Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

সীতাকুণ্ডে বিস্ফোরণ: ফায়ারম্যান আলাউদ্দিনের বাড়িতে শোকের মাতম

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৬৪জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে বিস্ফোরণের আগুন নেভাতে গিয়ে নিহত ফায়ারম্যান মো. আলাউদ্দিনের (৩৫) বাড়িতে শোকের মাতম চলছে।

রোববার (৫ জুন) দুপুর ১২টায় নোয়াখালীর চাটখিলে গ্রামের বাড়িতে তার মৃত্যুর খবর আসার পর পুরো এলাকার পরিবেশ ভারি হয়ে ওঠে। নিহত আলাউদ্দিন উপজেলার মোহাম্মদপুর ইউনিয়নের বানসা গ্রামের বড় মুন্সি বাড়ির মো. আবদুর রশিদ মেম্বারের ছেলে। তিনি চট্টগ্রামের কুমিরা ফায়ার সার্ভিস স্টেশনের ফায়ার ফাইটার হিসেবে কর্মরত ছিলেন। শনিবার মধ্যরাতে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন নেভাতে গিয়ে তিনি মারা যান।

এদিকে নিহত আলাউদ্দিনের বাবা মাস্টার ইলিয়াস ভূঁইয়া (৯০), মা মমতাজ বেগম (৭৫) ও স্ত্রী তাসলিমা সুলতানা (২৮) কান্নায় বার বার মূর্ছা যাচ্ছেন। খবর পেয়ে এলাকার লোকজন ও আত্মীয়-স্বজনরা বাড়ির আঙিনায় ভিড় করছেন। আলাউদ্দিনের নিহতের সংবাদের পরিবারসহ পুরো বানসা গ্রামে শোকের ছায়া নেমে এসেছে।

নিহতের বড়ভাই স্থানীয় কামালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের সহকারী শিক্ষক মো. জহির উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমরা ছয়ভাই ও চার বোনের মধ্যে আলাউদ্দিন পঞ্চম। সে সাড়ে সাত বছর আগে কুমিল্লার মনোহরগঞ্জের সাহাপুর গ্রামের মাস্টার মো. ইলিয়াস ভূঁইয়ার মেয়ে তাসলিমা সুলতানাকে বিয়ে করেন। তাদের ঘরে মো. তাজউদ্দিন তাহিম নামে ছয় বছর বয়সী একটি ছেলে আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘চট্টগ্রাম মেডিকেলে আমার ভাইয়ের মরদেহের পাশে তার স্ত্রীর ভাইসহ আমাদের কয়েকজন আত্মীয় রয়েছেন। বিভিন্ন প্রক্রিয়া শেষে মরদেহ বাড়িতে আনার চেষ্টা চলছে। তবে বাবা, মা, ভাইয়ের স্ত্রী ও অবুঝ শিশু সন্তানকে কী বলে সান্ত্বনা দিবো বুঝতে পারছি না।’

চাটখিল ফায়ার সার্ভিসের স্টেশন কর্মকর্তা চন্দ্র শেখ গাইন জাগো নিউজকে বলেন, ‘ফায়ারম্যান চাটখিলের আলাউদ্দিনের মৃত্যুর বিষয়টি শুনেছি। এছাড়া আরও কয়েকজন নিখোঁজ রয়েছে বলে জানানো হয়েছে। বিস্তারিত পরে জানানো হবে।’

চাটখিল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মো. গিয়াস উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘ফায়ারম্যান আলাউদ্দিনের মৃত্যুর বিষয়টি শুনেছি। তবে এখনো কোনো বার্তা আসেনি। আসলে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা নেওয়া হবে।’

শনিবার (৪ জুন) রাত ১১টার দিকে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুনের খবর পেয়ে ঘটনাস্থলে যায় ফায়ার সার্ভিস। এরপর তারা আগুন নিয়ন্ত্রণে কাজ শুরু করেন। এ সময় এক কনটেইনার থেকে অন্য কনটেইনারে ছড়িয়ে পড়ে আগুন। একটি কনটেইনারে রাসায়নিক থাকায় বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটে। বিস্ফোরণে ঘটনাস্থল থেকে অন্তত চার কিলোমিটার এলাকা কেঁপে ওঠে। ভেঙে পড়ে আশপাশের বাড়িঘরের জানালার কাঁচ।

