Logo
আজঃ Wednesday ১০ August ২০২২
শিরোনাম
নারায়ণগঞ্জের আড়াইহাজারে ২৪৩৫ লিটার চোরাই জ্বালানি তেলসহ আটক-২ নাসিরনগরে বঙ্গ মাতার জন্ম বার্ষিকি পালিত রূপগঞ্জে বীর মুক্তিযোদ্ধাদের মধ্যে ডিজিটাল সনদ ও জাতীয় পরিচয়পত্র বিতরণ কাউন্সিলর সামসুদ্দিন ভুইয়া সেন্টু ৬৫ নং ওয়ার্ডে ভোটার তালিকা হালনাগাদ কর্মসুচীতে অংশগ্রহন করেন চান্দিনা থানায় আট কেজি গাঁজাসহ মাদক ব্যবসায়ী গ্রেফতার নাসিরনগরে ছাত্রদলের বিক্ষোভ মিছিল ও প্রতিবাদ সমাবেশ নাসিরনগর বাজারে থানা সংলগ্ন আব্দুল্লাহ মার্কেটে দুই কাপড় দোকানে দুর্ধষ চুরি। ই প্রেস ক্লাব চট্রগ্রাম বিভাগীয় কমিটির মতবিনিময় সম্পন্ন ব্রাহ্মণবাড়িয়ায় ৬ কেজি গাঁজাসহ হাইওয়ে পুলিশের হাতে আটক এক। সোনারগাঁয়ে পুলিশ সোর্স নাম করে ডাকাত শাহ আলমের কান্ড

রূপগঞ্জে গৃহবধূর বাড়িতে হামলা ভাংচুর লুটপাট ॥ শ্লীলতাহানী

প্রকাশিত:Monday ২৭ June ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ১৫৩জন দেখেছেন
Image

রূপগঞ্জ(নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধিঃ মোঃ আবু কাওছার মিঠু 


নারয়ণগঞ্জের রূপগঞ্জ উপজেলার তারাবো পৌরসভার পবনকুল এলাকার গৃহবধূ সোনিয়া আক্তারের বাড়িতে সন্ত্রাসীরা হামলা চালিয়ে ভাংচুর, লুটপাট ও শ্লীলতাহানী করেছে। উক্তাক্ত করার প্রতিবাদ করায় ও  পূর্বশত্রুতার জের ধরে  গতকাল ২৬ জুন রবিবার ৭/৮ সদস্যের একদল সন্ত্রাসী অস্ত্রে-শস্ত্রে সজ্জিত হয়ে এ হামলা চালায়।


মামলার বিবরণ থেকে জানা যায়, গৃহবধূ  সোনিয়া আক্তারের স্বামী আবুল হোসেন নারায়ণগঞ্জের  মদনপুরের একটি স্টীল মিলে চাকরি করেন। সোনিয়া আক্তার বাবার বাড়ির পাশে বসতঘর নির্মাণ করে সেখানে তিনি একাই বসবাস করেন।


সুযোগ পেয়ে পবনকুল গ্রামের বখাটে সুজন মিয়া প্রায়ই সোনিয়া আক্তারকে উক্তাক্ত করে আসছিল। প্রতিবাদ করায় গত ১৫ জুন সোনিয়াকে সুজন মিয়া ভয়ভীতি ও হুমকি দেয়। তখন এ নিয়ে তাদের মধ্যে বাক্বিতন্ডা হয় ।  সুজন ও তার সহযোগিরা  এর জের ধরেই গতকাল ২৬ জুন রবিবার জোরপূর্বক বসতঘরে ঢুকে ভাংচুর ও লুটপাট চালায়।


এসময় গৃহবধূর ডাক চিৎকারে তার বাবার বাড়ীর লোকজন ছুটে আসলে সন্ত্রাসীরা বাড়ির মহিলাদের   শ্লীলতাহানী ও বেদম প্রহার করে স¦র্ণালংকার ও নগদ টাকাসহ দুই লক্ষাধিক টাকার মালামাল লুটপাট করে নিয়ে যায়। হামলায় গূহবধূ সোনিয়া আক্তার (৩০), তার মা তাছলিমা বেগম (৬৫), বোন সফুরা খাতুন (৪০), ভাই নাসির উদ্দিন (৩৪) ও বশির উদ্দিন (২৮)  আহত হয়। আহতদের রূপগঞ্জ উপজেলা স্বাস্থ্যকমপ্লেক্সে ভর্তি করা হয়েছে।


