Logo
আজঃ Tuesday ২৮ June ২০২২
শিরোনাম
নাসিরনগরে বন্যার্তদের মাঝে ইসলামী ফ্রন্টের ত্রাণ সামগ্রী বিতরণ রাজধানীর মাতুয়াইলে পদ্মাসেতু উদ্ধোধন উপলক্ষে দোয়া মাহফিল রূপগঞ্জে ভূমি অফিসে চোর রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী নাসিরনগরে পুকুরের মালিকানা নিয়ে দু পক্ষের সংঘর্ষে মহিলাসহ আহত ৪ পদ্মা সেতু উদ্ভোধন উপলক্ষে শশী আক্তার শাহীনার নেতৃত্বে আনন্দ মিছিল করোনা শনাক্ত বেড়েছে, মৃত্যু ২ জনের র‍্যাব-১১ অভিমান চালিয়ে ৯৬ কেজি গাঁজা,১৩৪৬০ পিস ইয়াবাসহ ৬ মাদক বিক্রেতাকে গ্রেফতার করেছে বন্যাকবলিত ভাটি অঞ্চল পরিদর্শন করেন এমপি সংগ্রাম পদ্মা সেতু উদ্বোধনে রূপগঞ্জে আনন্দ উৎসব সভা ॥ শোভাযাত্রা

রূপগঞ্জের গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে থৈ থৈ পানি ॥ পাঠদান ব্যাহত ॥ উপস্থিতি কম

প্রকাশিত:Sunday ১৯ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৩৮৫জন দেখেছেন
Image

রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি ঃ মোঃ আবু কাওছার মিঠু 


নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার মুড়াপাড়া ইউনিয়নের গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের মাঠে থৈ থৈ পানি। সামান্য বৃষ্টিতে মাঠে হাঁটু পানি জমে থাকে। তাতে পাঠদান ব্যাহত হচ্ছে। শিক্ষার্থীদের উপস্থিতি কমে যাচ্ছে। 


সরেজমিনে গিয়ে দেখা গেছে, বিদ্যালয় মাঠে পানি থৈ থৈ করছে। শিক্ষার্থীরা প্যান্ট হাঁটু পর্যন্ত গুটিয়ে শ্রেণিকক্ষে যাওয়া আসা করছে। কারো কারো কাপড় ভিজে গেছে। বিদ্যালয়ের তিন দিকে বহুতল ভবন। পশ্চিম দিকে রূপসী-মুড়াপাড়া-কাঞ্চন সড়ক। তাতে পানি বের হওয়ার ব্যবস্থা নেই। নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় সারা বছরই মাঠে পানি জমে থাকে। মাঝে মধ্যেই মাঠে হাঁস সাঁতার কাটে। 


বিদ্যালয়ের প্রধান শিক্ষক নাসিমা সুলতানা বলেন, ১৯৭৩ সালে গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয় স্থাপিত হয়। বর্তমানে এখানে ২৭৪ জন শিক্ষার্থী লেখাপাড়া করছে। পাঠদানের জন্য রয়েছে ৬ জন শিক্ষক-শিক্ষিকা। ফলাফলও ভালো।  জলাবদ্ধতা দূর করতে  মাঠে মাটি ভরাট করা হলেও পানি নিস্কাশনের ব্যবস্থা না থাকায় জলাবদ্ধতা স্থায়ী রূপ নিচ্ছে।


তাতে বিদ্যালয়ের নিয়মিত শিক্ষার্থীদের সমাবেশ কিংবা অ্যাসেম্বলি হয় না । খেলাধুলাসহ স্বাভাবিক হাঁটা চলা করতে পারে না তারা। স্কুলের শ্রেণিকক্ষে প্রবেশ করে শিক্ষার্থীদের বন্দি হয়ে থাকতে হয়। জলাবদ্ধতার কারণে শিক্ষার্থীরা খেলাধুলা ও অ্যাসেম্বলী থেকে বঞ্চিত হচ্ছে। এছাড়া বিদ্যালয়ের ভবন অত্যান্ত ঝুঁকিপূর্ণ। ভবনের দেয়াল ও ছাদ থেকে পলেস্তেরা খসে পড়ছে। দুর্ঘটনার ভয়েও শিক্ষার্থীদের বিদ্যালয়ে উপস্থিতি দিনদিন কমে যাচ্ছে। 