সবশেষ এ ঘটনায় ৪২ জন নিহতের খবর পাওয়া গেছে। এর মধ্যে আগুন নেভাতে গিয়ে প্রাণ হারিয়েছেন আলাউদ্দিনসহ আটজন ফায়ার সার্ভিসের কর্মী।


আরও খবর



সিদ্ধিরগঞ্জে ‘কিশোর গ্যাংয়ের’ হামলায় প্রাণ গেলো কলেজছাত্রের

প্রকাশিত:Thursday ২৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ৪১জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জের সিদ্ধিরগঞ্জে পূর্ব শত্রুতার জের ধরে ‘কিশোর গ্যাংয়ের’ হামলায় ইমন (১৭) নামের এক কলেজছাত্রের মৃত্যু হয়েছে। এ ঘটনায় আহত হয়েছেন আরও দুই কলেজছাত্র।

বুধবার (২৭ জুলাই) রাতে উপজেলার বাগমারা এলাকায় এ ঘটনা ঘটে। নিহত ইমন আদর্শনগর এলাকার মো. শাহআলমের ছেলে। তিনি আদর্শ নগর এলাকার আলী আকবর স্কুল অ্যান্ড কলেজের ছাত্র ছিলেন।

আহতদের মধ্যে শাহরিয়ার জয় তেজগাঁও পলিটেকনিকের ছাত্র এবং মশিউর রহমান রনি নাজিমউদ্দীন কলেজের ছাত্র। তারা বর্তমানে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে চিকিৎসাধীন রয়েছেন।

স্থানীয়দের বরাত দিয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুল ওহাব জাগো নিউজকে বলেন, ‘নিহত ইমন ও হামলাকারী রাসেল দুজন বন্ধু ছিলেন। রাসেল দিন দিন বিভিন্ন অপকর্মে জড়িয়ে পড়ায় ইমন তাকে এড়িয়ে চলতেন। তাই রাসেল তার গ্যাংয়ের ৮-১০ জন সদস্য নিয়ে বুধবার সকালে ইমনকে তুলে নিয়ে মারধর করে। পরবর্তীতে আবার রাতে রাসেল বাহিনী ইমন, শাহরিয়ার ও রনির ওপর দেশীয় অস্ত্র নিয়ে হামলা চালায়। তাদের উদ্ধার করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে নিয়ে গেলে কর্তব্যরত চিকিৎসক ইমনকে মৃত ঘোষণা করেন।’

তবে নিহত ইমনের মা মোছা. শাহিনুর বেগম বলেন, ‘আমরা জানতে পারি সিদ্ধিরগঞ্জ মাদানী নগর এলাকায় দুই গ্রুপের মধ্যে সংঘর্ষ লেগেছ। ঘটনাস্থলে গিয়ে দুজনকে রক্তাক্ত অবস্থায় পড়ে থাকতে দেখি। তাদের ঢাকা মেডিকেলে আনলে ইমন মারা যায়। শাহরিয়ার গুরুতর আহত অবস্থায় চিকিৎসাধীন রয়েছে।

রাসেল, রাজু, স্বপন, আব্দূল খলিল, মো. ইয়াসিন, রাজিব, বিজয় এ ঘটনার সঙ্গে জড়িত বলে দাবি শাহিনুরের।

মৃত্যুর বিষয়টি নিশ্চিত করে ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতাল পুলিশ ফাঁড়ির ইনচার্জ পরিদর্শক মো. বাচ্চু মিয়া জাগো নিউজকে বলেন, ‘মরদেহটি ময়নাতদন্তের জন্য হাসপাতাল মর্গে রাখা হয়েছে। বিষয়টি সংশ্লিষ্ট থানাকে জানানো হয়েছে।’

