Logo
আজঃ Friday ১৯ August ২০২২
শিরোনাম
রূপগঞ্জে আবাসিকের অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন ডেমরায় প্যাকেজিং কারখানায় ভয়বহ অগ্নিকান্ড রূপগঞ্জে পুলিশের ভুয়া সাব-ইন্সপেক্টর গ্রেফতার রূপগঞ্জে সিরিজ বোমা হামলার প্রতিবাদে বিক্ষোভ ॥ সভা সরাইলে সাবেক প্রধানমন্ত্রী বেগম খালেদা জিয়ার ৭৭তম জন্মবার্ষিকী উপলক্ষ্যে বিশেষ দোয়া অনুষ্ঠিত। নারায়ণগঞ্জে পারিবারিক কলহে স্ত্রীকে পুতা দিয়ে আঘাত করে হত্যা,,স্বামী গ্রেপ্তার রূপগঞ্জ ইউএনও’র বিদায় সংবর্ধনা নাসিরনগরে স্বামীর পরকিয়ার,বলি ননদ ভাবীর বুলেটপানে আত্মহত্যা নাসিরনগরে জাতীয় শোক দিবস ও বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমানের ৪৭ তম শাহাদত বার্ষিকী পালিত ডেমরায় জাতীয় শোক দিবসের কর্মসুচি পালিত

রোববার থেকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে সশরীরে ক্লাস বন্ধ

প্রকাশিত:Thursday ০৬ January ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৩৫২জন দেখেছেন
Image

দেশব্যাপী করোনা পরিস্থিতি বিবেচনায় সশরীরে ক্লাস বন্ধ রাখার সিদ্ধান্ত নিয়েছে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয় প্রশাসন। তবে, বিশ্ববিদ্যালয়ের দাপ্তরিক সকল কার্যক্রম চালু থাকবে।

আজ বৃহস্পতিবার বিষয়টি নিশ্চিত করেছেন বিশ্ববিদ্যালয়ের ভারপ্রাপ্ত রেজিস্ট্রার রহিমা কানিজ। গতকাল রাতে বিশ্ববিদ্যালয়ের এক প্রশাসনিক সভায় এই সিদ্ধান্ত নেওয়া হয়েছে বলে জানান তিনি।

তিনি আরও জানান, রোববার থেকে অনলাইনে ক্লাস চলবে। আবাসিক হলগুলো বন্ধের বিষয়ে এখনো কোনো সিদ্ধান্ত হয়নি। তবে, হলগুলোতে বড় পরিসরে আইসোলেশনের ব্যবস্থা রাখার কথা ভাবা হচ্ছে।

রহিমা কানিজ বলেন, আগামী রোববার থেকে পরবর্তী নোটিশ না দেওয়া পর্যন্ত সশরীরে ক্লাস বন্ধ থাকবে। দেশব্যাপী করোনার প্রকোপ বিবেচনায় এই সিদ্ধান্ত বহাল থাকবে। তবে, এ সময় দাপ্তরিক সব কার্যক্রম চালু থাকবে।

তিনি আরও বলেন, স্বল্প সংখ্যক শিক্ষার্থী নিয়ে একাধিক গ্রুপ করে চলমান পরীক্ষা ও ব্যবহারিক ক্লাসগুলো যথাযথ স্বাস্থ্যবিধি মেনে অব্যহত থাকবে। প্রয়োজনে একাধিক কক্ষে পরীক্ষাগুলো নেওয়া হবে।

জানা গেছে, গত মঙ্গলবার রাতে হল প্রভোস্ট ও ডিনদের বৈঠকে এই বিষয়ে আলোচনা হয়। ওই আলোচনার পরিপ্রেক্ষিতে গতরাতে প্রশাসনিক সভায় বিষয়টি উত্থাপিত হয়।

উল্লেখ্য, গত বছরের ১১ অক্টোবর জাবির হলগুলো খুলে দেওয়া হয় এবং ২১ অক্টোবর থেকে সশরীরে ক্লাস শুরু হয়।


আরও খবর



কলকাতার অভিনেতার আত্মহত্যার চেষ্টা

প্রকাশিত:Tuesday ০৯ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ২৮জন দেখেছেন
Image

কলকাতার বেশ কজন মডেল-অভিনেত্রী গত কয়েক মাসে আত্মহত্যা করেছেন। এবার ধারালো অস্ত্র দিয়ে নিজেকে জখম করে আত্মহত্যার করতে চেয়েছিলেন ছোটপর্দার অভিনেতা শৈবাল ভট্টাচার্য। গুরুতর আহত অবস্থায় তাকে কলকাতার ন্যাশনাল মেডিক্যাল কলেজ হাসপাতালে ভর্তি করা হয়েছে।

