Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা

সাকিব আল হাসান ব্যাংক মালিক হচ্ছেন

প্রকাশিত:Wednesday ১৫ December ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৪৭জন দেখেছেন
Image

স্পোর্টস ডেস্ক: ক্রিকেটের পাশাপাশি দীর্ঘদিন ধরে বিভিন্ন ব্যবসা-বাণিজ্যের সঙ্গে যুক্ত আছেন টাইগার অলরাউন্ডার সাকিব আল হাসান। রেস্টুরেন্ট থেকে শুরু করে ব্রোকারেজ হাউজ ও স্বর্ণ আমদানি প্রতিষ্ঠানসহ কয়েকটি ব্যবসায় নাম লিখিয়েছিলেন তিনি। এবার করপোরেট জগতে সবচেয়ে বড় প্রতিষ্ঠান ব্যাংক খাতেও যুক্ত হচ্ছেন ক্রিকেট বিশ্বের অন্যতম সেরা এই অলরাউন্ডার, তথ্যটি প্রকাশ করেছে সংবাদমাধ্যম দৈনিক বণিক বার্তা।

প্রকাশিত তথ্যানুযায়ী, বাংলাদেশ ব্যাংকের লাইসেন্স প্রাপ্তির অপেক্ষায় থাকা পিপলস ব্যাংকের দুটি পরিচালক পদের মালিকানা যাচ্ছে সাকিবের হাতে। এখানে সাকিব একই নন, তার মা শিরিন আক্তারও হচ্ছেন ব্যাংকটির পরিচালক। এ-সংক্রান্ত নথিপত্র বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছে পাঠিয়েছে পিপলস ব্যাংক কর্তৃপক্ষ।

পিপলস ব্যাংকের প্রধান উদ্যোক্তা এমএ কাশেম বিষয়টি নিশ্চিত করে বলেন, পিপলস ব্যাংকের মালিকানায় সাকিব আল হাসান ও তার মা যুক্ত হচ্ছেন। এরই মধ্যে আমরা তাদের ফাইল বাংলাদেশ ব্যাংকে জমা দিয়েছি। সাকিবের মতো একজন তারকাকে উদ্যোক্তা হিসেবে পাওয়া আমাদের জন্য গৌরবের। এখনই আমরা এ বিষয়ে বিস্তারিত কিছু বলতে চাই না। পিপলস ব্যাংকের লাইসেন্সের জন্য প্রয়োজনীয় মূলধন আমরা সংগ্রহ করতে পেরেছি। আশা করছি, ডিসেম্বরের মধ্যেই বাংলাদেশ ব্যাংকের কাছ থেকে আমরা চূড়ান্ত লাইসেন্স পাব।

সংশ্লিষ্ট সূত্র জানায়, দেশের সব ব্যাংকের মূলধন ৫০০ কোটি টাকায় উন্নীত করতে নির্দেশনা রয়েছে কেন্দ্রীয় ব্যাংকের। সে হিসেবে নতুন ব্যাংকের লাইসেন্স পেতে হলে সমপরিমাণ অর্থ মূলধন হিসেবে জমা রাখতে হবে। উদ্যোক্তা হিসেবে ব্যাংকের পরিচালনা পর্ষদের সদস্য হতে হলে প্রয়োজন হয় সর্বনিম্ন ২ শতাংশ শেয়ার ধারণের। সে হিসেবে পিপলস ব্যাংকের পরিচালক পদের জন্য সর্বনিম্ন ১০ কোটি টাকা মূলধন জোগান দিতে হবে সাকিব আল হাসানকে। তবে ব্যাংকটির মালিকানায় আসতে তিনি ২৫ কোটি টাকারও বেশি মূলধন জোগান দিচ্ছেন বলে সংশ্লিষ্ট সূত্রে জানা গেছে।