এ বিষয়ে সিদ্ধিরগঞ্জ থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) মশিউর রহমান জাগো নিউজকে বলেন, ‘এ ঘটনায় জড়িতদের গ্রেফতারের চেষ্টা চলছে।’


আরও খবর



১৬ ডিসেম্বর চালু হবে মেট্রোরেল

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৫৩জন দেখেছেন
Image

ঢাকার যানজট থেকে মুক্তির স্বপ্ন নিয়ে বহুল প্রতীক্ষিত মেট্রোরেল চলাচলের সময় নিয়ে আলাপ আলোচনা হয়েছে জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদের নির্বাহী কমিটির (একনেক) সভায়। আগামী ১৬ ডিসেম্বর থেকে চালু হবে মেট্রোরেল। চলবে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত।

মঙ্গলবার (১৯ জুলাই) গণভবন থেকে ভিডিও কনফারেন্সের মাধ্যমে রাজধানীর শেরেবাংলা নগরের এনইসি সম্মেলন কক্ষের সঙ্গে যুক্ত হয়ে প্রধানমন্ত্রী বৈঠকে সভাপতিত্ব করেন।

একনেক সভা শেষে পরিকল্পনা প্রতিমন্ত্রী ড. শামসুল আলম প্রধানমন্ত্রীর নির্দেশনা তুলে ধরে বলেন, ডিসেম্বর মাসে উত্তরা থেকে আগারগাঁও পযর্ন্ত মেট্রোরেল চলবে। প্রতিটি ল্যান্ডিং স্টেশনে পার্কিং স্পেস করতে বলেছেন। এয়ারপোর্ট থেকে এয়ারপোর্ট রেলস্টেশন পর্যন্ত আন্ডারপাস করতে বলেছেন প্রধানমন্ত্রী।

এসময় পরিকল্পনামন্ত্রী এম এ মান্নানসহ সংশ্লিষ্ট সচিব উপস্থিত ছিলেন।

উত্তরার দিয়াবাড়ি থেকে আগারগাঁও পর্যন্ত ১১ দশমিক ৭৩ কিলোমিটার অংশের কাজ প্রায় শেষ। চলতি বছরের ডিসেম্বরে এ অংশে মেট্রোরেল চলাচল উদ্বোধন করা হবে। কাজ চলছে প্রকল্পের বাকি অংশেও। তবে মতিঝিল ছাড়িয়ে মেট্রোরেলের রুট কমলাপুর পর্যন্ত নেওয়ায় প্রকল্পের কাজ বেড়ে গেছে। মতিঝিল থেকে কমলাপুর পর্যন্ত দৈর্ঘ্য ১ দশমিক ১৬ কিলোমিটার ধরে মেট্রোরেলের রুট দাঁড়াচ্ছে ২১ দশমিক ২৬ কিলোমিটার। কাজ বাড়ার কারণে বেড়েছে ব্যয়ও। ডিপিপির দ্বিতীয় সংশোধন প্রস্তাবে প্রাক্কলিত ব্যয় ধরা হয়েছে ৩৩ হাজার ৪৭১ কোটি টাকা।


আরও খবর



পরকালে অপমান থেকে বাঁচার দোয়া

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

পরকালের লাঞ্ছনা, অপমান ও শাস্তি থেকে মুক্তি কে না চায়। আল্লাহর রহমতে সিক্ত ব্যক্তিরাই পাবে পরকালের মুক্তি ও নাজাত। মহান আল্লাহ বান্দাকে পরকালে হেয় প্রতিপন্ন হওয়া থেকে মুক্তির জন্য কোরআনুল কারিমে একটি প্রার্থনা তুলে ধরেছেরন। কী সেই দোয়া?

