Logo
আজঃ শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪
শিরোনাম

রাজধানীর বিজয়নগরে বাসে আগুন

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২৩ নভেম্বর 20২৩ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১৮৩জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;বিএনপি ও সমমনা দলগুলোর ডাকা ষষ্ঠ দফায় টানা ৪৮ ঘণ্টা অবরোধের শেষ দিনে রাজধানীর বিজয়নগরে বাসে আগুন দিয়েছে অবরোধ সমর্থকরা। তবে এ ঘটনায় কেউ হতাহত হয়নি।

বৃহস্পতিবার (২৩ নভেম্বর) দুপুর ১২টা ৫১ মিনিটে বিজয়নগরের নাইটিঙ্গেল মোড়ে আজমেরী পরিবহনের ওই বাসে আগুন দেয় অবরোধ সমর্থকরা। এরপরই তারা দ্রুত পালিয়ে যায়।

প্রত্যক্ষদর্শীরা জানান, একদল অজ্ঞাত ব্যক্তি বাসটিতে আগুন দেন। পরে ফায়ার সার্ভিসের কর্মীরা এসে আগুন নিভিয়ে ফেলেন।

বিষয়টি নিশ্চিত করে ফায়ার সার্ভিসের নিয়ন্ত্রণ কক্ষের ডিউটি অফিসার রাফি আল ফারুক।

তিনি বলেন, দুপুর ১২টা ৫০ মিনিটে রাজধানীর বিজয়নগর মোড়ে যাত্রীবাহী একটি বাসে আগুন দেওয়ার সংবাদ আসে। আমাদের দুটি ইউনিট স্থানীয়দের সহায়তায় আগুন নিয়ন্ত্রণে আনেন।

উল্লেখ্য, উল্লেখ্য, গত ২৮ অক্টোবর থেকে ২০ নভেম্বর পর্যন্ত সারাদেশে মোট ১৮৫টি যানবাহনে অগ্নিসংযোগ করা হয়েছে। এর মধ্যে ১১৮টি বাস, ২৬টি ট্রাক, ১৩টি কাভার্ডভ্যান, আটটি মোটরসাইকেল, দুটি প্রাইভেটকার, তিনটি মাইক্রোবাস, তিনটি পিকআপ, তিনটি সিএনজি, দুটি ট্রেন, তিনটি লেগুনা, নছিমন, একটি ফায়ার সার্ভিসের পানিবাহী গাড়ি, একটি পুলিশের গাড়ি ও অ্যাম্বুলেন্সে আগুন দেওয়া হয়েছে।

এ ছাড়া ১৫টি স্থাপনায় অগ্নিসংযোগের ঘটনা ঘটেছে। স্থাপনার মধ্যে বিএনপির দলীয় কার্যালয় পাঁচটি, আওয়ামী লীগের দলীয় কার্যালয় একটি, পুলিশ বক্স একটি, কাউন্সিলর অফিস একটি, বিদ্যুৎ অফিস দুটি, বাস কাউন্টার একটি, শোরুম দুটিসহ আরও দুটি স্থাপনা দুর্বৃত্তদের দেওয়া আগুনে পুড়েছে।


আরও খবর



জাবিতে ধর্ষণকাণ্ডে দুই আসামির দোষ স্বীকার

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১০১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ে (জাবি) এক গৃহবধূকে সংঘবদ্ধ ধর্ষণের ঘটনার মূল পরিকল্পনাকারী মামুনুর রশিদ মামুন ও তার সহযোগী মো. মুরাদ আদালতে দোষ স্বীকার করে জবানবন্দি দিয়েছেন।

শুক্রবার (৯ ফেব্রুয়ারি) মামলার তদন্ত কর্মকর্তা আশুলিয়ার থানার পুলিশ পরিদর্শক (নিরস্ত্র) মো. মিজানুর রহমান আসামিদের আদালতে হাজির করে স্বেচ্ছায় স্বীকারোক্তিমূলক জবানবন্দি রেকর্ড করার আবেদন করেন।

যার প্রেক্ষিতে ঢাকার সিনিয়র জুডিসিয়াল ম্যাজিস্ট্রেট শেখ মুজাহিদুল ইসলাম তাদের জবানবন্দি রেকর্ড করে কারাগারে পাঠানোর আদেশ দেন।

এর আগে, বুধবার (৭ ফেব্রুয়ারি) মামুনকে রাজধানীর ফার্মগেট এলাকা থেকে এবং মুরাদকে নওগাঁ থেকে গ্রেপ্তার করে র‍্যাব।