ব্যবসায়ী হিসেবে সাকিব আল হাসানের হাতেখড়ি রেস্টুরেন্ট ব্যবসায় বিনিয়োগের মাধ্যমে। এরপর দ্রুত নিজের ব্যবসার বিস্তৃতি ঘটিয়েছেন তিনি। শেয়ারবাজার, স্বর্ণ আমদানি ও বিপণন, বিদ্যুৎকেন্দ্র, প্রসাধনী, ইভেন্ট ম্যানেজমেন্ট, ট্রাভেল এজেন্সি, হোটেল, কাঁকড়া ও কুঁচের খামারসহ বিভিন্ন ব্যবসায় বিনিয়োগ রয়েছে তার। এছাড়া দেশের বাইরে যুক্তরাষ্ট্র, সৌদি আরবসহ বিভিন্ন দেশে বড় অংকের বিনিয়োগ করেছেন তিনি।


আরও খবর



নীতি দুর্নীতি--এ দায়ভার কার,নেতা- নেত্রীর না জনতার?

প্রকাশিত:Tuesday ১৮ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১০৬জন দেখেছেন
Image


মোঃ আব্দুল হান্নানঃ

নির্বাচন আসে,নির্বাচন চলে যায়।সাধারণ জনগণ তাদের মুল্যবান ভোটও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে তাদের পছন্দের নেতানেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে। তেমনি সারা দেশের ন্যায় ২০২১ সালের ১১ অক্টোবর ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার বিভিন্ন ইউনিয়নে অনুষ্টিত হয় ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচন।নির্বাচনে চেয়ারম্যান,মেম্ভার ও সংরক্ষিত মহিলা মেম্ভার পদে অনেকেই প্রতিদ্বন্ধিতা করে, কেউ বিজয়ী আবার কেউ পরাজিত হয়েছে।নির্বাচনে জনগণ তাদের অনেক মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত দিয়ে বিভিন্ন ইউনিয়নে  ভাল মানুষকে আবার কোন কোন ইউনিয়নে  বির্তকিত মাদক ব্যবসায়ী আর অযোগ্য লোককেও  মনোনীত করেছেন। আবার কোন কোন ইউনিয়নে ভাল মানুষকে ও রায় না দিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।সবই জনগণের ইচ্ছা। 


তারই বাস্তব উদাহরণ স্বরুপ যেমন বিগত নির্বাচনে ফান্দাউক ইউনিয়ন পরিষদ থেকে ইউপি সদস্য পদে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন ফান্দাউক গ্রামের কুখ্যাত মাদক ও ইয়াবা ব্যবসায়ী মৃত আরব আলীর ছেলে মোঃ জাকারিয়া জাকির।যার ভয়াল মাদক ব্যবসার ছোবলে ধ্বংস হচ্ছে এলাকার যুব সমাজ।যার ভয়ে মুখ খোলে কেউ কথা বলার সাহস পায়না।২০১৮ সালের ২২ মার্চে যার বাড়িতে জধন এর লোকজন অভিযান চালিয়ে প্রচুর পরিমান ইয়াবা,ফেনসিডিল,ল্যাপটপ,সিসি ক্যামেরা,বিদেশী টর্চলাইট,কয়েকটি পাসর্পোট সহ আরো বিভিন্ন দ্রব্য ও মাদক ব্যবসার প্রায় নগদ ৩ লক্ষ টাকা উদ্বার করে।এসময় জধন এর উপস্থিতি বুঝতে পেরে জাকির সুকৌশলে পালিয়ে যেতে সক্ষম হয়।পরে জধন -৯ ইসলামপুর সিলেটের এস আই আল ইমরান বাদি হয়ে জাকারিয়া জাকিরকে আসামী করে নাসিরনগর থানায় মাদক দ্রব্য নিয়ন্ত্রন আইনে  থানার মামলা নং ২৫ তারিখ ২২/৩/২০১৮ রুজু করে।মামলার পর থেকে পালিয়ে যায় জাকির।অনেক দিন পালিয়ে থাকার পর আদালতে হাজিরা দিতে গেলে আদালত জাকিরের জামিন না মঞ্জুর করে জেলহাজতে প্রেরনের নির্দেশ দেন।বেশ কিছু দিন জেলবাস শেষে জামিনে মুক্তি নিয়ে এলাকায় এসে ব্যবসা য়ীক ধরন পাল্টিয়ে সম্পুর্ন নতুন নিয়মে আবারো শুরু করে দেন। বিগত ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে ইউপি সদস্য পদে প্রতিদ্বন্ধিতা করলে ফান্দাউক ইউনিয়নের বুদ্বিবান  সচেতন সাধারণ জনগণ  জাকিরকে তাদের মুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত রায় দিয়ে ইউপি সদস্য নির্বাচিত করে তাদের পক্ষে কথা বলতে ও কাজ করতে ইউনিয়ন পরিষদে পাটিয়ে দেয়।

