Logo
আজঃ সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪
শিরোনাম

প্রধানমন্ত্রীর উপহারের ঘর পাচ্ছেন আরও ৪০ হাজার গৃহহীন

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ২১ মার্চ ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৫৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক ;ঈদের আগেই প্রধানমন্ত্রীর উপহারের নতুন ঘর পাচ্ছেন আরও প্রায় ৪০ হাজার গৃহহীন ও ভূমিহীন পরিবার। আগামীকাল বুধবার এসব ঘর গৃহহীন ও ভূমিহীন মানুষের হাতে তুলে দেবেন প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা। প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয়ের আশ্রয়ণ-২ প্রকল্পের আওতায় চতুর্থ পর্যায়ে ৩৯ হাজার ৩৬৫টি ঘর হস্তান্তর করা হবে।

প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় সূত্রে জানা যায়, গণভবন থেকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা দেশের তিনটি উপজেলায় যুক্ত হয়ে চতুর্থ পর্যায়ের ঘর ও জমি হস্তান্তর করবেন। এদিন গাজীপুরে শ্রীপুর উপজেলায় নয়াপাড়া আশ্রয়ণ প্রকল্প, সিলেটের গোয়াইনঘাট উপজেলার নওয়াগাঁও আশ্রয়ণ প্রকল্প এবং বরিশালের বানারীপাড়ার উত্তরপাড় আশ্রয়ণ প্রকল্পে ভার্চুয়ালি যুক্ত হয়ে উপকারভোগীদের সঙ্গে কথা বলবেন।

আশ্রয়ণ-২ প্রকল্প সূত্রে জানা যায়, ভূমিহীন-গৃহহীন পরিবার পুনর্বাসনের লক্ষ্যে ১৯৯৭ সালে আশ্রয়ণ নামে প্রধানমন্ত্রীর কার্যালয় একটি প্রকল্প গ্রহণ করে, যা প্রধানমন্ত্রীর প্রত্যক্ষ তত্ত্বাবধানে পরিচালিত হচ্ছে।

মুজিববর্ষে উপলক্ষে প্রথম পর্যায়ে ২০২১ সালের ২৩ জানুয়ারি ৬০ হাজার ১৯১টি ঘর, ২০ জুন ৫৩ হাজার ৩০০টি ঘর হস্তান্তর করা হয়েছে। প্রথম ও দ্বিতীয় পর্যায়ে নির্মিত মোট ঘরের সংখ্যা ১ লাখ ১৭ হাজার ২৯টি।

১৯৯৭ সাল থেকে এই প্রকল্পের আওতায় ৫ লাখ ৫৪ হাজার ৫৯৭টি পরিবার পরিবারকে পুনর্বাসন করা হয়েছে। আশ্রয়ণ ও অন্যান্য মন্ত্রণালয়/সংস্থাসহ গৃহ নির্মাণ করে ১৯৯৭ সাল থেকে এখন পর্যন্ত পুনর্বাসন করা হয়েছে ৭ লাখ ৭১ লাখ ৩০১ টি পরিবারকে। প্রতি পরিবারের পাঁচজন সদস্য হিসেবে মোট উপকারভোগী ৩৮ লাখ ৫৬ হাজার ৫০৫ জন।

তৃতীয় পর্যায়ে নির্মাণ করা একক ঘরের সংখ্যা ৬৫ হাজার ৬৭৪টি। এর মধ্যে ৩২ হাজার ৯০৪টি হস্তান্তর হয়েছে গত বছরের ২৬ এপ্রিল এবং ২য় ধাপে ২১ জুলাই জমির মালিকানাসহ ২৬ হাজার ২২৯টি হস্তান্তর করা হয়। আগামীকাল ২২ মার্চ চতুর্থ পর্যায়ে হস্তান্তর হচ্ছে ৩৯ হাজার ৩৬৫টি ঘর।

১ম, ২য়, ৩য় ও ৪র্থ পর্যায়সহ মোট হস্তান্তরিত একক গৃহের সংখ্যা দাঁড়াচ্ছে ২ লাখ ১৫ হাজার ৮২৭টি। ৪র্থ পর্যায়ে অবশিষ্ট নির্মাণাধীন গৃহের সংখ্যা ২২ হাজার ৬টি। ৪র্থ পর্যায়ে চরাঞ্চলে বরাদ্দকৃত বিশেষ ডিজাইনের গৃহের সংখ্যা ১ হাজার ৩৭৩ টি এবং পার্বত্যঞ্চলের বিশেষ ডিজাইনের মাচাং ঘর ৬৩৪টি।

এখন পর্যন্ত ভূমিহীন-গৃহহীনমুক্ত মাদারীপুর, গাজীপুর, নরসিংদী, রাজশাহী, জয়পুরহাট, চাঁপাইনবাবগঞ্জ ও চুয়াডাঙ্গা জেলার সব উপজেলাসহ সারাদেশের মোট ১৫৯টি উপজেলা।


আরও খবর



আ. লীগের সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৮ প্রার্থী

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১২১জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:আওয়ামী লীগ দ্বাদশ জাতীয় সংসদের সংরক্ষিত নারী আসনে ৪৮ জনকে মনোনয়ন দেবে। অন্যদিকে জাতীয় পার্টি (জাপা) পাচ্ছে দুটি আসন।

বুধবার (৩১ জানুয়ারি) নির্বাচন কমিশনে (ইসি) এ সংক্রান্ত চিঠি জমা দেওয়ার পর সাংবাদিকদের এমন তথ্য জানান জাতীয় সংসদের হুইপ ও আওয়ামী লীগের সাংগঠনিক সম্পাদক আবু সাঈদ আল মাহমুদ স্বপন।

তিনি বলেন, সংরক্ষিত নারী আসনে মনোনয়নের দায়িত্ব প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনাকে দিয়েছেন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্যরা। দ্বাদশ সংসদের ৬২ জন স্বতন্ত্র সংসদ সদস্য রয়েছেন। সেই হিসেবে সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগের প্রার্থী হবেন ৪৮ জন। বাকি দুইজন জাতীয় পার্টি থেকে হতে পারেন।

এক প্রশ্নের জবাবে জাতীয় সংসদের হুইপ বলেন, সংরক্ষিত নারী আসনে আওয়ামী লীগ পরিবারের সন্তান, মহিলা আওয়ামী লীগ, সহযোগী সংগঠন ছাড়াও বিভিন্ন শ্রেণি–পেশার নেত্রীরা অধিক গুরুত্ব পাবেন।

এ সময় ইসিতে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনার বিশেষ সহকারী ব্যারিস্টার বিপ্লব বড়ুয়া, আওয়ামী লীগের উপ দপ্তর সম্পাদক সায়েম খান উপস্থিত ছিলেন।


আরও খবর



তানোরে কীটনাশক দোকানে আগুন পুড়ে ছাই

প্রকাশিত:শুক্রবার ১৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৮৬জন দেখেছেন

Image
আব্দুস সবুর তানোর থেকে:রাজশাহীর তানোরে বালাইনাশক দোকানে পূর্ব বিরোধের জেরে দূর্বৃত্তদের দেয়া আগুনে মালামালসহ টিভি ও মোটরসাইকেল পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। বৃহস্পতিবার দিবাগত শেষ রাতে উপজেলার তালন্দ ইউনিয়ন ইউপির লালপুর বাজারে সরকার ট্রেডার্স নামক বালাইনাশক দোকানে ঘটে মর্মান্তিক আগুন লাগার ঘটনাটি। দোকানটির মালিক ইউনিয়ন পরিষদ সদস্য ও ইউপি আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক আবুল হাসান। অবশ্য মালিক আবুল হাসান গত বৃহস্পতিবার ঢাকায় যান। আর রাতেই পরিকল্পিত ভাবে আগুন দেয়া হয়েছে বলে দাবি করেন তিনি।

মোবাইলে মেম্বার আবুল হাসান বলেন, এটা পরিকল্পিত আগুন দেয়া হয়েছে। আমি এলাকায় নেই আর সেই রাতেই আগুন দিয়ে সবকিছু পুড়িয়ে দেয়া হয়েছে। আমার দোকানে প্রায় ১০/১২ লাখ টাকার বিভিন্ন কোম্পানির কীটনাশক ছিল ও বাকি ছিল ১৫ লাখ টাকার মত, যে খাতায় বাকি লিখা ছিল সেটিসহ নিজের ব্যবহিত এপাসি আরটিআর মোটরসাইকেল, টিভি মনিটর পুড়ে ছাই হয়ে গেছে। তিনি আরো জানান, আমি এলাকায় গিয়ে থানায় জিডি কিংবা অভিযোগ করব। শুক্রবার বিকেলের দিকে সরেজমিনে দেখা যায়, লালপুর বাজারের দক্ষিণ দিকে ও পুকুরের পূর্ব দিকে সরকার ট্রেডার্স নামের বালাইনাশকের দোকান। দোকানের ভিতরের গ্যালারি ও মালামাল পুড়ে ছাই হয়ে আছে। দোকানের পূর্ব দিকে মোটরসাইকেল পুড়া অবস্থায় পড়ে আছে।

মোটরসাইকেলের ট্যাংকি ও হেন্ডেল দেখা গেছে বাকি সবগুলো পুড়ে ছাই। সেখানে ছিলেন হাসানের ভাই মুতাহারুল হাকিম। তিনি জানান, আমি লালপুর স্কুলের নৈশ প্রহরীর চাকুরী করি।বৃহস্পতিবার রাত্রি দুই টার দিকে দোকানে তালা মারা দেখে গেছিলাম। শুক্রবার ভোর ৫ টার দিকে চা দোকানী সামায়ন ভারতী দোকানের সামনে  মটরে পানি নিতে এসে আগুন দেখতে পেয়ে খবর দেয়। সাথে সাথে ফায়ার সার্ভিস কে খবর দেয়া হলে দ্রুত এসে আগুন নিয়ন্ত্রণ করেন। অবশ্য তার আগেই সবকিছু পুড়ে ছাই হয়ে পড়ে আছে। 

স্থানীয়রা জানান, আমরা মনে করেছিলাম বৈদ্যুতিক শর্ট সার্কিট থেকে আগুন লাগতে পারে। কিন্তু দোকানের তালা ভাঙা দেখতে পায়। তখনই সবার ধারণা পাল্টে যায়। তালা ভেঙে আগুন লাগিয়ে দেয়া হয়েছে। এজন্যই দ্রুত সময়ের মধ্যে সব পুড়ে গেছে। দোকানের কোন গ্যালারি ফাঁকা ছিল না। বৃহস্পতিবারে প্রায় তিন লাখ টাকার কীটনাশক কিনেন হাসান। 
হাসানের আত্মীয় স্বজনরা দোকানে এসে কান্নায় ভেঙে পড়েন।

সংবাদ পেয়ে ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেন থানার অফিসার ইনচার্জ ওসি আব্দুর রহিম। তিনি বলেন, সবার বক্তব্য শুনেছি, তদন্ত সাপেক্ষে প্রয়োজনীয় ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে। এখনই কিছুই বলা যাচ্ছে না। তবে যারাই জড়িত থাকুক তদন্তে বের করা হবে বলেও জানান তিনি।

আরও খবর



একদিকে সন্তান হারানোর বেদনা অন্যদিকে দেনাদারদের চাপ

প্রকাশিত:সোমবার ২৯ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২৪ ফেব্রুয়ারী 20২৪ | ১০২জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ, মেহেরপুরঃএকসাথে চার সন্তান ভুমিষ্ঠ হবার পর আনন্দে আত্মহারা ছিলেন মেহেরপুরের গাংনীর তেঁতুলবাড়িয়া গ্রামের হাসান। কিন্তু সেই আনন্দ মিলিন হয়ে গেছে নিমিষেই। মাত্র সাত দিনের ব্যবধানে তিনটি সন্তানের অকাল মৃত্যু হয়েছে। একদিকে তিন সন্তান হারানোর বেদনা অন্যদিকে অসুস্থ এক সন্তানের ব্যায় বহুল চিকিৎসা। সেই সাথে দেনার ভারে জর্জরিত হাসান এখন কিংকর্তব্য বিমূঢ়। কিভাবে সদ্যজাত সন্তানের চিকিৎসা করাবেন তা নিয়ে মানসিকভাবে ভেঙ্গে পড়েছেন তিনি। এখনও কেউ এগিয়ে আসেনি সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে। তবে সমাজ সেবা বলছে সহযোগিতা চাইলে তার সন্তানকে চিকিৎসা সহযোগিতা করা হবে।

হাসান জানান, পরপর দুবার অকাল গর্ভপাত ঘটেছিল হাসানের স্ত্রী রজনী খাতুনের। পরের বছর আবারো গর্ভধারণ করেন তিনি। নানা পরিক্ষা নিরিক্ষার পর জানা যায় রজনীর গর্ভে রয়েছে চারটি সন্তান। শুধু হাসানের পরিবারই নয়, প্রতিবেশিরাও বেশ আনন্দে উচ্ছাসিত। নিজের সহায় সম্বল বিক্রি করে স্ত্রীর চিকিৎসা করান হাসান। সন্তানের মুখ দেখার জন্যও পাগল প্রায় স্ত্রী রজনী। স্থানীয় চিকিৎসকদের পরামর্শে হাসান তার স্ত্রী রজনীকে ভর্তি করেন ঢাকা মেডিকেল কলেজ হাসপাতালে। সেখান থেকে রজনীকে পাঠানো হয় ইউনিহেল্ধসঢ়;থ স্পেশালাইজ্ধসঢ়;ড হাসপাতালে।

গত পহেলা জানুয়ারি রজনীর কোল জুড়ে আসে তিন ছেলে ও এক মেয়ে। নাম রাখা হয় রেজয়ান, রাইয়ান, রাফসান ও সুমাইয়া। ওই রাতেই সুমাইয়া মারা যায়। ৭ জানুয়ারী মারা যায় রাইয়ান ও রাফসান। সন্তান প্রসবের আনন্দ বেদনা নিমিষেই বিষাদে পরিনত হয়।

মারাত্মক অসুস্থ অবস্থায় চিকিৎসা চলতে থাকে রেজওয়ানের। এক সন্তানকে বাঁচিয়ে রাখতে অনেক কিছুই বিক্রি করতে হয় হাসানকে। সেই সাথে অন্ততঃ আড়াই লাখ টাকা ধার দেনা করতে তাকে।

হাসানের স্ত্রী রজনী খাতুন বলেন, সন্তানের মুখ দেখে আনন্দ হয়েছিল কিন্তু সেই সন্তানকে বাঁচিয়ে রাখতে পারিনাই। অনেক ধার দেনা করে চিকিৎসা নেয়া হয়েছে। এখন একদিকে সন্তান হারানোর বেদনা অন্যদিকে দেনার ভার। এখনও কেউ কোন সহযোগিতা করেনি। কেউ একটু সহযোগিতার হাত বাড়িয়ে দিলে সন্তানের চিকিৎসা করানো সম্ভব হতো।

প্রতিবেশি বেগম খাতুন ও জোহরা খাতুন জানান, হাসান অত্যন্ত গরীব ও অসহায়। রজনী চার মাস অন্তঃস্বত্তা থাকাকালীণ সমস্যা দেখা দেয়। এ জন্য তার স্ত্রীর চিকিৎসা করাতে গিয়ে দেনায় জর্জরিত। এর মধ্যে তিনটি সন্তান মারা গেছে। একটি ছেলে বেঁচে আছে। তার ভাল চিকিৎসা করা জরুরী। কোন আয় রোজগার নেই তার। সন্তান হারানোর শোকের পাশাপাশি এখন দেনাদাররা পাওনা পরিশোধে চাপ দিচ্ছে। এদের পাশে কেউ নেই।সরকারী সহযোগিতা পেলে পরিবারে একটু স্বস্তি আসতো।

তেঁতুলবাড়িয়া ইউপি চেয়ারম্যান নাজমুল হুদা জানান, হাসানের স্ত্রী রজনী গর্ভে সন্তান ধারণের পর থেকে নানা সমস্যায় জর্জরিত ছিল। স্থানীয়ভাবে অনেকেই তার স্ত্রীর চিকিৎসার জন্য টাকা পয়সা দিয়েছেন। কেউবা দিয়েছেন ঋণ। তার স্ত্রীকে ঢাকাতে পাঠানোর পরও খোঁজ খবর রাখা হয়েছে। তার তিনটি সন্তান মারা গেছে। এখন একটির চিকিৎসা ও আর্থিক সহযোগিতার জন্য ইউএনও ডিসি সাহেব বরাবর আবেদনের জন্য পরামর্শ দেয়া হয়েছে। স্থানীয়ভাবে ওই পরিবারটিকে সহযোতিার চেষ্টা করা হচ্ছে। গাংনী উপজেলা সমাজ সেবা অফিসার আরশাদ আলী জানান, বিষয়টি তিনি অবগত।

প্রতিটি সরকারী হাসপাতালে সমাজ সেবা অধিদপ্তরের শাখা রয়েছে। সেখানে হাসান যোগাযোগ করলে সহযোগিতা পাবেন। তাছাড়া হাসান তার সন্তানের চিকিৎসার জন্য আবেদন করলে সহযোগিতা করা হবে বলেও আশ^স্ত করেন এই কর্মকর্তা।


আরও খবর



কুড়িগ্রামে উপজেলা পর্যায়ে প্রজেক্ট লার্নিং ও শেয়ারিং ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত

প্রকাশিত:বুধবার ৩১ জানুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ৬৯জন দেখেছেন

Image
কুড়িগ্রাম ব্যুরো চিফ:কুড়িগ্রামের উলিপুরে উপজেলা পর্যায়ে প্রজেক্ট লার্নিং ও শেয়ারিং ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয়েছে lগত ৫ বছর ধরে আরডিআরএস বাংলাদেশ কুড়িগ্রামের ৪ উপজেলার ২২ টি ইউনিয়নে "ট্রান্স বাউন্ডারি ফ্ল্যাড রেজিলেন্স প্রজেক্ট ইন সাউথ এশিয়া" প্রকল্পটি বাস্তবায়ন করে আসছিল lপ্রকল্পটির সমাপনীতে আজ বুধবার ৩১ জানুয়ারি উলিপুর উপজেলা পরিষদ হলরুমে একটি ওয়ার্কশপ অনুষ্ঠিত হয় l উলিপুর উপজেলা নির্বাহী অফিসার মোঃ আতাউর রহমানের সভাপতিত্বে প্রোজেক্টের লার্নিং নিয়ে শেয়ারিং করেন, আরডিআরএস বাংলাদেশ কুড়িগ্রাম জেলার প্রজেক্ট অফিসার এ বি এম হাসানুল কবির l এ সময় প্রকল্পটি ভবিষ্যতে বাস্তবায়নের জন্য কিছু প্রস্তাবনা সুপারিশ আকারে তুলে ধরে বক্তব্য রাখেন, সাংবাদিক মোঃ সহিদুল আলম বাবুল, বজরা ইউনিয়ন পরিষদের চেয়ারম্যান মোঃ কাইয়ুম সরদার, উলিপুর থানার এসআই আতিকুর রহমান আতিক, উপজেলা মাধ্যমিক শিক্ষা অফিসার মাহতাব হোসেন, উপজেলা সিনিয়র মৎস্য কর্মকর্তা তারিফুর রহমান, উপজেলা স্বাস্থ্য ও প۔ প۔ কর্মকর্তা ডা: মেশকাতুল আবেদ, উপজেলা প্রাণি সম্পদ কর্মকর্তা প্রমুখ l অনুষ্ঠানে সার্বিক দায়িত্ব পালন করেন, আরডিআরএস বাংলাদেশের ফিল্ড ফেসিলিটেটর মাসুদ রানা l

আরও খবর



মুজিবনগরে পিস্তল ও গুলি উদ্ধার অনলাইন জুড়াড়িসহ গ্রেফতার ৫

প্রকাশিত:রবিবার ২৫ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৬ ফেব্রুয়ারী ২০২৪ | ১৪জন দেখেছেন

Image

মজনুর রহমান আকাশ,মেহেরপুর প্রতিনিধি:মেহেরপুর মুজিবনগর থানা পুলিশের বিশেষ অভিযানে বিদেশি পিস্তল ও গুলিসহ ৫ জনকে গ্রেফতার করেছে মুজিবনগর থানা পুলিশ। শনিবার (২৪ ফেব্রæয়ারী) সন্ধ্যায় মুজিবনগর উপজেলার শিবপুর গ্রাম থেকে তাদেরকে গ্রেফতার করে পুলিশ। অনলাইন জুয়ায় এলাকায় আধিপত্য বিস্তারের লক্ষ্যে অস্ত্র নিয়ে তারা অবস্থান করছিল বলে ধারণা পুলিশের।

গ্রেফতারকৃতরা হচ্ছে- মুজিবনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামের শাহজুল শেখের ছেলে শেখ বিজয় (২১), কোমরপুর গ্রামের বিল্লাল শেখের ছেলে প্রিন্স শেখ (৩৪) ও সিরাজুল ইসলামের ছেলে শাহিন রেজা (২৪)। যশোরের কোতয়ালির আব্দুল খালেকের ছেলে রাজন হাসান (২৯) ও শফিকুল ইসলামের ছেলে আলামিন (৩১)।

মুজিবনগর থানা ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) উজ্জল দত্ত জানান, মুজিবনগর উপজেলার শিবপুর গ্রামে অনলাইন জুয়াড়ি বিজয় শেখের বাড়িতে অস্ত্র নিয়ে কয়েকজন অবস্থান করছে এমন গোপন সংবাদের ভিত্তিতে অভিযান চালায় পুলিশ। এসময় বিজয় শেখসহ তার সঙ্গীয় ৪ জনকে গ্রেফতার করে পুলিশ। তাদের স্বীকারোক্তিতে বাড়ির সেফটিক ট্যাংক থেকে একটি বিদেশী পিস্তল, এক রাউন্ড গুলি ও একটি ম্যাগজিন উদ্ধার করা হয়। গ্রেফতার বিজয় শেখের নামে অনলাইন জুয়ার মামলা রয়েছে বলে জানায় পুলিশ।গ্রেফতার অভিযানের পর রাত সাড়ে নয়টার দিকে মুজিবনগর থানায় ব্রিফিংয়ে মেহেরপুর অতিরিক্ত পুলিশ সুপার আহসান খান বলেন, তারা সন্ত্রাসী কর্মকা করার জন্য সেখানে অস্ত্র নিয়ে অবস্থান করছিল বলে জানতে পারে পুলিশ। তারা অনলাইন জুয়া ছাড়াও সন্ত্রাসী কর্মকান্ডে জড়িত কিন তা তদন্ত করা হচ্ছে।


আরও খবর