Logo
আজঃ Tuesday ২৪ May ২০২২
শিরোনাম

ঋণের সুদের টাকার জন্য বেচে দেওয়া শিশু উদ্ধার

প্রকাশিত:Tuesday ১৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৯০জন দেখেছেন
Image

নারায়ণগঞ্জ প্রতিনিধিঃ

নারায়ণগঞ্জ সদর উপজেলার ফতুল্লায় ঋণের বিপরীতে সুদের টাকা আদায়ে ব্যর্থ হয়ে রানি আক্তারের নবজাতককে বিক্রি করার অভিযোগ উঠেছে।  


রোববার (১৭ এপ্রিল) এ ঘটনায় বিক্রি হওয়া নয় মাসের নবজাতককে মুন্সিগঞ্জ থেকে উদ্ধারের বিষয় নিশ্চিত করেছে পুলিশ।এছাড়া এ ঘটনায় একজনকে গ্রেফতার করা হয়েছে।


অভিযুক্ত লাকী বেগম ও ভুক্তভোগী রানি আক্তার ফতুল্লার আলীগঞ্জ পিডব্লিউডির কলোনিতে ভাড়া বাসায় বসবাস করেন। লাকী বেগমের স্বামী হজরত আলী ক্লিনার পদে সরকারি চাকরি করেন। আর রানি পিরোজপুর জেলার মঠবাড়িয়া থানার বাদারতলীর হান্নান চৌকিদারের স্ত্রী। হান্নান চৌকিদার রাজমিস্ত্রির কাজ করেন।


এর আগে, এ ঘটনায় ফতুল্লা মডেল থানায় অভিযোগ করেন ভুক্তভোগী রানি আক্তার। অভিযোগে তিনি বলেছেন, ‘দুই বছর আগে লাকী বেগমের কাছ থেকে পাঁচ হাজার টাকা ঋণ নেন। গত দুই বছরে ওই টাকার বিপরীতে দুই লাখ ১০ হাজার টাকা দিয়েছি। এমনকি এক বছর আগে সুদের টাকা পরিশোধের জন্য আমার নবজাতককে বিক্রি করে দিয়েও সম্পূর্ণ টাকা আত্মসাৎ করেন লাকী বেগম। এ বিষয়ে মুখ বন্ধ রাখতে ভয়-ভীতি প্রদর্শন করে আসছিলেন তিনি। এতেও তিনি ক্ষ্যান্ত হয়নি।  


বৃহস্পতিবার (১৪ এপ্রিল) পুনরায় লাকী বেগম আমার বাড়িতে এসে সুদের আসলসহ এক লাখ ৩ হাজার টাকা দাবি করেন। অন্যথায় মারধর করা হবে বলে হুমকি দেন।


নবজাতককে বিক্রির ব্যাপারে বাদী রানি আক্তার জানান, প্রায় এক বছর আগে ছেলের জন্ম দেন তিনি। ওইদিন বিকেলে সুদের টাকা পরিশোধ নিতে তার নবজাতককে ২৫ হাজার টাকায় বিক্রি করে দেন অভিযুক্ত লাকী। বিক্রির টাকার পরিবর্তে লাকী তাকে একটি পুরাতন খাট এবং একটি পুরাতন টিভি দিয়েছিলেন। সেসঙ্গে সুদের টাকা কেটে নিয়েছিলেন। তাকে একটি টাকাও দেওয়া হয়নি বলে তিনি দাবি করেন।


এ ব্যাপারে ফতুল্লা মডেল থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) রকিবুজ্জামান বলেন, মুন্সিগঞ্জের শ্রীনগর এলাকা থেকে বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়েছে। এর কাছ থেকে বাচ্চাটিকে উদ্ধার করা হয়েছে তাকে গ্রেফতার করা হয়েছে। এ ঘটনায় মামলা হবে।


আরও খবর



নাসিরনগরে ইউপি চেয়ারম্যানকে কটুক্তি করার প্রতিবাদে দুই দল গ্রামবাসীর মধ্যে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ

প্রকাশিত:Monday ০২ May 2০২2 | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ৩১০জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিনিধিঃ-

