Logo
আজঃ বুধবার ১৯ জুন ২০২৪
শিরোনাম

শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনার জন্য দেশের মানুষ উন্মুখ হয়ে আছে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ০৪ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ২০১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী আসাদুজ্জামান খান কামাল বলেছেন, আওয়ামী লীগ ষড়যন্ত্র করে কিংবা বন্দুকের নলের মাধ্যমে ক্ষমতায় আসা বিশ্বাস করে না। আওয়ামী লীগ সরকারের জনগণের ভোটের মাধ্যমে ক্ষতায় আসে। আগামী নির্বাচনে নৌকায় ভোট দিয়ে শেখ হাসিনাকে আবারও ক্ষমতায় আনার জন্য দেশের মানুষ উন্মুখ হয়ে আছে।

আজ শনিবার দুপুর দেড়টায় যশোর পুলিশ সুপার কার্যালয়ের নবনির্মিত ভবন উদ্বোধন অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এ সব কথা বলেন।

স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী বলেন, ‘দেশের রাজনৈতিক অঙ্গন মুক্ত। যে যার মতো কর্মসূচি করতে পারছে। আমরা বিশ্বাস করি, সুষ্ঠু নির্বাচনের মাধ্যমে আওয়ামী লীগ আবারও ক্ষমতায় আসবে। আগামী ১০ বছর পর দরিদ্রতা বলে কিছু থাকবে না। ১০ বছর পরের প্রজন্মকে দরিদ্রতার কথা বললে তারা বিশ্বাস করবে না। আমরা ভবিষ্যৎ প্রজন্মকে একটি স্বনির্ভর, উন্নত, স্মার্ট বাংলাদেশ উপহার দিতে চাই।

তিনি আরও বলেন, বাংলাদেশের সব থানা ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়কে সর্বাধিক সুবিধা সংবলিত ভবনে রূপান্তরিত করা হবে। ইতিমধ্যে ১০১টি থানার ভবন নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে। আরও ৫০টি থানার ভবন নির্মাণ প্রক্রিয়াধীন রয়েছে। এ ছাড়া যশোরের পুলিশ সুপারের কার্যালয়সহ ৯টি কার্যালয় নির্মাণ সম্পন্ন হয়েছে।

যশোরের পুলিশ সুপার প্রলয় কুমার জোয়ারদারের সভাপতিত্বে অনুষ্ঠানে অন্যদের মধ্যে বক্তব্য দেন- স্থানীয় সরকার প্রতিমন্ত্রী স্বপন ভট্টাচার্য্য, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় সম্পর্কিত সংসদীয় স্থায়ী কমিটির সভাপতি বেনজীর আহমেদ, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের জননিরাপত্তা বিভাগের সিনিয়র সচিব আমিনুল ইসলাম খান ও খুলনা রেঞ্জের ডিআইজি মইনুল হক।

অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন যশোর-৩ আসনের সংসদ সদস্য কাজী নাবিল আহমেদ, যশোর-২ আসনের সংসদ সদস্য মেজর জেনারেল (অব.) ডা. মো. নাসির উদ্দিন, যশোর-৫ আসনের সংসদ সদস্য শাহীন চাকলাদার, স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয়ের সুরক্ষা সেবা বিভাগের সচিব আব্দুল্লাহ আল মামুন চৌধুরী, ইমিগ্রেশন ও পাসপোর্ট অধিদফতরের মহাপরিচালক মেজর জেনারেল নুরুল আনোয়ার, জেলা প্রশাসক তমিজুল ইসলাম খান ও জেলা আওয়ামী লীগের সভাপতি শহীদুল ইসলাম মিলন।


আরও খবর



তানোরে স্বপ্ন বেকারী ও সাগরিকা আইসক্রিম ফ্যাক্টরীতে অভিযান জরিমানা, সিল গলা

প্রকাশিত:বুধবার ০৫ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | ৫৪জন দেখেছেন

Image

আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোর পৌর সদর  এলাকার গোল্লাপাড়া বাজারস্থ স্বপ্ন বেকারি ও সাগরিকা আইসক্রিম ফ্যাক্টরীতে অভিযান চালিয়ে ৫ হাজার টাকা করে জরিমানা, মালামাল ধ্বংস এবং সিলগালা করা হয়।মঙ্গলবার বিএসটিআইয়ের উদ্যোগে উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজু রহমানের নেতৃত্বে ভ্রাম্যমাণ আদালত এসব জরিমানা আদায় করেন।  

