Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

শীত বাড়তে পারে আগামী তিন দিনে

প্রকাশিত:Monday ১৩ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪১৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: সারা দেশের আবহাওয়া শুষ্ক থাকতে পারে। সকালের দিকে দেশের কোথাও কোথাও হালকা কুয়াশা পড়তে পারে। এছাড়া সারা দেশে রাতের তাপমাত্রা ১ থেকে ২ ডিগ্রি হ্রাস পেতে পারে এবং দিনের তাপমাত্রা সামান্য কমতে পেতে পারে।

গতকাল রোববার সকাল ৯টা থেকে পরবর্তী ২৪ ঘণ্টার আবহাওয়ার পূর্বাভাসে এ তথ্য জানানো হয়। আগামী ৭২ ঘণ্টা বা তিন দিনে রাতের তাপমাত্রা আরও হ্রাস পেতে পারে বলে আবহাওয়া অফিস জানিয়েছে।

আবহাওয়া চিত্রের সংক্ষিপ্তসারে বলা হয়েছে, উপমহাদেশীয় উচ্চচাপ বলয়ের বর্ধিতাংশ পশ্চিমবঙ্গ ও তৎসংলগ্ন এলাকা পর্যন্ত বিস্তৃত রয়েছে। মৌসুমের স্বাভাবিক লঘুচাপ দক্ষিণ বঙ্গোপসাগরে অবস্থান করছে। এর বর্ধিতাংশ উত্তর বঙ্গোপসাগর এলাকায় অবস্থান করছে।

গতকাল রোববার সকাল ৬টায় ঢাকায় বাতাসের আপেক্ষিক আর্দ্রতা ছিল ৭৫ শতাংশ। দেশের সর্বনিম্ন তাপমাত্রা রেকর্ড করা হয়েছে তেঁতুলিয়ায় ৯ দশমিক ৯ ডিগ্রি সেলসিয়াস। ঢাকায় সর্বনিম্ন তাপমাত্রা ছিল ১৮ দশমিক ২ ডিগ্রি সেলসিয়াস। এর আগে গত শনিবার কক্সবাজারে দেশের সর্বোচ্চ তাপমাত্রা ৩১ দশমিক ১ ডিগ্রি সেলসিয়াস রেকর্ড করা হয়েছে।


আরও খবর



দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ৬ বিভাগে মানববন্ধন করবে বিপিপি

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

গ্যাসসহ নিত্যপণ্যের অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ছয় বিভাগীয় শহরে মানববন্ধন করবে বাংলাদেশ পিপলস পার্টি (বিপিপি)। চলতি মাসের মাঝামাঝি ঢাকা, সিলেট, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও রাজশাহী বিভাগে এই কর্মসূচি পালিত হবে।

শনিবার (১১ জুন) দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিপিপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

jagonews24

বিপিপির চেয়ারম্যান মো. বাবুল সরদার চাখারীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব মো. আব্দুল কাদেরের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন দলের কো-চেয়ারম্যান পারভীন নাসের খান ভাসানী, রফিকুল ইসলাম খান রনো, আতিকুর রহমান লিটন, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহাবুব খোকন প্রমুখ।

সভায় নিত্যপণ্যের অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দাম নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার দায়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির পদত্যাগ দাবি করা হয়। একইসঙ্গে সিন্ডিকেট ভেঙে নিত্যপণ্যের দাম মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার দাবিও জানানো হয়।


আরও খবর



বিচার বিভাগের সমস্যা সমাধানে কার্পণ্য করবে না সরকার: আইনমন্ত্রী

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৮জন দেখেছেন
Image

আইন, বিচার ও সংসদবিষয়ক মন্ত্রী আনিসুল হক বলেছেন, প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার সরকার বিচার বিভাগের সমস্যা সমাধানে কোনো কার্পণ্য করবে না। বর্তমান সরকার বিচার বিভাগের অবকাঠামো এবং লজিস্টিকস সমস্যা দূর করতে বিভিন্ন পদক্ষেপ নিয়েছে। সমস্যা দূর না হওয়া পর্যন্ত পদক্ষেপ নিতে থাকবে।

রাজধানীর বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটে চিফ জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট/চিফ মেট্রোপলিটন ম্যাজিস্ট্রেটদের জন্য আয়োজিত পাঁচ দিনব্যাপী চলমান রিফ্রেসার কোর্সের এক অধিবেশনে বুধবার (৮ জুন) মামলাজটের কারণ ও তার সমাধানের সুপারিশ শীর্ষক দলগত উপস্থাপনা অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

