Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

সাভারে সেইফ লাইন পরিবহনের চালকসহ সংশ্লিষ্টদের নামে মামলা

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৪৬৬জন দেখেছেন
Image

সাভারে বাস-ট্রাকের ত্রিমুখী সংঘর্ষে চারজন নিহতের ঘটনা মামলা হয়েছে। যেখানে আসামি করা হয় সেইফ লাইন পরিবহনের অজ্ঞাত পরিচয়ের চালকসহ সংশ্লিষ্টদের।

রোববার (৫ জুন) রাতে সাভার হাইওয়ে থানার সহকারী উপ-পরিদর্শক (এএসআই) ফজলুল হক বাদী হয়ে মামলাটি করেন।

সাভার হাইওয়ে থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) আতিকুর রহমান বলেন, সেইফ লাইন পরিবহনের (ঢাকা মেট্রো ব-১৪-৫৮৭৮) বাসটির রোড পারমিট, ফিটনেস ও রোড ট্যাক্স ছিলো কিনা সেটি তদন্ত করে দেখা হচ্ছে। তিন বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তাসহ পরমাণু শক্তি কমিশনের বাসের চালকের মরদেহ স্বজনদের কাছে হস্তান্তর করা হয়েছে। স্বজনদের আবেদনের প্রেক্ষিতে ময়নাতদন্ত ছাড়াই মরদেহ হস্তান্তর করা হয়।

সাভারে সেইফ লাইন পরিবহনের চালকসহ সংশ্লিষ্টদের নামে মামলা

এর আগে রোববার সকালে ঢাকা-আরিচা মহাসড়কের সাভারের বলিয়াপুর এলাকায় সেইফ লাইনের একটি বাস নিয়ন্ত্রণ হারিয়ে বিভাজন টপকে পরমাণু শক্তি কমিশনের বাস ও একটি ট্রাককে ধাক্কা দেয়। এ ঘটনায় পরমাণু শক্তি কমিশনের বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা আরিফুজ্জামান আরিফ, পূজা সরকার, কাউসার রাব্বি ও বাসচালক রাজিব হোসেন নিহত হন। এ ঘটনায় আহত হয় আরও ১৫ জন।


আরও খবর



সোয়া ৩ লাখ কোটি টাকায় যমুনার দু’পাড়ে হবে অর্থনৈতিক করিডোর

প্রকাশিত:Saturday ১৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৫০জন দেখেছেন
Image

ভাঙনের কারণে দেশের নদীতীরের মানুষের কষ্টের সীমা নেই। বিশেষ করে যমুনাপাড়ের বাসিন্দাদের। সেখানে বাড়ছে দারিদ্র্য। ভাঙনে নিঃস্ব অনেক পরিবার। নদীগর্ভে চলে গেছে গুরুত্বপূর্ণ অবকাঠামো। বিলীন হয়েছে অনেকের বসতভিটা, শিক্ষাপ্রতিষ্ঠানসহ বিস্তীর্ণ ফসলি জমি। জেলার একাংশের জনগোষ্ঠীকে ঘুরে দাঁড়ানোর সুযোগই দেয় না যমুনার ভাঙন। এসব সমস্যা মাথায় রেখে শতবর্ষী ডেল্টাপ্ল্যানের আওতায় পুরো যমুনা নদী ঘিরে সোয়া তিন লাখ কোটি টাকা ব্যয় করবে সরকার। তীর বাঁধাই করে গড়ে তোলা হবে অর্থনৈতিক করিডোর। প্রাথমিকভাবে বিশ্বব্যাংকের অর্থায়নে পাঁচ কিলোমিটার এলাকায় হবে প্রায় ১১ হাজার কোটি টাকার কাজ। ডেল্টাপ্ল্যানের আওতায় আছে ২৩০ কিলোমিটার নদী।

