Logo
আজঃ সোমবার ২৪ জুন 20২৪
শিরোনাম
গ্রীষ্মের রুক্ষ প্রকৃতিতে শোভা ছড়াচ্ছে সোনালু ফুল ঈদযাত্রায় সড়ক দুর্ঘটনায় ২৬২ জন নিহত মতিউর ও তার স্ত্রী-সন্তানদের বিদেশ যেতে নিষেধাজ্ঞা তরুণরাই বদলে যাওয়া বাংলাদেশকে এগিয়ে নেবে: প্রধানমন্ত্রী নতুন সেনাপ্রধানের বঙ্গবন্ধুর প্রতিকৃতিতে শ্রদ্ধাজ্ঞাপন ভূয়া সৈনিক পরিচয়ে বিয়ে করে শশুড় বাড়ী শিকলবন্দী জামাই! খাগড়াছড়িতে পুনাক কমপ্লেক্স এর উদ্বোধন করলেন: পার্বত্য প্রতিমন্ত্রী কুজেন্দ্র লাল এিপুরা হিজবুল্লাহর সঙ্গে যুদ্ধ বাধলে ইসরায়েলকে সমর্থন দেবে যুক্তরাষ্ট্র হজ চলাকালীন ১৩০১ জন হজযাত্রীর মৃত্যু: সৌদি আরব সেতু ভেঙ্গে নয়জন নিহতের ঘটনায় দুইটি তদন্ত কমিটি গঠন, মাইক্রোবাস উদ্ধার

পৌনে দুই লাখ শিশু খাবে ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল

প্রকাশিত:রবিবার ১৯ ফেব্রুয়ারী ২০২৩ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৩২৩জন দেখেছেন

Image

বাগেরহাট: বাগেরহাটে ১ লাখ ৭৬ হাজার ৭১৪জন শিশুকে ভিটামিন এ+ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। সোমবার (২০ ফেব্রুয়ারি) সকাল থেকে বিকেল পর্যন্ত জেলার ৯টি উপজেলা ও ৩টি পৌরসভার শিশুদের এই ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। রবিবার (১৯ ফেব্রুয়ারি) দুপুরে বাগেরহাট সিভিল সার্জনের কার্যালয়ের কনফারেন্স রুমে সাংবাদিকদের অরিয়েন্টেশন কর্মশালায় এসব তথ্য জানানো হয়।

এসময় বাগেরহাট সদর উপজেলা স্বাস্থ্য ও পরিবার পরিকল্পনা কর্মকর্তা ডা. প্রদীপ কুমার বকসি, বাগেরহাট প্রেসক্লাবের সভাপতি নিহার রঞ্জন সাহা, সাবেক সভাপতি দেলোয়ার হোসেন, আহসানুল করিমসহ বাগেরহাটে কর্মরত গনমাধ্যমকর্মীরা উপস্থিত ছিলেন।

নির্ধারিত সময়ে ৬ থেকে ১১ মাস বয়সী ২০ হাজার ৯৭৩ জন শিশুকে নিল এবং ১২ থেকে ৫৯ মাস বয়সী ১ লক্ষ ৫৫ হাজার ৭৪১ জন শিশুকে লাল রংয়ের ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানো হবে। এই বয়সের মধ্যে অতিরিক্ত কোন শিশু থাকলে তাদের জন্যও পর্যাপ্ত ক্যাপসুলের ব্যবস্থা রয়েছে। এক হাজার ৮৫৮টি কেন্দ্রে টিকা দেওয়া হবে। এই কর্মযজ্ঞে স্বাস্থ্য বিভাগের ৮৪৪ কর্মীসহ ৩ হাজার ৭১৬ জন স্বেচ্ছাসেবক দায়িত্বপালন করবেন।

ডা. প্রদীপ কুমার বকসি বলেন, ভিটামিন এ ক্যাপসুল খাওয়ানোর বিষয়ে খুবই সতর্কতা অবলম্বন করা হচ্ছে। গুরুতর অসুস্থ কোন শিশু এই ক্যাপসুল খেতে পারবে না। কিভাবে খাওয়ানো হবে এ জন্য প্রয়োজনীয় সংখ্যক কর্মীকে প্রশিক্ষন দেওয়া হয়েছে। এই ক্যাপসুল খাওয়ানোর প্রয়োজনীয়তা সম্পর্কে অবহিত করতে প্রচার-প্রচারণা চালানো হয়েছে। আসাকরি নির্ধারিত বয়সের জেলার সকল শিশু ভিটামিন এ প্লাস ক্যাপসুল খেতে পারবে।



আরও খবর



খাগড়াছড়ি পুলিশের উদ্যোগে"নো হেলমেট, নো ফুয়েল" কার্যক্রমের উদ্বোধন করেন পুলিশ সুপার মুক্তা ধর

প্রকাশিত:সোমবার ২৭ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:শনিবার ২২ জুন ২০২৪ | ১১৯জন দেখেছেন

Image

জসীম উদ্দিন জয়নাল,পার্বত্যাঞ্চল প্রতিনিধি:খাগড়াছড়িতে সড়ক দূর্ঘটনা প্রতিরোধে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে মোটরসাইকেল চালক ও আরোহীর হেলমেট পরা নিশ্চতের পাশাপাশি জনসচেতনতা সৃষ্টির লক্ষ্যে পেট্রোল পাম্পে" নো হেলমেট, নো ফুয়েল"  কার্যক্রম চালু সহ বিশেষ প্রচারণা অভিযান চালানো হয়েছে।

রবিবার (২৬ মে) দুপুরের দিকে  খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশের উদ্যোগে জেলা শহরের কে. সি ফিলিং স্টেশনে "নো হেলমেট, নো ফুয়েল" কার্যক্রমের শুভ উদ্বোধন করেন খাগড়াছড়ি জেলার পুলিশ সুপার  মুক্তা ধর পিপিএম (বার)।

পরে পেট্রোল পাম্পগুলোতে জেলা পুলিশের উদ্যোগে জনসচেতনতামূলক লিফলেট ও স্টিকার সাঁটানো সহ পাম্প কর্তৃপক্ষকে হেলমেট ছাড়া মোটরসাইকেল চালকদের জ্বালানি না দিতে কঠোর নির্দেশনা প্রদান করা হয়। পরবর্তীতে সেখানে বিশেষ প্রচারণা অভিযান পরিচালনা করা হয়।

অভিযানকালে পুলিশ সুপার নিজে হেলমেট বিহীন  মোটরসাইকেল চালকদের মাঝে জনসচেতনা সৃষ্টির অংশ হিসেবে লিফলেট বিতরণ ও মোটরসাইকেলে স্টিকার সাঁটানো সহ হেলমেট বিহীন চালকদের সতর্ক ও হেলমেট পড়া চালকদের শুভেচ্ছা জানিয়ে চালকদের নিজের সেফটি নিশ্চিত করে ট্রাফিক আইন মেনে চলার আহ্বান জানান। 

খাগড়াছড়ি জেলা পুলিশ সুপার মুক্তা ধর পিপিএম (বার)  সাংবাদিকদের জানান, বাংলাদেশ সড়ক পরিবহন কর্তৃপক্ষ আইন, ২০১৭ এর ধারা ১০ এর অধীন গঠিত উপদেষ্টা পরিষদ সভার সিদ্ধান্ত অনুয়ায়ী মোটরসাইকেল চালক এবং তার সহযাত্রীকে আবশ্যিকভাবে বিএসটিআই কর্তৃক নির্ধারিত মানের হেলমেট পরিধান করতে হবে। কোন মোটরসাইকেল চালক ও সহযাত্রী হেলমেট ব্যবহার না করলে উক্তমোটরসাইকেলে কোন প্রকার জ্বালানি সরবরাহ করা যাবে না। এই প্রেক্ষিতে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ধারা ১২৪ এর ক্ষমতাবলে মোটরসাইকেলের চালক ও সহযাত্রীদের জন্য 'নো হেলমেট, নো ফুয়েল' নির্দেশনা জারি করা হয়।

মোটরসাইকেলের চালক/রিফুয়েলিং স্টেশনের মালিকগণ এই নির্দেশনা অনুসরণ করবেন। অন্যথায় আইন প্রয়োগকারী সংস্থা কর্তৃক সংশ্লিষ্টদের বিরুদ্ধে সড়ক পরিবহন আইন, ২০১৮ এর ৯২(১) ধারা অনুযায়ী আইনানুগ ব্যবস্থা গ্রহণ করা হবে।

পুলিশ সুপার আরো বলেন, প্রতিদিন সড়ক-মহাসড়কে মোটরসাইকেল দুর্ঘটনায় যত মানুষ প্রাণ হারাচ্ছেন, তাদের অধিকাংশ হেলমেট ব্যতিত মোটরসাইকেল চালনা করার কারণে নিহত হয়েছে। মোটরসাইকেল চালকদের মাঝে শতভাগ হেলমেট পরিধান নিশ্চিত করা গেলে এই প্রাণহানি অনেকাংশ কমিয়ে আনা সম্ভব। চলতি বছরে বেশ কয়টি মর্মান্তিক সড়ক দুর্ঘটনায় মোটরসাইকেল আরোহীরা মাথায় গুরুতর আঘাতে মারা গেছে।  ওইসব মোটরসাইলে আরোহীদের হেলমেট ব্যবহার থাকলে এ ধরনের ক্ষতি নাও হতে পারতো।তাই সড়ক দুর্ঘটনারোধে সচেতনতা জরুরি উল্লেখ করে জেলা পুলিশের পক্ষ থেকে "No Helmet, No Fuel" কার্যক্রম বাস্তবায়নে সচেতনতামূলক প্রচারণা চালাবে। পাশাপাশি ট্রাফিক আইন লঙ্ঘনকারীদের বিরুদ্ধে কঠোর আইনি ব্যবস্থা নেওয়া হবে জানিয়ে তিনি আরো বলেন, জেলার প্রতিটি পেট্রোল পাম্পে গাড়ি ছাড়া বোতল বা ড্রামে পেট্রোল-অকটেন বিক্রি না করতে পেট্রোল পাম্প মালিক ও খুচরা পেট্রোল ব্যবসায়ীদের আহবান জানান। এই কর্মসূচি বাস্তবায়নে প্রতিটি পাম্পে সচেতনতামূলক ব্যানার টানানোর আহ্বান জানান।

উল্লেখ্য, ২০/০৫/২৪ খ্রি. বাংলাদেশ সড়ক পরিবহনের প্রজ্ঞাপন ও পুলিশ হেডকোয়ার্টার্সের নির্দেশনা মোতাবেক সড়কে চলাচল নিরাপদ করার লক্ষ্যে ‘নো হেলমেট, নো ফুয়েল’ কার্যক্রম বাস্তবায়নের পদক্ষেপ হিসেবে জেলা পুলিশের এই কার্যক্রম।

এসময় খাগড়াছড়ি জেলা অতিরিক্ত পুলিশ সুপার ত্রুাইম এন্ড অপস মো.জসীম উদ্দিন খাগড়াছড়ি সদর সার্কেল অতিরিক্ত পুলিশ সুপার মো.তফিকুল আলম, খাগড়াছড়ি ট্রাফিক ইন্সপেক্টর সুপ্রিয় দেব সহ  পুলিশের পদস্থ  কর্মকর্তা  জেলা পেট্রোল পাম্প মালিক সমিতি'র নেতৃবৃন্দ, গণমাধ্যম কর্মীরা  উপস্থিত ছিলেন। 

আরও খবর



ঈদের পর থেকে শনিবার বন্ধ থাকবে শিক্ষাপ্রতিষ্ঠান: শিক্ষামন্ত্রী

প্রকাশিত:শনিবার ২৫ মে ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৪৯জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মাধ্যমিক ও উচ্চ মাধ্যমিক শিক্ষা প্রতিষ্ঠান আসন্ন ঈদুল আজহার ছুটির পর শনিবার ক্লাস বন্ধ থাকবে বলে জানিয়েছেন শিক্ষামন্ত্রী মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল।

শুক্রবার (২৪ মে) বিকেলে ঢাকা বিশ্ববিদ্যালয়ের ছাত্র শিক্ষক কেন্দ্র (টিএসসি) মিলনায়তনে গণযোগাযোগ ও সাংবাদিকতা অ্যালামনাই অ্যাসোসিয়েশনের ‘যোগাযোগ উৎসব’ শীর্ষক অনুষ্ঠানে একথা বলেন তিনি।

শিক্ষামন্ত্রী বলেন, আমাদের তো আসলে শিখনফল অর্জনের জন্য কিছু শিক্ষা কর্মদিবস সেটি নির্দিষ্ট করতে হয় বছরব্যাপী। যেহেতু আমাদের অনেকগুলো পড়াতে পারেনি সেজন্য বিশেষজ্ঞদের মতামত নিয়ে এখন পর্যন্ত শনিবার খোলা আছে। তবে সেটা আসলে সাময়িক একটি প্রক্রিয়া। সেই দিবসের বিষয়ে আমাদের যদি পরিপূর্ণ একটি চিত্র পাওয়া যায় তাহলে ঈদুল আজহা পরবর্তী সময়ে তখন হয়ত সেটা থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, কিন্তু এখন দেখা যাচ্ছে যে ঘূর্ণিঝড়ের একটা প্রকোপ আছে এবং বন্যা এবং অন্যান্য অনেকগুলো চ্যালেঞ্জ যদি হয় তখন সে সময় কিন্তু স্কুল বন্ধ থাকবে। তখন বন্ধ থাকলে শিখনফল অর্জনটা অনেক বেশি কঠিন হয়ে যায়।

মহিবুল হাসান চৌধুরী নওফেল বলেন, শনিবার খোলা রাখাটা প্রত্যাশিত নয়। যেহেতু কিছু দিন নষ্ট হয়েছে, আমরা আশা করছি যে সেটা থাকবে না।

তিনি আরও বলেন, ২০২৬ সালের এসএসসি পরীক্ষা এখনকার নিয়মে হবে না। নতুন মূল্যায়ন পদ্ধতি নিয়ে বিশেষজ্ঞ কমিটির চূড়ান্ত মতামত আসেনি, মতামত আসলেন নতুন মূল্যায়ন নিয়ে কারিকুলাম চূড়ান্ত করা হবে।


আরও খবর



পরিবেশ অধিদপ্তরের আয়োজনে বগুড়ায় বায়ুদূষণ প্রতিরোধে কর্মশালা

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৬২জন দেখেছেন

Image

আল আমিন মন্ডল বিপ্লব (বগুড়া):বিশ্ব পরিবেশ দিবস উপলক্ষে সোমবার (১০ই জুন২৪) পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগীয় ও বগুড়া  জেলা কার্যালয়ের আয়োজনে পরিবেশ ভবনে বায়ু দূষণ প্রতিরোধে পরিবেশ বান্ধব ব্লকের ব্যবহার শীর্ষক এক কর্মশালা অনুষ্ঠিত হয়েছে। কর্মশালার সভাপতিত্ব করেন পরিবেশ অধিদপ্তর রাজশাহী বিভাগীয় পরিচালক (উপ-সচিব) মুহাঃ আহসান হাবিব। পরিবেশ অধিদপ্তর এর সরকারী পরিচালক তামিম হাসান এর সঞ্চালনায় মূল প্রবন্ধ পাঠ করনে বগুড়া জেলা কার্যালয়ের সহকারী পরিচালক মাহথীর বিন মোহাম্মদ। এসময় উপস্থিত ছিলেন উপ-পরিচালক সাইফুল ইসলাম ও আসাদুর রহমান, সহকারী পরিচালক নাজমুল হোসাইন, মলিন মিয়া, মিজানুর রহমান, ফারুক হোসেন ও রফিকুল ইসলাম প্রমূখ।


আরও খবর



মোবাইল ফোনে কথা বলার খরচ বাড়লো

প্রকাশিত:বৃহস্পতিবার ০৬ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ১৬৫জন দেখেছেন

Image

নিজস্ব প্রতিবেদক:মোবাইলফোনের কল রেটের ওপর সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে ২০২৪-২৫ অর্থবছরের প্রস্তাবিত জাতীয় বাজেটে। এতে গ্রাহকদের মোবাইলফোনে কথা বলার খরচও বাড়বে।

আগে মোবাইলফোনের কল রেটের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক দিতে হতো গ্রাহকদের। এখন তা আরও ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এর সঙ্গে ভোক্তাদের ১ শতাংশ সারচার্জ দিতে হবে।

নতুন করে সম্পূরক শুল্ক ৫ শতাংশ বাড়ানোয় একজন গ্রাহক এখন ১০০ টাকার রিচার্জ করলে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক কেটে নেওয়ার পর ৬৯ টাকা ৩৫ পয়সার কথা বলতে পারবেন। আগে ১০০ টাকা রিচার্জ করলে ভ্যাট ও সম্পূরক শুল্ক কেটে নেওয়ার পর গ্রাহকরা ৭৩ টাকার কথা বলতে পারতেন। অর্থাৎ ১০০ টাকা রিচার্জে আগের চেয়ে ৩ টাকা ৬৫ পয়সার কথা কম বলতে পারবেন গ্রাহকরা।

আগে মোবাইলফোনের কল রেটের ওপর ১৫ শতাংশ ভ্যাট এবং ১৫ শতাংশ সম্পূরক শুল্ক দিতে হতো গ্রাহকদের। এখন তা আরও ৫ শতাংশ বাড়ানো হয়েছে। এর সঙ্গে ভোক্তাদের ১ শতাংশ সারচার্জ দিতে হবে।

এদিকে প্রস্তাবিত বাজেট ঘোষণার পরপরই নতুন এ শুল্ক হার কার্যকর করবে মোবাইলফোন অপারেটরগুলো। জানা যায়, বাজেট ঘোষণার জন্য অর্থমন্ত্রী জাতীয় সংসদে বক্তব্য দেওয়া শুরু করলেই এ সংক্রান্ত আদেশ (এসআরও) পাঠানো হয়। ফলে বৃহস্পতিবার (৬ জুন) বিকেল ৩টার পর থেকেই নতুন হারে গ্রাহকের কাছ থেকে কর কর্তন শুরু করা হতে পারে।


আরও খবর



আত্রাইয়ে রাজা-বাদশাকে বের করতে ভাঙতে হবে দেয়াল

প্রকাশিত:মঙ্গলবার ১১ জুন ২০২৪ | হালনাগাদ:সোমবার ২৪ জুন 20২৪ | ৮১জন দেখেছেন

Image

নাজমুল হক নাহিদ, আত্রাই (নওগাঁ) প্রতিনিধি:নওগাঁর আত্রাইয়ে আসন্ন কুরবানি ঈদে এবারের বড় চমক রাজা-বাদশা। সম্পর্কে তারা মামা ভাগ্নে। রাজার নামের ষাঁড়টির ওজন ২৭ মন আর বাদশার ওজন প্রায় ২২ মন। একই ঘরে আড়াই বছরেরও বেশি সময় ধরে বড় হয়েছে ষাঁড় দুটি। এখন গোয়ালে জায়গা হচ্ছে না তাদের, তাই বিক্রি করতেই হবে। গোয়ালের দর্জা ছোট, তাই দেয়াল ভেঙ্গে রাজা-বাদশাকে বের করতে হবে। এবার কোরবানি ঈদে বিক্রির জন্য প্রস্তুত করা হয়েছে তাদের। এই দুই ষাঁড়ের দাম হাঁকাচ্ছেন ২০ লাখ।

নওগাঁর আত্রাই উপজেলার আহসানগঞ্জ ইউনিয়নের বেওলা গ্রামের মজিবর সরদারের ছেলে জাহিদুল সরদার। তাঁর বাড়িতেই বেড়ে ওঠা ষাঁড় রাজা ও বাদশা।

তবে, শারীরিক গঠন ও ওজনের কারণে গোয়াল ঘরের দরজা দিয়ে তাদের বের করা সম্ভব হবে না বলে আশঙ্কা করছেন খামারি। ওদের বের করতে হলে দেয়াল ভাঙতে হবে বলে জানিয়েছেন তিনি।

এ ব্যাপারে জানতে চাইলে জাহিদুল ইসলাম জানান, তিনি মূলত ধান-চাল, ভুট্টা, সরিষার আড়তদার। বাড়িতে বেশ কয়েকটা ফ্রিজিয়ান জাতের গাভি রয়েছে তার। আড়াই বছর আগে দুই গাভি থেকে দুটি সাদা-কালো রঙের ষাঁড় বাছুর পেয়েছেন তিনি। বাছুরের শারীরিক গঠন দেখে আর বিক্রি করেননি। শখের বসে ধীরে ধীরে লালন পালন করেছেন।

তিনি আরও জানান, ষাঁড় দুটি প্রস্তুত করতে কোনো রাসায়নিক বা ক্ষতিকর মেডিসিন বা খাবার খাওয়ানো হয়নি। নিজের সন্তানের মতো যতেœ লালন-পালন করেছেন।

জাহিদুল ইসলাম বলেন, ‘হাট-বাজারে গিয়ে যদি সন্তানদের জন্য যদি কলা, আঙুর আপেল নিয়ে আসি, তাহলে ষাঁড় দুইটার জন্যও কলা বা বিভিন্ন ফলমূল নিয়ে আসতাম। মূলত খৈল-ভ’সি, ভুট্টা, ডাল, বুট, ধানের গুঁড়া, খুদের ভাত এবং খড়-ঘাস এসব খাবার খাইয়ে তৈরি করা হয়েছে।’

তিনি বলেন, ‘আড়াই বছর আগে গোয়াল ঘরের খুঁটিতে বেঁধে রাখা হয়েছে ওদের। এখনো বের করা হয়নি। এখন ওদের যে শারীরিক গঠন আর যে পরিমাণ ওজন হয়েছে, তাতে গোয়াল ঘরের দরজা দিয়ে আর বের করা সম্ভব নয়। গোয়াল ঘরের দেয়াল ভেঙেই বের করতে হবে।’

দুটি গরু লালন-পালনে তার অনেক টাকা ব্যয় হয়েছে উল্লেখ করে জাহিদুল ইসলাম জানান, ২৭ মন ওজনের রাজার দাম চাওয়া হচ্ছে ১২ লাখ টাকা এবং ২২ মন ওজনের বাদশার দাম চাওয়া হচ্ছে ৮ লাখ টাকা। তবে কী দামে বিক্রি হবে, তা এখনো বলতে পারছেন না তিনি।

এ বিষয়ে আত্রাই উপজেলা প্রাণিসম্পদ দপ্তর কর্মকর্তা আবু আনাছ বলেন, ‘জাহিদের ষাঁড় দুটি (রাজা-বাদশা) প্রস্তুতে আমরা তাঁকে সার্বিক পরামর্শ দিয়ে সহযোগিতা করেছি।’

তিনি আরও বলেন, ‘এবার কোরবানি উপলক্ষে উপজেলায় ২ হাজার ৪০৫ জন খামারি প্রায় ৫২ হাজার ৪৮৭টি পশু প্রস্তুত করেছেন। এর মধ্যে ৮ হাজার ৫৬৮টি গরু, ২২টি মহিষ, ৩৭ হাজার ৯০২ ছাগল এবং ৫ হাজার ৯৯৫টি ভেড়া রয়েছে। এই উপজেলায় চাহিদা রয়েছে ২৬ হাজার ৫৪০টি। ফলে চাহিদা পূরণের পর অতিরিক্ত প্রায় ২৬ হাজার পশু বিক্রি হবে।’


আরও খবর