বিদ্যালয়ের ২৩ শতাংশ জমির অধিকাংশই এখন বেদখল হয়ে গেছে। বিদ্যালয়ের নামে নামজারি করা ১২ শতাংশ জমিই এখন দখলে রয়েছে। এ বিদ্যালয়টি স্থানীয় ও সংসদ নির্বাচনী ভোট কেন্দ্র। সেই হিসেবে আগামী নির্বাচনের আগেই নতুন ভবন নির্মাণ করার প্রয়োজন বলে এলাকাবাসী মনে করছে। রূপগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসারকে ম্যানেজ করতে না পারায় দীর্ঘ দিনেও গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের নতুন ভবন নির্মাণে বরাদ্দ পাওয়া যাচ্ছে না। অগ্রিম অর্থ নিয়ে নতুন ভবন নির্মাণের তালিকা করা হয় বলে অভিযোগ রয়েছে। 


রূপগঞ্জ উপজেলা শিক্ষা অফিসার জায়েদা আখতার তাঁর বিরুদ্ধে আনীত অভিযোগ অস্বীকার করে বলেন, বিদ্যালয় ভবনটি পুরাতন এবং জরাজীর্ণ হওয়ায় কর্তৃপক্ষকে অবহিত করা হয়েছে। শিগগিরই নতুন ভবন নির্মাণ ও জলাবদ্ধতা নিরসনের প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। 


নারায়ণগঞ্জ জেলা প্রাথমিক শিক্ষা অফিসার অহীন্দ্র কুমার মন্ডল বলেন, সরেজমিন পরিদর্শন করে কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানানো হয়েছে। অগ্রাধীকার ভিত্তিতে গঙ্গানগর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ভবন নির্মাণ করা হবে। 


আরও খবর



শুদ্ধাচার পুরস্কারে ভূষিত প্রাথমিক অধিদপ্তরের মহাপরিচালক

প্রকাশিত:Monday ০৬ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

২০২১-২০২২ অর্থবছরে প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের দপ্তর প্রধানদের মধ্যে শুদ্ধাচার পুরস্কারের জন্য মনোনীত হয়েছেন প্রাথমিক শিক্ষা অধিদপ্তরের মহাপরিচালক আলমগীর মুহম্মদ মনসুরুল আলম। পুরস্কার হিসেবে তিনি সার্টিফিকেট, ক্রেস্ট এবং এক মাসের মূল বেতনের সমপরিমাণ অর্থ পাবেন।

সোমবার (৬ জুন) প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয় থেকে এ তথ্য জানানো হয়েছে।

এতে বলা হয়, মনসুরুল আলম ২০২০ সালের ২০ অক্টোবর প্রাথমকি শিক্ষা অধিদপ্তরে মহাপরিচালক হিসেবে যোগদান করেন। এর আগে তিনি প্রাথমিক ও গণশিক্ষা মন্ত্রণালয়ের অতিরিক্ত সচিব হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

প্রাথমিক শিক্ষার মান উন্নয়ন, চলতি বছরে সুষ্ঠু ও সুন্দরভাবে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়গুলোর সহকারী শিক্ষক নিয়োগ পরীক্ষা অনুষ্ঠান, জাতীয় শিক্ষানীতির আলোকে দুই বছর মেয়াদি প্রাক-প্রাথমিক শিক্ষা প্রচলন, প্রাথমিক শিক্ষার কারিকুলাম পরিমার্জন, প্রাথমিক শিক্ষকদের বেতন বৈষম্য নিরসন ও প্রশিক্ষণের মানোন্নয়নে গুরুত্বপূর্ণ ভূমিকা পালন করেন মনসুরুল আলম।

