Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

রূপগঞ্জে ওয়ার্ড উপ নির্বাচনে প্রার্থীদের মাঝে প্রতীক বরাদ্দ

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ মে ২০২৩ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৩০০জন দেখেছেন

Image

মোঃআবু কাওছার মিঠু রূপগঞ্জ (নারায়ণগঞ্জ) প্রতিনিধি: 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার কায়েতপাড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের আসন্ন উপ-নির্বাচনে ১৬ প্রার্থীর মাঝে প্রতীক বরাদ্দ দেওয়া হয়েছে ।

 গতকাল ২৮ মে রবিবার উপজেলা নির্বাচন কর্যালয়ে  উপজেলা নির্বাচন অফিসার তাজাল্লি ইসলাম প্রার্থীদের মাঝে  প্রতীক তুলে দেন। প্রার্থীদের মাঝে সমসের আলী খান পেয়েছেন হাতি,  জয়নাল আবেদীন পেয়েছে লাটিম, মোঃ শাহাবুদ্দিন ভ্যান গাড়ী,  মোঃ রবিন মিয়া হাঁস মার্কা, ইব্রাহিম মোল্লা ঘুড়ি, মোঃ আনোয়ার হোসেন ক্রিকেট বেট, মোঃ খলিলুর রহমান পানির পাম্প, মোঃ নূর আলম টিউবয়েল, জহিরুল ইসলাম আপেল, আবিদ হাসান চাঁন মিয়া ফুটবল, মোঃ ইব্রাহিম মোরগ, শেখ মোঃ জাহাঙ্গীর আলম কুমির, মোঃ নুরুল ইসলাম বাস, শফিকুল ইসলাম তালা, মোঃ আল আমিন টর্চ লাইট ও মোঃ বাবুল মিয়া বৈদুতিক পাখা মার্কা প্রতীক পেয়েছেন। এসময় রূপগঞ্জ উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন কর্মকর্তা আরিফুল হাসান, রূপগঞ্জ থানা পুলিশ ও সাংবাদিকবৃন্দ উপস্থিত ছিলেন।


আগামী ১২ জুন সকাল ৮টা থেকে বিকাল ৪ টা পর্যন্ত ইভিএম এর মাধ্যমে ভোটগ্রহণ হবে। উল্লেখ্য, কায়েতপাড়া ইউনিয়নের ৯নং ওয়ার্ডের ইউপি সদস্য মোঃ বজলুর রহমান মৃত্যু বরণ করার কারনে এ ওয়ার্ডটির সদস্য পদ শূন্য হয়। 

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



সৈয়দপুরে নাবালিকার শ্লীলতাহানির অভিযোগে যুবক আটক

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১২জন দেখেছেন

Image

জহুরুল ইসলাম খোকন সৈয়দপুর( নীলফামারী) প্রতিনিধি:সৈয়দপুরের উত্তরা আবাসন প্রকল্পে এক নাবালিকার শ্লীলতাহানির অভিযোগে আকতার হোসেনকে (৬৮) আটক করে পুলিশে দিয়েছে এলাকাবাসী। পরে গতকাল সোমবার আটককৃতকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে থানায় নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা হয়েছে।

মামলা সূত্রে জানা যায়, রোববার দুপুরে (২৩ জুন) উত্তরা আবাসন প্রকল্পের ওয়াসিরের নাবালিকা কন্যা ও উত্তরা আবাসন সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়ের ৫ম শ্রেণির ছাত্রী পার্শ্ববর্তী একটি হোটেলে পরেটা আনতে যায়। ওইসময় আটককৃত যুবক আকতার হোসেন ওই শিশুটিকে ফুসলিয়ে আবাসনের একটি ঘরে নিয়ে গিয়ে  শ্লীলতাহানি ঘটায়। মেয়েটি চিৎকার করলে এলাকার লোকজন জড়ো হয় এবং জরুরী সেবা ৯৯৯ নম্বরে ফোন দেয়। পরে থানা পুলিশ দ্রুত ঘটনাস্থলে পৌছে যুবকটিকে আটক করে স্হানীয় থানায় নিয়ে যায়। এরপর ২৪ জুন আসামিকে জেল হাজতে পাঠানো হয়।