অপরদিকে জনগনের অনুরোধে বুড়িশ্বর ইউনিয়ন পরিষদের সংরক্ষিত ১,২,৩ মহিলা আসন থেকে নির্বাচনে অংশ গ্রহন করেন আশুরাইর গ্রামের সিনিয়র সাংবাদিক পত্নী শিক্ষিত, নম্র, ভদ্র সেলিনা বেগম।
সেলিনা দীর্ঘদিন যাবৎ তার নিজ এলাকার নিরক্ষর বয়স্ক ও শিশুদের মাঝে শিক্ষার আলো ছড়ি যাচ্ছেন।

মানুষের বিপদে আপদে সব সময় পাশে রয়েছেন।সেলিনার স্বামী একজন স্বনামধন্য সাংবাদিক ও মানবাধিকার কর্মী।সে সারা জীবণ মানুষের বিপদে আপদে পাশে থেকে মানুষকে নানা ভাবে সহযোগিতা করে আসছেন।যেমন অন্ধকারাচ্ছন্ন রাস্তায় স্ট্রিট লাইটের মাধ্যমে বিদ্যুতায়িত করা,রাস্তাঘাট সংস্কার করা,মসজিদে অনুধান প্রদান, রোগীর চিকিৎসা সেবা এগিয়ে যাওয়া,বিভিন্ন দুর্যোগে খাবার নিয়ে সাধারণ মানুষের পাশে দাড়ানো,সমাজের অবহেলিত বঞ্চিত,দুস্থ দরিদ্র অসহায মানুষের মাঝে বিধবা ভাতা,বয়স্কভাতা,প্রতিবন্ধীভাতা গর্ভবতীভাতা, শীতে অসহায় মানুষের পাশে কম্বল নিয়ে হাজির হওয়া সহ আরো নানা ধরনের কাজে সহযোগিতা করা যার কাজ। সেই সাংবাদিক পত্নী সেলিনা বেগম নির্বচনে প্রতিদন্ধীতা করলে জনগণ সেলিনাকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও সুচিন্তিত মতামত  দিয়ে পরিষদে না পাটিয়ে একদম সোঁজা ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছে।

তেমনি ভাবে শুধু ফান্দাউক আর বুড়িশ্বর নয় অনেক ইউনিয়ন পরিষদেই জাকিরের মত লোকজনকে জনগণ ভোট দিয়ে জনপ্রতিনিধি নির্বাচিত করে পরিষদে পাঠিয়েছেন,আবার অনেক পরিষদেই লোকজন সেলিনার মত প্রার্থীকে তাদের মহামুল্যবান ভোট ও মতামত না দিয়ে বাড়িতে ফেল করিয়ে বাড়িতে পাটিয়ে দিয়েছেন।তাহলে এবাব আপনারাই বলেন,নেতা নেত্রী বা জনপ্রতিনিধি নির্বাচনে এ দায়ভার কার? জনতার উপর দিলাম এ বিচারের ভার।