এ ছাড়া তিনি বিভিন্ন মন্ত্রণালয় ও বিভাগে গুরুত্বপূর্ণ দায়িত্ব পালন করেন। পেশাগত প্রয়োজনে তিনি বিশ্বের নানা দেশে প্রশিক্ষণ ও কনফারেন্সে যোগদান করেন।

১৯৮৯ সালের ২০ ডিসেম্বর বিসিএস (প্রশাসন) ক্যাডারে যোগ দেওয়া এ কর্মকর্তা ১৯৬৩ সালে চট্টগ্রাম জেলার পটিয়ায় জন্ম নেন। ব্যক্তি জীবনে তিনি বিবাহিত। তিনি দুই মেয়ে ও এক ছেলে সন্তানের জনক। আগামী ১৪ জুন তার সরকারি চাকরি থেকে অবসরে যাওয়ার কথা রয়েছে।


আরও খবর



বাংলাদেশ-উইন্ডিজ সিরিজ টিভিতে দেখানো নিয়ে রাজ্যের জটিলতা!

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Monday ২৭ June ২০২২ | ৬৮জন দেখেছেন
Image

ঘরের মাঠে শ্রীলঙ্কার বিপক্ষে হতাশাময় টেস্ট সিরিজের পর এবার ওয়েস্ট ইন্ডিজের প্রতিকূল কন্ডিশনে কঠিন চ্যালেঞ্জের সামনে বাংলাদেশ ক্রিকেট দল। অ্যান্টিগা ও সেইন্ট লুসিয়া টেস্টে কী পরিণতি হবে সাকিব, তামিম, মুমিনুলদের? একটা সংশয়, খানিক শঙ্কাও আছে।

তারপরও প্রিয় জাতীয় দলের সফর বলে কথা। খেলা দেখার আগ্রহে কমতি নেই একটুও। দীর্ঘ ভৌগলিক দূরত্বের কারণে সময়ের ফারাকটাও অনেক বেশি। ক্যারিবীয় দ্বীপপুঞ্জে খেলা মানেই শুরু হতে বাংলাদেশ সময় রাত। তাই বাংলাদেশের ভক্ত-সর্মকদের বড় অংশ রাত জেগে খেলার দেখার মানসিক প্রস্তুতি নিয়েও ফেলেছেন।

কিন্তু টিভিতে খেলা দেখতে উন্মুখ হয়ে থাকা উৎসাহী ক্রিকেট অনুরাগীদের জন্য রয়েছে দুঃসংবাদ! বাংলাদেশ ও ওয়েস্ট ইন্ডিজের মধ্যকার টেস্ট, ওয়ানডে ও টি-টোয়েন্টি সিরিজ বাংলাদেশের দর্শকরা ঘরে বসে টেলিভিশনে দেখতে পাবেন কি না তা এখনও নিশ্চিত নয়।

আসন্ন সিরিজের টিভি স্বত্ব কিনেছে টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিং (টিএসএম)। সাম্প্রতিক সময়ে এই টিএসএমের কেনা স্বত্ব থেকে ‘ফিড’ নিয়েই কনসর্টিয়ামের মতো করে দেশের টিভিতে প্রচার করে আসছে। আর সে ফিড থেকেই টি স্পোর্টস ও গাজী টিভিতে খেলা সম্প্রচার হয়ে আসছে।