এ ব্যাপারে গৃহবধূ সোনিয়া আক্তার বাদী হয়ে পবনকুল গ্রামের সুজন মিয়া (২৮) ও ইদ্্িরস আলীসহ ৫ জনকে আসামী করে নারায়ণগঞ্জ বিজ্ঞ জুডিসিয়াল ম্যাজিষ্ট্রেট আমলী আদালত-৩ এ মামলা দায়ের করেছেন। 


আরও খবর



নুরে আলমের রক্ত বৃথা যাবে না: ফখরুল

প্রকাশিত:Thursday ০৪ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৩৯জন দেখেছেন
Image

নিহত ছাত্রদল নেতা নুরে আলমের রক্ত বৃথা যাবে না বলে মন্তব্য করেছেন বিএনপির মহাসচিব মির্জা ফখরুল ইসলাম আলমগীর।

তিনি বলেছেন, নূরে আলম ও আব্দুর রহিমের রক্তের প্রতিশোধ আমরা অবশ্যই নিতে পারবো। আমরা এ দেশের গণতন্ত্রকে মুক্ত করতে পারবো।

বুধবার (৩ আগস্ট) রাতে নয়াপল্টনে বিএনপি কেন্দ্রীয় কার্যালয়ের সামনে তিনি এসব কথা বলেন। সন্ধ্যা ৬টায় কেন্দ্রীয় কার্যালয়ে ভোলায় পুলিশের গুলিতে নিহত ছাত্রদল নেতা নুর আলমের জানাজা হওয়ার কথা ছিল। এ উপলক্ষে নেতাকর্মীরা বিকেল থেকে নয়া পল্টনের জড়ো হয়ে ভোলার ঘটনার প্রতিবাদ জানান।

মির্জা ফখরুল বলেন, আমরা সবাই বিক্ষুব্ধ এবং শোকাহত। আমাদের সহকর্মী সহযোদ্ধা বাংলাদেশ জাতীয়তাবাদী ছাত্রদলের ভোলা জেলার ছাত্রদলের সভাপতি তিনদিন ধরে মৃত্যুর সঙ্গে লড়াই করে আজ মৃত্যুবরণ করেছেন। আমরা তাকে শেষ শ্রদ্ধা জানাতে এখানে উপস্থিত হয়েছিলাম।

তিনি বলেন, লোডশেডিং ও জ্বালানি খাতে অব্যবস্থাপনার প্রতিবাদে ভোলা জেলায় শান্তিপূর্ণ কর্মসূচিতে পুলিশের গুলিতে আব্দুর রহিম নিহত হয়েছেন। এতে গুরুতর আহতদের মধ্যে নূরে আলমের অবস্থা ছিল সংকটাপন্ন। তিনদিন চিকিৎসাধীন থাকার পর আজ শহীদ হয়ে গেলেন আমাদের ভাই।

নূরে আলমের মরদেহ আনতে না পারার কারণে বৃহস্পতিবার (৪ আগস্ট) বেলা ১১টায় রাজধানী নয়াপল্টনে বিএনপি কার্যালয়ের সামনে গায়েবানা জানা অনুষ্ঠিত হবে বলে জানান বিএনপি মহাসচিব।

এ সময় উপস্থিত ছিলেন- বিএনপির স্থায়ী কমিটির সদস্য আমির খসরু মাহমুদ চৌধুরী, ঢাকা দক্ষিণ বিএনপির সভাপতি আব্দুস সালাম, উত্তরের সভাপতি আমানুল্লাহ আমান, বিএনপির সাংগঠনিক সম্পাদক আব্দুস সালাম, ঢাকা মহানগর দক্ষিণ বিএনপির সদস্য সচিব রফিকুল আলম মজনু, বিএনপি নেতা কামরুজ্জামান রতন, ফজলুল হক মিলন, ছাত্রদলের সভাপতি কাজী রওনকুল ইসলাম শ্রাবণ প্রমুখ।