জানা গেছে, দীর্ঘদিন ধরে  অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে  বিস্কুট পাউরুটি ও কেক এবং আইস তৈরি করে বাজারজাত সহ রমরমা ব্যবসা করে আসছিল স্বপ্ন বেকারি ও সাগরিকা আইসক্রিম ফ্যাক্টরী।  এমন অভিযোগের প্রেক্ষিতে মঙ্গলবার    মঙ্গলবার বাংলাদেশ স্ট্যান্ডার্ডস অ্যান্ড টেস্টিং ইনস্টিটিউশনের (বিএসটিআই) উদ্যোগে  উপজেলায় ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনাকালে এসব ভয়াবহ  চিত্র ধরা পড়ে। বিএসটিআই’র গুণগত মানসনদ ছাড়াই অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে বিস্কুট, পাউরুটি ও কেক উৎপাদন ও বিক্রি হচ্ছে যা মানব দেহের জন্য মারাত্মক ক্ষতিকর।  এই অপরাধে তানোর পৌর সদর  গোল্লাপাড়া এলাকার মেসার্স স্বপ্ন বেকারীকে ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়।

এ সময় উৎপাদনে ব্যবহৃত নন-ফুডগ্রেড রং ও ফ্লেভার জব্দপূর্বক ধ্বংস করা হয়। এছাড়াও একই এলাকায় অবৈধভাবে ও অত্যন্ত অস্বাস্থ্যকর পরিবেশে আইসক্রিম উৎপাদন করায় মেসার্স সাগরিকা আইসক্রিম ফ্যাক্টরীকেও ৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয় এবং কারখানাটি সিলগালা করে দেওয়া হয়।

সেই সাথে কোনো প্রকার দুধ ছাড়াই শুধুমাত্র আটা, দূষিত পানি ও নন-ফুডগ্রেড রং দিয়ে তৈরি প্রায় ৮০০ পিস আইসক্রিম অভিযানকালে ধ্বংস করা হয়।  উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোস্তাফিজুর রহমানের নেতৃত্বে পরিচালিত এই ভ্রাম্যমাণ আদালতে প্রসিকিউটর হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন বিএসটিআই বিভাগীয় কার্যালয়ের কর্মকর্তা প্রকৌশলী জুনায়েদ আহমেদ।

পুলিশ ও আনসার সদস্যরা আইনশৃঙ্খলা রক্ষার দায়িত্ব পালন করেন। আর জনস্বার্থে এই ধরণের অভিযান অব্যহত থাকবে বলে জানিয়েছে বিএসটিআই।


আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




আজ থেকে নতুন সূচিতে চলছে মেট্রোরেল

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৩২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:নতুন সূচিতে আজ থেকে চলছে মেট্রোরেল। অফিসের সময় পরিবর্তনের সঙ্গে সামঞ্জস্য রেখে বুধবার (১৯ জুন) থেকে মেট্রোরেল চলাচলের জন্য নতুন সময়সূচি নির্ধারণ করা হয়েছে।

মঙ্গলবার (১৮ জুন) ঢাকা ম্যাস ট্রানজিট কোম্পানি লিমিটেডের (ডিএমটিসিএল) ব্যবস্থাপনা পরিচালক এম এ এন ছিদ্দিক বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।

ডিএমটিসিএল ব্যবস্থাপনা পরিচালক বলেন, মূলত সরকার নির্ধারিত নতুন অফিসের সময়সূচির কারণেই আগের সময় পরিবর্তন হয়েছে। ফলে মেট্রোরেলের পিক ও অফ পিক আওয়ারের সময় পরিবর্তন হতে যাচ্ছে। গত ৬ জুন সরকার থেকে অফিসের সময়সূচি সকাল ৯টা থেকে বিকেল ৫টা পর্যন্ত করা হয়েছে। এই সময়সূচি ঈদের পর ১৯ জুন থেকে কার্যকর হচ্ছে। সেজন্য মেট্রোরেলের পিক ও অফ পিক আওয়ারের সময়েও পরিবর্তন আনা হয়েছে।

সূচি অনুযায়ী, উত্তরা উত্তর থেকে মতিঝিল পর্যন্ত সকাল ৭টা ১০ মিনিট থেকে সকাল ৭টা ৩০ মিনিট পর্যন্ত আগের মতো স্পেশাল অফ পিক থাকবে। এই সময় হেডওয়ে হবে ১০ মিনিট। আর সকাল ৭টা ৩১ মিনিট থেকে সকাল ১১টা ৩৬ মিনিট পর্যন্ত পিক আওয়ার। এই সময় হেডওয়ে হবে আট মিনিট। সকাল ১১টা ৩৭ মিনিট থেকে দুপুর ২টা ২৪ মিনিট পর্যন্ত অফ পিক আওয়ার। এ সময় হেডওয়ে হবে ১২ মিনিট। আবার দুপুর ২টা ২৫ মিনিট থেকে রাত ৮টা ৩২ মিনিট পর্যন্ত পিক আওয়ার। এ সময় হেডওয়ে হবে ৮ মিনিট। রাত ৮টা ৩৩ মিনিট থেকে রাত ৯টা পর্যন্ত স্পেশাল অফ পিক। এ সময় মেট্রোরেলের হেডওয়ে হবে ১০ মিনিট।