তবে একদম ভেতরের খবর, সম্প্রতি টোটাল স্পোর্টস মার্কেটিং টিএসএমের সঙ্গে ঐ কনসর্টিয়ামের ব্যবসায়িক দ্বন্দ্ব তৈরি হয়েছে। সেই দ্বন্দ্বের কারণে কনসর্টিয়াম নীতিগতভাবে টিএসএমের কাছ থেকে ফিড নিতে আগ্রহী নয়। যেহেতু ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড থেকে এ সিরিজের টিভি প্রচারস্বত্ব টিএসএমের কেনা, তাই তাদের কাছ থেকে ফিড না নিলে বাংলাদেশে খেলা টিভিতে দেখানো যাবে কি না তা নিয়েই তৈরি হয়েছে বিরাট জটিলতা।

টি স্পোর্টস ও গাজী টিভির সঙ্গে টিএসএমের দ্বন্দ্বের অবসান ঘটলে অবশ্য ভিন্ন কথা। নয়তো এবার বাংলাদেশে বসে টাইগারদের খেলা দেখতে পাওয়ার সম্ভাবনা খুব কম। বর্তমান অবস্থায় বাংলাদেশের মাটিতে বসে টাইগারদের ওয়েস্ট ইন্ডিজ সফরের খেলা টিভিতে দেখানোর কি কোনো উপায় নেই?

আশার কথা হলো, একটি পথ ঠিকই খোলা আছে। এখন বাংলাদেশের কোনো টিভি চ্যানেল সরাসরি ওয়েস্ট ইন্ডিজ ক্রিকেট বোর্ড থেকে নিজেরা প্রচারস্বত্ব কিনে নিজেদের দেখাতে চাইলে দেখাতে পারবে। সেক্ষেত্রে টিএসএমের কাছ থেকে ফিড নিতে হবে না তাদের।

একটি নির্ভরযোগ্য সূত্র জানিয়েছে, দেশের টি স্পোর্টস নিজেরা ক্যারিবীয় বোর্ডের কাছ থেকে টিভি প্রচারস্বত্ব কিনে দেশে খেলা দেখাতে আগ্রহী। কারণ তারা বাংলাদেশ-জিম্বাবুয়ে ও বাংলাদেশ-আফগানিস্তান সিরিজও নিজেদের খরচে টিভিতে দেখিয়েছে। কাজেই তারা নিজেদের সুনাম বজায় রাখতেই টাইগারদের ওয়েস্ট ইন্ডিজ মিশনও টিভিতে দেখাতে উৎসাহী বলে জানা গেছে।

অবশ্য সেখানেও আছে বাঁধা। কনসর্টিয়ামের বাকিরা তাতে নাখোশ। তারা পরোক্ষ বাঁধা হয়ে দাড়িয়েছে। কনসর্টিয়ামের ৭ সদস্যের কাউকে একা প্রচার করতে দিতে ইচ্ছুক নয় কনসর্টিয়ামের বাকি সদস্যরা। যে কারণে পুরো বিষয়টি জটিল থেকে জটিলতর আকার ধারণ করেছে।

এখন সেই অনিশ্চয়তার জট না খুললে বাংলাদেশের ভক্ত ও সমর্থকদের পক্ষে টাইগারদের ক্যারিবীয় মিশন দেখা কঠিনই হবে।


আরও খবর



মাত্র ৬৮ মিনিটেই কোকোকে হারিয়ে ফরাসি ওপেন চ্যাম্পিয়ন শিয়াটেক

প্রকাশিত:Sunday ০৫ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৬৯জন দেখেছেন
Image

তিনি কেন এখন বিশ্বের এক নম্বর নারী টেনিস তারকা, সেটা বুঝিয়ে দিলেন ইগা শিয়াটেক। মাত্র ১৮ বছর বয়সী আমেরিকান তারকা কোকো গফকে ৬৮ মিনিটের লড়াইয়ে সরাসরি ৬-১, ৬-৩ সেটে হারিয়ে দ্বিতীয়বারের মত ফরাসি ওপেনের শিরোপা জিতে নেন পোলিশ তারকা শিয়াটেক।