এদিকে এ মামলার অপর চার আসামি- জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের আন্তর্জাতিক সম্পর্ক বিভাগের ৪৫তম ব্যাচের শিক্ষার্থী ও শাখা ছাত্রলীগের আন্তর্জাতিক বিষয়ক সম্পাদক মোস্তাফিজুর রহমান, ৪৭তম ব্যাচের শিক্ষার্থী সাব্বির হাসান সাগর, ৪৬তম ব্যাচের সাগর সিদ্দিক ও ৪৫তম ব্যাচের হাসানুজ্জামানকে তিন দিনের রিমান্ড শেষে কারাগারে পাঠানো হয়েছে।

প্রসঙ্গত, গত ৩ ফেব্রুয়ারি রাত সাড়ে ৯টার দিকে জাহাঙ্গীরনগর বিশ্ববিদ্যালয়ের মীর মোশাররফ হোসেন আবাসিক হলের ৩১৭ নম্বর কক্ষে স্বামীকে আটকে রেখে স্ত্রীকে বোটানিক্যাল গার্ডেনে নিয়ে পালাক্রমে ধর্ষণ করে আসামি মোস্তাফিজ ও মামুনুর রশীদ মামুন।

ভিকটিমের স্বামী রাতেই বাদী হয়ে আশুলিয়া থানায় ছয় জনের নাম উল্লেখ করে মামলা দায়ের করেন।


আরও খবর



ফেনীতে ট্রেনের ধাক্কায় নারী দলিল লেখক নিহত

প্রকাশিত:শুক্রবার ০২ ফেব্রুয়ারী 2০২4 | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৯৫জন দেখেছেন

Image

ফেনী প্রতিনিধি:ফেনীতে ট্রেনের ধাক্কায় এক নারী দলিল লেখক নিহত হয়েছেন। বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা-চট্টগ্রাম রেলপথের ফেনী রেলস্টেশনের অদূরে সহদেবপুর রেলক্রসিং এলাকায় রেললাইন পারাপারের সময় এ দুর্ঘটনা ঘটে। নিহত নারীর নাম স্বপ্না রানী দেবী (৪২)। তিনি ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলার রামনগর ইউনিয়নের সেকান্দরপুর গ্রামের পরিমল চন্দ্র ভৌমিকের স্ত্রী। তিনি স্বামী, ছেলে-মেয়েসহ পরিবার–পরিজন নিয়ে ফেনী শহরের মাস্টারপাড়ায় ভাড়া বাসায় বসবাস করতেন। তাঁর স্বামী ফেনীর দাগনভূঞা উপজেলা ভূমি কার্যালয়ের কর্মচারী।পরিবারটির এক স্বজন জানান, স্বপ্না রানীর বাসায় একজন নারী কাজ করেন। গত কয়েক দিন থেকে ওই নারী কাজে আসছিলেন না। তাঁর বিষয়ে খোঁজখবর নিতে রেলগেট পার হয়ে ফেনী শহরের উত্তর সহদেবপুর যাচ্ছিলেন স্বপ্না রানী। এ সময় রেলের ধাক্কায় তিনি মারা যান।রেলওয়ে পুলিশ ও স্থানীয় সূত্র জানায়, বৃহস্পতিবার রাত সাড়ে নয়টার দিকে ঢাকা–চট্টগ্রাম রেলপথের ফেনী রেলস্টেশনের অদূরে সহদেবপুর রেলক্রসিং এলাকা দিয়ে স্বপ্না নারী রেললাইন পার হচ্ছিলেন। এ সময় ওই স্থান দিয়ে ঢাকা থেকে চট্টগ্রামমুখী সুবর্ণা এক্সপ্রেস ট্রেন অতিক্রম করছিল। রেলক্রসিংয়ে ব্যারিয়ার দিয়ে গেট বন্ধ থাকার পরও ওই নারী রেললাইন পারাপার হচ্ছিলেন। এ সময় ট্রেনের ধাক্কায় ছিটকে পড়েন তিনি।

পরে স্থানীয় লোকজন স্বপ্না রানীকে উদ্ধার করে ফেনী সদর ২৫০ শয্যার জেনারেল হাসপাতালের জরুরি বিভাগে নিয়ে যান। সেখানে কর্তব্যরত চিকিৎসক পরীক্ষা–নিরীক্ষা শেষে তাঁকে মৃত ঘোষণা করেন।ফেনী রেলস্টেশনে রেলওয়ে পুলিশের (জিআরপি) উপপরিদর্শক মো. জাহাঙ্গীর আলম বলেন, ওই নারীর লাশ ময়নাতদন্তের জন্য ফেনী সদর জেনারেল হাসপাতালের মর্গে রাখা হয়েছে। এ ঘটনায় লাকসাম জিআরপি থানায় একটি অপমৃত্যু মামলা করার প্রক্রিয়া চলমান।


আরও খবর

বিনামূল্যে বই পেল ২৬৬ কলেজ শিক্ষার্থী

শনিবার ১৭ ফেব্রুয়ারী ২০২৪




ফারুক চেয়ারম্যানের মামলাতেই আটকে আছে পাওনাদার রোমান চৌধুরীর টাকা

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ২৮৪জন দেখেছেন

Image

আব্দুল হান্নান:- ব্রাহ্মণবাড়িয়া জেলার নাসিরনগর উপজেলার ৭নং ফান্দাউক ইউনিয়নের তৎকালীন সাবেক ও বর্তমান চেয়ারম্যান তখনকার সময়ের জেলা পরিষদ সদস্য ফারুকুজ্জামান ফারুখের বিরোদ্ধে আতুকুড়া গ্রামের ব্যবসায়ী রোমান চৌধুরী নামের এক ব্যাক্তির বালু ভরাটের ১৫ লক্ষ টাকা আত্মসাৎ,জোর পূর্বক বিভিন্ন হিন্দু মুসলমানের বাড়ি ও রাস্তা দখল সহ নানা অনিয়ম দুর্নীতির অভিযোগ পাওয়া গেছে।জানা গেছে ২০১২ সালে ফান্দাউক গরুর বাজারের মাঠ ভরাট করতে ফারুকুজ্জামান রোমান চৌধুরীর কাছ থেকে প্রায় ১৬ লক্ষ টাকার বালু নিয়ে মাত্র ১ লক্ষ টাকা পরিশোধ করে।বাকী টাকা দেম দিচ্ছি বলে ঘুরাতে থাকে।রােমান চৌধুরী টাকা আদায় করতে ব্যর্থ হয়ে পরবর্তীতে ২০১৯ সালের ১৮ জুলাই  তার পাওনা টাকা উদ্ধারের জন্য নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে এক লিখিত অভিযোগ দাখিল করেন।উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা ফারুকুজ্জামানকে  তিন দফা নোটিশ করলেও তিনি নির্বাহী কর্মকর্তার নোটিশের কোন জবাব দিতে আসেননি। উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা মোঃ আজগর আলী টাকা উদ্ধারে ব্যর্থ হয়ে ঘটনার সত্যতা পেয়ে ২৯ অক্টোবর ২০১৯ তারিখে ৯৪১ নং স্বারকে অভিযোগকারী রোমান চৌধুরীর অভিযোগ সত্য বলে জেলা পরিষদ চেয়ারম্যান ও জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা বরাবরে  ফারুখের বিরোদ্ধে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহনের জন্য এক প্রতিবেদ দাখিল করেন।নির্বাহী কর্মকর্তার প্রতিবেদন দাখিলের পর চতুর ফারুকুজ্জামান ব্রাহ্মণবাড়িয়ার নাসিরনগর সিনিয়র সহকারী জজ আদালতে ফেনীর এ ডি এম,সাবেক নাসিরনগর উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা

মোঃ আজগর আলী,রোমান চৌধুরী,জেলা পরিষদের প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা ও ব্রাহ্মণবাড়িয়ার জেলা প্রশাসকের বিরোদ্ধে ২০২১ সালের ২৮ সেপ্টেম্ভর দেওয়ানী ৪১৯ নং মামলা দায়ের করে পাওনা টাকা আটকে দেয়।তাই মামলার জটলাতেই আটকে আছে রোমান চৌধুরীর পাওনা টাকা। তাছাড়াও ফারুক ও তার লোকজনে মিলে হিন্দু মুসলমান কয়েক জনের বাড়ি,রাস্তা ও জমি দখল করার অভিযোগও রয়েছে।এ বিষয়ে জানতে চেয়ারম্যান ফারুকের ব্যবহৃত মোবাইল নাম্ভারে একাদিক বার যোগাযোগের চেষ্টা করেও যোগাযোগ করা সম্ভব হয়নি।

-খবর প্রতিদিন/ সি.ব


আরও খবর



বিশ্বব্যাপী রোহিঙ্গা প্রত্যাবাসনে প্রচেষ্টার ওপর গুরুত্বারোপ প্রধানমন্ত্রীর

প্রকাশিত:রবিবার ২৮ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:বৃহস্পতিবার ২২ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১১০জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা রোহিঙ্গাদের তাদের মাতৃভূমি মিয়ানমারে প্রত্যাবাসনে ও সেখানে তাদের মর্যাদাপূর্ণ জীবন নিশ্চিত করার ব্যবস্থা নিতে আন্তর্জাতিক সম্প্রদায়ের প্রতি আহ্বান জানিয়েছেন। তিনি বলেন, ‘বিশ্বের উচিৎ রোহিঙ্গা সংকট সমাধানের উপায় বের করা, যাতে তারা স্বদেশে ফিরে গিয়ে সেখানে একটি সুন্দর জীবনযাপন করতে পারে।’

রোববার (২৮ জানুয়ারি) যুক্তরাজ্যের বাংলাদেশ বিষয়ক সর্বদলীয় সংসদীয় দলের (এপিপিজি) ভাইস চেয়ার ও ইন্দো-ব্রিটিশ বিষয়ক এপিপিজি’র চেয়ার বীরেন্দ্র শর্মা এমপির নেতৃত্বে যুক্তরাজ্যের ক্রস পার্টির একটি পার্লামেন্টারি প্রতিনিধি দল প্রধানমন্ত্রীর সঙ্গে গণভবনে সৌজন্য সাক্ষাৎ ক তিনি এ কথা বলেন।

বৈঠক শেষে প্রধানমন্ত্রীর স্পিচরাইটার এম. নজরুল ইসলাম সাংবাদিকদের ব্রিফ করেন।

বৈঠককালে শেখ হাসিনা বলেন, ২০১৭ সালে অমানবিক নির্যাতনের মুখে রোহিঙ্গাদের ব্যাপকভাবে দেশত্যাগের পর বাংলাদেশ তাদের আশ্রয় দিয়েছিল। মিয়ানমার তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নিতে সম্মত হলেও, ৬ বছর অতিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও এই লক্ষ্যে কোনো ব্যবস্থা নেয়নি।

কোভিড-১৯ মহামারী এবং রাশিয়া-ইউক্রেন যুদ্ধের পর থেকে বৈশ্বিক আর্থিক সহায়তা কমে যাওয়ার কথা উল্লেখ করে প্রধানমন্ত্রী বলেন, ‘সুতরাং রোহিঙ্গারা এখন বাংলাদেশের মতো একটি ছোট দেশের জন্য বিশাল বোঝা হয়ে উঠছে।’

শেখ হাসিনা বলেন, জোরপূর্বক দেশ থেকে বিতারিত করার সময় বাস্তুচ্যুত মিয়ানমারের নাগরিকদের মধ্যে প্রায় ৪০ হাজার গর্ভবতী নারী ছিল। তিনি বলেন, বাংলাদেশের সরকার ও জনগণ প্রাথমিকভাবে তাদের খাদ্য ও আশ্রয় দিয়েছে। ‘ছয় বছর অতিবাহিত হওয়া সত্ত্বেও মিয়ানমার তাদের নাগরিকদের ফিরিয়ে নেওয়ার জন্য বাস্তবসম্মত কিছুই করেনি। যদিও, তারা আগে তা করতে রাজি হয়েছিল। ফলে, মিয়ানমারের নাগরিকরা বাংলাদেশের ক্যাম্পে মানবেতর জীবনযাপন করছে,’ বলেন প্রধানমন্ত্রী। ‘এমনকি রোহিঙ্গারাও এখন অপরাধমূলক কর্মকাণ্ডে লিপ্ত হচ্ছে-যার মধ্যে মাদক, অস্ত্র ও মানব পাচার এবং অভ্যন্তরীণ দ্বন্দ্বও রয়েছে যেগুলো থেকে কখনও কখনও রক্তপাতও ঘটছে,’ তিনি যোগ করেন।

শেখ হাসিনা আরো বলেন, ভাসানচর দ্বীপে সরকার রোহিঙ্গাদের জন্য উন্নত আবাসনের ব্যবস্থা করেছে। তিনি বলেন, ‘কিছু রোহিঙ্গাকে ইতোমধ্যে ভাসানচরে পুনর্বাসন করা হয়েছে। আমরা তাদের জন্য খাবার, চিকিৎসা সুবিধা, শিক্ষা ও কর্মসংস্থানের ব্যবস্থা করেছি বলে তারা সেখানে অনেক ভালো আছে।’প্রধানমন্ত্রী বলেন, রোহিঙ্গারা কয়েকটি ছোট ছোট দলে বিভক্ত। এক দল ভাসানচরে যেতে চাইলে আরেক দল বাধা দেয়।

প্রতিনিধি দল মিয়ানমার থেকে নির্যাতিত রোহিঙ্গাদের বাংলাদেশের উদার আতিথেয়তা ও দীর্ঘায়িত রোহিঙ্গা সঙ্কটের সমাধানে তাদের সমর্থন পুনর্নিশ্চিত করতে ৩০ জানুয়ারি কক্সবাজারের রোহিঙ্গা ক্যাম্প পরিদর্শন করবে।

পাঁচ সদস্যের সংসদীয় প্রতিনিধি দলে ছিলেন- প্রাক্তন টেক ও ডিজিটাল অর্থনীতির কনজারভেটিভ মন্ত্রী পল স্কুলি, এমপি, ইউকে হাউস অফ কমন্স সিলেক্ট কমিটির মেম্বার ফর ফরেন অ্যাফেয়ার্স নীল কোয়েল, এমপি, হাউস অফ কমন্সের বিরোধীদলীয় হুইপ অ্যান্ড্রু ওয়েস্টার্ন, এমপি এবং হাউস অফ কমন্সের সিনিয়র সংসদীয় সহকারী ডমিনিক মফিট।

এ সময় প্রধানমন্ত্রীর বেসরকারি শিল্প ও বিনিয়োগ উপদেষ্টা সালমান ফজলুর রহমান, অ্যাম্বাসেডর-অ্যাট-লার্জ এম জিয়াউদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের (পিএমও) সচিব এম সালাউদ্দিন উপস্থিত ছিলেন।

প্রতিনিধি দলটির আগামী ৩১ জানুয়ারি লন্ডনের উদ্দেশে রওনা হওয়ার কথা রয়েছে।


আরও খবর



জয়ার সিনেমা ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে

প্রকাশিত:বুধবার ২১ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শুক্রবার ২৩ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৩৩জন দেখেছেন

Image

বিনোদন ডেস্ক:জয়া আহসানের সিনেমা ইরান জয় করল। বাংলাদেশ ও ইরানের যৌথ-প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ সিনেমাটি ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে।

মঙ্গলবার (২০ ফেব্রুয়ারি) রাতে জয়া আহসান তার ভেরিফায়েড ফেসবুক পেজে খবরটি নিশ্চিত করেছেন। চলচ্চিত্রটি মানবিক দৃষ্টিভঙ্গির জন্য ইরানের জাতীয় পুরস্কার জিতেছে।

জয়ার ফেসবুক পোস্ট থেকে জানা যায়, প্রতি বছর ফজর চলচ্চিত্র উৎসবের পর, মানবাধিকার, শিক্ষা, পরিবেশ, দাতব্য কাজ ইত্যাদি বিভাগে ‘জাতীয় ইচ্ছার প্রতিফলন/বহিঃপ্রকাশ’ নামে সমাজের জন্য অনুকরণীয় চলচ্চিত্রগুলোকে জাতীয় পুরস্কার প্রদান করা হয়।

এই পুরস্কারটি ‘খয়র-ই-মান্দেগার’ নামক একটি প্রতিষ্ঠান দ্বারা প্রদান করা হয়, যা ইরানের সমস্ত দাতব্য প্রতিষ্ঠান, দাতা, এনজিওর প্রতিনিধিত্ব করে এবং প্রতিষ্ঠানটি ইরানে ইউনিসেফের মতো সক্রিয়। এই পুরস্কারের পাশাপাশি ‘ফেরেশতে’ চলচ্চিত্রের প্রধান দুই অভিনেতা জয়া আহসান ও সুমন ফারুককে ‘খয়র-ই-মান্দেগার’ স্মারক প্রদান করে সম্মানিত করা হয়।

সিনেমাটির পরিচালক মুর্তজা অতাশ জমজম। চিত্রনাট্য লিখেছেন, বাংলাদেশের মুমিত আল-রশিদ। ফারসি ও বাংলা অনুবাদ করেছেন মুমিত আল-রশিদ ও ফয়সাল ইফরান। যৌথ প্রযোজনায় নির্মিত ‘ফেরেশতে’ সিনেমাতে সহপ্রযোজক হিসেবে আছে ইমেজ সিনেমা, সি তে সিনেমা এবং ম্যাক্সিমাম এন্টারপ্রাইজ বাংলাদেশ।

এ চলচ্চিত্রে জয়া আহসান ও সুমন ফারুক ছাড়াও বাংলাদেশের আরও বেশ কজন শিল্পী রিকিতা নন্দিনী শিমু, শহীদুজ্জামান সেলিম, শাহেদ আলী, শাহীন মৃধা, শিশুশিল্পী সাথী অভিনয় করেছেন।


আরও খবর