আরও খবর



টি-টোয়েন্টিতে নতুন ইতিহাস পোলার্ডের

প্রকাশিত:Tuesday ০৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ০৯ August ২০২২ | জন দেখেছেন
Image

কুড়ি ওভারের স্বীকৃত ক্রিকেটে নতুন ইতিহাস গড়লেন ওয়েস্ট ইন্ডিজের সাবেক অধিনায়ক কাইরন পোলার্ড। ইতিহাসের প্রথম ক্রিকেটার হিসেবে টি-টোয়েন্টিতে ৬০০ ম্যাচ খেলার রেকর্ড গড়েছেন এ ক্যারিবীয় অলরাউন্ডার।

সোমবার লর্ডসে ইংল্যান্ডের একশ বলের ক্রিকেট দ্য হান্ড্রেডে লন্ডন স্পিরিটের হয়ে ম্যানচেস্টার অরিজিনালসের বিপক্ষে খেলতে নেমে এ কীর্তি গড়েছেন পোলার্ড। ১০০ বলের খেলা হলেও এটিকে পরিসংখ্যানে টি-টোয়েন্টি বলেই বিবেচনা করা হয়।

৬০০তম ম্যাচের মাইলফলকে প্রবেশ করার দিন দারুণ এক ক্যামিও ইনিংস খেলেছেন পোলার্ড। পাঁচ নম্বরে নেমে এক চার ও চারটি ছয়ের মারে ১১ বলে ৩৪ রানের টর্নেডো বইয়েন তিনি। তার দলও ম্যাচটি জিতেছে ৫২ রানের বড় ব্যবধানে।

টি-টোয়েন্টি ফরম্যাটে আপাতত ম্যাচ খেলার রেকর্ডে পোলার্ডের আশপাশে কেউ নেই। তার স্বদেশি ডোয়াইন ব্রাভো রয়েছেন দুই নম্বরে, খেলেছেন ৫৪৩টি ম্যাচ। এছাড়া ৫০০ ম্যাচ খেলতে পারেননি আর কোনো ক্রিকেটার।

তবে ৪০০ ম্যাচ খেলেছেন আরও পাঁচজন ক্রিকেটার। তারা হলেন শোয়েব মালিক (৪৭২), ক্রিস গেইল (৪৬৩), রবি বোপারা (৪২৬), সুনিল নারিন (৪২১) ও আন্দ্রে রাসেল (৪১৪)।

বাংলাদেশের ক্রিকেটারদের মধ্যে সর্বোচ্চ ৩৬৭টি কুড়ি ওভারের ম্যাচ খেলেছেন সাকিব আল হাসান। দ্বিতীয় সর্বোচ্চ ২৮২ ম্যাচ রয়েছে মাহমুদউল্লাহ রিয়াদের নামের পাশে। মুশফিকুর রহিম খেলেছেন ২৪০ ম্যাচ।

উল্লেখ্য, ৬০০ ম্যাচের টি-টোয়েন্টি ক্যারিয়ারে এক সেঞ্চুরি ও ৫৬ ফিফটিতে ১১৭২৩ রান করেছেন পোলার্ড। তিনি ৭৩৮টি চারের সঙ্গে হাঁকিয়েছেন ৭৮৩টি ছক্কা। এছাড়া বল হাতে রয়েছে ৩০৯টি উইকেট।


আরও খবর



বোয়ালখালীতে মধ্যরাতে বাল্যবিয়ে বন্ধ করলেন ইউএনও

প্রকাশিত:Friday ২৯ July ২০২২ | হালনাগাদ:Saturday ০৬ August ২০২২ | ১৯জন দেখেছেন
Image

চট্টগ্রামের বোয়ালখালীতে এক স্কুলছাত্রীর বিয়ে বন্ধ করে দিয়েছেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার (ইউএনও) মোহাম্মদ মামুন।

বৃহস্পতিবার রাত পৌনে ১২টায় উপজেলার পশ্চিম শাকপুরা এলাকায় বাল্যবিয়ের খবর পেয়ে তিনি বিয়ে বাড়িতে উপস্থিত হন। এসময় তিনি স্কুলছাত্রী কনের বাবাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করেন। পাশাপাশি ১৮ বছর পূর্ণ না হওয়া পর্যন্ত এ বিয়ে না দেওয়ার জন্য অঙ্গীকারনামা নেওয়া হয়।