আল্লাহর দেওয়া নেয়ামতের প্রতিশ্রুতি বাস্তবায়ন ও পরকালের অপমান থেকে বেঁচে থাকতে আল্লাহর শেখানো ভাষায় তাঁরই কাছে প্রার্থনা করা জরুরি। তিনি যদি বান্দার প্রতি দয়া করেন, তবেই মুক্তি। তাই পরকালের অপমান থেকে বাঁচতে আল্লাহর কাছে এভাবে বেশি বেশি দোয়া করা-

رَبَّنَا وَ اٰتِنَا مَا وَعَدۡتَّنَا عَلٰی رُسُلِکَ وَ لَا تُخۡزِنَا یَوۡمَ الۡقِیٰمَۃِ ؕ اِنَّکَ لَا تُخۡلِفُ الۡمِیۡعَادَ

উচ্চারণ : ‘রাব্বানা ওয়া আতিনা মা ওয়া আত্তানা আলা রুসুলিকা ওয়া লা তুখযিনা ইয়াওমাল কিয়ামাহ; ইন্নাকা লা তুখলিফুল মিয়আদ।’

অর্থ : ‘হে আমাদের রব! আপনি আমাদেরকে আপনার রাসুলগণের মাধ্যমে যা দেওয়ার প্রতিশ্রুতি দিয়েছেন, তা দান করুন। আর কেয়ামতের দিন আপনি আমাদেরকে অপমান করবেন না। নিশ্চয়ই আপনি প্রতিশ্রুতির ব্যতিক্রম করেন না।’ (সুরা আল-ইমরান : আয়াত ১৯৪)

আল্লাহ তাআলা মুসলিম উম্মাহকে দোয়া কবুলের দিনক্ষণ ও সময়গুলোসহ সব সময় এ দোয়া বেশি বেশি পড়ার তাওফিক দান করুন। আমিন।


আরও খবর



সরকারের লজ্জা শরম নেই: দুদু

প্রকাশিত:Saturday ৩০ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
Image

বর্তমান সরকারের সরকারের লজ্জা শরম নেই বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির ভাইস চেয়ারম্যান শামসুজ্জামান দুদু। তিনি বলেছেন, ‘যার এক কান কাটা সে আড়ালে চলে আর যার দুই কান কাটা সে সড়কের মাঝ দিয়ে চলে। এ সরকারের দুই কান কাটা, লজ্জা শরম নেই।’

শনিবার (৩০ জুলাই) বিকেলে বিদ্যুৎ ও জ্বালানি খাতের অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির বিক্ষোভ সমাবেশে প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি একথা বলেন।

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘হাজার হাজার কোটি টাকা দিয়ে বিদ্যুৎকেন্দ্র প্রতিষ্ঠা করেছে, তবে সবগুলোর মালিক আওয়ামী লীগাররা। কাগজে বেরিয়েছে বিদ্যুৎ না দিলেও ক্যাপাসিটি চার্জ দিতে হবে। বিদ্যুৎ দেবেন না ক্যাপাসিটি চার্জ কেন দেবো? বিদ্যুৎও প্রিপেইড করেছেন। আগে টাকা নিয়ে বিদ্যুৎ দেবেন না কেন?’

তিনি বলেন, ‘এ বছর হবে পরিবর্তনের বছর। এ বছর বর্তমান সরকারের শেষ বছর। এ বছর নতুন একটি পতাকা উড়বে। যে পতাকা সাম্যের পতাকা। আপনার পিতাও রাষ্ট্রপতি ছিলেন। তারেক রহমানের পিতাও রাষ্ট্রপতি ছিলেন। আপনার মাতা গৃহিণী ছিলেন। তারেক সাহেবের মাতা কিন্তু এ দেশের তিনবারের প্রধানমন্ত্রী। আপনি আপনার পিতার কথা সার্বক্ষণিক বলেন। তারেক রহমান তো যোগ্য মায়ের যোগ্য সন্তান। আমরা চাই তাকে প্রধানমন্ত্রীর দায়িত্ব দেবো।’

শামসুজ্জামান দুদু বলেন, ‘বেগম জিয়া কখনো কোনো নির্বাচনে পরাজিত হননি। তাকে জেলে রেখেছেন। জেনারেল আজিজের ভাই ফাঁসির আসামি তার সাজা মওকুফ করেছেন। কেউ জানে না। সে দেশের বাইরে যাওয়ার পর সবাই জেনেছে। আপনি তাকে ক্ষমতার জোরে দেশের বাইরে পাঠিয়ে দিয়েছেন। আর বেগম জিয়ার মতো মানুষ আজ বিনা বিচারে জেলখানায়। একজন সাবেক শিক্ষামন্ত্রী আজ ফাঁসির আসামি।’