সৈয়দপুর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) শাহা আলম সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, আটক ব্যক্তিকে জেল হাজতে পাঠানো হয়েছে। এ ব্যাপারে নারী ও শিশু নির্যাতন আইনে একটি মামলা হয়েছে। মামলা নং-২৪ তারিখ-২৩/০৬/২৪।


আরও খবর



কুষ্টিয়া লালন ভক্তের বসতভিটা উচ্ছেদের প্রতিবাদে স্মারকলিপি ডিসি ও এসপি’কে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ০২ জুলাই 2০২4 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১১৭জন দেখেছেন

Image
কুষ্টিয়া জেলা প্রতিনিধিঃ২ জুলাই ২০২৪ইং মঙ্গলবার সকালে কুষ্টিয়ার লালন শাহ মাজার গেটে লালন ভক্ত চায়না বেগমের বাড়িঘর ভাঙচুর ও উচ্ছেদের প্রতিবাদে মানববন্ধন করেছে ভুক্তভোগী চায়না বেগম ও লালন ভক্তরা । এই সময় তিনি সু- বিচারের দাবি জানিয়ে জেলা প্রশাসকের কার্যালয় ও পুলিশ সুপারের কার্যালয়ে স্মারকলিপি জমা দেন। উল্লেখ্য গত বুধবার কুষ্টিয়া সদর উপজেলার বটতৈল ইউনিয়নের টাকিমারা গ্রামে নিজের জমিতে বসবাস করছিলেন । কিন্তু এলাকার মৌলবাদী কিছু চক্র ও সমাজ প্রধানদের ইন্ধনে বসত বাড়ী ভেঙ্গে মাটির সাথে মিশে রাখেন এবং বাড়ীর গাছপালা সব কেটে এই লালন ভক্ত চাইনাকে বিতাড়িত করেন । পরে এই নারী তার লালন সাঁইজির ভক্তদের জানালে প্রথমে থানায় অভিযোগ করেন । পরে আসামীরা থানায় এসে দোষ স্বীকার করে ক্ষমা চান ও লালন ভক্তের বাড়ী পূনরায় আবার সুন্দর করে নির্মান করে দেওয়ার শর্তে আপোষ করে থানা ।

আরও খবর



রিজার্ভ কমল ১৩২ কোটি ডলার

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১১ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:বাংলাদেশ ব্যাংকের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ আন্তর্জাতিক মুদ্রা তহবিলসহ (আইএমএফ) কয়েকটি দাতা সংস্থা থেকে ঋণ পাওয়ার পর বেড়েছিল। তবে এশিয়ান ক্লিয়ারিং ইউনিয়নের (আকু) বিল পরিশোধের পর দেশের রিজার্ভ ফের কমল।

বুধবার (১০ জুলাই) আকুর বিল ১ দশমিক ৪২ বিলিয়ন ডলার পরিশোধের পর গ্রস রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ২৬ দশমিক ১৭ বিলিয়নে, যা গত ৩০ জুন ছিল ২৬ দশমিক ৮৩ বিলিয়ন। আর আইএমএফ হিসাব পদ্ধতি (বিপিএম-৬) অনুসারে রিজার্ভ দাঁড়িয়েছে ২০ দশমিক ৪৬ বিলিয়ন ডলারে। গত ৩০ জুন ছিল ২১ দশমিক ৭৮ বিলিয়ন। সে হিসাবে রিজার্ভ কমেছে ১ দশমিক ৩২ বিলিয়ন বা ১৩২ কোটি ডলার।

দীর্ঘদিন ধরে দেশের বৈদেশিক মুদ্রার রিজার্ভ ২০ বিলিয়নের নিচে অবস্থান করছিল। গত জুনে আইএমএফের ঋণের তৃতীয় কিস্তিসহ প্রায় দুই বিলিয়ন ডলারের ঋণ পায় বাংলাদেশ। এতে ২৭ জুন দেশের রিজার্ভ বেড়ে ২২ বিলিয়ন ডলারে ওঠে। বাংলাদেশ ব্যাংক এতদিন যে পদ্ধতিতে হিসাব করে আসছে সে অনুযায়ী রিজার্ভ দাঁড়ায় ২৭ দশমিক ১৫ বিলিয়ন ডলার। যা আগে ছিল যথাক্রমে ১৯ দশমিক ৪৭ ও ২৪ দশমিক ৬৩ বিলিয়ন ডলার।