দলগত উপস্থাপনায় ছয়টি গ্রুপে ৩০ জন বিচারক মামলাজটের কারণ ও তার সমাধানের সুপারিশ তুলে ধারেন।

এসময় বিচার প্রশাসন প্রশিক্ষণ ইনস্টিটিউটের মহাপরিচালক বিচারপতি নাজমুন আরা সুলতানা, আইন ও বিচার বিভাগের সচিব মো. গোলাম সারওয়ার, যুগ্ম সচিব বিকাশ কুমার সাহা, কোর্স পরিচালক মীর মো. এমতাজুল হকসহ আইন ও বিচার বিভাগ এবং ইনস্টিটিউটের ঊর্দ্ধতন কর্মকর্তারা উপস্থিত ছিলেন।

মামলাজট নিরসনের জোর চেষ্টা চালিয়ে যাওয়ার আহ্বান জানিয়ে তিনি বিচারকদের বলেন, আমাদের মূল উদ্দেশ্য মামলাজট কমিয়ে এনে জনগণকে দ্রুত ন্যায়বিচার প্রদান করা। তাই মামলাজট যে একটি বড় সমস্যা সেটা নিয়ে চিন্তা করতে হবে এবং এই চিন্তা মাঠ পর্যায় পর্যন্ত পৌঁছে দিতে হবে। বর্তমানে যে হারে মামলা নিষ্পত্তি হচ্ছে তা অব্যাহত থাকলে মামলাজট কমে আসবে।

বিচার ও সালিশ এক নয়, এ কথা স্মরণ করিয়ে দিয়ে মন্ত্রী বলেন, আইনের পরিসীমার মধ্যে থেকে জনগণের কাছে ন্যায়বিচার পৌঁছে দিতে হবে এবং মামলাজট নিরসন করতে হবে। জনগণের ন্যায়বিচার পাওয়ার নিশ্চয়তা দিতে পারলে বিচার বিভাগের সাফল্য সমৃদ্ধ হবে।


আরও খবর



সাকিবের ফেরায় দুইটি ইতিবাচক দিক রয়েছে: সিডন্স

প্রকাশিত:Saturday ০৪ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
Image

প্রায় তিন বছর পর আবারও বাংলাদেশ দলের অধিনায়কত্ব পেয়েছেন সাকিব আল হাসান। আসন্ন ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফর থেকে শুরু হচ্ছে অধিনায়ক সাকিবের তৃতীয় অধ্যায়। ২০০৯ সালে প্রথম যখন অধিনায়কত্ব পান তিনি, তখন জাতীয় দলের হেড কোচ চিলেন জেমি সিডন্স। এবার সিডন্স দলের সঙ্গে আছেন ব্যাটিং কোচ হিসেবে।

তাই তখনকার তরুণ সাকিবের অধিনায়কত্ব ভাবনা এবং বর্তমানের পরিণত সাকিবের অধিনায়কত্ব ভাবনা সম্পর্কে সিডন্সের বেশ ভালো ধারণা রয়েছে। তার মতে, সাকিবকে আবারও অধিনায়কত্বে ফেরানোয় দুইটি ইতিবাচক বিষয় ঘটেছে। শনিবার সংবাদমাধ্যমের সঙ্গে আলাপে এ বিষয়ে কথা বলেছেন তিনি।

মুমিনুল হকের জায়গায় সাকিবকে অধিনায়ক করা নিয়ে নিজের মতামত জানিয়ে সিডন্স বলেছেন, ‘এখানে দুটি ইতিবাচক দিক রয়েছে। সাকিব খুব ভালো অধিনায়ক। খেলা নিয়ে ভাবনার জায়গাও সাকিব খুব ভালো। একইসঙ্গে সাকিব ধারাবাহিক পারফর্মার। সে অধিনায়ক হিসেবে দারুণ কিছুই করবে। সবাই তাকে অনুসরণ করে।’

সিডন্সের চোখে অন্য ইতিবাচক দিকটি হলো মুমিনুলের ব্যক্তিগত পারফরম্যান্স। সাম্প্রতিক সময়ে ব্যাট হাতে যাচ্ছেতাই পারফরম্যান্স ছিল এ বাঁহাতি টপঅর্ডারের। অধিনায়কত্বের দায়িত্ব থেকে মুক্তি পাওয়ায় এখন নিজের ব্যাটিং নিয়ে কাজ করতে পারবেন মুমিনুল, এমনটাই আশা সিডন্সের।

