Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী

প্রকাশিত:Friday ১০ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ২৪৭জন দেখেছেন
Image

বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে আপত্তিকর মন্তব্য করে এবার সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী। আজ শুক্রবার সকালে বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন জেলা প্রশাসক (ডিসি) মো. আব্দুল জলিল।

তিনি বলেন, গতকাল বৃহস্পতিবার রাত ১১টার দিকে মেয়র আব্বাস আলীর সাময়িক বরখাস্ত সম্পর্কিত একটি প্রজ্ঞাপন পেয়েছি। ৮ ডিসেম্বর স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয়ের উপ-সচিব ফারজানা মান্নান স্বাক্ষরিত প্রজ্ঞাপনটি জারি করা হয়েছে। সেখানে স্থানীয় সরকার মন্ত্রণালয় থেকে তাকে বহিষ্কারের আদেশ দেওয়া হয়েছে।

ওই চিঠিতে বলা হয়েছে, কাটাখালী পৌরসভার মেয়র মো. আব্বাস আলীর বিরুদ্ধে বোয়ালিয়া মডেল থানায় ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলা হয়েছে এবং তিনি গ্রেপ্তার হওয়ায় কর্মস্থলে অনুপস্থিত থাকায় পৌরসভার কর্মকর্তা-কর্মচারীসহ সাধারণ মানুষ সেবা থেকে বঞ্চিত হচ্ছেন। যা পৌরসভার স্বার্থের পরিপন্থী ও প্রশাসনিক দৃষ্টিকোণ থেকে সমীচীন নয় বলে প্রতীয়মান হওয়ায় পৌর মেয়রের পদ থেকে তাকে সাময়িক বহিষ্কার করা যুক্তিযুক্ত। স্থানীয় সরকার (পৌরসভা) আইন ২০০৯ এর ধারা ৩১ (১) এর ক্ষমতাবলে কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলীকে সাময়িক বরখাস্ত করা হলো।

এর আগে রাজশাহী সিটি করপোরেশনের গেটে বঙ্গবন্ধুর ম্যুরাল স্থাপন নিয়ে বিতর্কিত মন্তব্য করেন পৌর মেয়র আব্বাস আলী। এরপরই তার বিরুদ্ধে মাঠে নামেন স্থানীয় আওয়ামী লীগ। ডিজিটাল নিরাপত্তা আইনে মামলার পাশাপাশি ১২ কাউন্সিলর তার প্রতি অনাস্থা জানিয়ে জেলা প্রশাসককে চিঠি দেন।


আরও খবর



সরাইলে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী'র সম্মেলন- ২০২২ অনু্ষ্ঠিত

সরাইলে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী'র সম্মেলন- ২০২২ অনু্ষ্ঠিত

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১৫জন দেখেছেন
Image


 সরাইল থেকে রুবেল মিয়াঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইলে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সম্মেলন ২০২২ অনু্ষ্ঠিত হয়েছে।


এ উপলক্ষে আজ শনিবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ১১ টার দিকে  সরাইল উপজেলা পরিষদের ডাক বাংলো প্রাঙ্গণে পতাকা উত্তোলন, র‍্যালী ও  আলোচনা সভা অনু্ষ্ঠিত হয়েছে।


সংগঠনের পতাকা ও জাতীয় পতাকা  উত্তোলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের  উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট লেখক, কবি ও সাহিত্যিক ওয়াহিদ রহমান।


সরাইল উপজেলা  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সাবেক সভাপতি মোঃ শরিফ উদ্দিন সভাপতিত্বে  ও উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র

সম্মেলন প্রস্তুতি কমটির সদস্য সচিব জহিরুল ইসলামের পরিচালনা উক্ত সম্মেলনে প্রধান হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের  সাবেক এমপি এড. জিয়াউল হক মৃধা।


অনু্ষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সরাইল উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ও  সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক দুইবারের  অভিভাবক পরিচালনা কমিটির সদস্য মোহাম্মদ সুমন পারভেজ।


এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সরাইল উপজেলার সাবেক সভাপতি  সঞ্জিব কুমার দেবনাথ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী  সরাইল উপজেলার  সাবেক সভাপতি দেবদাস সিংহ রায়, সরাইল সরকারি কলেজ এর অধ্যক্ষ  মৃধা আহামুদুল কামাল, সরাইল মহিলা কলেজ এর  অধ্যক্ষ মোহাম্মদ বদর উদ্দিন,

সরাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান, শিক্ষক ফজলুল হক মৃধা,মোস্তাফিজুর রহমান প্রমূখ। 


পরে দুপুর ২ টার দিকে ২য় পর্বের  অধিবেশন সভায় উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সরাইল উপজেলা শাখার পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।


এ সময়  মোজাম্মেল পাঠান কে সভাপতি ও মোহাম্মদ সুমন পারভেজ কে সাধারন সম্পাদক করে  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সরাইল উপজেলা শাখার ১৯ সদস্য  বিশিষ্ট  পূর্নাঙ্গ নতুন কমিটি ঘোষনা করা হয়।


সভায় দিক-নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংসদের সাধারন সম্পাদক ফেরদৌস রহমান।


উল্লেখ্য,নতুন কমিটিতে ১৩ জনকে  উপদেষ্টা করা হয়েছে। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. আব্দুর রাশেদ মিয়াকে প্রধান উপদেষ্টা  করা হয়েছে ।



আরও খবর



দেশে আরও ৪ জনের ওমিক্রন শনাক্ত

প্রকাশিত:Wednesday ২৯ December ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১০৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: দেশে নতুন করে আরও চারজনের দেহে করোনাভাইরাসের দক্ষিণ আফ্রিকান ভ্যারিয়েন্ট ওমিক্রন শনাক্ত হয়েছে। এ নিয়ে সাতজনের দেহে ভাইরাসটি শনাক্ত হলো। গতকাল মঙ্গলবার সন্ধ্যায় একজন ও রাতে তিনজনের দেহে ভাইরাসটি পাওয়া যায়।

বাংলাদেশে করোনার জিনোম সিকোয়েন্স ডেটা গ্লোবাল ইনিশিয়েটিভ অন শেয়ারিং অল ইনফ্লুয়েঞ্জা ডেটা (জিআইএসএআইডি) প্রতিষ্ঠানে জমা পড়া নমুনায় এ ভাইরাস শনাক্ত হওয়ার তথ্য জানা গেছে। এর আগে সোমবার রাতে দেশে আরও একজনের নমুনায় করোনার ওমিক্রন ভ্যারিয়েন্ট শনাক্ত হওয়ার তথ্য জানায় জিআইএসএআইডি।

উল্লেখ্য, গত ১১ ডিসেম্বর করোনার নতুন ধরনটি দেশে প্রথম দুজনের শরীরে শনাক্ত হওয়ার কথা জানান রোগতত্ত্ব, রোগ নিয়ন্ত্রণ ও গবেষণা প্রতিষ্ঠানের (আইইডিসিআর) প্রধান বৈজ্ঞানিক কর্মকর্তা ডা. এএসএম আলমগীর। ওমিক্রন শনাক্ত হওয়া ওই দুজনই বাংলাদেশ জাতীয় নারী ক্রিকেট দলের সদস্য। তারা বর্তমানে সুস্থ।


আরও খবর



করোনায় আক্রান্ত তাহসান-মিথিলার মেয়ে আইরা

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১২৪জন দেখেছেন
Image

বিনোদন প্রতিবেদক: গায়ক-অভিনেতা তাহসান খান ও অভিনেত্রী রাফিয়াত রশিদ মিথিলার মেয়ে আইরা তেহরীম খান করোনাভাইরাসের আক্রান্ত হয়েছে। এর আগে চলতি বছরের শুরুতেই করোনায় আক্রান্ত হন মিথিলার বর্তমান স্বামী ভারতীয় নির্মাতা সৃজিত মুখার্জি। বর্তমানে মিথিল-আইরা কলকাতাতেই আছেন।

মিথিলা বলেন, ‘সৃজিতের পর আমার মেয়ে আইরারও করোনা পজিটিভ এসেছে। গত তিন দিন ধরে তার জ্বর ছিল। পরীক্ষা করার পর গতকাল (৫ জানুয়ারি) তার করোনা পজিটিভ আসে। তবে আমরা আগে থেকেই ওষুধ খাওয়ানো শুরু করি। এখন বেশ ভালো আছে।’

