Logo
আজঃ Tuesday ২৬ October ২০২১
শিরোনাম
বাবা হুট করেই নাকি আমার বিয়ে ঠিক করেছে

রম্যগল্প- বিয়ে বিড়ম্বনা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ২২৭জন দেখেছেন
Image

 

 

️লেখক: তাসনিয়া তাবাসসুম


বাবা হুট করেই নাকি আমার বিয়ে ঠিক করেছে।আমি কেবলই ইউনিভার্সিটিতে পা রেখেছি ছ'মাসও হয় নি আর তিনি অলরেডি আমার জন্য পাত্রী দেখা শুরু করেছেন।আরে বাবা,এই সদ্য উৎপন্ন চাল কি আর সেই সরিষার মতো ফুটফুটে ফুলের তেলের ঘানি টানতে পারবে!

 

বাবাকে কিছু বললেই বলে আমি বেকার হয়েছি তো কি হয়েছে?সেও নাকি এই বয়সেই বিয়ে করেছিল,তার পূর্বপুরুষের পন্থা নাকি এটা!মনে মনে সাধে তো আর বলি না যে এই জন্যেই তো মাথায় আস্ত একটা টাক জন্ম দিয়েছো!!

রাফিনকে ফোন করে আসতে বললাম সেদিন যে দোস্ত,একটা ইমারজেন্সি কথা আছে জলদি টিএসসির সামনে আয়।

ওই ব্যাটা মুখের উপরই বলে দিল,"কি রে আঙ্কেল আবার নিশ্চয়ই তোমার পিছনে বাছুরের মতো ছুটছে?তো বিয়ে করছিস কবে?"

কথাটা শুনে হাসবো না কাঁদবো না ইমোশনাল হবো কিছুই বুঝতে পারলাম না।শেষমেশ রাফিনকে অভিশাপ....থুক্কু বকা দিয়েছি আর কি!তাকে সোজাসাপটা বলে দিয়েছি বিয়ে করলে আমি একটা হিজড়ারেই বিয়ে করবো।

এই শালা রাফিন ডিরেক্ট গিয়ে বাবাকে বলে দিয়েছে কিন্তু আমি জানি না।

প্রতিদিনের মতো এবারও বেশ ফুরফুরে মেজাজে বাড়িতে ঢুকেছি।ঢুকেই দেখছি বাসা ভর্তি মানুষ।তাজ্জব ব্যাপার তো!এ সময়ে বাসায় এত মানুষ,কারো বিয়ে হবে নাকি?

বাবাকে খুঁজছি কিন্তু কেউ নেই।রুমের মধ্যে ঢুকতেই দেখি একজন মাথায় ঘোমটা দিয়ে কি সুন্দর করে শাড়ি পরে বসে আছে।মনে মনে ভাবলাম যাক বাবা মনে হয় আমার জন্য ভালো পাত্রীই ঠিক করেছেন।আস্তে আস্তে এগুলাম তার দিকে।ঘোমটাটা খুলবো এমন সময় রাফিন এসে গেছে।

কি রে মুহিব্বি!কি খবর?আঙ্কেল তোরে বিয়ে তাইলে দিয়েই দিলো।তো দোস্ত তোমার মনের সকল আশা-আকাঙ্ক্ষা পূর্ণ হোক।আর ভাবী,ছেলেকে তো আগেই দেখেছেন।এখন আরও ভালো করে দেখে নেন।

আসি দোস্ত,ভালো থাক...

এতক্ষণ জোর করে রাগটা চেপে রেখেছিলাম কিন্তু যাক,গাধাটা গেছে এখন।এখন তো আমার বউকে দেখাই যায়!

আস্তে আস্তে আবার এগুলাম তার দিকে।ঘোমটাটা খুলছি ধীরেধীরে।

মেয়ের চেহারা যেই না দেখতে যাবো অমনি কি এক বিচ্ছিরি মেয়েছেলে গলা দিয়ে কে যেন বলে উঠলো,"ও গো আমার না লজ্জা লাগছে!প্লিজ ওভাবে তাকিও না!"

আমি কিছুক্ষণ কথাগুলো হজম করলাম।ভাবছি আমার রুমে তো অন্য কেউ নেই তাহলে এই পুরুষ-মহিলা কণ্ঠস্বর আসছে কোথা থেকে!