তিনি বলেছেন, ‘আরেকটা ভালো দিক হচ্ছে, মুমিনুল এখন ব্যাটিংয়ে মনোযোগী হতে পারবে। সে কিছুদিন ধরে রান পাচ্ছিল না। এখন সে ১০০ ভাগ মনোযোগ ব্যাটিংয়ে দিতে পারবে। তার পারফরম্যান্সটা আমাদের দরকার। আমরা জানি সে ভালো ক্রিকেটার। সেই ক্রিকেটার ফিরে আসুক, এটাই চাই। অধিনায়কত্বের চাপ যেহেতু থাকছে না, আশা করি সে স্বাচ্ছন্দ্যে খেলতে পারবে।’

সাকিবের অধিনায়কত্ব তিনি সিডন্স আরও বলেছেন, ‘সাকিব আগেও অধিনায়কত্ব করেছে। তার ওপর দলের সবার আস্থা আছে। বলছি না মুমিনুলের সেটা ছিল না। তবে সাকিব যা করে ক্রিকেটাররা সেটাই অনুকরণ করে। তার ফেরাটা তাই দারুণ খবর। আর মুমিনুল এখন তার নিজের খেলাটা খেলতে পারবে।’

২০১৯ সালে আইসিসির নিষেধাজ্ঞা পাওয়ার পর টেস্ট ক্রিকেটে নিয়মিত দেখা যায়নি সাকিবকে। কখনও ব্যক্তিগত, কখনও পারিবারিক আবার কখনও চোটের কারণে এ বিশ্বসেরা অলরাউন্ডার অনেক টেস্ট মিস করেছেন। তবে সিডন্সের বিশ্বাস, এখন থেকে নিয়মিতই খেলবেন টাইগারদের নতুন টেস্ট অধিনায়ক।

এ অস্ট্রেলিয়ান কোচ বলেছেন, ‘সে যদি অধিনায়কত্ব করতে চায়, তাহলে তাকে খেলতে হবে। না খেলে তো অধিনায়কত্ব করা যায় না। আমার মনে হয় সে আবারও অধিনায়ক হওয়ার বিষয়টিতে রোমাঞ্চিত। আমার মনে হয় সাকিবের নেতৃত্বগুণের দিকটা এখন আমরা দেখতে পাবো যেটা আমরা দীর্ঘদিন দেখিনি।’


আরও খবর



দুপুরে সীতাকুণ্ড যাচ্ছেন আইজিপি

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৪৭জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুনের পর ভয়াবহ বিস্ফোরণের ঘটনাস্থল পরিদর্শনে যাচ্ছেন বাংলাদেশ পুলিশের মহাপরিদর্শক (আইজিপি) ড. বেনজীর আহমেদ। মঙ্গলবার দুপুরে তার সেখানে যাওয়ার কথা রয়েছে।

পাঁচলাইশ মডেল থানার ওসি নাজিম উদ্দীন বিষয়টি জাগো নিউজকে নিশ্চিত করেছেন।

বিএম ডিপোতে দুর্ঘটনার তিনদিন পর পুলিশ কন্ট্রোল রুম ও ব্রিফিং সেন্টার খুলেছে চট্টগ্রাম মেট্রোপলিটন পুলিশ (সিএমপি)। চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ (চমেক) হাসপাতালের ওয়ান স্টপ ইমার্জেন্সি কেয়ার সেন্টারের সামনে মঙ্গলবার সকালে তারা এ বুথ চালু করে। আইজিপি সেখানে ব্রিফিং করবেন।

সীতাকুণ্ডের ওই কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগার ৫৮ ঘণ্টা পার হলেও তা নিয়ন্ত্রণে আসেনি। এখনো বেশ কয়েকটি কনটেইনারে আগুন জ্বলছে।

দ্বিতীয় দিনের মতো চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডে নিহতদের শনাক্তে স্বজনদের ডিএনএ সংগ্রহ করবে পুলিশের অপরাধ তদন্ত বিভাগের (সিআইডি) ফরেনসিক ইউনিট।

এদিকে মঙ্গলবার (৭ জুন) সকাল থেকে চট্টগ্রাম মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের (চমেক) সামনে স্থাপিত বুথে নমুনা সংগ্রহের জন্য অপেক্ষা করছে সিআইডির বিশেষজ্ঞ দল।