তিনি আরও বলেন, ‘শুরুতে জ্বর এবং কাশির পর দুজনই এখন আগের চেয়ে অনেক ভালো আছে। তারা যাতে দ্রুত সুস্থ হয়ে ওঠে সেজন্য সবাই দোয়া করবেন।’

মিথিলা জানান, করোনার কারণে স্বামী এবং কন্যা দুজনের কাছ থেকে আলাদা থাকছেন তিনি। দূর থেকেই তাদের সেবা করছেন। তার বিশ্বাস দ্রুতই স্বামী সৃজিত ও কন্যা আইরা করোনামুক্ত হবেন।

তাহসানের সঙ্গে মিথিলার বিয়ে হয় ২০০৬ সালের ৩ আগস্ট। ২০১৭ সালের জুলাই মাসে তাদের বিচ্ছেদ হয়। তাদের একমাত্র সন্তান আইরা। ২০১৯ সালের ৬ ডিসেম্বর কলকাতার নির্মাতা সৃজিতকে বিয়ে করেন মিথিলা।


আরও খবর



দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১৩১জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিবেদক 

মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে এবং দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধকরণে অবদান রাখতে সবাইকে মেম্বার-চেয়ারম্যান হতে হয় না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম।


মেম্বার-চেয়ারম্যান না হলে কারো জীবন ব্যর্থ হয়ে যাবে এমনটি ভাবা ঠিক নয়। জনপ্রতিনিধি না হয়েও মানসিকতা এবং দেশপ্রেম থাকলে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখা যায় বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।


আজ রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম ঢাকার (সিজেএফডি) দ্বি বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


মন্ত্রী বলেন, আমাদের মধ্যে শ্রেণীভেদ আছে, পেশার ভিন্নতা, ধর্মীয় ও বর্ণের পার্থক্য আছে।  ভিন্নতা থাকতে পারে কিন্তু আমরা মানুষ। যার যা প্রাপ্য সম্মান তাকে দিতে হবে। সকল পেশার প্রতি সম্মানবোধ রাখা উচিত। দেশের উন্নয়নে কাউকে হেয় করার সুযোগ নেই। কাউকে বাদ দিয়ে উন্নত দেশ গড়া সম্ভব নয়। তাই সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।


তিনি জানান, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে শক্তিশালী এবং যুগোপযোগী করতে জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা এবং সিটি কর্পোরেশনের আইনে সংশোধন আনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে জেলা পরিষদ এবং পৌরসভার খসড়া সংশোধনী মন্ত্রিপরিষদে পাশ হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা-সিইও নিয়োগ প্রদান নিয়ে সমালোচনা হলেও এই নিয়োগের ফলে নিয়োগকৃত পৌরসভায় রাজস্ব আদায়ে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র ৩৮ টি পৌরসভা কর্মচারীর বেতন দিতে পারতো উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে এখন অধিকাংশ পৌরসভা কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করছে।


ঢাকার চারপাশে নদীর দখলমুক্ত, দূষণরোধে এবং নাব্যতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালনের কথা উল্লেখ করে মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, ঢাকা শহরে অনেক নদী ও খাল বেদখল হয়ে গেছে। সেগুলো উদ্ধারে দুই সিটি কর্পোরেশন এবং বিআইডব্লিউটিএ অভিযান চালাচ্ছে। অনেক উদ্ধারও করা হয়েছে।


এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, কল্যাণপুরে ওয়াটার রিটেনশন পন্ডের জন্য রাখা ১ শো ৭৩ একর জায়গার মধ্যে মাত্র সাড়ে তিন একর জায়গা ছাড়া বাকি সব দখল করে ঘর বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জায়গা দখল মুক্ত করার জন্য সিটি করপোরেশনকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। 


ড্যাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০২১ সালের প্রথম দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) এর আহ্বায়ক করেন। গত এক বছর করোনার সংকটেও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে সেমিনার ও মতবিনিময় করেছি। নানান সমস্যা সমধান করে সর্বশেষ ৩০ ডিসেম্বর মন্ত্রিসভা কমিটি চুড়ান্ত করে। এখন গ্যাজেটের অপেক্ষায় রয়েছে।


