Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার বর ও কনের বাড়ীতে শোকের মাতম রাশিয়ায় বন্দুকধারীদের ভয়াবহ হামলায় ১৫ পুলিশ সদস্য নিহত

রাজধানীর ১৮টি ওয়ার্ড ডেঙ্গুর উচ্চ ঝুঁকিতে

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২৮ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৭৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:রাজধানীর দুই সিটির ১৮টি ওয়ার্ডে ডেঙ্গুর উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে বলে জানিয়েছেন স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার পরিচালক অধ্যাপক ডা. শেখ দাউদ আদনান।

মঙ্গলবার (২৮ মে) সকালে স্বাস্থ্য অধিদপ্তরে আয়োজিত মৌসুম পূর্ব এডিস সার্ভে-২০২৪ এর ফলাফল প্রকাশ অনুষ্ঠানে জরিপের তথ্য উপস্থাপন করা হয়।

কর্মশালায় জরিপের ফলাফল ঘোষণায় শেখ দাউদ আদনান বলেন, রাজধানীর দুই সিটির ১৮টি ওয়ার্ডে ডেঙ্গুর উচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। ঢাকার দুই সিটির ৯৯টি ওয়ার্ডের ৩ হাজার ১৪৯টি বাসায় জরিপ চালিয়ে দেখা যায়, শতকরা ১৫ শতাংশ বাড়িতে এডিসের লার্ভা ও পিউপার উপস্থিতি পাওয়া গেছে। মিরপুর, বনানী, নিকেতন, হাতিরঝিল, মোহাম্মদপুর, খিলক্ষেত, মালিবাগসহ গতবারের ঝুঁকিপূর্ণ ওয়ার্ডগুলোই সর্বোচ্চ ঝুঁকিতে রয়েছে। এডিসের ঘনত্ব সর্বোচ্চ ৪২ দশমিক ৩৩ শতাংশ পাওয়া গেছে বহুতল ভবনে। এরপরই স্বতন্ত্র বাড়ি ও নির্মাণাধীন ভবনে লার্ভার হার ২১ দশমিক ৬ শতাংশ। এছাড়াও ঢাকা দক্ষিণের ১৬ দশমিক ৩৯ শতাংশ এবং ঢাকা দক্ষিণের ১৪ দশমিক ৩০ শতাংশ পরিত্যক্ত পাত্রে মশার লার্ভা পাওয়া গেছে।

ঝুঁকিপূর্ণ ওয়ার্ডগুলোর মধ্যে রয়েছে ঢাকা উত্তর সিটি করপোরেশনের ১২, ১৩, ২০, ৩৬, ৩১, ৩২, ১৭ ও ৩৩ নম্বর এবং দক্ষিণ সিটি করপোরেশনের ১৩, ০৪, ৫২,৫৪, ১৬, ৩০, ০৫, ১৫, ১৭ ও ২৩ নম্বর ওয়ার্ড। ২০১৯ সাল থেকে ২০২৪ পর্যন্ত মৌসুম পূর্ব জরিপে উভয় সিটি করপোরেশনেই এডিসের লার্ভার উপস্থিতি বেড়েছে। তাই লক্ষণ প্রকাশপেলেই সময় নষ্ট না করে হাসপাতালে আসার আহ্বান জানান তিনি।

কর্মশালায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে ইমেরিটাস অধ্যাপক ডা. এ বি এম আব্দুল্লাহ বলেন, সারা দেশের প্রতিটি ঘরে ঘরে ডেঙ্গু ছড়িয়ে পড়েছে। এই রোগের সুনির্দিষ্ট কোনো চিকিৎসা নেই। রোগীর লক্ষণের ওপর ভিত্তি করে চিকিৎসা দেওয়া হয়। তাই সবাইকে সচেতন হতে হবে রোগটি যেন না হয়।

স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, চলতি বছরের মে মাস পর্যন্ত সারা দেশে ডেঙ্গুতে আক্রান্ত হয়েছে প্রায় পৌনে ৩ হাজার মানুষ। এই সময়ে রোগটিতে মৃত্যু হয়েছে ৩৪ জনের। যেখানে গত বছরের ২৭ মে পর্যন্ত আক্রান্ত হয়েছিল ১৭০৪ জন এবং মৃত্যু হয়েছিল ১৩ জনের। এই পরিসংখ্যানই বলছে এবারের ডেঙ্গু কতটা ভয়াবহ রূপ নিতে পারে।

এবিএম খুরশীদ আলম বলেন, পর্যবেক্ষণে দেখা গেছে, অনেকেই মনে করেন ঢাকায় ভালো চিকিৎসা পাওয়া সম্ভব। তাই জেলা বা উপজেলা হাসপাতাল থেকে তারা ঢাকার উদ্দেশে রওনা করেন। দীর্ঘ যাত্রা পথে শরীরে জটিলতা সৃষ্টি হয় এবং পথেই মৃত্যু বরণ করেন।

মহাপরিচালক বলেন, ডেঙ্গুতে যেন মৃত্যু না হয় সে জন্য আমরা দেশের সব হাসপাতাল প্রস্তুত রাখতে নির্দেশ দিয়েছি। প্রয়োজনীয় স্যালাইন ও আনুষঙ্গিকের ব্যবস্থা করা হয়েছে। পাশাপাশি প্রাণহানি এড়াতে বিভিন্ন বিভাগের চিকিৎসকদের সমন্বিত চিকিৎসার নির্দেশনা দেওয়া হয়েছে।

উপস্থিত ছিলেন অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক অধ্যাপক ডা. আহমেদুল কবীর, রোগ নিয়ন্ত্রণ শাখার কর্মসূচি ব্যবস্থাপক ডা. এম এম আক্তুরুজ্জামান প্রমুখ।


আরও খবর



সিরাজগঞ্জে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস উপলক্ষে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:শনিবার ০১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮০জন দেখেছেন

Image
রাকিব সিরাজগঞ্জ প্রতিনিধি:'বৈশ্বিক পুষ্টিতে দুধ অপরিহার্য' এই  প্রতিপাদ্যকে সামনে রেখে সিরাজগঞ্জে বর্ণাঢ্য র‌্যালি ও আলোচনা সভার মাধ্যমে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস-২০২৪ পালিত হয়েছে।

শনিবার (১লা জুন)সকাল ১০ টায় জেলা প্রশাসক কার্যালয় চত্বর থেকে  সিরাজগঞ্জ জেলা প্রাণিসম্পদ কার্যালয় এবং প্রাণি সম্পদ ডেইরী উন্নয়ন প্রকল্প (এলডিডিপি) প্রাণিসম্পদ অধিদপ্তর মৎস্য প্রাণী সম্পদ এর আয়োজনে বর্ণাঢ্য র‌্যালি শহরের বিভিন্ন গুরুত্বপূর্ণ জায়গা প্রদক্ষিণ করে জেলা প্রশাসক কার্যালয় এসে শেষ হয়।পরে শহিদ এ. কে.শামসুদ্দিন সম্মেলন কক্ষে আলোচনা সভা এবং ছাত্র-ছাত্রীদের মাঝে সম্মননা স্বারক ও পুরস্কার বিতরণ অনুষ্ঠিত হয়।

জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান এর সভাপতিত্বে বিশ্ব দুগ্ধ দিবস অনুষ্ঠানে প্রধান অতিথি হিসেবে উপস্থিত ছিলেন,সিরাজগন্জ জেলা আওয়ামী লীগের যুগ্ম-সাধারণ সম্পাদক এবং  সিরাজগঞ্জ সদর ও কামারখন্দ- ২ আসনের জাতীয় সংসদ সদস্য ড. জান্নাত আরা হেনরী । 

বিশেষ অতিথি হিসেবে উপস্থিত থেকে বক্তব্য রাখেন,মুখ্য আলোচক জেলা প্রাণিসম্পদ কর্মকর্তা ডা:মোঃওমর ফারুক,অতিরিক্ত জেলা প্রশাসক (সার্বিক)গণপতি রায় প্রমুখ। 

জেলা প্রশাসক মীর মোহাম্মদ মাহবুবুর রহমান বলেন,প্রতিটি মানুষের সুস্থ থাকতে হলে দুধ খাওয়ার কনো বিকল্প নেই। সুস্থ থাকতে প্রতিটি 
নাগরিকের মানবদেহের জন্য  দুধ,ডিম,মাংস,শাক-সবজি,মাছ খাওয়ার  প্রয়োজন। একজন মেধাবী ছাত্র-ছাত্রী হতে গেলে পুষ্টিকর খাবার বেশি বেশি করে খেতে হবে। স্মার্ট বাংলাদেশ বিনির্মান করতে তরুণ প্রজন্মেরায় আগামী দিনের মেধা শক্তি।  

অনুষ্ঠানে আরো অংশ গ্রহন করেন জেলা প্রাণিসম্পদ বিভাগের বিভিন্ন কর্মকর্তা ও ডেইরী এবং পোল্ট্রি ফার্মাস এ্যাসোসিয়েশনের নেতৃবৃন্দ,ডেইরী খামারীবৃন্দ সহ বিভিন্ন ভেটেরিনারি ঔষুদ কোম্পানি এবং ফিড কোম্পানির প্রতিনিধি গণ।


অনুষ্ঠানের শুরুতে কোরআন তেলাওয়াত করেন,এলএসপি কামারখন্দ এর  রহমত আলী। পরে দুগ্ধগুনাবলী নিয়ে প্রামাণ্যচিত্র ও পাওয়ার পয়েন্টের উপর আলোচনা করেন রায়গঞ্জের ভেটেরিনারি অফিসার ডাঃমোঃ আমিনুল ইসলাম।

আরও খবর



রোহিঙ্গা ক্যাম্পে পাহাড়ধসে ১০ জনের মৃত্যু

প্রকাশিত:বুধবার ১৯ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৬জন দেখেছেন

Image

কক্সবাজার প্রতিনিধি:পাহাড়ধসে ১০ জনের মৃত্যু হয়েছে কক্সবাজারের উখিয়ায় রোহিঙ্গা ক্যাম্পে। তবে তাৎক্ষণিকভাবে তাদের পরিচয় জানা যায়নি।

বুধবার (১৯ জুন) সকালে উখিয়ার ৮, ৯ ও ১০ নম্বর ক্যাম্পে পৃথক পাহাড়ধসের ঘটনা ঘটে।উখিয়া থানার ওসি মো. শামীম হোসেন ঘটনার সত্যতা নিশ্চিত করে জানান, পাহাড়ধসে মৃত ১০ জনের মধ্যে ৯ জন রোহিঙ্গা নাগরিক ও একজন বাংলাদেশি।

তিনি আরও জানান, গত রাত থেকে ভারি বৃষ্টিপাতের কারণে পৃথক স্থানে পাহাড়ধসের ঘটনাগুলো ঘটে।এছাড়া বুধবার ভোরে কক্সবাজারের উখিয়ার থাইংখালি ৪ নম্বর ওয়ার্ডের চোরাখোলায় পাহাড়ধসে ঘুমন্ত অবস্থায় আব্দুল করিম নামে ১২ বছরের এক শিশুর মৃত্যু হয়েছে।

মৃত আব্দুল করিম উখিয়ার পালংখালি ইউনিয়নের ৪ নম্বর ওয়ার্ডের থাইংখালির শাহ আলমের ছেলে। সে থাইংখালি উচ্চ বিদ্যালয়ের ষষ্ঠ শ্রেণির ছাত্র ছিল।


আরও খবর



মাগুরায় চেয়ারম্যানের বিরুদ্ধে ঈদের চাল বিতরণে অনিয়ম ১৩৬ বস্তা আটক

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ১৩ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৭৫জন দেখেছেন

Image
স্টাফ রিপোর্টার মাগুরা থেকে:রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের সদস্য  মোঃ পিকুল অভিযোগ করে বলেন যে চেয়ারম্যান তাকে ভিজিএফের স্লিপ দিয়েছিলো ১৯০ টি কিন্তু বিতরনের সময় চাল দিছে ১২৭ জনের। কিন্তু যাঁরা চাল পাননি তারা তাকে দোষারোপ করলে সে গোপনে তদন্ত করে প্রশাসন ও সাংবাদিকদের জানায় যে চেয়ারম্যানের আত্মীয় নাজমুলের গুদামে ভিজিএফের চাল বস্তায় বস্তায় রাখা আছে।

মাঝরাতে পুলিশ প্রশাসন নাজমুলের গুদাম খুলে ১৩৬ বস্তা সরকারি চালের হদিস পান। 

এ ব্যাপারে রাজাপুর ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান জানান, আমার স্লিপ অনুযায়ী চাল বিতরণ ঠিক আছে। তবে কার গুদাম থেকে কত বস্তা চাল পাওয়া গেছে এটা আমার দেখার বিষয় না।তবে তার বক্তব্য স্লিপ অনুযায়ী ইউনিয়নের প্রত্যেকে চাল পেয়েছে। 

এই বিষয়ে অভিযুক্ত অবৈধ সরকারি চাল মজুদকারী নাজমুল বলেন, আমি চাল ডালের ব্যবসা করি এবং এই চালের বস্তাগুলো জি আর ডিওতে কেনা তবে তার কাছে খাদ্য বিভাগের কোনো ফুড গ্রেইন লাইসেন্স আছে কিনা জানতে চাইলে তিনি জানান এ রকম কোনো লাইসেন্স আমার নাই। এদিকে এলাকাবাসী বাজারে এ ঘটনার প্রতিবাদে বিক্ষোভ মিছিল করে।

এ ব্যাপারে উপজেলা নির্বাহী কর্মকর্তা পলাশ মন্ডল জানিয়েছেন, এরকম একটা অভিযোগ পেয়েছি এবং সুষ্ঠু তদন্ত শেষে আমি বিষয়টি সম্পর্কে ব্রীফ করবো।যদি প্রধানমন্ত্রীর দেওয়া গরীবের চাল আত্মসাৎ বা অনিয়মের সংশ্লিষ্টতা পেলে  আইননুসারে ব্যবস্থা গ্রহন করা হবে। 

আরও খবর



রাজধানীসহ সারাদেশে উদযাপিত হচ্ছে ঈদুল আজহা

প্রকাশিত:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ১৭ জুন ২০২৪ | জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মুসলিম জাহানের সবচেয়ে বড় উৎসব পবিত্র ঈদুল আজহা রাজধানীসহ সারাদেশে উদযাপিত হচ্ছে।এ দিনটিতে বড় বিষয় ত্যাগের শিক্ষা। আজ সামর্থ্যবান মুসলমানরা পরিশুদ্ধি এবং আল্লাহর সন্তুষ্টির জন্য পশু কোরবানির দিন। কোরবানির মাধ্যমে সৃষ্টিকর্তার কাছে নিজেকে সমর্পণই ঈদুল আজহার মূল মর্মবাণী।

পবিত্র কোরআনে বর্ণিত আছে, আমি প্রত্যেক উম্মতের জন্য কোরবানির বিধান নির্ধারণ করে দিয়েছি, যাতে তারা ওই পশুদের জবাই করার সময় আল্লাহর নাম উচ্চারণ করে। আর তোমাদের প্রতিপালক তো এক আল্লাহই, তোমরা তারই অনুগত হও। (সুরা হজ : ৩৪)

সোমবার (১৭ জুন) ঈদগাহে নামাজ শুরু হয়েছে ।এরপর শুরু পশু কোরবানির পর্ব।

ঈদের দিন ছাড়াও ধর্মীয় বিধান আছে,পরের দু’দিনও পশু কোরবানি করার সুযোগ। সে হিসেবে বুধবার আসরের ওয়াক্ত পর্যন্ত কোরবানি করা যাবে। সামর্থ্যবানদের জন্য কোরবানি করা ফরজ। কোরবানির পশুর মাংসের তিন ভাগের এক ভাগ বিলিয়ে দিতে হয় গরিব-মিসকিনকে। আত্মীয়দের দিতে হবে এক ভাগ।

হাদিসে বর্ণিত আছে, ‘১০, ১১ ও ১২ জিলহজ এই তিন দিন কোরবানি করা যায়। তবে প্রথম দিন কোরবানি করা অধিক উত্তম। এরপর দ্বিতীয় দিন, তারপর তৃতীয় দিন।’ আরেকটি হাদিসে আছে, জিলহজ মাসের ১২ তারিখ সূর্যাস্তের পর কোরবানি করা শুদ্ধ নয়।

রাজধানীতে জাতীয় ঈদগাহ মাঠে ঈদের প্রথম জামাত হবে সকাল সাড়ে ৭টায়। এছাড়া মন্ত্রিসভার সদস্য, সুপ্রিমকোর্টের বিচারপতি, সংসদ সদস্য, সিনিয়র রাজনৈতিক নেতা, উচ্চপদস্থ সামরিক ও বেসামরিক কর্মকর্তাসহ বিশিষ্ট ব্যক্তিরা এখানে ঈদের নামাজ আদায় করবেন। নামাজ শেষে রাষ্ট্রপতি সাহাবুদ্দিন ও তার সহধর্মিণী ড. রেবেকা সুলতানা সকাল সাড়ে ১০টা থেকে দুপুর ১২টা পর্যন্ত বঙ্গভবনে সর্বস্তরের মানুষের সঙ্গে ঈদের শুভেচ্ছা বিনিময় করবেন।

জাতীয় ঈদগাহ ময়দান, বায়তুল মোকাররম মসজিদসহ রাজধানীতে ১৮৪টি ঈদগাহ ও প্রায় দেড় হাজার মসজিদে ঈদের নামাজ পড়বেন মুসল্লিরা। দেশের সর্ববৃহৎ ঈদ জামাতের জন্য প্রস্তুত কিশোরগঞ্জের ঐতিহাসিক শোলাকিয়া ঈদগাহ। এবার ১৯৭তম ঈদের জামাত হবে এ ঈদগাহে। অন্যদিকে দেশের দ্বিতীয় বৃহত্তম ঈদের জামাত অনুষ্ঠিত হবে দিনাজপুরের ঐতিহাসিক গোর-এ শহীদ ময়দানে। ঈদের জামাতের সব রকম প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে।

শুধু উৎসব না কোরবানির ঈদ, সামাজিক ও সাংস্কৃতিক বন্ধনকে সুদৃঢ় করার একটি বন্ধন। ঈদুল আজহা সমাজে ধনী-দরিদ্রের বৈষম্যকে এক কাতারে নিয়ে আসে। আধুনিক সমাজ যে ব্যক্তিকেন্দ্রিক চিন্তায় মগ্ন হয়ে গেছে, তা থেকে মুক্তি হতে পারে পশু কোরবানি। সমাজ ও রাষ্ট্রে ভ্রাতৃত্ববোধ ও জাতীয় ঐক্য গড়ার শিক্ষা হতে পারে ঈদে পশু কোরবানি।

ঈদের আনন্দ সবার মাঝে ছড়িয়ে দেওয়ার আহ্বান জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি ও প্রধানমন্ত্রী, বিরোধীদলীয় নেতা, বিএনপিসহ দেশের রাজনৈতিক দলগুলো। পৃথক বাণীতে দেশবাসীকে ঈদের শুভেচ্ছা জানিয়েছেন রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন ও প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। ত্যাগের শিক্ষায় উজ্জীবিত হয়ে পারস্পরিক ভেদাভেদ ভুলে দেশ গড়ার আহ্বান জানিয়েছেন তারা।

ইসলাম ধর্মাবলম্বীরা বিশ্বাস করেন, মুসলিম জাতির পিতা হজরত ইবরাহিম (আ.) ও তার পুত্র হজরত ইসমাইল (আ.) এর ঐতিহাসিক ঘটনার পরিপ্রেক্ষিতে কোরবানি ইবাদতের মর্যাদা লাভ করেছে। আল্লাহ যখন ইবরাহিম (আ.)-কে পরীক্ষা করার জন্য স্বীয় পুত্রকে কোরবানি করতে বললেন, তখন সঙ্গে সঙ্গে কোনো সংশয় তথা বিনা প্রশ্নে নিজ প্রিয় সন্তানকে কোরবানি করার জন্য প্রস্তুত হয়ে যান তিনি। কিন্তু আল্লাহর আদেশে দুম্বা কোরবানি হয়ে যায়। হজরত ইব্রাহিম (আ.)-এর অসামান্য এ ত্যাগের মহিমা জাগ্রত রাখতে সারা বিশ্বের মুসলিম সম্প্রদায় জিলহজ মাসের ১০ তারিখে পশু কুরবানি ক


আরও খবর



নতুন বাজেট অর্থনীতির সংকট সমাধানে যথোপযুক্ত নয়: সিপিডি

প্রকাশিত:শুক্রবার ০৭ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৯৬জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:গবেষণা সংস্থা সেন্টার ফর পলিসি ডায়লগ (সিপিডি) বলেছেন অর্থনীতির অস্বাভাবিক সময়ে একটি সাধারণ বাজেট দেওয়া হয়েছে।

শুক্রবার (৭ জুন) রাজধানীর বঙ্গবন্ধু আন্তর্জাতিক সম্মেলন কেন্দ্রে আয়োজিত বাজেট-পরবর্তী সংবাদ সম্মেলনে এসব কথা বলেছেন বেসরকারি গবেষণা প্রতিষ্ঠান সেন্টার ফর পলিসি ডায়ালগের (সিপিডি) নির্বাহী সভাপতি ফাহমিদা খাতুন।

সিপিডির নির্বাহী পরিচালক বলেন, একটা চ্যালেঞ্জিং সময়ে বাজেটটি হলো। আমাদের প্রত্যাশা ছিল এই বাজেট অনেক উদ্ভাবনী হবে। এখানে সৃজনশীল ও কিছু সাহসী পদক্ষেপ থাকবে। কারণ অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জিং সময়ে গতানুগতিক বাজেট কোনো ধরনের সমস্যার সমাধান দিতে পারবে না। নতুন বাজেট আমাদের কাছে অতীতের বাজেটের মতোই মনে হয়েছে। বর্তমান সময়ের সমস্যা, ক্রান্তিকালীন সংকট দেখা দিয়েছে অর্থনীতিতে, সেগুলো সমাধানে এই বাজেট যথোপযুক্ত পদক্ষেপ বা দিকনির্দেশনা দিতে পারেনি।

সিপিডির নির্বাহী পরিচালক বলেন, আয়করের সর্বোচ্চ হার যেখানে বাড়িয়ে ৩০ শতাংশ করা হলো, সেখানে ১৫ শতাংশ কর দিয়ে কালোটাকা সাদা করার সুযোগ দেওয়া হচ্ছে। এটা নৈতিক ও অর্থনৈতিক কোনোভাবেই গ্রহণযোগ্য নয়। যাঁরা নিয়মিত কর দেন, এর মধ্য দিয়ে তাদের তিরস্কৃত করা হচ্ছে।

ফাহমিদা খাতুন বলেন, বাজেটে মুদ্রাস্ফীতি, জিডিপি প্রবৃদ্ধির, বিনিয়োগের যেসব লক্ষ্যমাত্রা ধরা হয়েছে তা অতি উচ্চাভিলাষী ও বাস্তবসম্মত নয়। বাজেটে অর্থনৈতিক সূচকের অনেক লক্ষ্যমাত্রা পূরণ হবে না। চলমান অর্থনৈতিক চ্যালেঞ্জ অনুধাবন করতে না পারায়, বাজেটে চ্যালেঞ্জ মোকাবিলায় যেসব পদক্ষেপ নেওয়া হয়েছে তা দুর্বল ও অপর্যাপ্ত।

ফাহমিদা খাতুন আরও বলেন, অর্থনীতিতে এখন যেসব সমস্যা আছে, প্রথমত, সেগুলো মেনে নিয়ে তার গভীরতা বুঝতে হবে। এরপর সমাধানের দিকে যেতে হবে। কিন্তু প্রস্তাবিত বাজেটে তেমন কোনো ঘোষণা দেখা যায়নি।


আরও খবর