পরিকল্পনা বাস্তবায়নে ‘যমুনা রিভার ইকোনমিক করিডোর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট’ শীর্ষক একটি প্রকল্প হাতে নেওয়া হয়েছে। প্রকল্পটি যৌথভাবে বাস্তবায়ন করবে পানিসম্পদ মন্ত্রণালয় ও নৌপরিবহন মন্ত্রণালয়। এরই মধ্যে উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তাব (ডিপিপি) প্রস্তুত করা হয়েছে। প্রকল্পে ১ দশমিক ২ বিলিয়ন ডলার বিনিয়োগ করবে বিশ্বব্যাংক। বাংলাদেশি মুদ্রায় যা প্রায় ১০ হাজার ৭শ কোটি টাকা। এগুলো যাচাই-বাছাইয়ের জন্য শিগগির পাঠানো হবে পরিকল্পনা কমিশনে। একনেক সভায় পাস হলেই বাংলাদেশ ও বিশ্বব্যাংকের মধ্যে ঋণচুক্তি সই হবে।

সূত্র জানায়, প্রথমে মাস্টারপ্ল্যান, পরে পাইলট প্রকল্প বাস্তবায়ন করা হবে। নদীর দুই পাড় সংকুচিত করা হবে নদীশাসনের মাধ্যমে। যমুনা নদীর প্রস্থ কোথাও ১২ থেকে ১৪ কিলোমিটার, কোথাও ১৮ আবার কোথাও ২০ কিলোমিটার। এটাকে ছোট করে বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকার মতো চার দশমিক ৮ কিলোমিটারে রূপ দেওয়া হবে। সেতু এলাকার মতো প্রস্থেও যেন পানিপ্রবাহে কোনো সমস্যা না হয়, সেজন্য নদী খনন বাড়ানো হবে। পাশাপাশি নেওয়া হবে বন্যা নিয়ন্ত্রণের উদ্যোগ।

নদীপাড় বাঁধাইয়ের মাধ্যমে বিরাট ফসলি ভূমি পাবে বাংলাদেশ। ওই পাড় সংরক্ষণ করে নানা ধরনের অর্থনৈতিক অঞ্চল, ছোট শিল্প প্রতিষ্ঠান গড়ে তোলা হবে। এছাড়া জমি ব্যবস্থাপনা করে বসতি স্থাপনসহ গড়ে তোলা হবে বনায়ন, টাউনশিপ, বাঁধ ও শিল্পনগরী।

jomuna1

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, প্রথম পর্যায়ে পাঁচ কিলোমিটার বাঁধাই করা হবে যমুনার দুই পাড়। এরপর পর্যায়ক্রমে সিরাজগঞ্জের যমুনা সেতুর উত্তর পাড় থেকে কুড়িগ্রামের নুনখাওয়া ভারত সীমান্ত পর্যন্ত ২৩০ কিলোমিটার ঘিরে ডেল্টাপ্ল্যানের আওতায় টাউনশিপ ও ইকোনমিক করিডোর গড়ে তোলা হবে।

প্রকল্প সংশ্লিষ্ট এক কর্মকর্তা জাগো নিউজকে বলেন, এটা ১৫ বছর মেয়াদি একটি প্রকল্প। কয়েকটি ধাপে এটা বাস্তবায়ন করা হবে। বাঁধাই হবে পুরো ২৩০ কিলোমিটার যমুনার পাড়। নদীর প্রস্থ দেখা গেছে ১২ থেকে ২০ কিলোমিটার পর্যন্ত। আমরা ড্রেজিং ও পাড় বাঁধাইয়ের মাধ্যমে এটাকে ছোট করে বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকার মতো সমান করবো। বঙ্গবন্ধু সেতু এলাকা দিয়ে পানিপ্রবাহে কিন্তু কোনো সমস্যা হয় না। যমুনার প্রস্থ ছোট করলে আমরা অনেক ফসলি জমি পাবো। তাছাড়া পাড় ঠিক করে বাঁধতে পারলে এমনিতেই নানা ধরনের অর্থনৈতিক কর্মকাণ্ড গড়ে উঠবে।