মো. তাজুল ইসলাম বলেন, সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লাতেও ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে। বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়িত হলে বৃহত্তর কুমিল্লার ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। কুমিল্লার উন্নয়নের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। কুমিল্লা শহরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন শহরে পরিণত করতে সবাইকে ভূমিকা রাখতেও বলেন মন্ত্রী।


তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানুষের হৃদয়কে জয় করেছিলেন বলেই তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে লাখো বাঙালি এদেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই-সংগ্রাম করেছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করায় তিনি তাঁর স্বপ্ন পূরণ করতে না পারলেও যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।



কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরামের জন্য ঢাকায় একটি অফিস স্থাপনের সাথে একমত পোষণ করে পাশে থাকার ঘোষণা দেন মন্ত্রী। এই অফিস জ্ঞান চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


সিজেএফডির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল বাবু, সিজেএফডির সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন,  সাবেক সভাপতি মাহমুদুর রহমান খোকন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



মাওয়া শিমুলিয়া ফেরী ঘাটে পদে পদে দুর্নীতি

মাওয়া শিমুলিয়া ফেরী ঘাটে পদে পদে দুর্নীতি

প্রকাশিত:Monday ১৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৮১জন দেখেছেন
Image


জুবায়ের আলম:

ফেরীর তেল চুরি ,দুর্নীতি, সংস্থার বিভিন্ন খাতের অর্থ আত্মসাত সহ মাওয়ায় শিমুলিয়া-বাংলাবাজার  ঘাটে বিআইডব্লিউটিসির কর্মচারীদের বিরুদ্ধেব্যাপক হারে  অভিযোগ রয়েছে।স্থানীয়ভাবে অনুসন্ধান করে জানাগেছে ফেরি চলাচলের জন্য বছরে কোটি কোটি টাকার তেল ব্যয় হয়।


এই তেল ব্যয়ের ব্যাপারে রয়েছে নানা রকমের কারসাজি। বহু দিন ধরেই শিমুলিয়ায় তেল চুরি সিন্ডিকেট সক্রিয়। চক্রটির হাত লম্বা। তেল চুরির ভাগ চলে যায় অনেক উপরের কর্মকর্তাদেরও হাতে। তাই যুগ যুগ ধরে এই তেল চুরি চলছেই। আধুনিক ভিটিএস যন্ত্র ব্যবহার না করাও এর একটি কারণ। এক শ্রেণীর কর্মকর্তার অবৈধ আয়ের অন্যতম উৎস এই তেল চুরি।সাশ্রয় করা তেলই বাইরে বিক্রি করা হয়।


প্রতিটি ফেরিরই তিন সদস্যের একটি একটি টাইম নির্ধারণ করে তেল বরাদ্দ দেয়। রো রো ফেরি শাহ পরাণের বাংলাবাজার থেকে শিমুলিয়া আসার জন্য সময় নির্ধারণ করা ৫৫ মিনিটি এবং তেল বরাদ্দ ১০৮ লিটার। শিমুলিয়া থেকে বাংলা বাজার যাওয়া জন্য ১ ঘণ্টা ৪৫ মিনিটে ২২১ লিটার বরাদ্দ রয়েছে।ফেরি কোন কোন সময় একটু বেশি লাগে আবার কখনও সময় একটু কম লাগে। কম লাগলে তেল কম খরচ হয়।


তবে হিসাবের মধ্যেই থাকে। এগুলো রেজিস্টার মেনটেন করা হয়।দূরত্ব, গতিবেগ ও স্রোত বিবেচনায় বিপুল পরিমাণ তেল বরাদ্দ দেয়া হলেও সেই অনুযায়ী ফেরি ও জাহাজ চালানো হয় না। এভাবে বরাদ্দের তেল বাঁচিয়ে তা গোপনে বিক্রি করে দেন সংশ্লিষ্টরা। তেল চুরির টাকা সংস্থাটির ফেরীচালক,মাষ্টার সুকানী,লস্কর সহ বিভিন্ন পর্যায়ের কয়েক কর্মকর্তার পকেটে যায়।


প্রতি মাসে এই ফেরি রুটে সংস্থাটির কোটি কোটি টাকা আয় ব্যয় রয়েছে। বিআইডব্লিউটিসির সহ-মহাব্যবস্থাপক(বাণিজ্য) মোঃ শফিকুল ইসলাম  জানান, গত ২০২১ সালের মে মাসে শিমুলিয়া-বাংলাবাজার রুটে ফেরিগুলো ৪ হাজার ৫৭০টি ট্রিপ দিয়ে আয় করেছে প্রায় ১০ কোটি টাকা। আর তেল খরচ হয়েছে ২ কেটি ৬৮ লাখ ৫০ হাজার টাকার। গত জুন মাসে ৬ হাজার ৪৫২টি ট্রাক, ২৫ হাজার ৩৬৯টি বাস এবং ৭৪ হাজার ৯৫টি ছোট যান পারাপার করেছে। ফেরিগুলো ট্রিপ দিয়েছে ৪ হাজার ৬১৬টি। এতে আয় হয়েছে ১১ কোটি ২০ লাখ ৯৫ হাজার ২৮৯ টাকা। তবে এই মাসের তেল খরচ তাৎক্ষণিক তিনি জানাতে পারেননি।


তেলে হিসাব অডিট হয়ে তার কাছে কিছুটা বিলম্ব হয় বলে তিনি জানান।তবে তেলের দায়িত্বে থাকা বিআইডব্লিউটিসির নির্বাহী প্রকৌশলী তথ্য না দিয়ে নানা কৌশলে এড়িয়ে যান। তেল চুরি সিন্ডিকেটের সঙ্গে তাঁর সম্পৃক্ততার আঙ্গুল তুলছেন অনেকে। তবে  নির্বাহী প্রকৌশলী অভিযোগ অস্বীকার করেছেন।অন্যদিকে ফেরির ফগ লাইট কেনায় অনিয়মের অভিযোগে বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) পরিচালক ও জিএমসহ ৭ কর্মকর্তার বিরুদ্ধে মামলা করেছে দুর্নীতি দমন কমিশন (দুদক)।বুধবার (৫ জানুয়ারি) দুদকের ঢাকা সমন্বিত জেলা কার্যালয়-১ এ মামলাটি দায়ের করা হয়।


ঘন কুয়াশায় ফেরি চলাচল স্বাভাবিক রাখতে ১০ কিলোমিটার দেখা যায় এমন উচ্চ ক্ষমতাসম্পন্ন ফগ অ্যান্ড সার্চ লাইট ক্রয়ে ৫ কোটি ৬৫ লাখ টাকা আত্মসাতের অভিযোগে  মামলা করেন দুদকের সহকারী পরিচালক মো. সাইদুজ্জামান। দুদকের উপ-পরিচালক (জনসংযোগ) মুহাম্মদ আরিফ সাদেক মামলার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন।মামলার আসামিরা হলেন বাংলাদেশ অভ্যন্তরীণ নৌ-পরিবহন করপোরেশনের (বিআইডব্লিউটিসি) সাবেক চেয়ারম্যান ও পরিচালক (কারিগরি ) ড . জ্ঞান রঞ্জন শীল, মহাব্যবস্থাপক বা জিএম ক্যাপ্টেন শওকত সরদারমো. নুরুল হুদা, নৌ-পরিবহন মন্ত্রণালয়ের ডেপুটি সেক্রেটারি পঙ্কজ কুমার পাল, বাংলাদেশ চিনি ও খাদ্য শিল্প করপোরেশনের (বিএসএফআইসি) সাবেক মহাব্যবস্থাপক ( মেকানিক্যাল ) ইঞ্জিনিয়ার মো. রহমত উল্লা, বাংলাদেশ জুট মিলস করপোরেশনের (বিজেএমসি) মেকানিক্যাল বিভাগের ম্যানেজার ইঞ্জিনিয়ার মোহাম্মদ নাসির উদ্দিন এবং মেসার্স জনী করপোরেশনের মালিক ওমর আলী।



আরও খবর