গোপন করার পর অবশেষে গত ১ জুলাই প্রথমবার নিট রিজার্ভের তথ্য প্রকাশ করে বাংলাদেশ ব্যাংক। ৩০ জুন শেষে বাংলাদেশ ব্যাংকের নেট ইন্টারন্যাশনাল রিজার্ভ (এনআইআর) বা ব্যয়যোগ্য রিজার্ভ ছিল ১৬ দশমিক ৭৭ বিলিয়ন ডলার। সেখান থেকে আকুর বিল পরিশোধের পর আরও প্রায় দেড় বিলিয়ন ডলার কমে গেল। সে হিসাবে দেশে ব্যয়যোগ্য রিজার্ভ কমে ১৫ বিলিয়নের ঘরে নেমে এসেছে। প্রতি মাসে সাড়ে ৫ বিলিয়ন ডলারের আমদানি ব্যয় ধরলে এ রিজার্ভ দিয়ে তিন মাসের আমদানি ব্যয় মেটানো যাবে না।

আকু একটি অন্তর্দেশীয় লেনদেন নিষ্পত্তি ব্যবস্থা। যার মাধ্যমে বাংলাদেশ, ভুটান, ভারত, ইরান, মালদ্বীপ, মিয়ানমার, নেপাল, পাকিস্তান ও শ্রীলঙ্কার মধ্যকার লেনদেনের দায় পরিশোধ করা হয়। ইরানের তেহরানে আকুর সদরদপ্তর। এ ব্যবস্থায় সংশ্লিষ্ট দেশগুলোর কেন্দ্রীয় ব্যাংক প্রতি দুই মাস অন্তর আমদানির অর্থ পরিশোধ করে। তবে অর্থনৈতিক সংকটের কারণে এখন আকুর সদস্যপদ নেই শ্রীলঙ্কার।

-খবর প্রতিদিন/ সি.


আরও খবর



মাগুরায় কলেজ ছাত্র তীর্থ খুন: হত্যার রহস্য পায়নি পুলিশ উদ্ধার হয়নি মোটর সাইকেল মোবাইল

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১০৯জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:মাগুরায় তীর্থ রুদ্র (২১) নামে  উচ্চ মাধ্যমিক পরীক্ষার্থীকে জবাই করে হত্যার কোন রহস্য এখনো পায়নি পুলিশ। তবে শিগ্রই এ হত্যা রহস্য উদঘাটিত হবে বলে পুলিশ জানায়।মাগুরা শহরের পুরাতন বাজার রুদ্র স্টোরের মালিক নিমাই রুদ্র’র ছেলে তীর্থ রুদ্র মাগুরা আদর্শ ডিগ্রি কলেজের বাণিজ্য বিভাগের শিক্ষার্থী।

পারিবারিক সূত্রে জানা গেছে, সোমবার রাত সাড়ে ৮টার দিকে তীর্থ রুদ্র নিজের ব্যবহৃত ডিসকোভার মটর সাইকেল নিয়ে শহরের আতর আলী সড়কের বাড়ি থেকে বের হয়। 
সে সময় বাড়ির সামনেই তার জন্যে চার বন্ধু অপেক্ষা করছিলো। তাদের সাথে সে রওনা দিলেও দীর্ঘ সময়েও বাড়ি না ফেরায় রাত দেড়টার দিকে থানায় বিষয়টি অবহিত করা হয়। 
এরই মধ্যে সকালে এলাকাবাসী এতিমখানার পেছনে রক্তাক্ত মরদেহ পড়ে থাকতে দেখে পুলিশকে খবর দেয়।

পরীক্ষার্থী তীর্থ রুদ্রকে নির্মমভাবে জবাই করে হত্যার ঘটনা ঘটলেও পরিবারের সদস্যরা মৃত্যুর কারণ সম্পর্কে সুস্পষ্ট কিছু জানাতে পারেনি।