৩০ এপ্রিল ২০২২ রোজ শনিবার ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার বুড়িশ্বর ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারণ সম্পাদক ও শ্রীঘর গ্রামের সরদার গোষ্ঠীর মহরম আলীর ছেলে আনু মিয়া (৩৩) বর্তমান ইউপি চেয়ারম্যান ইকবাল চৌধুরীকে নিয়ে কটুক্তি করলে একই গ্রামের মাঝিবাড়ি গোষ্ঠীর ইদ্দিস আলী সরদারের ছেলে  রফিক মিয়া প্রতিবাদ করলে দুইজনের মাঝে কথা কাটাকাটির একপর্যায়ে তা সংঘর্ষে রূপ নেয়।


 পরে এ নিয়ে দুপুর অনুমানিক আড়াই ঘটিকা থেকে সন্ধ্যা সাড়ে ৬ ঘটিকা পর্যন্ত শ্রীঘর গ্রামের বইলার বাড়ি সংলগ্ন পুকুর পাড়ে সরদার গোষ্ঠী ও মাঝিবাড়ির লোকজনের মাঝে রক্তক্ষয়ী সংঘর্ষ চলে। সংঘর্ষে মাঝিবাড়ি গোষ্ঠীর ১৫/২০ জন ও সরদার গোষ্ঠীর প্রায় ৬০/৭০ জন লোক আহত হয়,আহতদেন মাঝে ২/৩ জনের অবস্থা আশংকাজনক। 


সংঘর্ষের খবর পেয়ে নাসিরনগর থানা পুলিশ ঘটনাস্থলে পৌঁছে পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনে।এ সময় পরিস্থিতি নিয়ন্ত্রণে আনতে পুলিশ রাবার বুলেট ও টিয়ারসেল নিক্ষেপ করে।


আহতদের কিছু অংশ পার্শ্ববর্তী হবিগঞ্জ জেলা সরকারি হাসপাতালে এবং কিছু অংশ নাসিরনগর উপজেলা স্বাস্থ্য কমপ্লেক্সে চিকিৎসা নিচ্ছেন।


নাসিরনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা হাবিবুল্লাহ সরকার জানান, পরিস্থিতি বর্তমানে স্বাভাবিক রয়েছে। ঘটনাস্থলে অতিরিক্ত পুলিশ মোতায়েন রয়েছে।


আরও খবর



হেলমেটধারীদের গ্রেফতারে অভিযান চালাচ্ছে ডিবি

প্রকাশিত:Wednesday ২৭ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৫৯জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

নিউমার্কেটের ব্যবসায়ীদের সঙ্গে ঢাকা কলেজ শিক্ষার্থীদের সংঘর্ষকালে হেলমেট পরে সংঘর্ষে লিপ্ত হওয়া সবাই সন্ত্রাসী। তাদের অবশ্যই আইনের আওতায় আনা হবে। এসব হেলমেটধারী সন্ত্রাসীদের গ্রেফতারে গোয়েন্দা পুলিশের (ডিবি) একাধিক টিম অভিযান চালাচ্ছে।


বুধবার (২৭ এপ্রিল) দুপুরে ডিএমপির মিডিয়া সেন্টারে আয়োজিত এক সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা জানান ঢাকা মহানগর গোয়েন্দা (দক্ষিণ) পুলিশের যুগ্ম-কমিশনার মাহবুব আলম।


সাংবাদিকদের এক প্রশ্নের জবাবে তিনি বলেন, নিউমার্কেটের সংঘর্ষের ঘটনায় দুজন তরুণ নিহত হয়। এ ঘটনায় পৃথখ দুটি মামলা গোয়েন্দা পুলিশের তদন্তাধীন। একটি নাহিদ হত্যায় এবং অপর মামলাটি হয়েছে মোরসালিন হত্যার ঘটনায়।


গোয়েন্দা পুলিশের এ কর্মকর্তা আরও জানান, নাহিদ হত্যাকাণ্ডের যে ফুটেজ রয়েছে সেই ফুটেজের চুলচেরা বিশ্লেষণ করে জড়িতদের চিহ্নিত করা হচ্ছে। চিহ্নিতকরণের কাজটি অনেক দূর এগিয়েছে।


তিনি বলেন, ঢাকা কলেজের হোস্টেল বন্ধ হয়ে যাওয়ায় অনেকেই বাড়ি চলে গেছে অথবা আত্মগোপনে আছে। তবে ডিবির একাধিক টিম তাদের গ্রেফতারে চেষ্টা চালাচ্ছে। শিগগির এ বিষয়ে ভালো ফল জানানো হবে।



ডেলিভারিম্যান নাহিদের নিহতের ঘটনায় বাবা মো. নাদিম হোসেন বাদী হয়ে নিউমার্কেট থানায় একটি হত্যা মামলা করেন। মুরসালিনের ভাই বাদী হয়ে আরো একটি হত্যা মামলা করেছেন।


এদিকে এ ঘটনায় পুলিশ বাদী হয়ে দুটি মামলা করে। একটি মামলা বিস্ফোরক দ্রব্য আইনে এবং অন্যটি পুলিশের ওপর হামলার অভিযোগে। দুই মামলাতে নিউমার্কেটের ব্যবসায়ী-কর্মচারী ও ঢাকা কলেজের শিক্ষার্থীসহ মোট ১২০০ জনকে আসামি করা হয়।


আরও খবর



ইউক্রেন যুদ্ধের ধাক্কা পড়েছে পণ্যের বাজারে

প্রকাশিত:Thursday ২৮ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১২৮জন দেখেছেন
Image

নিজস্ব প্রতিবেদকঃ

ইউক্রেন রাশিয়ার যুদ্ধের কারণে ইতোমধ্যেই বিশ্বজুড়ে বিভিন্ন পণ্যের দাম বৃদ্ধি পেয়েছে। সামনের দিনগুলোতে পণ্যের দাম আরও বাড়ার আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। এরই মধ্যে বিশ্ব ব্যাংক সতর্ক করে বলেছে, ইউক্রেন যুদ্ধের কারণে গত ৫০ বছরের মধ্যে বিশ্বের পণ্য বাজারে সবচেয়ে বড় ধাক্কা আসতে যাচ্ছে। অর্থাৎ ১৯৭০ সালের পর প্রথম বারের মতো এমন সংকট তৈরি হতে পারে।


নতুন এক পূর্বাভাসে বলা হয়েছে, সংঘাতের কারণে প্রাকৃতিক গ্যাস থেকে শুরু করে গম ও তুলা পর্যন্ত বিভিন্ন পণ্যের দাম ইতোমধ্যেই বেড়ে গেছে। সামনের দিনগুলোতে এই ধারাবাহিকতা অব্যাহত থাকবে।


বিশ্ব ব্যাংকের নতুন এই প্রতিবেদনের সহ-লেখক পিটার ন্যাগল বলেন, পণ্যের দামের এই ঊর্ধ্বগতি এরইমধ্যে বড় ধরনের অর্থনৈতিক ও মানবিক প্রভাব ফেলতে শুরু করেছে। তিনি বলেন, বিশ্বজুড়ে জীবনযাত্রার খরচ মেটাতে গিয়ে চরম দুর্ভোগে পড়ছে মানুষ।


বিশ্ব ব্যাংকের এই শীর্ষ অর্থনীতিবিদ বলেন, গরীব পরিবারগুলোর ক্ষেত্রে এই সংকট আরও ভয়াবহ। কারণ তাদের আয়ের সিংহভাগ খাবার ও জ্বালানির পেছনে ব্যয় হয়ে যায়। পণ্যের দাম বাড়ার প্রভাব তাদের ওপরই সবচেয়ে বেশি পড়বে।


বিশ্ব ব্যাংক বলছে, জ্বালানির দাম ৫০ শতাংশের বেশি বাড়তে পারে। ফলে সংসারের ব্যয় এবং ব্যবসায়ের খরচ অনেক বেড়ে যাবে।



বিবিসির এক প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউরোপে সবচেয়ে বেশি বাড়বে প্রাকৃতিক গ্যাসের দাম, যা দ্বিগুণের বেশি হতে পারে বলে আশঙ্কা প্রকাশ করা হয়েছে। আগামী বছর পণ্যের দাম কিছুটা কমতে পারে এবং ২০২৪ সালের পূর্বাভাসে দেখা যাচ্ছে, গত বছরের তুলনায় ২০২৪ সালে গ্যাসের দাম ১৫ শতাংশ বেশি থাকবে।


বিশ্ব ব্যাংক বলছে, ২০২০ সালের এপ্রিল থেকে চলতি বছরের মার্চ পর্যন্ত বিশ্ব টানা ২৩ মাস জ্বালানির দামে ঊর্ধ্বগতি দেখা যাচ্ছে। মধ্যপ্রাচ্যে অস্থিরতার কারণে ১৯৭৩ সালে জ্বালানির মূল্য বৃদ্ধির পর এটাই দীর্ঘতম সময় ধরে জ্বালানির দাম যাওয়ার ঘটনা।


একইভাবে জ্বালানি তেলের দামও ২০২৪ সাল পর্যন্ত বাড়তি থাকবে এবং চলতি বছরজুড়ে প্রতি ব্যারেল ব্রেন্ট ক্রুডের দাম গড়ে ১০০ ডলারে বিক্রি হবে, যা বিশ্বজুড়ে মূল্যস্ফীতির হার বাড়ার অন্যতম কারণ হিসেবে ভূমিকা রাখবে।



বিশ্বের ১১ শতাংশ তেল উৎপাদন করে রাশিয়া, যা তৃতীয় সর্বোচ্চ। বিশ্ব ব্যাংকের প্রতিবেদনে বলা হয়েছে, ইউক্রেনে যুদ্ধের কারণে সরবরাহে বিঘ্ন ঘটা এবং পশ্চিমা অবরোধের ফলে একটি দীর্ঘমেয়াদী নেতিবাচক প্রভাব দেখা দেবে। অবরোধের কারণে পশ্চিমা কোম্পানিগুলো রাশিয়া ছেড়ে যাবে এবং দেশটির নতুন প্রযুক্তি পাওয়ার সুযোগ কমে আসবে।


রাশিয়া বর্তমানে ইউরোপীয় ইউনিয়নের চাহিদার ৪০ শতাংশ গ্যাস ও ২৭ শতাংশ তেল সরবরাহ করে। কিন্তু ইইউ রাশিয়ার ওপর নির্ভরশীলতা কমিয়ে বিকল্প উৎস থেকে জ্বালানি চাহিদা পূরণের চেষ্টা করছে, যা বিশ্বজুড়ে তেল এবং গ্যাসের দাম বাড়িয়ে দিয়েছে। মূলত চাহিদা ও সরবরাহ ভারসাম্য নষ্ট হওয়ায় সমস্যা বেড়ে যাচ্ছে।


অনেক খাদ্য পণ্যের দাম হঠাৎ করেই লাফিয়ে বেড়ে গেছে এবং আরও বাড়তে পারে বলে আশঙ্কা দেখা দিয়েছে। গমের দাম ৪২ দশমিক ৭ শতাংশ বাড়তে পারে। খাদ্য পণ্যের মধ্যে বার্লি ৩৩ দশমিক ৩ শতাংশ, সয়াবিন ২০ শতাংশ, ভোজ্য তেল ২৯ দশমিক ৮ শতাংশ ও মুরগির দাম ৪১ দশমিক ৮ শতাংশ বাড়তে পারে। রাশিয়া ও ইউক্রেন থেকে এসব পণ্যের রপ্তানি কমে যাওয়ার কারণেই এমন পরিস্থিতি তৈরি হয়েছে।


যুদ্ধ শুরুর আগে বিশ্বের মোট সয়াবিনের ৬০ শতাংশ এবং গম রপ্তানির ২৮ দশমিক ৯ শতাংশ এ দুই দেশ থেকেই আসতো। সার, বিভিন্ন ধাতু ও খনিজ দ্রব্যের মতো কাঁচামালের দামও বাড়তে পারে বলে সতর্ক করা হয়েছে। তবে কাঠ, চা ও চালের মত কয়েকটি পণ্যের দাম কমবে বলে আশা করা হচ্ছে।


আরও খবর



ষাটগম্বুজ মসজিদে হবে বাগেরহাটের ঈদের প্রধান জামাত

প্রকাশিত:Friday ২৯ April ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১৩৮জন দেখেছেন
Image

বাগেরহাট প্রতিনিধিঃ

ঐতিহ্যবাহী ষাটগুম্বজ মসজিদে প্রতিবারের মতো এবারও বাগেরহাটের ঈদুল ফিতরের প্রধান জামাত অনুষ্ঠিত হবে।  মুসল্লিদের আধিক্যের কারণে এই মসজিদে এবারও তিনটি জামাত অনুষ্ঠিত হবে।এবার ঈদের প্রথম জামাত সকাল সাড়ে ৭টায়, দ্বিতীয় জামাত সকাল সোয়া ৮টায় এবং ৩য় ও সর্বশেষ জামাত অনুষ্ঠিত হবে সকাল ৯টায়।


বিশ্ব ঐতিহ্য এই মসজিদে ঈদের প্রথম ও প্রধান জামাতে ইমামতি করবেন বাগেরহাট আলিয়া (কামিল) মাদ্রাসার অধ্যক্ষ মাওলানা আবুল কালাম আজাদ। দ্বিতীয় জামাতে ইমামতি করবেন ষাটগম্বুজ মসজিদের ইমাম ও খতিব মাওলানা হেলাল উদ্দিন। তৃতীয় এবং সর্বশেষ জামাতে ইমামতি করবেন বাগেরহাট শহরের সিঙ্গাইড় জামে মসজিদের ইমাম মাওলানা মোজাহিদুল ইসলাম।  


ওয়ার্ল্ড হ্যারিটেজ সাইট ষাটগুম্বজ মসজিদে ঈদের জামাতের মুসল্লিদের নিরাপত্তা ও স্বাস্থ্যবিধি নিশ্চিত করতে পুলিশের পাশাপাশি অন্যান্য আইনশৃঙ্খলা বাহিনীর বিপুল সংখক সদস্য নিয়োজিত থাকবেন।


পবিত্র ঈদুল ফিতর-১৪৪৩ হিজরি (২০২২) উদযাপন উপলক্ষে প্রস্তুতি সভায় এসব সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়। প্রস্তুতি কমিটির সিদ্ধান্ত অনুযায়ী জেলার অন্যান্য মসজিদে প্রথম জামাত সাড়ে ৭টায় অনুষ্ঠিত হবে।


এছাড়া পবিত্র ঈদুল ফিতর উপলক্ষে সকল সরকারি ও বেসরকারি প্রতিষ্ঠানে জাতীয় পতাকার পাশাপাশি আরবি ও বাংলা হরফে লেখা ঈদ মোবারক লেখা পতাকা উত্তোলন করতে বলা হয়েছে। শহরের প্রধান প্রধান সড়কে ঈদ মোবারক লিখিত প্লাকার্ড ও ব্যানার স্থাপন করবে স্থানীয় জন প্রতিনিধি, ইসলামিক ফাউন্ডেশন ও জেলা প্রশাসন।  


আরও খবর



মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনার কলি বেপরোয়া

আশুগঞ্জে মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনার কলির বিরুদ্ধে থানায় জিডি

প্রকাশিত:Thursday ১৯ May ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৪ May ২০২২ | ১০৭জন দেখেছেন
Image
আশুগঞ্জ প্রতিনিধিঃ
ব্রাহ্মণবাড়িয়ার আশুগঞ্জে দিন দিন অপ্রতিরোধ্য হয়ে উঠেছেন মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রী আনার কলি। 

সম্প্রতি  তার দখল বাণিজ্যের তথ্য অনুসন্ধ্যান করতে গিয়ে ওই নেত্রীর হুমকি-ধামকিসহ তোপের মুখে পড়েছেন উপজেলা সহকারি (ভূমি) ও গনমাধ্যম কর্মীরা। এ ঘটনায় উপজেলা প্রশাসন ও গণমাধ্যম কর্মীরা ওই নেত্রীর বিরুদ্ধে আশুগঞ্জ থানায় পৃথক দুটি সাধারণ ডায়েরী করেছেন।