ধুর,ওসব পাত্তা না দিয়ে এবার ঘোমটাটা খুললাম।ইশশ কি সুন্দর মিষ্টি গায়ের রঙ,ঠোঁটগুলোও কি গোলাপি-- একেবারে গোলাপের পাপড়ির মতো পাতলা,আর চোখ উফফ কি যে অথৈ সাগরে ডুবে গেলাম!একেবারে সাক্ষাৎ পরি!

"এই অমন করে কি দেখছো?আমাকে পছন্দ হয়েছে তো তোমার,বলো না?"

জীবনে বোধহয় এতটা হতভম্ব কখনোই হই নি।মানে কি?শেষ পর্যন্ত মেয়ের গলা পুরুষের মতো হলো!!!এত সুন্দর মেয়ে আর গলা এই বিচ্ছিরি!

মানতে কষ্ট হচ্ছে কিন্তু তারপরেও তো সে আমার বউ।

আমার জড়িয়ে ধরে সে বলতে লাগলো,"এই দেখো না আমার দিকে!কেমন লাগছে আমার হু?"

আচ্ছা এক সেকেন্ড এটা তো কোনো মেয়ের গলা না।মেয়েদের গলার স্বর তো সুকণ্ঠ,সুমিষ্ট কিন্তু...

তার মানে এ কি তাইলে হিজড়া!!!আল্লাহ গো, আমাকে বাঁচাও,আব্বা শেষমেশ আমাকে সত্যিসত্যিই হিজড়ার সাথে বিয়ে দিয়েছে!

নাআআআআআআআআ!!!

আব্বাআআআআআআআআআ....

কয়েকদিন পর...

আমি এখন কোথায়?আব্বা,রাফিন দোস্ত আছিস?

-হ্যাঁ দোস্ত বল।তুই হসপিটালে। এখন কেমন লাগছে?

-কিছুটা ভালো লাগছে।কিন্তু আমি না বাসায় ছিলাম,হসপিটালে আসলাম কিভাবে?

-আরে ব্যাটা,তোর মনে নাই তোর বিয়ে হয়েছিল।ওই যে সুন্দর একটা হিজড়ার সাথে।তোদের কথা হচ্ছিলো আর তুই তো আব্বা বলে এমন চিৎকার দিলি। আর আমরা এসে দেখি তুই অজ্ঞান হয়ে পড়ে আছিস!

ভাইয়া,মুহিব্বি এখন কেমন আছে?

-দোস্ত,এবার বোধহয় আমি আর বাঁঁচবো না!

অতঃপর আমি আবারও সেন্সলেস!!!

 

️লেখক: তাসনিয়া তাবাসসুম

 


আরও খবর



কাল থেকে শতভাগ মুসল্লি প্রবেশ করবে কাবায়

মাস্ক পরার বিধিনিষেধ তুলে নিচ্ছে সৌদি, শতভাগ মুসল্লি প্রবেশ করবে কাবায়

প্রকাশিত:Saturday ১৬ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ২৩০জন দেখেছেন
আন্তর্জাতিক ডেস্ক

Image


 

সৌদি আরবে করোনার বিধিনিষেধ ব্যাপকভাবে শিথিল করা হয়েছে। রোববার (১৭ অক্টোবর) থেকে এ শিথিলতা কার্যকর হবে। নতুন নির্দেশনা অনুযায়ী, যে কোনো স্থানে ভ্রমণের ক্ষেত্রে মাস্ক পরা আর বাধ্যতামূলক থাকছে না। খবরটি জানিয়েছে আরব নিউজ।

 

তবে কিছু জায়গায় বিশেষ করে মক্কার গ্র্যান্ড মসজিদ ও মদিনায় মসজিদে নববীতে আর মাস্ক পরা বাধ্যতামূলক থাকছে। সেখানে সব ভ্রমণকারী ও স্টাফদের মাস্ক পরতে হবে। এছাড়াও পূর্ণ ধারণ ক্ষমতা অনুযায়ী মসজিদ দুইটিতে প্রবেশের অনুমতি দেওয়া হয়েছে। তবে সেক্ষেত্রে স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয়ের অ্যাপ ব্যবহার করে আগেই বুকিং দিতে হবে।

 

সামাজিক দূরত্বের ক্ষেত্রেও মানতে হবে না কোনো বাধ্যবাধকতা। পরিবহন, রেস্তোরাঁ, সিনেমাসহ সব জায়গাই চলা যাবে স্বাধীনভাবে। পূর্ণ ধারণ ক্ষমতা নিয়ে খোলা থাকবে কমিউনিটি সেন্টারগুলোও।

 

দেশটিতে ব্যাপক হারে টিকা কর্মসূচি চালানোর কারণে করোনা শনাক্তের হার এরই মধ্যে কমে এসেছে। করোনা মহামারি শুরুর পর কঠোর বিধিনিষেধ জারি করে মধ্যপ্রাচ্যের এই দেশটি। তবে শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) দেশটির স্বরাষ্ট্র মন্ত্রণালয় দীর্ঘ ১৮ মাস পর করোনার বিধিনিষেধ শিথিলের ঘোষণা দেয়। যারা দুই ডোজ টিকা নিয়েছে তারাই কেবল এই সুবিধা পাবেন।

 

এসময় দেশটির স্বাস্থ্য মন্ত্রণালয় করোনা আক্রান্তের হার পর্যবেক্ষণ করবে। বিধিনিষেধ শিথিলের করণে কোথাও যদি সংক্রমণ বাড়ার খবর পাওয়া যায় তাহলে আবার যথাযথ ব্যবস্থা নেবে কর্তৃপক্ষ।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



ছেলের বাবা যশের জন্মদিনে নুসরাতের বিশেষ ভালোবাসা

যশের জন্মদিনে নুসরাতের বিশেষ ভালোবাসা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৭৭জন দেখেছেন
বিনোদন ডেস্ক

Image


বিনোদন ডেস্ক :


টালিউডের অভিনেতা যশ দাশগুপ্ত। ৩৬ বছর পূর্ণ করলেন তিনি। শুভেচ্ছায় ভাসছেন সোশ্যাল মিডিয়া। ভক্তরা তাকে ভালোবাসায় ভরিয়ে দিচ্ছেন নানা মিষ্টি বারতায়।তবে নায়কের বিশেষ দিনে প্রেমিকা বলে খ্যাত নায়িকা নুসরাত জাহানের কি আয়োজন? সেদিকে নজর ছিল প্রায় সকলের। রাত ১২টা বাজামাত্রই অপেক্ষার অবসান হলো। প্রকাশ হলো, যশের জন্মদিনে নুসরাতের ভালবাসা।

 

যশের জন্মদিন পালনের ক্ষেত্রে যদিও কোনো আড়ম্বরের বন্দোবস্ত করেননি নুসরাত। অন্তত সোশ্যাল মিডিয়ায় তেমন কোনো আভাস পাওয়া যায়নি। যশের জন্মদিনের কথা যে তিনি ভুলেননি শুধু সেটাই জানিয়ে দিলেন ইনস্টাগ্রাম স্টোরিতে।ইনস্টা স্টোরিতে যশের ছবি পোস্ট করে জন্মদিনের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন। তার পাশেই লাল হৃদয়ের ইমোজি। যার পোশাকি নাম হার্ট ইমোজি।

 

প্রসঙ্গত, গেল বছর থেকেই টালিগঞ্জে আলোচিত জুটি যশ-নুসরাত। পর্দায় তেমন সাফল্য না পেলেও বাস্তব জীবনে সেই রসায়ন জমে ক্ষীর। তবে প্রকাশ্যে সম্পর্কের কথা স্বীকার করেননি তাদের দু’জনের কেউই। সোশ্যাল মিডিয়ায় তাদের শেয়ার করা ছবি দেখে নুসরাত এবং যশের ঘনিষ্ঠতার প্রমাণ পেয়েছেন নেটিজেনরা। একসঙ্গে লাঞ্চ ডেটেও দেখা গিয়েছে তাদের।

 

এই পরিস্থিতিতে জানা যায় নুসরাত সন্তানসম্ভবা। নানা বাঁকা কথার মাঝেও অবিচল থেকেছেন বসিরহাটের তৃণমূল সাংসদ।

 

এরপর গত ২৬ আগস্ট পুত্রসন্তানের জন্ম দেন। পার্ক স্ট্রিটের বেসরকারি হাসপাতালে সেই সময় প্রায় সারাক্ষণই নুসরতের সঙ্গী ছিলেন যশ। সন্তানের পিতৃপরিচয় নিয়ে কাটাছেঁড়া হয়েছে যথেষ্ট। যদিও কলকাতা পুরসভার জন্ম শংসাপত্রের নথি অনুযায়ী নুসরাতের ছেলের বাবার নাম দেবাশিস দাশগুপ্ত। যা অভিনেতা যশ দাশগুপ্তেরই আরেক নাম।