সংশ্লিষ্টদের তথ্য মতে, নেদারল্যান্ডসের আদলে গ্রহণ করা শতবর্ষী ডেল্টাপ্ল্যান বা ব-দ্বীপ পরিকল্পনার গুরুত্বপূর্ণ অংশ যমুনাকেন্দ্রিক এ প্রকল্প। ২০১৮ সালের ৪ সেপ্টেম্বর জাতীয় অর্থনৈতিক পরিষদে (এনইসি) অনুমোদিত ব-দ্বীপ পরিকল্পনাকে সরকার দেশের ভবিষ্যৎ উন্নয়নের চাবিকাঠি হিসেবে দেখছে। এই লক্ষ্যে ‘সাপোর্ট টু দ্য ইমপ্লিমেন্টেশন অব দ্য বাংলাদেশ ডেল্টাপ্ল্যান ২১০০’ প্রকল্প নেওয়া হয়েছে। এর কাজ শুধু ডেল্টাপ্ল্যানের জন্য উন্নয়ন প্রকল্প প্রস্তুত করা। এই প্রকল্পের মোট ব্যয় ৬৩ কোটি ৬৯ লাখ টাকা। প্রকল্পের মেয়াদ অক্টোবর ২০১৮ থেকে সেপ্টেম্বর ২০২২।

Sirajgonj.jpg

এরই মধ্যে এই সাপোর্টিং প্রকল্পের মাধ্যমে মোট ৮০টি প্রকল্প প্রস্তুত করা হয়েছে। এর মধ্যে ৬৫টি ভৌত অবকাঠামো সংক্রান্ত প্রকল্প, ১৫টি প্রাতিষ্ঠানিক সক্ষমতা ও দক্ষতা উন্নয়ন এবং গবেষণা বিষয়ক প্রকল্প। এগুলো বাস্তবায়নে ৩৭ বিলিয়ন মার্কিন ডলার প্রয়োজন। বাংলাদেশি মুদ্রায় এর পরিমাণ দাঁড়ায় প্রায় সোয়া তিন লাখ কোটি টাকা। এসব প্রকল্পের আওতায় বন্যা, নদীভাঙন, নদী ব্যবস্থাপনা, নগর ও গ্রামে পানি সরবরাহ, বর্জ্য ব্যবস্থাপনা এবং বন্যা নিয়ন্ত্রণ ও নিষ্কাশন ব্যবস্থাপনার দীর্ঘমেয়াদি পদক্ষেপ বাস্তবায়ন হবে।

সার্বিক বিষয়ে জানতে চাইলে প্রকল্পের ব-দ্বীপ পরিকল্পনার উপ-প্রকল্প পরিচালক মির্জা মো. মহিউদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, যেসব প্রকল্পের প্রস্তাবনা আমাদের হাতে আসছে এর মধ্যে অন্যতম বৃহৎ প্রকল্প হচ্ছে ‘যমুনা রিভার ইকোনমিক করিডোর ডেভেলপমেন্ট প্রজেক্ট’। প্রকল্পের আওতায় সিরাজগঞ্জ থেকে শুরু করে কুড়িগ্রাম (ভারত সীমান্ত) পর্যন্ত যমুনা নদীর পাড় নেদারল্যান্ডসের আদলে বাঁধাই করা হবে। এর মাধ্যমে একদিকে যেমন দারিদ্র্য নিরসন হবে, অন্যদিকে ফসলি জমির পরিমাণও বাড়বে। পুরো যমুনা নদীশাসন করা হবে। বন্যা নিয়ন্ত্রণ, বাঁধ নির্মাণ, যমুনা নদীর প্রস্থ সরু করাসহ যমুনার দুই পাড়ে নানা ধরনের অর্থনৈতিক সেক্টর গড়ে উঠবে। এটা কয়েকটি ধাপে বাস্তবায়ন করা হবে।


আরও খবর



সেনাবাহিনীর বিশেষ টিম কাজ করছে কেমিক্যাল কনটেইনারে

প্রকাশিত:Tuesday ০৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৫৫জন দেখেছেন
Image

ঢাকা থেকে আজ (মঙ্গলবার) সেনাবাহিনীর একটি বিশেষায়িত টিম সীতাকুণ্ডে এসেছে। সেখানে বিপজ্জনক আরও কিছু আছে কি না তা নিয়ে কাজ করছেন তারা।

বাংলাদেশ সেনাবাহিনীর ২৪ পদাতিক ডিভিশনের ১৮ ব্রিগেডের কমান্ডিং অফিসার লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফুল ইসলাম হিমেল মঙ্গলবার (৭ জুন) বেলা সাড়ে ১১টায় ঘটনাস্থলে ব্রিফিংয়ে এ কথা জানান।