ইউএনও মোহাম্মদ মামুন বলেন, কনে একটি বিদ্যালয়ের দশম শ্রেণির ছাত্রী। তার বিয়ের খবর পেয়ে রাত ১২টার কিছু আগে বিয়েবাড়িতে যাই। ভ্রাম্যমাণ আদালত পরিচালনা করে বাল্যবিবাহ নিরোধ আইন-২০১৭ অনুযায়ী ছাত্রীর বাবাকে ২৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়েছে। এছাড়া ১৮ বছর পূর্ণ হওয়ার আগে ওই ছাত্রীর বিয়ে না দেওয়ার অঙ্গীকার নেওয়া হয়।


আরও খবর



অরক্ষিত রেলক্রসিং, দুর্ঘটনা নয় হত্যাকাণ্ড: রব

প্রকাশিত:Sunday ৩১ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৬০জন দেখেছেন
Image

সারাদেশে রেলক্রসিং অরক্ষিত রেখে মর্মান্তিক দুর্ঘটনায় প্রাণহানি মূলত হত্যাকাণ্ড বলে মন্তব্য করেছেন জেএসডি সভাপতি অ স ম আব্দুর রব। রেলক্রসিং সুরক্ষা করতে ৮ দফা দাবি জানিয়েছেন তিনি।

রোববার (৩১ জুলাই) গণমাধ্যমে পাঠানো এক বিবৃতিতে তিনি এসব দাবি জানান।

রব বলেন, সারাবিশ্বে রেলপথ নিরাপদ হলেও বাংলাদেশে লেভেলক্রসিং অরক্ষিত থাকায় প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনা ঘটছে। ফলে লেভেলক্রসিংগুলো যেন মরণ ফাঁদে পরিণত হয়েছে। অরক্ষিত রেলক্রসিংয়ে অসংখ্য মৃত্যুতে উন্নয়নের ‘রোল মডেল’ প্রতিফলন হয় না।

তিনি বলেন, শুধু গত সাত মাসে রেলপথে দুর্ঘটনায় নিহত হয়েছেন ১৭৮ জন। আর আহত হয়েছেন এক হাজার ১৭০ জন। বিভিন্ন পরিসংখ্যানে জানা যায়, রেলপথে দুই হাজার ৮৫৬টি লেভেলক্রসিং রয়েছে। এর মধ্যে অবৈধ এক হাজার ৩৬১টি। সেই হিসাবে প্রায় ৪৮ শতাংশ অবৈধ। এছাড়াও বৈধ লেভেলক্রসিংগুলোর মধ্যে ৬৩২টিতে গেটম্যান নেই। দেশে ৮২ শতাংশ রেলক্রসিং অনিরাপদ।

‘একটি রাষ্ট্রে অরক্ষিত লেভেলক্রসিং থাকবে আর প্রতিনিয়ত দুর্ঘটনায় মানুষ নিহত হবে এটা সভ্য দেশে চিন্তাও করা যায় না। রেলক্রসিংগুলোতে নিরাপদ সুরক্ষায় কার্যকর কোনো পদক্ষেপ না নেওয়ায় হত্যাকাণ্ডের সব দায় সরকারকে বহন করতে হবে।’

জেএসডি সভাপতি বলেন, অরক্ষিত রেলক্রসিং এ অসংখ্য প্রাণ ঝরে যাওয়ার পরও সরকার কোনো জোরালো পদক্ষেপ নেয়নি। বরং প্রতিটি দুর্ঘটনার পর লোক দেখানো তদন্ত কমিটি গঠন করা হয়। কিন্তু তদন্ত প্রতিবেদনের সুপারিশ বাস্তবায়নের কোনো পদক্ষেপও নেওয়া হয় না, এমনকি দুর্ঘটনায় দায়ীদের শাস্তির আওতায়ও আনা হয় না। রেল কর্তৃপক্ষ রেলক্রসিংয়ে সংঘটিত দুর্ঘটনা ও প্রাণহানির কোনো তথ্যও সংগ্রহ করে না।