ভারতীয় গণমাধ্যম সংবাদ প্রতিদিন থেকে জানা গেছে, সোমবার (০৮ আগস্ট) রাতে কলকাতার কসবায় নিজের ফ্ল্যাট থেকে রক্তাক্ত অবস্থায় উদ্ধার করা হয় শৈবালের দেহ। সঙ্গে সঙ্গে তাকে হাসপাতালে ভর্তি করা হয়। তাকে নিয়ে উদ্বিগ্ন পরিবার ও সহকর্মীরা।

জানা গেছে, পেশাগত দিক থেকে দীর্ঘ দিন ধরে মানসিক অবসাদে ভুগছেন শৈবাল ভট্টাচার্য। গতকাল মদ্যপ অবস্থায় নিজের মাথা ও ডান পায়ে ধারালো অস্ত্র দিয়ে আঘাত করেন। পরে গুরুতরু আহত অবস্থায় তাকে হাসপাতালে নিয়ে যাওয়া হয়। এ অভিনেতার অতিরিক্ত রক্তক্ষরণ হয়েছে। আপাতত হাসপাতালে ভর্তি রয়েছেন তিনি। তার অবস্থা আশঙ্কাজনক।

শৈবাল ভট্টাচার্য ছোটপর্দার চেনা মুখ। অভিনয় করেছেন একাধিক খল চরিত্রে। সম্প্রতি একটি জনপ্রিয় ওয়েব সিরিজেও দেখা যায় তাকে। বিভিন্ন শেড সহজেই ফুটিয়ে তুলতেন অভিনেতা শৈবাল ভট্টাচার্য। বাংলা ধারাবাহিকে বেশ কিছু পজিটিভ চরিত্রেও তার দেখা মিলেছে। অভিনয় করেছিলেন জনপ্রিয় ‘প্রথমা কাদম্বিনী’ ধারাবাহিকে।


আরও খবর



নিউইয়র্কে নিজ গাড়িতে মিললো বাংলাদেশির মরদেহ

প্রকাশিত:Friday ২২ July 20২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ৫২জন দেখেছেন
Image

যুক্তরাষ্ট্রের বৃহত্তম শহর নিউইয়র্কের ম্যানহাটনে এক প্রবাসী বাংলাদেশি উবার চালকের মরদেহ উদ্ধার করেছে স্থানীয় পুলিশ। নিহতের নাম আলী আকবর মামুন (৩৯)। তার গ্রামের বাড়ি চট্টগ্রামের রাউজানে উপজেলায়। তিনি কুইন্সের জ্যাকসন হাইটসে থাকতেন।

স্থানীয় সময় বুধবার ভোরে ম্যানহাটনের মিডটাউনে নিজ গাড়ি থেকে তার মরদেহ উদ্ধার করে নিউইয়র্ক পুলিশ। পুলিশের ধারণা, আলী আকবর গাড়িতেই স্ট্রোক বা হার্ট অ্যাটাক করেছিলেন।

সেখানকার প্রবাসী কমিউনিটি নেতা মাকসুদ চৌধুরী ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানিয়েছেন, বুধবার ভোরে মামুন মিডটাউনে পার্ক ও লেক্সিনটন অ্যাভিনিউ এবং ৫১ স্ট্রিটে নিজ গাড়িতেই মারা যান। পুলিশ এসে তার মরদেহ উদ্ধার করে। পরে তার ফোন থেকে বাংলাদেশের ফোন নম্বর নিয়ে পরিবারের সঙ্গে যোগাযোগ করা হয়। দেশে থেকে তিনি মামুনের মৃত্যুর খবর পেয়ে স্থানীয় পুলিশ স্টেশনে কথা বলেন।

তিনি আরও জানান, মামুনের মরদেহ দেশে পাঠানোর প্রস্তুতি চলছে। তবে মেডিকেল ও পুলিশ প্রতিবেদন এখনো পাওয়া যায়নি।

২০০৬ সালে ডিবি লটারির পেয়ে আমেরিকা যান মামুন। এ বছর তার মা-বাবা হজ পালন করছেন। সম্প্রতি পরিবারের সঙ্গে মামুনের যোগাযোগ কম ছিল বলে জানা গেছে। তিনি মানসিকভাবে বিপর্যস্ত ছিলেন বলে ধারণা করা হচ্ছে।