লেফটেন্যান্ট কর্নেল আরিফুল ইসলাম হিমেল বলেন, ডিপো বিশাল একটি এলাকা। এখানে রাসায়নিক কনটেইনার ছিল। সেগুলো শনাক্ত করতে আমাদের কিছুটা সময় লাগে। এরই মধ্যে আমরা বেশ কিছু কনটেইনার শনাক্ত করেছি এবং বেশ কিছুটা সময় অতিক্রম হয়েছে। তাই আমরা আশা করছি আর কোনো বড় ধরনের বিপদ হওয়ার আশঙ্কা নেই। ঢাকা থেকে আজ সেনাবাহিনীর একটি বিশেষায়িত টিম এসেছে। এখানে বিপজ্জনক আর কিছু আছে কি না, সেগুলো নিয়ে কাজ করছে। তাদের কাজ শেষে আমরা একটি ফাইনাল রিপোর্ট পাবো।

তিনি বলেন, কিছু কনটেইনারে কাপড়ের জিনিসপত্র আছে। সেগুলোতে পানি দেওয়ার পর ধোঁয়া বেরোচ্ছে। ডিপোর ডেঞ্জারাস এলাকা মার্ক করে কাউকে কাছে যেতে দেইনি। এখানে ফায়ার সার্ভিসকে সহযোগিতার পাশাপাশি এখানে ড্রেনেজ কন্ট্রোল, সিকিউরিটি কন্ট্রোল এবং প্ল্যানিং কন্ট্রোলের ব্যাবস্থা করেছে সেনাবাহিনী।

এদিকে সীতাকুণ্ডের বিএম কনটেইনার ডিপোতে অগ্নিকাণ্ডের ৬১ ঘণ্টা পর তা নিয়ন্ত্রণে এসেছে বলে জানিয়েছে বাংলাদেশ সেনাবাহিনী।

এর আগে শনিবার (৪ জুন) রাত সাড়ে ৯টার দিকে চট্টগ্রামের সীতাকুণ্ডে বিএম কনটেইনার ডিপোতে আগুন লাগে। আগুন লাগার পর রাসায়নিকের কনটেইনারে একের পর এক বিকট শব্দে বিস্ফোরণ ঘটতে থাকলে বহু দূর পর্যন্ত কেঁপে ওঠে। অগ্নিকাণ্ড ও ভয়াবহ বিস্ফোরণে মৃতের সংখ্যা বেড়ে ৪৯ জন হয়েছে।


আরও খবর



মধ্যরাতে নীলক্ষেতে তরুণীর জামা টেনে ছিঁড়ে ফেললো বখাটে

প্রকাশিত:Thursday ০৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৯২জন দেখেছেন
Image

রাজধানীর নীলক্ষেতে এক তরুণীর জামা টেনে ছিঁড়ে তাকে যৌন হেনস্তার অভিযোগ উঠেছে। গতকাল বুধবার (৮ জুন) দিনগত রাত ১২টার পর নীলক্ষেত থেকে রিকশাযোগে টিএসসি এলাকায় প্রবেশের মুখে এ ঘটনা ঘটে।

ভুক্তভোগী তরুণী জাগো নিউজকে অভিযোগ করে বলেন, বুধবার দিনগত রাতে ধানমন্ডি থেকে রিকশায় করে পুরান ঢাকায় যাচ্ছিলাম। পথে নীলক্ষেত থেকে টিএসসি প্রবেশের মুখে দুজন বখাটে বাইক নিয়ে রিকশার পেছন থেকে এসে আমার জামা ধরে টান দেয়। এক পর্যায়ে টেনেহিঁচড়ে আমার জামা ছিঁড়ে ফেলে। এরপর উল্টো আমাকেই গালাগাল করতে করতে চলে যায়। এসময় আমার কাছে একটি মোবাইল ফোন ও কানে হেডফোন ছিল। তবে শরীরে কোনো স্বর্ণের গহনা ছিলো না। আমার চিৎকার শুনেও আশপাশের মানুষ এগিয়ে আসেনি। আমি ভীষণ ভয় পেয়ে যাই।