দাবিগুলো হলো-

১. বৈধ-অবৈধ সব ধরনের অরক্ষিত লেভেলক্রসিং নিরাপদ করতে হবে। রেলক্রসিং এ প্রাণহানির দায়ে শাস্তির বিধান করতে হবে।

২. সব লেভেল ক্রসিং এ প্রয়োজনীয় গেটম্যান নিয়োগ করতে হবে। গেটকিপার পদ স্থায়ী করতে হবে।

৩. প্রত্যেক রেলক্রসিংয়ে শক্তিশালী গেটবার বা পথরোধক স্থাপন করতে হবে। রেলক্রসিংয়ে প্রযুক্তি ব্যবহার করতে হবে।

৪. দুর্ঘটনায় দায়ীদের শাস্তির আওতায় আনতে হবে ও রেলের ঊর্ধ্বতন কর্তৃপক্ষের দায় নির্ধারণ করতে হবে। রেল ব্যবস্থাপনায় সুশাসন নিশ্চিত করতে হবে।

৫. গেটম্যানদের দায়িত্ব যথাযথভাবে পালনে কর্তৃপক্ষর নজরদারি নিশ্চিত করতে হবে।

৬. যানবাহন চালকদের সচেতনতা বাড়ানোর লক্ষ্যে প্রশিক্ষণের আয়োজন করতে হবে।

৭. সড়কে প্রাণহানির দায়ে আইনের কঠোর প্রয়োগ নিশ্চিত করতে হবে।

৮. নিরাপদ সড়ক ও রেলপথ নিশ্চিত করতে সর্বোচ্চ ব্যবস্থা নিতে হবে।


আরও খবর



আত্মীয়ের বাসায় নেওয়া মিষ্টি খেয়ে বমি, দোকানমালিককে জরিমানা

প্রকাশিত:Monday ১৮ July ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১০ August ২০২২ | ৫৯জন দেখেছেন
Image

ময়মনসিংহে পচা ও নষ্ট মিষ্টি বিক্রির অভিযোগে এক দোকানমালিককে ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করেছে জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর।

সোমবার (১৮ জুলাই) দুপুরে নগরীর চরপাড়া এলাকায় অভিযান চালিয়ে এ জরিমানা করেন অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নিশাত মেহের।

ময়মনসিংহ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তর সূত্র জানায়, গত ১১ জুলাই (ঈদের পরদিন) নগরীর চরপাড়া মোড়ের ‘ঢাকা মিষ্টি মুখ’ দোকান থেকে ১ কেজি চমচম ও ১ কেজি কালোজাম ৪০০ টাকা দিয়ে কেনেন। পরে ওই মিষ্টি নিয়ে আত্মীয় বাড়িতে যান। সেখানে মিষ্টির প্যাকেট খুলে ছোট বাচ্চাদের দেওয়া হলে তারা মিষ্টি মুখে নিয়ে বমি করা শুরু করে। জাকির হোসেন নিজে মিষ্টি মুখে দিয়ে দেখেন মিষ্টি টক, পচা ও দুর্গন্ধ। দুই প্যাকেট মিষ্টির মধ্যে কয়েকটি ভালো মিষ্টি দিয়ে বেশিরভাগই বাসি, টক, পচা ও দুর্গন্ধযুক্ত মিষ্টি দিয়েছেন দোকানদার। পরে ভুক্তভোগী জাকির হোসেন এ বিষয়ে ১২ জুলাই জেলা ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরে অভিযোগ করেন।

jagonews24

অভিযোগ পেয়ে ওই মিষ্টির দোকানে অভিযান চালায় ভোক্তা অধিদপ্তর। এ সময় দোকান মালিক ও কর্মচারী টক ও বাসি মিষ্টি দেওয়ার কথা স্বীকার করলে তাদের ১৫ হাজার টাকা জরিমানা করা হয়। একই সঙ্গে তারা মুচলেকা দেন।

নিয়ম অনুযায়ী জরিমানার ২৫ শতাংশ হিসেবে জাকির হোসেনকে ৩ হাজার ৭৫০ টাকা দেওয়া হয়েছে।

ময়মনসিংহ ভোক্তা অধিকার সংরক্ষণ অধিদপ্তরের সহকারী পরিচালক নিশাত মেহের এসব তথ্য নিশ্চিত করেছেন।


আরও খবর