আরও খবর



নাসিরনগরের প্রতারক লিটনের বিরোদ্ধে সেলিম চৌধুরীর ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাতের মামলা

প্রকাশিত:Sunday ২৩ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৮৪জন দেখেছেন
Image


পর্ব-৪

মোঃ আব্দুল হান্নানঃ 

ব্রাক্ষণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলা সদরের আব্দুল গাফ্ফারের ছেলে জধন এর হাতে গ্রেপ্তার হওয়া প্রতারক মোঃ লিটন মিয়া(৩৫) এর বিরোদ্ধে ১০ লক্ষ টাকা আত্মসাতের বিষয়ে আশুরাইল বেণীপাড়া গ্রামের আজব আলী চৌধুরীর ছেলে মোঃ সেলিম চৌধুরী বাদি হয়ে ব্রাক্ষণবাড়িয়ার বিজ্ঞ আদালতে এন,আই  এ্যাক্টের ১৩৮ বিধান মতে আরো একটি চেক জালিয়াতির মামলা করার খবর পাওয়া গেছে।


জানা গেছে বাদী সেলিম চৌধুরী একজন ইট,বালু,পাথর সালপ্লাইয়ার ও আসামী লিটন মিয়া একজন ঠিকাদার।ঠিকাদারী কাজের কথা বলে আসামী লিটন মিয়া বাদী সেলিম চৌধুরীর নিকট থেকে গত ২০১৯ সালের ৯ অক্টোবর নাসিরনগর সোনালী ব্যাংকের ১২১৩০ নম্ভর সঞ্চয়ী হিসাবের ৪২০৪৭৯৭ নম্ভরের একটি চেক প্রদান করে ১০ লক্ষ টাকা গ্রহন করে।ওই তারিখে বাদী সেলিম চৌধুরী নাসিরসগর সোনালী ব্যাংকে গিয়ে চেকটি নগদায়নের চেষ্টা করে।


কিন্তু লিটনের হিসাব নাম্ভারে কোন টাকা না থাকায় চেকটি ডিজনার হয়ে আসে।পরবর্তীতে বাদী সেলিম চৌধুরী আসামী প্রতারক লিটনের কাছ থেকে তার পাওনা টাকা আদায় করতে না পেরে ব্রাক্ষণবাড়িয়ার বিজ্ঞ আদালতে মামলা দায়ের করে।বর্তমানে মামলাটি আদালতে বিচারাধীন রয়েছে বলে বাদী সেলিম চৌধুরী জানিয়েছে।


-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



আইভীর জন্য মাঠে আ.লীগ ‘ভিন্ন কৌশলে’ তৈমূর

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১৩৯জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জ সিটি করপোরেশন (নাসিক) নির্বাচনে মেয়র পদে লড়ছেন সাতজন। তাদের মধ্যে আওয়ামী লীগের ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভী এবং স্বতন্ত্র তৈমূর আলম খন্দকারের মধ্যেই মূল প্রতিদ্বন্দ্বিতা হবে- বলছেন স্থানীয়রা। মাঠেও এ দুই প্রার্থীকে সমানতালে প্রচারে দেখা যাচ্ছে। এ দুই হেভিওয়েট প্রার্থীকে নিয়ে সিটিতে চলছে এখন আলাপ-আলোচনা। আগামীতে কে হচ্ছেন এই সিটির মেয়র, তারই অপেক্ষায় রয়েছেন নারায়ণগঞ্জের প্রায় সোয়া পাঁচ লাখ ভোটার।