ডিএমটিসিএল ব্যবস্থাপনা পরিচালক আরও জানান, মতিঝিল থেকে উত্তরা উত্তর পর্যন্ত সকাল ৭টা ৩০ মিনিট থেকে সকাল ৮টা পর্যন্ত স্পেশাল অফ পিক। এ সময় হেডওয়ে ১০ মিনিট। সকাল ৮ টা ১ মিনিট থেকে বেলা ১২টা ৮ মিনিট পর্যন্ত পিক আওয়ার। এ সময় হেডওয়ে হবে আট মিনিট। বেলা ১২টা ৯ মিনিট থেকে বিকেল ৩টা ৪ মিনিট পর্যন্ত স্পেশাল অফ পিক। এ সময় হেডওয়ে হবে ১২ মিনিট। আবার দুপুর ৩টা ৫ মিনিট থেকে রাত ৯টা ১২ মিনিট পর্যন্ত পিক আওয়ার। এ সময় হেডওয়ে হবে আট মিনিট। রাত ৯টা ১৩ মিনিট থেকে রাত ৯টা ৪০ মিনিট পর্যন্ত স্পেশাল অফ পিক। এ সময় হেডওয়ে হবে ১০ মিনিট।

নতুন সময়সূচি কার্যকর হলেও আগের মতোই সাপ্তাহিক বন্ধ শুক্রবার থাকবে বলেও জানান তিনি।


আরও খবর



পত্নীতলায় উন্মুক্ত বাজেট সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৮ জুন ২০২৪ | ১৩৭জন দেখেছেন

Image
দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় উপজেলার কৃষ্ণপুর ইউনিয়ন পরিষদের উন্মুক্ত বাজেট সভা রবিবার ইউনিয়ন পরিষদ কার্যালয়ে অনুষ্ঠিত হয়েছে।

উক্ত উন্মুক্ত বাজেট সভায় কৃষ্ণপুর ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলামের সভাপতিত্বে ইউনিয়ন পরিষদের অন্যান্য সদস্যবর্গ এবং উক্ত ইউনিয়নের গনমান্য ব্যাক্তিবর্গ সহ উপস্থিত ছিলেন দি হাঙ্গার প্রজেক্ট বাংলাদেশ এর ইউনিয়ন সমন্বয়কারী হামিদুল ইসলাম প্রমুখ।

এসময় ইউপি চেয়ারম্যান নজরুল ইসলাম উপস্থিত জনতার সামনে ইউনিয়নে ২০২৪-২৫ অর্থ বছরে যে কাজগুলো বাস্তবায়ন হয়েছে সেগুলো উপস্থাপন করেন। তিনি বলেন ২০২৪-২৫ অর্থ-বছরের রাজস্ব আয় মোট অনুদান প্রাপ্তি ৪২ লক্ষ ৭৭ হাজার ৭২২, মোট রাজস্ব ব্যায় ৪২ লক্ষ ৭৭ হাজার ৭২২ এবং উন্নয়ন হিসাব প্রাপ্ত আয় ২ কোটি ৯১ লক্ষ ১৮ হাজার ৭০০ ও উন্নয়ন হিসাব প্রাপ্ত ব্যায় ২ কোটি ৯১ লক্ষ ১৮ হাজার ৭০০।

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪




পোরশায় জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে সচেতনতামূলক সভা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৮৫জন দেখেছেন