ওই মোটরসাইকেল চালককে চিনতে পেরেছেন কি না- জানতে চাইলে তরুণী বলেন, তার মাথায় হেলমেট পরা ছিল, তবে আমি তাকে দেখেছি। পরবর্তীসময়ে দেখলে শনাক্ত করতে পারবো।

ভুক্তভোগী তরুণী জানান, এ ঘটনার পর তাৎক্ষণিকভাবে থানায় যোগাযোগ করার মতো মেন্টালি স্টেবল ছিলেন না তিনি। তিনি বলেন, আমি ভয়ঙ্কর শকড এবং ট্রমাটাইজ। এ বিষয়ে আইনগত পদক্ষপ নেওয়া হবে।

এ ঘটনায় এখনো থানায় কোনো অভিযোগ দায়ের হয়নি বলে সংশ্লিষ্ট থানা পুলিশ সূত্রে জানা গেছে।

তবে ভুক্তভোগী তরুণী জানিয়েছেন, শুক্রবার শাহবাগ থানায় তিনি মামলা দায়ের করার প্রস্তুতি নিচ্ছেন।


আরও খবর



দ্রব্যমূল্য বৃদ্ধির প্রতিবাদে ৬ বিভাগে মানববন্ধন করবে বিপিপি

প্রকাশিত:Saturday ১১ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৩৫জন দেখেছেন
Image

গ্যাসসহ নিত্যপণ্যের অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধির প্রতিবাদে ছয় বিভাগীয় শহরে মানববন্ধন করবে বাংলাদেশ পিপলস পার্টি (বিপিপি)। চলতি মাসের মাঝামাঝি ঢাকা, সিলেট, খুলনা, বরিশাল, ময়মনসিংহ ও রাজশাহী বিভাগে এই কর্মসূচি পালিত হবে।

শনিবার (১১ জুন) দুপুরে রাজধানীর পুরানা পল্টনের কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে বিপিপির কেন্দ্রীয় নির্বাহী কমিটির জরুরি সভায় এ সিদ্ধান্ত গৃহীত হয়।

jagonews24

বিপিপির চেয়ারম্যান মো. বাবুল সরদার চাখারীর সভাপতিত্বে ও মহাসচিব মো. আব্দুল কাদেরের সঞ্চালনায় সভায় বক্তব্য দেন দলের কো-চেয়ারম্যান পারভীন নাসের খান ভাসানী, রফিকুল ইসলাম খান রনো, আতিকুর রহমান লিটন, প্রেসিডিয়াম সদস্য মাহাবুব খোকন প্রমুখ।

সভায় নিত্যপণ্যের অব্যাহত মূল্যবৃদ্ধির তীব্র নিন্দা ও প্রতিবাদ জানিয়ে দাম নিয়ন্ত্রণে ব্যর্থতার দায়ে বাণিজ্যমন্ত্রী টিপু মুনশির পদত্যাগ দাবি করা হয়। একইসঙ্গে সিন্ডিকেট ভেঙে নিত্যপণ্যের দাম মানুষের ক্রয়ক্ষমতার মধ্যে রাখার দাবিও জানানো হয়।


আরও খবর



২৩ জনকে নিয়োগ দেবে খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৩জন দেখেছেন
Image

খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়ে (খুবি) ১৬টি পদে ২৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। আগ্রহীরা আগামী ২৭ জুন পর্যন্ত আবেদন করতে পারবেন।

প্রতিষ্ঠানের নাম: খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়

পদের বিবরণ
jagonews24

চাকরির ধরন: স্থায়ী
প্রার্থীর ধরন: নারী-পুরুষ
বয়স: নির্ধারিত নয়
কর্মস্থল: খুলনা

আবেদন ফরম: আগ্রহীরা ku.ac.bd/career এর মাধ্যমে আবেদন ফরম সংগ্রহ করতে পারবেন।

আবেদনের ঠিকানা: রেজিস্ট্রার (ভারপ্রাপ্ত), খুলনা বিশ্ববিদ্যালয়, খুলনা।

আবেদন ফি: ৭৫০ টাকা

আবেদনের শেষ সময়: ২৭ জুন ২০২২

সূত্র: কালেরকণ্ঠ, ০৬ জুন ২০২২


আরও খবর