Logo
আজঃ Wednesday ২৬ January ২০২২
শিরোনাম
অভিনেত্রীর বিরুদ্ধে সহ-শিল্পীদের নগ্ন ভিডিও ইন্টারনেটে ছড়িয়ে দেওয়ার অভিযোগ উঠেছে। বিদেশের মাটিতে কৃষিপণ্য সরবরাহ বাড়াণোর লক্ষ্যে : ইরান রাজনৈতিক কঠিন চাপে রয়েছেন মেয়র আরিফুল স্বপ্নের মেট্রোরেল রওনা হলো আগারগাঁওয়ের উদ্দেশে ওমিক্রনের সংক্রমণে ভারতে ৩১ জানুয়ারি পর্যন্ত নিয়মিত আন্তর্জাতিক ফ্লাইট বন্ধ মুরাদ হাসান এমিরেটসের ফ্লাইটে কানাডা গেলেন সাময়িক বরখাস্ত হয়েছেন রাজশাহীর কাটাখালী পৌরসভার মেয়র আব্বাস আলী মাহমুদুল্লাহ রিয়াদ আগামী বিশ্বকাপে ব্যাটসম্যানদের উন্নতি দেখতে চান করোনাভাইরাসে আরও ছয়জনের মৃত্যু বিশ্বের ৪৩তম ক্ষমতাধর নারী প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা
হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল

পলো উৎসবে মাছ ধরায় মেতেছে মানুষ, চির চেনা বাংলা

প্রকাশিত:Saturday ২৭ November ২০২১ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ২৮২জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


 

মাছ ধরা বা মাছ শিকার করা বিলাঞ্চলের মানুষদের আজন্ম শখ। বিশেষ করে চলন বিল এলাকায় বর্ষা মৌসুমে নিম্নাঞ্চলের খাস বা সরকারি জলাভূমিতে পানি অল্প থাকাকালে মাছ শিকারিরা দল বদ্ধ হয়ে পলো, ছোট জাল নিয়ে একটি নিদিষ্ট দিনে মাছ শিকার করে থাকে। এলাকায় এটি পলো উৎসব বা বাউত উৎসব নামের পরিচিত।

 

শনিবার পাবনার ভাঙ্গুড়ার উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপির বিল রুহুলে এমনই এক শৌখিন মাছ শিকারিদের মিলন মেলা হয়েছে। এতে সবার কাছে মাছ ধরা পড়ুক বা না পড়ুক এক সঙ্গে বছরের এই দিনে মাছ ধরতে আসার মজাই যেন অন্য রকম।

 

সরেজমিন শনিবার উপজেলার বিল রুহুল এলাকা ঘুরে দেখা যায় , পাবনাসহ পার্শ্ববর্তী জেলাগুলো থেকে শৌখিন মাছ শিকারিরা ভোর বেলার কুয়াশা ভেদ করেই বিভিন্ন যানবাহন বাস, নছিমন, আটো ভ্যান, ভটভটি যোগে এই বিল পাড়ে আসতে থাকে। তাদের হাতে পলো, জাল ঠেলাজাল, ধর্মখরাসহ মাছ ধরার বিভিন্ন উপকরণ নিয়ে বিলের পাড়ে এসে হাজির হয়ে এক সঙ্গে মাছ ধরতে পানিতে নামে। তারা মাছ ধরার সময় বিভিন্ন স্লোগান দিতে থাকে। কেউ মাছ পেলে সবাই মিলে তাকে আরো উৎসাহ দিতে থাকে।

 

এদিনে মাছ ধরাকে কেন্দ্র করে বিলপাড়ে বিস্কুট রুটি ও চায়ের দোকান নিয়েও বসেছে। মাৎস শিকারিদের কেউ কেউ পেয়েছে সোল, বোয়াল, রুই, গজার । আবার অনেকেই মাছ পায় নি। তবে প্রায় সবার মুখেই ছিল মাছ ধরতে আসতে পারায় আনন্দের ছোয়া।

শিশু, কিশোর, যুবক, বৃদ্ধসহ সব ধরণের হাজার হাজার শৌখিন মৎস শিকারিদের আনা গোনায় রহুল বিল ছিল কানায় কানায় পরিপূর্ণ।

জানা গেছে, ভাঙ্গুড়া উপজেলার পারভাঙ্গুড়া ইউপি ও পার্শ্ববর্তী চাটমোহর উপজেলার পার্শ্বডাঙ্গা ইউপির কিছু অংশ নিয়ে কয়েক হাজার একর জমি নিয়ে রয়েছে রুহুল বিল। বিশেষত বর্ষার পানি চলে যাওয়ার পর কয়েক শ’ একর জমিতে বিভিন্ন গভীরতায় পানি থাকে। সেখানে বর্ষার পানিতে আটকে থাকা বোয়াল, সোল, গজার, পুঁটি, সিং সহ দেশীয় প্রজাতির বিভিন্ন মাছ।

 

বছরের একটি নিদিষ্ট দিনে একে অন্যেরে সঙ্গে মোবাইল ফোন ও সামাজিক যোগাযোগ মাধ্যমে যোগাযোগ করে নাটোর, পাবনা, সিরাজগঞ্জ, টাঙ্গাইল থেকে বাস, ভটভটি, নছিমন যোগে ভোরে এই বিলে মাছ ধরার জন্য এসে হাজির হয়। এদিনে তাদের হাতে ধরা পড়ে নানা ধরণের মাছ। বেলা বাড়ার  সঙ্গে সঙ্গে মাছ শিকারির সংখ্যাও কমতে থাকে।

মাছ ধরতে আসা নাটোরের পঞ্চাশোর্ধ আলম হোসেন বলেন, এই দিনটিতে রহুল বিলে মাছ ধরার জন্য প্রতি বছর অপেক্ষা করে থাকি। লোক মুখে খবর পেয়ে মাছ ধরতে এসেছি।

টাঙ্গাইলের বাছের উদ্দীন বলেন, সামাজিক যোগাযোগের মাধ্যমে মাছ ধরার খবর পেয়ে তারা একাধিক বাস রিজার্ভ করে পলো ও মাছ ধরার উপকরণ নিয়ে কয়েকশ শৌখিন মাৎস শিকারি মাছ ধরতে এসেছেন।

 

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে ৩ বাংলাদেশি

প্রকাশিত:Thursday ২০ January ২০22 | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৭০জন দেখেছেন
Image

ক্রীড়া প্রতিবেদক: আইসিসির বর্ষসেরা ওয়ানডে দলে একসঙ্গে জায়গা পেয়েছেন তিন বাংলাদেশি ক্রিকেটার। আজ বৃৃহস্পতিবার ২০২১ সালে এই ফরম্যাটের বর্ষসেরা একাদশ ঘোষণা করেছে আইসিসি। যেখানে জায়গা পেয়েছেন- মুশফিকুর রহিম, সাকিব আল হাসান এবং মুস্তাফিজুর রহমান।

বাংলাদেশ ছাড়াও পাকিস্তান থেকে সুযোগ পেয়েছেন দুজন ক্রিকেটার। অধিনায়কও করা হয়েছে দেশটির নেতৃত্ব দেওয়া বাবর আজম। তার সঙ্গে সুযোগ পেয়েছেন মিডল অর্ডার ব্যাটসম্যান ফখর জামান।

বিবেচিত সময়ে বাংলাদেশের হয়ে ৯টি ওয়ানডে ম্যাচে মাঠে নেমেছেন সাকিব আল হাসান। যেখানে ৩৯ দশমিক ৫৭ গড়ে তিনি করেছেন ২৭৭ রান। বল হাতের পারফরম্যান্সেও উজ্জ্বল ছিলেন সাকিব। ১৭ দশমিক ৫২ গড়ে তিনি নিয়েছেন ১৭ উইকেট। ২০২১ সালের শুরুতে হওয়া ওয়েস্ট ইন্ডিজ সিরিজের সেরা খেলোয়াড়ের পুরস্কারও জেতেন সাকিব।

আইসিসি বর্ষসেরা ওয়ানডে একাদশ :

পল স্টার্লিং (আয়ারল্যান্ড), জেনেম্যান মালান (দক্ষিণ আফ্রিকা), বাবর আজম (অধিনায়ক) (পাকিস্তান), ফখর জামান (পাকিস্তান), রাসি ভ্যান ডের ডুসেন (দক্ষিণ আফ্রিকা), সাকিব আল হাসান (বাংলাদেশ), মুশফিকুর রহিম (উইকেটরক্ষক) (বাংলাদেশ), ওয়ানিন্দু হাসারাঙ্গা (শ্রীলঙ্কা), সিমি সিং (আয়ারল্যান্ড), দুশমন্ত চামেরা (শ্রীলঙ্কা)


আরও খবর



ধনবাড়ীতে সরিষার সুফলে লাভ জনক কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা

প্রকাশিত:Tuesday ২৫ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ৫৪জন দেখেছেন
Image


আবুল হোসেন আকাশ (টাঙ্গাইল,ধনবাড়ী)

টাঙ্গাইলের ধনবাড়ী উপজেলার ধোপাখালী ইউনিয়নের কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা উপজেলার কৃষি অফিস থেকে একটি প্রকল্প  দিয়েছে  কৃষিক পর যায় উন্নত জাতের একটি ডাল তৈল ও মশলা  প্রকল্পটির  মাধ্যমে  তিন একর জমিতে সরিষা চাষ করেন ।  


কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা জানান প্রথম আমাকে  উপজেলা-কৃষি-অফিস থেকে এক একর জমি চাষ করার জন্য  সার বীজ এবং কিছু অর্থ দিয়ে আমাকে সহযোগিতা করে  এতে আমি অনেক লাভ বান হই। আর ৫০০ কেজি সরিষা বীজ  উৎপাদন করি  ।


আবারো আমি  দুই একর জমিতে সরিষা চাষ করি এতে আমার ১ এক হাজার কেজি  বীজ উৎপাদন করি  পরে লোক জনে জানজানি হয় যে আমি সরিষা  বারি সত্তেরো  বারি চৌদ্দো ,আমার এই সরিষা বীজ বিভিন্ন এলাকার মানুষ   নিয়ে সরিষা চাষ করে  অনেকেই  আজ লাভ বান হয়   । এবার আমি তিন একর জমিতে সরিষা চাষ করেছি। এতে আমার  প্রতি এক একর জমিতে ৫০০ কেজি সরিষা উৎপাদন হবে বলেস।


কৃষক তোতা তিন এবার ৩ একর জমিতে ১৫০০ শ কেজি থেকে ১৮০০শ কেজি সরিষা উৎপাদন হবে বলে আশা করেন কৃষক ছানোয়ার হোসেন তোতা । তিনি বলেন, সরিষা আবাদে খরচ কম ফলে অল্প খরচেই ও কম পরিশ্রমেই সরিষা আবাদ করা যায়।  । আমার নিজের জন্য কিছু বীজ রেখে আর সব বীজ আমি বিক্রয় করবো ।


আমি অনেক লাভমান হবো ,আমি উপজেলা  কৃষি সম্পসারণ অধিদপ্তর এর সহযোগিতা না পেলে  আমি এতো লাভ ভান হতে পারতাম না  । মাননীয় কৃষি মন্ত্রীর ড. আব্দুর রাজ্জাক এমপি মহদোয় কৃষকদের প্রতি বিশেষ  অবদান রেখেছেন। ,


বর্তমানেমাননীয় প্রধান মন্রীর শেখ হাসিনার  নেতিত্বে আমরা কৃষিক যারা সার বীজ নগত  অর্থ সহ  অনেক সুযোগ সুবিধা পাচ্ছি  ।


আরও খবর



দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

দেশের উন্নয়ন ও মানবসেবায় অবদান রাখতে সবাইকে চেয়ারম্যান-মেম্বার হতে হয় না: স্থানীয় সরকার মন্ত্রী

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Tuesday ২৫ January ২০২২ | ১৩১জন দেখেছেন
Image


নিজস্ব প্রতিবেদক 

মানুষের সেবায় নিজেকে নিয়োজিত রাখতে এবং দেশকে উন্নত-সমৃদ্ধকরণে অবদান রাখতে সবাইকে মেম্বার-চেয়ারম্যান হতে হয় না বলে জানিয়েছেন স্থানীয় সরকার, পল্লী উন্নয়ন ও সমবায় মন্ত্রী মোঃ তাজুল ইসলাম।


মেম্বার-চেয়ারম্যান না হলে কারো জীবন ব্যর্থ হয়ে যাবে এমনটি ভাবা ঠিক নয়। জনপ্রতিনিধি না হয়েও মানসিকতা এবং দেশপ্রেম থাকলে দেশের উন্নয়নে অবদান রাখা যায় বলেও মন্তব্য করেন মন্ত্রী।


আজ রাজধানীর জাতীয় প্রেসক্লাবে কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরাম ঢাকার (সিজেএফডি) দ্বি বার্ষিক সাধারণ সভায় প্রধান অতিথির বক্তব্যে তিনি এসব কথা বলেন।


মন্ত্রী বলেন, আমাদের মধ্যে শ্রেণীভেদ আছে, পেশার ভিন্নতা, ধর্মীয় ও বর্ণের পার্থক্য আছে।  ভিন্নতা থাকতে পারে কিন্তু আমরা মানুষ। যার যা প্রাপ্য সম্মান তাকে দিতে হবে। সকল পেশার প্রতি সম্মানবোধ রাখা উচিত। দেশের উন্নয়নে কাউকে হেয় করার সুযোগ নেই। কাউকে বাদ দিয়ে উন্নত দেশ গড়া সম্ভব নয়। তাই সব ভেদাভেদ ভুলে দেশের উন্নয়নে একসঙ্গে কাজ করতে হবে।


তিনি জানান, স্থানীয় সরকার প্রতিষ্ঠানসমূহকে শক্তিশালী এবং যুগোপযোগী করতে জেলা পরিষদ, উপজেলা পরিষদ, ইউনিয়ন পরিষদ, পৌরসভা এবং সিটি কর্পোরেশনের আইনে সংশোধন আনা হচ্ছে। ইতোমধ্যে জেলা পরিষদ এবং পৌরসভার খসড়া সংশোধনী মন্ত্রিপরিষদে পাশ হয়েছে।

তিনি আরও জানান, পৌরসভায় প্রধান নির্বাহী কর্মকর্তা-সিইও নিয়োগ প্রদান নিয়ে সমালোচনা হলেও এই নিয়োগের ফলে নিয়োগকৃত পৌরসভায় রাজস্ব আদায়ে ব্যাপক পরিবর্তন আসছে। মন্ত্রণালয়ের দায়িত্ব গ্রহণের মাত্র ৩৮ টি পৌরসভা কর্মচারীর বেতন দিতে পারতো উল্লেখ করে মন্ত্রী বলেন, বিভিন্ন উদ্যোগের ফলে এখন অধিকাংশ পৌরসভা কর্মচারীদের বেতন-ভাতা পরিশোধ করছে।


ঢাকার চারপাশে নদীর দখলমুক্ত, দূষণরোধে এবং নাব্যতা ফিরিয়ে আনার লক্ষ্যে গঠিত মন্ত্রিসভা কমিটির সভাপতির দায়িত্ব পালনের কথা উল্লেখ করে মোঃ তাজুল ইসলাম জানান, ঢাকা শহরে অনেক নদী ও খাল বেদখল হয়ে গেছে। সেগুলো উদ্ধারে দুই সিটি কর্পোরেশন এবং বিআইডব্লিউটিএ অভিযান চালাচ্ছে। অনেক উদ্ধারও করা হয়েছে।


এপ্রসঙ্গে তিনি আরও বলেন, কল্যাণপুরে ওয়াটার রিটেনশন পন্ডের জন্য রাখা ১ শো ৭৩ একর জায়গার মধ্যে মাত্র সাড়ে তিন একর জায়গা ছাড়া বাকি সব দখল করে ঘর বাড়ি তৈরি করা হয়েছে। এসব অবৈধ স্থাপনা উচ্ছেদ করে জায়গা দখল মুক্ত করার জন্য সিটি করপোরেশনকে নির্দেশ প্রদান করা হয়েছে। 


ড্যাপ প্রসঙ্গে তিনি বলেন, ২০২১ সালের প্রথম দিকে প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা আমাকে ডিটেইল এরিয়া প্ল্যান (ড্যাপ) এর আহ্বায়ক করেন। গত এক বছর করোনার সংকটেও বিভিন্ন শ্রেণী পেশার মানুষের সঙ্গে সেমিনার ও মতবিনিময় করেছি। নানান সমস্যা সমধান করে সর্বশেষ ৩০ ডিসেম্বর মন্ত্রিসভা কমিটি চুড়ান্ত করে। এখন গ্যাজেটের অপেক্ষায় রয়েছে।


মো. তাজুল ইসলাম বলেন, সারা দেশের ন্যায় কুমিল্লাতেও ব্যাপক উন্নয়ন কর্মকান্ড পরিচালিত হচ্ছে। বেশ কিছু উন্নয়ন প্রকল্প নেয়া হয়েছে। এগুলো বাস্তবায়িত হলে বৃহত্তর কুমিল্লার ব্যাপক পরিবর্তন আসবে। কুমিল্লার উন্নয়নের জনপ্রতিনিধি, সরকারি কর্মকর্তা, সাংবাদিকসহ সকল শ্রেণী-পেশার মানুষকে ঐক্যবদ্ধ হয়ে কাজ করার আহ্বান জানান। কুমিল্লা শহরকে পরিষ্কার-পরিচ্ছন্ন করে আধুনিক ও দৃষ্টিনন্দন শহরে পরিণত করতে সবাইকে ভূমিকা রাখতেও বলেন মন্ত্রী।


তিনি বলেন, জাতির পিতা বঙ্গবন্ধু শেখ মুজিবুর রহমান মানুষের হৃদয়কে জয় করেছিলেন বলেই তাঁর ডাকে সাড়া দিয়ে জীবন বাজি রেখে লাখো বাঙালি এদেশের স্বাধীনতার জন্য লড়াই-সংগ্রাম করেছে। বঙ্গবন্ধুকে হত্যা করায় তিনি তাঁর স্বপ্ন পূরণ করতে না পারলেও যোগ্য কন্যা প্রধানমন্ত্রী শেখ হাসিনা বঙ্গবন্ধুর সোনার বাংলা বিনির্মানে দিনরাত পরিশ্রম করে যাচ্ছেন।



কুমিল্লা সাংবাদিক ফোরামের জন্য ঢাকায় একটি অফিস স্থাপনের সাথে একমত পোষণ করে পাশে থাকার ঘোষণা দেন মন্ত্রী। এই অফিস জ্ঞান চর্চার কেন্দ্রবিন্দু হবে বলেও মন্তব্য করেন তিনি।


সিজেএফডির ভারপ্রাপ্ত সভাপতি শরীফুল ইসলামের সভাপতিত্বে সভায় বক্তব্য রাখেন বাংলাদেশ আওয়ামী লীগের উপদেষ্টা পরিষদের সদস্য মোজাফফর হোসেন পল্টু, সাংবাদিক নেতা শওকত মাহমুদ, বাংলাদেশ প্রতিদিনের সম্পাদক নঈম নিজাম, একাত্তর টিভির ব্যবস্থাপনা পরিচালক মোজাম্মেল বাবু, সিজেএফডির সাধারণ সম্পাদক সাজ্জাদ হোসেন,  সাবেক সভাপতি মাহমুদুর রহমান খোকন, সাবেক সাধারণ সম্পাদক দিদারুল আলম।

-খবর প্রতিদিন/ সি.বা


আরও খবর



বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটন যাত্রাবাড়ী থানার সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হয়েছেন জিয়াউদ্দিন জিয়া

প্রকাশিত:Monday ১০ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১১জন দেখেছেন
Image


সোহরাওয়ার্দীঃ

বাংলাদেশ স্কাউটস ঢাকা মেট্রোপলিটনের থানাভিত্তিক কাউন্সিলে যাত্রাবাড়ী থানা থেকে এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া সাধারণ সম্পাদক পদে নির্বাচিত হয়েছেন।


যাত্রাবাড়ী থানা আওতাধীন সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের উপস্থিতিতে নির্বাচন পক্রিয়ার মাধ্যমে জিয়া উদ্দিন (জিয়া) সাধারণ সম্পাদক নির্বাচিত হওয়ায় ধন্যবাদ ও কৃতজ্ঞতা জানিয়েছেন।ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপের গ্রুপ সম্পাদক হিসেবে দীর্ঘদিন যাবত দ্বায়িত্ব পালন করছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


ইমপিসা ওপেন স্কাউট গ্রুপ গত লকডাউনে জনসচেতনতা বৃদ্ধির জন্য বিনামূল্যে মাস্ক বিতরণ, নিরাপদ দূরত্ব বজায় রেখে বাজার করা, চলাচল করা এবং মাস্ক সঠিকভাবে পরিধান করার বিষয়ে ধলপুর বাজার, মানিকনগর বাজার, গোপীবাগ বাজার ও বিভিন্ন স্থানে  নানা কর্মসুচী পালন করেছে।


এছারাও করোনা দুর্যোগে দুর্দশাগ্রস্ত মানুষকে খাদ্য সহায়তা প্রদান করে।ভোট ও সমর্থন দিয়ে নির্বাচিত করায় সকল শিক্ষা প্রতিষ্ঠান প্রধান ও ইউনিট লিডারগণের প্রতি ধন্যবাদ জানিয়েছেন এস.এম.জিয়াউদ্দিন জিয়া।


আরও খবর



মঙ্গলবার থেকে রাত ৮টার পর বন্ধ দোকানপাট "খুলনায়"

প্রকাশিত:Friday ০৭ January ২০২২ | হালনাগাদ:Wednesday ২৬ January ২০২২ | ১১০জন দেখেছেন
Image

খুলনায় করোনার সংক্রমণ রোধে মার্কেট ও দোকানপাটের সময়সীমা বেঁধে দেওয়া হয়েছে। আগামী মঙ্গলবার থেকে রাত ৮টার পর নগরীতে খোলা রাখা যাবে না মার্কেট ও দোকান। তবে, নিত্য প্রয়োজনীয় দ্রব্য পরিবহণ ও কাঁচামালের আড়তের ক্ষেত্রে এই সময়সীমা প্রযোজ্য হবে না।

খুলনা সিটি করপোরেশনের মেয়র তালুকদার আব্দুল খালেক জেলা ও মহানগর করোনাভাইরাস প্রতিরোধ কমিটির এক সভায় গতকাল বৃহস্পতিবার এ কথা জানান। সভার সভাপতিত্ব করেন জেলা প্রশাসক মো. মনিরুজ্জামান তালুকদার। 

প্রধান অতিথির বক্তব্যে মেয়র বলেন, ‘করোনাভাইরাসের নতুন ধরন ছড়িয়ে পড়ার আগেই আমাদের সচেতন হতে হবে। আগামী মঙ্গলবার থেকে রাত ৮টার পর নগরীতে মার্কেট ও দোকান খোলা রাখা যাবে না। তবে, নিত্য প্রয়োজনীয় কাঁচামাল পরিবহণ ও কাঁচামালের আড়তের ক্ষেত্রে বাধ্যবাধকতা নেই।’

সভায় সিভিল সার্জন ডা. নিয়াজ মোহাম্মদ জানান, গত নভেম্বরে জেলায় করোনায় আক্রান্ত হয়ে তিন জনের মৃত্যু হয়েছে। ডিসেম্বর মাসে করোনায় জেলায় কোনো প্রাণহানি হয়নি। হঠাৎ সংক্রমণ বাড়তে শুরু করেছে। বর্তমান প্রেক্ষাপট বিবেচনায় স্বাস্থ্যবিধি মানা ও মাস্ক পরার বিকল্প নেই।

সিভিল সার্জন আরও বলেন, ‘টিকা নেওয়ার পর করোনা আক্রান্ত ব্যক্তিদের ক্ষেত্রে মৃত্যুহার অনেক কম। তাই টিকা গ্রহণে সবাইকে উদ্বুদ্ধ করা প্রয়োজন।’

সিভিল সার্জনের তথ্য অনুযায়ী, বর্তমানে খুলনা জেলায় করোনা শনাক্ত হওয়া একজন রোগী হাসপাতালে ভর্তি আছেন। করোনার শুরু থেকে এখন পর্যন্ত জেলায় এক লাখ ৬১ হাজার ৭২০টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়েছে। এর মধ্যে ২৮ হাজার ১৯ জন রোগী কোভিড-১৯ শনাক্ত হয়েছেন


আরও খবর