Logo
আজঃ Tuesday ২৬ October ২০২১
শিরোনাম
হলে ফিরছেন দর্শক, প্রশংসা পাচ্ছে ‘পদ্মাপুরাণ’

‘পদ্মাপুরাণ’ দেখতে হলে ফিরছেন দর্শক

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৮৬জন দেখেছেন
বিনোদন ডেস্ক

Image


বিনোদন ডেস্ক :

 

মুক্তির আগেই আলোচনায় ছিল তরুণ নির্মাতা রাশিদ পলাশের প্রথম চলচ্চিত্র ‘পদ্মাপুরাণ’। নানান চমকের পর এবার ছবিটি মুক্তি পেয়েছে। গেল শুক্রবার (৮ এপ্রিল) দেশের বড় কিছু প্রেক্ষাগৃহে মুক্তি পেয়েছে এটি। মুক্তির দুই দিনেই বেশ ভালো সাড়া মিলেছে দর্শকের।

 

বিশেষ করে সিনেপ্লেক্সগুলোতে মুক্তি পাওয়ায় শহরের দর্শক ছবিটি দেখতে আসছেন আশা জাগিয়ে। পরিচালকের ভাষ্যে, ‘করোনাকালীন অনেক মন্দ সময় গেছে আমাদের। সিনেমা নিয়েও আমরা একটা চ্যালেঞ্জের মুখে ছিলাম। এখনো করোনা পুরোপুরি বিদায় নেয়নি। তাই একটা আতঙ্ক তো ছিলোই সিনেমাটির মুক্তি নিয়ে।

 

তবে আশার কথা হলো বেশ ভালো রেসপন্স পাচ্ছি। প্রথম দিন কয়েকটি হলে শো ফুলহাউজ গেছে। আমার প্রথম সিনেমা এটি, তাই দর্শকের এই সাড়া আমার জন্য দারুণ অনুভূতির।

তিনি দাবি করেন, দর্শক সিনেমাটি দেখে প্রশংসা করছেন। ছবির গল্প, শিল্পীদের অভিনয় নিয়ে আলোচনা করছেন অনেকে। সোশ্যাল মিডিয়াতেও দর্শক ছবিটি দেখার তৃপ্তির কথা লিখছেন। অনেকে কিছু সমালোচনাও করছেন। সেগুলোকে নির্মাতা ভুল হিসেবে নিয়ে পরবর্তীতে তা শোধরে নেয়ার চেষ্টা হিসেবেই দেখছেন।

 

‘পদ্মাপুরাণ’ ছবিতে বিভিন্ন চরিত্রে অভিনয় করেছেন সাদিয়া মাহি, প্রসূন আজাদ, শম্পা রেজা, জয়রাজ, সুমিত সেনগুপ্ত, কায়েস চৌধুরী, সূচনা শিকদার, রেশমী, হেদায়েত নান্নু, আশরাফুল আশিষ, সাদিয়া তানজিন প্রমুখ। এদের মধ্যে আলাদা করে আলোচনায় এসেছে সাদিয়া মাহি ও সুমিতের অভিনয়।

 

ছবির গল্প ভাবনা জানিয়ে পরিচালক বলেন, ‘পদ্মার পাড়ের প্রকৃতির সঙ্গে মানুষের লড়াইয়ে গল্প তুলে ধরার চেষ্টা করেছি এ সিনেমায়। আমি বিশ্বাস করি অনেক ভাবনার দ্বার খুলে দিতে পারে এই সিনেমা।সেই জায়গাটাই পর্দায় দেখানোর চেষ্টা করেছি। আমি কোনো মতামত দেয়ার পক্ষে না। আমি একটা ওপেন এন্ডিং রাখতে চেয়েছি দর্শক যে যার মতো করে ভেবে নেবে।

 

 ‘পদ্মাপুরাণ’- দেখা যাচ্ছে

 

স্টার সিনেপ্লেক্স (বসুন্ধরা সিটি শপিং কমপ্লেক্স ও সনি স্কয়ার মিরপু্র), শ্যামলী সিনেমা, যমুনা ব্লকবাস্টার (যমুনা ফিউচার পার্ক), সিনেস্কোপ (নারায়ণগঞ্জ), সুগন্ধা সিনেমা (চট্টগ্রাম)।