নৌকার প্রার্থী ডা. আইভীকে জেতাতে মাঠে নেমেছেন আওয়ামী লীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতারা। তারা বিভিন্ন সময় নারায়ণগঞ্জে এসে সভাসমাবেশও করছেন। তাদের নির্দেশনায় নারায়ণগঞ্জ আওয়ামী লীগের নেতৃবৃন্দ কাজ করছেন। অন্যদিকে স্বতন্ত্র মেয়র পদপ্রার্থী তৈমূর আলমের প্রচার চলছে ভিন্ন কৌশলে। তার পাশে নেই বিএনপির কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ। উপরন্তু একের পর এক দলীয় পদবি থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে তাকে। নির্বাচনী প্রচারে দেখা যাচ্ছে না নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির শীর্ষ কোনো নেতাকেও। রাজনীতি পর্যবেক্ষকরা বলছেন, যেহেতু বিএনপি বলছে- এই সরকার ও নির্বাচন কমিশনের অধীনে তারা কোনো নির্বাচনে অংশ নেবে না। তাই ভিন্ন কৌশল অবলম্বন করে তৈমূর আলমকে সুযোগ করে দিয়েছেন তারা।

ডা. সেলিনা হায়াৎ আইভীর পক্ষে সবচেয়ে বড় সমাবেশটি হয়েছিল ২৪ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জের শেখ রাসেল পার্কে। বিজয় সমাবেশের ব্যানারে ওই সমাবেশটি হলেও অনেকেই বলছেন- এটি আইভীর নির্বাচনী সমাবেশ। বিশাল ওই জনসমাবেশে ছিলেন কেন্দ্রীয় নেতৃবৃন্দ এবং নারায়ণগঞ্জের আওয়ামী লীগ ও অঙ্গসংগঠনের নেতারা। তবে ছিলেন না নারায়ণগঞ্জ-৪ আসনের সাংসদ শামীম ওসমান। এর পর নারায়ণগঞ্জ জেলা ও মহানগর আওয়ামী লীগ কার্যালয়ে বেশ কয়েকটি সভা করেছেন কেন্দ্রীয় নেতারা। এ ছাড়া যুবলীগের কেন্দ্রীয় কমিটির নেতৃবৃন্দও নারায়ণগঞ্জে বিভিন্ন সময় আইভীর নির্বাচন ঘিরে সমাবেশ করেছে। সর্বশেষ কর্মী-সমাবেশ হয়েছে সিদ্ধিরগঞ্জে গত বুধবার।

এদিকে তৈমূরকে একের পর এক দলীয় পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হয়েছে। গত ২৬ ডিসেম্বর নারায়ণগঞ্জ জেলা বিএনপির আহ্বায়ক ও ৩ জানুয়ারি বিএনপি চেয়ারপারসনের উপদেষ্টা পদ থেকে তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। সবশেষ গত বুধবার জাতীয়তাবাদী আইনজীবী ফোরামের কেন্দ্রীয় কমিটির সদস্যপদ থেকেও তাকে অব্যাহতি দেওয়া হয়। ফোরামের দপ্তরের দায়িত্বে থাকা সদস্য আব্দুল্লাহ আল মাহবুব স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়। কেন একের পর এক পদ থেকে অব্যাহতি দেওয়া হচ্ছে, তা জানতে গতকাল তৈমূর আলমকে ফোন করা হলে তিনি রিসিভ করেননি।

গতকাল সিদ্ধিরগঞ্জ এবং বন্দরে প্রচার চালান আইভী ও তৈমূর। আইভী প্রচার চালান সিদ্ধিরগঞ্জের ১০নং ওয়ার্ডে এবং বন্দরের ২৫নং ওয়ার্ডে। অন্য তৈমূর সিদ্ধিরগঞ্জের ৭ ও ৮নং ওয়ার্ডে প্রচার চালান। ডা. আইভী তার অসমাপ্ত কাজগুলো সমাপ্ত করার জন্য সুযোগ চান। পক্ষান্তরে তৈমূর আলম বিভিন্ন পরিকল্পনার কথা জানান।


আরও খবর



সরাইলে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী'র সম্মেলন- ২০২২ অনু্ষ্ঠিত

সরাইলে উদীচী শিল্পী গোষ্ঠী'র সম্মেলন- ২০২২ অনু্ষ্ঠিত

প্রকাশিত:Sunday ০৯ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১৫জন দেখেছেন
Image