খবর প্রতিদিন / সি.বা


আরও খবর



প্রতিদিন কোনো না কোনো অপরাধে জড়াচ্ছে রোহিঙ্গারা

ভয়ঙ্কর অপরাধী হয়ে উঠছে রোহিঙ্গারা

প্রকাশিত:Monday ২৫ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৫০জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

রোহিঙ্গা ক্যাম্পগুলোতে প্রতিদিন কোনো না কোনো অপরাধ সংঘটিত হচ্ছে। ক্যাম্পে হত্যাকাণ্ড, ছিনতাই, সন্ত্রাসী কার্যক্রম, ইয়াবা ব্যবসা, বাংলাদেশে অনুপ্রবেশ ও অনিয়মতান্ত্রিক কাজে রোহিঙ্গাদের সংশ্লিষ্টতা পাওয়া যাচ্ছে।

 

রোববার কক্সবাজারের উখিয়া উপজেলার ১৫ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে ডি/২ ব্লকে অভিযান চালিয়ে আরসার জিম্মাদার রোহিঙ্গা মো. কেফায়েত উল্লাহকে (৩৫) আটক করা হয়েছে।

একই দিন উখিয়ার ১০ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে এফ/১৮ ব্লকে অভিযান চালিয়ে আরসার সঙ্গে সম্পৃক্ততার অভিযোগে রোহিঙ্গা মো. শফিউল্লাহকে (৩০) আটক করা হয়।

 

এদিকে একই দিন দুটি পৃথক অভিযান চালিয়ে ক্যাম্প-১৮ থেকে আরসার শীর্ষ সন্ত্রাসী মো. হাশিম (৩৮) ও আরসা সন্দেহে মাঝি মো. ফরিদ হোসেনকে (৩৫) আটক করে এপিবিএন। আটককৃত ব্যক্তিদের বিরুদ্ধে আইনি কার্যক্রম প্রক্রিয়াধীন।

গত শনিবার  উখিয়া উপজেলার ১৯ নম্বর রোহিঙ্গা ক্যাম্পে নিরীক্ষণে জানা যায়, মায়ানমার থেকে তিনজনের একটি পরিবার আব্দুল আমিন তার স্ত্রী ও সন্তান নিয়ে শাহপরীর দ্বীপ সীমান্তপথ ব্যবহার করে তার বাবা মায়ের কাছে ডি/২ ব্লকে এসেছে।

এছাড়া গত বুধবার উখিয়া উপজেলার কোটবাজার এলাকা থেকে ফাতেমা আক্তার রুমি (১৫)নামে একটি মেয়েকে স্কুল থেকে বাড়ি আসার পথে বালুখালী ১০ নম্বর ক্যাম্পের জি-১৫ ব্লকের রোহিঙ্গা যুবক মো. রিদুয়ানসহ (২২) আরো অজ্ঞাত তিনজন মিলে সিএনজিতে তুলে অপহরণ করে বলে জানা যায়।

 

জানা গেছে, রোহিঙ্গা যুবকটি ভিকটিমের বাড়ির পার্শ্বে শমশের আলমের মুরগীর ফার্মে কাজ করতো এবং অপহরণের পর ভিকটিমের বাবার কাছে বিভিন্ন মোবাইল নম্বরের মাধ্যমে কল দিয়ে ১ লাখ টাকা মুক্তিপণ দাবি করে আসছে। মুক্তিপণের টাকা না দিলে তার মেয়েকে নষ্ট করে দেবে বলে হুমকি দেয়। এ বিষয়ে মেয়েটির বাবা উখিয়া থানায় অভিযোগ করেছে।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



দেড় বছর পর করোনায় মৃত্যুশূন্য দিন কাটালো ঢাকা

১৮ মাস পর করোনায় মৃত্যুশূন্য ঢাকা

প্রকাশিত:Wednesday ২০ October ২০21 | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৩০জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


বাংলাদেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম একজনের মৃত্যুর খবর আসে। এরপর সর্বশেষ ওই বছরের ৩ এপ্রিল মৃত্যুহীন দিন দেখেছিল বাংলাদেশ। এরপর দীর্ঘ দেড় বছর পর মৃত্যুশূন্য দিন পেল ঢাকা। দীর্ঘ এ ১৮ মাস দেশের অন্যান্য বিভাগে মৃত্যুশূন্য দিন গেলেও ঢাকায় যায়নি।