আরও খবর



আমদানি স্বাভাবিক, তবুও বাড়ছে পেঁয়াজের দাম

প্রকাশিত:Wednesday ১৭ August ২০২২ | হালনাগাদ:Thursday ১৮ August ২০২২ | ২২জন দেখেছেন
Image

ভারত থেকে আমদানি স্বাভাবিক থাকলেও দিনাজপুরের হিলি বন্দরে বেড়েছে পেঁয়াজের দাম। পাঁচ দিনের ব্যবধানে কেজিতে দাম বেড়েছে ৬-৮ টাকা। ডলারের কারণে দাম ওঠানামা করছে বলে জানিয়েছেন ব্যবসায়ীরা।

বুধবার (১৭ আগস্ট) সকালে হিলির পেঁয়াজ বাজার ঘুরে দেখা গেছে, পাঁচ দিন আগে পাইকারি বাজারে যে পেঁয়াজ বিক্রি হয়েছিল ২২ টাকা কেজি দরে, আজ তা বিক্রি হচ্ছে ২৮ টাকা দরে। খুচরা ব্যবসায়ীরা তা ৩০-৩২ টাকা দরে বিক্রি করছেন। হঠাৎ পেঁয়াজের দাম বাড়ায় বিপাকে পড়েছেন ক্রেতারা।

ছেলেমেয়েসহ ভ্যানচালক রফিক উদ্দিনের সংসারে ছয়জন সদস্য। দুই ছেলের স্কুলের খরচ মিটিয়ে প্রতিদিন তার সংসারের পেছনে ব্যয় হয় ৪০০-৫০০ টাকা। সম্প্রতি নিত্যপ্রয়োজনীয় সব কিছুর দাম বেড়ে যাওয়ায় ক্ষোভ প্রকাশ করেন তিনি।

jagonews24

রফিক উদ্দিন জাগো নিউজকে বলেন, ‘আমাদের আয় তো বাড়ে নাই। অথচ সবজিসহ সব জিনিসের দাম বেড়েছে। তেল নিলে চাল হয় না আবার সবজি নিলে মাছ হয় না। ৪০০ টাকার বাজার করলে তলাত (তলায়) পড়ে থাকে। এই ভাবে চলছে হামার (আমার) জীবন।’

তিনি বলেন, ‘বাপুরে, হারা (আমরা) ডলার-ফলার বুঝি না। দাম বাড়লে মাথা ঠিক থাকে না। পাঁচ দিন আগে ২২ টাকা কেজি পেঁয়াজ কিনেছিলাম। আজ সেই পেঁয়াজ দেখছি ২৮ টাকা কেজি। এভাবে দাম বাড়লে আমাদের মতো সাধারণ মানুষ বাঁচবে কী করে?’

হিলি বাজারের পাইকারি পেঁয়াজ ব্যবসায়ী ফেরদৌস রহমান বলেন, ‘ভারত থেকে হিলি বন্দর দিয়ে আমদানি স্বাভাবিক থাকলেও পেঁয়াজের দাম হঠাৎ বেড়ে গেছে। ২২ টাকার পেঁয়াজ আজ বিক্রি করছি ২৮ টাকা কেজি দরে। ডলারের দাম ওঠানামা করায় পেঁয়াজের দাম বেড়ে যাচ্ছে।’

পেঁয়াজের খুচরা ব্যবসায়ী মো. শাকিল জাগো নিউজকে বলেন, ‘সবজির দাম আমরা বাড়াই না। তবে বেশি দামে কিনলে বেশি দামে বিক্রি করাটাই স্বাভাবিক। তারপরও সব দোষ আমাদের হয়। আমরা আড়তে ২৮ টাকা কেজি দরে পেঁয়াজ কিনে দুই টাকা লাভে ৩০ টাকায় বিক্রি করছি।’


আরও খবর



তীব্র গরমে চাপের মুখে ফ্রান্সের পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো

প্রকাশিত:Tuesday ১৬ August ২০২২ | হালনাগাদ:Friday ১৯ August ২০২২ | ২৬জন দেখেছেন
Image

ইউরোপের অন্য দেশগুলোর মতো কয়েক সপ্তাহ ধরে ৪০ ডিগ্রি সেলসিয়াস তাপমাত্রায় পুড়ছে ফ্রান্সও। এতে দেশটিতে নদীগুলোর পানি কমে গেলেও পারমাণবিক বিদ্যুৎনির্ভরতা বাড়ানোর পরিকল্পনা থেকে সরে আসার কোনো লক্ষণ নেই ফরাসি সরকারের। ফ্রান্সের জ্বালানি চাহিদার প্রায় ৭০ শতাংশই পূরণ হয় পারমাণবিক বিদ্যুৎ থেকে৷ বিশ্বের আর কোনো দেশ পারমাণবিক বিদ্যুতের ওপর এতটা নির্ভরশীল নয়৷ কিন্তু গত কয়েক সপ্তাহের টানা গরমে ফ্রান্সের পারমাণবিক চুল্লিগুলোর ওপর অতিরিক্ত চাপ তৈরি হয়েছে৷ খবর ডয়েচে ভেলের।