 সরাইল থেকে রুবেল মিয়াঃ

ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার সরাইলে নানা আয়োজনের মধ্য দিয়ে  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সম্মেলন ২০২২ অনু্ষ্ঠিত হয়েছে।


এ উপলক্ষে আজ শনিবার (৮ জানুয়ারি) সকাল ১১ টার দিকে  সরাইল উপজেলা পরিষদের ডাক বাংলো প্রাঙ্গণে পতাকা উত্তোলন, র‍্যালী ও  আলোচনা সভা অনু্ষ্ঠিত হয়েছে।


সংগঠনের পতাকা ও জাতীয় পতাকা  উত্তোলনের মাধ্যমে আনুষ্ঠানিকভাবে সম্মেলনের  উদ্বোধন করেন বিশিষ্ট লেখক, কবি ও সাহিত্যিক ওয়াহিদ রহমান।


সরাইল উপজেলা  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সাবেক সভাপতি মোঃ শরিফ উদ্দিন সভাপতিত্বে  ও উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র

সম্মেলন প্রস্তুতি কমটির সদস্য সচিব জহিরুল ইসলামের পরিচালনা উক্ত সম্মেলনে প্রধান হিসেবে বক্তব্য রাখেন ব্রাহ্মণবাড়িয়া-২ আসনের  সাবেক এমপি এড. জিয়াউল হক মৃধা।


অনু্ষ্ঠানে স্বাগত বক্তব্য রাখেন, সরাইল উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সম্মেলন প্রস্তুতি কমিটির আহ্বায়ক ও  সরাইল পাইলট বালিকা উচ্চ বিদ্যালয়ের সাবেক দুইবারের  অভিভাবক পরিচালনা কমিটির সদস্য মোহাম্মদ সুমন পারভেজ।


এতে বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সরাইল উপজেলার সাবেক সভাপতি  সঞ্জিব কুমার দেবনাথ, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী  সরাইল উপজেলার  সাবেক সভাপতি দেবদাস সিংহ রায়, সরাইল সরকারি কলেজ এর অধ্যক্ষ  মৃধা আহামুদুল কামাল, সরাইল মহিলা কলেজ এর  অধ্যক্ষ মোহাম্মদ বদর উদ্দিন,

সরাইল প্রেসক্লাবের সভাপতি মোঃ আইয়ুব খান, উপজেলা কৃষকলীগের সভাপতি মোঃ শফিকুর রহমান, শিক্ষক ফজলুল হক মৃধা,মোস্তাফিজুর রহমান প্রমূখ। 


পরে দুপুর ২ টার দিকে ২য় পর্বের  অধিবেশন সভায় উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী সরাইল উপজেলা শাখার পূর্বের কমিটি বিলুপ্ত ঘোষণা করা হয়।


এ সময়  মোজাম্মেল পাঠান কে সভাপতি ও মোহাম্মদ সুমন পারভেজ কে সাধারন সম্পাদক করে  উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী'র সরাইল উপজেলা শাখার ১৯ সদস্য  বিশিষ্ট  পূর্নাঙ্গ নতুন কমিটি ঘোষনা করা হয়।


সভায় দিক-নির্দেশনা মূলক বক্তব্য রাখেন, উদীচী শিল্পীগোষ্ঠী ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা সংসদের সাধারন সম্পাদক ফেরদৌস রহমান।


উল্লেখ্য,নতুন কমিটিতে ১৩ জনকে  উপদেষ্টা করা হয়েছে। এতে বীর মুক্তিযোদ্ধা এড. আব্দুর রাশেদ মিয়াকে প্রধান উপদেষ্টা  করা হয়েছে ।



