উচ্চ বিদ্যালয়, পচামাড়িয়া ডিগ্রী কলেজ, ভরতমাড়িয়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ঝলমলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় (পশ্চিম ভবন), ঝলমলিয়া উচ্চ বিদ্যালয় (উত্তর ও পূর্ব ভবন), ধোপাপাড়া উচ্চ বিদ্যালয় ও সৈয়দপুর উচ্চ বিদ্যালয়। বেলপুকুর থানার সবগুলো ভোট কেন্দ্র গুরুত্বপূর্ণ হিসেবে ঘোষনা করা হয়েছে, মাহেন্দ্রা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ভড়–য়াপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, কাজিরপাড়া সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, জামিরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, আগলা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, জামিরা উচ্চ বিদ্যালয়, ক্ষুদ্রজামিরা সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বেলপুকুর সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, বেলপুকুর উচ্চ বিদ্যালয়, চকধাদাশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধাদাশ সরকারী প্রাথমিক বিদ্যালয়, ধাদাশ উচ্চ বিদ্যালয় ও দোমাদি উচ্চ বিদ্যালয়। পুঠিয়া থানা সূত্রে জানাগেছে এসব গুরুত্বপূর্ণ কেন্দ্রগুলোতে অতিরিক্ত আইন শংঙ্খলা বাহিনীর সদসগণেরা কাজ করবেন। আগামী মঙ্গলবার (২১ মে) পুঠিয়া উপজেলা পরিষদ নির্বাচনে ৭৮টি কেন্দ্রে ১ লক্ষ ৬০ হাজার ৭’শ ২৪ জন ভোটার তাদের ভোট প্রদান করবে। এর মধ্যে পুরুষ ৯১৮৮১,মহিলা ৯০১৩৪,হিজরা ৩ জন।

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




ঈদ ঘিরে নিরাপত্তা হুমকি নেই: র‌্যাব ডিজি

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৮১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে সুনির্দিষ্ট কোনো হামলা বা নাশকতার তথ্য নেই,বলেছেন র‍্যাপিড অ্যাকশন ব্যাটালিয়নের (র‍্যাব) মহাপরিচালক (ডিজি) ব্যারিস্টার মো. হারুন অর রশিদ। তবে যেকোনো পরিস্থিতি মোকাবিলায় প্রস্তুতি ও সক্ষমতা আমাদের রয়েছে।

রোববার (১৬ জুন) সকালে জাতীয় ঈদগাহ ময়দানে নিরাপত্তা ব্যবস্থা পর্যবেক্ষণ শেষে সাংবাদিকদের সঙ্গে আলাপকালে তিনি এসব কথা বলেন।

র‍্যাব ডিজি বলেন, পবিত্র ঈদুল আজহাকে কেন্দ্র করে রাজধানীসহ সারাদেশে পশুর হাট জমে উঠেছে। হাটকেন্দ্রীক মলম পার্টি, অজ্ঞানপার্টি প্রতিরোধে র‍্যাব সার্বক্ষণিক নজরদারি রেখেছে। হাটগুলোতে পর্যাপ্ত ফোর্স মোতায়েন রাখা হয়েছে, জাল টাকা শনাক্তের জন্য ডিভাইস রয়েছে। প্রতিটা বাস টার্মিনাল, লঞ্চঘাট, ট্রেন স্টেশনে র‍্যাব সদস্য মোতায়েন রয়েছে। টিকিট কালোবাজারির সঙ্গে সংঘবদ্ধ ১০ জনের একটি দলকে র‍্যাব গ্রেপ্তার করেছে। দেশের প্রত্যন্ত অঞ্চল থেকে পশুবাহী গাড়ি ঢাকায় আসছে। এসব গাড়ি যাতে কোথাও বাধাগ্রস্ত না হয় আমরা নজর রাখছি।