ফ্রান্সের ৫৬টি পারমাণবিক চুল্লি রয়েছে৷ এগুলোর মধ্যে অর্ধেকেরও বেশি চুল্লি পরিকল্পিত অথবা অস্বাভাবিক রক্ষণাবেক্ষণের জন্য বর্তমানে বন্ধ রয়েছে।

এসব পারমাণবিক চুল্লি ঠান্ডা করতে সাধারণত নদীর পানি ব্যবহার করা হয়৷ কিন্তু তা করতে গিয়ে নদীর পানির তাপমাত্রা যেন নির্দিষ্ট সীমা অতিক্রম না করে, সে বিষয়ে আইন রয়েছে দেশটিতে৷ তবে চলমান সংকটের কারণে অন্তত আগামী ১১ সেপ্টেম্বর পর্যন্ত সেই আইন প্রয়োগ স্থগিত করেছে ফরাসি সরকার৷

তীব্র গরমে চাপের মুখে ফ্রান্সের পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো

এতে ফ্রান্সের নদীগুলোর তাপমাত্রা বেড়ে যাচ্ছে৷ যেমন- দেশটির দক্ষিণ-পশ্চিমাঞ্চলের গ্যারন নদীর পানির তাপমাত্রা প্রায় ছয় ডিগ্রি সেলসিয়াস বেড়ে গেছে বলে জানিয়েছেন স্থানীয় পরিবেশকর্মী জ্য-পিয়ের ডেলফু৷ তিনি বলেন, বাস্তুতন্ত্রের ওপর ভয়ংকর প্রভাব ফেলবে জেনেও তারা কীভাবে চুল্লিগুলো চালু রাখে, আমি বুঝি না।

ডেলফু বলেন, তীব্র গরমে গ্যারন নদীর পানিপ্রবাহ প্রতি সেকেন্ডে ৫০ ঘনমিটারের নিচে নেমে গেছে, যা স্বাভাবিক সময়ে কয়েক হাজার থাকে। এর পরিস্থিতি আরও খারাপ করছে গলফ্যাশ পারমাণবিক চুল্লি৷ কারণ চুল্লি ঠান্ডা করতে আট ঘনমিটার পানি দরকার৷ কিন্তু শীতলীকরণ প্রক্রিয়া শেষে মাত্র ছয় ঘনমিটার পানি নদীতে ছাড়া হচ্ছে৷ বাকিটা বাষ্প হয়ে উড়ে যাচ্ছে৷

তিনি বলেন, পানির তাপমাত্রা বেড়ে যাওয়ায় খাদ্যচক্রের ওপর প্রভাব পড়ছে৷ উষ্ণ পানি মাইক্রোঅ্যালজি (ক্ষুদ্র শৈবাল) ধ্বংস করে দেয়৷ এই অ্যালজিগুলো ছোট মাছের খাবার৷ আবার ছোট মাছ হচ্ছে বড় মাছের খাবার৷ এছাড়া উষ্ণ পানিতে ব্যাকটেরিয়া বেশি থাকে৷ ফলে এই পানিকে পানযোগ্য করতে বেশি রাসায়নিক ব্যবহার করতে হয়।

তীব্র গরমে চাপের মুখে ফ্রান্সের পরমাণু বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো

এ বিষয়ে ফ্রান্সের পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র পরিচালনাকারী সংস্থা ইডিএফ’র সঙ্গে যোগাযোগ করা হলে সংস্থাটির মুখপাত্র জানান, এখন পর্যন্ত পারমাণবিক চুল্লির কারণে আশপাশের জীববৈচিত্র্য ক্ষতিগ্রস্ত হওয়ার কোনো প্রমাণ পাওয়া যায়নি৷

আরও পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্র বানাবে ফ্রান্স
প্যারিস ইউনিভার্সিটি ডোফাইনের ক্লাইমেট ইকোনমি ডিরেক্টর আনা ক্রেটি জানান, বর্তমান পারমাণবিক বিদ্যুৎকেন্দ্রগুলো সংস্কার ও নতুন বিদ্যুৎকেন্দ্র নির্মাণের জন্য ফ্রান্স দেড়শ বিলিয়ন ইউরো বা ১৪ লাখ ৫২ হাজার কোটি টাকা বরাদ্দ করেছে৷