প্রধানমন্ত্রীকে উদ্দেশ্য করে তিনি বলেন, ‘আপনি পদ্মা সেতু বানিয়েছেন। এত বড় সাফল্য তাহলে কেয়ারটেকার সরকার দিন না। তাহলে ভোট দিচ্ছেন না কেন? কোথাও একটা কিন্তু আছে। রিকশাওয়ালা, মজুর থেকে শুরু করে সবাই এটা জানে। কিছু মানুষ আছে পানি ঘোলা করে খায়, আপনিও দেবেন। দেশের মানুষ এখন ধানের শীষের অনুকূলে আছে।’

নারায়ণগঞ্জ মহানগর বিএনপির সহ-সভাপতি অ্যাডভোকেট জাকির হোসেনের সভাপতিত্বে সমাবেশে বিএনপি জাতীয় নির্বাহী কমিটির সহ-সাংগঠনিক সম্পাদক অ্যাডভোকেট আব্দুস সালাম আজাদ, সহ-আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক নজরুল ইসলাম আজাদসহ মহানগর বিএনপির বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



সূচকে যোগ হলো ১৫৩ পয়েন্ট, মূলধন বাড়লো সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকা

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ০৮ August ২০২২ | ১২জন দেখেছেন
Image

টানা দরপতনের প্রেক্ষিতে প্রতিটি সিকিউরিটিজের ফ্লোর প্রাইস (দাম কমার সর্বনিম্ন সীমা) বেঁধে দেওয়ার পর রোববার (৩১ জুলাই) শেয়ারবাজারে বড় উত্থান হয়েছে। একদিনেই প্রধান শেয়ারবাজার ঢাকা স্টক এক্সচেঞ্জের (ডিএসই) প্রধান মূল্যসূচক বেড়েছে ১৫৩ পয়েন্ট। আর বাজার মূলধন বেড়েছে সাড়ে ১০ হাজার কোটি টাকার ওপরে।

এর আগে, ঈদের পর শেয়ারবাজারে টানা দরপতন দেখা দিলে বড় বিনিয়োগকারীদের সঙ্গে বৈঠক করে নিয়ন্ত্রক সংস্থা বাংলাদেশ সিকিউরিটিজ অ্যান্ড এক্সচেঞ্জ কমিশন (বিএসইসি)। ওই বৈঠকে বড় বিনিয়োগকারীদের পক্ষ থেকে বাজারে বিনিয়োগ বাড়ানোর আশ্বাস দেওয়া হয়।

কিন্তু তাতেও দরপতন বন্ধ না হওয়ায় গত বৃহস্পতিবার ফ্লোর প্রাইস চালুর সিদ্ধান্ত নেয় বিএসইসি। শেষ পাঁচ কার্যদিবসের ক্লোজিং প্রাইসের গড় দাম প্রতিটি সিকিউরিটিজের ফ্লোর প্রাইস হিসেবে বেঁধে দেওয়া হয়। এই ফ্লোর প্রাইস কার্যকর হয়েছে আজ (রোববার) থেকে।

ফ্লোর প্রাইসের কারণে প্রতিটি সিকিউরিটিজের দাম সমন্বয় করায় আজ শেয়ারবাজারে লেনদেন শুরু হওয়ার আগেই সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বেড়ে যায়। ফলে লেনদেন শুরুর আগেই ডিএসইর প্রধান মূল্যসূচক বাড়ে ৩৬ পয়েন্ট।

আর লেনদেন শুরু হতেই একের পর এক প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার পালে আরও হাওয়া লাগে। এতে লেনদেনের ১৫ মিনিটের মাথায় ডিএসইর প্রধান মূল্য সূচক ১০০ পয়েন্ট বেড়ে যায়। সময়ের সঙ্গে দাম বাড়ার প্রবণতা বাড়তে থাকায় সূচকের ঊর্ধ্বমুখী প্রবণতাও বাড়তে থাকে।