তিনি বলেন, ঈদের দিনে ঢাকায় জাতীয় ঈদগাহে সবচেয়ে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এছাড়া, শোলাকিয়া, রংপুর, দিনাজপুরে বড় জামাত অনুষ্ঠিত হবে। এসব ঈদ জামাতে পর্যাপ্ত নিরাপত্তা ব্যবস্থাসহ নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। র‍্যাব সদর দপ্তর থেকে কন্ট্রোলরুম স্থাপন করে সার্বক্ষণিক নিরাপত্তা ব্যবস্থা মনিটরিং করা হবে। চামড়া নিয়ে যাতে কোনো কারসাজি না হয়, সেজন্য ব্যবস্থা নিয়েছি। ঈদ ঘিরে আমরা যথেষ্ট সতর্ক রয়েছি, গোয়েন্দা নজরদারি জোরদার করা হয়েছে। ঈদকে কেন্দ্র করে সুনির্দিষ্ট কোনো হামলা-নাশকতার তথ্য নেই। তবে কোনো আশঙ্কাকে উড়িয়ে দিচ্ছি না, সবকিছু মাথায় রেখেই নিরাপত্তা ব্যবস্থা সাজানো হয়েছে। আমরা সতর্ক রয়েছি। র‍্যাবের ডগ স্কোয়াড, বোম্ব ডিসপোজাল ইউনিটসহ দুটি হেলিকপ্টারকে প্রস্তুত রাখা হয়েছে। যেকোনো ধরনের নাশকতা-হামলা প্রতিরোধ করতে র‍্যাব প্রস্তুত রয়েছে। সাইবার ওয়ার্ল্ডে সাইবার পেট্রোলিং জোরদার করা হয়েছে, যেকোনো গুজব প্রতিরোধ করতে প্রস্তুতি রয়েছে।

মো. হারুন অর রশিদ আরও বলেন, কোনো ধরনের হামলার সুনির্দিষ্ট কোনো তথ্য নেই। তারপরেও যদি এমন কিছু হয়ও আমরা প্রস্তুত আছি। যেকোনো ঘটনা প্রতিহত করতে র‍্যাবের প্রস্তুতি রয়েছে। র‍্যাব বর্তমানে ত্রিমাত্রিক এলিট ফোর্সে পরিণত হয়েছে। জলে-স্থলে-আকাশে আমাদের সক্ষমতা রয়েছে। নিশ্চয়তা দিচ্ছি শোলাকিয়ায় হামলার মতো এ ধরনের ঘটনা ঘটবে না।