আরও খবর



জাতীয় সংসদে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি

প্রকাশিত:Sunday ১৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ৮৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদক: জাতীয় সংসদের ষোড়শ অধিবেশন বসছে আজ রবিবার। মহামারীকালের অন্য অধিবেশনগুলোর মতো এবারও স্বাস্থ্যবিধি মেনে চলবে সংসদের বৈঠক। করোনা ভাইরাসের নতুন ধরন ওমিক্রনের সংক্রমণরোধে বাড়তি কড়াকড়ি আরোপ করা হবে। বিকাল ৪টায় সংসদের বৈঠক শুরু হবে। বছরের প্রথম এই অধিবেশনে ভাষণ দেবেন রাষ্ট্রপতি আবদুল হামিদ।

সংসদ অধিবেশনকে কেন্দ্র করে বরাবরের মতোই ঢাকা মহানগর পুলিশ (ডিএমপি) কয়েকটি বিষয়ে নিষেধাজ্ঞা আরোপ করেছে। গতকাল শনিবার ডিএমপি কমিশনার মোহা. শফিকুল ইসলাম স্বাক্ষরিত এক বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়, সংসদ এলাকায় শনিবার রাত ১২টা থেকে সকল প্রকার অস্ত্রশস্ত্র, বিস্ফোরক দ্রব্য, অন্যান্য ক্ষতিকারক ও দূষণীয় দ্রব্য বহন এবং যে কোনো প্রকার সমাবেশ, মিছিল, শোভাযাত্রা, বিক্ষোভ প্রদর্শন করা যাবে না।

সংসদ সচিবালয় সূত্রে জানা গেছে, অধিবেশন শুরুর দিন কোভিড-১৯ পরীক্ষায় নেগেটিভ সনদ পাওয়া সংসদ সদস্যরা অংশ নেবেন। এরপর থেকে তালিকা অনুযায়ী সাংসদরা যোগ দেবেন। এবার গণমাধ্যমকর্মীদের শুধু প্রথম দিন অধিবেশনের খবর সংগ্রহের জন্য সংসদ ভবনে ঢুকতে দেওয়া হবে। শুক্রবার তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষার জন্য নমুনা নেওয়া হয়।

আজ সংসদের বৈঠকের শুরুতে শোকপ্রস্তাব উত্থাপন ও সভাপতিমণ্ডলী মনোনয়নের পর স্পিকার রাষ্ট্রপতিকে ভাষণ দেওয়ার আহ্বান জানাবেন। রাষ্ট্রপতির ভাষণের পর অধিবেশন মুলতবি করার রেওয়াজ আছে। এর পর বৈঠক আবার বসলে রাষ্ট্রপতির ভাষণের ওপর ধন্যবাদ প্রস্তাব আনা হবে। অধিবেশনজুড়ে সেই প্রস্তাবের ওপর আলোচনা করবেন সংসদ সদস্যরা।

সরকারি দলের হুইপ ইকবালুর রহিম বলেন, এবার অধিবেশনে সংসদ কক্ষে বাড়তি কর্মচারীও রাখা হবে না।

ঠিক যে কয়জন দরকার, সেই অনুযায়ী রাখা হবে। সংসদ সদস্যরা যারাই বৈঠকে যোগ দেবেন তাদের করোনা ভাইরাস পরীক্ষা করাতে হবে। অধিবেশন ফেব্রুয়ারির মাঝামাঝি পর্যন্ত চলতে পারে।

জানা গেছে, এবার কয়েকটি আইন প্রণয়নের কাজ রয়েছে। নতুন চারটি খসড়া আইন সংসদে তোলার জন্য জমা পড়েছে। সেগুলো হলো- বেসরকারি মেডিক্যাল কলেজ ও ডেন্টাল কলেজ বিল, বাংলাদেশ পর্যটন করপোরেশন (অ্যামেন্ডমেন্ট) বিল, বাণিজ্য সংগঠন বিল এবং পেমেন্টস অ্যান্ড সেটেলমেন্টস বিল। এ ছাড়া আগের সাতটি বিল সংসদীয় কমিটিতে পরীক্ষাধীন রয়েছে।


আরও খবর