দিনের লেনদেন শেষে ডিএসইতে ৩৬২টি প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিট দাম বাড়ার তালিকায় নাম লিখিয়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে সাতটির এবং ১৩টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে। এতে ডিএসইর প্রধান সূচক ডিএসইএক্স আগের দিনের তুলনায় ১৫৩ পয়েন্ট বেড়ে ৬ হাজার ১৩৩ পয়েন্টে উঠে এসেছে।

প্রধান মূল্যসূচকের পাশাপাশি বড় উত্থান হয়েছে অপর দুই সূচকেরও। এর মধ্যে বাছাই করা ভালো কোম্পানি নিয়ে গঠিত ডিএসই-৩০ সূচক ৪৮ পয়েন্ট বেড়ে ২ হাজার ১৯৩ পয়েন্টে অবস্থান করছে। আর ডিএসই শরিয়াহ্ আগের দিনের তুলনায় ৩১ পয়েন্ট বেড়ে ১ হাজার ৩৩৯ পয়েন্টে দাঁড়িয়েছে।

সিংহভাগ প্রতিষ্ঠানের শেয়ার ও ইউনিটের দাম বাড়ার কারণে একদিনেই ডিএসইর বাজার মূলধন ১০ হাজার ৭৬৪ কোটি টাকা বেড়ে গেছে। বাজার মূলধন বাড়ায় অর্থ তালিকাভুক্ত প্রতিষ্ঠানগুলোর সিকিউরিটিজের দাম সম্মেলিতভাবে ওই পরিমাণ বেড়ে গেছে। অবশ্য এর আগে টানা পতনে মাত্র ১৩ কার্যদিবসে ডিএসইর বাজার মূলদন ২৬ হাজার ৬৫৯ কোটি টাকা কমে যায়।

মূল্যসূচকের বড় উত্থান হওয়ার পাশাপাশি ডিএসইতে লেনদেনের পরিমাণও বেড়েছে। দিনভর বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ৫৬৭ কোটি ৯৫ লাখ টাকা। আগের দিন লেনদেন হয় ৪৪১ কোটি ৭৭ লাখ টাকা। সে হিসেবে লেনদেন বেড়েছে ১২৬ কোটি ১৮ লাখ টাকা।

ডিএসইতে টাকার অঙ্কে সবচেয়ে বেশি লেনদেন হয়েছে বেক্সিমকোর শেয়ার। কোম্পানিটির ২৯ কোটি ৭৭ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেন হয়েছে। দ্বিতীয় স্থানে থাকা কেডিএস এক্সসরিজের ২০ কোটি ৭৬ লাখ টাকার লেনদেন হয়েছে। ১৯ কোটি ৪২ লাখ টাকার শেয়ার লেনদেনের মাধ্যমে তৃতীয় স্থানে রয়েছে মতিন স্পিনিং।

এছাড়া ডিএসইতে লেনদেনের দিক থেকে শীর্ষ দশ প্রতিষ্ঠানের তালিকায় রয়েছে- ওরিয়ন ইনফিউশন, ইনট্রাকো রিফুয়েলিং স্টেশন, ফরচুন সুজ, স্কয়ার টেক্সটাইল, ডেল্টা লাইফ ইন্স্যুরেন্স, সোনালী পেপার এবং শাইনপুকুর সিরামিকস।

অপর শেয়ারবাজার চট্টগ্রাম স্টক এক্সচেঞ্জের (সিএসই) সার্বিক মূল্যসূচক সিএএসপিআই বেড়েছে ৩৭৯ পয়েন্ট। বাজারটিতে লেনদেন হয়েছে ১২ কোটি ৩৫ লাখ টাকা। লেনদেনে অংশ নেওয়া ২৮৩টি প্রতিষ্ঠানের মধ্যে ২৬৭টির দাম বেড়েছে। বিপরীতে দাম কমেছে চারটির এবং ১২টির দাম অপরিবর্তিত রয়েছে।


আরও খবর