নবায়নযোগ্য জ্বালানির জন্য এমন বরাদ্দ না করলেও এ খাতের উন্নয়নে লাল ফিতার দৌরাত্ম্য কমাতে নতুন আইন করছে ফরাসি সরকার।

ইউরোপের মধ্যে ফ্রান্সই একমাত্র দেশ, যে ২০২০ সালের মধ্যে নবায়নযোগ্য জ্বালানি উৎপাদনে ইইউ নির্ধারিত লক্ষ্যমাত্রা পূরণ করতে পারেনি৷ ২০২০ সালের মধ্যে সদস্য দেশগুলোর জ্বালানি চাহিদার ২৩ শতাংশ নবায়নযোগ্য জ্বালানি থেকে মেটানোর লক্ষ্যমাত্রা ঠিক করেছিল ইউরোপীয় ইউনিয়ন৷ ফ্রান্স তা করতে পেরেছে মাত্র ১৯ শতাংশ৷


আরও খবর



বীর মুক্তিযোদ্ধা সুরঞ্জন দাস দম্পতির শেষকৃত্য ২১ আগস্ট

প্রকাশিত:Saturday ১৩ August ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ১৭ August ২০২২ | ২১জন দেখেছেন
Image

কানাডায় সড়ক দুর্ঘটনায় নিহত বীর মুক্তিযোদ্ধা মেজর (অবঃ) সুরঞ্জন দাশ ও তার স্ত্রী সুপর্ণা দাশের শেষকৃত্য ২১ আগস্ট ভ্যাঙ্কুভারের সুরি শহরে অনুষ্ঠিত হবে। গত ৫ আগস্ট সড়ক দুর্ঘটনায় কানাডিয়ান দম্পতি নিহত হন।

প্রয়াতের পরিবারের পক্ষ থেকে সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে দেওয়া ঘোষণায় শেষকৃত্যের বিষয়ে বিস্তারিত জানানো হয়েছে। ১৪৬৪৪৭২ এভেনিউ, সুরি’র ভ্যালি ভিউ ফিউনারেল হোমে শেষকৃত্যের আনুষ্ঠানিকতা হবে বলে জানানো হয়েছে।

বাংলাদেশের মুক্তিযুদ্ধে সশস্ত্র লড়াইয়ে সক্রিয়ভাবে অংশ নেওয়া মেজর (অবঃ) সুরঞ্জন দাস ঢাকা থেকে ‘দৈনিক মাতৃভূমি’ নামে একটি জাতীয় পত্রিকা প্রকাশ করেছিলেন। দেশের প্রধান কবি শামসুর রাহমান পত্রিকাটির সম্পাদক হিসেবে দায়িত্ব পালন করেন।

মেজর (অবঃ) সুরঞ্জন দাস পরে কানাডায় অভিবাসী হন এবং ভ্যাঙ্কুভারে স্থায়ীভাবে বসবাস করছিলেন। গত ৫ আগস্ট সকালে স্ত্রীসহ সড়ক দুর্ঘটনায় পতিত হলে ঘটনাস্থলেই তাদের মৃত্যু হয়।

ব্রিটিশ কলম্বিয়া প্রভিন্সের ভারনন নর্থ আরসিএমপির তথ্য অনুসারে, ৫ আগস্ট সকাল সাড়ে ৮টায় ভারনন ক্যাডেট টেনিং সেন্টারের পাশে বেইলি রোড ও কালামালকা লেকভিউ ড্রাইভ এলাকায় একসঙ্গে কয়েকটি গাড়ির ধাক্কা লাগার ঘটনা ঘটে। দুর্ঘটনার পর পর পুলিশ হাইওয়ে ৯৭ উভয়দিক থেকে বন্ধ করে দেয়। সড়ক পরিস্থিতি স্বাভাবিক হতে দীর্ঘ সময় লেগে যায়।

পুলিশের পক্ষ থেকে দুর্ঘটনার তথ্য গণমাধ্যমকে জানানো হলেও তাৎক্ষণিকভাবে হতাহতদের ব্যাপারে কোনো তথ্য প্রকাশ করা হয়নি। তবে প্রয়াতের পরিবারের সঙ্গে সংশ্লিষ্টদের সূত্রে নির্মম এই মৃত্যুর খবর পুরো কানাডায় ছড়িয়ে পড়লে বাংলাদেশিদের মধ্যে শোকের ছায়া নেমে আসে।


আরও খবর