মহিলা আওয়ামীলীগের নেত্রীর বিরুদ্ধে উপজেলা প্রশাসন এবং সাংবাদিকের জিডি করার বিষয়টি টক অব দ্যা আশুগঞ্জে পরিণত হয়েছে।
অনুসন্ধ্যানে জানা গেছে, ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলা মহিলা আওয়ামীলীগের অর্থ সম্পাদক  ও আশুগঞ্জের প্রভাবশালী নেত্রী আনার কলি স্থানীয় রওশন আরা জলিল বালিকা উচ্চ বিদ্যালয় সংলগ্ন রেলওয়ের ১১৮৮ বর্গফুট জায়গা লীজ নেন মৎস্য, কৃষি ও নার্সারী করার শর্তে ।


ওই জায়গা লীজ নিয়ে আনার কলি লীজের শর্ত ভঙ্গ করে সেখানে মার্কেট করার জন্য জলাশয় ভরাট করতে থাকেন। খবর পেয়ে  গত ৩০ এপ্রিল আশুগঞ্জ উপজেলা সহকারি কমিশনার (ভূমি) ঘটনাস্থলে গিয়ে অবৈধ মাটি ভরাটে বাঁধা দেন। এ সময় সেখানে থাকা আনার কলি ও তার সাথে থাকা অজ্ঞাতনামা আরো ২/৩ জন সহকারি কমিশনার (ভূমি) কে অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ সরকারি কাজে বাঁধা প্রদান করেন।
 এ ঘটনায় সহকারি কমিশনারে পক্ষে নাজির মনিরুজ্জামান বাদী হয়ে গত ৩০ এপ্রিলই  আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরী দায়ের করেন। জিডি নং-২৭৩৬।


এদিকে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলির জলাশয় ভরাট করে অবৈধভাবে সেখানে মার্কেট নির্মান করার বিষয়ে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যম ফেসবুকে ব্যাপক লেখালেখি শুরু হলে সময় টেলিভিশনের ব্রাহ্মণবাড়িয়ার ব্যুরো প্রধান উজ্জ্বল চক্রবর্তী তার ক্যামেরাপারসন মোঃ জুয়েলুর রহমানকে সাথে নিয়ে গত বুধবার দুপুর  সোয়া ১২ টার দিকে আশুগঞ্জে ঘটনাস্থলে গিয়ে তথ্য সংগ্রহ করতে থাকলে খবর পেয়ে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলি ঘটনাস্থলে এসে চিৎকার করে বলতে থাকেন ‘আপনারা ভুয়া সাংবাদিক, আমার কাছ থেকে টাকা নিতে এসেছেন।’ 

এ সময় আনার কলি তাদের অকথ্য ভাষায় গালাগালসহ তাদের বিরুদ্ধে চাঁদাবাজি এবং নারী নির্যাতনের মামলা করার হুমকি দেন। এ সময় আনার কলি মোবাইলে সাংবাদিক উজ্জল  ও তার ক্যামেরাপারসন জুয়েলুর রহমানের ভিডিও ধারণ করেন এবং সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে ছাড়ারও হুমকি দেন। এ সময় আনার কলি সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তী দেখে নেয়ার হুমকি দেন।
এ ঘটনায় সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তী বুধবার দুপুরে আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেন। জিডি নং-১০৪৬।


স্থানীয়রা জানান, আনার কলি রেলওয়ে থেকে এগারশ আটাশি বর্গফুট জায়গা লীজ নিয়ে জলাশয় ভরাট করে কয়েকগুণ বেশি জায়গা জুড়ে মার্কেটের কাঠামো নির্মাণ করছেন।
স্থানীয় বাসিন্দা, নূর উল্লাহ সরকার সাংবাদিকদের বলেন, ওই নেত্রী লীজ নেয়া জায়গায় অবৈধভাবে দোকান নির্মান করেছেন। অথচ এলাকায় কোন সিএনজিচালিত অটোরিকসা স্ট্যান্ড করার মতো কোন জায়গা নেই। প্রতিদিন এখানে যানজট লেগে থাকে। ওই নেত্রীকে কেউ কিছু বলতে পারে না। যে তার বিরুদ্ধে কথা বলেন, তাকে চাঁদাবাজি ও নারী নির্যাতন মামলা দেয়ার ভয় দেখায়। 