 

খবর প্রতিদিন / সি.বা


আরও খবর



সচল হয়েছে মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট

ফের সচল হলো থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট

প্রকাশিত:Friday ১৫ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৪৯জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


ডেস্ক এডিটর :

 

সচল হয়েছে মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট। শুক্রবার (১৫ অক্টোবর) বিকেল ৪টার পর ঢাকাসহ দেশের বিভিন্ন জেলার অনেক ব্যবহারকারী তাদের মোবাইল ফোনে থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা পেতে শুরু করেন।

 

এর আগে ভোর ৫টার দিক থেকে ইন্টারনেটের এ সেবা বন্ধ হয়ে যায়। তবে কোথাও কোথাও ধীরগতির টুজি ইন্টারনেট সেবা পাওয়া যাচ্ছিল। ব্রডব্যান্ডে ইন্টারনেট সেবাও থেকেছে নির্বিঘ্ন।

 

এত দীর্ঘ সময় উচ্চগতির থ্রিজি ও ফোরজি সেবা বন্ধ থাকার বিষয়ে জানতে চাইলে ডাক ও টেলিযোগাযোগমন্ত্রী মোস্তাফা জব্বার বলেন, সকালে কারিগরি ত্রুটি দেখা দিয়েছিল, যেজন্য আমরা সারাদেশে থ্রিজি-ফোরজি সচল রাখতে পারিনি। তবে ত্রুটি চিহ্নিত করে সেটা দূর করে বিকেলে ঢাকায় থ্রিজি ও ফোরজি ইন্টারনেট সেবা চালু করা হয়েছে।

 

কারিগরি বিষয় বিধায় সারাদেশে এই সেবা চালু হতে কিছুটা সময় লাগতে পারে জানিয়ে মন্ত্রী বলেন, ‘টেকনিক্যাল বিষয় যেহেতু, সেজন্য আমরা একসঙ্গে হয়তো চালু করতে পারছি না। তবে ক্রমান্বয়ে এই সেবা চালু হয়ে যাবে। আশা করছি, ৭টা-৮টার মধ্যে পুরো দেশে থ্রিজি-ফোরজি সেবা সচল হয়ে যাবে।

 

বিভিন্ন অপারেটর সূত্র জানিয়েছে, বুধবার (১৩ অক্টোবর) প্রথমে কুমিল্লা এবং পরে আরও পাঁচ জেলায় দ্রুতগতির মোবাইল ইন্টারনেট সেবা বন্ধ করা হয়। শুক্রবার ভোর থেকে ঢাকাসহ সারাদেশে অচল হয়ে পড়ে থ্রিজি-ফোরজি ইন্টারনেট সেবা। বিকেল ৪টার পর আবার বেশিরভাগ জেলায় এই ইন্টারনেট সেবা পেতে শুরু করেছেন গ্রাহকরা।

  

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



দেড় বছর পর করোনায় মৃত্যুশূন্য দিন কাটালো ঢাকা

১৮ মাস পর করোনায় মৃত্যুশূন্য ঢাকা

প্রকাশিত:Wednesday ২০ October ২০21 | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ১৩০জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image


বাংলাদেশে ২০২০ সালের ৮ মার্চ প্রথম তিনজনের দেহে করোনাভাইরাস শনাক্ত হয়। এর ১০ দিন পর ১৮ মার্চ দেশে প্রথম একজনের মৃত্যুর খবর আসে। এরপর সর্বশেষ ওই বছরের ৩ এপ্রিল মৃত্যুহীন দিন দেখেছিল বাংলাদেশ। এরপর দীর্ঘ দেড় বছর পর মৃত্যুশূন্য দিন পেল ঢাকা। দীর্ঘ এ ১৮ মাস দেশের অন্যান্য বিভাগে মৃত্যুশূন্য দিন গেলেও ঢাকায় যায়নি।

 

বুধবার (২০ অক্টোবর) স্বাস্থ্য অধিদপ্তরের অতিরিক্ত মহাপরিচালক (প্রশাসন) অধ্যাপক ডা. নাসিমা সুলতানা স্বাক্ষরিত করোনা পরিস্থিতি সংক্রান্ত সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানা গেছে।

এতে বলা হয়, করোনা ভাইরাসে আক্রান্ত হয়ে মৃতের সংখ্যা কমেছে। সবশেষ গত ২৪ ঘণ্টায় দেশের তিন বিভাগে ছয়জনের মৃত্যু হয়। তাদের মধ্যে পুরুষ চারজন ও নারী দুজন। সরকারি হাসপাতালে পাঁচজন ও বেসরকারি হাসপাতালে একজন মারা গেছেন। এ নিয়ে করোনাভাইরাসে মৃতের সংখ্যা বেড়ে দাঁড়িয়েছে ২৭ হাজার ৭৯১ জনে।

 

এছাড়া ২৪ ঘণ্টায় মারা যাওয়া ছয়জনের মধ্যে চট্টগ্রামে তিনজন, রাজশাহীতে দুইজন ও খুলনা বিভাগে একজন রয়েছেন। এ সময়ে ঢাকা বিভাগসহ পাঁচ বিভাগে করোনায় কোনো মৃত্যু নেই। অন্য চারটি বিভাগ হলো- বরিশাল, সিলেট, রংপুর ও ময়মনসিংহ।

 

গত ২৪ ঘণ্টায় সারাদেশে সরকারি-বেসরকারি ৮৩১টি ল্যাবরেটরিতে ২০ হাজার ৩৯৩টি নমুনা পরীক্ষা করা হয়। নমুনা পরীক্ষায় শনাক্তের হার ১ দশমিক ৮০ শতাংশ। আজ পর্যন্ত সর্বমোট নমুনা পরীক্ষার ভিত্তিতে শনাক্তকৃত রোগীর হার ১৫ দশমিক ৪৩ শতাংশ।

 

২৪ ঘণ্টায় সুস্থ হয়ে উঠেছেন ৪৮১ জন। এ নিয়ে দেশে করোনাভাইরাসে আক্রান্ত হওয়ার পর চিকিৎসা শেষে সুস্থ হয়ে ওঠা রোগীর সংখ্যা ১৫ লাখ ২৯ হাজার ৫৪৯ জন। সুস্থতার হার ৯৭ দশমিক ৬৩ শতাংশ।

 

করোনাভাইরাস মহামারি শুরুর পর থেকে ২০ অক্টোবর পর্য়ন্ত মারা যাওয়া ২৭ হাজার ৭৯১ জনের মধ্যে ঢাকা বিভাগে ১২ হাজার ১১৯ জন, চট্টগ্রাম বিভাগে ৫ হাজার ৬৪০ জন, রাজশাহী বিভাগে ২ হাজার ৩৮ জন, খুলনা বিভাগে ৩ হাজার ৫৮৭ জন, বরিশাল বিভাগে ৯৪৩ জন, সিলেট বিভাগে ১ হাজার ২৬১ জন, রংপুর বিভাগে ১ হাজার ৩৬২ জন ও ময়মনসিংহ বিভাগে ৮৪১ জনের মৃত্যু হয়।

 

  -খবর প্রতিদিন / সি.বা 


আরও খবর



৪১তম বিসিএসের আবশ্যিক বিষয়সমূহের লিখিত পরীক্ষা আগামী ২৯ নভেম্বর

২৯ নভেম্বর শুরু ৪১তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৮৪জন দেখেছেন
ডেস্ক এডিটর

Image

 

ডেস্ক এডিটর :

 

৪১ তম বিসিএসের লিখিত পরীক্ষা আগামী ২৯ নভেম্বর শুরু হবে। রোববার (১০ অক্টোবর) সরকারি কর্ম কমিশন (পিএসসি) থেকে পাঠানো এক সংবাদ বিজ্ঞপ্তিতে এ তথ্য জানানো হয়।পিএসসির পরীক্ষা নিয়ন্ত্রক নূর আহমদের সই করা বিজ্ঞপ্তিতে বলা হয়েছে, ৪১তম বিসিএসের আবশ্যিক বিষয়সমূহের লিখিত পরীক্ষা আগামী ২৯ নভেম্বর থেকে শুরু হয়ে ৭ ডিসেম্বর পর্যন্ত অনুষ্ঠিত হবে। পরীক্ষার হল, আসন ব্যবস্থা এবং পরীক্ষা সংক্রান্ত বিস্তারিত নির্দেশা পিএসসির ওয়েবসাইটে যথাসময়ে জানানো হবে।

 

করোনা মহামারির কারণে কয়েক দফায় পিছিয়ে চলতি বছরের ১৯ মার্চ এই বিসিএসের প্রিলিমিনারি পরীক্ষা অনুষ্ঠিত হয়। গত ১ আগস্ট এ বিসিএসের ফল প্রকাশ করা হয়। এতে প্রাথমিকভাবে ২১ হাজার ৫৬ জন উত্তীর্ণ হন।

 

এর আগে ২০১৯ সালের ২৭ নভেম্বর ৪১তম বিসিএসের বিজ্ঞপ্তি প্রকাশ করে পিএসসি। এতে বিভিন্ন পদে দুই হাজার ১৩৫ জন কর্মকর্তা নিয়োগের কথা বলা হয়।

 

বিজ্ঞপ্তি অনুযায়ী, সবচেয়ে বেশি কর্মকর্তা নেওয়া হবে শিক্ষা ক্যাডারে। এই ক্যাডারে ৯১৫ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এর মধ্যে সাধারণ শিক্ষায় ৯০৫ জন এবং কারিগরি শিক্ষা বিভাগে ১০ জন প্রভাষক নেওয়া হবে।

 

শিক্ষার পর বেশি নিয়োগ হবে প্রশাসন ক্যাডারে। প্রশাসনে ৩২৩ জনকে নিয়োগ দেওয়া হবে। এছাড়া পুলিশে ১০০ জন, স্বাস্থ্যে সহকারী সার্জন ১১০ জন ও সহকারী ডেন্টাল সার্জন ৩০ জন নেওয়া হবে।

খবর প্রতিদিন /সি.বা 


আরও খবর



প্রথমবারের মতো থাকছে রিভিউ, টি-২০ বিশ্বকাপে আছে আরও নতুনত্ব

টি-২০ বিশ্বকাপেপ্রথমবারের মতো থাকছে রিভিউ , আছে আরও নতুনত্ব

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Tuesday ২৬ October ২০২১ | ৬৭জন দেখেছেন
স্পোর্টস ডেস্ক

Image


স্পোর্টস ডেস্ক :

 

আইসিসি পুরুষ টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে প্রথমবারের মতো ব্যবহার করা হবে ডিসিশন রিভিউ সিস্টেম (ডিআরএস)। ক্রিকেটের সর্বোচ্চ সংস্থা গভর্নিং বডি এই ঘোষণা দিয়েছে। কুড়ি ওভারের বিশ্ব আসরের আগের ছয় টুর্নামেন্টে ছিলো না আম্পায়ারদের সিদ্ধান্ত রিভিউ করার সিস্টেম।

 

আগামী ১৭ অক্টোবর থেকে ওমান ও আরব আমিরাতে শুরু হতে যাওয়া টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের প্লেয়িং কন্ডিশনে বলাহয়েছে, প্রতি ইনিংসে প্রতিটি দল সর্বোচ্চ দুইটি করে রিভিউ নিতে পারবে।

 

গত বছরের জুলাইয়ে করোনাভাইরাসজনিত কারণে রিভিউ সিস্টেমে পরিবর্তন এনেছিলো আইসিসি। তখন থেকেই টি-টোয়েন্টি ম্যাচে প্রতি ইনিংসে দেয়া হয় দুইটি করে রিভিউ। এই সিদ্ধান্তের পেছনে মূলত কারণ ছিলো সব ম্যাচে নিরপেক্ষ ও অভিজ্ঞ আম্পায়ার পাওয়ার অনিশ্চয়তা।

 

তবে এবারের বিশ্বকাপের সবগুলো ম্যাচেই থাকবে আইসিসির প্যানেলভুক্ত বিশেষজ্ঞ ও নিরপেক্ষ আম্পায়াররা। তবু রিভিউয়ের সংখ্যা কমিয়ে আগের মতো একে নামানো হয়নি। বরং সব দলই পাবে ইনিংসপ্রতি দুইটি করে রিভিউ।

 

শুধু তাই নয় বৃষ্টিবিঘ্নিত কিংবা অন্যান্য কারণে খেলায় দেরি হলে, ন্যুনতম ওভারের সংখ্যাও বাড়ানোর সিদ্ধান্ত নিয়েছে আইসিসি। আগের নিয়ম অনুযায়ী যেকোনো টি-টোয়েন্টি ম্যাচে ন্যুনতম পাঁচ ওভারই যথেষ্ঠ ছিলো ফলাফল আসার জন্য। আসন্ন বিশ্বকাপের গ্রুপপর্বেও বহাল থাকবে নিয়ম।

 

এই নিয়ম বদলে যাবে সেমিফাইনাল ও ফাইনালের তিন ম্যাচের জন্য। নকআউট পর্বের তিন ম্যাচে ফলাফল আসার জন্য ন্যুনতম ১০ ওভার করতে খেলতে হবে দুই দলকেই। অন্যথায় পরিত্যক্ত ঘোষণা করা হবে ম্যাচটি।

পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের মতো আসরে আগে রিভিউ সিস্টেম না থাকার কারণ মূলত গত পাঁচ বছরের মধ্যে কোনো বিশ্বকাপ না হওয়া। ২০১৮ সালে নারীদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপে ছিলো রিভিউ সিস্টেম। একইভাবে ২০২০ সালের আসরেও ছিলো এটি।

 

কিন্তু পুরুষদের টি-টোয়েন্টি বিশ্বকাপের সবশেষ আসর বসেছিলো ২০১৬ সালে। তখন পর্যন্ত কুড়ি ওভারের ক্রিকেটে রিভিউয়ের ব্যবহারই শুরু হয়নি।

 

খবর প্রতিদিন/ সি.বা 


আরও খবর



ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে চুরির ঘটনা বেড়েছে

চুরি আতঙ্ক, রাত জেগে এলাকাবাসীর পাহারা

প্রকাশিত:Sunday ১০ October ২০২১ | হালনাগাদ:Sunday ২৪ October ২০২১ | ৭৩জন দেখেছেন
Image


জেলা সংবাদদাতা :

 

ঠাকুরগাঁওয়ের বালিয়াডাঙ্গীতে চুরির ঘটনা বেড়েছে। শুধু রাতে নয়, দিনের বেলাতেও চুরির ঘটনা ঘটছে। খাবারে ওষুধ মিশিয়ে বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে সব চুরি করে নিয়ে যাচ্ছে একটি সংঘবদ্ধ দল। এতে উপজেলাজুড়ে চুরি-আতঙ্ক বিরাজ করছে। চোরদের হাত থেকে রক্ষা পেতে লাঠি-সোটা নিয়ে রাত জেগে পাহারা দিচ্ছেন এলাকাবাসী।

 

শনিবার (৯ অক্টোবর) রাত ৯টায় উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের সৌলাপুকুর গ্রামে এ দৃশ্য দেখা গেছে। একদল যুবক সময় ভাগ করে নিয়ে রাতে বাড়িঘর পাহারা দিচ্ছেন।

 

এলাকাবাসীর সঙ্গে কথা বলে জানা গেছে, শুধু অক্টোবর মাসের প্রথম ১০ দিনেই দুওসুও ও পাড়িয়া ইউনিয়নে পাঁচটি দুর্ধর্ষ চুরির ঘটনা ঘটেছে। এর মধ্যে একটি চুরি হয়েছে দিনের বেলায়, অপরটি ঘটেছে বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে। আগস্ট ও সেপ্টেম্বর মাসে সরকারি প্রাথমিক বিদ্যালয়, দুটি ইউনিয়ন স্বাস্থ্যকেন্দ্রে এবং সাবেক এক ইউপি সদস্যের (মেম্বার) বাড়িতে তিনটি গরু চুরির ঘটনা ঘটেছে।

 

এলাকাবাসী বলছেন, আইনশৃঙ্খলা বাহিনীকে বিষয়টি জানানোর পরও চুরি বন্ধ হয়নি। সবাই চুরি আতঙ্কে রয়েছেন। উপায় না পেয়ে নিজেদের সম্পদ রক্ষা করতে নিজেরাই টর্চলাইট ও লাঠি নিয়ে রাত জেগে পাহারা বসিয়েছেন। তবে পুলিশ বলছে, চুরির ঘটনা ঠেকাতে তারা তৎপর রয়েছেন। খুব শিগগিরই সব চুরির ঘটনার রহস্য উন্মোচন হবে।

 

গত ৬-৮ অক্টোবর উপজেলার পাড়িয়া ইউনিয়নের তিনটি গ্রামে তিনজনের বাড়িতে দুর্ধর্ষ চুরি হয়েছে। এদের মধ্যে সৌলাপুকুর গ্রামের গয়া প্রসাদের বাড়িতে চেতনানাশক স্প্রে করে সাত ভরি স্বর্ণ ও নগদ লাখ টাকা, পানিশাল গ্রামের নাজমুল হকের বাড়িতে তিন লাখ টাকা ও ছয় ভরি স্বর্ণ এবং লোহাগাড়া উচ্চ বিদ্যালয়ের শিক্ষক অতুল প্রসাদ সিংহের বাড়ি থেকে মোবাইল ও আসবাবপত্র চুরির ঘটনা ঘটেছে।

 

এর আগে ৫ অক্টোবর বালিয়াডাঙ্গী-নেকমরদহ মহাসড়কের পাশে সমিরউদ্দিন স্মৃতি কলেজের বিপরীতে স্কুলশিক্ষক আসাদ আলীর বাড়িতে দুপুরে চোরেরা চার ভরি স্বর্ণ চুরি করে নিয়ে গেছে। পরের দিন দুওসুও ইউনিয়নের হাসান মেম্বারপাড়া এলাকার রাজু হোসেন ও তার চাচার বাড়ির লোকজনকে অচেতন করে তিন লক্ষাধিক নগদ টাকা চুরি হয়েছে।

 

স্কুলশিক্ষক আসাদ আলী বলেন, চুরির ঘটনা পুলিশকে জানানোর পর পুলিশ ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছে। এরপর আমরা থানায় লিখিত অভিযোগ জমা দিয়েছি। এ পর্যন্তই শেষ। কোনো ফল পাওয়া যায়নি। পাড়িয়া গ্রামের নাজমুল হক বলেন, চুরির ঘটনায় পরিবার নিয়ে চরম আতঙ্কে আছি।

সৌলাপুকুর গ্রামে রাত জেগে পাহারা দেওয়া কয়েকজন যুবক বলেন, চুরির ঘটনা ঠেকাতে সময় ভাগ করে আমরা ১৫ জন যুবক পাহারা দিচ্ছি। চুরি বন্ধ এবং পুলিশ তিনটি চুরির রহস্য উন্মোচন না করা পর্যন্ত এ কার্যক্রম চলবে।

পাড়িয়া ইউনিয়ন আওয়ামী লীগের সাধারণ সম্পাদক ফজলে রাব্বী রুবেল বলেন, চুরির ঘটনায় এলাকায় সাধারণ মানুষের মাঝে আতঙ্ক শুরু হয়েছে। ঘটনাগুলো তদন্ত করে চুরি হওয়া মালামাল উদ্ধারসহ চোরদের গ্রেফতারের দাবি জানান তিনি।

শনিবার রাতে পাড়িয়া ইউনিয়নে সংঘটিত দুটি চুরির ঘটনাস্থল পরিদর্শন করেছেন বালিয়াডাঙ্গী থানার ভারপ্রাপ্ত কর্মকর্তা (ওসি) হাবিবুল হক প্রধান, উপ-পরিদর্শক (এসআই) আব্দুস সোবহান।

ঘটনাস্থল পরিদর্শন শেষে থানার ওসি হাবিবুল হক প্রধান বলেন, ঘটনাগুলো তদন্ত করা হচ্ছে। পরিবারের সবার ঘুম ঘুম ভাব এলে স্থানীয় চেয়ারম্যান অথবা থানাকে জানিয়ে রাখবেন। প্রয়োজনে আমরা পোশাক ছাড়া আপনাদের বাড়িতে এসে অবস্থান নেবো। চোরদের ধরতে স্থানীয়দের সহযোগিতা চান তিনি।

খবর প্রতিদিন /সি.বা

  


আরও খবর