নিহত তীর্থ রুদ্র’র বাবা নিমাই রুদ্র বলেন, তাদের পরিবারের সাথে কারো কোনো বিরোধ নেই। 
ইতোপূর্বে মোবাইল নিয়ে শহরের দুটি ছেলের সাথে তীর্থ’র বিরোধ তৈরি হলেও সেটি মীমাংসা হয়ে যায়। তার মটর সাইকেলটি পাওয়া যায়নি। মটর সাইকেল কেড়ে নিতে তাকে হত্যা করা হয়েছে কিনা বুঝতে পারছি না বলে জানান তিনি।

মাগুরা সদর থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা শেখ মেহেদি রাসেল বলেন, খবর পেয়ে ঘটনাস্থল থেকে মরদেহ উদ্ধার করে ময়না তদন্তের পর তার মৃতদেহ সাতদোহা মহাস্মশানে দাহ করা হয়েছে।
কে বা কারা এই হত্যাকাণ্ডের সাথে জড়িত সেটি এখনো জানা যায়নি। হত্যার রহস্য উদঘাটনে পুলিশ ব্যাপক তৎপরতা অব্যাহত রেখেছে বলে জানান পুলিশের উর্ধতন কর্মকর্তা।

আরও খবর



সিরাজগঞ্জে আসামি ধরতে নদীতে ঝাঁপ, পুলিশের মৃত্যু

প্রকাশিত:সোমবার ১৫ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ৬৮জন দেখেছেন

Image
রাকিবুল ইসলাম রাকিব সিরাজগঞ্জ থেকে:সিরাজগঞ্জের রায়গঞ্জ উপজেলার নলকা ইউনিয়নের এরানদহ গ্রামের আলোচিত হত্যা মামলার প্রধান আসামীকে ধরতে গিয়ে স্বরসতী নদীতে ঝাঁপ দিয়ে উপ-পরিদশর্ক (এস.আই) রেজাউল ইসলাম শাহ (৪৫) নামের এক পুলিশ সদস্যের মৃত্যু হয়েছে।

নিহত রেজাউল ইসলাম শাহ রায়গঞ্জ থানার উপ-পরিদর্শক (এসআই) হিসেবে কর্মরত ছিলেন। তিনি নওগাঁ জেলার সাপাহার গ্রামের তোজাম্মেল হক শাহ ছেলে।সোমবার (১৫ জুলাই) সকাল ১০টার দিকে রায়গঞ্জ উপজেলার হাটিকুমরুল ইউনিয়নের রাধানগর গ্রামে এ ঘটনা ঘটেছে।

পুলিশ সুত্রে জানা যায়,রায়গঞ্জ উপজেলার সলঙ্গা থানার এরানদহ গ্রামের আলোচিত চাচার লাঠির আঘাতে ভাতিজা খুন ও ডাকাতি মামলার প্রধান আসামী নাজমুল হাসান (৩০) কে গ্রেফতার করতে অভিযানের সময় আসামী স্বরসতী নদীতে ঝাপ দেয়। এ সময় এসআই রেজাউল ইসলাম নদীতে ঝাপ দেয়। কিন্তু আসামী নদী পাড় হলেও এসআই রেজাউল নদীর মাঝ খানে তলিয়ে যায়। পরে উল্লাপাড়া ফায়ার সার্ভিসের কর্মী ঘটনাস্থলে পৌছে প্রায় ১ ঘন্টা অভিযান করে তাকে উদ্ধার করে সিরাজগঞ্জ শহীদ এম এ মুনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে পাঠায়।

পুলিশ সদস্য নিহতের বিষয়টি নিশ্চিত করে সিরাজগঞ্জ পুলিশ সুপার আরিফুর রহমান মন্ডল বলেন, সকালে ডাকাতি ও হত্যা মামলার আসামী ধরতে গিয়ে নদীতে অভিযান চালানোর সময় পানিতে ডুবে নিখোজ হয়। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা ১ ঘন্টা অভিযান চালিয়ে তাকে উদ্ধার করে হাসপাতালে পাঠায়।

সিরাজগঞ্জ শহীদ এম মনসুর আলী মেডিকেল কলেজ হাসপাতালের ইমার্জেন্সি বিভাগের ডা. গোলাম আম্বিয়া বলেন, হাসপাতালে আনার আগেই তার মৃত্যু হয়েছে। বর্তমানে নিহতের মরদেহ হাসপাতালে রয়েছে।

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর