সর্বশেষ

আজঃ বুধবার ২৮ জুলাই ২০২১

সেফটি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির মাঠকর্মীরা কিস্তির টাকার জন্য ঋনগ্রহীতাকে শারিরিক নির্যাতন করেছে

সোহরাওয়ার্দীঃ

রাজধানীর যাত্রাবাড়ি- ডেমরা থানা এলাকায় সেফটি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি নামক একটি সমিতির বিরুদ্ধে এক ঋনগ্রহীতা সদস্যকে মারধোর করে কিস্তির টাকা আদায়ের অভিযোগ উঠেছে।এভাবে  প্রতিটি ঋনগ্রহীতাকে সেফটি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির মাঠকর্মীরা প্রতিদিন সন্ত্রাসী নিয়ে মহড়া দিচ্ছে।এ বিষয়ে গত ১ জুন 

মঙ্গলবার রাতে ডেমরা থানায় একটি অভিযোগ দিয়েছেন ভুক্তভোগী রাশেদা নামক এক নারী।নিম্ন আয়ের ঐ পরিবারটির কোন আয় নেই,এনজিওর সাপ্তাহিক ও মাসিক কিস্তির টাকা জোগাড় দূরের কথা খাবার কেনার টাকা জোগাড়ে হিমশিম খেতে হচ্ছে তার পরিবার।সেই সময়ে কিস্তির টাকার জন্য সেফটি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটি নামক একটি সমিতির চেয়ারম্যান জালাল আহমেদ মাঠ কর্মী মুন্নীর বিরুদ্ধে ভারাটিয়া গুন্ডা বাহিনী নিয়ে এসব সাধারন মানুষের বাড়ি বাড়ি গিয়ে কিস্তির টাকা আদায়ে হুমকি ধমকি মারপিটের ঘটনার অভিযোগ পাওয়াগেছে।এমনকি ভিকটিম পুলিশ ফাড়িতে গিয়েও তাদের হাতে হামলার শিকার হয়েছেন বলেও জানাগেছে।ডেমরা থানার এসআই ও কোনাপাড়া পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ হান্নান হোসেন তালুকদার ঘটনার সত্যতা স্বীকার করেছেন।হামলার শিকার রাশেদা বেগম ও তার পুত্র রাসেল গুরুতর অসুস্থ হয়ে হাসপাতালে চিকিৎসাধীন অবস্থায় আছে বলেও জানাগেছে।

সেফটি মাল্টিপারপাস কো-অপারেটিভ সোসাইটির চেয়ারম্যান জালাল আহমেদ এর নেতৃত্বে এ ধরনের অপকর্ম চালিয়ে আসছে একটি সংঘবদ্ধচক্র।এ সমিতি এসব এলাকায় দীর্ঘদিনযাবত সহজ সরল মানুষদের কাছে উচ্চহারে সুদের বিনিময়ে অর্থলগ্নী করে আসছে।তারা সরকারী আইনের তোয়াক্কা না করেই মহাজনী ব্যাবসার আদলে সমিতির কার্যক্রম পরিচালনা করে আসছে।করোনাভাইরাস সংক্রমণ এড়াতে  সরকারের দেয়া দেশব্যাপী লকডাউনের কারনে মানুষের কর্মক্ষেত্র বন্ধ হয়ে আয় রোজগার বন্ধ ।নিম্ন আয়ের মানুষদের কর্মসংস্থান কমে গেছে।এতে দিনমজুর-ক্ষুদ্র ব্যবসায়ীদের আয় নেই বললেই চলে। এমন পরিস্থিতিতেও বিভিন্ন স্থানে চলছে এনজিওর ঋণ আদায় কার্যক্রম। এতে এনজিওর ঋণ গ্রহণকারী দরিদ্র মানুষ এখন বিপাকে। 



এই বিভাগের আরও খবর