মোঃ সালমান নামে আরেক বাসিন্দা মহিলা আওয়ামীলীগ নেত্রী আনারকলি  রেলওয়ের কাছ থেকে এই জায়গা মাছ চাষ করার কথা বলে লীজ নিয়েছেন বলে শুনেছি। মাছ চাষ করার কথা বলে ওই জায়গা লীজ এনে তিনি জলাশয় ভরাট করে দোকানপাট  নির্মান করেছেন। তার ভয়ে কেউ তাকে কিছু বলতে সাহস পায়না।

মার্কেটে দোকান ভাড়া নেয়া মোঃ আল-আমিন বলেন, আমি আনার কলির কাছ থেকে মাসিক ৪ হাজার টাকা ভাড়ায় একটি দোকান ভাড়া নিয়েছি। সিকিউরিটি বাবদ দিয়েছি ৬০ হাজার টাকা।
এ ব্যাপারে সাংবাদিক উজ্জ্বল চক্রবর্তীর সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা স্বীকার করে বলেন, সংবাদ সংগ্রহ করতে গেলে মহিলা আওয়ামী লীগ নেত্রী আনার কলি আমাদের সাথে আপত্তিজনক আচরণসহ চাঁদাবাজি নারী নির্যাতন করার হুমকি দেন এবং মোবাইলে আমাদের ভিডিও ধারণ করেন অসৎ উদ্দেশ্যে ।

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা (ইউএনও) অরবিন্দু বিশ্বাসের সাথে যোগাযোগ করলে তিনি ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে বলেন, লীজের শর্ত ভঙ্গ করে আনার কলি অবৈধভাবে জলাশয় ভরাট করছে খবর পেয়ে এসিল্যান্ড বাঁধা প্রদান করলে আনার কলি তার সাথে অশোভন ও আপত্তিকর আচরণ করেন। আমরা বিষয়টি উর্দ্ধতন কর্তৃপক্ষকে অবহিত করেছি। এ ঘটনায় এসিল্যান্ড আশুগঞ্জ থানায় একটি সাধারণ ডায়েরি করেছেন। আমরা বিষয়টি রেলের সংশ্লিষ্ট কর্তৃপক্ষকে লিখিতভাবে জানাবো। 

এ ব্যাপারে আশুগঞ্জ উপজেলা পরিষদের চেয়ারম্যান হানিফ মুন্সী সাংবাদিকদেরকে বলেন, উপজেলা পরিষদের আসার পথে আমি এই জায়গাটি দেখেছি। বালু দিয়ে ভরাটের সময় সময় আমি স্থানীয়দের কাছ থেকে জানতে পারি জায়গাটি আনারকলি ভরাট করছেন। পরে আনার কলির সাথে কথা বললে তিনি জানান, এই জায়গা তিনি রেলওয়ের কাছ থেকে লীজ এনেছেন। তবে এখানকার অটোরিক্সা চালকদের দাবি ছিল এখানে একটি সিএনজি স্ট্যান্ড করার জন্য । 

কিন্তু রেলওয়ের জায়গা হওয়ার কারণে আমরা সেখানে হস্তক্ষেপ করতে পারিনি। জলাশয় ভরাটের বিষয়ে আমরা অবগত হয়েছি এবং এ ব্যাপারে আইনগত ব্যবস্থা গ্রহণের প্রক্রিয়া চলছে।
এ ব্যাপারে রেলওয়ের ভূ-সম্পদ কর্মকর্তা শহীদুল ইসলামের কাছে জানতে চাইলে তিনি বলেন, লীজের শর্ত ভঙ্গ করলে এবং অবৈধভাবে জলাশয় ভরাট করলে অবশ্যই তার বিরুদ্ধে ব্যবস্থা নেয়া হবে।

আরও খবর