আরও খবর



ফুলবাড়ীতে প্রতিপক্ষের বিরুদ্ধে জমি দখল মারপিটের ঘটনায় সংবাদ সম্মেলন

প্রকাশিত:সোমবার ১০ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image

ফুলবাড়ী, দিনাজপুর প্রতিনিধি:ফুলবাড়ী উপজেলার খয়েরবাড়ী ইউপির খয়েরবাড়ী গ্রামে মালতী চক্রবর্তীর পরিবারকে প্রতিপক্ষ কৌশিক কুমার গৌস্বামী কর্তৃক মারপিট ও জমি দখল এর বিরুদ্ধে ন্যায় বিচার পেতে সংবাদ সম্মেলন করেন। গতকাল সোমবার দুপুর ১টায় ফুলবাড়ী উপজেলার সুজাপুরে খয়েরবাড়ী ইউপির খয়েরবাড়ী গ্রামে মৃত্যু আশিষ কুমার গৌস্বামীর স্ত্রী মালতী চক্রবর্তী সংবাদ সম্মেলনে প্রতিপক্ষ কৌশিক কুমার গৌস্বামীর বিরুদ্ধে অভিযোগ করে বলেন, আমার স্বামীর নিজের ভাই প্রদীপ কুমার গৌস্বামী জীবিত থাকা অবস্থায় জমিজমা তার নামে ক্রয় করেন। বাঁকি জমি আমি আমার চাকরীর টাকা দিয়ে ক্রয় করি। স্বামীর মৃত্যুর পর আমি দুই কন্যা হেমন্তী গৌস্বামী ও অনন্যা গৌস্বামীকে নিয়ে অতি কষ্টে জীবন যাপন করছি। আমার স্বামীর পয়ত্রিক সূত্রে পাওয়া ও ক্রয়কৃত জমি রেখে মারা যান। সেই জমি চাষাবাদ করে জীবন জীবিকা চালাচ্ছি। প্রদীপ গৌস্বামী ও তার পুত্র কৌশিক কুমার গৌস্বামী সহ অন্যান্যরা রাতের আধারে জমিতে লাগানো ইরি বোর ধান নষ্ট করে দেন। তারা আমার স্বামীর জমিগুলি দখল করার চেষ্টা করছে। জোর পূর্বক বাড়ীর সামনে রাখা ধান লুট করে নিয়ে যাওয়ার সময় বাঁধা দিলে কৌশিক কুমার গৌস্বামী গংরা আমাকে মারপিট করে মারাত্বক ভাবে আহত করে। আমি আহত অবস্থায় ফুলবাড়ী হাসপাতালে ভর্তি হয়ে চিকিৎসা গ্রহণ করি। আমি ফুলবাড়ী থানায় মামলা করলে ১নং আসামী কৌশিক কুমার গৌস্বামীকে বাদ দিয়ে বাঁকি আসামীদের জেল হাজতে প্রেরণ করেন। তারা জামিন নিয়ে বেরিয়ে এসে আমাকে ও আমার দুই মেয়েকে প্রাণ নাশের হুমকি দেন। আমি একজন অসহায় নারী। আমি কোনভাবে এদের সাথে কুলে উঠতে পারছিনা। ইতিপূর্বে আমার জামাই অমিতাভ চক্রবর্তী রঞ্জনকে মারপিট করে পা ভেঙ্গে দিয়েছিল। এই ঘটনায় আদালতে মামলা করেছি বর্তমানে তা চলমান আছে। সংবাদ সম্মেলনের মাধ্যমে আমি আমার মেয়ের নিরাপত্তার জন্য স্থানীয় প্রশাসন এর হস্তক্ষেপ কামনা করছি। সংবাদ সম্মেলনে তার দুই কন্যা উপস্থি ছিলেন।


আরও খবর



মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম কুমারখালী উপজেলার কমিটি গঠন

প্রকাশিত:শনিবার ০৮ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image
কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ“মুক্তিযোদ্ধার সন্তান ও প্রজন্ম” কুমারখালী উপজেলা শাখার সভাপতি নির্বাচিত হয় বীর মুক্তিযোদ্ধা মৃত আব্দুল আজিজ খান এর সুযোগ্য পুত্র ফারুক আহমেদ খান  ও সাধরন সম্পাদক নির্বাচিত হয় বীর মুক্তিযোদ্ধা মাহমুদ হোসেন মানুর পুত্র শিল্পী কৌশিক আহম্মেদ চয়ন । ৭ জুন ২০২৪ইং শুক্রবার রাতে কুমারখালীর কড়ইতলায় উপস্হিত সকলের আলোচনা শেষে ১ বছরের জন্য ১১ সদস্য বিশিস্ট কমিটি ঘোষণা করা হয়। যথাক্রমেঃ- সহ-সভাপতি সাইফুল ইসলাম, হারুন অর রশীদ ,যুগ্ন-সাধারন সম্পাদক বাবুল হোসেন পিয়ার,সাংগঠনিক সম্পাদক আবুল কালাম,অর্থ সম্পাদক লাভলী সুলতানা রুপা ,দপ্তর সম্পাদক সজিব হোসেন,প্রচার ও প্রকাশনা সম্পাদক আলম হোসেন, সদস্য আ স ম শরাফত আলী সুলতান ও  অনিক হোসেন ।

উক্ত অনুষ্ঠানে কুষ্টিয়া জেলার সংগ্রামী সাধারন সম্পাদক শেখ সুভীনের সন্চালনায় সভাপতিত্ব করেন, জেলার সভাপতি মোঃ হাবিবুর রহমান ।

আরও খবর