 

বুধবার (২০ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা কমেছে। সবশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের তিন বিভাগে ছয়জনের মৃত্যু হয়। তাদের মধ্যে পুরুষ চারজন ও নারী দুজন। সরকারি হাসপাতালে পাঁচজন ও বেসরকারি হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৭৯১ জনে।

 

এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ছয়জনের মধ্যে চট্টগ্রামে তিনজন, রাজশাহীতে দুইজন ও খুলনা বিভাগে একজন রয়েছেন। এ সময়ে ঢাকা বিভাগসহ পাঁচ বিভাগে করোনায় কোনো মৃত্যু নেই। অন্য চারটি বিভাগ হলো- বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ।

 

গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ৮৩১টি ল্যাবরেটরিতে ২০ হাজার ৩৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮০ শতাংশ। আজ পর্যন্ত সর্বমোট নমুনা পরীক্ষার ভিত্তিতে শনাক্তকৃত রোগীর হার ১৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

 

২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪৮১ জন। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ২৯ হাজার ৫৪৯ জন। সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

 

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে ২০ অক্টোবর পর্য়ন্ত মারা যাওয়া ২৭ হাজার ৭৯১ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ হাজার ১১৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫ হাজার ৬৪০ জন, রাজশাহী বিভাগে ২ হাজার ৩৮ জন, খুলনা বিভাগে ৩ হাজার ৫৮৭ জন, বরিশাল বিভাগে ৯৪৩ জন, সিলেট বিভাগে ১ হাজার ২৬১ জন, রংপুর বিভাগে ১ হাজার ৩৬২ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৮৪১ জনের মৃত্যু হয়।

 

  -খবর প্রতিদিন / সি.বা 


আরও খবর



নির্বাচন হাওয়া

রূপগঞ্জে নির্বাচনী সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৯৩জন দেখেছেন
Image



 শাকিল আহম্মেদ  রূপগঞ্জ ( নারায়ণগঞ্জ)প্রতিনিধি 

 

নারায়ণগঞ্জের রূপগঞ্জে আসন্ন কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনকে সামনে রেখে সভা করেছে কায়েতপাড়া ইউনিয়ন আওয়ামীলীগ।শুক্রবার সন্ধ্যায় কায়োতপাড়ার নাওড়াস্থ্য চেয়ারম্যানের অস্থায়ী কার্যালয়ে ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সিনিয়র সহ-সভাপতি বীর মুক্তিযোদ্ধা সামসুল আলমের সভাপতিত্বে আয়োজিত অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন রংধনু গ্রুপ ও কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ানম্যান আলহাজ্ব রফিকুল ইমলাম।

 

 অনুষ্ঠানে বক্তব্য রাখেন, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদ নির্বাচনে চেয়ারম্যান পদে নৌকা প্রতিকের মনোনয়ন প্রত্যাশী মোঃ মিজানুর রহমান, ইউনিয়ন আওয়ামীলীগের সাধারন সম্পাদক এডভোকেট আব্দুল আউয়াল, কায়েতপাড়া ইউনিয়ন পরিষদের প্যানেল চেয়ারম্যান মোশারফ হোসেন ভূইয়া, সহ-সভাপতি আলাউদ্দিন মিয়া, যুগ্ন সম্পাদক তারিকুল ইসলাম, সাংগঠনিক সম্পাদক আলতাফ হোসেন, আলী আজগর,  থানা যুবলীগের সাংগঠনিক সম্পাদক মোজাম্মেল হক মিলন, যুবলীগ নেতা আব্দুল আউয়াল, হাজী সফিকুল ইসলাম, ছাত্রলীগ নেতা লুৎফর রহমান মুন্না, আশফাকুল ইসলাম তুষার, আশরাফুল হক ভুইয়া জেমিন, মহিলালীগ নেত্রী স্বপ্না আক্তার, ইয়াছমীন আক্তার প্রমুখ।

 

 

সভায় রফিকুল ইসলাম বলেন, ইভিএম পদ্ধতিতে আগামী ১১ নভেম্বর আমাদের ভোট গ্রহন অনুষ্ঠিত হবে। এ নির্বাচনে আপনারা নির্বিগ্নে ভোটাধিকার প্রয়োগ করবেন। কোন সন্ত্রাসী কায়েতপাড়ার মাটিতে জোর করে আপনাদের ভোট ছিনিয়ে নিতে পারবে না।

 

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর