Logo
আজঃ বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪
শিরোনাম
নিলয় কোটা আন্দোলনকারীদের পক্ষ নিয়ে কী বললেন স্থগিত ১৮ জুলাইয়ের এইচএসসি পরীক্ষা দেশের সব স্কুল-কলেজ বন্ধ ঘোষণা তিতাসের অভিযানে নারায়ণগঞ্জের ২ শিল্প কারখানার অবৈধ গ্যাস সংযোগ বিচ্ছিন্ন হিলি দিয়ে কাঁচা মরিচ আমদানি বাড়ায় বন্দরের পাইকারী বাজারে কেজিতে দাম কমেছে ৩০ টাকা জয়পুরহাটে ডাকাতির পর প্রতুল হত্যা মামলায় ৬ জনের যাবজ্জীবন রিয়েলমি সার্ভিস ডে: ফোন রিপেয়ারে খরচ বাঁচান ৬০% পর্যন্ত, উপভোগ করুন ফ্রি সার্ভিস সুনামগঞ্জে ইয়াবাসহ ২জন গ্রেফতার: কোটিপতি সোর্স ও গডফাদার অধরা কুষ্টিয়ার কুমারখালীতে ৩ দিনে ৩ খুন, আইনশৃংখলার অবনতি জনদুর্ভোগ সৃষ্টি করলে ব্যবস্থা নেওয়া হবে: স্বরাষ্ট্রমন্ত্রী

পত্নীতলায় কৃষি প্রণোদনা বিতরণ

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৪ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১১৩জন দেখেছেন

Image

দিলিপ চৌহান, পত্নীতলা (নওগাঁ ) প্রতিনিধি:পত্নীতলায় উপজেলা কৃষি অধিদপ্তরের আয়োজনে ২০২৩-২৪ অর্থ বছরে, খরিপ-২ মৌসুমে প্রণোদনা কর্মসূচির আওতায় রোপা আমন ধান উৎপাদনের লক্ষ্যে ক্ষুদ্র ও প্রান্তিক কৃষকদের মাঝে বুধবার বিনামূল্যে বীজ ও সার বিতরণের আনুষ্ঠানিক ভাব উদ্বোধন করা হয়।

উদ্বোধনী অনুষ্ঠানে উপজেলা কৃষি অফিসার সোহরাব হোসেন এর সভাপতিত্বে প্রধান অতিথি হিসাবে বক্তব্য রাখেন উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোছাঃ পপি খাতুন। এসময় অন্যান্যের মধ্যে বক্তব্য রাখেন অতিরিক্ত কৃষি অফিসার মোহাইমিনুল ইসলাম, কৃষি সম্প্রসারণ অফিসার পারভেজ মোশারফ, উপজেলা পরিষদের ভাইস চেয়ারম্যান আব্দুল আহাদ, মহিলা ভাইস চেয়ারম্যান মোসাঃ সাবিনা বেগম, উপজেলা মৎস্য অফিসার আবু সাঈদ, উপজেলা পল্লী উন্নয়ন কর্মকর্তা প্রোল্লাদ কুমার কুন্ডু, পত্নীতলা প্রেসক্লাব ও উপজেলা দুর্নীতি প্রতিরো©ধ কমিটির সভাপতি আলহাজ্ব বুলবুল চৌধুরী প্রমুখ।

এসময় অত্র উপজেলায় মোট ২৪০০ জন কৃৃষকের মাঝে রোপা আমন ধান বীজ ও সার বিতরণ করা হয়েছে। প্রতি কৃৃষককে ৫ কেজি বীজ, ১০ কেজি ডিএপি ও ১০ কেজি এমওপি সার প্রদান করা হয়।


আরও খবর



আত্রাইয়ে আওয়ামী লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপিত

প্রকাশিত:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৯২জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর আত্রাইয়ে নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে উপজেলা আ’লীগ আয়োজিত সংগ্রাম, উন্নয়ন, অর্জন ও গৌরব দীপ্তময় পথচলার প্রাচীনতম রাজনৈতিক সংগঠন বাংলাদেশ আ’লীগের প্লাটিনাম জয়ন্তী উদযাপন করা হয়েছে।

রোববার ২৩ জুন সকালে উপজেলা আ’লীগ কার্যালয়ে প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে নেতাকর্মীদের সাথে নিয়ে জাতীয় ও দলীয় পতাকা উত্তোলন শেষে বর্ণাঢ্য র‌্যালী উপজেলার প্রধান প্রধান সড়ক প্রদক্ষিন করে। র‌্যালী শেষে সাহেবগঞ্জ আ’লীগ দলীয় কার্যালয়ে উপজেলা আওয়ামী লীগ সভাপতি নৃপেন্দ্রনাথ দত্ত দুলাল এর সভাপতিত্বে আলোচনা সভা হয়। সভায় সাধারন সম্পাদক আক্কাছ আলী, সহসভাপতি জেলা পরিষদ সদস্য চৌধুরী গোলাম মোস্তফা বাদল, যুগ্ন সাধারন সম্পাদক আফছার আলী প্রামানিক, নাহিদ ইসলাম বিপ্লব, সাংগঠনিক সম্পাদক ফজলে রাব্বি জুয়েল, দপ্তর সম্পাদক মেহেদী হাসান লিটন, ত্রান ও সমাজকল্যান সম্পাদক হামিদ সরকার, যুবলীগ ভারপ্রাপ্ত সাধারন সম্পাদক রাফিউল ইসলাম, ছাত্রলীগ সভাপতি মাহদি মসনদ স্বরুপ, সম্পাদক হুমায়ন কবির সোহাগ, স্বেচ্ছাসেবক লীগ সভাপতি আবু উজ্জল, ভারপ্রাপ্ত সম্পাদক সুইট দত্তসহ আ’লীগ পরিবারের সদস্যবৃন্দ বক্তব্য রাখেন। প্রতিষ্ঠাবার্ষিকী উপলক্ষে প্রত্যেক ইউনিয়ন হতে আ’লীগের নেতৃত্বে বর্ণাঢ্য সোভাযাত্রায় সুসজ্জিত হয়ে নেতাকর্মীরা উপজেলা দলীয় কার্যালয়ে এসে একত্রিত হন।


আরও খবর



আত্রাই ও গুড় নদীর ঝুঁকিপূর্ন এলাকা পরিদর্শন করলেন এমপি সুমন

প্রকাশিত:শনিবার ০৬ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ৮৮জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর আত্রাইয়ে গত কয়েক দিনের একটানা বর্ষণ ও উজান থেকে নেমে আসা পাহাড়ী ঢলে হু হু করে বাড়ছে আত্রাই ও গুড় নদীর পানি। বর্তমানে এ দুটি নদীর পানি বিপৎসীমা ছুঁই ছুঁই করছে।

এরই মধ্যে বেশকিছু এলাকা ঝুঁকিপূর্ণ হয়ে পড়েছে। নদীপাড়ের বাসিন্দাদের সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, গত বছরের বন্যায় ভেঙে যাওয়া স্থান গুলো মেরামত করা হয়। নদীর পানি বিপৎসীমা অতিক্রম করলে ভাঙা এসব স্থান পুনরায় ভেঙ্গে গিয়ে পানি অনায়াসে লোকালয়ে প্রবেশ করবে। ফলে পানিবন্দি হয়ে পড়বে অন্তত কয়েক হাজার পরিবার।  এদিকে আত্রাই, যমুনা ও গুড় নদীর পানি বাড়তে থাকায় শুক্রবার নদী  তিনটির ঝুঁকিপূর্ণ এলাকা পরিদর্শন করেন স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. ওমর ফারুক সুমন ।

এসময় উপজেলা পরিষদ চেয়ারম্যান আলহাজ¦ এবাদুর রহমান প্রামানিক, উপজেলা ভাইস চেয়ারম্যান হাফিজুল ইসলাম, ভোঁপাড়া ইউনিয়ন চেয়ারম্যান নাজিম উদ্দিন মন্ডল, সাবেক উপজেলা স্বেচ্ছাসেবক লীগের সাধারণ সম্পাদক সেন্টুসহ উপজেলার বিভিন্ন পর্যায়ের নেতাকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

এ প্রসঙ্গে স্থানীয় সংসদ সদস্য অ্যাড. ওমর ফারুক সুমন বলেন, বন্যা মোকাবেলায় সবধরণের আগাম প্রস্তুতি নেওয়া হয়েছে। বন্যানিয়ন্ত্রণ বাঁধের ঝুঁকিপূর্ণ পয়েন্টগুলোতে কাজ করার জন্য নওগাঁ পানি উন্নয়নবোর্ডকে নির্দেশ নেওয়া হয়েছে। এমপি সুমন আরও বলেন, বন্যা মোকাবেলায় পাউবোর পাশাপাশি কাজ করছে উপজেলা প্রকল্প বাস্তবায়ন দপ্তর। এছাড়া সংশ্লিষ্ট ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান, সদস্য ও নেতা কর্মী তাদের সাথে রয়েছেন।


আরও খবর



তাহিরপুর সীমান্তে কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি: দেখার কেউ নাই

প্রকাশিত:বুধবার ১০ জুলাই ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১২৭জন দেখেছেন

Image

মোজাম্মেল আলম ভূঁইয়া,সুনামগঞ্জ প্রতিনিধি:দেশের পর্যটন খ্যাত সুনামগঞ্জ জেলার তাহিরপুর উপজেলা সীমান্তে প্রতিদিন কোটি টাকার রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে ভারত থেকে পাচাঁর করা হচ্ছে বিভিন্ন মালামাল। চোরাচালানের মাধ্যমে অবৈধ ভাবে মালামাল পাচাঁর করতে গিয়ে গত ৫ বছরে শতাধিক শ্রমিকের মর্মান্তিক মৃত্যু হয়েছে। কিন্তু এব্যাপারে হয়নি কোন মামলা, গ্রেফতার করা হয়নি চোরাকারবারী ও তাদের গডফাদারকে। যার ফলে এই সীমান্তে দীর্ঘদিন যাবত জমজমাট ভাবে চলছে চোরাচালান বাণিজ্য।  

এলাকাবাসী সূত্রে জানা গেছে- প্রতিদিনের মতো আজ মঙ্গলবার (৯ জুলাই) ভোর থেকে জেলার তাহিরপুর উপজেলার চাঁনপুর সীমান্তের নয়াছড়া, গারো ঘাট, রজনী লাইন, কড়ইগড়া ও বারেকটিলা এলাকা দিয়ে সোর্স রুসমত আলী, নাসির মেম্বার, জামাল মিয়া, নজরুল মিয়া, বুটকুন মিয়াগং মোটর সাইকেল ও ট্রলি দিয়ে কয়েক হাজার মেঃটন কয়লা, বালি ও চুনাপাথরসহ মাদকদ্রব্য ও বিভিন্ন মালামাল পাচাঁর শুরু করে। অন্যদিকে ভোররাত থেকে চারাগাঁও সীমান্তের কলাগাঁও নদী থেকে রাজস্ব ফাঁকি দিয়ে অবৈধ ভাবে শতাধিক স্টিলবডি ইঞ্জিনের নৌকা দিয়ে বালি, কয়লা, চুনাপাথর, চিনি, পেয়াজ ও মাদকদ্রব্য বোঝাই করে কিশোরগঞ্জ জেলা ভৈরব ও নেত্রকোনা জেলার কলমাকান্দা নিয়ে যায় সোর্স পরিচয়ধারী রফ মিয়া, আইনাল মিয়া, সাইফুল মিয়া, রিপন মিয়া ও লেংড়া জামালগং। অন্যদিকে গডফাদার তোতলা আজাদের নেতৃত্বে সোর্সরা সকাল ৬টায় বীরেন্দ্রনগর সীমান্তের সুন্দরবন, লামাকাটা ও চারাগাঁও সীমান্তে জঙ্গলবাড়ি, মাইজহাটি এলাকা দিয়ে ১০টি স্টিলবডি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে প্রায় ৩শ মেঃটন কয়লা, পেয়াজ ও চিনিসহ মাদকদ্রব্য পাচাঁর করে নিয়ে যায়। অপরদিকে এই সীমান্তের বাঁশতলা ও লালঘাট এলাকা দিয়ে ৮টি স্টিলবডি ইঞ্জিনের নৌকা বোঝাই করে প্রায় ২শ মেঃটন কয়লা ও বিপুল পরিমান মদ, গাঁজা, ইয়াবা পাচাঁর করে নিয়ে যায় সোর্স পরিচয়ধারী চোরাকারবারী রুবেল মিয়া, আমির আলী, হারুন মিয়া, বাবুল মিয়া, সোহেল মিয়া, আনোয়ার হোসেন বাবলু ও রফ মিয়া।

এদিকে বালিয়াঘাট সীমান্তের লাকমা এলাকা দিয়ে সোর্স পরিচয়ধারী রতন মহলদার, কামরুল মিয়া, ইয়াবা কালাম, হোসেন আলী, জিয়াউর রহমান জিয়া ও মনির মিয়াগং পৃথক ভাবে ১৫০মেঃটন কয়লা ও বিভিন্ন প্রকার মাদকদ্রব্য পাচাঁর করাসহ টেকেরঘাট সীমান্তের রজনী লাইন, বুরুঙ্গাছড়া, বড়ছড়া এলাকা দিয়ে সোর্স আক্কল আলী, কামাল মিয়া, রফিকুল, মুহিবুর, সাইদুল মিয়াগং চুনাপাথর পাচাঁর করে এবং লাউড়গড় সীমান্তের জাদুকাটা নদী, পুরান লাউড়, দশঘর এলাকা দিয়ে সোর্স বয়েজিদ মিয়া, জসিম মিয়া, রফিক মিয়া, জজ মিয়া ও নুরু মিয়াগং ভারত থেকে কয়লা, পাথর, চিনি, পেয়াজ, গরু, নাসির উদ্দিন বিড়ি, ইয়াবা, মদ ও গাঁজা পাচাঁর শুরু করে। বিকাল সাড়ে ৪টা পর্যন্ত এই চোরাচালান ওপেন ভাবে চলে। কিন্তু বিজিবি ও পুলিশের পক্ষ থেকে অভিযান চালিয়ে অবৈধ মালামালসহ কাউকে গ্রেফতারের খবর পাওয়া যায়নি।  

শুল্কস্টেশনের বৈধ ব্যবসায়ী সূত্রে জানা গেছে- গডফাদার তোতলা আজাদ সোর্সদের মাধ্যমে পাচাঁরকৃত প্রতিটন চোরাই কয়লা থেকে বিজিবির নামে ৮শত টাকা, থানার নামে ১হাজার টাকাসহ মোট ২৩শ টাকা চাঁদা নেয়। এছাড়া বালির নৌকা থেকে ৭শ টাকা, ১ বস্তা পেয়াজ থেকে ২শ টাকা, ১বস্তা চিনি থেকে ৩শ, প্রতি গরু ৫হাজার, ঘোড়া ৭হাজার টাকা করে চাঁদা উত্তোলন করে। কিন্তু এই চোরাচালান ও চাঁদাবাজি বন্ধের জন্য নেওয়া হয়না আইনগত পদক্ষেপ। যার ফলে গডফাদার তোতলা আজাদ ও তার সোর্সরা এখন কোটিপতি।

এব্যাপারে চাঁনপুর বিজিবি ক্যাম্প কমান্ডার নায়েক সুবেদার আব্বাস বলেন- সীমান্ত চোরাচালানের বিষয়ে আমার জানা নেই, খোঁজ নিয়ে দেখছি। চারাগাঁও বিজিবি ক্যাম্পের ভিআইপির দায়িত্বে থাকা সৈনিক শামীম বলেন- আমার উপরস্থ কর্মকর্তাদের নির্দেশ মতো আমি দায়িত্ব পালন করছি। ওই ক্যাম্পের কমান্ডার নায়েক সুবেদার শফিকুল ইসলাম বলেন- আপনি তথ্য দিয়েন আমি ব্যবস্থা নেওয়ার চেষ্টা করব। টেকেরঘাট কোম্পানীর কমান্ডার দীলিপ বলেন- সীমান্ত এলাকা অনেক বড়, তারপরও খোঁজ খবর নিয়ে দেখব।  

-খবর প্রতিদিন/ সি.

আরও খবর



রাষ্ট্রপতির সঙ্গে সেনাবাহিনী প্রধানের বিদায়ী সাক্ষাৎ

প্রকাশিত:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:বুধবার ১৭ জুলাই ২০২৪ | ১৫২জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:শনিবার (২২) বঙ্গভবনে গিয়ে রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিনের সঙ্গে বিদায়ী সাক্ষাৎ করেছেন সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদ।

সাক্ষাৎকালে সেনাবাহিনী প্রধান দায়িত্ব পালনকালে সহযোগিতার জন্য রাষ্ট্রপতির প্রতি কৃতজ্ঞতা জানান। এ সময় তিনি সেনাবাহিনীর সার্বিক কার্যক্রম বিশেষ করে উন্নয়ন কর্মকাণ্ড সম্পর্কে রাষ্ট্রপতিকে অবহিত করেন।

এসময় রাষ্ট্রপতি মো. সাহাবুদ্দিন সফলভাবে দায়িত্ব পালন করায় বিদায়ী সেনাবাহিনী প্রধানকে ধন্যবাদ জানান।

মো. সাহাবুদ্দিন বলেন, মুক্তিযুদ্ধের মাধ্যমে গড়ে ওঠা সশস্ত্র বাহিনী আমাদের গর্ব। রাষ্ট্রপতি এসময় সেনাবাহিনীর উন্নয়নে বিদায়ী প্রধানের ভূমিকার প্রশংসা করেন।

রাষ্ট্রপতি আশা প্রকাশ করেন, সেনাবাহিনীর উন্নয়নের এই ধারা ভবিষ্যতে অব্যাহত থাকবে এবং সরকার এ ব্যাপারে সার্বিক সহযোগিতা দেবে।রাষ্ট্রপতির কার্যালয়ের সচিবরা এ সময় উপস্থিত ছিলেন।

সেনাবাহিনী প্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের নিয়োগের মেয়াদ আগামী ২৩ জুন অপরাহ্নে পূর্ণ হবে। ২০২১ সালের ১০ জুন প্রতিরক্ষা মন্ত্রণালয়ের জারি করা আদেশে, জেনারেল হিসেবে পদোন্নতি দিয়ে তিন বছরের জন্য এস এম শফিউদ্দিন আহমেদকে সেনাপ্রধানের দায়িত্ব দিয়েছিল সরকার।

এদিকে, পরবর্তী সেনাপ্রধান হিসেবে নিয়োগ দেওয়া হয়েছে লেফটেন্যান্ট জেনারেল ওয়াকার-উজ-জামানকে। বর্তমান সেনাপ্রধান জেনারেল এস এম শফিউদ্দিন আহমেদের স্থলাভিষিক্ত হবেন তিনি।


আরও খবর



নওগাঁয় ঈদ পুর্নমিলনী ও আলোচনা সভা অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ২০ জুন ২০24 | হালনাগাদ:মঙ্গলবার ১৬ জুলাই ২০২৪ | ১৫১জন দেখেছেন

Image

এম এম হারুন আল রশীদ হীরা; নওগাঁ:নওগাঁর মান্দায়  আনন্দ রালী, আলোচনা সভা ও দিনভর নানা কর্মসূচির মধ্য দিয়ে ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়েছে। ১নং আলালপুর সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, আলালপুর নিম্ন মাধ্যমিক বিদ্যালয় ও আলালপুর হাজী শেখ আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের যৌথ আয়োজনে ও উদ্যোগে ১৯৭৮ ও ২০২৪ সালের শিক্ষার্থীদের নিয়ে এ প্রথমবারের মতো ঈদ পুর্নমিলনী অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।  এ উপলক্ষে বুধবার (১৯ জুন) সকাল ১০ টার দিকে প্রাক্তন ছাত্র-ছাত্রীদের প্রথম ঈদপুর্নমিলনী ২০২৪ এ-র শুরুতে পবিত্র কুরআন থেকে তেলাওয়াত করা হয়। হিন্দুদের পক্ষে গীতাপাঠ করা হআয়। পরে জাতীয় সংগীতের তালে তালে জাতীয় পতাকা উত্তোলন করা হয়। পরে প্রতিষ্টানের  মাঠ থেকে এক বর্নাঢ্য রালী বের হয়ে খাসমান্দা বাজারের প্রধান প্রধান রাস্তা প্রদক্ষিণ করে মাঠে এসে শেষ হয়। বেলা সাড়ে ১১ টার দিকে অনুষ্ঠিত আলোচনা সভায় সভাপতিত্ব করেন আলালপুর হাজী শেখ আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও প্রাক্তন ম্যানেজিং কমিটির সদস্য ও ঈদ পুর্নমিলনী কমিটির সভাপতি খোন্দকার শহিদুল ইসলাম। ঈদ পুর্নমিলনী কমিটির সাধারণ সম্পাদক প্রাক্তন শিক্ষার্থী আবদুল্লাহ আল মুকিতের পরিচালনায় অনুষ্ঠানে বক্তব্য দেন আলালপুর হাজী শেখ আলম উচ্চ বিদ্যালয়ের প্রাক্তন শিক্ষার্থী ও প্রাক্তন ম্যানেজিং কমিটির সভাপতি আবদুল লতিফ শেখ, প্রাক্তন প্রধান শিক্ষক আবদুর রহমান, প্রাক্তন শিক্ষক মোকছেদুর রহমান,   প্রাক্তন শিক্ষার্থী এমবিবিএস এফসিপিএস (গাইনী অবস্থা) ডাক্তার রেবেকা সুলতানা, প্রাক্তন শিক্ষার্থী আলতামাস আলম। অন্যান্যের মধ্যে অনুষ্ঠানে উপস্থিত ছিলেন গণ্যমান্য ব্যক্তিবর্গ, সাংবাদিকবৃন্দ, প্রাক্তন শিক্ষার্থীগণ প্রমূখ। পরে র্যাফেল ড্র বিজয়ীদের মধ্যে পুরস্কার বিতরণ করা হয়।  শেষে সাংস্কৃতিক অনুষ্ঠান অনুষ্ঠিত হয়।


আরও খবর