ফাইনালের পর শিয়াটেক যখন পুরস্কার নিতে আসেন, তখন তার মাথায় পরা ক্যাপে ইউক্রেনের পতাকার রঙের একটি ফিতে আটকানো ছিল। এটা দিয়ে তিনি যে বার্তা দিতে চাইলেন তা স্পষ্ট। ফরাসি ওপেন জিতে যুদ্ধ বিধ্বস্ত ইউক্রেনের পাশে থাকার কথাই জানিয়ে তিলেন ইগা শিয়াটেক।

দ্বিতীয় বার ফরাসি ওপেন জেতার পথে মাত্র একটি সেট হেরেছিলেন ২১ বছর বয়সী পোল্যান্ডের এই টেনিস তারকা। ম্যাচ জয়ের পর শিয়াটেক যখন উদযাপনে ব্যস্ত, তখন চোখের পানিতে কষ্ট লুকানোর চেষ্টা করছিলেন জীবনে প্রথম কোনো গ্র্যান্ড স্লামের ফাইনাল খেলা কোকো গফ। দৃশ্য দেখে শিয়াটেন নিজে গিয়ে কোকো গফকে জড়িয়ে ধরে স্বান্তনা দেন, শুভেচ্ছা জানান।

coco gouph

পুরো স্টেডিয়াম এ সময় তার জন্য উঠে দাঁড়িয়ে হাততালি দিচ্ছিল। ওই সময় শিয়াটেক বলেন, ‘আমি ইউক্রেন সম্পর্কে কিছু বলতে চাই। এখনও যুদ্ধ চলছে, তোমরা শক্ত হও। যখন থেকে যুদ্ধ শুরু হয়েছে, ভাবছি পরের প্রতিযোগিতা খেলার সময় অবস্থার উন্নতি হবে। এখনও সেই আশা করছি।’

শুধুমাত্র ফরাসি ওপেন শিরোপা জেতাই নয়, টানা ৩৫ ম্যাচ অপরাজিত থাকার রেকর্ডও গড়লেন শিয়াটেক। ভেনাস উইলিয়ামস টানা ৩৫ ম্যাচ জয়ের রেকর্ড গড়েছিলেন ২০০০ সালে।

এবারের উইম্বলডনে রাশিয়া এবং বেলারুশের প্রতিযোগীদের খেলতে দেওয়া হবে না বলে জানিয়ে দেওয়া হয়েছে এরই মধ্যে। যদিও ফরাসি ওপেনে তারা খেলতে পেরেছেন। যদিও রাশিয়া বা বেলারুশের পতাকা ব্যবহার করতে পারেননি তারা।

দু’বছর আগেও ফরাসি ওপেন জিতেছিলেন শিয়াটেক। করোনার প্রভাব বেশি থাকায় সেবার পুরস্কার নিতে হয়েছিল মাস্ক পরে। পাশে থাকার জন্য পরিবার এবং সমর্থকদের ধন্যবাদ জানান শিয়াটেক। অন্যদিকে কেঁদে বুক ভাসানো ১৮ বছর বয়সী কোকো গফ জানিয়ে দিলেন, পড়াশোনার দিকেই এখন মন দিতে চান তিনি।


আরও খবর



খুলনায় আসামি ছিনিয়ে নিতে পুলিশের ওপর হামলা

প্রকাশিত:Tuesday ২৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ২৪জন দেখেছেন
Image

খুলনায় গ্রেফতার ছেলেকে ছাড়িয়ে নিতে পুলিশের ওপর হামলা চালিয়েছেন বাবা। এতে তিন পুলিশ সদস্য আহত হয়েছেন।

সোমবার রাত সাড়ে ১০টার দিকে নগরীর পূর্ব বানিয়াখামার এলাকায় এই ঘটনা ঘটে।

আহতরা হলেন খানজাহান আলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহারিয়ার হাসান, সাব ইন্সপেক্টর রাকিবুল ইসলাম রাকিব ও কনস্টেবল মাহাবুব ইসলাম।

ঘটনায় জড়িত থাকার অভিযোগে দুজনকে গ্রেপ্তার করেছে পুলিশ।

খানজাহান আলী থানার পুলিশ পরিদর্শক (তদন্ত) শাহরিয়ার হাসান জানান, সোমবার বিকেলে নগরীর পথের বাজার চেকপোস্ট থেকে খায়রুল (৩০) নামে এক যুবককে ৫০০ গ্রাম গান পাউডারসহ গ্রেফতার করা হয়।

পরে রাত ৯টার দিকে খায়রুলের দেওয়া তথ্য অনুযায়ী নগরীর পূর্ব বানিয়াখামার বড় মসজিদের মোড়ে অভিযান চালানো হয়। এসময় গ্রেফতার করা হয় ইসমাইল হোসাইন ও ইব্রাহিম হোসাইন নামে দুজনকে। তখন খায়রুলের বাবা লোকজন নিয়ে পুলিশের ওপর হামলা করেন।

সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাসান আল মামুন বলেন, খানজাহান আলী থানা পুলিশের একটি টিম অভিযান চালায়। সেখানে তাদের সঙ্গে আসামির আত্মীয়-স্বজনের ঝামেলা হয়েছে।


আরও খবর



ছেলেকে দেখতে না দেয়ায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে কাঞ্চনের মামলা

প্রকাশিত:Wednesday ০৮ June ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৮ June ২০২২ | ৭৩জন দেখেছেন
Image

কলকাতার অভিনেতা ও বিধানসভার তৃণমূলের সদস্য কাঞ্চন মল্লিক। ছেলের সঙ্গে দেখা না করতে দেওয়ায় স্ত্রীর বিরুদ্ধে আদালত অবমাননার মামলা করলেন তিনি। স্ত্রী পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায়ের সঙ্গে বর্তমানে আদালতে বিচ্ছেদের মামলা চলছে কাঞ্চনের।

মামলার শুনানি হবে ২৮ জুন। তার আগেই নতুন আরও এক মামলা ঠুকে দিলেন কাঞ্চন।

ভারতীয় গণমাধ্যম আনন্দবাজার অনলাইনকে কাঞ্চন বলেন, ‘অনেক দিন ধরেই বিচ্ছেদের মামলা চলছে। সচরাচর আমি আদালতে যাই না। আজও যাইনি। আমার উকিল আমার হয়ে সব কথা বলেছেন। ছেলেকে দেখতে পাই না। তাই বাবা হিসেবে কর্তব্যপালনে আদালতের দ্বারস্থ হয়েছি।’

এই প্রসঙ্গে জানতে পিঙ্কি বন্দ্যোপাধ্যায় সঙ্গে আনন্দবাজার অনলাইন যোগাযোগ করলে বলেন, ‘ছেলেকে কাঞ্চনের সঙ্গে দেখা করতে দিচ্ছি না, বিষয়টা একেবারেই তেমন নয়। এর বেশি এই মুহূর্তে আমি কিছু বলতেও পারব না, যা বলার দুপক্ষের উকিল বলবেন।’

তিনি আরও বলেন, ‘সকলে যাতে শান্তিতে থাকে, সেই লক্ষ্যেই বিবাহবিচ্ছেদের সিদ্ধান্ত নিয়েছি আমরা। ছেলে আমার কাছেই থাকে। লেখাপড়ায়ও খুব ভালো। ছবি, ধারাবাহিকের কাজ করেও ছেলেকে সময় দিই। নিজেই পড়াই।’

টালিউডে বেশ কিছুদিন ধরেই কাঞ্চন মল্লিক ও শ্রীময়ী চট্টরাজের সম্পর্ক নিয়ে নানা গুঞ্জন রয়েছে। এ নিয়ে কাঞ্চন মল্লিকের সঙ্গে স্ত্রী পিংকি ব্যানার্জীর বিচ্ছেদের মামলা চলছে।


আরও খবর