আরও খবর



প্রস্তাবিত বাজেট বৈষম্য আর লুটপাটের দলিল: বাংলাদেশ ন্যাপ

প্রকাশিত:Friday ১০ June ২০২২ | হালনাগাদ:Sunday ২৬ June ২০২২ | ১০২জন দেখেছেন
Image

বিগত বছরগুলোর মতো এবারের বাজেটও দারিদ্র্য, বৈষম্য, লুটপাটের দলিল ছাড়া আর কিছুই নয় বলে মন্তব্য করেছেন বাংলাদেশ ন্যাশনাল আওয়ামী পার্টি-বাংলাদেশ ন্যাপ এর চেয়ারম্যান জেবেল রহমান গানি ও মহাসচিব এম. গোলাম মোস্তফা ভুইয়া।

বৃহস্পতিবার (৯ জুন) ২০২২-২৩ অর্থবছরের প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণার পর তাৎক্ষণিক প্রতিক্রিয়ায় তারা এ মন্তব্য করেন।

নেতৃদ্বয় বলেন, প্রকৃত অর্থে রাষ্ট্রের পক্ষ থেকে প্রতিবছর সরকার যে বাজেট দেয় তাতে ক্ষমতাসীন রাজনৈতিক দলের চলতি নীতিমালারই প্রতিফলন ঘটে থাকে। মুক্তিযুদ্ধের পর থেকে ক্ষমতাসীন সব রাজনৈতিক দল তথা শাসক শ্রেণি পুঁজিবাদী মুক্তবাজার অর্থনীতিকে কেন্দ্র করেই বাজেট প্রণয়ন করেছে। ফলে দারিদ্র্য, বৈষম্য, লুটপাট-দুর্নীতি ও সম্পদের কেন্দ্রীভবন ত্বরান্বিত হয়, যা বর্তমানে চরম রূপ নিয়েছে।

তারা বলেন, পুঁজিবাদী বিকাশের ধারায় জিডিপি বেড়েছে, তার পরিণতিতে দেশে ব্যাপক বৈষম্য সৃষ্টি হয়েছে। প্রাণ-প্রকৃতি বিনাশের মেগা প্রকল্পে ঋণও বেড়েছে। অন্যদিকে ঋণ-কর খেলাপি চোরাই টাকার মালিকদের সম্পদ বেড়েছে। মধ্যম আয়ের দেশের মানুষেরা কম মজুরিতে কাজ করে শ্রমনির্ভর রপ্তানিমুখী শিল্পে ভর্তুকি দিতে থাকবে, এমনটা আশা করা ঠিক হবে না।

বাজেটে শিক্ষা ও কৃষি খাতে বরাদ্দ আরও বাড়ানোর দাবি জানিয়ে তারা বলেন, বাজেটে বৈষম্য নিরসনে সরকারের ইচ্ছা এবং জবাবদিহিতা প্রয়োজন। প্রয়োজনীয় খাতে বরাদ্দ বাড়ানোর জন্য রাজনৈতিক সিদ্ধান্ত প্রয়োজন, যা বর্তমানে পরিপূর্ণরূপে অনুপস্থিত।

নেতৃদ্বয় বলেন, প্রতি বছর সরকার একটি গতানুগতিক বাজেট উপস্থাপন করে। সরকারের প্রস্তাবিত ২০২২-২৩ সালের বাজেটও তার থেকে আলাদা কিছুই নয়। এ বাজেটে সাধারণ মানুষ উপেক্ষিত। বরাবরের মতোই বাজেট বৈষম্যমূলক দলিল হিসেবেই সামনে এসেছে। রাজনৈতিক পরিবর্তন ছাড়া লুটেরাগোষ্টী দিয়ে এ বৈষম্যমূলক ব্যবস্থার পরিবর্তন সম্ভব নয়।

প্রস্তাবিত বাজেটে পাচার করা অর্থ ফেরত আনার সুযোগ দেওয়াকে অনৈতিক ও পাচারকারীদের পৃষ্ঠপোষকতার শামিল বলে মন্তব্য করে তারা বলেন, এটি দেশের প্রচলিত আইনের সঙ্গে সাংঘর্ষিক। এতে প্রত্যাশিত ফল পাওয়ার সম্ভাবনা ক্ষীণ। জাতীয় ও আন্তর্জাতিক আইন অনুযায়ী গর্হিত এ অপরাধের জন্য শাস্তির বদলে পুরস্কার দেওয়ার ব্যবস্থা করার এসব উদ্যোগ অর্থপাচারকারী তথা দুর্নীতিবাজদের রাষ্ট্রীয় পৃষ্ঠপোষকতার শামিল।


আরও খবর