Image

ডিএম রাশেদ পোরশা (নওগাঁ) প্রতিনিধি:"করবো ভূমি পুনরুদ্ধার, রুখবো মরুময়তা, অর্জন করতে হবে মোদের খরা সহনশীলতা" এই প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে নওগাঁর পোরশায় স্কুল পর্যায়ে ছাত্র-ছাত্রীদের জলবায়ু পরিবর্তন বিষয়ে সচেতনতামূলক সভা, চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতা ও বৃক্ষরোপন কর্মসূচী অনুষ্ঠিত হয়েছে। গতকাল সোমবার দুপুরে উপজেলার ছাওড় বরেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ে উক্ত কর্মসূচির আয়োজন করে বেসরকারী সংস্থা সিসিডিবি’র পিসিআরসিবি-২ প্রকল্প। সংস্থার প্রকল্প সমন্বয়কারী স্টিভ রায় রুপনের সভাপতিত্বে আলোচনা সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার আরিফ আদনান। বিশেষ অতিথির বক্তব্য রাখেন ছাওড় ইউপি চেয়ারম্যান মোস্তাফিজুর রহমান। বরেন্দ্র উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক মুকুল সরকার। পরে চিত্রাঙ্কন প্রতিযোগীতায় অংশগ্রহণকারী শিক্ষার্থীদের মধ্যে ৩জনের হাতে পুরস্কার হিসাবে শিক্ষা সামগ্রী তুলে দেয়া হয়। এবং সকল শিক্ষার্থীদের মাঝে ফলজ ও বনজ গাছের চারা বিতরণ করা হয়।


আরও খবর



সেলিম প্রধানের ব্যাংক লোন কান্ড

প্রকাশিত:রবিবার ১৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিনিধি:- জাপান বাংলা সিকিউরিটি প্রিন্টিং এন্ড পেপার লিমিটেড এর কর্ণধার মোঃ সেলিম প্রধান কিভাবে বাংলাদেশের অর্থ নৈতিক দূরঅবস্থায় লোন রিসিডিউল করে? সেলিম প্রধান ক্যাসিনো কান্ডে এবং দূর্নীতিদায় এবং মালিলন্ডারিং এর কারণে ৮ বছর মহামান্য আদালতের রায়ের মাধ্যমে সাজাপ্রাপ্ত হয় কিন্তু ৪ বছর কারাভোগ করে বিভিন্ন শর্তের মাধ্যমে জামিন পান ক্যাসিনো সেলিম কিন্তু যেই কোম্পানির নামে লোন রিসিডিউল করতে যাচ্ছে তা এখন পরিপূর্ণ অকেজো।


এছাড়াও, উনি যেহেতু দূর্নীতি ও মানিলন্ডারিং এর দায়ে সাজাপ্রাপ্ত হয়েছে, তাহলে কেন উনাকে পুনরায় রুপালী ব্যাংক লোন দেওয়ার সিদ্ধান্ত গ্রহন করেছে সেটা বোধগম্য নয়। ধারণা করা হচ্ছে ঘুষের মাধ্যমে এই লোন পুনরায় পাশ করা হচ্ছে। তাহলে কি ব্যাংক কর্মকর্তারা ঘুষের মাধ্যমে এই লোন রিসিডিউন করতে যাচ্ছে?  বাংলাদেশের এমন  অর্থনৈতিক সংকটময়  অবস্থায় কেন একজন দূর্নীতিগ্রস্থ ব্যক্তিকে লোন দেওয়া হবে? রুপালী ব্যাংক কি ঞ্চন খেলাপীর সুব্যবস্থা করে দিচ্ছে নাকি দূর্নীতি কে প্রশ্রয় দিচ্ছে? অর্থনেতিবিদের মতে, এমন ব্যক্তিকে ব্যাংক লোন দিলে শীগ্রই দেশ দেউলিয়ার পথে চলে যেতে পারে।


এবং ঞ্চন খেলাপীর মাত্রা বেড়ে যেতে পারে। ক্যাসিনো কান্ডে জড়িত সেলিম প্রধান কে মতিঝিল লুকাল অফিস দিলখুশা রুপালি ব্যাংক কেন লোন রিসিডিউল করেছে?  সেই বিষয়ে বাংলাদেশ ব্যাংক এবং দূর্নীতিদমন কমিশনারের সুদৃষ্টি আকর্ষণ করছে অর্থনীতিবিদগণ। 


এই মতিঝিল লোকাল অফিস দিলখুশা রুপালি ব্যাংক থেকে পূর্বেও প্রায় ২০০  কোটি টাকার মত লোন নিয়েছিলো সেলিম প্রধান। সেলিম প্রধান ঐই লোন ঠিকমত পরিশোধ করতে পারে নাই এবং ঠিকমত কিস্তিও দিতে ব্যর্থ।তারপরও কিভাবে ব্যাংক তার সাথে প্রায় ৪৬ কোটি টাকার লোন  রিসিডিউল করে? ব্যাংক কর্মকর্তারা কি ঋন খেলাপী এবং মানিলন্ডারিং ও দূর্নীতি কে তকবির বা ঘুষের মাধ্যমে প্রশ্রয় দিচ্ছে?

     -খবর প্রতিদিন/ সি.ব

আরও খবর

ভোলায় "রাসেল ভাইপার" আতঙ্ক

বুধবার ১৯ জুন ২০২৪